নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি ভেড়ামারা হাই স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষকের ছেলে। অনেকে আমাকে \'স্বপ্নবাজ সৌরভ\' নামে চেনে।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

এমন যদি হতো , ইচ্ছে হলে আমি হতাম প্রজাপতির মতো!

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

বৃষ্টি ও ভালবাসার টুকরো গল্প

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৯



এই না হলে বৃষ্টি !
চায়ের দোকানে গরম চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে ভাবছি। মাঝে মাঝে বাতাসে জলের ঝাপ্টা গায়ে লাগছে। ভালো লাগছে। আসে পাশে সবার মধ্যে কেমন যেন তাড়াহুড়ো , সবাই ব্যস্ত। বৃষ্টি এড়াতে সবাই খুঁজছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। আমার মধ্যে কোন ব্যস্ততা নেই , নেই কোন তাড়াহুড়ো। পরম আয়েশে তৃপ্ত চুমুক পড়ছে চায়ের কাপে , চোখ বুঁজে আসছে যেন। আমি দাঁড়িয়ে আছি ভীড় থেকে একটু ফাঁকে। দোকানটা বেশ বড়। সবাই আশ্রয় খুঁজছে আসে পাশে। আশা করা যায় , খুব শিগ্রী দোকানে দাঁড়ানোর জায়গা পাওয়া যাবে না।
“দেখি একটু সাইড দেন তো !”
চেয়ে দেখি কাক ভেজা এক তরুণী সাইড চাইছে ।
কয়েক মুহূর্তের জন্য চোখ ফেরাতে পারলাম না। কাক ভেজা তরুণীও আমার দিকে তাকিয়ে আছে। মনে হলো কয়েক যুগ কেটে গেছে । গ্রীষ্ম , বর্ষা , শরৎ শেষে শীতে পাতা ঝরা ডালে দেখা দিলো সবুজের সম্ভার। নাহ , আমি ইদানিং বেশি আশা রাখি না।জানি বৃষ্টি থামলেই এই মায়া কেটে যাবে। আকাশের কালো মেঘ গুলো সরে দেখা দেবে নতুন আলো , ঝলকানি দেবে রোদ। । আমি চায়ের কাপটা দোকানির দিকে বাড়িয়ে দেই। বৃষ্টি থেমে গেছে। ফিরে যাচ্ছে যে যার গন্তব্যে। আবার ব্যস্ততা , আবার তাড়াহুড়ো। কাক ভেজা তরুণী চলে যাচ্ছে। আমি তাকিয়ে থাকি। আমার কোন তাড়াহুড়ো নেই , নেই কোন ব্যস্ততা।



এই যা !
আবার বৃষ্টি চলে এলো।আবহাওয়ার মর্জি বোঝা মুশকিল । এই বৃষ্টি এই রোদ। আমি আসেপাশে তাকায় , চোখ খুঁজে ফেরে নিরাপদ আশ্রয়স্থল। ঠিক করলাম একদৌড়ে রাস্তার পার হব। নিউ মার্কেটের গেটের নিচে দাঁড়ালে আপাতত রক্ষা পাওয়া যাবে। এক দৌড়ে এসে দাঁড়ায় নিউ মার্কেটের গেটের সামনে । চারিদিকে কোলাহল বাড়ছে , বাড়ছে যানবাহনের চঞ্চলতা। ভেপু বাজিয়ে ছুটে চলেছে আজিমপুর টু মিরপুরের সিটিং সার্ভিস। বৃষ্টি ব্যস্ততা বাড়ায় , চঞ্চলতা বাড়ায় বহুগুনে। হটাৎ সব কিছু স্থবির হয়ে গেলো , স্তব্ধ হয়ে গেলো। যানবাহনের হর্ন নিমেষেই হয়ে গেলো নীরব। নিউমার্কেট গেটটার ছাউনির নিচে তুমি দাঁড়িয়ে আছো। তাকিয়ে আছো আমার দিকে। ভাবলাম চোখ সরিয়ে নেবো। তবে কেন জানি সম্ভব হলো না। বৃষ্টি বাড়ছে। ভিজিয়ে দিচ্ছে পুরো শরীর , চুল , চোখ , আপাদমস্তক। দূরে দাঁড়িয়ে বোঝার চেষ্টা করি তোমার চোখের গভীরতা।
আচমকা পুরোনো অনুভূতি গুলো তরল হয়ে আমার চোখে জমা হতে থাকে। সেটা বৃষ্টি হয়ে ঝরে পড়ার আগেই নিজেকে সংবরণ করি। বহুকাল আগে বলাকা সিনেমা হলের সামনে থেকে যে ভুল বাস ধরে ছিলাম , যে বাস পৌঁছে দিয়েছিলো ভুল কোন গন্তব্য। আজ আর ভুল করতে চাই না। আজিমপুর টু মিরপুরগামী সিটিং সার্ভিস হর্ন দেয় , আমি ফিরে চলি নিজ গন্তব্যে। আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামে। দুয়েক পা এগিয়ে তুমিও ভিজতে থাকো।ভিজতে থাকে কান্নার এ শহর!



মামা , হুড টা নামিয়ে দেন !
আমি মুখ কাচুমাচু করে তোমার পাশের সিটে বসে থাকি।আমার শরীরে অসুখ , বৃষ্টির পানি মাথায় পড়লে নিশ্চয় ঠান্ডা লাগবে। তারপর সর্দি আর খক খক কাশি। এই ঠান্ডা , সর্দি , কাশি নিয়ে আমার একটা ছড়া আছে।

“মুখ খিঁচিয়ে নাক উঁচিয়ে
দিচ্ছি হ্যাঁচচ্চো হাঁচি
একটু পরেই আসবে বোধহয়
খকর খকর কাশি!”

-- আরে , ভিজে যাবো তো !
-- ভেজার জন্যই হুড নামাতে বললাম।
-- জানোনা , আমার শরীরে অসুখ।
-- ওই অসুখ সেরে যাবে।
-- যদি না সারে ?
-- আরে , সারবে সারবে। আমি আজ ভিজবোই , দেখছো না আমি আজ নীল শাড়ী পরে এসেছি।

বৃষ্টির প্রতিটা ফোঁটা তুমি ধরার চেষ্টা করছো। ছিটিয়ে দিচ্ছ আমার গায়ে। আমি আলোড়িত হয়। ইচ্ছে হচ্ছে ট্রাফিক সিগন্যালে লাল বাতি জ্বালিয়ে সমস্ত রাস্তা বন্ধ করে দিই। রাস্তার মাঝে দাঁড়িয়ে দুজনে ভিজি। রাস্তার পাশের ফুল বিক্রেতা মেয়ে গুলো বাড়িয়ে দেবে বকুল ফুলের মালা। গন্ধ নিবো আর ভিজব , বকুল ফুলের মালা তুলে দেব তোমার খোঁপায়। আমার শরীরে অসুখ , সে অসুখ আজ সেরে যাবে।
আমি তোমার উচ্ছলতা উপভোগ করছি। উপভোগ করছি পুরো পরিবেশ। আসে পাশের মানুষের কপট কথাবার্তা আমার কানে আসছে না। শুধু আমাদের হৃদয়ের ভেজা মাটির সোঁদা গন্ধ টুকু , সুবাস ছড়ায় হৃদয় থেকে অন্য কারো হৃদয়ে।




ছবি : ইন্টারনেট

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: ঢাকার বৃষ্টির পানি কি পান করা/খাওয়া যাবে?

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: নাহ ! বড় বেশি নোনতা , কান্নার শহর তো।

২| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:২১

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: এ গল্পে মন্তব্যের বয়স অনেক পেছনে ফেলে এসেছি।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:২৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: কিন্তু আমি যে ঠিক করেছি অনেক বয়স হলেও আমি এমন গল্প লিখব। :)

ধন্যবাদ শ্রদ্ধেয়। ভালো থাকবেন।

৩| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৫

শেহজাদী১৯ বলেছেন: বৃষ্টিবিলাসী সুন্দর স্বপ্ন।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আজ কেন জানি বৃষ্টি আর ভালোবাসা নিয়ে কিছু লিখতে ইচ্ছে হলো।
ধন্যবাদ মন্তব্যে। ভালো থাকবেন।

৪| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪১

শেহজাদী১৯ বলেছেন: সুখে থাকলেই মানুষ বৃষ্টি নিয়ে ভাবে বা লিখে।

এমন কিছু লিখবেন কি?

বৃষ্টিতে ভেঁজা রাজপথের বাসিন্দাগুলোর বৃষ্টিবিলাস
ছেঁড়া পলিথিনে মোড়া টিপটাপ, ঝম ঝম প্রাসাদে যাদের বাস...

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমার পোষ্টের তিনটা গল্পের মধ্যে শেষেরটা বৃষ্টিবিলাস বলতে পারেন।
বস্তুত বৃষ্টি নিয়ে আমার তেমন কোন আদিখ্যেতা নেই। না গল্পে না , কবিতায়।
বৃষ্টি আমার মন ভালো করার কোন উপলক্ষ্য নয়। মন ভালো বা সুখ আমাকে বৃষ্টি নিয়ে লেখায় না।

ধন্যবাদ মন্তব্যে। শুভকামনা।

৫| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: গল্প কি মিনিমাম ১৫-২০ বছর আগের প্রেক্ষাপট নিয়ে লেখা, যদিও তারও আগে হওয়া উচিত ৯০ এর দশকের মনে হচ্ছে।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আসলে প্রেক্ষাপট চিন্তা করিনি। দ্বিতীয় গল্প লেখার সময় ঢাকা নিউমার্কেট আর বলাকা সিনেমা হল মাথায় এলো। তবে এটা ঠিক , দশ পনেরো বছর আগে আজিমপুর টু মিরপুর / মিরপুর টু আজিমপুর রুট খুব ব্যবহার করেছি। কেন বলুন তো ?

৬| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫০

বিজন রয় বলেছেন: যারা কবিতা ভাল লেখে কারা গল্প লিখলে তা খুব কাব্যময় হয়ে ওঠে।
সুন্দর, স্নিগ্ধ!

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ছোট ছোট বাক্য ব্যবহার আর একই বাক্য এবং শব্দ পুনরায় আনি। এই জন্যই মনে হয় এমন লাগে। তবে আপনার ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো।
এই বৃষ্টিতে সিন্গ্ধতা আপনাকে ছুঁয়ে যাক। শুভকামনা।

৭| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: কেন বলুন তো ?
- আমি পুরাতন মানুষ (বৃক্ষ তোমার নাম কি ফলে পরিচয়) আপনি কি দেশের বাইরে থাকেন?

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: নাহ ! এই কান্নার শহরেই থাকি।

৮| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: আপনার লেখা পড়ে মনো হলো দেশের বাইরে ছিলেন বা দেশের বাইরে আছেন। - ধারণা ভুল হয়েছে এবার।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমার লেখা কিন্তু আমিই ধরতে পারছি না ব্যাপার টা।
১০ - ২০ বছরের প্রেক্ষাপট কিন্তু ঠিক ছিলো। কিভাবে ধারণা করলেন এটাই তো আমার মাথায় ঢুকছে না। :|

৯| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



ঢাকার কবিতা ও গল্পে, সবাই ভিজতে চায়!

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: স্যার , আমার বৃষ্টিতে ভিজতে ইচ্ছে হয় না। ছোটবেলায় হত। এখন পোশাকে কাদা লাগার ভয় থাকে। ঠান্ডা , জ্বর কাশি কত কিছুর ভয় আর সংশয়। যত বড় হচ্ছি ততই ভয় বাড়ে।
ভালো থাকবেন। শুভকামনা।

১০| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৯

ইসিয়াক বলেছেন: আজকের বৃষ্টিটা বিচ্ছিরি । সব কাজ এলোমেলো হয়ে গেছে।
গল্প ভালো লেগেছে ।
শুভসন্ধ্যা

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:২৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: হা হা হা। তাই নাকি ? ঘরে আটকা পড়েছিলেন। ব্যস্ত নাগরিক জীবনে সব কিছু এলোমেলো করে দেয় এই নচ্ছার বৃষ্টি !
বয়স বাড়ছে --

"তাই হলদে পাখীরা এই শহরে আর ফিরে আসেনা
শুধু বেড়ে চলে ডিজেলের ধোঁয়া রাস্তায়,
সেই ন্যাংটা ছেলের দল ফুটপাত ঘিরে আর হাসেনা
বেড়ে গ্যাছে রাতারাতি বয়স, অসময়।
তাই বৃষ্টি নামলে পরে মন আর জুড়িয়ে যায়না
শুধু চ্যাপছয়াপে কাঁদা আর প্যাঁচপ্যাঁচে সংশয়.... "
(অসময় - অঞ্জন দত্ত)

ধন্যবাদ প্রিয় ইসিয়াক ভাই। শুভ কামনা অবিরত।

১১| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: গল্পটা আমার কাছে বেশ লেগেছে। সুন্দর। প্রানবন্ত।

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৭

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় রাজীব ভাই। ভালো থাকবেন। বৃষ্টির ঘ্রান আপনার জন্য ।

১২| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৫

নীল আকাশ বলেছেন: লেখা পড়ে যথেষ্টই ভালো লাগলো। বৃষ্টির সময় আবেগ আর মানবীয় অনূভুতিগুলি খুব সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলেছেন। পোস্ট লাইকড।

এটা যদি একটা সিংগেল গল্প হয়, তবে লেখাটা বেশ কয়েকবার পর মনে হলো, তৃতীয় প্যারা দ্বিতীয় প্যারা মাঝখানে হলে ভালো হতো। তৃতীয় প্যারা ফিনিস কিভাবে হয়? এটাতো পুরাতন স্মৃতি। ফিনিস তো দ্বিতীয় প্যারাতেই দিয়ে এসেছেন। তাইনা?
ধন্যবাদ আপনাকে। শুভ কামনা রইল।

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ প্রিয় ব্লগার ,
আসলে তিনটি গল্প আলাদা। এইটা আগেই জানানো উচিত চলো। আমি চেয়েছিলাম তিনটা গল্প আলাদা ভাবেই পাঠক পড়ুক , তাই এ ভাবেই সাজিয়ে ছিলাম। তবে এখন কেন জানি মনে হচ্ছে , শেষের অংশটা মাঝে দিয়ে দিতে।
আবারো ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।

১৩| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩০

কাতিআশা বলেছেন: বৃস্টি খুবই মায়াবী একটা ব্যাপার!...ভালো লাগলো লেখ!

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৪০

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ধন্যবাদ কাতিয়াশা , বিষণ্ণ ব্লগে স্বাগতম। ভালো থাকবেন। শুভকামনা রইলো।

১৪| ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: একসময় আমি শুধু এরকম গল্প পড়তে পছন্দ করতাম। বয়স বাড়ার সাথে সাথে পড়ার রুচি বদলাতে থাকলো।

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: সেটাই স্বাভাবিক রাজীব ভাই।আমার কাছে বয়স বেড়ে যাওয়া একটা দুর্বিসহ বিষয় , সহ্য করতে পারিনা।
ভালো থাকবেন রাজীব ভাই। আবারো ধন্যবাদ।

১৫| ২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৩০

মুক্তা নীল বলেছেন:
বৃষ্টিতে ভেজার ছোট ছোট অনুভূতির প্রকাশ করেছেন অসাধারণ ভাবে। নিউমার্কেট ও চাঁদনি চক এর স্মৃতিবিজড়িত বৃষ্টি অনেকেরই মনে থাকে। খুব ভালো লাগলো আপনার লেখা পড়ে।

২৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: চাঁদনী চক, নীলক্ষেত , নিউমার্কেট এলাকায় একবার হলেও প্রেমিক-প্রেমিকাদের বৃষ্টিতে ভেজা উচিত। :)
স্মৃতি সমৃদ্ধ হোক , জমাটবদ্ধ হোক।
ধন্যবাদ জানবেন। শুভ কামনা।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.