নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

একজন সুখী মানুষ, স্রষ্টার অপার ক্ষমা ও করুণাধন্য, তাই স্রষ্টার প্রতি শ্রদ্ধাবনত।

খায়রুল আহসান

অবসরে আছি। কিছু কিছু লেখালেখির মাধ্যমে অবসর জীবনটাকে উপভোগ করার চেষ্টা করছি। কিছু সমাজকল্যানমূলক কর্মকান্ডেও জড়িত আছি। মাঝে মাঝে এদিক সেদিকে ভ্রমণেও বের হই। জীবনে কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করিনি, এখন তো করার প্রশ্নই আসে না। জীবন যা দিয়েছে, তার জন্য স্রষ্টার কাছে ভক্তিভরে কৃতজ্ঞতা জানাই। যা কিছু চেয়েও পাইনি, এখন বুঝি, তা পাবার কথা ছিলনা। তাই না পাওয়ার কোন বেদনা নেই।

খায়রুল আহসান › বিস্তারিত পোস্টঃ

একটি সমাধিলিপি (An Epitaph)

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৯

এখানে ঘুমিয়ে আছে এক সামান্য ধূলিকণা।
শীতল বৃক্ষছায়ায়, ধরিত্রীর অপার মায়ায়....
ঘুমিয়ে আছে সে ধরাধামের এই কোনায়।

ঘুমিয়ে আছে সে তোমার প্রতীক্ষায়,
ইহকালে খুঁজেছিল যে তোমায়,
অনন্ত একাগ্রতায় নয়, সময়ে সময়ে,
অন্তরে অন্তরে—
যখন কেঁদেছে মন নীরব আকুলতায়।

এখানে ঘুমিয়ে আছে সেই ক্ষুদ্র ধূলিকণা,
শান্ত সরোবরের মত যার দুটো চোখ ছিল,
বৃক্ষের মত স্পর্শকাতর একটি হৃদয় ছিল!

ঢাকা
২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +১৩/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

নীলপরি বলেছেন: মর্মভেদী কবিতা । ++

শুভকামনা

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:১৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: প্রথম মন্তব্য এবং প্রথম প্লাসের জন্য অনেক ধন্যবাদ, নীলপরি। মাত্র দু'টি শব্দে কবিতাকে অনেকখানি সম্মানিত করে গেলেন, প্রীত ও প্রাণিত হ'লাম।
শুভেচ্ছা নিরন্তর....

২| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৭

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর হয়েছে ভাইয়া

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১১

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ, কাজী ফাতেমা ছবি। কবিতার প্রশংসায় প্রীত হ'লাম।
প্লাসে প্রাণিত।
শুভকামনা----

৩| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:২২

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: চমৎকার কবিতাটি পাঠে মুদ্ধ হলাম। ভাল থাকবেন দোয়ায় সামিল রাখবেন।

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:৩৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার এ হৃদয়গ্রাহী মন্তব্যটা পড়ে আমিও যারপরনাই মুগ্ধ হ'লাম, মাহমুদুর রহমান সুজন। দোয়া অবশ্যই থাকলো এবং থাকবে, আপনিও আমার জন্য দোয়া করবেন।

৪| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:২৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
অসামান্য কবিতা।
পড়ে বিমোহিত হলাম।
শুভ কামনা।

২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:০৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: অসামান্য কবিতা - অসামান্য প্রেরণা! :)
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম। ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা.....

৫| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৩০

আহমাদ জামীল বলেছেন: অনুধাবন করে বুঝতে হবে

২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:৫৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: জ্বী, অনুধাবন করার চেষ্টা করুন, বুঝতে পারবেন। :)

৬| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৩১

আহমাদ জামীল বলেছেন: অনুধাবন করে বুঝতে হবে

০৩ রা মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৫৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার সহজ অনুধাবনের জন্য কবিতাটির পটভূমি একটু ব্যাখ্যা করছিঃ
গত ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ তারিখে বা'দ আসর বিডিআর হত্যাযজ্ঞে নিহত শহীদদের ক্ববর যেয়ারত এবং দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করার জন্য তাদের কবরস্থানে গিয়েছিলাম। তাদের প্রত্যেকের জন্য দোয়া করেছি এবং তারা যেন শহীদি মৃত্যুর মর্যাদা পান, আল্লাহ রাব্বুল 'আ-লামীন এর কাছে সে প্রার্থ্না করেছি। একজন শহীদের মর্যা্দা সর্বোচ্চ; আমার বিশ্বাস, তাঁঁরা প্রত্যেকে সে মর্যাদা পাবেন। প্রতি বছর তাঁদেরকে স্মরণ করা হয়, তাদের জন্য দোয়া করা হয়, তাদের ক্ববর যেয়ারত করা হয়- এসব করা হয় তাঁরা সবাই সম্মানের যোগ্য বলেই। তাঁদের ক্ববরের পাশে দাঁড়িয়ে আমার নিজের কথা মনে হচ্ছিল। তাদের তুলনায় আমি এক সামান্য ধূলিকণা বই কিছু নই। আমার ক্ববরের পাশে এসেও কি কেউ কোনদিন দোয়া করবে? আল্লাহ'র কাছে সবচেয়ে বেশী পছন্দ মানুষের যৌবন বয়সের প্রার্থনা। যৌবনকালে তো আমি তাঁকে সেভাবে স্মরণ করিনি, এখন যেভাবে করে থাকি। করেছি, তেমনভাবে যেমন বলেছি কবিতায়--
"অনন্ত একাগ্রতায় নয়, সময়ে সময়ে,
অন্তরে অন্তরে—
যখন কেঁদেছে মন নীরব আকুলতায়"।

৭| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: খুব সুন্দর কবিতা।

০১ লা মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:২৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। কবিতার প্রশংসায় অনুপ্রাণিত হ'লাম।

৮| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৬

রোকসানা লেইস বলেছেন: ধূলিকণা ঘুমাক শান্তিতে...

০১ লা মার্চ, ২০১৯ দুপুর ১২:২৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে প্রীত হ'লাম।

৯| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: নীলপরীআপুর সুরেই বলি মর্মভেদী কবিতা । ক্ষুদ্র ধূলিকণা কিন্তু পরিসরটা অনেক বড়।

বিনম্র শ্রদ্ধা ও শুভকামনা আপনাকে।

০১ লা মার্চ, ২০১৯ দুপুর ২:৩৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: "ক্ষুদ্র ধূলিকণা কিন্তু পরিসরটা অনেক বড়" - আপনিও কিন্তু এই একটি ছোট্ট বাক্যে অনেক সুন্দর একটা কথা বলে ফেলেছেন, পদাতিক চৌধুরি:)
চমৎকার মন্তব্য এবং প্লাসে অনেক অনুপ্রাণিত হ'লাম। ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!!!

১০| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:৫২

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আমিতো স্যার আপনার ফ্যান হয়ে গেলাম। :-B

০১ লা মার্চ, ২০১৯ বিকাল ৩:২৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: তাই নাকি? আমিও তো সেটা জেনে মুগ্ধ হয়ে গেলাম!
মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। মন্তব্যে এবং প্লাসে অনুপ্রাণিত হ'লাম।
শুভেচ্ছা জানবেন।

১১| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৭

জাহিদ অনিক বলেছেন:


শেষ দুই লাইনের উপমা খুব সুন্দর,----
শান্ত সরোবরের মত যার দুটো চোখ ছিল,
বৃক্ষের মত স্পর্শকাতর একটি হৃদয় ছিল!


কবিতা ভালো লেগেছে। নক্ষত্রের সন্তান সবাই একদিন ধুলিতে পরিণত হবে।

০১ লা মার্চ, ২০১৯ বিকাল ৪:০১

খায়রুল আহসান বলেছেন: সবাই একদিন ধুলিতে পরিণত হবে - চিরসত্য!!!
কবিতা থেকে উদ্ধৃতির জন্য ধন্যবাদ। মন্তব্যে এবং প্লাসে অনুপ্রাণিত হ'লাম।

১২| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:২৯

সুমন কর বলেছেন: ব্লগার নীলপরি বলেছেন: মর্মভেদী কবিতা। সহমত। ভালো লাগল।
+।

০৩ রা মার্চ, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: ৬ নং প্রতিমন্তব্যে কবিতাটির পটভূমি সম্বন্ধে কিছু কথা বলেছি।
কবিতাটি আপনার ভাল লেগেছে জেনে প্রীত হ'লাম। প্লাসে অনুপ্রাণিত।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!

১৩| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:২৪

হাবিব স্যার বলেছেন: কি মসৃণ কথামালা, কি অপরূপ

০৩ রা মার্চ, ২০১৯ রাত ৯:০৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: অল্প কথায় একটি অমূল্য কমপ্লিমেন্ট দিয়ে গেলেন, হাবিব স্যার!
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত। অশেষ ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!!!

১৪| ০৪ ঠা মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৫

ধ্রুবক আলো বলেছেন: খুবই আবেগি কবিতা।
মনে হয় যে বুকের মধ্যে দিয়ে একটা আওয়াজ গেথে গেলো।

নীলপরীর মন্তব্যে প্লাস।

০৪ ঠা মার্চ, ২০১৯ রাত ১০:০১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার মন্তব্যের তিনটি বাক্যই খুবই মনোমুগ্ধকর। মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত, মুগ্ধ এবং অনুপ্রাণিত।
ভাল থাকুন, শুভকামনা-----

১৫| ১৮ ই মার্চ, ২০১৯ সকাল ৭:২৫

মলাসইলমুইনা বলেছেন: প্রিয় খায়রুল ভাই,
খুবই সৃষ্টি ছাড়া সময় যাচ্ছে । আপনার লেখাগুলো পড়ছি দেরি করে হলেও কিন্তু কমেন্ট আর করা হয়ে উঠছে না । শুধু আপনার না অনেক লেখার ব্যাপারেই হচ্ছে সেটা । যাহোক অচিরেই একটা দিনকে 'খায়রুল ভাই ডে' হিসেবে ঘোষণা দেবার ইচ্ছে রাখি ।সেদিন শুধু আপনার লেখায় পর্ব আর কমেন্টগুলো করে ফেলবো । গ্রান্ড প্ল্যানটা আশাকরি সফল করতে দেবেন আল্লাহ ।

আপনার কবিতাটাতে জীবনের একটা সাধারণ সত্য অসাধারণ হয়ে উঠেছে । এটাইতো আমাদের সবার ক্ষেত্রেই সত্যি । আজকের অস্তিত্ব কালকের অনস্তিত্বে মিলিয়ে যাবে ।আপনি নিশ্চই থর্টন ওয়াইল্ডের পুলিৎজার পুরস্কার পাওয়া বই Our Town পড়েছেন ? ওখানে ছোট এক শহরের এক খুব ভালো মানুষ একজন বুড়োর কথা বলা আছে ।শহরের সবার সাথে যার সদ্ভাব ছিল ।সবাইকেই যে সাধ্যমতো সাহায্য করতো দরকারে । সে যখন একদিন মারা গেলো তখন সবার মন খারাপ হলো ।সবাই তার বাড়িটাতে তার ব্যবহার করা জিনিসগুলো অনেক জোনটোন করে বাজিয়ে রাখলো -তার ছাতা, কলম, চশমা, বইগুলো ।শহরে রম্নশ তার বাসায় আস্ত আর সেই সব দেখে তার কথা মনে করে দুঃখ করতো যে সে কত ভালো মানুষ ছিল ।স্মৃতি,বেদনার এই ফেজটা একটা সময় কেটে গেলো । একদিন কেউ একজন তার ব্যবহত ছাতাটা নিয়ে গেলো, আরেকদিন কেউ কলমটা নিয়ে গেলো, তার বইগুলোও একদিন আর শেলফে পাওয়া গেলো না । থর্টন ওয়াইল্ড যেটা বলতে চাইলেন সেটা হলো এটাই জীবন ।স্মৃতি আর বিস্মৃতি ,চাওয়া, পাওয়া, না পাওয়াই আমাদের জীবন ঘিরে রেখেছে।আমরা মনে রাখতে চাইলেও জীবন একদিন ঝাপসা করে দেয় অনেক স্মৃতি।অনেক চাওয়াই না পাবার মধ্যে বেঁচে থাকে । আপনার কবিতা পরে অনেক বার আমি Our Town বইটার কথা ভেবেছি আর থর্টন ওয়াইল্ডের মেসেজটার কথা । ভালো লেগেছে সহজ সুন্দর জীবনের কবিতা ।

১৮ ই মার্চ, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ এমন চমৎকার একটি মন্তব্যের জন্য, প্রিয় মলাসইলমুইনা (আপনার নামটা কপি-পেস্ট করা ব্যতীত কিছুতেই সঠিকভাবে লিখতে পারিনা)!
দুঃখের বিষয় যে আমি থর্টন ওয়াইল্ডের Our Town বইটি পড়িনি, তবে আপনার মন্তব্য পড়ে বেশ বুঝতে পারছি বইটি শীঘ্রই পাঠ-তালিকায় আনতে হবে। আমার কবিতাটি পড়ে আপনার তাঁর মত একজন মনীষীর বই তথা দর্শনের কথা মনে পড়ে গেছে জেনে কৃতার্থ বোধ করছি।
ভালো লেগেছে সহজ সুন্দর জীবনের কবিতা - আমারও ভাল লেগেছে এমন সহজ সুন্দর কথায় প্রশংসাটুকু পেয়ে। প্লাসেও অনুপ্রাণিত।
ভাল আছেন এবং থাকবেন, এই শুভকামনা রইলো----

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.