নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কাউকে ছোট মনে করতে নেই। লেখক-কবিকেও নয়; তিনি যে মাপেরই হোন না কেন। সাহিত্যের পিউরিফিকেশন বলে কিছু নেই, বা ধরুন শব্দচয়ন, বানান, উপস্থাপনা ইত্যাদি আপনার মনমতো নাও হতে পারে, হতে হবে, এমন কথা নেই। এটা যোগাযোগ মাত্র। যদি কেউ কোনকিছু পড়ে তার জীবন, বেঁচে থাকা এব

ইসিয়াক

কাউকে ছোট মনে করতে নেই। লেখক-কবিকেও নয়; তিনি যে মাপেরই হোন না কেন। সাহিত্যের পিউরিফিকেশন বলে কিছু নেই, বা ধরুন শব্দচয়ন, বানান, উপস্থাপনা ইত্যাদি আপনার মনমতো নাও হতে পারে, হতে হবে, এমন কথা নেই। এটা যোগাযোগ মাত্র। যদি কেউ কোনকিছু পড়ে তার জীবন, বেঁচে থাকা এবং অস্তিত্বের সামান্যতম ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে পারেন, তবেই সেই লেখা সফল। চমৎকার ছাপা বাঁধাই লেখা বই শুধু সাজিয়ে রাখার জন্য হতে পারে যদি সেখানে মানবিক কিছু না থাকে।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

ভালোবাসার গল্পঃ নাম তার মধুরিমা

১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৩৩


শীত যাই যাই করেও যাচ্ছেনা,এরকম আবহাওয়াতে আমার বেশ লাগে। চর্তুদিকে আলো ছড়িয়ে প্রবল প্রতাপে সূর্য উঠে গেছে। আজ বসন্তের প্রথম দিন।আমি গুটিগুটি পায়ে খোলা ছাদে এসে দাড়ালাম।বাবা ফিরে গেছে বেশ কিছুক্ষণ হলো । সকালের ট্রেন ধরবার তাড়া ছিলো।মনটা আমার ভীষণ রকমের খারাপ।আমি কোনদিন বাবা মাকে ছাড়া কোথাও একলা একলা থাকিনি, এই আঠারো বছরের জীবনে। স্বাভাবিক ভাবেই আমার চোখ বারবার শুধু ছলছল করে উঠছে অকারণ অভিমানে।
ছাদের উপর কবুতরের বাসার মতো ছোট্ট এক কামরার ঘর,একটা খাট,ছোট্ট একটা পড়ার টেবিল ও একটা আয়না।এই হলো আমার বর্ত মান নিবাস।
এই শহরে আমি এই প্রথম এসেছি,আশেপাশের কোনকিছু আমি চিনি না যদিও এর আগে কোন শহরে আমার থাকা হয়নি তবে এখন থেকে আমার শহুরে জীবনের শুরু বলতে হবে।সবে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করে সরকারী কলেজে চান্স পেয়ে পড়তে এসেছি গ্রাম থেকে। কাছিকছি গ্রাম বলে প্রথমে ভেবেছিলাম রোজ গ্রাম থেকেই আসা যাওয়া করবো।কিন্তু নিত্য জার্নি করে ক্লাস করা এবং ফিরে এসে পাঠে মন বসানো একেবারেই অসম্ভব আর এতে করে প্রচুর সময় ও নষ্ট হচ্ছে। তাই বাবা সিদ্ধান্ত নিলেন আমাকে শহরে রেখে পড়াবেন।এই বাড়িওয়ালা বাবার বন্ধু। খুবই ঘনিষ্ট বন্ধু। মা প্রথমে একটু আপত্তি করলেও পরে চোখের জল মুছে মেনে নিয়েছেন এই শর্তে যে প্রত্যেক সপ্তাহে বাড়ি আসতে হবে । বাবা বরাবরই শক্ত গোছের মানুষ তাকে কখনো কোন বিষয়ে ভেঙে পড়তে বা কাঁদতে দেখিনি।কিন্তু আজ ফিরে যাবার কালে তাকে অন্য রুপে দেখে আমার মনটা আরো বেশি বিষন্নতায় ভরে গেল। বার বার কেবলি চোখ ভিজে উঠলো।শেষ বেলায় বলা কথাগুলো বার বার মনের ভেতর খচখচ করে বাজতে লাগলো।
পানি খাবেন?
হঠাৎ চিকন সুরের কন্ঠে মেয়েটি জানতে চাইলো্।আমি নিজেকে দ্রুত সামলে নিলাম। এই সময়ে কেউ ছাদে আসতে পারে এটা ভাবতে পারিনি।চোখের জল মুছলেও গলাটা ভার ভার ভাবটা থেকে গেল ঠিকই।বেশ রাগ হলো,
– না খাবো না,তুমি কে?
-আপনি কাঁদছেন?
-কই? কে বলল?
-আপনার কি ক্ষিদে পেয়েছে? মা লুচি আর আলুর দম করছে। আমার মায়ের হাতের লুচি আলুর দম বিখ্যাত।খাবেন?
আচ্ছা জ্বালাতন হলো দেখছি এই মেয়ে তো বড় বেশি কথা বলে।বেশি কথা বলা মানুষ আমার একদম ভালো লাগে না্।আমি প্রশ্ন ছুড়ে দিলাম।
-তুমি কে?কি চাও? কোথায় থাকো?
মেয়েটি হিহি করে ঝনঝনিয়ে হেসে উঠলো। বাবা একসাথে এতো প্রশ্ন?
-আমি মধুরিমা।হি হি হি….মধু বলতে পারেন।
-ঠিক আছে মধুরিমা তুমি এখন যাও্।আমি এখন ব্যস্ত আছি।
-আমি চলে গেলে আপনি বুঝি কাঁদতে বসবেন? কান্নাকাটি করা বুঝি ব্যস্ততা? আচ্চা ছিঁচকাদুনে তো আপনি,আশ্চর্য!
-শোন মেয়ে তুমি কে আমি জানিনা,তবে আমি স্পষ্টভাষী। তোমাকে আমি একটা কথা পরিষ্কার জানিয়ে রাখি।আমি অন্যের ব্যপারে নাক গলানো একেবারে পছন্দ করি না।বুঝেছো?
-ঠিক আছে বুঝলাম।যাওয়ার আগে একটা প্রশ্ন ছিলো।
-কি?
-আপনার নাম কি?মানে কি নামে ডাকবো আপনাকে?
-আমাকে ডাকাডাকির এত প্রয়োজনই বা কি? তুমি যাও।
-বলুন না এমন কেন আপনি?
-কোন নাম নেই।
-তাই কি হয়!নাম ছাড়া মানুষ আমি এই প্রথম দেখলাম।আচ্ছা ঠিক আছে আমি যদি আপনাকে মিষ্টার স্পষ্টভাষী বলে ডাকি আপনার আপত্তি নেই তো?
মনে মনে ভাবলাম কড়া করে দুচার কথা শুনিয়ে দেই।বলবো বলে যেই প্রস্তুতি নিয়েছি পেছন ফিরে দেখি হাসতে হাসতে নুপূরের ছন্দ তুলে মধুরিমা দৌড়ে চলে গেল।
এতক্ষণ রাগ হলেও কিছুক্ষন পর সব রাগ গলে জল হয়ে গেল।হঠাৎ কেমন মায়া মায়া লাগলো্, এতো কড়া করে না বললেই পারতাম।রাগের মাথায় এতক্ষণ খেয়াল করিনি এখন চোখে ভাষা ছবিতে মেয়েটির মুখটি খুব মিষ্টি লাগলো্,মনে মনে ভাবলাম মধুরিমা নামটি মন্দ নয়।আবার এলে ঠিকঠাক ভাব করে নেব।কিন্তু মনের মধ্যে একটা খচখচানি থেকেই গেলো, যা কড়া ডোজ দিয়েছি আবার এলে হয়!

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: মেয়েরা কি হি হি করে হাসে?? হি হি করে হাসে ভূত।

১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৫৩

ইসিয়াক বলেছেন: ভূত বলে কি কিছু আছে? আপনার কি মনে হয়?

২| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২১

খাঁজা বাবা বলেছেন: আজ শীতের শেষ দিন
বষন্ত কাল :)

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৩৭

ইসিয়াক বলেছেন: বসন্তের শুভেচ্ছা রইলো

৩| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০৯

নেওয়াজ আলি বলেছেন: বিমোহিত হলাম চয়নে।

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৩৮

ইসিয়াক বলেছেন: বসন্তের শুভেচ্ছা রইলো ভাইয়া।
ভালো থাকুন সবসময়।

৪| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:২১

নিভৃতা বলেছেন: এক রাশ ভালো। মধুরিমা নামটা ভীষণ সুন্দর। গল্প কি আরো এগোবে? এগোলে ভালো লাগবে।

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৪২

ইসিয়াক বলেছেন: আন্তরিক মন্তব্যে কৃতজ্ঞতা রইলো আপু।
৥আরো পর্ব হয়তো লিখবো আপু।
বসন্তের শুভেচ্ছা রইলো
ভালো থাকুন সবসময়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.