নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বিপদে পড়লে আগে মাথা ঠাণ্ডা করতে হয়। নিজের স্নায়ুকে নিয়ন্ত্রণে রাখলে কোন না কোন উপায় ঠিক খুঁজে পাওয়া যায়। কিন্তু প‍্যানিক করলে আগেই হেরে যেতে হয়। আমি হারতে রাজী নই।

ইসিয়াক

অভিজ্ঞতা জীবনের সবচেয়ে বড় সম্পদ ।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

চির বিদায় সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেন

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২৬


মারা গেলেন সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেন। তিনি দীর্ঘদিন ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন। বৃহস্পতিবার সন্ধে সাড়ে সাতটা নাগাদ হিন্দুস্থান পার্কে নিজের বাড়িতেই মারা যান। বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে ভুগছিলেন নবনীতা। তার মধ্যেও নিয়মিত লেখালেখি করে গিয়েছেন। কিন্তু আর লড়াই চালিয়ে যেতে পারলেন না। পরিবার সূত্রে খবর, আজ রাতে বাড়িতেই থাকবে তাঁর মরদেহ। আগামিকাল শেষকৃত্য।

পদ্মশ্রী, সাহিত্য অ্যাকাডেমি-সহ বহু গুরুত্বপূর্ণ পুরস্কারজয়ী নবনীতার জন্ম কলকাতায়। তিনি রাধারানি দেবী ও নরেন্দ্রনাথ দেবের কন্যা। বাবা ও মা দু’জনেই কবি, নবনীতাও আজীবন কাব্যচর্চা করে গিয়েছেন। কবিতা ও গদ্য, উভয়ক্ষেত্রেই তিনি সিদ্ধহস্ত। এ ছাড়া ভ্রমণকাহিনি রচনাতেও তাঁর দক্ষতা অনস্বীকার্য। তিনি দীর্ঘ দিন ‘রামকথা’ নিয়ে কাজ করছেন। সীতার দৃষ্টিভঙ্গি থেকে তিনি রামকথার বিশ্লেষণ করেছেন। ‘চন্দ্রাবতী রামায়ণ’ তাঁর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজ।

১৯৫৯ প্রথম বই ‘প্রথম প্রত্যয়’ প্রকাশিত হয়। ১৯৭৬ সালে প্রথম উপন্যাস প্রকাশিত হয়। নাম ‘আমি অনুপম’। ‘নটী নবনীতা’ বইয়ের জন্য ১৯৯৯ সালে সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার পান তিনি। ২০০০ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন। ১৯৭৫ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তুলনামূলক সাহিত্য পড়ান। তার দাম্পত্যসঙ্গী ছিলেন অমর্ত্য সেন (১৯৫৮–১৯৭৬)

এক নজরে নবনীতা দেবসেন
নবনীতা দেবসেন
জন্ম ১৩ জানুয়ারি ১৯৩৮
কলকাতা, বেঙ্গল, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু ৭ নভেম্বর ২০১৯ (বয়স ৮১)
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
পেশা উপন্যাসিক, শিশুসাহিত্যিক, কবি, শিক্ষাবিদ
জাতীয়তা ভারতীয়
উল্লেখযোগ্য পুরস্কার পদ্মশ্রী (২০০০),
সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার (১৯৯৯),
কমল কুমার জাতীয় পুরষ্কার (২০০৪)
দাম্পত্যসঙ্গী অমর্ত্য সেন (১৯৫৮–১৯৭৬)
সন্তান অন্তরা দেব সেন (মেয়ে)
নন্দনা সেন (মেয়ে)


























তথ্য সূত্র https://www.anandabazar.com/
https://www.sangbadpratidin.in/
https://aajkaal.in/news/title/nabanita-debsen-passes-away-hccn

মন্তব্য ২২ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (২২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩২

মা.হাসান বলেছেন: আনন্দবাজারে খবরটা একটু আগে পড়েছি। আনন্দমেলায় ওনার লেখা প্রায় নিয়মিতই থাকতো। খুব উপভোগ করতাম । বড়দের জন্য কি লিখেছেন জানা নেই অবশ্য। অনেক শ্রদ্ধা ওনার প্রতি। আপনাকে ধন্যবাদ ব্লগে শেয়ার করার জন্য।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৫

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ মা.হাসান ভাই

২| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৫

নুরহোসেন নুর বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০২

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৩| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৯

করুণাধারা বলেছেন: নবনীতা দেবসেনের ক্যান্সার হয়েছিল জানতাম না, তাই আপনার পোস্টে তার মৃত্যুর খবর পেয়ে খুবই অবাক হলাম এবং মন খারাপ হলো। আমি তার লেখার খুব ভক্ত, মানবিকতা,উইট আর হিউমারের মিশেলে তার লেখাগুলো হত অনবদ্য। তার একটা বই আছে নাম, নবনীতা।

এই পোস্টের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ, ইসিয়াক।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০২

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৪| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪৩

মুক্তা নীল বলেছেন:
নবনীতা সেন এর ক্যান্সার হয়েছিল জানতাম কিন্তু মারা গেছেন এটা আপনার এই পোষ্টের মাধ্যমে জানলাম । উনার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও পরপারে শান্তিতে থাকুন।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৫| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪৫

জুন বলেছেন: এত গুনী বিদুষী সুন্দরী বোউ রেখে অমর্ত্য সেন কি করে আরেকটা বিয়ে করতে পারলো ভেবে পাই না।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৬| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০২

রাজীব নুর বলেছেন: শ্রদ্ধা জানাই।
কোলকাতা গেলে তার কিছু বই কিনবো।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৭| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১:০৫

সোহানী বলেছেন: আমার অসম্ভব প্রিয় একজন লেখিকা। যেখানেই থাকুক অনেক ভালো থাকুক...............

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৭:৩৫

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ আপু,
তিনি আমারও অনেক প্রিয় লেখিকা।
ছোটবেলায় আনন্দমেলায় আর লেখার মুগ্ধ পাঠক ছিলাম।
তার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

৮| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১:২৫

বলেছেন: নবনীতা দেবসেন ছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক অমর্ত্য সেনের প্রথম স্ত্রী। অমর্ত্য সেনের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয় ১৯৫৮ সালে। বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে ১৯৭৬ সালে। তিনি রেখে যান তাঁর দুই কন্যা নন্দনা ও অন্তরাসহ অসংখ্য স্বজন এবং গুণগ্রাহী।



বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৭:৫০

ইসিয়াক বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

শুভসকাল

৯| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:১১

মলাসইলমুইনা বলেছেন: কলেজ ইউনিভার্সিটিতে যাদের লেখা অনেক আনন্দের, তর্ক বিতর্ক, আলোচনার উৎস ছিল তাদের সংখ্যা আরো একজন কমলো নবনীতা দেব সেনের মৃত্যুতে । খুবই খারাপ লাগলো তার মৃত্যুর খবরে ।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:১৫

ইসিয়াক বলেছেন: আমার ব্লগবাড়িতে আপনাকে স্বাগতম।
কাল রাতে উনার মৃত্যু সংবাদ শুনতেই আমারো মনটা ভারী হয়ে উঠেছে।যাহোক....।

তার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও আত্মার শান্তি কামনা করছি।

১০| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২০

কিরমানী লিটন বলেছেন: বিনম্র শ্রদ্ধা সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেন।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৪

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ লিটন ভাই ,
সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেনের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

১১| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১০

আহমেদ জী এস বলেছেন: ইসিয়াক,




একজন সুলেখিকা এবং আমার প্রিয় একজন। তাঁর রসকুশলতা, বুদ্ধিদীপ্ত রঙ্গরস ছিলো একাধারে অতুলনীয় আর বিদগ্ধ।

শান্তিতে থাকুন নবনীতা।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৬

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা রইলো শ্রদ্ধেয়।
ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন।
সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেনের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.