নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার ব্লগে ঘুরতে আসায় আপনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি । আশা করছি আমার লেখালেখি, ফটোগ্রাফি আপনার ভালো লাগবে । সবসময় ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন ।আমার সাথে ফেসবুকে যুক্ত হতে লিংটিতে প্রবেশ করুন/ইউআরএলটি ব্রাউজারে কপি করে প্রবেশ করুন: \n https://www.facebook.

সাব্বির আহমেদ সাকিল

আমাকে যাচাই করার পূর্বে নিজেকে যাচাই করুন ।

সাব্বির আহমেদ সাকিল › বিস্তারিত পোস্টঃ

হাসপাতালে ঘুরলেই কি আসলে ডিপ্রেশন কেটে যায়?

২২ শে মে, ২০২২ রাত ৮:১১



অনেকেই বলেনা যে ডিপ্রেশন কাটাতে হলে হাসপাতাল-মেডিকেলে ঘুরে আসতে । বলা হয় সেখানে গেলে নাকি উপলব্ধি হয় যে আপনার থেকেও কত খারাপ অবস্থায় আছে মানুষ ।

আমি এই কথাটার সাথে সম্পূর্ণ দ্বিমত পোষণ করি । কারণ দু’টো দু’ধরনের সমস্যা একটা ফিজিক্যাল আরেকটা মেন্টাল । ফিজিক্যাল সমস্যার কারণে যাঁরা হাসপাতালে ভর্তি হোন তাঁদের পাশে দেখবেন কত আপনজন, কতরকম বাহারি খাবার । অর্থ না থাকলেও ধার করে, সুদের হারে টাকা নিয়ে কিংবা জমি-জমা বিক্রি করে চিকিৎসা করায় । শারিরীক কষ্ট থাকলেও অন্তত মানসিক কষ্ট থাকেনা । যেকারণে শারিরীক কষ্টে থাকা মানুষরা কখনও আত্নহত্যা করেননা ।

অথচ মনঃতাত্ত্বিক সমস্যাগুলো এরকম আশা, ভরসা, বিশ্বাসযোগ্য মানুষ পাওয়া যায়না । একটা মানুষের হতাশা বিভিন্ন দিক থেকে আসে, এই সমস্যাগুলো চতুর্মুখী । কখনও পরিবার, কখনও সম্পর্ক আবার কখনও অর্থনৈতিক, কখনও অন্যকিছু ।

একটা বয়সে আমাদের সবথেকে হতাশার জায়গা তৈরি হয় যখন আশেপাশে প্রিয় মানুষজনের অভাব দেখা যায় । আপনার মনের কথা খুলে বলার মতো মানুষজন থাকেনা । আবার আরেকটা জায়গা হলো ‘আইডেন্টিটি ক্রাইসিস’ ।

দুই সমস্যার সাথে লড়তে লড়তে মানুষ হেরে যায় । পৃথিবীতে আত্নহত্যার পিছনের কারণ খুঁজলে দেখা যাবে সমস্যাগুলো শোনার বা ভরসা-আশ্বস্ত করবার মতো মানুষ তিনি পাননি । ফলে নিজে নিজেকে শেষ করেছেন ।

পৃথিবীতে চারদিকে ভেবেচিন্তে কাজ করা মানুষের সংখ্যা খুব স্বল্প । সাধারণত স্বার্থবাদী মনোভাবের মানুষদের মাঝে এটি বেশি লক্ষ্য করা যায় কতটা সুচতুর তাঁরা ।

মৃত্যুর পূর্বে মানুষকে এমনকিছু বিষয় তাড়িত করে যা ভয়াবহ রকমের অস্বস্তির । গলাকাটা মুরগির মতো মানুষ ছটফট করতে থাকে বাঁচবার আশায় । পৃথিবীতে কিছু মানুষের জন্য নির্দিষ্ট দু-চারজন থাকে, থাকা দরকার যাঁরা নতুন জীবন দেন । যাঁরা জ্বলতে সাহায্য করেন ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় রঙীন ছবি মানেই মানুষের জীবন রঙীন নয় । রেষ্টুরেন্টে চেক-ইন দেয়া মানেই তাঁর অর্থনৈতিক কোনো সমস্যা নেই । মানুষকে জাস্টিফাই এভাবে কখনও করা যায়না ।

মানুষ বাঁচে আশায়, ক্ষুদ্র কিছু মানুষের জন্য । মানুষ বেঁচে থাকে কারোর হাসি দেখবার জন্য, কাউকে একটু সুখে দেখবার জন্য, একটু শান্তির জন্য; নয়তো পৃথিবী তাঁর জন্য মিথ্যার বলয় মনেহয় । আর তখনই ঘটে..

সাব্বির আহমেদ সাকিল
০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | রোববার | ২২ মে ২০২২ ইং

মন্তব্য ২ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে মে, ২০২২ রাত ১১:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: আমার এই রকম কোনো সমস্যা নেই।
হাতের কাছে বই আছে। নানান রকম মুভি আছে। কত রকম বিনোদন।

২| ২৩ শে মে, ২০২২ রাত ১২:৩৭

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ডিপ্রেশনে ভুগলে মানসিক চিকিৎসা নেওয়া উচিত। আমাদের দেশে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়টি নিয়ে মানুষের ধারণা নেই। মানুষ টাকা পয়সার জন্য আত্মহত্যা করে না, কিন্তু মানসিক অশান্তির জন্য বহু আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.