নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ব্লগের স্বত্বাধিকারী সামিয়া

সামিয়া

সৎ, সাদাসিধা মানুষ। একটু স্বাধীন টাইপ। পড়তে ভাললাগে, লিখতে ভাললাগে, ছবি তুলতে ভাললাগে, মানুষের মুখে হাসি দেখতে ভাললাগে।

সামিয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

আহারে জীবন

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ বিকাল ৪:৩০




অফিসের একটা নির্দিষ্ট স্থানে শুরুতে একটা দুইটা পাখি উদ্দেশ্যহীন উড়াউড়ি করতে লাগলেন বলে তাদেরকে উপস্থিত মতন যা আছে তা দিয়েই আপ্যায়ন করলেন কিছু কর্মকর্তারা। ধীরে ধীরে পাখিদের ভেতর খবরটা ছড়িয়ে পড়ায় পাখিদের পরিমান বাড়তে থাকলো দিন দিন চোখে পড়বার মতন, চোখে পড়ে গেলো এম ডি স্যারের ও।

তিনি এই বিষয়ে একটা সর্টকাট মিটিং ডাকলেন এবং সবাইকে সাথে নিয়ে স্ব_শরীরে স্পট পরিদর্শন করে পাখিকে খাবার দেয়ার নির্ধারিত কোনা সহ আরো কিছু নতুন কোনা সংযোজন করে তাদের খাবার দেয়ার ব্যবস্থা করলেন; খাবারের মেন্যু পাখি বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে তাদের নির্দেশ অনুযায়ী বাজার থেকে কিনে এনে প্রদান করলেন, এই বিষয়ে একাউন্টসকে একটা মান্থলি বাজেট ও তৈরি করতে বললেন ঝটপট।
এতসব কিছু দেখে আমাদের সহজ সরল এক কলিগ আপা বললেন, দেখছো স্যার পাখিদের জন্য কত কিছু করেন অথচ আমাদের জন্য কিছুই করেন না। আমরা যদি মানুষ না হয়ে পাখি হতাম কি ভালো হতো তাইনা ইতি!!??

শহরে তো ঘরে ঘরে পাখি, বিড়াল কুকুর প্রেমিক আছেন এমন কত যারা নিজে না খেয়ে‌ বিড়ালের প্লেটে মাছ তুলে দিতেছেন; সেই মাছ তাদের মা যে না খেয়ে তার প্লেটে তুলে দিয়েছেন সেই খোঁজ নেয়ার সময় নাই, সময় নাই একটু চোখ খুলে পাখি কুকুর বিড়ালের পাশাপাশি ঘরের; বাইরের; দূরের; কাছের; রাস্তার; বাচ্চা; বৃদ্ধ; অভাবী; বিপদগ্রস্ত; নিঃসঙ্গ; একাকী; দুঃখী; এমনকি বাবা; মা; ভাই; বোন; নামক মানুষদের মাথা তুলে দেখার।

ছবি: আমার তোলা

মন্তব্য ১৯ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (১৯) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ বিকাল ৫:১০

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি খাঁচায় পাখী পোষার বিপক্ষে

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:১৯

সামিয়া বলেছেন: এখানে খাঁচায় পাখি পোষার বিষয়ে কিছু লেখা হয়নি।

২| ০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: পোস্টের মানবিক আবেদন মন স্পর্শ করেছে।
পোস্টে প্লাস। + +

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:২০

সামিয়া বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ, ভালো থাকবেন, দোয়া রইল।

৩| ০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩২

Abida-আবিদা বলেছেন: জীবন হচ্ছে গভীর রহস্যের আরেক নাম। শহরে ও গ্রামে, ভেতরে ও বাইরে, জলে ও স্থলে, পৃথিবী ও মহাকাশে, জানা-অজানায়, ঘরে ও অরন্যে। বিশ্বাস হচ্ছে জ্বলতে থাকা বাতির মত। মানুষের প্রান বায়ুর নিশ্চিত থাকার প্রমান দেয়। বিশ্বাস থেকে স্বাধীনতা আসে। একজন স্বাধীন মানুষ একজন অসীম সম্ভাবনায় মানুষ।

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:২৩

সামিয়া বলেছেন: ভালো বলেছেন তবে আমার টপিক কিন্তু অন্য ছিল, আমি বলতে চাচ্ছি পাখি পশু প্রেমীরা যেন তাদের আশেপাশের মানুষের দিকেও খেয়াল রাখে ভালো রাখে, দূরের মানুষের জন্য জান জীবন কোরবান করে দেয় অথচ ঘরের মানুষ নিজের মা-বাবা ভাই-বোন অথবা নিজের স্ত্রী সন্তানের দিকে খেয়াল ও করে না, এটা সবথেকে বড় অন্যায় তাই বোঝাতে চেয়েছি।

৪| ০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৫১

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: ছবিটা চমৎকার তুলেছেন।
লিখাও ভালো হয়েছে।

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:২৪

সামিয়া বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ।

৫| ০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:০১

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: ভালো লিখেছেন। শেষের প্যারাগ্রাফের কথাগুলো নিয়ে আমাদের চিন্তা করা উচিত।

০৯ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৮:২৬

সামিয়া বলেছেন: সবাইকে ভালো রাখতে হবে, শুধু পশু-পাখি গাছপালাকে নয়, মানুষ কেও, আবার শুধু মানুষকেই নয় পশুপাখি ও অন্যান্য কেও, আশেপাশের সবকিছু কিংবা সবাই ভাল থাকলেই একজন মানুষ পরিপূর্ণ ভালো থাকে।

৬| ১০ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ১২:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: আমি সবার কথা ভাবি। নিজের পরিবার, আশে পাশের পরিবার।

১১ ই নভেম্বর, ২০২১ সকাল ১১:৩৯

সামিয়া বলেছেন: খুব ভালো কথা।

৭| ১০ ই নভেম্বর, ২০২১ সকাল ৯:০৩

শেরজা তপন বলেছেন: প্রকৃতিতে সবাই যার যার খাবার নিজে যোগার করে নেয়। মানুষের বেশী আহ্লাদ করে এদের খাবার দেবার দরকার আছে বলে আমার মনে হয় না।
তবে মানুষের প্রতি নির্ভরশীল কি প্রাণীর ব্যাপারে ব্যতিক্রম হতে পারে।

১১ ই নভেম্বর, ২০২১ দুপুর ১২:১০

সামিয়া বলেছেন: জি ভাইয়া , ধন্যবাদ

৮| ১০ ই নভেম্বর, ২০২১ বিকাল ৫:০৪

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর আপু
মানবিক আবেদন।

১১ ই নভেম্বর, ২০২১ দুপুর ১২:১১

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ ধন্যবাদ

৯| ১০ ই নভেম্বর, ২০২১ রাত ৯:১৮

*কালজয়ী* বলেছেন: সমাজে বিদ্যমান সমস্যাগুলোর দিকে দৃষ্টিপাত করলে এক ধরণের মন খারাপ হতাশা কাজ করে। একেকজন মানুষ একেক ধরণের সমস্যার মধ্য দিয়ে দিনাতিপাত করছে। কারো আর্থিক সমস্যা, কারো পারিবারিক সমস্যা, স্বামী-স্ত্রী-সন্তানের মধ্যে মানসিক দ্বন্দ্ব দূরত্ব, নিম্নবিত্তের অভাব অনটন, ঋণগ্রস্থ কৃষক-বেকার-হতাশাগ্রস্থ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা, বাজারে দ্রব্যমুল্যের ঊর্ধ্বগতির অদ্ভুত সূচক, মধ্যবিত্তের কষ্টের সংসার-টানাপোড়ন।

আরও আছে মোবাইল কোম্পানির অবিরত অফার। বহুজাতিক বানিজ্য, প্রাকৃতিক সম্পদ লুণ্ঠন, দেশবিক্রির আত্ম-বিনাশী খেলা, মেধা পাচার, সম্পদের অসম বণ্টন, বহুজাতিক ঋণের ভারে দেশের অর্থনীতি।

এসব ব্যথিত করার মত বিষয়গুলো নিয়ে ভাবনা একজন নাগরিকের সৎগুন। নাগরিক হিসেবে দায়বদ্ধতা একান্ত প্রয়োজনীয়। আপনার লেখা পড়তে গিয়ে এই ভাবনা মাথায় আসলো। আপনার লেখা চমৎকার উদ্দিপনা সৃষ্টি করে।

১১ ই নভেম্বর, ২০২১ দুপুর ১২:১৪

সামিয়া বলেছেন: আপনার কমেন্ট কপি পেস্ট করে পোষ্টের সাথে এড করে দিতে ইচ্ছে করছে, বেশ ভালো বলেছেন, অসংখ্য ধন্যবাদ।

১০| ১০ ই মার্চ, ২০২২ রাত ১১:০৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: ছবিটা চমৎকার তুলেছেন। শেষের অনুচ্ছেদের কথাগুলো মনে গেঁথে র'লো।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.