নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

একান্ত ব্যক্তিগত কারণে ব্লগে আর পোস্ট দেওয়া হবে না। আপাতত শুধু ব্লগ পড়বো। বিশেষ করে পুরানো পোস্টগুলো। কোন পোস্টে মন্তব্য করবো না বলে ঠিক করেছি। আমি সামহোয়্যারইন ব্লগে আছি এবং থাকবো। ভালো আছি। ভালো থাকুন সকলে।

ইসিয়াক

আমি অযত্ন অবহেলার আপনি ফোটা এক ফুল।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

কবিতাঃ স্বাধীনতার সুখ

২৭ শে মার্চ, ২০২৩ রাত ১০:৫৭


কখনও কখনও আমার ভীষণ মন খারাপ হয়
কষ্টের চোরাঘাতে বুকের হাড় পাঁজর ব্যাথায় কুঁকড়ে যায় ।
তমসা ঘনায় আসে সমস্ত জগৎ জুড়ে
এই বিশাল পৃথিবীর বুকে তখন
নিজেকে অপাংক্তেয় মনে হয়।

নিরুপায় আমি এমন দিনে প্রিয় কপোতাক্ষের বুকে আশ্রয় খুঁজে ফিরি।
খড়কুটোর মত আঁকড়ে ধরতে চাই ভেসে যাওয়া স্বপ্নগুলোকে ।

কপোতাক্ষ সেই সে নদ
যার বুকের স্তরে স্তরে জমে রয়েছে
হাজার বছরের জানা অজানা
কতশত স্মৃতি ও অজস্র ইতিহাস
রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক....

সেই কপোতাক্ষের বুকেই আমার অপলার বসবাস।
অপলাকে হয়তো আপনারা চেনেন না,
দেখেন নি ও কোনদিন
নামও শোনেন নি হয়তো।
সেটাই স্বাভাবিক
এ পৃথিবীতে সবাই কি সবাইকে চেনে নাকি!
নাকি জনে জনে দেখে বেড়ায়?

কতদিন কত মাস হল গত
উত্তাল সে সময় আজও জীবন্ত আমার মনের পর্দায়।
আমার অপলা
প্রিয়তমা আমার
আমি রণাঙ্গণ থেকে খবর পেয়েছিলাম
মধ্য শ্রাবণের দুপুরে
হানাদার হায়েনাদের দ্বারা অপহৃত হয়েছে আমার প্রেম
দায়িত্ব ফেলে আসা হয় নি
আসতে পারি নি দেশমাতৃকাকে অক্ষত রেখে।
এদিকে বিভৎস যন্ত্রণাময়
না জানি কত বিনিদ্র রজনী করে পার
এই কপোতাক্ষের বুকে নিখোঁজ হয়েছিল অপলা।
কত সহস্র দিবস রজনী অতিক্রান্ত হলো
ফেরে নি অভিমানী!

এখন এই পড়ন্তবেলায়
আমার কাছে
অপলা আর কপোতাক্ষকে একে অপরের সম্পূরক মনে হয়।

হায় অপলা!
তুমি ছিলে মা মাটি দেশ অন্তপ্রাণ
আমার যুদ্ধে যাবার প্রধান প্রেরণা দাত্রী
তোমাকে রক্ষা করতে পারি নি এ ব্যর্থতা
এই দায়ভার আমি বারংবার স্বীকার করি।

কি বলবো!
স্বাধীনতার নব রবি কিরণ অঙ্গে মেখে
এক বুক আশা নিয়ে ফিরে এসে প্রিয়তমা হারানোর বেদনায় কষ্ট পেয়েছিলাম খুব
পা উড়েছিল আগেই তাতে কোন কষ্ট হয় নি তেমন
তোমার নিখোঁজ সংক্রান্ত খবরে
মন ভেঙে গিয়েছিল সহসাই।

যুদ্ধ জয়ের আনন্দ ছিল বিষাদে পরিপূর্ণ
স্বপ্ন ভাঙা ব্যাথা সওয়া সে সহজ কথা নয়
সব সয়েছি একে একে
সয়ে নিতে হয় যে!
সময়ান্তে
কপোতাক্ষের স্থির নিশ্চল বুকে এখন আমি আমার অপলার ডাগর আঁখি দেখি।
কপোতাক্ষের কলকল ধ্বনিতে আমি অপলার চলার ছন্দ শুনি।
রাত নিশিথে কপোতাক্ষের বুকে তারার মেলা যেন অপলার নিঃশব্দ ভূবন ভোলানো হাসি।
আমি অপলক তাকিয়ে থাকি
ভুবনমোহিনী এতটা বছর পরও তুমি এখনও চির তরুনী আমার দৃষ্টিতে।
যা মুছবার নয় কখনও
সেই চোখ সেই মুখ সেই নরম অবয়ব।
ছিন্ন বীনা আবার আমি জুড়ে নিয়েছি
নিজের মত করে
এলোকেশী আমি তোমায় আজও ভালোবাসি।
ভালেবাসি প্রিয়তমা।

ঠিক যেমন
মেঘ পাহাড়কে
অথবা
নদী সাগরকে ভালোবাসে।

সেই সব দিনগুলি ই
বারংবার ফিরে আসে কপোতাক্ষের খোলা বুকে
সবাক চলচ্চিত্রের মত।
মনে পড়ে যায়
বৈশাখের আম কুড়াবার দিনে
দেখা হয়েছিল আমাদের
কিসের এক অমোঘ টানে
আমরা অতি দ্রুত বড্ড কাছাকাছি চলেও এসেছিলাম
বড় বেশি উচ্ছল ছিলাম আমরা
কত অকারণ হুটোপুটি
কত খুনসুঁটি
কত শত শপথ
তারপর
তারপর ১৯৭১
উত্তাল সময়.....

জানি সব প্রেম পূর্ণতা পায় না
অপলা আর আমার প্রেমেও পূর্ণতা আসে নি।
আমরা ভালোবেসেছিলাম
সব তো ঠিক ঠাকই ছিল তবুও....
লোকে বলে কিছু পেতে হলে কিছু ত্যাগ করতে হয়
স্বাধীনতার বিনিময়ে তোমাকে ত্যাগ সে বড় করুন,
বড় কষ্টের।
থাক,
জীবন সায়াহ্নে চর্বিত চর্বণে আর কি লাভ!
ভালো থাকো অপলা আমার কপোতাক্ষের বুকে

বিরহী আমি শুধু চেয়ে চেয়ে দেখি
প্রিয়তমার চির নবীন সে মুখ।
এই হোক আমার স্বাধীনতার সুখ।

© রফিকুল ইসলাম ইসিয়াক

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে মার্চ, ২০২৩ রাত ১১:০২

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: ++++++

অসম্ভব সুন্দর, হৃদয়স্পর্শী একটি কবিতা। মন ছুয়ে গেল। সশ্রদ্ধ সালাম হাজারো অপলাদের আর সাথে তাদের সেই বীর পুরুষদের, যাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি এই স্বাধীন জন্মভূমি, প্রিয় বাংলাদেশ।

৩০ শে মার্চ, ২০২৩ বিকাল ৩:৩০

ইসিয়াক বলেছেন:





প্রিয় ব্লগার আপনার মন্তব্য আমাকে দারুণ অনুপ্রাণিত করেছে। অশেষ কৃতজ্ঞতা রইলো।
ভালো থাকুন।
শুভেচ্ছা রইলো।

২| ২৮ শে মার্চ, ২০২৩ সকাল ১০:৪৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: অপলা যেমন মিশে আছে কপোতাক্ষের বুকে, অনুমান করি কোন এক বাস্তব ঘটনাও মিশে আছে এ কবিতার বুকে।
সকল অপলা এবং তাদের সাথীদের আত্মত্যাগের প্রতি আন্তরিক শ্রদ্ধা ও সম্মান জানাচ্ছি।
কবিতা হৃদয়স্পর্শী হয়েছে। + +

০৫ ই এপ্রিল, ২০২৩ রাত ৮:৫৩

ইসিয়াক বলেছেন:





কবিতার ঘটনাটি কল্পনা প্রসূত হলেও এমন অপলার দূর্ভাগ্যের ঘটনার কথা আমরা সবাই কম বেশি জানি।
কত শত ত্যাগের বিনিময়ে আমাদের কষ্টার্যিত স্বাধীনতা যা ভাবলে গা শিউরে ওঠে।বড় তাড়াতাড়ি আমরা সব কিছু ভুলে গেলাম। দুঃখের বিষয় এটাই আমরা এমনই অভাগা জাতি যার সঠিক মূল্যায়ণ আজও করতে পারলাম না।
পাঠ মন্তব্য ও লাইকের জন্য কৃতজ্ঞতা রইলো প্রিয় ব্লগার।
শুভকামনা সতত।

৩| ৩০ শে মার্চ, ২০২৩ দুপুর ১২:৫৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ইসিয়াক ভাই,
আজ এসেছিলাম মূলত সেদিন পাঠানো আপনার এই কবিতাটির খোঁজে। সাম্প্রতিক সময়ে আপনার ভীষণ সুন্দর একটা কাব্য।++ খুবই আবেগময় করে লিখেছেন।
পোস্টে পঞ্চম লাইক।
শুভেচ্ছা আপনাকে।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২৩ রাত ৮:৫৭

ইসিয়াক বলেছেন:





কিছু একটা লিখতে চেষ্টা করি। আপনাদের ভালো লাগে আর আমি অনুপ্রাণিত হই।
সত্যি বলছি কৃতজ্ঞতা জানাবার ভাষা নেই প্রিয় দাদা।
শুভেচ্ছা সতত।

৪| ৩০ শে মার্চ, ২০২৩ বিকাল ৩:১৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর কবিতা

০৫ ই এপ্রিল, ২০২৩ রাত ৮:৫৮

ইসিয়াক বলেছেন:








অশেষ কৃতজ্ঞতা রইলো প্রিয় ব্লগার।
শুভেচ্ছা সতত।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.