নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আসসালামলাইকুম। আমি ফারিহা হোসেন প্রভা,ঢাকা সবুজবাগ থেকে। ছোট বেলা থেকেই আমার ইচ্ছে ছিলো আমাদের দেশ ও দেশের মানুষের জন্য কিছু করার। দেশের নারীদের নিয়ে অনেক কাজ করার ইচ্ছা আছে আমার এবং আমার স্বপ্ন দেশের একজন স্বশিক্ষিত নেত্রী হওয়া।

ফারিহা হোসেন প্রভা

একজন খুব সাধারণ মানুষ তবে অসাধারণ কেও হতে চাই ! ফেবু আইডিঃ Fariha Provs

ফারিহা হোসেন প্রভা › বিস্তারিত পোস্টঃ

একটি ছোট্ট যুদ্ধে জয়ী হওয়ার একটি ছোট্ট গল্প

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৭

আজ আমি লালমনিরহাটের, তাসলিমা আফরোজ এর দুঃখ ভরা জীবনে অর্জন করে নেওয়া সবচেয়ে দামি জিনিসের গল্প বলব,
এইচ.এস.সি পরীক্ষায় গোল্ডেন এ+ পাওয়ার পর ছাত্রছাত্রীদের অবস্থা কেমন হয়? অবশ্যই আনন্দের মাঝে তখন সবার মনে চিন্তা কাজ করে কীভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাবে। কিন্তু তাসলিমার এই চিন্তা করার অধিকার টাও ছিলো না, হ্যা শুধুমাত্র তার পরিবেশ ও পরিস্থিতির কারণে।
তাসলিমার বড় চিন্তা ছিলো, সে কীভাবে ঢাকা ভার্সিটিতে এসে পরীক্ষা দিবে। যখন পরীক্ষা দেওয়ার পর জানতে পারলো সে চান্স পেয়েছে, তখন তার চিন্তা আবারও শুরু হলো। ভাইভাই পরীক্ষা দিতে পারবে কি? লালমনিরহাট থেকে ঢাকায় এসে পরীক্ষা দিতে হবে, কিন্তু ভাড়া যোগার করবে কীভাবে? স্বপ্ন ছিলো তার, ঢাকা ভার্সিটিতে পড়ার। প্রতিদিন রাতে ঘুমাবার আগে তাকে অনেকবার চিন্তা করতে হয়েছে, আদৌ কি পড়তে পারবে?
দু’জন স্টুডেন্ট গোল্ডেন এ+ পেয়েছে, একজন বড়লোক ঘরের সন্তান এবং আরেকজন গরীব ঘরের সন্তান। একজনের পড়ার টেবিলে মা এসে দুধের গ্লাস এনে দিতো। আরেকজন কে তার পড়ার টেবিলে বসে চিন্তা করতে হতো পরদিন সকালে সে কি খাবে, কি খেয়ে সে কলেজে যাবে, স্কুলে যাবে।
তাসলিমা তার এক আত্মীয়ের বাড়িতে দেখেছে ঢাকায়, বাচ্চার মা তার পিছে সারাদিন খাবারের বাটি নিয়ে দৌড়াতে থাকছে। বাচ্চা খেতে চাচ্ছে না, তবুও তার উপর জোড় করা হচ্ছে। দামি দামি খাবার এনে দিচ্ছে বাবা-মা তাদের সন্তানের জন্য।
লালমনিরহাটে তাপমাত্রা সব সময় কম থাকে, শীতের সময় সেখানে ৫/৬ ডিগ্রীর নিচে তাপমাত্রা থাকে। দরিদ্র মা তাঁর বাচ্চাকে ঠিকমত খাওয়াতে পারেনা। ৮/৯ মাসের বাচ্চাকে তার মা, ঠান্ডা পান্তা ভাত শুধু লবণ দিয়ে খাইয়ে দেয়। ছোট ছোট বাচ্চাদের শীতের সময় ঠান্ডা পান্তা ভাত লবণ ও মরিচ দিয়ে খেয়ে থাকতে হয়।
একটি বাচ্চা সে খাবে না, তাকে জোড় করে খাওয়ানো হচ্ছে। অপরদিকে আরেকটি বাচ্চা যে ক্ষুধার্ত, সে খাবার পাচ্ছে না প্রয়োজনমত। এই যে বৈষম্য এটা কীভাবে মূল্যায়ন করবেন জনগণ? একজন খাবার খাবে না, আরেকজন খাবারের অভাবে ভুগছে। কেও কি এই জিনিসটি চিন্তা করেছিলো যে এই প্রতিকূল পরিবেশ থেকে তাসলিমা এত দূর কীভাবে আসতে পেরেছে?

“দুখ মিয়া নজরুল হয়ে ছিলেন সত্যি স্যার, রফিজ উদ্দিন দারোগার সাহায্যে।
কিন্তু স্যার, দুখ মিয়া কখন পুষ্পমাল্য পেয়েছেন জানেন?
যখন সে নির্বাক হয়ে গেছেন।
তাঁর যখন পুষ্পমাল্য পেলে ভালো লাগতো, তাঁর অনুভূতি তিনি জানাতে পারতো
তখন আমরা তাঁকে কারাগারে রেখেছি, তাঁকে কারাবাস দিয়েছি।
যখন আমরা তাঁকে পুষ্পমাল্য দিয়েছি তখন তিনি আর কিছু বলতে পারেন নি।
আমরা কাজী নজরুল ইসলামের মতো হতে চাই,
কিন্তু দুখ মিয়ার মত কষ্ট আমরা পেতে চাইনা স্যার।
পুষ্পমাল্য আমরা নির্বাক হয়ে পেতে চাইনা।
আপনারা, আমাদের পুষ্পমাল্যটা আমাদের যে সময়ে পাওয়া উচিৎ যদি সে সময়ে দিয়ে দেন,
তাহলে আমরা আমাদের অনুভূতি জানাতে পারবো।
এক ফোঁটা অশ্রু ঝরাতে পারবো।“

জি কথাগুলো তাসলিমার….

বাংলাদেশের একটি সনামধন্য ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ তাসলিমাকে আর্থিকভাবে সাহায্য করেছে, তাকে তার যোগ্য প্লাটফর্মে দাঁড় করিয়েছে। একটা ডানা কাটা পাখিকে আকাশে উড়ার স্বপ্ন দেখিয়েছে।
তাসলিমা সমাজের ধনী ও বিত্তশালী ব্যক্তিদের উল্লেখ করে বলেছে, “আপনারা সবাই এগিয়ে আসুন। আমাদের মত মানুষদের সমাজে বাঁচতে চলতে সাহায্য করুন। আপনাদের বাচ্চাদের দামি দামি খেলনা না কিনে দিয়ে যদি একটু আমাদের দিকে তাকাতেন। দামি দামি খেলনা কেনার টাকা দিয়ে আমাদের এক দিনের পেট পুরো খাবার খাওয়া হয়। দয়া করে একটিবার চিন্তা করুন। দিনের পর দিন আমরা খাবারের চিন্তা করে ফ্রেশ মাইন্ডে পড়াশুনা করতে পারি না। আর আমার প্রতিবেশী এক বান্ধবী চিন্তা করে কোনো রকম একটা রেজাল্ট করে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে পড়ার। কিন্তু তখন আমি চিন্তা করতাম কীভাবে পড়াশুনা করব, কীভাবে ভালো রেজাল্ট করব।“

আচ্ছা আমরা কি পারি না সমাজের গরীব দুঃখী অসহায় মানুষদের কথা একটু ভাবতে?
তাদের জন্য ভালো কিছু কি করতে পারি না?
সমাজে অনেক ধনী ও বিত্তশালী ব্যক্তিগণ আছেন, যাদের ধন-সম্পদের কোনো কমতি নেই। তাদের অর্থ আছে বলেই তারা চায় আরো অর্থ বানাতে। আর যাদের নেই, তারা চিন্তা করে কোনোরকম জীবন-যাপন করে শুধু তিনবেলা খাবার যোগার করা।
দরিদ্র জনগণেরা শুধু একটু শান্তিতে বাঁচতে চায়। যখন তাদের মৌলিক অধিকারগুলো তারা আদায় করে নিতে চায়, তখনতো আপনারাই তাদের বাধাগ্রস্থ করেন। তাহলে আপনারাই বলুন কি করে কীভাবে তারা তাদের অধিকারগুলো আদায় করে নিবে?

মন্তব্য ১০২ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (১০২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৪

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: বাংলাদেশে উচ্চবিত্ত শ্রেনীর মানুষের অভাব নেই।এই মানুষগুলোর অনেক অনেক টাকা আছে।শুধু মনটা নেই।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:২৮

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সহমত আমি ভাইয়া আপনার সাথে। সঠিক কথা বলেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

২| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১১

সাইয়িদ রফিকুল হক বলেছেন: রাষ্ট্র তাসলিমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। দেশ ডিজিটালাইজড হচ্ছে। মানুষের খবর পৌঁছে যাচ্ছে দেশ থেকে দেশান্তরে। গরিব-দুঃখীদের সমস্ত দুঃখেরও একদিন অবসান ঘটবে।

মানুষ মানুুষের জন্য জেগে উঠবে।

আপনার সৎচিন্তার জন্য সাধুবাদ। শুভেচ্ছাও।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩০

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
একটি কথা আছে, মানুষ মানুষের জন্য।
কথাটি একদম বাস্তব এবং সত্য। পাশেই থাকুন। আমার ভালোবাসা জানবেন।

৩| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:২৯

আরোগ্য বলেছেন: পৃথিবী যতদিন থাকবে, ততদিন হয়ত এই বৈষম্য থাকবে। এটা আসলেই দুঃখজনক।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি সঠিক কথা বলেছেন ভাইয়া। কিন্তু এই ব্যাকুল মনের একটাই প্রতাশ্যা, তা হলো সমাজ থেকে সব বৈষম্য দূর হোক।
আপনাকে ধন্যবাদ, ভালো থাকবেন সর্বদা।

৪| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ভিডিওটা দেখেছি, চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সর্বপ্রথম আপনাকে ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।
আমি নিজেও কেঁদেছি অনেক এবং পরিবারের সবাইকে দেখিয়েছি ভিডিওটি। আমাদের সমাজের মানুষদের অবস্থা খুবই শোচনীয়।

৫| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৪

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: :(
সবার উচিত অদম্য মেধাবীদের পাশে দাড়ানো

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি, সহমত। মেধাবীদের পাশে দাঁড়ালে তাদের সাহায্য করলে, তবেই তারা ভবিষ্যতে ভালো কিছু আমাদের ও আমাদের দেশকে উপহার দিতে পারবেন। তবে এই কথাটি এখন কয়জন মানে বলুন?
বেশীরভাগ স্টুডেন্সটস রাই চিন্তা করে বিদেশে গিয়ে পড়ার। এবংকি আমার নিজের পরিবারও চায় আমাকে বিদেশে পড়াশুনা করানোর। কয়জন স্টুডেন্টস বুঝতে পারে নিজ দেশের মর্ম?

৬| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:০৫

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
মূর্খরা আছে বলেই বৈষম্যের সমাজ টিকে আছে।
কারণ
বৈষম্য চর্চা করেন সুবিধাভোগীরা,
নিরানন্দ জীবন হয় অনেকের।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩৭

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: স্যার একদম সঠিক কথাটাই আপনি বলেছেন। আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।
আমার ভালোবাসা ও দোয়া আপনার সাথে নিরন্তর।

৭| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: ইসলামী ব্যাংকে ধন্যবাদ।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩৯

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অনেক অনেক আনন্দিত হলাম আপনার মন্তব্য পেয়ে স্যার। আমার দোয়া ও ভালোবাসা আপনার সাথে নিরন্তর। ভালো থাকবেন সর্বদা।

৮| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



সমস্যা হলো ইসলামী ব্যাংক থেকে কিছু পেতে হলে, তাদের দলে যেতে হয়

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪২

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি স্যার সঠিক বলেছেন। ঠিক যেমনটা তাসলিমা ভিডিওতে অনেকবারই ইসলামি ব্যাংককে ধন্যবাদ জানিয়েছে। এটা এক ধরণের প্রচার ছাড়া আর কিছুই না। তবে সাহায্য করেছে তাসলিমাকে, সেটাই তার জন্য অনেক অনেক বেশী। ধন্যবাদ আপনাকে। আমার ভালোবাসা জানবেন স্যার।

৯| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৭

হাবিব স্যার বলেছেন:


চাঁদগাজী বলেছেন:
সমস্যা হলো ইসলামী ব্যাংক থেকে কিছু পেতে হলে, তাদের দলে যেতে হয়


ভিডিওটা দেখেছি..............

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার আপনাকে। চাঁদগাজী স্যারের সাথে আমিও একমত।
শুভ রাত্রি।

১০| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৬

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: তাদের পকেটে টাকা আসুক, যারা সেই টাকা দিয়ে যাদের পকেটে টাকা নেই তাদের পকেট চালাতে পারে

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৫

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: কথাটি কেমন যেন লাগলো! প্রিয় ভাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। পরিশ্রম করতে হবে ভাইয়া, তবেই ফল পাবো। ভালো থাকবা ভাইয়া সব সময়। শুভ রাত্রি।

১১| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:২২

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:


আমি ভিডিওটা দেখি নি লিংক থাকলে দিতে পারেন ।

তবে কথা গুলো সে সত্যি বলেছেন এবং আপনি ।

শুধু একটা কথাই মনে আসছে,

'' এ জগতে হায় সে চায় যার আছে ভুড়ি ভুড়ি,
রাজা হস্ত করে সমস্ত কাঙ্গালের ধন চুড়ি "

ভাল থাকবেন

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৭

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া মন্তব্যের জন্য। কেমন আছেন? আশা করি ভালোই আছেন।
ভিডিওটি পেয়েছিলাম আমি ফেসবুকে অনেক আগে, আমি ডাউনলোড করে রেখেছিলাম। সেখান থেকেই পরবর্তীতে শুনে, গল্প লিখলাম। তবে আমি ভিডিওটি আপনাকে যথাসময়ে দেওয়ার চেষ্টা করব।

১২| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৩

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: কয়জন স্টুডেন্টস বুঝতে পারে নিজ দেশের মর্ম?
বেশিরভাগই বোঝে না :(
শুধু নিজের স্বার্থ দেখে ।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪৯

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: দ্বিতীয় বার আপনাকে পেয়ে আমি বরাবরের মতো মুগ্ধ হলাম ব্যাপক।
একদিন নিশ্চই আসিবে, যেদিন সকলেই বুঝবেন নিজ নিজ দেশের মর্ম। আমার আশা ভরসা আছে থাকবে...
শুভ রাত্রি জানাই আপনাকে।

১৩| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: দ্বিতীয় বার আপনাকে পেয়ে আমি বরাবরের মতো মুগ্ধ হলাম ব্যাপক।
ধন্যবাদ।
আমার নিজেরও ইচ্ছে আছে অদম্য মেধাবীদের নিয়ে কিছু করার ।
আপনার পোস্ট এবং আরো একটা পোস্ট আমার প্রিয় তালিকায় আছে ।
দুটি পোস্টই অদম্য মেধাবীদের নিয়ে ।
আপনাকেও শুভরাত্রি :)

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: বাহ! মুগ্ধতার শিকার আমি! সময় করে আপনার সব পোষ্টগুলো একদিন পড়িব। সেই দিনের অপেক্ষায় রহিলাম আমি। সেই পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন, আর হ্যা আমার পাশে থাকবেন। আবারো শুভ রাত্রি।

১৪| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩১

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: তসলিমারা এই সমাজের আইকন। প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়েও ঠিক নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে যাইও। কিন্তু তাই বলে সমাজের ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য কোনদিন যাওয়ার নয়। ঘুরেফিরে সম্পর্কটি ওখানেই চলে যায় সাম্যবাদ বনাম পুঁজিবাদ বা গণতন্ত্র। আবার শ্রেণীহীন, শোষনহীন সমাজও কিন্তু শোষণ মুক্ত করতে পারেনি।

শুভকামনা ও ভালবাসা প্রিয় আপুকে।


০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৮

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: প্রিয় ভাইয়ের মন্তব্য পেয়ে আমি মুগ্ধ। অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া আপনাকে। সঠিক কথা বলেছেন। এ ভেদাভেদের কখনো সমাপ্তি হবেনা। পারি শুধু আমরা একটু সচ্চার হতে।

১৫| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৩

মনিরা সুলতানা বলেছেন: খুব কঠিন সত্য বলেছে।

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৯

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ম্যাডামের মন্তব্য পেয়ে খুব ভালো লাগছে। কেমন আছেন? আশা করি ভালোই আছেন।

১৬| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ২:০৫

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



এদেশে হাজারো তসলিমা জন্ম নেয়। কিন্তু খুব অল্প সংখক পড়াশুনা করে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সুযোগ পায়। শুভ কামনা রইলো তাদের প্রতি।

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৫১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি ভাইয়া সঠিক বলেছেন। কারণ আমরা ব্যর্থ তাদের যথাযথ মর্যাদা দিতে। তাই তারা পরিবেশ পরিস্থিতির জন্যে না পাওয়া অঞ্চলে হারিয়ে যায়। আপনার সাথে আমার ভালোবাসা ও দোয়া নিরন্তর। শুভ কামনা।

১৭| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৪

নজসু বলেছেন: বাস্তবতা অনেক কঠিন।
উদার মন মানসিকতার পরিচয় বেশিরভাগ বিত্তবানদের থাকতে হবে।
তারা চাইলে সম্ভব হতে পারে।

কথায় আছে বিত্তের চাইতে চিত্ত বড়।
বিত্তবানদের চিত্ত বড় না হলে সম্ভব নয়।
আমরা যারা হা হুতাশ করি তাদের পক্ষে তসলিমাদের জন্য
সমবেদনা ছাড়া আর কিছু করার থাকবেনা।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: প্রিয় সুজন ভাই, আপনাকে ধন্যবাদ। সঠিক কথা বলেছেন ভাইয়া। বিত্তের চাইতে মানুষের চিত্ত বড়।

১৮| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৭

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: ভাল লিখেছেন।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অনেক দিন পর প্রিয় লেখককে পেলাম মন্তব্যের মাঝে। খুব খুব আনন্দিত আমি স্যার। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনার মন্তব্যের জন্য। আমার ভালোবাসা জানবেন।

১৯| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫১

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সব কিছুতেই আমাদের স্বার্থ যুক্ত! কোথাও কিছু হয় না স্বার্থ ছাড়া।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সহমত। ধন্যবাদ আপনাকে। আমার পাশেই থাকুন। সর্বদা ভালো ও সুস্থ থাকুন।

২০| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৩

রাকু হাসান বলেছেন:


মেয়েটির ভিডিও দেখেছিলাম । চোখের পানি ধরে রাখতে পারেনি । এ রকম শত শত বৈষম্য হচ্ছে বাংলাদেশে । এগুলো দূরীকরণ না করলে সমস্যা আছে । সুন্দর লেখেছো । এই টপিক নিয়ে ব্লগে কেউ লিখলো কিছু । যাক শেষে তুমি লিখলে । শুভকামনা ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া আপনাকে। ভিডিওটি দেখে আমিও পারি নি চোখের পানি না ঝড়িয়ে থাকতে। খুব কষ্ট লেগেছিলো।
আপনার জন্য আমার দোয়া ও ভালোবাসা রইলো। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। শুভ কামনা ভাইয়া।

২১| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: লেখাটির উৎস কি? জানালে আরো পড়তে পারতাম।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আমি যতটুক জানতাম, লিখেছি নিজের মত করে।
ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

২২| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৫

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: প্রোগ্রামটি দেখেছিলাম মেয়েটির কথাগুলোকে আবারো কানের মধ্যে বাজিয়ে দিলেন আপনার এই লেখায়।" মানুষ মানুষের জন্য।" বাজি

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৪

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: বাহ! সুন্দর মন্তব্যটি করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।

২৩| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৮

নতুন নকিব বলেছেন:



ভিডিওটি দেখেছি। অশ্রুসিক্ত হয়েছি।

এদের মত অসংখ্য মেধাবী প্রতিনিয়ত এখানে ঝরে ঝরে পড়ে যায়। ক'জনের খবর অামরা জানতে পারি! ভাগ্যিস, অাইবিবিএল অসহায় মেধাবীদের পাশে দাড়িয়েছিল। অার কেউ একজন সদয় হয়ে অনুষ্ঠানের ভিডিওটি ইউটিউবে অাপলোড করে রেখেছিল বলে! তা না হলে অামরা তাসলিমার হৃদয় ছোঁয়া অভিব্যক্তিটুকুও জানতে পারতাম না! অাইবিবিএল এর এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। এরকম সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিত্তশালীগন এগিয়ে অাসুন।

সুন্দর একটি টপিক নিয়ে লেখায় অান্তরিক অভিবাদন।


১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৭

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আপনাকে সর্বপ্রথম জানাই লাল গোলাপের শুভেচ্ছা।
একটি মেয়ের বাস্তব জীবনের সংগ্রামের অংশগুলো একটি গল্পের মাধ্যমে রূপ দেওয়ার চেষ্টা করেছি মাত্র। আমার দোয়া আল্লাহ্‌ যাতে আরো লক্ষ তাসলিমাকে এভাবেই কারো না কারো মাধ্যমে সাহায্য করেন।
ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।

২৪| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৭

স্বরচিতা স্বপ্নচারিণী বলেছেন: ভিডিওটি দেখেছিলাম ফেসবুকে। আমাদের দেশ শুধু নামে উন্নয়নশীল। সামগ্রিক উন্নয়ন না হলে সেটাকে কখনই প্রকৃত উন্নয়ন বলা যায় না বলে আমি মনে করি। তাসলিমা শুধু একটি উদাহরণ মাত্র। সে হয়তো জীবনযুদ্ধে হারিয়ে যায় নি। কিন্তু প্রতি বছর কত কত মানুষ হেরে যাচ্ছে ভাগ্যের নিষ্ঠুরতার কাছে তার কোন হিসাব নেই। সরকার আর প্রাইভেট অর্গানাইজেশনের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছাড়া এর থেকে পরিত্রাণ নেই। কিন্তু সেটা সবাই কতদিনে বুঝবে আর কতদিনে পদক্ষেপ নিবে সেটাই রীতিমত গবেষণার বিষয়।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩০

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সুন্দর একটি যথাযথ মন্তব্যের জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
পাশেই থাকুন আমার। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। শুভ কামনা রইলো আপনার প্রতি।

২৫| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ ভোর ৪:২১

বলেছেন: লেখায় আলো ছড়াক।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩০

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ।

২৬| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৬

ওমেরা বলেছেন: ইচ্ছা ও চেষ্টা থাকলে কোন না কোন ভাবে এগিয়ে যায় । অনেক ধন্যবাদ আপু ।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আপনাকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ আপু। জি আপনি সঠিক বলেছেন। ইচ্ছা থাকিলে উপায় হয়।

২৭| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৮ ভোর ৬:৪৫

মলাসইলমুইনা বলেছেন: আপনার এই লেখাটা কেমন হয়েছে জানেন ? অসাধারণ হয়েছে | কবিতা গল্প দশটা লিখুন কোনো ক্ষতি নেই কিন্তু এই ধরণের লেখা তার সাথে অন্তত একটা হলেও সামনে লিখবেন সেই আশা করে রইলাম I বিউটিফুল I আশাবাদিতার অনেক সুন্দর লেখার জন্য অনেক বড় একটা ধন্যবাদ নেবেন I

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ্‌ ! আপনাদের সকলের জন্য আমার সকল গল্প ও কবিতা। কিন্তু এই লেখাটি আমি দিয়েছি শুধু পাঠকদের পড়বার জন্য নয়, সমাজের উন্নয়নে যদি সর্ব সম্মানজনক ব্যক্তিরা এগিয়ে আসেন তাহলে তাদের দেখে আরো হাজার শতাধিক মানুষও এগিয়ে আসবেন।
ধন্যবাদ ধন্যবাদ ধন্যবাদ।
ভালো থাকবেন।

২৮| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:৪৬

সোহেল আহমেদ নাসিম বলেছেন: এমন লেখার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ ...।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:২৯

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ স্যার আপনার মন্তব্যের জন্য।

২৯| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৫

এস এম ইসমাঈল বলেছেন:
পাল্টে দিতে হবে গন্ধ ছড়ানো পঁচা এ সমাজ ব্যবস্থাকে। সুবিধাবাদী সমাজ হত দরিদ্র এসব তাসলিমাদেরকে কোন ছাড় দিতে নারাজ।ইসলামী ব্যাংক যা করেছে সেটা যদিও এক প্রকার মার্কেটিং পলিসি আর এডভ্যারটাইজমেন্ট। তারপরও নাই মামার চেয়ে কানা মামা ভালো। আর সে করণে ইসলামী ব্যাংক একটা ধন্যবাদ পেতেই পারে। হৃদয় ছোঁয়া লেখার জন্য মুবারাকবাদ।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:১৮

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: স্যার আপনি ঠিক বলেছেন, একজনের বিপদে সাহায্য করে সবাই তাদের নিজ নিজ স্বার্থটিই দেখে। ধন্যবাদ এত সুন্দর মন্তব্যের জন্য আপনাকে। শুভ কামনা রইলো।

৩০| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫০

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: আপনি লেখার হাত খুব চমৎকার | লেখা চালিয়ে যান |

১৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১৮

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ জনাব আপনাকে। অনেক দিন পর আপনাকে পেলাম.....ভালো থাকবেন আশা করি।

৩১| ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৫৯

আকতার আর হোসাইন বলেছেন: ভালো লাগলো। লেখা ভালো লাগলো। এরচেয়ে চালো লাগলো আপনার ভালো চিন্তাধারা দেখে।

মাঝখানে কবি নজরুলের উদাহরণটাও যথার্থ। মানব সেবায় সকলকে এগিয়ে আসা উচিৎ, শিক্ষার প্রসার ঘটাতে সকলকে এগিয়ে আসা উচিৎ।

১৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১৯

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি সঠিক বলেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকবেন।

৩২| ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৫

তারেক ফাহিম বলেছেন: মানবতার জয় কামনা করি।

পৃথিবী যতদিন থাকবে বৈষম্যও ততদিন থাকবে মনে হচ্ছে :(

১৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি তবে আমরা যদি আমাদের নিজ নিজ জায়গা থেকে আরো সচ্চার হই এবং সাহায্য করার মন-মানসিকতা বজায় রাখি তাহলে আমাদের পৃথিবী সয়ং সকল সুখের আঁধারে রূপান্তির হবে।
ধন্যবাদ আপনাকে।

৩৩| ১৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৭

আই নাজ বলছি বলেছেন: বাস্তবতা বড়ো কঠিন। আমাদের উচিত একে অপরের প্রতি সহযোগী হওয়া। সহানুভূতির হাত বাড়িয়ে দেওয়া। তাহলে আমাদের সমাজে হানা-হানি , কাটাকাটি, অজ্ঞতা, মূর্খতা দূরীভূত হবে বলে আমার সম্ভাবনা।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সুন্দর একটি মন্তব্য করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আমার ভালবাসা জানবেন। শুভ রাত্রি।

৩৪| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৬

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: একজন দুঃখিনী মেয়ের সাহসী সংগ্রামী জিবনালেখ্য নিয়ে লেখাটিতে সমাজের অনেক চিত্রই ফুটে উঠেছে দারুনভাবে ।
পাঠে ভাল লাগল । এমনতর লেখার খুব বেশী প্রয়োজন আছে এ সময়ে । আমিউ সময় পেলে কিছু লিখি এমনতর মানুষদের নিয়ে । সিমীত সাধ্য নিয়ে তাদের জন্য করার তেমন ক্ষমতা না থাকলেও তাদের পাশে সহানুভুতি ও অনুপ্রেরনাতো জোগাতে পারে যে কেও অতি সহজেই । সচেতন করতে পারে সমাজের সকলকে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য, যেমনটি করা হয়েছে আপনার এ লেখাটির মাধ্যমে । আমার অনুভুতিতেও সবসময় জাগরুপ আছে সহায় তবে অদম্য সাহসীদের কথা । সময় সুযোগ পেলেই তাদের পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করি । এ ব্লগে আমার দুটো কবিতা আছে একটি হল অগ্নিদ্গ্ধ মেধাবী ছাত্রী আলমী’র জন্য আরোগ্য কামনা ( কবিতাটি আলমী’কে উৎসর্গিত) অপরটি স্বপ্ন ছুতে চায় কির্তিময়ী সুমাইয়া ( কবিতাটি শ্রবন প্রতিবন্ধী সুমাইয়ার প্রতি উৎসর্গিত ) ইচ্ছে হলে দেখতে পারেন ।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫১

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: দুটো পোষ্টই পড়লাম, অসম্ভব ভালো লেগেছে....
অনেক ধন্যবাদ আপনাকে আমার সাথে ভালো লাগার পোষ্ট শেয়ার করার জন্য। আমাদের সবাইকে আরো সচেতন হতে হবে এবং মানুষকে সাহায্য করতে হবে। ধন্যবাদ আবারো। শুভ রাত্রি।

৩৫| ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫০

প্রামানিক বলেছেন: ভিডিও দেখেছি, খুবই কষ্টের ভিডিও।

১৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৫

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য। সর্বদা ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন। শুভ রাত্রি।

৩৬| ২০ শে নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৩

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
তসলিমার ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করছি।

তথ্যবহুল সুন্দর পোস্টের জন্য ধন্যবাদ।
++++++

২৩ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: লেখায় প্লাস দিয়েছেন দেখে অনেক অনেক আনন্দ লাগছে। সার্থক মনে হচ্ছে নিজেকে। আপনাকে অনেক ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য। শুভ রাত্রি।

৩৭| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৩

নজসু বলেছেন:



বোনটি আমার আশা করি ভালো আছেন।

২৮ শে নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫০

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অনেক অনেক দিন পর প্রিয় ভাইয়ের মন্তব্য পেয়ে এখন আলহামদুলিল্লাহ্‌ অনেক ভাল আছি। আপনি কেমন আছেন?
অসংখ্য ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

৩৮| ২৮ শে নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৩

নজসু বলেছেন:



আলহামদুলিল্লাহ্‌। আমিও ভালো আছি।
আমার নিজেরও একটু ব্যস্ততা গেল।

২৮ শে নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১২

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: সর্বদা সব সময় ভাল থাকার চেষ্টা করবেন। শারীরিক সুস্থতাও কিন্তু আমাদের অনেক দরকার। নিজের ও পরিবারের প্রতি যত্নশীল হওয়ার চেষ্টা করবেন।
অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো প্রিয় ভাইয়ের প্রতি। ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

৩৯| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৪

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: তসলিমার মত অনেকেই আছে যাদের স্বপ্ন শুরুতেই শেষ হয়ে যায় ।

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৪

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি যথাযথ বলেছেন। খুব কষ্ট লাগে তাদের জন্য।
মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ আপনাকে। শুভ রাত্রি।

৪০| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৯

করুণাধারা বলেছেন: পড়ে খুবই কষ্ট লাগলো। আমি ভিডিওটি দেখে নি, দেখার চেষ্টা করব।

লেখা ভালো, ভাষা খুব সাবলীল, ++++

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৫

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: প্রিয় বোনের এত সুন্দর একটি মন্তব্য পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। কেমন আছেন আপনি আপু?
ধন্যবাদ আপনাকে....সব সময় ভাল ও সুস্থ থাকবেন। শুভ রাত্রি।

৪১| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:২০

চাঁদগাজী বলেছেন:


সরকারই সব মেয়েকে ফ্রি পড়ানোর কথা; আমাদের জাতির কাছে সবাইকে ফ্রি পড়ানোর মতো সম্পদ আছে!

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৮

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ফ্রি পড়াবার কথা কিন্তু পড়াচ্ছে তো না। আমার মনেহয় তাদের কাছে সেই সকল সম্পদ আছে দেশের দরিদ্র অসহায় পরিবারের মেয়েদের বিনা খরচে পড়ালেখা করাবার।
ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য স্যার.....

৪২| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


অনেকদিন লিখেননি, এদেশের দু:খী মেয়ে, নারীদের নিয়ে লিখুন।

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪০

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি অনেকদিন লিখা হচ্ছে না। তবে আমি খুব তাড়াতাড়িই শিশুশ্রম নিয়ে লিখার পথে আছি। শিগ্রই পেয়ে যাবেন এবং আশা করি পছন্দও করবেন। আপনাদের সকলের লিখা অনেক বেশী মিস করেছি স্যার। নারীদের নিয়ে অবশ্যই আমার নেক্সট লেখা থাকবে। অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।
কেমন আছেন?

৪৩| ০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১২

রানার ব্লগ বলেছেন: এই দেশে গরিব অসহায় মেয়ে অনেক আছে, তাদের জন্য সরকার কেন কিছুই করছে না? আমি ভিডিওটা দেখিনি কিন্তু প্রবন্দটা পড়লাম সাহায্য করেছেন মেয়েটিকে সাবলম্বি হতে হাত বাড়িয়েছেন প্রশংসা যজ্ঞ। কিন্তু আমার প্রশ্ন হল এটা ভিডিও করে প্রচার কেন করতে হবে। আমার জানামতে অন্যান্য ব্যাংক ও এই ধরনের কাজ স্বল্প আকারে করে থাকে। কোই তারা তো মিছিল নিয়ে নামে না।
কয়েকদিন পর দেখবেন এই মেয়ে সমানে সরকার কে মা বাবা তুলে গালি দিচ্ছে। আর তার ক্যাপ্সান হবে দেখুন এই জান্নতি বোন টি কি বলে গেল। এটা জামাতিদের কাজের ধরন। দোষ কিন্তু মেয়েটার না। সে নিরুপায়। সে বাধ্য। বেঁচে থাকার তাগিদে এটা তাকে করতে হবে।

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪২

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ভাবার বিষয় অবশ্যই। প্রচার বুঝেন না স্যার? ব্যাংক একটু আর্থিকভাবে সাহায্য করেছে। মেয়ে ও তার পরিবার অনেক হ্যাপি। কারণ তারা গরীব ও অসহায় তাদের কিছু করার নেই। আর ব্যংকও একটু তাদের প্রচার চালাচ্ছে।
ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য। শুভ কামনা।

৪৪| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪১

দি ফ্লাইং ডাচম্যান বলেছেন: অবশ্যই পাশে এসে দাঁড়ানো উচিত। আমাদের যার যার জায়গায় থেকে সামান্য কিছু করেই আমরা কারো না কারো মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলতে পারি!

ভালো লাগলো। শুভেচ্ছা!

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ। অনেকদিন পর মনে হচ্ছে আপনার মন্তব্য পেলাম আমার লেখায়। অনেক ভাল লাগছে।
আশা করি আপনি ভাল আছেন।

৪৫| ০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৪

নজসু বলেছেন:


আমার আদরের মিষ্টি ছোট্ট বোনটি কেমন আছে?

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: প্রিয় ভাই, কি বলব বুঝতে পারছি না। ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। নিজের কাছে খুব খারাপ লাগে বিষয়টা আমি আপনাদের সকলের খোজ রাখতে পারি না, যথা সময়ে কারো লিখা পড়তে পারি না। আফসোস করছি অনেক.....
তবে আমি আমার বেস্ট ট্রাই করি ব্লগে সময় দেওয়ার। এতটুকই শুধু বলতে পারি। আমি ভাল আছি আলহামদুলিল্লাহ্‌। আপনি কেমন আছন প্রিয় ভাই?

৪৬| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১০

চাঁদগাজী বলেছেন:


স্বাধীন বাংলাদেশে, কিশোরীদের কেন চাকরানী হতে হচ্ছে, সেটা নিয়ে লিখুন

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:২৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: জি অবশ্যই স্যার, আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ তৃতীয়বার প্রতিউত্তরের জন্য।
সব সময় ভাল থাকবেন আশা করি। শুভ কামনা নিরন্তর।

৪৭| ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৬

আরোগ্য বলেছেন: কি খবর আপু? নতুন পোস্ট কবে পাবো?

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:২৭

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ্‌ ভাইয়া ভাল আছি। নতুন পোষ্ট শিগ্রই পাবেন আশা করি। ধন্যবাদ আপনাকে অনেক।
আপনি কেমন আছেন ভাইয়া?

৪৮| ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৪

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: ৬ মাসে ১৬শ মন্তব্য.....ভালো তো!

৪৯| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:৪৬

নজসু বলেছেন:
দেশের তরে যুদ্ধ করে দিল যারা প্রাণ
শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে গাই তাদেরই গান।

৫০| ১৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বহুদিন ধরে পোস্ট নেই। দয়া করে শীঘ্রই পোস্ট দেন । পাশাপাশি কমেন্টও আপনাকে পাচ্ছিনা। ব্লগে আপনাকে বেশ মিস করছি.....


শুভকামনা প্রিয় ছোট্ট আপুকে।

৫১| ২৪ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: সুন্দর একটি পোস্ট লিখেছেন, খুবই ইন্সপায়ারিং! অভিনন্দন!
পোস্টে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত শ্রেণীর প্রতি আপনার যে মমত্ববোধ প্রকাশ পেয়েছে, তাকে সাধুবাদ।
৩ নং প্রতিমন্তব্যটা খুব ভাল লিখেছেন। মলাসইলমুইনা এর ২৭ নং মন্তব্যটাও ভাল লেগেছে।
পোস্টে প্লাস + +

৫২| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৪২

রাকু হাসান বলেছেন:

তুমি কোথায় ? কেমন আছ। তোমার কোনো খোঁজ নেই

৫৩| ০১ লা জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৮:০১

নজসু বলেছেন:

৫৪| ০৩ রা জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৩:৩৭

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: ফারিয়া
গেল মনে হয় হারাইয়া,
ঈদে চাঁন্দে নাই দেখা,
খোঁজ খোঁজ খোঁজ লাগা

..........................................................................................

৫৫| ১২ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৫৯

প্রথমকথা বলেছেন: ভাল লেগেছে। এইরকম আরো লেখা চাই। তাতে জনগণের উপকার হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.