নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সত্যের সন্ধানে ও শান্তির অন্বেষায় ...

সব বিষয়ে জানতে ও শিখতে আগ্রহী একজন উদার মনের মানুষ।

জোবাইর

বিনয়ী মূর্খ অহংকারী বিদ্বান অপেক্ষা মহত্তর। Copyright © Zobair

জোবাইর › বিস্তারিত পোস্টঃ

বাংলাদেশ: ফিরে দেখা ২১ আগস্ট

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ২:৪২


সহজলভ্য রেফারেন্সের অভাবে বাংলাদেশের ইতিহাসের অনেক ঘটনা বিভিন্ন ব্যক্তি বিভিন্নভাবে বিশ্লেষণ করেন। এতে ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত হচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে অসংখ্য বিতর্কের। তাই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনার তথ্য সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে 'ফিরে দেখা বাংলাদেশ' সিরিজ। প্রায় সব তথ্য যাচাই-বাচাই করে দেশের প্রধান সংবাদপত্রসমূহ থেকে নেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশের ইতিহাসে ২১ আগস্ট ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক ও সামাজিক ঘটনাবলি:

১৯৭২
====
১। লন্ডন থেকে বঙ্গবন্ধুর জেনেভাযাত্রা
- - - - - - -
২। বাংলাদেশকে সদস্য অন্তর্ভুক্তির প্রশ্নে জাতিসংঘে পুনরায় বৈঠক।

১৯৭৬
====
মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জাতীয় কাউন্সিলে মেজর জেনারেল জিয়ার ভাষণ।

১৯৭৭
====
সরকারি কর্মচারীদের ফ্রিঞ্জ বেনিফিট ঘোষণা।

১৯৭৮
====
বন্যা ত্রানতৎপরতায় সেনাবাহিনী মোতায়েন।

১৯৭৯
====
জেরুজালেম দিবস পালিত হয়।

১৯৮৩
====
রাণী হামিদ ব্রিটিশ মহিলা দাবায় চ্যাম্পিয়ন।

১৯৮৯
====
মাদকদ্রব্য ব্যবহার রোধে জাতীয় বোর্ড গঠিত।

১৯৯৩
====
চট্টগ্রাম বিভাগে বন্যা।

১৯৯৮
====
১। পান্থপথের বস্তিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিহত ৫।
- - - - - - -
২। মানবসম্পদে বিশ্বের ১৭৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৪তম, নারী উন্নয়নে ১২৩।

১৯৯৯
====
১। কমলাপুর রেলওয়ে ব্যারাকে ভূগর্ভস্থ চোরাকুঠুরি থকে ১৭ হাজার বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার। রেলওয়ে নিরাপত্তাকর্মীসহ আটক ২৪।
- - - - - - -
২। পার্বত্য চট্টগ্রামের দীঘিনালায় বাঙ্গালি-পাহাড়ি আবার সংঘর্ষ।
- - - - - - -
৩। ড. কামাল হোসেনের বাসার সামনে শতাধিক বস্তিবাসীর অবস্থান।

২০০০
====
১। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগে ১১০ বিরোধী সাংসদের আরেকটি মামলা হাইকোর্টে দাখিল।
- - - - - - - -
২। সাবেক ডেপুটি মেয়র ও জাতীয় পার্টির নেতা জাহাঙ্গীর মোহাম্মদ আদেল এবং তাঁর দুই পুত্রের বিরুদ্ধে ১৪ আগস্ট তাঁদের বাড়িতে পাকিস্তানী পতাকা উত্তোলনের জন্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে মামলা।
- - - - - - - -
৩। গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে হবিগঞ্জে নিহত ৪, আহত পাঁচ শতাধিক।

২০০১
====
১। ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ভোটকেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত।

২০০৪
====
১। বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে সমাবেশে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা, গ্রেনেড হামলায় নিহত ১৭, আহত ৪০০০।


বিভীষিকাময় সেই ঘটনা: ২০০৪ সালের ২১শে আগস্টের বিকাল ৪টার দিকে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশের পর সারাদেশে বোমা হামলায় নিহতদের স্মরণে শোক মিছিলের কর্মসূচি ছিল। সাড়ে ৪টা নাগাদ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ এলাকা পরিণত হয় জনসমুদ্রে। শেখ হাসিনা বিকাল ৫টার দিকে সমাবেশস্থলে পৌঁছান। বুলেটপ্রুফ মার্সিডিজ বেঞ্জ জিপ থেকে নেমে নিরাপত্তা কর্মী বেষ্টিত অবস্থায় তিনি দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে একটি ট্রাকের ওপর তৈরি অস্থায়ী মঞ্চে উঠে বক্তৃতা শুরু করেন। তিনি দেশব্যাপী অব্যাহত বোমা হামলার বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ২০ মিনিটের বক্তৃতা শেষে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ উচ্চারণ করে হাতে থাকা একটি কাগজ ভাঁজ করতে করতে তিনি এগোচ্ছিলের মঞ্চ ট্রাক থেকে নামার সিঁড়ির দিকে। সঙ্গে সঙ্গে দক্ষিণ দিক থেকে মঞ্চকে লক্ষ্য করে একটি গ্রেনেড নিক্ষেপ করা হয়। ঘড়ির কাঁটায় তখন ৫টা ২২ মিনিট। প্রথম গ্রেনেডটি ট্রাকটির গায়ে লেগে মঞ্চের পাশে রাস্তার ওপর পড়ে বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। (গ্রেনেডটি আরেকটু ওপরের দিকে গেলে মঞ্চে এসে পড়তো!) এরপর একে একে আরো ১২টি গ্রেনেড বিস্ফোরিত হয়। মুহূর্তের মধ্যে পুরো এলাকা ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে যায়। রক্তগঙ্গা বয়ে যায় এলাকাজুড়ে। আতঙ্কে মানুষ দিগ্বিদিক ছোটাছুটি শুরু করে। গ্রেনেডের আঘাতে মঞ্চের নীচে রাস্তার ওপরে বসা বেগম আইভী রহমানসহ অসংখ্য মানুষ লুটিয়ে পড়েন। ঘাতকদের প্রধান লক্ষ্য ছিল শেখ হাসিনা। বিষয়টি বুঝতে পেরে মঞ্চে উপস্থিত ঢাকার তত্কালীন মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ হানিফসহ দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত দেহরক্ষীরা তাত্ক্ষণিকভাবে এক মানববর্ম তৈরি করে তাকে গ্রেনেডের হাত থেকে রক্ষা করেন। প্রাণে রক্ষা পান তিনি। মানবঢাল তৈরি অবস্থায় শেখ হাসিনাকে মঞ্চ থেকে নামিয়ে তার মার্সিডিজ জিপে তোলা হয়। জিপটি রওনা হয় সুধা সদনের দিকে। কিন্তু শেখ হাসিনাকে বহনকারী এই জিপকে লক্ষ্য করেও গুলিবর্ষণ করা হয়। সমাবেশ স্থলে নিক্ষিপ্ত গ্রেনেডের তিনটি অবিস্ফোরিত থেকে যায়।
পুলিশের লাঠিচার্জ: গ্রেনেড হামলার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন দলের নেতা-কর্মীসহ সাধারণ জনতা। তারা গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ জানাতে থাকলে পুলিশ তাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। পুলিশ বিক্ষুব্ধ লোকজনের ওপর প্রথমে বেপরোয়া লাঠিচার্জ ও পরে কাঁদানে গ্যাসের সেল নিক্ষেপ করে। পুলিশের সাথে বিক্ষুব্ধ জনতার দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। নিরীহ পথচারীরাও লাঠিপেটার শিকার হয়। গ্রেনেড বিস্ফোরণের সাথে সাথে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, স্টেডিয়াম মার্কেট, বায়তুল মোকাররম মার্কেট, নবাবপুর রোড, নর্থ সাউথ রোড, পুরানা পল্টনসহ আশপাশের এলাকার দোকানপাট ও যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। লোকজন আতঙ্কে এলাকা ছেড়ে পালাতে থাকে। হতাহতের মধ্যে ৩ শতাধিক আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে, আরো শতাধিক নেতা-কর্মীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, বারডেম, বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শমরিতা হাসপাতালসহ রাজধানীর অন্যান্য হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

যারা হতাহত হয়েছিলেন: এই বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহত হন আইভি রহমান, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষী ল্যান্স করপোরাল (অব.) মাহবুবুর রশীদ, আবুল কালাম আজাদ, রেজিনা বেগম, নাসির উদ্দিন সরদার, আতিক সরকার, আবদুল কুদ্দুস পাটোয়ারি, আমিনুল ইসলাম মোয়াজ্জেম, বেলাল হোসেন, মামুন মৃধা, রতন শিকদার, লিটন মুনশী, হাসিনা মমতাজ রিনা, সুফিয়া বেগম, রফিকুল ইসলাম (আদা চাচা), মোশতাক আহমেদ সেন্টু, মোহাম্মদ হানিফ, আবুল কাশেম, জাহেদ আলী, মোমেন আলী, এম শামসুদ্দিন ও ইসাহাক মিয়া। এদের মধ্যে ঘটনাস্থলেই নিহত হন ১৬ জন। আইভি রহমান ৫৮ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ২৪ আগস্ট মারা যান। প্রায় দেড় বছর ধরে চিকিত্সার পরেও মারা যান আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা ও ঢাকার প্রথম নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ। আহত হয়েছিলেন শেখ হাসিনা, আমির হোসেন আমু, প্রয়াত আব্দুর রাজ্জাক, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, ওবায়দুল কাদের, সাহারা খাতুন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আওলাদ হোসেন, সাঈদ খোকন, মাহবুবা আখতার, উম্মে রাজিয়া কাজল, নাসিমা ফেরদৌস, শাহিদা তারেক দীপ্তি, রাশেদা আখতার রুমা, হামিদা খানম মনি, ইঞ্জিনিয়ার সেলিম, রুমা ইসলাম, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেইন, মামুন মল্লিকসহ অনেকে।

২০০৫
====
দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে ২১ আগস্ট গ্রনেড হামলায় নিহতদের স্মরণ।

২০০৬
====
১। আহত তিন শতাধিক নেতা-কর্মীর জীবন কাটছে দুর্বিষহ অবস্থায়, অনেকের শরীরে রয়েছে গ্রেনেডের সহস্রাধিক স্প্রিন্টার


আজ সোমবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের সমাবেশে বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলার সেই কালো ২১শে আগস্ট। দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি। এই বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেত্রী আইভি রহমানসহ ২২ জন নিহত এবং শেখ হাসিনাসহ ৫ শতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছিলেন। আহতরা যারা বেঁচে আছেন, তারা এখন জীবিত থেকেও মৃত।
তাদের মধ্যে তিন শতাধিক পঙ্গু অবস্থায় অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। অনেকে প্যারালাইস হয়ে হুইল চেয়ারে চলাফেরা করছেন ও কেউ ক্রাচের উপর নির্ভর করে কোনরকমে চলাফেরা করছেন। অনেক নেতা-কর্মীর দেহে দেড় থেকে আড়াই হাজার, এক থেকে দেড় হাজার ও ৫ শতাধিক থেকে এক হাজার স্প্রিন্টার রয়েছে। দুই বছর শতাধিক মহিলা নেতা-কর্মী দাম্পত্য জীবন থেকে বঞ্চিত এবং তারা প্রতিবন্ধী অবস্থায় রয়েছেন।
- - - - - - - -
২। বিকাল ৫টা ২২ মিনিটে দেশব্যাপী আ. লীগের দুই মিনিট নিরবতা পালন করে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন।
- - - - - - - -
৩। প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক কওমী মাদ্রাসার সরকারি স্বীকৃতি প্রদানের ঘোষণা।
- - - - - - - -
৪। '২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার সঙ্গে সরকার জড়িত বলেই দু'বছরেও তদন্ত ও বিচার হয়নি।'— শেখ হাসিনা

২০০৭
====
১। ছাত্র বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি ক্যাম্পাস


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছিল বিক্ষোভে উত্তাল। সোমবার সন্ধ্যায় শুরু হওয়া ছাত্র-পুলিশ সংঘর্ষ আজ আরও ব্যাপক হয়ে ওঠে। সমগ্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, শাহবাগ এলাকা, এলিফ্যান্ট রোড, কাঁটাবন, সায়েন্স ল্যাবরেটরী, নীলক্ষেত, পলাশী, ঢাকা কলেজের সামনের মিরপুর রোড এবং শেরে বাংলানগরস্থ শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে গতকাল দিনব্যাপী সংঘর্ষে ২ শতাধিক ছাত্র ও পুলিশ আহত, সেনাবাহিনী ও পুলিশের ৪টি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও কমপক্ষে ৭০টি গাড়ি ভাংচুর করা হয়। শিক্ষার্থীদের সাথে শিক্ষকদের একাত্মতা ঘোষণা।
- - - - - - -- -
২। সরকারের দুঃখ প্রকাশ, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহার।
প্রধান উপদেষ্টা ড. ফখরুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান উপদেষ্টার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক উচ্চ পর্যায়ের সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘটিত ঘটনার জন্য গভীর দুঃখ প্রকাশ করা হয়। সভায় ক্যাম্পাসে স্থাপিত সেনা ক্যাম্পটি গতকাল রাত ৮টা থেকে প্রত্যাহার শুরু এবং এই প্রক্রিয়া আজকের মধ্যে সমাপ্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘটিত ঘটনাবলী সম্পর্কে একটি বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের জন্যও সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় বলা হয়, পূর্বের ঘটনা অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠে সোমবার সংঘটিত দুঃখজনক ঘটনার ব্যাপারে সেনাবাহিনী ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। এই তদন্ত শীঘ্রই শেষ করা হবে এবং এর ভিত্তিতে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এই প্রেক্ষাপটে সংশ্লিষ্ট সকলকে ক্যাম্পাসে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে আবেদন জানান হয়। সভায় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সংশ্লিষ্ট উপদেষ্টাগণ, সেনাবাহিনী প্রধান, স্বরাষ্ট্র সচিব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহের প্রধানগণ এবং উচ্চ পর্যায়ের সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
- - - - - - - -
৩। রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদের সঙ্গে সিআইসির সাক্ষাৎ, ঘরোয়া রাজনীতির প্রতি গুরুত্বারোপ।

২০০৮
====
১। চার দলের পদযাত্রায় পুলিশের বাঁধা, লাঠিচার্জ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া


২। সংশোধীত আরপিও গেজেট প্রকাশ
নির্বাচনে অংশ নিতে দলগুলোকে অবশ্যই নিবন্ধিত হতে হবে।
ভোটার না হলে প্রার্থী হওয়া যাবে না।
স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর লাগবে।
যুদ্ধাপরাধীরা নির্বাচনের অযোগ্য।
- - - - - - - -
৩। আবদুল্লাহ আল মামুন আর নেই


নাট্যব্যক্তিত্ব আবদুল্লাহ আল মামুন আর নেই। আজ বৃহস্পতিবার ১১টা ২৫ মিনিটে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহেঃ রাজেউন)। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নানা রোগে ভুগছিলেন। তার হার্ট, কিডনী ও লিভার অকেজো হয়ে গিয়েছিল। তার মৃত্যুতে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে আসে।

২০১০
====
১। বাবর আসামি হচ্ছেন, সন্দেহে তারেক


২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুত্ফুজ্জামান বাবরও আসামি হচ্ছেন। মামলার অধিকতর তদন্তে এ ঘটনার সঙ্গে তাঁর সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিলেছে বলে তদন্তসংশ্লিষ্ট সূত্র দাবি করেছে। বাবরের সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে তথ্য পাওয়ার পর এ ঘটনার সঙ্গে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ ছেলে তারেক রহমানের কোনো সম্পৃক্ততা আছে কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
সূত্র জানায়, শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের হত্যার উদ্দেশ্যে পরিচালিত ওই ভয়াবহ হামলার পরিকল্পনার সঙ্গে তারেক রহমান বা তত্কালীন সরকারের আর কেউ যুক্ত ছিলেন কি না, সে ব্যাপারে বাবর ও সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুকে একাধিকবার রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। অধিকতর তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, হামলাকারীদের সহায়তার অভিযোগে জোট সরকারের আমলে দায়িত্বশীল একাধিক গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে এ মামলায় আসামি করা হতে পারে। এমন কয়েকজনের ব্যাপারে পাওয়া তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

২। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের বিচার হবেই : প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনার সুষ্ঠু ও সঠিক তদন্ত হবে বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, হামলাকারী যত শক্তিশালীই হোক, তাদের বিচার হবেই হবে। প্রধানমন্ত্রী আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে স্থাপিত অস্থায়ী বেদিতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত ব্যক্তিদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর এ কথা বলেছেন।
- - - - - - - -
৩। বিএনপির সাবেক সাংসদ আখতারুজ্জামান: ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দায় খালেদা ও তারেক এড়াতে পারেন না
বিএনপির সাবেক সাংসদ আখতারুজ্জামান বলেছেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার সময় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ছিলেন লুত্ফুজ্জামান বাবর। প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া নিজে ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে। তাঁর ছেলে তারেক রহমান ছিলেন বাবরের নিয়ন্ত্রক। তাঁরা কীভাবে এবং কোন যুক্তিতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দায়িত্ব থেকে রেহাই পাবেন? আজ শনিবার সন্ধ্যায় মহাখালীর ডিওএইচএসের নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে আখতারুজ্জামান এ কথা বলেন।
- - - - - - - -
৪। সরকার বিএনপি ও জিয়া পরিবারকে নির্মূলের চেষ্টা করছে
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জনগণের কোনো সমস্যার সমাধান করতে পারছে না। তারা কেবল বিএনপি ও জিয়া পরিবারকে নির্মূল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর প্যারোলে মুক্তি বাতিল করার প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ অভিযোগ করেন।
- - - - - - - -
৫। মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য ১০০ বিদেশিকে সম্মানিত করা হবে
মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য প্রায় ১০০ জন বিদেশিকে সম্মানিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামী বছর স্বাধীনতার ৪০ বছর পূর্তিতে তাঁদের সম্মানিত করা হবে। পররাষ্ট্রসচিব মিজারুল কায়েস আজ শনিবার বার্তা সংস্থা বাসসকে বলেন, ‘কী ধরনের অবদানের ভিত্তিতে এবং কাদের এ সম্মান দেওয়া হবে, তা জাতীয় কমিটির তৃতীয় বৈঠকে নির্ধারণ করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।’
মিজারুল কায়েস জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির নেতৃত্বাধীন কমিটি বিদেশিদের তালিকা তৈরি করার পর মন্ত্রিসভায় তা অনুমোদিত হতে হবে।
- - - - - - - -
৬। সিলেটের বালাগঞ্জে চোলাই মদ পান করে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ হয়ে পড়েছে অন্তত আরও ১০ জন।
- - - - - - - -
৭। কোকোর সাময়িক মুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য আবেদন


২০১১
====
১। জজ মিয়ার জবানবন্দিই সঠিক ছিল: বিএনপি


বর্তমান সরকার ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার অধিকতর তদন্ত করে যে সম্পূরক অভিযোগপত্র দিয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এটি রাজনৈতিক প্রতিহিংসাপরায়ণতার নমুনা। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তাঁর পরিবারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই এমনটা করা হয়েছে। আজ রোববার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের পক্ষ থেকে এসব বক্তব্য তুলে ধরেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। আজ রাতে ওই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ‘বিএনপির আমলে জজ মিয়া ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার যে জবানবন্দি দিয়েছিলেন, সেটাই সঠিক ছিল।’
সংবাদ সম্মেলনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ও অভিযোগপত্র সম্পর্কে বিএনপির অবস্থান তুলে ধরা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা নিয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, তা সুসাংবাদিকতার নমুনা না। কোনো একটি মহলের উদ্দেশ্য পূরণের জন্যই গণমাধ্যম এ কাজ করেছে। এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকতে গণমাধ্যমের প্রতি দলের পক্ষ থেকে রুহুল কবির রিজভী আহমেদ আহ্বান জানান।
- - - - - - - -
২। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার সাত বছর: তাজউদ্দিনকে পাকিস্তানে পাঠায় ডিজিএফআই, জানতেন খালেদা
১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী ও গ্রেনেড সরবরাহকারী মাওলানা তাজউদ্দিনকে পাকিস্তানে পাঠিয়েছিল প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএফআই) জঙ্গি দমন-সংক্রান্ত ব্যুরো। আর এটা জানতেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াও। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্রে এই তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।
এ ছাড়া ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় হরকাতুল জিহাদের (হুজি) জঙ্গিদের সঙ্গে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও শিক্ষা উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টু জড়িত ছিলেন—এমন তথ্য ২০০৬ সালের আগস্টেই (বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে) বেরিয়ে আসে। তখন এই তথ্য এবং তাজউদ্দিনকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ সম্পর্কে ডিজিএফআইয়ের তৎকালীন মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাদিক হাসান রুমী প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জানিয়েছিলেন। সাদিক হাসান রুমী গত বছরের ২০ জুন আদালতে সাক্ষী হিসেবে দেওয়া জবানবন্দিতে এই ব্যাপারে বিস্তারিত বলেছেন।
- - - - - - - -
৩। বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে: সিরিজ ৩-২ করল বাংলাদেশ
শেষ দুই ম্যাচে ব্যাটে-বলে বাংলাদেশ যেভাবে লড়াই করল, সিরিজের শুরু থেকেই যদি এমন লড়াকু মনোভাব ক্রিকেটারদের মধ্যে দেখা যেত! প্রথম তিন ম্যাচের তিনটিতেই হেরে ওয়ানডে সিরিজ হাতছাড়া করার পর ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩-২ করে ফেলল বাংলাদেশ।

২০১৩
====
১। তারেক-বাবরের নির্দেশে হান্নানের জবানবন্দি নিতে পারেনি র‌্যাব
র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার সাবেক কর্মকর্তা মেজর (অব.) আতিকুর রহমান আদালতে সাক্ষ্য দিয়ে বলেছেন, জঙ্গি নেতা মুফতি হান্নান ২০০৫ সালে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাবের কাছে ২১ আগস্ট হামলায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছিলেন। কিন্তু তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমান ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের নির্দেশে তখন এই মামলায় আদালতে মুফতি হান্নানের জবানবন্দি নেওয়া সম্ভব হয়নি।
আজ মঙ্গলবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এ আতিকুর রহমান এই সাক্ষ্য দেন। তিনি ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখার উপপরিচালক ছিলেন। তিনি ওই সময় জঙ্গিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গঠিত টাস্কফোর্স ফর ইন্টারোগেশনের (টিএফআই) সমন্বয়কারী ছিলেন। মুফতি হান্নান ২০০৫ সালের ১ অক্টোবর গ্রেপ্তারের পর টানা চার মাস র‌্যাব সদর দপ্তরে অবস্থিত টিএফআই সেলে রিমান্ডে ছিলেন। তখন র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক ছিলেন কর্নেল গুলজার উদ্দিন আহমেদ। তিনি ২০০৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি বিডিয়ার বিদ্রোহের ঘটনায় পিলখানায় নিহত হন।
- - - - - - - -
২। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার নয় বছর: সরকারের বাকি মেয়াদে শেষ হচ্ছে না বিচার
রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের সমাবেশে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পর নয় বছর পার হয়েছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত ওই ভয়াবহ ঘটনার বিচার শেষ হয়নি। বর্তমান সরকারের বাকি মেয়াদে গ্রেনেড হামলার ঘটনায় করা মামলা দুটি শেষ হওয়ার সম্ভাবনা কম বলে বিচারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন।
অবশ্য সরকারপক্ষের কৌঁসুলিরা দাবি করছেন, তাঁরা মামলার বিচারকাজ যাতে দ্রুত সম্পন্ন হয়, সে জন্য আদালতে বিচার কার্যক্রম সপ্তাহে এক দিনের পরিবর্তে তিন দিন করা হয়েছে। মামলার মোট সাক্ষী ৪৯১ জন। সরকারপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, এ পর্যন্ত ৭২ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৭১ জনের জেরা শেষ হয়েছে। তিনি জানান, অভিযোগপত্রের সব সাক্ষীর সাক্ষ্য নেওয়া হবে না। মামলার অভিযোগ প্রমাণের জন্য যতজন প্রয়োজন, ততজনের সাক্ষ্য নেওয়া হবে।

২০১৪
====
১। মাহবুব, মান্নান ও বদির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা


অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ক্ষমতাসীন দলের সাবেক দুই প্রতিমন্ত্রী ও একজন এমপিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। যাদের নামে মামলা করা হয়েছে, তারা হলেন- পটুয়াখালী-৪ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত এমপি ও সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান, সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান খান ও চট্টগ্রাম-৪ আসনের এমপি আবদুর রহমান বদি।
- - - - - -
২। বঙ্গোপসাগরে ১৩ জলদস্যু আটক
নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরে ১৩ জন জলদস্যুকে আটক করেছে স্থানীয় জেলে ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা।

২০১৫
====
১। ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলা : এখনও পলাতক ১৯ আসামি


ভয়াল ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার চার্জশিটভুক্ত ৫২ আসামির মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ১৯ জন এখনও পলাতক। মামলায় তাদের বিরুদ্ধে সম্পূরক চার্জশিট হওয়ার পর চার বছরের বেশি সময় পার হলেও তাদের আইনের মুখোমুখি করা যায়নি। পলাতকদের মধ্যে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও হুজির জঙ্গি নেতা মাওলানা তাজউদ্দিনের অবস্থান নিশ্চিত হলেও অপর ১৭ আসামি কে কোথায় আছেন, তা নিশ্চিতভাবে জানে না আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। তাই দুই আসামি তারেক রহমান ও তাজউদ্দিনকে গ্রেফতারে পুলিশের আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারপোলে নোটিশ জারি করা হলেও অপর আসামিদের বিষয়ে তাও সম্ভব হচ্ছে না।
- - - - - -
২। ‘গ্রেনেড হামলা রাজনৈতিক ছিল না।’—নজরুল ইসলাম খান


বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, কোনো রাজনৈতিক কারণে ২১ আগস্টের হামলা হয়নি। এটি সন্ত্রাসী হামলা। শুক্রবার সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এই কথা বলেন। নজরুল ইসলাম খান বলেন, গ্রেনেড হামলার জন্য আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে বিএনপিকে দায়ী করে। কিন্তু এর সঙ্গে বিএনপির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। সেজন্য বিএনপিই এর বিচারকাজ শুরু করেছিল।
- - - - - -
৩। গাজীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবলীগ নেতা নিহত
গাজীপুর ডিবি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ঢাকার এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে গাজীপুরের সিটি কর্পোরেশনের দক্ষিণ সালনা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম সাইদুল ইসলাম (৩৫)। তিনি ঢাকার দক্ষিণ বাড্ডা এলাকার মৃত জইমত আলীর ছেলে এবং ঢাকার বাড্ডা ৯৭নং ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত শিমুলতলা ইউনিটের যুবলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন।
- - - - - -
৪। ‘সন্দেহ নেই গ্রেনেড হামলায় খালেদা জিয়া-তারেক জড়িত’
‘২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান জড়িত ছিলেন। এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’
আজ শুক্রবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ওই হামলায় নিহতদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী বেদীতে শ্রদ্ধা জানানোর পর এক আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী এ সময় বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার ঘটনায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে দায়ী করেন।শেখ হাসিনা বলেন, ‘সেদিন আমরা সন্ত্রাসবিরোধী র‌্যালি করতে গিয়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার শিকার হই। যে গ্রেনেড যুদ্ধে ব্যবহার হয়, সেই গ্রেনেড আমাদের সভায় ছুড়ে মেরে হত্যা করা হয়।’
- - - - - - -
৫। অবরুদ্ধ গণতন্ত্রের বদ্ধ কপাট খুলে দিন: খালেদা জিয়া
'অবরুদ্ধ গণতন্ত্রের বদ্ধ কপাট' খুলে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ আহ্বান জানান। বিএনপির মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে খালেদা জিয়া অভিযোগ করেন, 'সরকার অনৈতিক ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে মরিয়া হয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের প্রতি দমন-নিপীড়নের পথ বেছে নিয়েছে।'
- - - - - -
৬। অলিম্পিক থেকে পালিয়ে গেল বাংলাদেশি ক্রীড়াবিদ
আবারও কলঙ্কিত হলো বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন। আমেরিকায় স্পেশাল অলিম্পিকে অংশ নিতে গিয়ে পালিয়ে গেছেন বাংলাদেশের এক ফুটবলার। ২৫ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট পর্যন্ত আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলেসে বসেছিল এবারের স্পেশাল অলিম্পিক ক্রীড়ার আসর। সেখানে বাংলাদেশি ফুটবলার জয়নাল আবেদিন প্রথম দিনেই গেমস ভিলেজ থেকে পালিয়ে যান। বাংলাদেশি কন্টিনজেন্টের এক কর্মকর্তা এ খবর নিশ্চিত করেন।
- - - - - -
৭। গাজীপুরে স্মরণ অনুষ্ঠানে যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা


গাজীপুরের কালিয়াকৈরের চন্দ্রায় জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলামকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে নিজ দলের প্রতিপক্ষ গ্রুপের কর্মীরা। আজ শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। চন্দ্রার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কলেজ মাঠে আয়োজিত ওই স্মরণ সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আ ক ম মোজাম্মেল হক উপস্থিত ছিলেন।


২০১৬
====
১। মরার আগে মরতে রাজি নই: প্রধানমন্ত্রী


২১ আগস্টসহ তাকে হত্যার জন্য বারবার হামলার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কখনও মৃত্যুকে ভয় করিনি। উপরে আল্লাহ ছাড়া কারও কাছে মাথানত করিনা। এটি সব সময় মনে রাখি, জন্মালে মৃত্যু হবেই। তবে মরার আগে মরতে রাজি নই।
রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউর আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ২১ আগস্টের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
- - - - - - -
২। অভিজিৎ হত্যায় সন্দেহভাজনদের ভিডিও প্রকাশ
বিজ্ঞান মনস্ক লেখক ও মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা ড. অভিজিৎ রায়ের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কয়েকজনের ভিডিও প্রকাশ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। ক্লোজড সার্কিট টেলিভিশিন ক্যামেরায় ধারণ করা ওই ভিডিও ফুটেজগুলো প্রকাশ করে রোববার বিকেলে ডিএমপির ফেসবুক পেজে তাদের ব্যাপারে তথ্য চাওয়া হয়।
ডিএমপির ফেসবুক পেজে প্রকাশিত ভিডিও
- - - - - - -
৩। বসুন্ধরা সিটিতে আগুন, ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন চারপাশ
রাজধানীর পান্থপথে অবস্থিত বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্সে আগুন লেগেছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।
আজ রোববার সকাল সোয়া ১১টার দিকে অভিজাত এই শপিং কমপ্লেক্সের লেভেল-৬ এর সি ব্লকের একটি জুতার দোকান থেকে এই আগুনের সূত্রপাত হয় বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষ। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিটের প্রায় দেড়শ' সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছেন।
এর আগে ২০০৯ সালের ১৩ মার্চ বসুন্ধরা সিটিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ভবনের সাতটি তলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ওই ঘটনায় নিহত হয় সাতজন। পুড়ে যায় বসুন্ধরা গ্রুপের প্রধান কার্যালয়সহ তাদের ১৭টি প্রতিষ্ঠানের দফতর পুড়ে যায়।
- - - - - - -
৪। ২১ আগস্ট রাজনীতির ইতিহাসের কলঙ্কময় ঘটনা: ফখরুল
২০০৪ সালের একুশ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনাকে বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের কলঙ্কময় ঘটনা বলে অভিহিত করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, '২১ আগস্ট ইতিহাসের বর্বরতম হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল। একটি রাজনৈতিক দলের ২২ জন নেতাকর্মী সেদিন নিহত হয়েছিলেন। আমি অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে ভারাক্রান্ত হৃদয়ে এ দিনটিকে স্মরণ করতে চাই।' রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক আলোচনা সভায় একথা বলেন মির্জা ফখরুল।
- - - - - - -
৫। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: এক যুগেও শেষ হয়নি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার প্রক্রিয়া, বিচারের অপেক্ষায় নিহতদের পরিবার, অর্থকষ্টে যাচ্ছে দিন


২০০৪ সালের ২১ আগস্ট তত্কালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও তার দলের শীর্ষ নেতাদের হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল কতগুলো নরাধম। তাদের সেই ন্যাক্কারজনক কাপুরুষোচিত হামলায় প্রাণ হারান আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন। আহত হয়েছিল অর্ধশতাধিক মানুষ। সেই ভয়াবহ ঘটনার পর পেরিয়ে গেছে দীর্ঘ একটি যুগ। আজও বিচার পায়নি গ্রেনেড হামলায় নিহতদের পরিবারগুলো। বড় অর্থকষ্টে চলছে তাদের দিন।
বহিঃসংযোগ:→ আজ তেমনই কয়েকটি পরিবারের কথা তুলে ধরা হলো
- - - - - - -
৬। খালেদা জিয়াকে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর খোলা চিঠি
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে খোলা চিঠি লিখেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও তার পরামর্শক ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরী। চিঠিতে খালেদা জিয়ার জন্য কিছু ‘করণীয়’ তুলে ধরেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।
দীর্ঘ প্রায় সাড়ে তিন হাজার শব্দের চিঠিতে তিনি খালেদা জিয়াকে জামায়াতের বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া, দলে গণতন্ত্র ও গঠনতন্ত্র চর্চা করা, উপদেষ্টা পরিষদে বিশিষ্টজনদের কোঅপ্ট করা, ড. কামাল হোসেনের দলসহ কয়েকটি দলকে নিয়ে একসঙ্গে জনসভার ঘোষণা দেয়ার পরামর্শ দেন।
- - - - - - -
৭। ৪৯ বছরের রেকর্ড বৃষ্টি বরিশালে
বরিশালে একদিনে ৪৯ বছরের রেকর্ড ভাঙা বৃষ্টি হয়েছে। শনিবার সন্ধা ৬টা থেকে রোববার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ২৭২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। বরিশাল আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক মিলন হাওলাদার দফতরের রেকর্ড যাচাই-বাছাই করে সমকালকে জানান, এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ ২৫৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছিল ১৯৬৭ সালের ১০ নভেম্বর। ৪৯ বছর আগের রেকর্ড অতিক্রম করে রোববার বরিশালে সর্বোচ্চ পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে।

২০১৭
====
১। নায়করাজ রাজ্জাক আর নেই


বাংলা চলচ্চিত্রের প্রবাদপুরুষ ও কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সোমবার রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। নায়ক রাজ্জাক পাঁচ সন্তানসহ বন্ধু-বান্ধব ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশের কিংবদন্তি নায়করাজ রাজ্জাকের মৃত্যুতে গভীর শোক ওশোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজ্জাক ১৯৪২ সালে ২৩ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার টালিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলা সিনেমায় 'নায়করাজ' উপাধি পেয়েছিলেন তিনি।
শরণার্থী থেকে নায়করাজ হওয়া রাজ্জাক এক বিশেষ সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন, ‘আমি আমার জীবনের অতীত ভুলি না। আমি এই শহরে রিফিউজি হয়ে এসেছি। স্ট্রাগল করেছি। না খেয়ে থেকেছি। যার জন্য পয়সার প্রতি আমার লোভ কোনোদিন আসেনি। ওটা আসেনি বলেই আজকে আমি এতদূর শান্তিতে এসেছি।’
- - - - - - -
২। রীড ফার্মা: স্বাস্থ্য সচিবকে হাইকোর্টে তলব
রীড ফার্মার ভেজাল প্যারাসিটামল সিরাপ খেয়ে ২৮ শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় ঔষধ প্রশাসনের দুই কর্মকর্তার অদক্ষতা ও অযোগ্যতার বিষয়ে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নেওয়ায় স্বাস্থ্য সচিবকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। বুধবার সকাল সাড়ে দশটায় স্বাস্থ্য সচিবকে হাইকোর্টে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।
- - - - - - -
৩। খালেদার লিভ টু আপিল খারিজ, গ্যাটকো মামলা চলবে
গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার করা লিভ টু আপিল খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। এর ফলে নিম্ন আদালতে মামলাটি চলতে আর বাধা নেই। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ সোমবার এ আদেশ দেন।
- - - - - - -
৪। মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধে ২৮ দেশকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ
মানি লন্ডারিংও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ কার্যক্রমে বাংলাদেশ অসামান্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। বাসেল এন্টি মানি লন্ডারিং (এএমএল)সূচকে বাংলাদেশ ২০১৭ সালে ২৮টিদেশকে পেছনে ফেলে র‌্যাংকিংয়ে ৫৪ নম্বর ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হতে ৮২ নম্বরে উঠে এসেছে।এই সূচকে সবচেয়ে দ্রুত উন্নয়নকারী ১০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ।গত ১৬ আগস্ট সুইজারল্যান্ডভিত্তিক দ্যা বাসেল ইন্সটিটিউট অন গর্ভানেন্স বিশ্বের ১৪৬টি দেশের মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন ঝুঁকি নিরূপণপূর্বক ২০১৭ সালের ‘বাসেল এএমএল সূচক-২০১৭’ প্রকাশ করে।
সূচক অনুযায়ী সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশের মধ্যে রয়েছে ইরান,আফগানিস্তান এবং সবচেয়ে কম ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হলো ফিনল্যান্ড।মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন ঝুঁকির নিরিখে দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের মধ্যে আফগানিস্তানের অবস্থান ২ নম্বরে,মিয়ানমার ১৩,নেপাল ১৪,শ্রীলংকা ২৫,পাকিস্তান ৪৬,বাংলাদেশ ৮২ এবং ভারত ৮৮ নম্বরে রয়েছে। আর তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য যথাক্রমে ১১৬ ও ১১৮ নম্বরে রয়েছে।
- - - - - - -
৫। প্রধান বিচারপতির সরে যাওয়া উচিত ছিল: প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সংসদ সদস্যদের সম্পর্কে অপমানজনক কথা বলা তো আদালতের কাজ না। প্রধান বিচারপতি সংসদের সংরক্ষিত নারী আসন নিয়েও কথা বলেছেন। সংসদ সদস্যদের সঙ্গে এসব সংরক্ষিত নারী এমপিরাও ভোট দিয়ে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করেন। আর নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দেন প্রধান বিচারপতিকে। তাই সংরক্ষিত নারী আসন নিয়ে কথা বলার আগে প্রধান বিচারপতির তো উচিত ছিল পদ থেকে সরে যাওয়া। বলতে পারতেন, যেহেতু সংরক্ষিত নারী এমপি ভোট দিয়ে রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দিয়েছেন তাই আমি এই পদে থাকবো না।
একুশে আগস্ট ভয়াল গ্রেনেড হামলার ১৩তম বার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে প্রধান বিচারপতির মন্তব্যের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সব কিছু সহ্য করা যায়, কিন্তু পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা সহ্য করা যায় না। আমাকে হুমকি দিয়ে কোন লাভ নেই। আমি একমাত্র আল্লাহর কাছে সেজদা দেই, আর অন্য কারো কাছে মাথানত করি না।

২০১৮
====

সূচীপত্র:→ বাংলাদেশ: ফিরে দেখা

________________
তথ্য ও ছবিসূত্র:
দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক সমকাল, দৈনিক যুগান্তর এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ মাধ্যম।
বাংলাদেশের তারিখ : বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান।
বাংলাদেশের ইতিহাস সংক্রান্ত বিভিন্ন বই-পুস্তক ও পত্রপত্রিকা।
ইন্টারনেট, উইকিপিডিয়া, বাংলাপিডিয়া।

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:১১

রাজীব নুর বলেছেন: সে এক ভয়াবহ দিন গিয়েছে।

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৬

জোবাইর বলেছেন: এরকম ভয়াবহ দিন বাঙালি জাতির জীবনে আর যেন না আসে - সে কামনা রইল।

২| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: এ হত্যাকান্ডের অপরাধীদের সাজা পাওয়া খুব দরকার।
জীবন জীবনের জন্য

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৮:০৪

জোবাইর বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।
'এ হত্যাকান্ডের অপরাধীদের সাজা পাওয়া খুব দরকার।' - সহমত।
এ ধরনের মামলা বড় জটিল। শত শত সাক্ষী, ৫০ - ৬০ জন আসামী, আবার কেউ পলাতক কেউ নিঁখোজ। তাছাড়া আমাদের মান্ধাতার আমলের আইন ও কোর্ট। না হয় ১৪ বছর পরেও কেন বিচার শেষ হয় না! তারপরেও আশা রাখি অচিরেই বিচারের রায় হবে। এরপরে কিন্তু আবার আপীল আছে!! সুতরাং অপরাধীদের শাস্তি মনে হয় আমরা দেখে যেতে পারবো না :(
ভালো থাকুন।

৩| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৮

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: তথ্যবহুল পোস্ট।

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৮:০৯

জোবাইর বলেছেন:
ধন্যবাদ।
২০০৪-এর ২১ আগস্টকে শতভাগ বুঝতে হলে পরবর্তী ২১ আগস্টগুলোতে বিভিন্ন জনের মতামতগুলোও উপলদ্ধি করতে হবে :)

৪| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৭

বিজন রয় বলেছেন: শোকাবহ ২১ আগস্ট।

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৮:১৪

জোবাইর বলেছেন: শোকাবহ ২১ আগস্টে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন সবার প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.