নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

একজন সুখী মানুষ, স্রষ্টার অপার ক্ষমা ও করুণাধন্য, তাই স্রষ্টার প্রতি শ্রদ্ধাবনত।

খায়রুল আহসান

অবসরে আছি। কিছু কিছু লেখালেখির মাধ্যমে অবসর জীবনটাকে উপভোগ করার চেষ্টা করছি। কিছু সমাজকল্যানমূলক কর্মকান্ডেও জড়িত আছি। মাঝে মাঝে এদিক সেদিকে ভ্রমণেও বের হই। জীবনে কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করিনি, এখন তো করার প্রশ্নই আসে না। জীবন যা দিয়েছে, তার জন্য স্রষ্টার কাছে ভক্তিভরে কৃতজ্ঞতা জানাই। যা কিছু চেয়েও পাইনি, এখন বুঝি, তা পাবার কথা ছিলনা। তাই না পাওয়ার কোন বেদনা নেই।

খায়রুল আহসান › বিস্তারিত পোস্টঃ

কবিতাঃ চাওয়া ও পাওয়া

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৫২

দয়াল প্রভু, বিধাতা আমার,
নাচার অতি বান্দা তোমার,
তারে তুমি ক্ষমা করো।
স্খলন থেকে রক্ষা করে,
সকল অভাব পূর্ণ করে,
তোমার ক্ষমার যোগ্য করো।

সারা বিশ্বের মালিক তুমি
তোমার অধীন আকাশ ভূমি
অতল সাগর, উচ্চ পাহাড়
সকল প্রাণের সব সমাহার
এক তোমার আদেশে সৃষ্ট।
সেই সৃষ্টির অণুকণা হয়ে
বিফল হইনি কখনো চেয়ে,
করুণা তোমার করেছে সিক্ত
তাপিত হৃদয় যখনি হয়েছে
পরম বেদনাক্লিষ্ট।

ঢাকা
২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৮/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:০৫

নজসু বলেছেন:
হাদিস রয়েছে, এক ব্যক্তি সারা জীবন আল্লাহর আদেশ-নিষেধ মেনে চলতো না। মরার আগে সে তার সন্তানদের বলে গিয়েছিল যেন তাকে পুড়িয়ে ছাইগুলো দূরের পাহাড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখা হয়। লোকটির মৃত্যুর পর আল্লাহতায়ালা তাকে জিজ্ঞেস করেন, তুমি কেন এরকম করতে বলেছিলে? লোকটি উত্তর দিল, আমি ভেবেছিলাম, সারা জীবন এত পাপ করেছি যে, মৃত্যুর পর আপনি আমাকে জাহান্নামে দিবেন তাই আমি এ কথা বলেছি।

আপনার সুখপাঠ্য কবিতাপাঠে আল্লাহর প্রতি ভরসা আর তার ক্ষমা করার গুনগান পেলাম। ক্ষমা করা, মাফ করা মহান আল্লাহর অন্যতম গুণ। আমরা পথ চলতে গিয়ে মনের অজান্তে ভুল করি।তাই ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি ভয়ও রাখতে হবে। আল্লাহকে না দেখেও হাদিসে বর্ণিত লোকটি প্রভুর ভয়ে ভীত ছিলো।

অবশ্যই আমরা আল্লাহর হুকুম মানব, ইবাদাত-বন্দেগি করব। পাপের কাজ থেকে বিরত থাকব। কবিতার প্রথম লাইক।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: কবিতায় প্রথম মন্তব্য এবং প্রথম 'লাইক' এর জন্য অশেষ ধন্যবাদ।
"তাই ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি ভয়ও রাখতে হবে" - জ্বী, অবশ্যই।
চাওয়ার তালিকা অন্তহীন, পাওয়ার তালিকা গণনাহীন।

২| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:০৮

মেহেদি_হাসান. বলেছেন: স্যার কবিতাটা অনেক ভালো লেগেছে। পাঠ করে মুগ্ধ হলাম।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৩২

খায়রুল আহসান বলেছেন: কবিতাটা আপনার অনেক ভালো লেগেছে জেনে প্রীত হ'লাম। অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা।

৩| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: খুব সুন্দর কবিতা। সহজ সরল ভাষা।
প্রভু আমাদের দয়া করবেন। প্রভু সবার মঙ্গল করুক।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৫১

খায়রুল আহসান বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। প্রভুর দয়া ও ক্ষমার উপরে ভরসা রাখি।

৪| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:১৬

নেওয়াজ আলি বলেছেন: প্রভু দয়ালু অবশ্যই উনি তাঁর বান্দাকে ক্ষমা করবেন। ভালো লাগলো লেখা

২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১২:১৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ, প্রীত হ'লাম।

৫| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:৪৬

ইসিয়াক বলেছেন: আমিন।

সুন্দর কবিতা।

২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ, প্রীত হ'লাম।

৬| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:



কবি ফেরদৌসী সুলতানের জন্য ৫০,০০০ লাইন কবিতা লিখেছিলেন, কোন মুসলিম কবি কেন বিধাতার গুণগান গেয়ে সেই রকম কিছু লিখেননি?

২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:১৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: "সেই রকম কিছু" না লিখলেও অনেকেই নিজের মত করে লিখেছেন। আর মান ভাল হলে সংখ্যাটা বিবেচ্য নয়।

৭| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:৩৮

করুণাধারা বলেছেন: সহজ সরলভাবে প্রভুর কাছে প্রার্থনা, ভালো লাগলো।

"হাবিব স্যার" এর কথা মাঝে মাঝে মনে পড়ে। উনি সূরার অনুবাদ করতেন কাব্যের মতো ছন্দময় করে। কেন উনি অনুপস্থিত জানিনা।

২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:০১

খায়রুল আহসান বলেছেন: "হাবিব স্যার" এর কথা আমারও মাঝে মাঝে মনে পড়ে। তিনি অল্প সময়ের মধ্যে অনেকগুলো পোস্ট লিখেছিলেন এবং অকপটে তার মাদাসায় শিক্ষাজীবন সম্পর্কে কিছু বিরূপ অভিজ্ঞতার কথাও লিখেছিলেন। তিনি অনেক পোস্টে মন্তব্য করতেন এবং অচিরেই বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। তিনি একটি পাসপোর্ট পেতে বেশ জটিলতার সম্মুখীন হয়েছিলেন। আমার মনে হয় শেষ পর্যন্ত হয়তো তিনি তার সেই জটিলতা অতিক্রম করতে পেরেছিলেন এবং এখন হয়তো প্রবাসে কোথাও পাড়ি জমিয়েছেন। সে জন্যেই হয়তো তিনি আপাততঃ ব্লগে অনুপস্থিত রয়েছেন। এটা নিছক আমার একটি ধারণা মাত্র।
মন্তব্যে এবং প্লাসে পীত ও অনুপ্রাণিত। অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা....

৮| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১০

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
মা শা আল্লাহ, অসাধারণ প্রকাশ। মহান রবের তরে সকলের এমন চাওয়া পূর্ণ হোক। বিশেষত, আপনার।
'সারা বিশ্বের মালিক তুমি
তোমার অধীন আকাশ ভূমি
অতল সাগর, উচ্চ পাহাড়
সকল প্রাণের সব সমাহার
এক তোমার আদেশে সৃষ্ট।'
কবিতার ভাব যতটুকু থাকে কবির ভেতর পাঠকের মধ্যে ততটুকু থাকে না। কবির শান অনুযায়ী তার কবিতা মান থাকে অনেক উঁচু। আমি আপনার সঠিক মাপের পাঠক হওয়ার যোগ্য নই। দু'আ রাখবেন। 'এক তোমার আদেশে সৃষ্ট।' এর জায়গায় 'তোমারই এক আদেশে সৃষ্ট।' কেমন মানায় একটু দেখার অনুরোধ থাকবে।

আপনার শারীরিক ও মানসিক সুস্থতা সবসময় কামনা করি।

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:৪৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: 'এক তোমার আদেশে সৃষ্ট' - এখানে 'এক' বলতে আমি প্রভুর একটি আদেশ বুঝাইনি, আমি বুঝিয়েছি প্রভুর অন্যতম বৈশিষ্ট্য, একত্ব বা 'আহাদা', অর্থাৎ 'এক' প্রভুর আদেশ। হয়তো সেটা কবিতায় স্বচ্ছভাবে প্রস্ফূটিত হয় নাই, তবুও, আমি সেটাই বুঝিয়েছি।
আপনার শারীরিক ও মানসিক সুস্থতা সবসময় কামনা করি - অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনার এ দুয়া এবং শুভকামনার জন্য।
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হয়েছি।

৯| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:৪৫

শায়মা বলেছেন:

আকাশ ভরা সূর্য্য তারা বিশ্ব ভরা প্রাণ!
তাহারই মাঝ খানে আমি পেয়েছি মোর স্থান।


সৃষ্টিকর্তার প্রতি আমরা কৃতজ্. এই অপার সৃষ্টির মাঝে আামাদেরকে স্থান দিয়েছেন।

২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৩৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: খুব সুন্দর বলেছেন। কৃতজ্ঞতার শেষ নেই কোন।
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হলাম। অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!

১০| ২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৫৪

ওমেরা বলেছেন: আল্লাহর কাছে চাইলে আল্লাহ খুশী হন। আমাদের যখন যা প্রয়োজন আল্লাহর কাছেই চাইতে হবে ।
আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া আমরা যেমন ভালো কাজ করতে পারবো না, তেমনি আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া আমরা খারাপ কাজ থেকে ও বিরত থাকতে পারবো না ।
খুব ভালো লাগলো আপনা প্রার্থনা কবিতা।

২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: মন্তব্যে আপনার চমৎকার উপলব্ধিগুলো ব্যক্ত করেছেন, এ জন্য অশেষ ধন্যবাদ। আমারও খুব ভালো লাগলো আপনার ভাবনাগুলো। মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হয়েছি। শুভকামনা....

১১| ২৭ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:৩৪

মলাসইলমুইনা বলেছেন: খায়রুল ভাই,
আধ্যাত্মিক ভাবের এই কবিতা পড়ে খুব ভালো লাগলো পড়ে কবিতা । কবি গোলাম মোস্তফার একটা কবিতা "প্রার্থনা" আমাদের স্কুলে সম্ভবত কোনো একটা ক্লাসের বাংলা বইয়ে ছিল । সেটা সূরা ফাতিহার কবিতা রূপ । আশ্চর্যের ব্যাপার হলো কবিতার প্রথম চার লাইন এখনো মনে আছে ! সেই কবিতার মতোই ভালো লাগলো আপনার কবিতাটাও। আপনি নিশ্চই পড়েছেন সেই কবিতাটা । তবুও পুরো কবিতাটা কপি করে দিলাম ইন্টারনেট থেকে ।

প্রার্থনা

অনন্ত অসীম প্রেমময় তুমি
বিচার দিনের স্বামী।
যত গুণগান হে চির মহান
তোমারি অন্তর্যামী।

দ্যুলোক-ভূলোক সবারে ছাড়িয়া
তোমারি চরণে পড়ি লুটাইয়া
তোমারি সকাশে যাচি হে শকতি
তোমারি করুণাকামী।

সরল সঠিক পূণ্য পন্থা
মোদের দাও গো বলি,
চালাও সে-পথে যে-পথে তোমার
প্রিয়জন গেছে চলি।

যে-পথে তোমার চির-অভিশাপ
যে-পথে ভ্রান্তি, চির-পরিতাপ
হে মহাচালক,মোদের কখনও
করো না সে পথগামী।

০১ লা মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১০

খায়রুল আহসান বলেছেন: কবি গোলাম মোস্তফা রচিত "প্রার্থনা" কবিতাটি আমাদের সময়েও স্কুলে পাঠ্য ছিল। সেই যে কবে কবিতাটি মুখস্থ করেছিলাম, পুরো কবিতাটি আমার এখনো মুখস্থ আছে। এমন কি আমার তিন ছেলেকে ছোট বেলায় ঘুম পাড়ানোর সময় শোনাতে শোনাতে তাদেরও মুখস্থ হয়ে গিয়েছিল! হয়তো ওদেরও এখনো আংশিকভাবে হলেও, মুখস্থ আছে।
আমার এ নগণ্য কবিতাটি পড়ে আপনার সেই প্রাতঃস্মরণীয় কবিতাটির কথা স্মরণে এসেছে, এটা অবশ্যই আমার জন্য এক বড় পাওনা। অনেক ধন্যবাদ জানবেন, এমন চমৎকারভাবে মন্তব্য করে আর প্লাস দিয়ে উৎসাহিত করে যাবার জন্য।

১২| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ভোর ৪:১৭

সোহানী বলেছেন: আপনার কি কোন কারনে মন খারাপ?

০১ লা মার্চ, ২০২১ রাত ১১:১৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: যদিও কোন মন খারাপের অনুভূতি থেকে কবিতাটি লিখা হয়নি, তথাপি দেশের খবর থেকে তো বুঝতেই পারেন হয়তো বা, এমন পরিস্থিতিতে কারো মন ভাল থাকতে পারে না।
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হলাম। অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা!

১৩| ০৩ রা মার্চ, ২০২১ বিকাল ৫:৩৬

রক্ত দান বলেছেন: খুব সুন্দর কবিতা।

০৩ রা মার্চ, ২০২১ রাত ১১:৩৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ। প্রীত হ'লাম।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.