নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

জীবন কেবলই ফুরিয়ে যায়।

মোঃ মাইদুল সরকার

একদিন জীবন শেষ হয়ে যাবে তবুও অনেক কিছু করার সাধ জাগে..............

মোঃ মাইদুল সরকার › বিস্তারিত পোস্টঃ

৪০ ফলের এক গাছ

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:২১




পৃথিবীতে যে কত অদ্ভুত ঘটনা ঘটে চলেছে তার কোন শেষ নেই। কিছু কিছু রহস্য অমীমাংশীত। আর কিছু রহস্য সৃষ্টি করেছে মানুষ নিজেই। যুক্তরাষ্ট্রের পেন্সিলভানিয়ার স্যাম ভেন অ্যাকেন এক গাছে ৪০ রকম ফল ধরিয়ে নজির স্থাপন করেছেন।

তিনি নিউইয়র্কের সিরাকিউজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্যবিদ্যা বিভাগে বর্তমানে অধ্যাপনা করছেন। তিনি প্রাচীন পদ্ধতিতে অর্থাৎ কলম পদ্ধতিতে কাজ করেই এই অনন্য কর্ম সাধন করেছেন। দুটি গাছের ডালকে এমনভাবে জুড়ে দিয়েছেন যাতে উভয় গাছের শিরা-উপশিরা পরস্পরের মধ্যে প্রভাবিত হয়। এটাকে বলে গ্রাফটিং। এভাবে বিভিন্ন গাছের ডাল জোড়া দিয়ে অনেক বছর সময় নিয়ে তিনি কাজটি সম্পন্ন করেছেন।

এভাবে ৪০টি গাছের ডাল জোড়া দেওয়ার পর গাছটি স্বাভাবিক দেখালেও বসন্তকালে এটি সাদা, লাল, বেগুনি, গোলাপী, হলুদ বিভিন্ন রঙের মিশেলে এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারনা হয়। আর গ্রীষ্মকালে আম, বরই, চেরি পিচফল, অ্যালমন্ড, নেক্টারিনসহ চল্লিশ পদের ফল ধরে।

তার এই উদ্যোগ কেবল মাত্র বৈপ্লবিক শিল্পকর্মই নয় খুলে দিয়েছে ফল উৎপাদনের নতুন দিগন্ত। শত শত পর্যটক গাছটি দেখতে ভির জমান প্রতি বছর।

ভিডিও লিংক-লিংক

ছবি-গুগল।
তথ্য কৃতজ্ঞতা- অন লাইন পত্রিকা, ইউটিউব।

মন্তব্য ৬২ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (৬২) মন্তব্য লিখুন

১| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:২৫

হাবিব স্যার বলেছেন: খুব সুন্দর.......

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৪

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
সত্যিই সুন্দর।

ধন্যবাদ।

২| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৩০

ইসিয়াক বলেছেন: অসাধারণ

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ভাবতেই অবাক লাগে।
ধন্যবাদ।

৩| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৩২

আরোহী আশা বলেছেন: খুব সুন্দর

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আসলেই এর কোন তুলনা নেই।

ধন্যবাদ।

৪| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৩৮

নজসু বলেছেন:


দারুণ!

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
অবাককরা সৌন্দর্য।

ধন্যবাদ।

৫| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৪২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: ওয়াও!!

আমাদের দেশীয় কলম পদ্ধিতে অনেকে করেন থাকেন কিন্তু এত বেশি পরিমানে আর কেউ করেনি বোধকরি!

সত্যিই বিস্ময়কর!

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৮

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
মানুষ চেষ্টা করলে কি না পারে!

আমাদের দেশে বড়জোড় ৩/৪টা একসাথে কলম করা হয়।

অসাধারণ একটি কাজ।

ধন্যবাদ।

৬| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৪৪

নতুন নকিব বলেছেন:



দারুন তো!

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:২৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
সত্যি মানুষের বুদ্ধির প্রশংসা করতেই হয়।

আর সকল প্রশংসার মালিক আল্লাহ।

ধন্যবাদ।

৭| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৫৪

জুন বলেছেন: আমি আমাদের দেশে দু ধরনের ফল দেখেছি গ্রাফটিং পদ্ধতিতে । আপনার কল্যানে দেখা হলো এক বিস্ময়কে মাইদুল সরকার ।
+

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৩০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ঠিক বলেছেন দেশে ২/৩টি গাছের কলম করা হয় অহরহ।

কিন্তু ৪০টি ভাবাই যায়না।

ধন্যবাদ।

৮| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০৪

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল ভাই,
আমাদের ঐদিকে কলম করে আম, কাঠাল চাষ করে কিন্তু তাই বলে ৪০টা ফল! একসাথে? আমি মুগ্ধ। দুর্দান্ত একটা কাজে করেছেন উনি। চমৎকার লেখা হয়েছে.......
শুভ কামনা রইল!

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৩৩

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
শুভ সকাল নীলদা,

আমিও মুগ্ধ এমন গাছ দেখে।

আপনার গল্পটা ব্লগ খুলেই চোখে পড়ল। আজকের প্রথম কোন পোস্ট ওটাই পড়ছিলাম।

মাঝ পথে বিরতী দিতে হল কাজের ঝামেলায়।

ধন্যবাদ।

৯| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৩০

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: বাহ দারুণ ব্যাপার

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৩৩

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আমাদের দেশেও হোক এমন ব্যাপার সেপার।

ধন্যবাদ।

১০| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৩৪

মামুন ইসলাম বলেছেন: চমৎকার। নতুন একটা বিষয় জানা হল।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৪৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ধন্যবাদ ভাই।

আসলেই বিষয়টা অভিনব।

১১| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৪৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: বাহ ! দেখতে ও দারুণ ।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:৫৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আপনার কবির চোখ তাই ভাললাগে।

আর ভাললাগার মতই একটি কাজ।

ধন্যবাদ।

১২| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:০৬

আরোগ্য বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ! এক গাছে চল্লিশ ফল।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:১০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
হা ভায়া তাই
এমন আজব আর নাই
যদি একটু খাইতে পাই
তাইরে নাইরে নাই।

ধন্যবাদ ভাইজান।

১৩| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৯

এম. বোরহান উদ্দিন রতন বলেছেন: প্রকৃতির উপর মানুষের এতো বেশী নিয়ন্ত্রণ ভাবতে অবাক লাগে। তবে ভালো লাগছে

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
যে হারে নগরায়ন হচ্ছে তাতে একগাছই অনেক গাছের সমাধান দেবে।

ধন্যবাদ।

১৪| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০১

নয়া পাঠক বলেছেন: নগরায়নের এই যুগে এ পদ্ধতিতে অল্পস্থানে সকল ফলের চাহিদা মেটানোর এ ছাড়া আর কোন ভাল সমাধান আছে বলে মনে হয় না। ধন্যবাদ জনাব সুন্দর একটি বিষয় তুলে ধরার জন্য।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আমিও আপনার সুরে বলতে চাই- অদূর ভবিষ্যতে এটাই সব ফলের চাহিদা মিটানোর সহজ উপায়।

ধন্যবাদ আপনাকেও সুন্দর মতামত ব্যক্ত করায়।

১৫| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩৫

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: সত্যি অবাক কিছুর সাক্ষী হয়ে রইলাম, ধন্যবাদ ভাই এমন অসম্ভব অজানাকে জানার সুযোগ দেয়ায়।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৪১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:

আসলেই নতুন কিছু আমাদের ভীষণ অবাক করে।

আপনাকেও ধন্যবাদ পাঠ ও মন্তব্যে।

১৬| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:২১

রায়হানুল এফ রাজ বলেছেন: দারুণ

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৪৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
অবশ্যই দারুণ হতে হবে
এত কষ্ট, সাধনা করেছেন আর দারুণ হবেনা তা কি হয়।

ধন্যবাদ ।

১৭| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:২৬

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: বেশ

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৫০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আহা বেশ বেশ বেশ
যে একাজ করেছে তার পেকেছে কেশ।

ধন্যবাদ ।

১৮| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:০০

রাজীব নুর বলেছেন: আল্লাহ মহান।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আল্লাহ মহান।
আল্লাহ মহান।
আরশে তিনি আশিয়ান।

ধন্যবাদ ।

১৯| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:০৭

শিখা রহমান বলেছেন: খুব সুন্দর ও বিস্ময়কর। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ মাইদুল।

শুভকামনা নিরন্তর!!

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
কবি বলেছেন-খুব সুন্দর ও বিস্ময়কর

আসলেই এর কোন জবাব নেই।

ধন্যবাদ ও শুভকামনা।

২০| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:২৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন:
বাহ ! সুন্দর তথ্য শেয়ার করলেন প্রিয় মাইদুলভাই ।
ভিডিও লিংকটি দেওয়ার জন্য বুঝতে আরো সুবিধা হল।
দেখি সামনের বর্ষাতে এমন জোড় কলম তৈরি করতে পারে কিনা । হা হা হ....


শুভকামনা ও ভালোবাসা জানবেন।

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
খুব সুন্দর ও বিস্ময়কর সৃষ্টি আমাদের মুগ্ধ করে।

ধন্যবাদ দাদা।

আপনি কলম করুণ আপনার সফলতা কামনা করি।

২১| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:২৪

বোকামানুষ বলেছেন: দারুন লাগলো ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য

১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ধন্যবাদ ভাই

আসলে অনেক দিন ধরে লিখবো করে আর হয়ে ওঠেনি।

আজই তা করতে পারলাম।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ভালবাসা জানবেন।

২২| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৫

বলেছেন: বিস্ময়ের শেষ নাই।।

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৩৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আরও বিষ্ময় হয়তো সামনে আসতে করছে।

ধন্যবাদ।

২৩| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৭

তারেক ফাহিম বলেছেন: দিশিয় পদ্ধতিতে এত বেশি কেউ করেনি।

দারুন পোষ্ট +

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৩৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
এবার দেশীরা এগিয়ে যাক বিদেশীদের দেখে।


ধন্যবাদ।

২৪| ১৬ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:২৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অবাক করা বিষয় !!

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৩৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
সত্যি অবাক হই। অবাক পৃথিবী।

২৫| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:১২

পুলক ঢালী বলেছেন: বিষ্ময়ের ব্যাপার! গ্রাফটিং এবং গাছ কলম নুতন কোন বিষয় নয় ভিডিওতেও তাই দেখলাম। ভিডিওর মানুষটি একটা গাছে দুটো গ্রাফটিংও করেননি তিনি চল্লিশটা কিভাবে করলেন বুঝতেই পারলাম না । তাছাড়া সমগোত্রের গাছ ছাড়া গ্রাফটিং হয় কিনা জানিনা তাহলে আম গাছে লাউ বেগুন করলা হওয়ার কথা । চল্লিশটা ফলের নাম জানতে পারলে গোত্র জানা যেতো। জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং (মলিক্যুলার বায়োলজী) এর কোন তেলেসমাতি কারবার আছে কিনা জানিনা কিন্তু আপনি তো বলেইছেন প্রাচীন গ্রাফটিং পদ্ধতির কথা :) নাহ্ আর ভাবতে পারছিনা মাথা আউলা ঝাউলা হয়ে যাবে :D

মাইদুল ভাই কেমন কেমন আছেন ? বেশ চমকে দেওয়ার মত তথ্য নিয়ে এসেছেন সে জন্য ধন্যবাদ।

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৪১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
পুলক ঢালী ভায়া

মাথা আউলা ঝাউলা কইরেনা। বিষয়টি বাস্তব।

আপনি নেটে সার্চ দিন পেয়ে যাবেন।

আপনার পর্যবেক্ষণ ভাললাগলো।

আমি ভাল আছি, ভাল থাকুন।

২৬| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:৪০

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: পোস্ট শেয়ারের জন্য ধন্যবাদ৷
গ্রাফটিং করে চিন, ভারত সহ অনেক দেশ কৃষিতে বেশ ভালো ফলাফল পাচ্ছে। আমাদের দেশে সরকারি উদ্যোগে কৃষকদের প্রশিক্ষণ, সহায়তা করলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হতো। দেশও এগিয়ে যেতো।

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৪৩

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
আমরাও একদিন এগিয়ে যাব এবং সফলতা পাব।

সরকারেরও উচিৎ এদিকে নজর দেওয়া।

২৭| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১:১২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অবাক ব্যাপার। পৃথিবীতে কতোই না বিস্ময় আছে!!

চল্লিশটা ফলের লিস্টটা দিলে পারতেন। এই গাছের বর্ণনার লিংকটা পারলে দিয়েন, একটু ডিটেইলে দেখি।

ভালো থাকবেন।

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৪৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
লিংক


এবার দেখুন। ধন্যবাদ।

২৮| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ২:৫২

রাফা বলেছেন: গ্রেট, সবই সৃষ্টিকর্তা আর স্রষ্ঠার কারিশমা। আরও অনেক বিস্ময় অপেক্ষা করছে আগামি বিশ্বের জন্য। ধন্যবাদ ,মো.মা.সরকার-বিস্মিত করার জন্য।

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৫১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ধন্যবাদ আপনাকেও সুন্দর করে বলার জন্য।

২৯| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:২২

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: যুক্তরাষ্ট্রের পেন্সিলভানিয়ার স্যাম ভেন অ্যাকেন এক গাছে ৪০ রকম ফল ধরিয়ে নজির স্থাপন করেছেন।
.............................................................................................................................................
এ ধরনের নজির বিষ্ময় কর,
কিন্ত একটা বিষয় জানা হলো না, এত ফলে র স্বাদ ও গন্ধ কেমন ?
....................................................................................

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:৩৪

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ভাই
স্বাদও খারাপ হবেনা। আর যাই হোক এক গাছে যদি সব ফল পান তবে স্বাদ যাই হোক আনন্দই বেশি।

৩০| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩৮

মোঃ ফখরুল ইসলাম ফখরুল বলেছেন: :D

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ধন্যবাদ। ভাল থাকুন।

৩১| ১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৫৩

জাহিদ অনিক বলেছেন:
অবাক কাণ্ড !

১৭ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
অবাক পৃথিবীর অবাক কান্ড।

ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.