নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

একজন সুখী মানুষ, স্রষ্টার অপার ক্ষমা ও করুণাধন্য, তাই স্রষ্টার প্রতি শ্রদ্ধাবনত।

খায়রুল আহসান

অবসরে আছি। কিছু কিছু লেখালেখির মাধ্যমে অবসর জীবনটাকে উপভোগ করার চেষ্টা করছি। কিছু সমাজকল্যানমূলক কর্মকান্ডেও জড়িত আছি। মাঝে মাঝে এদিক সেদিকে ভ্রমণেও বের হই। জীবনে কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করিনি, এখন তো করার প্রশ্নই আসে না। জীবন যা দিয়েছে, তার জন্য স্রষ্টার কাছে ভক্তিভরে কৃতজ্ঞতা জানাই। যা কিছু চেয়েও পাইনি, এখন বুঝি, তা পাবার কথা ছিলনা। তাই না পাওয়ার কোন বেদনা নেই।

খায়রুল আহসান › বিস্তারিত পোস্টঃ

অণু কবিতাঃ শব্দহীন শব্দ

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:২৫

জলপতনে তবু শব্দ হয়,
রক্তক্ষরণে কখনো নয়!
জলের ধারায় বৃষ্টি,
শোণিতধারায় সৃষ্টি।


ঢাকা
০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০


মন্তব্য ৬৬ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (৬৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৫৫

মিরোরডডল বলেছেন:

রক্তক্ষরণে কখনও নয় !
সো ট্রু

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:১২

খায়রুল আহসান বলেছেন: কবিতা পাঠের জন্য অশেষ ধন্যবাদ। ঐকমত্যে এবং প্লাসে অনুপ্রাণিত।
ভাল থাকুন, শুভকামনা....

২| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৫৫

এ.এস বাশার বলেছেন: ভালো লাগলো.....


কেমন আছেন খায়রুল ভাই.....

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৩৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: এত ছোট কবিতাটিও আপনার ভাল লেগেছে জেনে খুশি হ'লাম। কবিতায় দেয়া প্রথম প্লাস (+) টির জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

৩| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৪৩

রামিসা রোজা বলেছেন:
চোখের জলের ধারা সবাই দেখতে পায় , কিন্তু বুকের
ভেতরের বোবা কান্না কাউকে দেখানো যায়না।

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৫৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: কথাটা ঠিক বলেছেন। যেকোন নিঃশব্দ নিঃসরণ সৃষ্টির সহায়ক। কখনো কখনো সেটা অনাসৃষ্টিও হতে পারে।
কবিতা পাঠ এবং মন্তব্যের জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

৪| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৩:১৫

নজসু বলেছেন:


কি যে অপূর্ব লেখেন আপনি ভেবে পাইনা।
রক্তক্ষরণের শব্দ কেউ শুনতে পায়না, তবে তাতে কি সৃষ্টি হয়?
জ্বালা, যন্ত্রণা, পরাজয়ের গ্লানি আর না পাবার হাহাকার কি?

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৩:৫০

খায়রুল আহসান বলেছেন: উপরে আপনি যা যা বলেছেন, তার সবই সৃষ্টি হতে পারে। রক্তক্ষরণ বেশি হয়ে গেলে আবার বিপ্লবেরও সৃষ্টি হতে পারে।
জলপ্রবাহে সবকিছু ধুয়ে মুছে যায়। রুধির প্রবাহ ধীরে ধীরে ভারি হয়ে শ্লথ হয়ে যায়। তখন তার ওজন বহন করা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

৫| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৩:৪৪

কবিতা পড়ার প্রহর বলেছেন: হৃদয় ক্ষরণের শব্দও নিশব্দ।

যাই একটা ভূতের গল্প লিখি...

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৪:১৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: হৃদয় ক্ষরণের শব্দও নিশব্দ - জ্বী, তা তো বটেই!
যাই একটা ভূতের গল্প লিখি... - বানিয়ে লিখবেন, নাকি সত্য ঘটনা, বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে?

৬| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০১

সাগর শরীফ বলেছেন: অসম্ভব ভাল লাগল!

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৫৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: অসম্ভব ভাল লাগল - জেনে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!!

৭| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৪৭

সাবিনার বচন বলেছেন: এপিক! অসাধারণ!

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:২৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: উদার প্রশংসায় প্রাণিত হ'লাম। অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!

৮| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪৬

নেওয়াজ আলি বলেছেন: কবিতা অনু কিন্তু গভীরতা হৃদয়ের ভিতর

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৪৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ, মন্তব্যটাও হৃদয়ের গভীরতা প্রকাশ করছে।

৯| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০০

কবিতা পড়ার প্রহর বলেছেন: হাউ মাউ খাউ ভূতের গন্ধ পাও - ভূতেদের দিনরাত্রী

এই যে লিখলাম খায়রুলভাই

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: পড়লাম। ভুতের গল্প ভাল হয়েছে। + +

১০| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:২৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: অনু কবিতার প্রতিটি লাইনই খুবই পাওয়ারফুল। পোস্টে ভালোলাগা।
শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা স্যার আপনাকে।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৩০

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনু কবিতার প্রতিটি লাইনই খুবই পাওয়ারফুল - অনেক প্রেরণাদায়ক এ মন্তব্যটির জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। প্লাসেও অনুপ্রাণিত।
ভাল থায়ন সুস্বাস্থ্যে, সপরিবারে। শুভকামনা....

১১| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৪৫

করুণাধারা বলেছেন: চমৎকার! একেই কি শায়রী বলে?

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ২:০৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: একটা প্রশ্ন করেও কিভাবে প্রশংসা করা যায়, প্রেরণা যোগানো যায়, তাই করে দেখালেন।
অনেক, অনেক ধন্যবাদ এ প্রশংসা-প্রশ্নের জন্য।
ভাল থাকুন সপরিবারে, সুস্বাস্থ্যে- শুভকামনা....!

১২| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১২:৩১

রাজীব নুর বলেছেন: অতি মনোরম।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৪৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে মুগ্ধ!

১৩| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১২:৫২

সোহানাজোহা বলেছেন: মাত্র চার লাইন!
মাত্র চার লাইনে অসংখ্য ব্যাখ্যা করার মতো মূল্যবান কথা লিখে গেলেন।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:১৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: মাত্র চার লাইনে অসংখ্য ব্যাখ্যা করার মতো মূল্যবান কথা লিখে গেলেন - অনেক ধন্যবাদ এ প্রেরণাদায়ক মন্তব্যটির জন্য। কবিতা পড়ে পাঠকেরা যৌক্তিকভাবে এর অর্থ ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ করে তা বুঝে নেবেন, এটাই আমি চাই। কবিতার অর্থ ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ করার দায় কবির নয়।

১৪| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১:২২

ঢুকিচেপা বলেছেন: খুবই চমৎকার হয়েছে মিনিংফুল ৪ লাইন।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৪০

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ, মন্তব্যে এবং প্লাসে অনেক অনুপ্রাণিত হ'লাম।
শুভকামনা---

১৫| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:১৭

নীল আকাশ বলেছেন: নির্মম সত্য কথা বলেছেন। রক্তক্ষরণে আসলেও কোন শব্দ হয় না। শুধু যার হয় সেই অনুভব করে।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৫১

খায়রুল আহসান বলেছেন: রক্তক্ষরণে আসলেও কোন শব্দ হয় না। শুধু যার হয় সেই অনুভব করে - রক্তক্ষরণে তো হয়ই না, এমনকি রক্তপতনেও কোন শব্দ হয়না, যদিও রক্ত জলের (বৃষ্টির) চেয়ে ভারি।
মন্তব্যে এবং প্লাসে অনেক অনুপ্রাণিত হ'লাম।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!

১৬| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৫৩

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:



অনু কবিতায় মুগ্ধ
মাত্র চার চরণের
কবিতায় বলা কথার
ভাবার্থ অসীমে ব্যপ্ত।
জগতে এখনো ক্ষুধায়
কাতর অনেক মানুষ ,
মুখে নেই তার অন্ন,
মায়ের আঁচল ধুলায় লুটায়
দু’চোখ ধারায় সিক্ত,
শোনিতের স্রোতে ভাসে
তবু হয় না সে ক্ষান্ত।
সভ্যতা আজো এতদূর এসে
রয়ে গেছে সেই রিক্ত
আর রিক্ত যারা
তারাই আজ শোনিত ধারায়
জগতকে করছে সভ্য।

শুভেচ্ছা রইল

০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:১২

খায়রুল আহসান বলেছেন: "সভ্যতা আজো এতদূর এসে
রয়ে গেছে সেই রিক্ত
আর রিক্ত যারা
তারাই আজ শোনিত ধারায়
জগতকে করছে সভ্য।"
- আমার চার লাইনের অণু কবিতাটি পড়ে আপনি এত চমৎকারভাবে আপনার অনুধাবিত ভাবনাগুলোকে এখানে পরিবেশন করে গেলেন, আমি তা পড়ে রীতিমত মুগ্ধ হ'লাম। বিশেষ করে উপরে উদ্ধৃত আপনার পাঁচটি লাইন খুবই অর্থবাহক।
চমৎকার মন্তব্যে এবং প্লাসে অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হ'লাম, এবং এজন্য আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ, ডঃ এম এ আলী

১৭| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১২

নতুন নকিব বলেছেন:



দারুন অর্থবহ অনুকবিতা। +

তবে শোনিতধারায় সৃষ্টি কথাটায় আপনার ভাবনাটা একটু বুঝিয়ে বলতেন যদি, প্রিয় শ্রদ্ধেয়!

০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৫:০৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: "শোনিতধারায় সৃষ্টি কথাটায় আপনার ভাবনাটা একটু বুঝিয়ে বলতেন যদি" - জলের চেয়ে রক্ত ওজনে ভারি হলেও, জলপতনে যেমন শব্দ হয়, শোণিতধারার পতনে তেমটি হয় না, নিঃশব্দে হয়ে থাকে। একটি ভুখন্ডে কিংবা সমাজে সামষ্টিকভাবে নতুন কিছু আগমনের পূর্বে রক্তপাত হয়ে থাকে। সে রক্তের পতন নিঃশব্দে হয়ে থাকলেও, নতুন কিছু সৃষ্টি হবার পর সেটা পরে ইতিহাস হয়ে কথা বলে।

১৮| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:০২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন:
শব্দহীন শব্দে
ভাসিয়ে ডুবিয়ে
চেতনায় শিহরণে
মুগ্ধতা স্নিগ্ধ :)

+++

০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪০

খায়রুল আহসান বলেছেন: চমৎকার মন্তব্যে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা ---

১৯| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ২:১৪

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




খায়রুল আহসান ভাই,
কবিতা ফার্স্টক্লাস ফাস্ট। এই কবিতায় কোনো বিতর্ক চলে না। তারপরও জানতে চাই রক্তক্ষরণের মতো যখন অশ্রুধারা ঝরে এই দুঃখ কিসের সাথে তুলনা চলে? আপনি মূল ঘটনা জানেন, তা ব্লগে লিখতে চাচ্ছি না - কারণ আপনার আমার দায়বদ্ধতা সীমাবদ্ধতা আছে। শুধু এটুকু বলছি প্রিয়জনদের কফিন কাঁধে বুক ভাঙ্গা কান্নার অশ্রুধারা রক্তক্ষরণের চেয়ে কম না বেশী?





০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:১১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার এ প্রশ্নের উত্তর এক কথায় দেওয়া এ মুহূর্তে সম্ভব হচ্ছে না বলে দুঃখিত।

২০| ০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ৮:০৪

সোহানী বলেছেন: মাত্র চারলাইন!!! একটু টেনেটুনে লম্বা করা যেত না???????

০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৪১

খায়রুল আহসান বলেছেন: একটু টেনেটুনে লম্বা করা যেত না? - যেত হয়তো, কিন্তু যা বলার ছিল তা তো ঐ চারটে লাইনেই বলা হয়ে গেছে যে!
মন্তব্যে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা ---

২১| ০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৩:৫৬

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




আমি উত্তর পেয়েছি। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। এই চার লাইন কবিতা মনে রাখার মতো কবিতা। আপনার কবিতাটি খুবই শার্প হয়েছে। - আমরা ধারণা শার্প কবিতাগুলো ছোটই হয়ে থাকে। আবারও ধন্যবাদ জানবেন।

০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ২:৩১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।
ভাল থাকুন, শুভকামনা....

২২| ০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ২:৩৮

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর

০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৪৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। ছোট্ট মন্তব্যে এবং প্লাসে অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হ'লাম।

২৩| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৩১

মুক্তা নীল বলেছেন:
কিভাবে যে মিস হয়ে গেলো অর্থ ছোট অনুকবিতা ....
এই মুহূর্তে হালকা গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে বজ্রপাত সহ,
আর্ ঠিক এ সময়ে আপনার কবিতাটা পড়লাম । দারুন
তৎক্ষণাৎ একটা মিল খুঁজে পাচ্ছি , আকাশের বৃষ্টি ও
চোখের জলের বৃষ্টি সবাই দেখে মনের ঝড় বৃষ্টি তো আর
দেখা যায় না ।
ভালো লাগলো, ধন্যবাদ জানবেন ।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: প্রকৃতির আচরণের সাথে মিলিয়ে কবিতার অর্থ অনুধাবন করেছেন, আপনার এ প্রচেষ্টায় প্রীত হ'লাম।
মন্তব্যে এবং প্লাসে অনেক অনুপ্রাণিত, ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!

২৪| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:১৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: খায়রুল আহসান,



দারুন একটা কবিতা হয়েছে, কি ছন্দে- কি রূপকল্পে! আপনার অন্য সব কবিতার চেয়ে এর স্বাদ-গন্ধ একেবারেই আলাদা মনে হলো।

রক্তক্ষরণে শব্দ হয়না বটে তবে চোখের জল পতনও কিন্তু নিঃশব্দ!

রামিসা রোজা, নেওয়াজ আলি, মুক্তা নীল এদের মন্তব্য সুন্দর হয়েছে।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:১৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার অন্য সব কবিতার চেয়ে এর স্বাদ-গন্ধ একেবারেই আলাদা মনে হলো - আপনার এ পর্যবেক্ষণের জন্য অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম।
রক্তক্ষরণে শব্দ হয়না বটে তবে চোখের জল পতনও কিন্তু নিঃশব্দ! - জ্বী, অবশ্যই।

২৫| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:২৪

পদ্ম পুকুর বলেছেন: কবিতা ছোট হলেও শক্তিশালী হতে পারে। যে জলে আগুন জ্বলে'তে হেলাল হাফিজ লিখেছেন- নিউটন বোমা বোঝো, মানুষ বোঝ না.... কবিতা শেষ কিন্তু অত্যন্ত শক্তিশালী।

আপনার স্বল্পশব্দের ছড়ায়ও অরকম একটা অনুভূতি কাজ করলো বলে মনে হলো; যদিও আমি কবিতা বুঝি না।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: কবি হেলাল হাফিজ এর কবিতাটা নিউট্রন বোমার মতই শক্তিশালী। আমার এ অণুকবিতাটি পড়ে প্রখ্যাত এ কবিতাটির কথা আপনার মনে হয়েছে, এজন্য নিজেকে ধন্য মনে করছি।
মন্তব্যে এবং প্লাসে অনেক অনুপ্রাণিত হ'লাম, ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!!

২৬| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪৭

পদ্ম পুকুর বলেছেন: দুঃখিত, *নিউট্রন বোমা হবে। আপনার প্রতিমন্তব্যে কৃতজ্ঞতা।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৪৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: বুঝতে পেরেছিলাম, ওটা একটা 'টাইপো'। আপনার ইতিবাচক (এবং দ্রুত) রেসপন্স এ্যাপ্রিশিয়েট করছি, ধন্যবাদ।

২৭| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫০

জাহিদ হাসান বলেছেন: আমি কিছুই বুঝলাম না :(

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৩৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: আচ্ছা, ঠিক আছে। আশাকরি এর পরের কোন পোস্ট বুঝতে পারবেন।

২৮| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৬

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: অসাধারণ একটা অণু কবিতা পড়লাম। আপনি সহজ ভাষায় লেখেন ফলে আমার মত পাঠকরা বুঝতে পারে।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:১৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনি সহজ ভাষায় লেখেন ফলে আমার মত পাঠকরা বুঝতে পারে - এমন একটা মন্তব্য আমার জন্য কাজটা আরও সহজ করে দেয়। কবিতা পাঠ এবং মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ।

২৯| ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:০০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: চিরসত্য, কথামালায় কষ্টের গভীরতা অনুভূতিকে নাড়িয়ে দিলো।



শুভকামনা জানবেন সবসময়।

১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:০৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেকদিন পরে আপনাকে ব্লগে দেখতে পেয়ে ভাল লাগছে।
কবিতা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। মন্তব্যে এবং প্লাসে অনুপ্রাণিত হ'লাম।

৩০| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ৭:২৫

এস সুলতানা বলেছেন: অল্প কথায় মহৃদয় ক্ষরণের শব্দও নিশব্দ

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৫২

খায়রুল আহসান বলেছেন: চমৎকার বলেছেন। মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম।
ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা---

৩১| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৫৯

রামিসা রোজা বলেছেন:
অ,ট : আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত আপনার মন্তব্যের জবাব দিতে একটু দেরি হয়েছে।
দয়া করে আপনি একটু দেখে নিবেন আমার পোস্টে গিয়ে
কারণ একটু আগে প্রতিমন্তব্য দিয়ে সরিয়ে ফেলেছিলাম
বাক্যে ভুল ছিল এখন সংশোধনী করে আবার দিয়েছি।

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৪৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: পড়েছি। প্রতিমন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। বিলম্বে উত্তর দেয়াটা কোন ব্যাপার মনে করিনি।
ভাল থাকুন, শুভকামনা....

৩২| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:১৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: হাইস্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকেই বাংলা স্যারেরা কবিতা পড়ানোর সময় বলতেন, কবিতা হলো বিন্দুর মধ্যে সিন্ধুর গভীরতা। বিন্দু বুঝলেও সিন্ধু কী জিনিস তা বুঝেছিলাম ক্লাস নাইনে উঠে 'সিন্ধু' কবিতা পড়ে, ততদিনে আমি লেখালেখি শুরু করেছি এবং এ কথার তাৎপর্য কিছুটা বুঝতে পেরেছি। যদিও লেখালেখি করি, কিন্তু, অল্প কথায় ব্যাপক ভাব প্রকাশ করা যে কত কঠিন তা আমিই বুঝি। যে ভাবটা দু লাইনে প্রকাশ করা যায়, তা বোঝানোর জন্য আমি হয়ত পুরো দুটো পৃষ্ঠাই ক্ষয় করে ফেলি।

অল্প কথায় অধিক ভাব প্রকাশের জন্য চাই প্রতিভা, অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান। আপনার এ কবিতাটা বিন্দুর মধ্যে সিন্ধুর গভীরতা ধারণের উৎকৃষ্ট উদাহরণ। এবং এর মধ্যেই আপনার প্রতিভা, অভিজ্ঞতা ও জ্ঞানের সুস্পষ্ট স্বাক্ষর রয়েছে।

চমৎকার কবিতাটির জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল স্যার।

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:০২

খায়রুল আহসান বলেছেন: একজন বিদগ্ধ পাঠকের কাছে এভাবে প্রশংসিত হলে যে কোন লেখক অভিভূত হবেন, আমিও হয়েছি অনেক। তাই অনেক, অনেক ধন্যবাদ এবং শুভকামনা জানাচ্ছি আপনাকে।
ভাল থাকুন সপরিবারে, সুস্বাস্থ্যে!

৩৩| ২৩ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৮

নাসরিন ইসলাম বলেছেন: সত্যি যদি রক্তক্ষরণের শব্দ শোনা যেত!

২৪ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:০৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: "সত্যি যদি রক্তক্ষরণের শব্দ শোনা যেত!" - শোনা গেলেও বা কী হতো? তাতেও তো রক্তক্ষরণ বন্ধ হতো না!
আমার ব্লগে সুস্বাগতম! মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.