নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

করুণাধারা

করুণাধারা

জীবন যখন শুকাইয়া যায় করুণাধায় এসো

করুণাধারা › বিস্তারিত পোস্টঃ

সাময়িক পোস্ট: বন্ধ হয়ে গেল সচলায়তন

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৩৭


বন্ধ হয়ে গেল সচলায়তন! view this link

সামহোয়্যারইনব্লগ থেকে কয়েকজন ব্লগার আলাদা হয়ে শুরু করেছিলেন সচলায়তন বা সংক্ষেপে সচল ব্লগ। এটি বন্ধ হবার মূল কারণ উল্লেখ করা হয়েছে দুটি:

১) অনলাইনে প্রকাশিত লেখা পড়ার চাইতে ভিজুয়াল কনটেন্ট দেখার আগ্রহ মানুষের বেশি। তাই ফেসবুক, এক্স এসবের দর্শক বেশি, সচলের পাঠক কম। ফলে সচলে লেখার হার কমে যাওয়া।

২) ব্লগ চালাতে আর্থিক অসামর্থ্য।

সামহোয়্যারইনব্লগ ব্লগ যেন এভাবে বন্ধ না হয় সেজন্য আমাদের সবার কাজ করতে হবে। কীভাবে কাজ করা যায়?

মন্তব্য ৮১ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (৮১) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৪৬

ঢাবিয়ান বলেছেন: এত ভয়াবহ খবর। তবে সচলায়তন ব্লগ কি আরো অনেক আগেই বন্ধ হয়ে যায়নি ?

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:২২

করুণাধারা বলেছেন: সচলায়তন ব্লগ কি আরো অনেক আগেই বন্ধ হয়ে যায়নি

সম্ভবত না। পোস্ট খুব হলেও বন্ধ হয়নি আগে। যে লিঙ্ক দিয়েছি তাতে বলছে আজ থেকে বন্ধ হয়েছে।

২| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৫৩

শায়মা বলেছেন: :(


:(



:(



আমাদের সামু ব্লগ যেন কিছুতেই বন্ধ না হয়!!!!!!!!! তাই কিছু পদক্ষেপ-

১। যারা এখনও টিকে আছেন বা ঢু মারেন সবাইকেই রোজ রোজ একটা করে পোস্ট লিখতে হবে। :)

২। সকল হিংসা বিদ্বেষ রাগ দুঃখ অভিমান ভুলে সবাইকে সবার পোস্ট পড়তে হবে, কমেন্ট করতে হবে।

৩। কোনো ব্লগার যদি প্রতিদিন ৩০ টা না কমেন্ট করে ও ১ টা পোস্ট না লিখে তবে তাকে শাস্তি স্বরুপ ( কি করা যায়!!! )

৪। যেই ব্লগার মাসের ৩০ দিন ৩০ পোস্ট লিখতে পারবে তাকে পুরষ্কার দেওয়া হবে। ( পরীর দেশে যাইবার পাখা) :)


আরও কি কি করা যায় অন্যেরা বলুক....

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৩৬

করুণাধারা বলেছেন: যেই ব্লগার মাসের ৩০ দিন ৩০ পোস্ট লিখতে পারবে তাকে পুরষ্কার দেওয়া হবে। ( পরীর দেশে যাইবার পাখা)

এ এমন মহা পুরষ্কার, দেখা যাবে ব্লগারদের মধ্যে পোস্ট লেখার হিড়িক পড়ে গেছে, দিনে একটা না দুইটা- তিনটা করে লিখছে, পুরনো বই, খবরের কাগজ যেখানে যা পায় তা থেকে টুকে... তারপর বাঁধবে মহা ক্যাচাল পরীর দেশে যাবার পাখা পাবার জন্য!! এমন সময় তোমার সুললিত কন্ঠের ঘোষণা আসবে, "পরীর দেশে যাবার পাখা অর্ডার দিয়েছি... যতক্ষণ পাখা না আসে ততক্ষণে আরো কয়েকটা পোস্ট লিখে ফেল ভাইয়ুমনি সকল..."

ঠাট্টা বাদ। তোমার ১,২ নম্বর ভালো হয়েছে। তিন নম্বরে শুরুতে এত বেশি না দিয়ে একটু কমিয়ে দিও।

আমার আরেকটা আইডিয়া আছে, ভিডিও পোস্ট করা যেতে পারে। ভ্রমণের, নাচের, গানের, পুতুল নাচের আরো যা যা আছে। তবে এই কাজে আমার পারদর্শীতা শূন্য!

৩| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৫৪

শূন্য সারমর্ম বলেছেন:


সামু থেকে কারা গিয়েছিলো সচলায়তন খুলতে?

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৩৬

করুণাধারা বলেছেন: জানিনা। মে লিঙ্ক দিয়েছি সেখানে একথা বলা হয়েছে।

৪| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৫৬

এম ডি মুসা বলেছেন: আমি ও নিবন্ধন করেছি, যাওয়া হয়নি। সাত আট বছর আগে নিবন্ধিত হয়েছি।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৩৭

করুণাধারা বলেছেন: ভালো করেছেন যান নি!

৫| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:০৭

রানার ব্লগ বলেছেন: সামু কে যেকন মূল্যে টিকে থাকতে হবে । আমরা যারা পড়তে পছন্দ করি এবং নতুন প্রজন্ম যারা পড়তে আগ্রহী হচ্ছে তাদের জন্য ।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৪০

করুণাধারা বলেছেন: সামুর পরে জন্ম নেয়া অনেক ব্লগ বন্ধ হয়ে গেছে, কিন্তু সামু টিকে আছে। তাই আমাদের সচেষ্ট হতে হবে এটি টিকিয়ে রাখতে। ভেবে বের করতে হবে কিভাবে এটা চালু রাখা যায়।

৬| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:০৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: সবাই বেশি বেশি করে মানসম্মত পোস্ট লিখতে চেষ্টা করুন, বেশি বেশি করে অন্যের পোস্ট পড়ুন এবং সেখানে প্রাসঙ্গিক মন্তব্য করুন আর কুরুচিপূর্ণ, ব্যক্তি আক্রমণাত্মক মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকুন। তাহলেই ব্লগের পাঠক সংখ্যা অনেক বেড়ে যাবে বলে মনে করি।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৪২

করুণাধারা বলেছেন: ঠিক বলেছেন। বহুদিন ধরে, বহুজনের লেখা নিয়ে গড়ে ওঠা এই ব্লগকে টিকিয়ে রাখতে আমাদের এভাবেই চেষ্টা করতে হবে।

৭| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:১১

ঢাবিয়ান বলেছেন: ফেসবুকে নাকি সামু ব্লগের একটা গ্রুপ আছে। প্রায়ই সেটার কথা ব্লগে শুনি। কেউ কি একটু লিংক দিতে পারেন? ফেসবুকে সার্চ দিলে যে লিংক দেখায় সেটাতে দেখি কাক পক্ষীও নাই। কোণ কারনে ব্লগ বন্ধ হয়ে গেলে ফেসবুকে কানেক্টেড থাকতে চাই

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৫১

করুণাধারা বলেছেন: আমি এটা ঠিক জানি না। শায়মা বা কাজি ফাতেমা ছবি বলতে পারেন।

৮| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:১৫

কামাল১৮ বলেছেন: কম লেখা থাকলেও লেখার মান ভালো ছিলো।আমি নিয়মিত পড়তাম।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৫২

করুণাধারা বলেছেন: আমি মাঝে মাঝে পড়তাম। লেখার মান ভালো ছিল।

৯| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৪৬

শায়মা বলেছেন: ভিডিও পোস্ট করা যায় না মনে হয় সামুতে। আমি করতে পারি না। :(

তবে ইউটিউব লিঙ্ক পোস্ট করা যায়।


কাল কিন্তু সন্ধ্যায় হালকা বেগুনী জামদানীটা পরে আমি এক খানে যাবো....... সেই ভিডিওটাও ইউটিউবে থাকবে কিন্তুক আপুনি!!!!!!! :)

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৫৯

করুণাধারা বলেছেন: আমি তো ভেবেছি ইউটিউব লিংককেই ভিডিও বলে!!! আমার এ ব্যাপারে জ্ঞান গম্যি খুব কম!

জানা থাকলো তোমার ইউটিউব ভিডিওর কথা। আশাকরি খুঁজে বের করে দর্শন করতে পারবো। B-)

১০| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৫১

শায়মা বলেছেন: ও আরেকটা কথা পোস্ট দিতে বললাম বলে তাই বলে যেমন খুশি তেমন লেখো যা মনে চায় তাই বলো লিখিলে চলিবেক লাই। X((

তাইলে পরীর দেশে নিয়ে গিয়ে আকাশ থেকে ফেলে দেওয়া হবে।

আর কমেন্টে মিসবিহেব গালাগালি, কারণে অকারণে যাচ্ছেতাই বলে হিরো হিরোইন সাজার চেরেষ্টা করলে কিন্তু সানভি টনির মত অবস্থা হবে।

কাজেই যাহাই করিবো ভাবিয়া করিবো....... যাহা মনে লহে তাহাই করিবোক না।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১১:১৩

করুণাধারা বলেছেন: ঠিক আছে। এই কথাগুলো "মানতে হবে ১, ২, ৩..." এভাবে লিখতে হবে। যে লিঙ্ক দিয়েছি সেখানে লেখা আছে যে আজকাল মানুষ পড়ার চাইতে দেখতে ভালোবাসে। তাই ছবি ব্লগের সংখ্যা বাড়াতে হবে। ভালো হয় তোমার মত বিশাল বিশাল ছবিওয়ালা পোস্ট দিতে পারলে।

একটা জিনিস কিন্তু ঠিক, আমি যেসব ব্লগে গেছি আর ভালো লাগেনি, যেমন সচলায়তন, গুরুচন্ডালী, বাংলার আড্ডা এগুলো প্রায় ছবিহীন। সামুর পোস্টের সাথে ছবি দেয়ার যে রীতি আছে, তাতে পোস্ট আকর্ষণীয় হয়।
আপনার মন্তব্য লিখুন

১১| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১১:২৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: দুঃখ জনক।

২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১১:৩৯

করুণাধারা বলেছেন: সচলায়তন বন্ধ হয়ে যাওয়াটা দুঃখজনক। আশাকরি সামুর অঙ্গন অনেক ব্লগারের পদচারণায় মুখরিত থাকবে।

১২| ২১ শে মে, ২০২৪ রাত ১১:৪২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রথম কথা হলো, পোষ্টটা সাময়িক না, রেখে দেন। এখানে কিছু আলাপ-আলোচনা হতে পারে, যদিও নতুন করে বলার খুব একটা কিছু নাই। ব্লগ টিকিয়ে রাখতে একটা সময়ে অনেক আলাপ-আলোচনা হয়েছিল। সেগুলোই এখনো বাস্তবায়িত হয় নাই। কেন হয় নাই, কিছুটা আমরা জানি; আবার অনেকটুকুই কর্তৃপক্ষ পরিস্কার করে বলেন নাই। স্যরি টু সে, কর্তৃপক্ষের সাথে ব্লগারদের কমিউনিকেশান অনেকটা রাজা-প্রজার যোগাযোগের মতো। :)

শায়মা বলেছেন: যারা এখনও টিকে আছেন বা ঢু মারেন সবাইকেই রোজ রোজ একটা করে পোস্ট লিখতে হবে। :) অতোটা দরকার নাই। তুমি প্রত্যেকদিন একটা করে তোমার নাচ-গানের পোষ্ট দিলেই ব্লগ জমে যাবে। পুতুল নাচ........থুক্কু রাজকন্যার নাচ দেখতে দর্শকদের হুড়াহুড়ি পড়ে যাবে। =p~

লেখক বলেছেন: আমি মাঝে মাঝে পড়তাম। লেখার মান ভালো ছিল। এটা তাদের কোন ক্রেডিট না। তারা নির্বাচিত লেখা প্রকাশ করতো। সামু'র মতো অং, বং, চোরাই লেখা, পেপার থেকে কপি/পেষ্ট লেখা, ফেসবুকীয় স্ট্যাটাস ইত্যাদি কখনও প্রকাশ করতো না। সামু যদি শুধু নির্বাচিত লেখা প্রকাশ করা শুরু করে তাহলে মান সচলের চেয়ে কম হবে না, বেশীই হবে। তবে আগাছা ব্লগার কমে যাবে!!! :P

শায়মা বলেছেন: কাল কিন্তু সন্ধ্যায় হালকা বেগুনী জামদানীটা পরে আমি এক খানে যাবো....... সেই ভিডিওটাও ইউটিউবে থাকবে কিন্তুক আপুনি!!!!!!! :) :-B একটাতে হবে না। ৩৬৫ দিনে ৩৬৫টা শাড়ির প্রদর্শনী দেখতে চাই। :-B

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:০৮

করুণাধারা বলেছেন: পোস্ট সাময়িক পোস্ট হিসেবে দিয়েছিলাম। কিন্তু পোস্ট দেয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ঘুমাতে যাওয়ায় এত মন্তব্য জমে গেল যে এইগুলোর উত্তর না দিয়ে পোস্ট ডিলিট করাটা অন্যায় হবে মনে হয়। তাই থাক কয়েকদিন।

ব্লগ কর্তৃপক্ষ যদি সাথে সমস্যা নিয়ে আলোচনা করতেন ভালো হতো। আমরা যেমন চাই না, উনারাও নিশ্চয়ই চান না যে ব্লক বন্ধ হয়ে যায়।

শায়মা প্রতিদিন একটা করে নাচ গানের পোস্ট দিলে ব্লগ জমে যাবে সন্দেহ নাই! আশা করি শায়মা এই কাজটা আনন্দর সাথে করবে।

সামু যদি শুধু নির্বাচিত লেখা প্রকাশ করা শুরু করে তাহলে মান সচলের চেয়ে কম হবে না, বেশীই হবে

সামুর নির্বাচিত পোস্ট খুব সিরিয়াসলি করা হয় বলে আমার মনে হয় না। মাঝে মাঝে দু একদিন বাদ পড়ে যায়, সেই সময়কার ভালো পোস্ট বাদ পড়ে। আবার কখনো আগাছা পোস্ট নির্বাচিত হয়।

৩৬৫ দিনে ৩৬৫টা শাড়ির প্রদর্শনী দেখতে চাই।

আমিও চাই! কিন্তু সেটাকে কেউ নিম্নমানের পোস্ট বলবে না? আপনি নিশ্চিত?

১৩| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ১২:১৩

শ্রাবণধারা বলেছেন: খুব দুঃখজনক একটি ঘটনা।

মাঝেমাঝেই সচলায়তনে ঢুকতাম। এখানে পোস্টের সংখ্যা কম হলেও পোস্ট গুলো ছিলো খুবই মানসম্পন্ন।

শেষ যে পোস্টটি এখানে বেশ ভালো লেগেছিলো সেটার নাম ছিলো "নামে কিবা আসে যায়!"। আমাদের দেশে নামকরনের ক্ষেত্রে যে দ্বিচারিতা, আমরা যে এখনও "হিটলার" জাতীয় নাম রাখি এই নিয়ে ছিলো এই পোস্টটি।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:১৬

করুণাধারা বলেছেন: সচলায়তনের পোস্ট আমারও ভালো লাগতো, অনেক পোস্ট আমি বুকমার্ক করে রেখেছি। কিন্তু সম্ভবত মান ধরে রাখতে গিয়ে তারা এত যাচাই-বাছাই করত যে পোস্টের সংখ্যা অনেক কম হতো, স্বভাবতই তখন মানুষ ঢু মারতে আসতো কম। এভাবেই লেখক পাঠকের সংখ্যা কমে এসেছিল।

"নামে কিবা আসে যায়" খুঁজে নিয়ে পড়লাম। ১৭/০৮/২০২৩ এর পোস্ট। আমাদের দ্বিচারিতা কেবল নামকরণের ক্ষেত্রে নয় জীবনের অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়... ভালো একটা পোস্টের কথা জানতে পারলাম আপনার থেকে, অসংখ্য ধন্যবাদ।

১৪| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ২:০৪

জোবাইর বলেছেন: গুরুত্বপূর্ণ দুঃসংবাদটি আমাদেরকে অবগত করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। সচলায়তন ব্লগে নিয়মিত লিখতেন কিছু নির্বাচিত ব্লগার। অতিথি ব্লগার হিসাবে লিখতে হলেও পোস্টের মান ও আরো অনেক রকমের শর্ত ছিল। তাই ওখানে প্রকাশিত পোস্টের সংখ্যা কম হলেও সেগুলোর মান ভালো ছিল।

সচলায়তনের ব্লগের বন্ধ হওয়ার নোটিশটি এখানে কপি-পেস্ট করলাম গঠনমূলক আলোচনা করার জন্য:

"সচলায়তনের প্রিয় সদস্য ও অতিথিবৃন্দ,
শুভ নববর্ষ।
গত কয়েক বছরে সচলায়তনে লেখা আর মন্তব্যের স্রোত ক্রমশ ক্ষীণ হয়ে এসেছে। সচলায়তনের কারিগরি ব্যয় কম নয়, আর এই ব্যয় কয়েকজন সদস্য গত সতেরো বছর ধরে বহন করে চলছেন। সদস্য-অতিথিদের অনুৎসাহ বিবেচনায় নিয়ে আমরা সচলায়তনকে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্যে নিশ্চল রাখতে যাচ্ছি। ভবিষ্যতে আবারও যদি সময়-সুযোগ-সাধ্যের মেলবন্ধন ঘটে, সচলায়তন পুনরায় সক্রিয় হবে।
এ যাবৎ সচলায়তনে প্রকাশিত লেখা আর মন্তব্য কেবল-পাঠ্য (Read-only) আকারে সংরক্ষিত থাকবে।
আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ।"

মূলতঃ ৩টি কারণে সচলায়তন অনির্দিষ্ট সময়ের জন্যে বন্ধ হচ্ছে। এই সমস্যাগুলো আমাদের সামু ব্লগেরও আছে। বিশেষ করে ব্লগ চালানোর খরচের ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে মডারেটর বেশ কয়েকবার ব্লগারদের সাথে আলোচনাও করেছিলেন। দুঃখজনক হলেও সত্য যে আমরা এখানে অনেকে মুখের কথায় "দিল্লী-হিল্লী" জয় করে ফেলবো ভাব দেখালেও গ্রহণযোগ্য বাস্তবসম্মত কোনো সমাধান দিতে পারি নাই।

সামু ব্লগ যেন এ ধরনের বেদনা-বিধুর পরিস্থিতিতে না পড়ে তার জন্য আমদের সবাইকে এখন থেকেই সিরিয়াসলি ভেবেচিন্তে কিছু গঠনমূলক পরিকল্পনা নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করি।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৩১

করুণাধারা বলেছেন: আমি যখন প্রথম আলোয় সচলায়তন বন্ধ আবার খবর দেখলাম, সেই খবরের এক জায়গায় লেখা ছিল "সামহোয়্যার ইন ব্লগ এখনো অনুল্লেখ্য পরিসরে চালু রয়েছে", এই "অনুল্লেখ্য" শব্দের সমার্থক শব্দ আমার মনে হল মিট মিট করে। তখন প্রিয় সামুর পরিণতি নিয়ে ভাবনা হলো, এবং সাথে সাথে এই পোস্ট দিলাম।

আপনাকে ধন্যবাদ, সচলায়তন ব্লগ বন্ধ হবার নোটিসটি এখানে শেয়ার করার জন্য।

সামুতে প্রতিদিন যত পোস্ট আসে তার দশভাগের এক ভাগও প্রতিদিন সচলায়তনে দেখা যেত না। সেদিক থেকে বলা যায় যে সামুতে জনসমাগম কম নয়, কিন্তু এর কারিগরি ব্যয় কত, তা কিভাবে নির্বাহ হয়, সেটা নিয়ে সমস্যা কত দূর হচ্ছে তা আমরা ব্লগাররা কিছুই জানিনা। জানতে পারলে হয়তো সমাধানের চেষ্টা করা যেতো।

সামু ব্লগ যেন এ ধরনের বেদনা-বিধুর পরিস্থিতিতে না পড়ে তার জন্য আমদের সবাইকে এখন থেকেই সিরিয়াসলি ভেবেচিন্তে কিছু গঠনমূলক পরিকল্পনা নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করি।

একমত।

১৫| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ২:৪৪

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: বেশ ক'বার ভিজিট করা হলেও কখনোও রেজিষ্ট্রেশন করা হয় নি। বলতে পারেন ইচ্ছেও জাগে নি। বাংলায় যতদিন ব্লগিং করবো সম্ভবত সামুতেই করা হবে। এটাও যদি বন্ধ হওয়ার মতো পরিস্থিতি হয়, তবে সম্ভবত নিজের সাইটেই সেটা চালু থাকবে তবে বাংলা ব্লগিং এর সম্ভাবনা খুবই কম। ধন্যবাদ।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৩৬

করুণাধারা বলেছেন: ব্লগিং করা অর্থ নিজের ভাবনা চিন্তা অন্যের সাথে শেয়ার করা। এই বুদ্ধিবৃত্তিক কাজটা করতে করতে নিজের ভাবনা শাণিত হয়ে ওঠে।

আমি একটা জিনিস লক্ষ্য করেছি এই প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা লিখতে জানে না অথবা চায় না! এত ভুল লেখা! আমি আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যে যেসব ছেলে মেয়েরা বিদেশে আছে, তাদের লেখা এবং বাংলাদেশে যারা আছে তাদের লেখা পড়ে বুঝি যে বাংলাতে নিজের মনের ভাব প্রকাশ করতেও জানে না যারা দেশে আছে তারা। এক্ষেত্রে ব্লগিং এর মাধ্যমে তারা মনের ভাব প্রকাশ করা শিখতে পারত।

এই ব্লগ থাকাটা খুব দরকার।

১৬| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ২:৫৪

অহন৭১ বলেছেন: So sad................

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৩৭

করুণাধারা বলেছেন: অবশ্যই দুঃখজনক।

১৭| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ২:৫৫

আরেফিন৩৩৬ বলেছেন: খারাপ খবর

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৩৮

করুণাধারা বলেছেন: সেটাই। আশাকরি আমাদের ব্লগ বেঁচে থাকবে প্রাণবন্ত হয়ে।

১৮| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৩:৩৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: করুণাধারা ,




লেখক- পাঠকের অভাবে এভাবে কোন ব্লগ বন্ধ হয়ে যাওয়াটা স্বস্তিদায়ক নয়।

সামুকে টিকিয়ে রাখতে হলে যারা যারা এখানে আছেন তাদের আন্তরিকতাই যথেষ্ট।
পাশাপাশি ১৪ নম্বর মন্তব্যে জোবাইর এর ব্লগ চালানোর খরচের ব্যাপারটা আবারও সামনে আনা যেতে পারে।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৪১

করুণাধারা বলেছেন: মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ আহমেদ জী এসে।

সামুকে টিকিয়ে রাখতে হলে যারা যারা এখানে আছেন তাদের আন্তরিকতায় যথেষ্ট

ভরসা পেলাম। তাহলে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ শুরু করে দেই। সেই সাথে আর্থিক সমস্যা কিভাবে কাটানো যায় সেটা নিয়েও কাজ শুরু করে দেই।

১৯| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৭:৩৪

জুন বলেছেন: খুবই দু:খজনক খবর। আমাদের ব্লগটা যেন বেচেবর্তে থাকে এটাই প্রত্যাশা রইলো সবাই যেভাবে বলছে সেই মত থেকে ।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৪৩

করুণাধারা বলেছেন: আমাদের ব্লগটা যেন বেচেবর্তে থাকে এটাই প্রত্যাশা রইলো সবাই যেভাবে বলছে সেই মত থেকে ।

ঠিক বলেছেন। কিন্তু সেজন্য আপনাকেও আর একটু বেশি আসতে হবে, অন্তত আমেরিকা কানাডার নানা জায়গার ছবি ব্লগ নিয়ে হলেও।

২০| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৮:১৬

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আয় রোজগার ঠিক মত না থাকলে কোন কিছুই টেকে না। ব্যক্তি পর্যায় থেকে শুরু করে কর্পোরেট পর্যায় পর্যন্ত একই অবস্থা। কয়েকদিন আগে পেপারে পড়লাম সম্ভবত কেনাডাতে প্রতি বছর অনেক লাশের সৎকার হয় না কারণ আত্মীয় স্বজন এতো খরচ বহন করতে পারে না বা চায় না। পৃথিবীতে বর্তমানে জন্মের সময় অনেক টাকা, মৃত্যুর খরচও বাড়ছে। কোন ব্লগই লস দিয়ে চলবে না। যদি ট্রাস্ট করে দেয়া হয় তাহলে চলতে পারে। ট্রাস্টের সম্পত্তির আয় থেকে বহু বছর প্রতিষ্ঠান চলতে পারে। এছাড়া নিজের পকেটের টাকা দিয়ে কেউ অলাভজনক ব্লগ অনন্তকাল চালাবে না। সামুর ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হবে কি না জানি না।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৪৬

করুণাধারা বলেছেন: অর্থ সম্পর্কীয় বিষয়ে আমার জ্ঞান প্রায় শূণ্য। সেজন্য কিভাবে কি করা যায় আমি কিছুই বুঝতে পারি না।

কিন্তু ব্লগে জনসমাগম বেশি হলে ব্লগের প্রাণশক্তি বাড়ে বলে শুনেছি। এটা কিভাবে হয় জানিনা, তবে চেষ্টা করব এখন থেকে নিয়মিত হতে। আমি তো নিয়মিতই ছিলাম, আপনি ছিলেন না। এখন থেকে নিয়মিত হয়ে যান

২১| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৯:১০

কথামৃত বলেছেন: ওই বগ্লে লেখা প্রকাশ করা অনেক কঠিন। বন্ধ হইছে, কারণ নতুন লেখকদের তারা সুযোগ খুব কম দেয়।

২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:৪৯

করুণাধারা বলেছেন: লেখার মান বজায় রাখতে গিয়ে তারা এমনই কঠিন ছাঁকনির ব্যবস্থা করল যে দেখা গেল ছাঁকনি দিয়ে কিছুই যায় না... ব্লগটাই বন্ধ হয়ে গেল। তার চাইতে আমাদের ভালো-মন্দ লেখা নিয়ে ভরা সামু ব্লগ ভালো।

২২| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৯:১৯

অপু তানভীর বলেছেন: ফ্রি কমিউনিটি ব্লগের দিন অনেক আগেই শেষ হয়েছে । এটা নতুন কিছু নয় । কেবল মাত্র ব্যক্তিগত উদ্যোগে একটি পুরো ব্লগ টিকিয়ে রাখা খুবই কষ্টসাধ্য ব্যাপার । এটা টিকে থাকাই বরং বিস্ময়ের ব্যাপারে ।
এখন যত কমিউনিটি ব্লগ টিকে আছে বিশ্বে তার বেশির ভাগই হয় কোন প্রতিষ্ঠানের সিস্টার কনসার্ন অথবা সাবস্ক্রাইব সিস্টেমে । কেবল মাত্র ব্যক্তি উদ্যোগে এতো বড় ব্লগ কোন ভাবেই টিকে থাকতে পারে না !

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:১৯

করুণাধারা বলেছেন: আপনার মন্তব্য থেকে যা বুঝলাম, ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে ওঠা এবং চলমান এই ব্লগটাকে আগামী দিনে চালিয়ে নেয়াটা বেশ কঠিন হয়ে উঠতে পারে। সেক্ষেত্রে করণীয় কিছুই কি নেই! আমার মাঝে মাঝে মনে হয়, সামু ব্লগের প্রতিষ্ঠাতাকে সরকারিভাবে স্বীকৃতি এবং পুরস্কার দেয়া উচিত, কারণ এই ব্লগ অনেককেই লেখা শিখিয়েছে। আমি দেখছি আমাদের বর্তমান প্রজন্মের যেমন জ্ঞানার্জনে ঘাটতি আছে তেমনি লেখার দক্ষতারও ঘাটতি আছে। এই প্রজন্ম ব্লগিং করতে জানলে উপকৃত হতো।

অর্থাৎ ব্লগকে টিকিয়ে রাখা দরকার।

২৩| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৯:৫৯

মিরোরডডল বলেছেন:





তাহলে সবাইকে কি এখনই বাই বলে যাবো, পরে যদি আর সুযোগ না হয় :)

আমিতো সোশ্যাল মিডিয়ার কোথাও নেই, শুধু সামুতেই ছিলাম।
সামু বন্ধ হয়ে গেলে প্রিয় ব্লগারদের সাথে এখানেই ইতি।

ব্লগে এসে নির্মল আনন্দ পেয়েছি :)
joking apart, সত্যি যদি কখনও সামু বন্ধ হয়ে যায়, শ্বাসরুদ্ধকর মনে হবে, ভীষণ মিস করবো সবাইকে।



২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩১

করুণাধারা বলেছেন: বাই বলার দরকার নেই। আশা করি আমরা কেউ কাউকে বাই বলবো না!

আমাদের এমন হয় না, ধরো একজনের ঘরে আগুন লাগার খবর পেলাম শুনে মনে হবে আমার ঘর নিরাপদ আছে কিনা দেখে নেই। অনলাইন পত্রিকায় সচলায়তনের খবর দেখার পরই মনে হয়েছিল আমাদের ব্লগ ঠিক আছে তো!! ওই পোস্টে একটা বাক্য লেখা আছে, "সামহোয়্যার ইন ব্লগ এখনো অনুল্লেখ্য পরিসরে চালু আছে।" মনে কর কিছুটা ভয় পেয়েই তাড়াতাড়ি করে এই পোস্ট দিয়েছিলাম, সাময়িক হিসাবে। কিন্তু এতক্ষণ রেখে দিতে হলো কারণ এত মানুষ মন্তব্যর উত্তর দেয়াটা দরকার মনে হয়েছে। একটা লাভ অবশ্য হয়েছে, আজকে অনেক পোস্ট এসেছে আর আমি নিজে অনেক মন্তব্য করেছি।

২৪| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১০:৫২

অধীতি বলেছেন: ওটা অনেকদিন ধরেই বন্ধ ছিল এখন হয়তোবা অফিসিয়াল্লি ঘোষণা আসল।

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩১

করুণাধারা বলেছেন: আপনার মত অনেকেই বলছেন ওটা অনেকদিন বন্ধ ছিল। আমি জানতাম না। এই সম্পর্কিত খবর দেখে আমি এই পোস্টটা দিয়েছি।

২৫| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:২৭

ঋণাত্মক শূণ্য বলেছেন: ঢাবিয়ানের করা প্রশ্ন আর আমার প্রশ্ন একই। সাথে জুড়তে চাই, এটাই কি হবার কথা ছিলো না?

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩৩

করুণাধারা বলেছেন: আপনার প্রশ্নের উত্তর আমার জানা নেই! হতে পারে, এটাই হবার কথা ছিল!

২৬| ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:৫৯

শাহ আজিজ বলেছেন: টিকে থাক সামু । একটাই তো জায়গা আড্ডা মারার ।

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩৪

করুণাধারা বলেছেন: টিকে থাক সামু । একটাই তো জায়গা আড্ডা মারার ।
একদম ঠিক! সামু অবশ্যই প্রাণবন্ত হয়ে টিকে থাকবে।

২৭| ২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:১০

শায়মা বলেছেন: হায় হায় হায় হায় হায় !!!

এত কিছু!!!!!!!!!!!! :-/


শুধু সময় কম তাই......

রাতে ফিরে আসছি!!!!!!!!

ওয়েটাং .....

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩৭

করুণাধারা বলেছেন: আমারও তোমার মতো হায় হায় করতে ইচ্ছা করছে.... #:-S

সাজুগুজু করে অনুষ্ঠানে যাও ঠিক আছে, কিন্তু পোস্ট আর মন্তব্যের কথা ভুলে যেওনা। :D

২৮| ২২ শে মে, ২০২৪ বিকাল ৩:১৪

শেরজা তপন বলেছেন: পোস্টটা থাকুক। আগেই বন্ধ হয়েছিল- শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষনার অপেক্ষায় ছিল। বাঙলা ভাষার অন্যতম সেরা ব্লগ ছিল।
নিঃসন্দেহে নিদারুণ দুঃখজনক সংবাদ।
সামু এত সহজে বন্ধ হবার নয়।

২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৪৫

করুণাধারা বলেছেন: বাঙলা ভাষার অন্যতম সেরা ব্লগ ছিল।

নিঃসন্দেহে। আমি অনেক পোস্ট বুকমার্ক করে রেখেছি। যারা চালাতেন, তাদের মনে হয় ব্লগ নিয়ে উৎসাহ কমে এসেছিল। একটা কিছু গড়ে তোলা যত কষ্টকর ধরে রাখা তার চেয়েও বেশি কষ্টকর।

সামু এত সহজে বন্ধ হবার নয় খুব ভালো লাগলো জেনে।

এই পোস্টে কোনো দরকারি কথা নাই তাই ভেবেছিলাম মুছে দেব। কিন্তু আপনি এবং কয়েকজনের কথায় পোস্ট রেখে দিলাম। পোস্ট অদরকারি, কিন্তু মন্তব্যে অনেক দরকারি কথা আছে।

২৯| ২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৪৭

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আহা ! ধীরেধীরে অনেককিছুই নাই হয়ে যাচ্ছে। আপনার পোষ্ট টা থাকুক আপু আমরা সামু কে আমাদের করনীয় নিয়ে আলোচনা করি এখানে।
ব্লগ টা সত্যি একটা ভালোবাসায় স্থান হয়ে আছে। আমরা আমাদের সামু তে আনন্দের সাথে ব্লগিং করতে চাই।

২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৪২

করুণাধারা বলেছেন: সত্যিই! এই ব্লগটা আমাদের একটা ভালোবাসার স্থান হয়ে আছে। সামু অনেকটা অবারিত দ্বার এক প্রাঙ্গণের মতো, যেখানে সবাই নিজের মতো করে দেয়া নেয়া করতে পারে। অন্য অনেক ব্লগ দেখেছি যেখানে দ্বার অবারিত না, ঢোকা গেলেও নানা বিধিনিষেধ মেনে চলতে হয়। তাই সামুতে ব্লগিং করা এত আনন্দময়। আশা করি আরো দীর্ঘদিন এমনই থাকবে সামু।

পোস্টটা থাকুক তবে...

৩০| ২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৪৯

হাসান মাহবুব বলেছেন: সাময়িক কেন? থাকুক পোস্টটা। সচলতায়ন প্রবল পরাক্রমে ছিল, এখন যাওয়ার সময় কোনো সাড়াশব্দ নেই।

থাকুক কিছু শব্দ তাহার তরে।

২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৫৭

করুণাধারা বলেছেন: থাকুক তবে পোস্টটা!

সচলায়তন প্রবল পরাক্রমে ছিল, উচ্চ মানের লেখা, লেখকদের উচ্চ মার্গীয় চিন্তাধারা ছিল কিন্তু সবকিছু ভেঙে পড়লো যেভাবে অচলায়তন ভেঙে পড়ে...

থাকুক কিছু শব্দ তাহার তরে এপিটাফ! :|

৩১| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৮:২৭

প্রামানিক বলেছেন: ব্লগে আস্তে আস্তে কেন জানি ধ্বস নেমে গেল।

২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৯:৫৯

করুণাধারা বলেছেন: সচলায়তন ব্লগে ধ্বংস নেমে গেল, কিন্তু আমাদের ব্লগকে প্রাণবন্ত করে তুলতে হবে।

৩২| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ৮:৪৭

জুন বলেছেন: একবার সচলায়তনে সচল হইতে গেছিলাম, আমাকে মেইল পাঠায় জানাইলো প্রথমে অতিথি লেখক হিসেবে লিখতে হবে, নিজের নাম উচ্চারণ করা যাইবেক লাই। তখন আমি সামুর স্টার রাইটার করুনাধারা :P এই ইমেইল পাইয়া আমি উত্তর দিলাম "ওক্কে, তা যেদিন আমারে নিজ নামে লেখার সুযোগ দিবেন সেদিন আমারে মেইল কইরা জানাইয়েন" :||
এরপর থেকে আর সচল দর্শন করি নাই :(

২২ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:০৭

করুণাধারা বলেছেন: উত্তর দিলাম "ওক্কে, তা যেদিন আমারে নিজ নামে লেখার সুযোগ দিবেন সেদিন আমারে মেইল কইরা জানাইয়েন"

সচলায়তন জানিল না কী ভুল করিয়াছিল!

আমিও সচল হতে গেছিলাম, কি কারনে আমাকে রিজেক্ট করেছিল সেটা এখন আর মনে নেই, কিন্তু মনে হয়েছিল বাঁচা গেল। কি লিখব সেটা তারা বলতে পারে, কিন্তু নাম কী হবে সেটাও তাদের থেকে শিখতে হবে!!! এই অতিরিক্ত বিধি নিষেধ আর উন্নাসিকতাই তাদের ধ্বংসের কারণ!

৩৩| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:১২

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: মহাকালের গর্ভে সকলই হারায়ে যাবে ।
.......................................................................
সামুর সহিত আমাদের আত্নার বন্ধন তাই সবাই চিন্তিত ।
তবে এর দীর্ঘায়ু কিভাবে করা যায় , তা নিয়ে অনেক আলোচনা চলতে
পারে, প্রস্তাবনা আসতে পারে,
যদি এর মধ্যমনি জানাপুর মতামত আসে ।

২৩ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:২৭

করুণাধারা বলেছেন: সামুর সহিত আমাদের আত্নার বন্ধন তাই সবাই চিন্তিত ।

আত্মার বন্ধন- এটাই মূল কথা! এই বন্ধন এতই শক্তিশালী যে সম্ভবত এটাই সামুকে ভেঙে যেতে দেবে না, টিকিয়ে রাখবে! আমার ধারণা অন্যান্য ব্লগে এই আত্মার বন্ধন ছিল না, কারণ সেখানে ব্লগারদের মধ্যে এমন মিথস্ক্রিয়ার কোনো সুযোগ রাখা হয়নি, যা সামুতে আছে।

৩৪| ২২ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৪৭

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আপনার অবজারভেশন সঠিক বলে আমিও মনে করি। তবে আমরা যারা ৮০ দশকের প্রথম দিকে জন্মেছি তারা তুলনামূলকভাবে ভাষার অনেকটাই কাছাকাছি থাকতে পেরেছি বলে মনে হয়। আমি কম্পিউটারে প্রথম বাংলা লিখা শুরু করি সম্ভবত ৯৮/৯৯ এর দিকে। সেই থেকে শুরু, এখনো চলছে আর আগামীতেও সেটা চালু রাখার ইচ্ছে আছে। বর্তমান প্রজন্মের অনেক বাংলা বানান দেখলে রীতিমত আমার ভীষণ রাগ চড়ে যায়। কান মলে দেয়ার মত রাগ নয়, ভয়ঙ্কর রাগ হয়। যদিও আমি জানি এখানে শিক্ষা, পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড, আর্থ-সামাজিক অবস্থান অনেকগুলো বিষয় কাজ করে, তারপরেও। এ প্রজন্মের আরেকটা ব্যাপার যেটা আমাকে চূড়ান্তভাবে পিসড অফ করে দেয় সেটা হলো তাদের ঘন্টার পর ঘন্টা মোবাইল ব্যবহার করা। এদের অনেকেই কম্পিউটারের পরিবর্তে মোবাইল ব্যবহার করে। জিজ্ঞেস করলে অনেকেই বলবে কম্পিউটার কিনতে অনেক টাকা লাগে অথচ তারা ৬ ইঞ্চির স্ক্রীনের জন্য অর্ধলক্ষ টাকা খরচ করে ফেললেও সমস্যা দেখছে না। এই সব টিকটক আর ইউটিউবে ভোগা অসুস্থ লোকজন দিয়ে আগামীর লেখক তৈরী হবে না সেটা নির্দিধায় বলা যায়। ধন্যবাদ।

২৩ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৪০

করুণাধারা বলেছেন: আপনার পর্যবেক্ষণও একেবারে ঠিক আছে। বর্তমান প্রজন্মের ব্যাপারে যেটা বলছেন, তারা ঘন্টার পর ঘন্টা মোবাইল ব্যবহার করে, আমার মনে হয় এটা করে তারা তাদের চোখ এবং কানের ব্যবহার করছে আর হারিয়ে ফেলছে মগজ ব্যবহার করার ব্যাপারটা তাদের চিন্তাশক্তি ক্রমশই ক্ষীণ হয়ে আসছে। এরা যেকোনো বিষয়ে নিজেদের মতো করে ভাবতে পারে না, সে বিষয়ে কোন বক্তব্য রাখতে পারে না। আমি মাঝে মাঝে ইউটিউবে দেখি তরুণদেরকে প্রশ্ন করা হচ্ছে, তারা উত্তর এত খাপছাড়া ভাবে দিচ্ছে, মনে হয় বাংলা ভাষায় ঠিকমতো তারা কিছু বলতেও পারেনা। এরা কিভাবে লিখবে। এটা দেখে আমার খুব দুঃখ হয়।

আমেরিকার নির্বাচনের পর আমি জয়ী প্রার্থীর, এবং বিজিত প্রার্থীর, দুজনের বক্তব্যই শুনি মুগ্ধ হয়ে। অল্প কিছু বাক্য ব্যবহার করে তাঁরা তাঁদের অনুভূতি এতো সুনির্দিষ্টভাবে ব্যক্ত করেন, আমি মুগ্ধ হয়ে যাই।

ফেসবুক নয়, ব্লগে লিখে শেখা যায় অনেক কিছু। আমি অনেক কিছু শিখেছি ব্লগ থেকে। তাই আমি চাই, ব্লগে আরো নতুন নতুন ব্লগার যুক্ত হন, তাহলে তাঁরা মাতৃভাষায় নিজেদের মনের কথা বলা শিখতে পারবেন। এই সব টিকটক আর ইউটিউবে ভোগা অসুস্থ লোকজন দিয়ে আগামীর লেখক তৈরী হবে না সেটা নির্দিধায় বলা যায়। একমত।

৩৫| ২৩ শে মে, ২০২৪ বিকাল ৪:০০

আরাফআহনাফ বলেছেন: আমাদের ব্লগটা যেন বেচে থাকে - এতোদিনে কী একটা মায়া ছড়ায়েছে - বলার মতো না ।
সামু নাই ভাবতেই তো বুকের ভেতরটা ছ্যাঁৎ করে উঠছে ।

২৩ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৪২

করুণাধারা বলেছেন: আমাদের ব্লগটা যেন বেচে থাকে - এতোদিনে কী একটা মায়া ছড়ায়েছে - বলার মতো না ।

নিশ্চয়ই আমাদের ব্লগটা বেঁচে থাকবে, প্রাণবন্ত হয়েই। কিন্তু সেজন্য আমাদের সবাইকে এখানে কিছু সময় থাকতে হবে নিয়মিত ভাবে।

৩৬| ২৪ শে মে, ২০২৪ রাত ১২:৫৬

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:




সচলায়তন বন্ধ হয়ে যাওয়ার সংবাদটি দুঃখজনক ।

একটি ব্লগকে টিকিয়ে রাখার জন্য অনেকগুলি নিয়ামক কাজ করে ।
আমাদের ব্লগ কতৃপক্ষ বিষয়গুলি সম্বর্কে সম্যক অবিহিত আছেন বলে বিশ্বাস করি।

এই পোষ্টের লিংক ফলো করে প্রথম আলোতে প্রকাশিত সংবাদ ভাষ্যটি দেখলাম।
সেখানে সামহয়ারইন ব্লগ নিয়ে যা বলা হয়েছে তাও বেশ প্রনিধান যোগ্য ।

যাহোক ,সকল প্রতিকুলতা নিয়েও সামু ব্লগ টিকে থাকবে বলেই
বিশ্বাস করি । আমাদেরো সকলের প্রচেষ্টা থাকবে সামু যেন
আরো অনেক বেশী সচল হয় ।

সচলায়তনের বিষয়ে সংবাদটি সকলের সাথে শেয়ার করার
জন্য ধন্যবাদ ।

শুভেচ্ছা রইল

৩০ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:০৩

করুণাধারা বলেছেন: সচলায়তন বন্ধ হয়ে যাওয়ার সংবাদটি পত্রিকায় পড়ে দুঃখিত আর সাথে শঙ্কিত হয়েছিলাম আমাদের সামহোয়্যারইনব্লগ নিয়ে। আমাদের প্রিয় ব্লগটিকে সচল এবং প্রাণবন্ত রাখতে কি করণীয় সেটা আলোচনা করার জন্যই পোস্ট দিয়েছিলাম। সকলের মন্তব্য থেকে যা বুঝতে পারলাম, ব্লগটিকে প্রাণবন্ত করে রাখতে আমাদের অধিকতর উপস্থিতি এবং পোস্ট- মন্তব্যে অংশগ্রহণ করা দরকার। এটা জেনে ঠিক করেছিলাম ব্লগে নিয়মিত হবো, অন্তত লগইন করে হলেও। কিন্তু অনিবার্য কিছু অসুবিধার কারণে গত কয়েকদিন ব্লগে আসতে পারিনি, আপনার মন্তব্যের উত্তর দিতেও অনেক দেরি করে ফেললাম। আমি আন্তরিক দুঃখিত এজন্য।

সকল প্রতিকূলতা নিয়েও সামু ব্লগ টিকে থাকবে বলেই বিশ্বাস করি। আমাদেরও সকলের প্রচেষ্টা থাকবে সামু যেন আরো অনেক বেশি সচল হয়।

অবশ্যই আমাদের সবার এই প্রচেষ্টা থাকবে।

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

সুস্থ থাকুন, শুভকামনা রইল।

৩৭| ২৪ শে মে, ২০২৪ রাত ১:৩৪

চারাগাছ বলেছেন:
আজ নোটিশবোর্ডটা দেখলাম।
শুধু রিড অনলি।
দুঃখজনক, শঙ্কিত।

৩০ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:০৭

করুণাধারা বলেছেন: আমিও নোটিশবোর্ড দেখেছি। তবে একেবারে বন্ধ হয়ে যাবার চাইতে রিড ওনলি থাকা ভালো। আমার প্রিয় কিছু পোস্ট আছে বুকমার্ক করা, দেখলাম সেগুলো পড়া যাচ্ছে।

৩৮| ২৪ শে মে, ২০২৪ বিকাল ৩:৫০

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: ব্লগ যদি আর্থিক অসঙ্গতির দরুণ বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়, কর্তৃপক্ষ যেন ব্লগারদের অবহিত করে। এখানে অনেকেই সামর্থ্যবান আছেন, আশা করি সহযোগিতা করবেন। সামু বন্ধ হয়ে গেলে আমাদের লেখালেখির জগৎ সঙ্কোচিত হয়ে যাবে।

৩০ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:১৪

করুণাধারা বলেছেন: : ব্লগ যদি আর্থিক অসঙ্গতির দরুণ বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়, কর্তৃপক্ষ যেন ব্লগারদের অবহিত করে।

আমিও এই কথাটা বলতে চাই। ব্লগ কর্তৃপক্ষ যেন ব্লগারদের সাথে ব্যাপারটা আগেই শেয়ার করেন, অনেক ব্লগারই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন বলে আমার ধারণা।

সামু বন্ধ হয়ে গেলে আমাদের লেখালেখির জগৎ সঙ্কোচিত হয়ে যাবে।

ঠিক বলেছেন। তাই আশা, চেষ্টা আর প্রার্থনা থাকবে সামু যেন সচল থাকে।

৩৯| ২৪ শে মে, ২০২৪ বিকাল ৪:১৩

গোবিন্দলগোবেচারা বলেছেন: ডারউইন সম্ভবত এরকম কিছু বলেছিলেন সবচেয়ে শক্তিশালী বা সবচেয়ে বুদ্ধিমান প্রজাতি টিকে থাকে না, টিকে থাকে সেই প্রজাতি যেটা চেঞ্জ সঙ্গে অ্যাডাপ্ট করতে পারে।
ব্লগের ম্যানেজমেন্ট যদি মনে করে ম্যামোথের মতো বড় ছিলাম , এটাই আমাদের জীবনের সার্থকতা, বিলুপ্ত হয়ে গেলে ক্ষতি নাই; কিন্তু পরিবর্তিত হতে পারব না- এটি তাদের পলিসি আমাদের প্রতিবাদ করার কিছু নাই ।
ছাত্র অবস্থায় একটা ফ্রেজ শিখতে হয়েছিল- changing organization। একটা বিখ্যাত উক্তি মুখস্ত করেছিলাম- Cause change and lead, accept change and survive, resist change and die. (কার উক্তি ভুলে গেছি)

গত শতকের শেষের দিকে চ্যাট রুমগুলো জনপ্রিয় ছিল। আই সি কিউ ইয়াহু মেসেঞ্জার এম এস এন মেসেঞ্জার এগুলো এক সময় পপুলার ছিল। এখন মানুষের চাহিদার পরিবর্তন হয়েছে। সম্ভবত চ্যাট রুম গুলো এখন আর খুঁজে পাওয়া যাবে না। এই শতকের শুরুর দিকে ফেসবুক আসে এবং এখন পর্যন্ত বীর বিক্রমে টিকে আছে।

বাংলাদেশের যখন ব্লগ চালু হয় তখন দেশে অন্যরকম একটা পরিস্থিতি বিরাজ করছিল। বিএনপির ঘাড়ে পা রেখে জামাত অতি শক্তিশালী হয়ে উঠেছিল। ওই সময়ে লেখকরা ছিলেন মূলত ডেস্কটপ ভিত্তিক। ওই সময়ে সকলের হাতে কম্পিউটার ছিল না, আমি অনুমান করি ওই সময় যারা বাংলা লিখতে পারতেন তারা তুলনামূলকভাবে এখনকার সময়ের লোকদের চাইতে একটু বেশি পড়াশোনা করা লোক ছিলেন (এভারেজে) ।
এখনকার প্রেক্ষাপট ভিন্ন। জামায়াতের আগ্রাসনের কথা এখন মানুষ অনেকখানি ভুলে গেছে। বর্তমান ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধেই বরং মানুষ তুলনামূলক বেশি সোচ্চার। এছাড়া এখন অনেক বেশি লোকের হাতে মোবাইল। যারা লিখছেন এদের পড়ালেখার গভীরতা ও ভিন্ন। অনেকেই আছেন যারা কোয়ালিটির চাইতে হিটে বেশি আগ্রহী। এই ব্লগেও চোখে পড়েছে দুই একজন ব্লগার যারা লেখার মান নয় বরং কতগুলো কমেন্ট হলো তাতে বেশি আগ্রহী। পাঠকের রুচির ও ভিন্নতা এসেছে । যে সমস্ত লেখায় গালাগালি বেশি, অশ্লিল শব্দ বেশি এ সমস্ত লেখাতেই পাঠকের সংখ্যা বেশি লক্ষ্য করছি। ব্লগে ভালো লেখা কম , তবে বেশ কিছু ভালো লেখাতে দেখেছি তাচ্ছিল্য টিটকারি দিয়ে মন্তব্য করা হয়েছে। একজন লোক নিজে পরিশ্রম করে লেখা লিখবেন কোন অর্থনৈতিক সম্মানী পাবেন না বরং তুচ্ছ তাচ্ছিল্য পাবেন যার কোন প্রতিকার করা হবে না এরকম করলে কতজন লোক ব্লগে লিখবেন , টিকে থাকবেন এটাও চিন্তা করতে হবে (সাম্প্রতিক সময়ে একজন প্রবাসী বয়োজ্যেষ্ঠ লোক ধর্মবিষয়ে একটি লেখা লিখেছেন, সেই পোস্টটি দেখে আসতে পারেন)। এছাড়া এই ব্লগে ভিউ কাউন্ট করার পদ্ধতিটাও খুব অদ্ভুত। নিজের লেখায় নিজে একবার ঢুকলেও একটা ভিউ কাউন্ট হয়। অর্থাৎ কেউ কেউ লিখে যদি ১ হাজার বার F5 চাপ দেয়, তবে এক হাজার ভিউ হয়ে যাবে। কমেন্টের ক্ষেত্রেও একজন ১০-১২ টা কমেন্ট করলে দশ বারোটা আলাদা কমেন্ট হিসেবে কাউন্ট হয়। কয়েকটি পোস্টে দেখেছি পোস্ট দাতা এবং তার একজন ভক্ত দুজন মিলে খাজুরে আলাপ শুরু করেছেন। যেমন


- কেমন আছেন?
- দেখছেন কি অবস্থা?
-সব ইডিয়টে ভরে আছে।
-কি করবেন!
-বেকুবরা এক লাইন লিখতে জানে না।
-এরাই এখন সংখ্যায় বেশি।


---- এর মধ্যে ছয়টা কমেন্ট হয়ে গিয়েছে। পোস্ট আলোচিত পাতাতেও চলে এসেছে।

তবে আমাকে সবচেয়ে বেশি বিস্মিত করেছে যে বিষয়টা তা হলো এই ব্লগ একজন লেখা চোরকে ক্রমাগত ভাবে প্রশ্রয় দিয়ে গেছে। চোরাই লেখাকে মুছে দেয়নি।

কেউ কেউ অর্থনৈতিক বিষয়টা সামনে তুলে এনেছেন। ব্লগ চালাতে খরচ আছে। কিন্তু ফেসবুক ও তো বিনা লাভে ব্যবসা করছে না। ২০০৮-১২ সালে ব্লগ যে পরিমাণ ব্যবসা করেছে তা দিয়ে আরো ১০-১৫ বছর ব্লগের খরচ চালানো সম্ভব বলে মনে হয় (ওই সময়ের কিছু পোস্টের ভিউ কমেন্টের সংখ্যা দেখে এটা অনুমান করছি, নিশ্চিত হিসাব আমার কাছে থাকার কথা না)। তবে এই বিষয়ে কথা বলা সম্ভবত নিরাপদ না, পুরাতন পোস্ট থেকে দেখতে পাই একজন ব্লগের আয় ব্যায়ের হিসাব চাওয়ার পর তাকে ব্লগ থেকে চিরকালের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এই ব্লগে আরেকটি বিষয়ে আমার কাছে অত্যন্ত অনৈতিক মনে হয়। ব্লগে নিজের পাতায় ঢুকলে দেখতে পাই একটা নোটিশ "আপনাকে প্রথম পাতায় লেখার সুযোগ দেবার আগে আপনাকে ৩ দিন পর্যবেক্ষনে রাখা হবে। প্রথম পাতায় লেখা পোষ্ট করার সুবিধা পেতে ভালো লেখা পোষ্ট করুন এবং ব্লগের নিয়ম মেনে চলুন। " পরিতাপের বিষয়, এই লেখাটি আমি গত চার মাস ধরে দেখছি। পুরাতন একটি পোস্টে দেখলাম একজন লোক পাঁচ বছর ধরে প্রথম পাতায় লেখার অনুমতি পাননি। এটি একটি ব্যক্তি মালিকানাধীন ব্লগ, অবশ্যই কে লিখতে পারবেন কে লিখতে পারবেন না তা ব্লগ কতৃপক্ষই ঠিক করবেন , তবে ওনারা যদি তিন দিনের পরেও কাউকে লিখতে না দেন, সে ক্ষেত্রে তিন দিন এই কথাটি লেখা অনৈতিক । এর বদলে উনারা লিখতে পারেন- আপনাকে পর্যবেক্ষণ করা হবে, আপনার লেখা ছাপানোর যোগ্য মনে হলে আমরা প্রথম পাতায় স্থান দেব। এই পরিবর্তনটুকু আনা মুহূর্তের ব্যাপার, কিন্তু সহজ পরিবর্তনটুকু করতে এই ব্লগ কর্তৃপক্ষের অনীহা কেন বুঝতে পারি। কাগজে-কলমে ভালো মানুষি দেখাতে সকলেই পারঙ্গম।

৩০ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:২৭

করুণাধারা বলেছেন: আমার পোস্টের চাইতে আপনার মন্তব্য কয়েক গুন বড়!! অসংখ্য ধন্যবাদ, এমন সঠিকভাবে এবং সবিস্তারে সামু আর এর কতিপয় ব্লগারের আচরণ ব্যাখ্যা করার জন্য।

ব্লগের ম্যানেজমেন্ট যদি মনে করেন ম্যামোথের মতো বড় ছিলাম, এটাই আমাদের জীবনের সার্থকতা, বিলুপ্ত হয়ে গেলে ক্ষতি নাই; কিন্তু পরিবর্তিত হতে পারব না। এমন ভাবনা কখনোই ঠিক নয়। টিকে থাকার জন্য অভিযোজন খুবই দরকার। অভিযোজন অর্থ প্রতিকুল পরিবেশে টিকে থাকার জন্য নিজেকে পরিবর্তিত করে খাপ খাইয়ে নেয়া। সেটা না করতে পারলে হারিয়ে যাওয়াটাই ভবিতব্য!! Hoping for the best- আশাকরি সামু কর্তৃপক্ষ ব্লগারদের সাথে নিয়ে টিকে থাকার উপায় উদ্ভাবন করতে সমর্থ হবেন, তপ্ত দিনের শেষে ছায়া পেতে সামুতে সামুতে আমরা যারা আসি তাদের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়!

চ্যাট রুমের পরবর্তীতে আসা ফেসবুক আর ব্লগ, এ সম্পর্কে আমার তেমন জানা নেই। আমার এই জগতে পদার্পণ ব্লগ দিয়ে, ফেসবুকে কখনোই স্বাচ্ছন্দ হতে পারিনি। ভারতীয় আর এদেশের যতগুলো ব্লগে গেছি, তার মধ্যে সামহোয়্যারইনব্লগেই লেখক পাঠককে কম মেকী, কম কেতাদুরস্ত মনে হয়েছে এবং এটাই আমার ভালো লেগেছে। কেতাদুরস্ততা কম হওয়া ঠিক আছে, কিন্তু তাই বলে একজন লেখককে তাচ্ছিল্য টিটকারি করাটা খুবই দুঃখজনক।‌ আপনার মতো, আমিও লক্ষ্য করেছি প্রবাসী বয়োজ্যেষ্ঠ লেখকের ধর্ম বিষয়ক পোস্টে তাকে কটুক্তি করা, এমনকি তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছে!! এটা অবশ্য এবারই প্রথম, উনি আগেও বিজ্ঞান বিষয়ক লেখা লিখেছেন, সেখানে কেউ কিছু বলেনি। সম্ভবত এবার ধর্মকে উপস্থাপন করাতেই এমন আক্রমণ করা হলো!! তাতে লাভ এটাই হলো, ধর্মের নামে কার কার চুলকানি দেখা দেয় তা জানা গেল!!

ব্লগে ভিউ কাউন্ট আর মন্তব্য বাড়ানোর যে তরিকার বর্ণনা দিয়েছেন তা একেবারে ঠিক। একটা গ্রুপ ব্লগার এই কাজ করে চলেছেন, এদের একজন আবার অসংখ্য নিক ধারণ করে নিয়মিত ভাবে তাদের গ্রুপের বাইরের মানুষদের সিন্ডিকেট মাল্টি ইত্যাদি বলে থাকেন!! অবশ্য আমার এই পোস্টে অনেক ভিউ হবার পেছনে কিন্তু আমার কারসাজি নেই। অপু তানভীরের থেকে জানলাম, গুগল সার্চে যে পোস্ট আসে, তার ভিউ কাউন্ট হয়ে যায়। সম্ভবত যারাই সচলায়তন লিখে গুগল সার্চ দিচ্ছেন, তারাই আমার পোস্টটি দেখছেন!

চোরাই লেখা কেবল প্রথম পাতায় প্রকাশিত নয় মাঝে মাঝে নির্বাচিত পাতায়ও যায়। এই জিনিস বন্ধ হওয়া দরকার। সামুতে প্রকাশিত পোস্টের মান ধরে রাখার জন্য এটা দরকার। সচলায়তন ব্লগে কিন্তু পোস্টের মান উন্নত ছিল, কিছু কিছু পোস্ট এত ভালো ছিল যে আমি বুকমার্ক করে রেখেছি অনেক বছর যাবত। তার একটি এখানে, view this link। এই পোস্ট এবং সমস্ত মন্তব্য আমি বারবার পড়েছি, আমার আশেপাশের ডিপ্রেশনে ভোগা মানুষদের বুঝতে খুবই সাহায্য করেছে এই পোস্টটি।

আপনাকে পর্যবেক্ষণ করা হবে, আপনার লেখা ছাপানোর যোগ্য মনে হলে আমরা প্রথম পাতায় স্থান দেব।

ঠিক বলেছেন, তিন দিনের পর্যবেক্ষণ কাল যখন তিন মাসেও শেষ করতে পারেন না ব্লগ কর্তৃপক্ষ, তখন তাদের উচিত এভাবেই বলা। এতে একজন নতুন ব্লগার অন্তত প্রতীক্ষার যন্ত্রণা থেকে রেহাই পাবেন। সকল নতুন ব্লগার নিজের ভাবনাকে অন্যের কাছে তুলে ধরার জন্য লিখতে চান, সেজন্য তাদের যথাশীঘ্র লেখার সুযোগ দেয়া দরকার।

আপনার লেখা এই দীর্ঘ মন্তব্য পড়ে মনে হচ্ছে আপনার লেখা পোস্টও পড়তে ভালো লাগবে। প্রার্থনা করি, শিগগিরই যেন প্রথম পাতায় আপনার লেখা আসে।

৪০| ২৬ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:১৪

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: এই একটা ব্লগে আমি লিতে পারিনি। আমাকে লগ ইনই করতে দেয়নি কেন জানি

৩০ শে মে, ২০২৪ রাত ১০:৩০

করুণাধারা বলেছেন: এই একটা ব্লগে আমি লিতে পারিনি। আমাকে লগ ইনই করতে দেয়নি কেন জানি

আমারও একই অভিজ্ঞতা! সেজন্যই বলা হয়, অতি বাড় বেড়ো না ঝড়ে ভেঙ্গে যাবে... ঠিকই তো ভেঙে গেল!!!

৪১| ০৫ ই জুন, ২০২৪ বিকাল ৪:২১

সামিউল ইসলাম বাবু বলেছেন: বিষয়টি চিন্তার।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.