নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি স্মৃতিকাতরতা নামক ভীষণ এক রোগগ্রস্ত, সেই সাথে বিষাদগ্রস্থ মানুষ। আমার চিকিৎসা প্রয়োজন।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

ভীষণ রকম সাম্যবাদী , সাম্যের কথা বলে - তারায় আবার স্নান করে যায় , মগজ গলা জলে !

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

আজ ২২শে অক্টোবর

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ সকাল ১০:১৪



''ওগো পাখি, ওগো নদী,
এতোকাল ধরে দেখেছ আমারে- মোরে চিনে থাকো যদি,
আমারে হারায়ে তোমাদের বুকে ব্যথা যদি জাগে ভাই,-
যেন আমি এক দুখ-জাগানিয়া, -বেদনা জাগাতে চাই!
পাই নাই কিছু, ঝরা ফসলের বিদায়ের গান তাই
গেয়ে যাই আমি,- মরণেরে ঘিরে এ মোর সপ্তপদী।।''

১৪ই অক্টোবর, ১৯৫৪। গুনগুন করতে করতে কোলকাতা শহরের বালিগঞ্জের ব্যস্ত রাস্তা ধরে কবি হেঁটে যাচ্ছেন। এই ব্যস্ত লোকারণ্য শহরে কবি সম্ভবত একা। তিনি একা বলেই পাখি , নদী , প্রকৃতিকে সাথী করেন। কথা বলেন , গল্প করেন। নদীর স্রোত ঢেউ খেলে , কবিও সেই ঢেউয়ে ভাসেন। নির্জন দুপুরে পাখির কলতান কবিকে ঘুম পাড়ায়। এই নিঃসঙ্গ জাগতিকতায় এরাই কবির আপনজন , কাছের মানুষ।
রাস্তার পাশের ডাব বিক্রেতার কাছে থমকে দাঁড়ালেন কবি। ডাব কেনা কি খুব জরুরি ? এই অক্টোবরে ডাবের পিপাসায় কবি কি তৃষিত ? নাকি অন্য কিছু ?
দুই হাতে ডাব নিয়ে কবি রাস্তা ধরলেন। ঠিক করলেন ট্রাম লাইন পার হবেন।

''ওগো পাখি, ওগো নদী,
গেয়ে যাই আমি,- মরণেরে ঘিরে এ মোর সপ্তপদী।।''

ট্রামের ক্যাচারে আটকে যায় কবির শরীর , ভেঙ্গে যায় ঊরু ,পাঁজরের হাড়। দলিত শরীর নিয়ে কবি পড়ে থাকেন কোলকাতার রাস্তায়। পরজন্মে শঙখচিল , হাঁস হয়ে কলমীর গন্ধভরা জলে ভাসার তীব্র আকাঙ্খায়, কবি এই জাগতিক নিঃসহায়তাকে বিদায় জানান -- ২২শে অক্টোবর, ১৯৫৪। কোলকাতার ইতিহাস বলে , গত একশ বছরে ট্রাম দুর্ঘটনায় কোলকাতায় মৃত্যুর সংখ্যা মাত্র একটি এবং তিনি হচ্ছেন কবি জীবনানন্দ দাশ।

আমরা যাকে 'রূপসী বাংলার কবি ' বলে আমার কাছে তিনি 'বিষণ্ণতার কবি'। আমি বিশ্বাস করি তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন। তাঁর কল্পনার জগৎ সম্ভবত আরো সুন্দর ছিল। জাগতিক নিঃসঙ্গতা তার বেঁচে থাকার ইচ্ছাকে শূন্য করে দিয়েছিল। তিনি কি যেতে চেয়েছিলেন অন্য কোনো জগতে , তিনি কি অন্যকিছু কল্পনা করতেন ?

আমি জানি না। তবে কল্পনা , বিষন্নতা , নির্জনতা , একাকিত্ব আমাকে তাড়া করে। খুব। রাতে ঘুম হয় না, একা লাগে , ভয় হয় । এই গুলো কারো সাথে শেয়ার করতে ইচ্ছে হয় না আর। এই বিষয়ে সাইকিয়াট্রিস্ট ডাঃ আসগরের গিয়েছিলাম একবার। তিনি কয়েকটা ওষুধ দিয়েছিলেন। দুয়েকদিন খেয়েই ছেড়ে দিয়েছি।তবে ডাক্তার কে আমি অনেক কথা বলতে চেয়েছিলাম। শেষ পর্যন্ত বলা হয়ে ওঠেনি। ডাক্তার জানেনা আমি কবিতা লিখি। যে কবিতা গুলো বিষাদমাখা। ডাক্তার কে আমি একটা কবিতার কয়েক লাইন শোনাতে চেয়েছিলাম। শোনাতে আর ইচ্ছা হয়নি। ডাক্তার আমার একটা সুন্দর স্মৃতির কথা শুনতে চেয়েছিলেন। আমি বলিনি। কিছু কথা আমি আটকে রাখবো কাউকে আর বলবো না।

ইদানিং আমার রাস্তা পার হতে ভয় হয়। যদিও আমি ফুটওভার ব্রীজ ব্যবহার করি। ভয় হয় এ কারণে , মাঝে মাঝে আমি আনমনে গুনগুন করি। ছাপার অক্ষরের কবিতা গুলো মাথায় ঠাঁই নিয়েছে , দখল করে নিচ্ছে ক্রমশ। আমি যখন আনমনে হাঁটি তখন আমার পাশে কেউ থাকে না। মনে হয় ইরেজার দিয়ে আশেপাশের সব কিছু মুছে দেয়া হয়েছে। এটাই সম্ভবত প্রকৃত জগৎ । মানুষ আজন্ম একা , আশেপাশের মানুষ গুলো শুধু মায়া -- বিভ্রম।

মন্তব্য ২১ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (২১) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ সকাল ১০:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি কোথায়ও পড়েছিলাম যে, কবি ফাইন্যান্সিয়েল কষ্টে ছিলেন, উনার দরকার ছিলো একটি চাকুরী, উনি কিছুতেই তা পাননি সেই যুগে। আজকে, ৭০ বছর পর, কোটি শিক্ষিত বাংগালী সামান্য চাকুরী পাচ্ছে না; যারা চাকুরী সৃষ্টি করার কথা, তারা চাকুরী সৃষ্টি নিয়ে কথাও বলে না।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৩৭

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: কবি চাকুরী করতে পারতেন বলে মনে হয় না । :(
প্রকাশকদের থেকে আগাম টাকা পয়সা দিয়ে চলতেন তিনি ।

মন্তব্যে অনেক ভাললাগা রইল । আপনার উপস্থিতি ভাল লাগে ।

২| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ সকাল ১১:১৫

পদ্মপুকুর বলেছেন: কিছুদিন আগে আপনি বাবা হয়েছেন, এখন এ ধরনের নেতিবাচক চিন্তা ভাবনা থেকে বের হয়ে আসার সময়। তাছাড়া আমার মত আরও অনেকের কাছে নিশ্চয় আপনার লেখা ভালো লাগে, সে ভালোলাগা থেকে তৈরী হওয়া অধিকার নিয়েই বলি- ব্লগে থাকুন, কথা বলুন, নিশ্চয় মেঘ কেটে যাবে।
শুভ ব্লগিং, ভালো থাকবেন প্রতিক্ষণ।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৪১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
আপনার মন্তব্যে অনেক কিছু খুঁজে পেলাম । বাপ ছেলের চমৎকার সময় কাটছে । আপনি নিশ্চয় ভাল আছেন?
অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। করোনা পরিস্থতি বিশাল একটা ধাক্কা দিয়েছে । অনেক কিছুই বলা যায় না । :(

৩| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: একজন খাটি কবি। দরিদ্র মানুষেরা বুঝি ভালো লিখেন। অভাব মানুষকে দিয়ে অনেক কিছু করিয়ে নেয়।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৪৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আপানর মন্তব্য নিয়ে ভাবছি । পরে জানাবো ।

৪| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: জীবনানন্দ কে নিয়ে আমার ১০০ পর্বের একটা ধারাবাহিক লেখা লেখার ইচ্ছা আছে।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৪৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমি জানি আপনি সেটা পারবেন।
ফিরে আসায় ভালবাসা।

৫| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৪৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: স্বপ্নবাজ সৌরভ,



আপনার লেখাটি পড়ে অনেক্ষন ভাবতে হয়েছে, কি বলা যায় আপনাকে। আপনার কাছে জীবনানন্দ "বিষন্নতার" কবিও। তাই কি ? মনে হয় না।
তিনি চিত্রকল্পের কবি , নিসর্গের কবি - প্রকৃতির কবি, জীবনের কবি, প্রেমের কবি, বহমান সময়ের কবি। একাকীত্বের কবিও। কিন্তু বিষন্নতার নন।
জীবনের ঝুল বারান্দায় বসে তিনি জীবনেরই সারাৎসার গ্রন্থনা করে গেছেন, ভোরের আলোর মতোন করে লিখে গেছেন ইন্দ্রিয়প্রবনতার ধূসর পান্ডুলিপি। বিষাদমাখা মনে হলেও তা থেকে সতত ঝরেছে মিহিন বাতাসের মতো বেঁচে থাকার ঘ্রাণ।
তাই হয়তো লিখেছেন এমন করে -
" আমরা মধ্যম পথে বিকেলের ছায়ায় রয়েছি
একটি পৃথিবী নষ্ট হ'য়ে গেছে আমাদের আগে;
আরেকটি পৃথিবীর দাবি
স্থির করে নিতে হলে লাগে....

সকালের আকাশের মতন বয়স!"


এই যে আরেকটি পৃথিবীকে স্থির করে নেয়াঁর কথা বলেছেন তিনি, তাতে আপাত বিষন্নতার ছায়া পড়লেও তার ভেতরে জ্বলজ্বলে মুখ তুলে আছে বাঁচার আকুতি।
আপনি হয়তো তাঁর লেখার উপরের ছায়া দেখেই সে ছায়ায় আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু ভেবে দেখেন নি, সে ছায়ার পেছনেই যে পড়ে আছে সূর্য্যের কনকপ্রভা।

শেষে বলি- হাযারো কোলাহলের ভিড়ে মানুষ আসলেই একা। সেই একাকীত্ব নিয়েই সে একেকটি নতুন ভোরে নতুন করেই বেঁচে ওঠে, বিষন্নতা নিয়ে প্রতি সন্ধ্যায় অস্তগামী হয়না। আমিও একাকীত্বে ভুগি কিন্তু জীবনের রুপ-রস-গন্ধ নিতে ভুলে যাইনে। সকালের আলোর মতোন নবীন বয়স নিয়ে জেগে উঠি নিয়ত। আর তাই বিষন্নতা আমার চারপাশে হেটে বেড়ায় না। সব মানুষই মনে হয় এমন!
বোঝাতে পেরেছি হয়তো।

শুভ কামনায়।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৫১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আপনার মন্তব্যের জন্য অপেক্ষায় থাকি স্যার ।
মনোযোগ নিয়ে কয়েকবার পড়লাম । প্রতিত্তুরে কি লেখা যায় ভাবছি।
"আবার আসিব ফিরে----- ।" ফিরে আসার আকাঙ্ক্ষা।
কবির অনেক লেখার মধ্যে আমি বিষাদ কিংবা বিষণ্ণতা খুঁজে পায়। নদী পাখি গাছ সব কিছু ছেড়ে চলে যেতে হবে ? কি নির্মম ! কি ভয়াবহ!!

বিষাদমাখা মনে হলেও তা থেকে সতত ঝরেছে মিহিন বাতাসের মতো বেঁচে থাকার ঘ্রাণ।


আর সব কিছু আপনি এই লাইনেই বলে দিয়েছেন। আর কিছু বলার থাকে না ।অনেক ধন্যবাদ । ভাল থাকবেন সতত।

৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১:০৯

বিএম বরকতউল্লাহ বলেছেন: তাঁর কবিতার মধ্যে মদমত্ততা আছে। শেষ না করে পারি না।
ধন্যবাদ।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৫২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: মোহ। ভয়ঙ্কর মোহ।
ধন্যবাদ আপনাকে। ভাল থাকবেন ।

৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১:১৭

ৎঁৎঁৎঁ বলেছেন: চমৎকার লিখেছেন। এর সাথে আহমেদ জী এস ভাই এর মন্তব্য উল্লেখযোগ্য। জীবনানন্দকে কেবল একমাত্রায় যেমন বাঁধা যায় না, তার কবিতার মতই সবার কাছে সে নানারূপে ধরা দেবার ক্ষমতা রাখে, তাই তিনি যখন বিষন্নতার কবি, সেটাও ঠিক, একই সাথে চিত্রকল্পের কবি , নিসর্গের কবি - প্রকৃতির কবি, জীবনের কবি, প্রেমের কবি, বহমান সময়ের কবি। একাকীত্বের কবিও।
আমার ব্যক্তি অনুভূতি হচ্ছে বিষাদ আর আনন্দ(এখানে আনন্দ শব্দটা ঠিক লাগলো না যদিও) তো জমজ বোন, একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। একজন বিষাদগ্রস্থ মানূষের পিছে পিছে তার যে ছায়া হেঁটে যায়- কবির চোখে সেই ছায়া কিন্তু রঙিন!
জীবনকবি - ভালোবাসা নিও!

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৫৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
ধন্যবাদ ভাই। একদিন দেখা হয়েছিল। কথা বলা হয়ে ওঠেনি । বাঁশিতে আপনি মোহ ছড়িয়ে দিয়েছিলেন । আজ কাটেনি ।
আহমেদ জী এস স্যার এর মন্তব্য নিয়ে আলাদা ভাবে কিছু বলার নাই। উনার মন্তব্য আমাকে বরাবরই আলোড়িত করে।
আপনার মন্তব্যে অশেষ ভাললাগা রেখে গেলাম। ভাল থাকবেন ।

৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৪১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা । হে রূপসী বাংলার চিরসবুজ কবি।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৫৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা প্রিয় কবি।
আপনি ভাল থাকবেন। অনেক ধন্যবাদ ।

৯| ২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ৯:২৪

স্থিতধী বলেছেন: কখনো সময় পেলে এই লিঙ্কটিতে গিয়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দিয়ে নিজের সম্পর্কেই নিজে আরেকটু জেনে নেয়ার চেষ্টা করে দেখতে পারেন। অনেক সময় আমরা নিজেও নিজের কাছে অনেকটাই অচেনা, ফলে কখনো কখনো যেন নিজেকেই ভয় হয় কিংবা কথা শুধু চলতে থাকে নিজের সাথেই। শুনেছি নিয়মিত কিছু শারীরিক ব্যায়াম একাকীত্ব না ঘোচাতে পারলেও, এক টানা বিষন্নতা বোধের হাত থেকে অনেকটাই মুক্তি দিতে পারে। জীবনানন্দ দাশের মৃত্যু দিনকে আপনার সুন্দর লেখনীতে মনে ক্রিয়ে দেবার জন্য ধন্যবাদ।

২২ শে অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৫৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। লেখা ভাল লেগেছে জেনে ভাল লাগছে। ভাল থাকবেন। চমৎকার মন্তব্যে ভালবাসা।

১০| ২৩ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:০৫

কালো যাদুকর বলেছেন: আমারও প্রিয় কবি। লিখার জন্য ধন্যবাদ। আমারও ধারনা কবি ইচ্ছে করে চলে গেছেন। ধন্যবাদ।

১১| ২৩ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৩:৫০

ঢুকিচেপা বলেছেন: “ আমি যখন আনমনে হাঁটি তখন আমার পাশে কেউ থাকে না। মনে হয় ইরেজার দিয়ে আশেপাশের সব কিছু মুছে দেয়া হয়েছে।”

খুব ভালো লাগলো।

১২| ২৭ শে জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:১১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমি আর কী বলবো! যা বলার তার প্রায় সবই সুন্দর করে আহমেদ জী এস বলে গেছেন, উচ্চারণ-অসম্ভব নামের একজন ("ৎঁৎঁৎঁ") বলেছেন, এবং আপনিও বলেছেন।
কবি আব্দুল মান্নান সৈয়দ অনেক গবেষণা করে জীবনানন্দ দাশ কে শুদ্ধতম কবি নামে অভিহিত করেছেন। তিনি ভুল বলেন নি।
পোস্টে ভাল লাগা + +।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.