নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সহনশীলতাই ব্যক্তিত্বের পরিচায়ক।

দেশ প্রেমিক বাঙালী

আমি একজন সাধারণ মানুষ। সর্বজন গ্রাহ্য মতামতকে প্রাধান্য দেই।

দেশ প্রেমিক বাঙালী › বিস্তারিত পোস্টঃ

সব মুসলিমই টেরোরিস্ট! এরাই হচ্ছে বড় জঙ্গী!! পৃথিবীর যত অশান্তির কারণ হচ্ছে মুসলমান!!!

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৬




মানুষ মানষের জন্য। কথাটি নিতান্তই স্বার্থান্বেষী মহলের বেলায় প্রযোজ্য; মানবতার বেলায় একেবারেই অকার্যকর। যদি তাই না হবে তাহলে কেন গুটি কয়েক লোকে অপকর্মের দায়ভার সমস্ত সম্প্রদায় বহন করবে? গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের জন্য সারা বিশ্বের মুসলিমদের দায়ী করা হবে? আজ গুটি কয়েক বদমায়েসের জন্য সমগ্র বিশ্বের খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের সকল মানুষ একত্রিত হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধাচারণ করছে। এপর্যন্ত পৃথিবীতে যত মানুষ হত্যা করা হয়েছে বিস্ময়কর ভাবে সেগুলো ক্রীড়ানরক ছিল খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের লোকেরাই তথাপি তারা আজ মানবতার ধারক বাহক হয়ে উঠেছে।

হিটলার ৬০ লক্ষ ইহুদী হত্যা করিছিল কিন্তু হিটলার এখন কাহারো কাহারো কাছে মহাবীর! জর্জ ডব্লিউ বুশ ইরাক - আফগানিস্তানে ১৫ লক্ষ মুসলিম হত্যা করেছে, মুসলিনী ৪ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল। জোসেফ স্ট্যালিন ২০ মিলিয়ন মানুষ হত্যা করেছিল; কিন্তু এরা কেউই খ্রিষ্টান টেরোরিস্ট নয়! মাও সে তুং ১৪ থেকে ২০ মিলিয়ন মানুষ মেরেছিল কিন্তু সে বৌদ্ধ টেরারিস্ট নয়! অশোকা (কলিঙ্গা বেটল) ১ লক্ষ লোক মেরেছিল কিন্তু সে হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! ইসরাইল হাজার হাজার ফিলিস্থিনী হত্যা করছে তবুও ইহুদীরা ইহুদী জঙ্গী নয়! গুজরাটে মোদি সরকারের সহযোগিতায় হাজার হাজার মুসলিম হত্যা করা হয়েছিল কিন্তু তারাও হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! শ্রীলংকার তামিল টাইগার হাজার হাজার লোক হত্যা করেছিল কিন্তু তারাও তামিল টেরোরিস্ট নয়! ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্যগুলোতে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা শত শত মানুষ হত্যা করছে তারাও হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! অং সান সু কি হাজার হাজার মুসলিম হত্যা করছে সেও বৌদ্ধ টেরোরিস্ট নয়! টেরোরিস্ট হচ্ছে তারাই যারা নিজের অধিকারের কথা বলছে, নিজের আবাস ভুমি আদায়ের জন্য লড়ছে, যারা মুসলিম!!??

সুতরাং সব মুসলিমই টেরোরিস্ট! এরাই হচ্ছে বড় জঙ্গী!! পৃথিবীর যত অশান্তির কারণ হচ্ছে মুসলমান!!! ধিক শত ধিক তোমাদের। তোমাদের আসলে মানবতা বলতে অবশিষ্ট কিছুই নেই।

মন্তব্য ৭৩ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (৭৩) মন্তব্য লিখুন

১| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১:০০

ফয়েজ উল্লাহ রবি বলেছেন: বর্তমান বিশ্ব তার কথাই বেশি শোনে যার শব্দের জোর বেশি
যারা শান্তির বাহক তাদের আজ গালি দিচ্ছে বলে অশান্তির কারণ!
তবে, এই সব শেষ হবে, আবার আসবে ফিরে বইবে ইসলামের শান্তির বাতাস।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫১

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: হুম।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

২| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২৪

এ আর ১৫ বলেছেন: দেখুন আপনি যে সমস্থ উদাহরন দিলেন ও গুলো কোন টাই ধর্মীয় সন্ত্রাস নয় ওগুলো ক্ষমতার লড়াই । এ সমস্থ সন্ত্রাস বা অপরাধ ধর্মের নামে হয় নি । একই ভাবে ক্ষমতা লিপ্সু মুসলমান রাজা বাদশাহ খলিফারা বিভিন্ন দেশে যে সন্ত্রাস অপরাধ করেছে সে গুলো মোটেও ইসলামের নামে নয় । মুঘল আমলে যত খুনা খুনি হয়েছে ঐ গুলো কোন ধর্মীয় সন্ত্রাস নয় ।
ইসলামের নামে তালেবান, আই সিসি, রাজাকার , জামাত যা করছে তা ধর্মীয় সন্ত্রাস । ইসলামের নামে বর্তমানে যা শুরু হয়েছে তাকে জাস্টিফাই করার জন্য হিটলার, মুরসালিন , চেংগিস খান এদের ধর্মের সাথে সম্পর্ক বিহীন ক্ষমতার লড়াইকে একই কাতারে যারা আনতে চায় তারা প্রকার্ন্তরে ধর্মীয় সন্ত্রাসকে উৎসাহ দেয়। বর্তমানে মুসলমান ছাড়া দুনিয়া জুড়ে অন্য কোন ধর্মের মানুষের বিরুদ্ধে ধর্মের নামে খুনা খুনির উদাহরন খুবই নগন্য
যুদ্ধবাজ বা সন্ত্রাসী ইত্যাদি নাম করন করা হয় তারা কোন আদর্শের বা পথের বা মতের অনুসারী তার উপরে । হিটলারের সন্ত্রাসকে বলে ফ্যাসিবাদি সন্ত্রাস , সেই ভবে কমোনিষ্ট সন্ত্রাস বা বাম সন্ত্রাস যেমন নকশাল সর্বহারা ইত্যাদির সন্ত্রাস বাম সন্ত্রাস । আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের বলা হয় আওয়ামী সন্ত্রসী একই ভাবে বিএনপি সন্ত্রাসীদের বলা হয় বিএনপি সন্ত্রাসী । জামাতীদের বলা হয় ইসলামী সন্ত্রাসী ।
ইরাণ ইরাকের যুদ্ধকে কেউ বলেনি ইসলামী সন্ত্রাস। আই সি সিকে বলা হচ্ছে ইসলামী সন্ত্রাসী তাদের সাথে যুদ্ধরত মুসলমান ইরাকী বাহিনী বা সিরিয়া বাহিনীকে মুসলিম সন্ত্রাসী বলা হচ্ছে না । তালেবানদের ইসলামী জংগি বা সন্ত্রাসী বলা হচ্ছে তাদের সাথে যুদ্ধরত মুসলিম অপর পক্ষকে মুসলিম জংগি বলা হচ্ছে না

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনার বিশ্লেষণ মূলক মন্তব্য খুবই চমৎকার হয়েছে।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৩| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২৫

এ আর ১৫ বলেছেন: প্রশ্ন ---কেন অন্য ধর্মীয় সন্ত্রাসকে জঙ্গি বলা হয় না , কেন শুধু মুসলমানদের বলা হয় ???

উত্তর : -- অন্য ধর্মীরা সন্ত্রাস করে সবগুলো ধর্মীয় সন্ত্রাস নহে তবে তাদের ধর্মীয় সন্ত্রাস বিচ্ছিন্ন প্রতিনিয়ত নহে এবং এর ব্যাপকতা বিশ্বব্যপি নহে । অথচ মুসলমানদের ধর্মীয় সন্ত্রাস প্রতিনিয়ত বিভিন্ন দলে বিশ্বব্যাপি , প্রতিনিয়ত তাদের হাতে হাজার হাজার মানুষ খুন হচ্ছে সভ্যতা ধংস হচ্ছে । এই ধরনে প্রতি নিয়ত বিশ্বব্যপি ধর্মীয় সন্ত্রাস অন্য ধর্মীদের মধ্যে দেখা যায় না । দুই একটা দেশে মাঝে মাঝে দেখা যায় তা শুধু ঐ দেশে সীমাবদ্ধ মোটেও বিশ্বব্যাপি নহে । অন্য ধর্মীদের ধর্মীয় সন্ত্রাস যদি নদি বা পুকুর হ্য় তবে মুসলমানদের ধর্মীয় সন্ত্রাস হবে মহাসমুদ্র । তালেবান আল কায়দা, জামাত , রাজাকার, আই সি (ইবলিস শয়তান) , বোকা হারাম এই জাতীয় ধর্মীয় সন্ত্রসি খুনি মানবতা বিরুধি জঙ্গি সঙ্গঠন যা বিশ্বব্যাপি ছড়িয়ে আছে এবং প্রতি নিয়ত সন্ত্রাস করে যাচ্ছে তা অন্য ধর্মালম্বিদের মাঝে দেখা যায় না । তাই একমাত্র মুসলমান ধর্মীয় সন্ত্রাসিরা জঙ্গি টাইটেল পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছে । অন্য ধর্মালম্বিরা জঙ্গি উপাধি পাওয়ার প্রতিযোগিতায় অনেক পিছিয়ে আছে তাই তরা জঙ্গি পদবীঅর্জন করতে পারিনি
জঙ্গী আর খুনে অপরাধীর মাঝে পার্থক্য আছে।
যেমন কালা জাহাঙ্গীর জঙ্গী নয়।তার অপরাধ কোন আদর্শের বিশ্বাস থেকে না।

কিন্তু জঙ্গীরা একটি সুনির্দিষ্ট আদর্শে বিশ্বাস করে অবসাদগ্রস্হ হয়ে পূর্বপরিকল্পিতভাবে অপরাধ করে।সেক্ষেত্রে তার বাহানা তৈরীর পথ মনের গভীরে খোলা থাকে।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনার বিশ্লেষণ মূলক মন্তব্য খুবই চমৎকার হয়েছে।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৪| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:৩২

এ আর ১৫ বলেছেন: এক মুমিন সুন্দর করে একটা পরিসংখ্যান দিল দুনিয়ার বিভিন্ন নাস্তিক, স্বৈরশাসক ইত্যাদির হাতে কত মানুষ নিহত হয়েছে। এটা তুলে ধরে মুমিন প্রমান করতে চাইল, সেই তুলনায় মুসলমানরা ইসলামের নামে প্রায় কাউকেই হত্যা করে নি, আর তাই ইসলাম হলো একমাত্র সহিহ শান্তির ধর্ম , আর মুসলমানরা হলো দুনিয়ার সব চাইতে শান্তিপ্রিয় মানুষ। তো প্রথমেই মুমিনের দেয়া পরিসংখ্যানটা দেখা যাক :
মাওসেতুং (নাস্তিক)- ৭ কোটি ৮০ লাখ
হিটলার (খ্রিষ্টান)- ১ কোটি ৭০ লাখ
জোসেফ স্তালিন (নাস্তিক)- ২ কোটি ৩০ লাখ
লিওপন্ড-২ (খ্রিষ্টান)- ১ কোটি ৫০ লাখ
হাইভেকি তোশো (বৌদ্ধ)- ৫০ লাখ
পল পট (নাস্তিক)- ৩০ লাখ
কিম ইন-সাং (নাস্তিক)- ১৬ লাখ
মেনপিশটু হেইলি মারিয়াম (নাস্তিক)- ১৫ লাখ
জর্জ ডব্লিও বুশ (খ্রিষ্টান)- ১০ লাখ -
মোট: ১৪ কোটির কিছু বেশী
মুমিনের যুক্তি : মাও সেতুং , হিটলার ,স্টালিনরা যদি তাদের রাজনীতির নামে কোটি কোটি মানুষ হত্যা করতে পারে , তাহলে মুসলমানরা যদি কিছু মানুষ হত্যা করে থাকে , তাহলে দোষের কি আছে ? অর্থাৎ সেই মুমিন কিন্তু নিজের অতি চালাকিতে তার প্রিয় ইসলাম ধর্মকে হিটলারের পৈশাচিক ও বর্বর ফ্যাসিজমের সাথে তুলনা করে ফেলেছে , এবং সে প্রমান করেছে , ইসলাম ধর্ম, হিটলারের ফ্যাসিজমের মতই বর্বর (নাউযুবিল্লাহ)- কিন্তু সে বুঝতে পারে নি।
আচ্ছা , বলুন তো উক্ত মাওসেতুং বা হিটলার বা স্টালিন কোন ধর্মের নামে মানুষ হত্যা করেছিল ? তারা যেটা করেছিল সেটা হলো সম্পূর্ন তাদের নিজস্ব রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্যে। এবার বলুন তো দুনিয়ার কোন বিবেকবান লোক তাদের এই গনহত্যাকে সমর্থন করে ? কোন লোক তাদের এই গনহত্যাকে সঠিক কাজ বলে গণ্য করে ? কেউই তাদের গনহ্ত্যাকে সমর্থন করে না , দুনিয়ার সকল বিবেকবান লোক তাদের এই গনহত্যাকে ঘৃণা করে , আর কঠিন সমালোচনা করে। তাদের এসব কর্মকান্ডকে ধিক্কার জানিয়ে, সারা দুনিয়ায় লক্ষ লক্ষ বই লেখা হয়েছে , লেখা হয়েছে নিবন্ধ , খবর আর হয়েছে কঠিন সমালোচনা। দুনিয়ার কোন বিবেকবান লোকই মাওসেতুং বা হিটলার বা স্টালিনকে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট আদর্শ মানুষ তো দুরের কথা , একজন স্বাভাবিক বিবেক সম্পন্ন মানুষ বলেও স্বীকার করতে রাজি না। বরং সবাই বলে, তারা ছিল সবাই বর্বর , অসভ্য ও খুনি।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: :(

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: দেখুন মশাই আমি প্রথমেই বলেছি গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের জন্য সারা বিশ্বের মুসলিমদের দায়ী করা হবে কেন? আজ গুটি কয়েক বদমায়েসের জন্য সমগ্র বিশ্বের খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের সকল মানুষ একত্রিত হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধাচারণ করছে। এপর্যন্ত পৃথিবীতে যত মানুষ হত্যা করা হয়েছে বিস্ময়কর ভাবে সেগুলো ক্রীড়ানরক ছিল খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের লোকেরাই তথাপি তারা আজ মানবতার ধারক বাহক হয়ে উঠেছে।



যে বদমাশরা এগুলো করছে তাদেরকে মারুন কাটুন আমার কোন আপত্তি নেই কিন্তু তাদের দোষ ইসলাম নেবে কেন?

ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৫| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:৩২

সেয়ানা পাগল বলেছেন: @ এ আর ১৫

সহমত। কিন্তু যারা জেগে ঘুমায়, তাদের ঘুম আপনি কখনো ভাঙ্গাতে পারবেন না। তাই আপনার এই যুক্তিপূর্ণ উত্তর আর " উলু বনে মুক্তা ছড়ানো " একই কথা ।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৬| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:৫০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: শিরোনামের কথাগুলো দারুণ বলেছেন ভাই। নিজেদের প্রতি ঘৃণা হচ্ছে এখন।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৭| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: @এ আর ১৫
ধর্মের নামেও শুধূ মুসলিমরা না, অন্য ধর্মাবলম্বীরাও হত্যা করেছে, করছে। পার্থক্য হলো, সেগুলোকে জাস্টিফাই করার জন্য জব্দকৃত গণমাধ্যম আর ব্যক্তি স্বার্থে অন্ধ প্রাণীদের দিয়ে বিভিন্ন মিথ, ব্যাখ্যা ইতিহাস ইত্যাদি তৈরী করে সমাজে ছড়িয়ে দেওয়া হয়, যেমনটা আপনি বললেন আর যেমনটা এখন রোহিঙ্গাদের সাথে হচ্ছে।
এজন্যই প্যালেস্টাইন আর কাশ্মীরের মুক্তিকামীরা হয় জঙ্গী। আর পূর্ব তিমুর বা দক্ষিণ সুদান হয় স্বাধীনতাকামী।

ভালো থাকবেন, শুভ ব্লগিং।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

৮| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৪

এ আর ১৫ বলেছেন: পদ্ম পুকুর ======
ধর্মের নামেও শুধূ মুসলিমরা না, অন্য ধর্মাবলম্বীরাও হত্যা করেছে, করছে।

উত্তর ___ আমার মন্তব্য নং ৩ এ ভালো ভাবে ব্যাখা করা হয়েছে , আমার মন্তব্য নং ২ এবং ৪ আরেকবার পড়লে সব কিছু ক্লিয়ার হয়ে যাবে ।
যেমনটা আপনি বললেন আর যেমনটা এখন রোহিঙ্গাদের সাথে হচ্ছে।


প্রশ্ন : বার্মা সরকার কর্তৃক রহিঙ্গা নিপীড়ন কি ধর্মীয় কারনে নহে ??

উত্তর : নহে পুরো বিষয়টা ধর্মীয় বিদ্বেষ নহে বরং জাতিগত বিদ্বেষ । যেমন ধরুন ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় যারা শহিদ হয়েছিল তাদের ৯০% ছিল মুসলমান তাই বলে ওটাকে কি মুসলিম নিধন বলবেন নাকি বাঙ্গালী জাতি নিধন বোলবেন ? ১৯৭১ সালে পাকিস্তানিদের টারগেট ছিল বাঙ্গালী নিধন এবং তার ধর্ম যাই হোক না কেন ঠিক একই ভাবে বার্মার সংখ্যা গরিষ্ঠ অংশ যাদের বেশির ভাগ বৌদ্ধ ধর্মালম্বি তারা নিপীড়ন করছে রহিঙ্গা জাতির উপর । এই রহিঙ্গারা যদি হিন্দু বা বৌদ্ধ বা অন্য কোন ধর্মের হোত তাহোলে ও নিপীড়ন চলতো ।

প্রশ্নকারি : জ্বি না রহিঙ্গারা বৌদ্ধ হোলে নিপীড়ন চলতো না !!!!!

উত্তর : জাতিগত বিদ্বেষ বা সংঘাতে ধর্ম কোন ইসু নহে । ১৯৭১ সালে পাকি জাতি যাদের ৯৯.৯৯৯৯ % মুসলমান তারা বাংলার মুসলমানদের কে হত্যা করতো না । আই এস আই রা মুসলমানদের হত্যা করতো না । সুতরাং রহিঙ্গারা বৌদ্ধ ধর্মের হোলেও জাতিগত নিপীড়ন বন্ধ হোত না । এক জাতির মুসলমানরা অন্য জাতির মুসলমানদের হত্যা করতো না । ১৯৭১ সালের গণহত্যা যেমন ছিল জাতিগত বিদ্বেষ ঠিক একই ভাবে বার্মার রহিঙ্গা হত্যা ও জাতিহত বিদ্বেষ ।
যদি এইটা শুধু সম্প্রদায়িক ধর্মীয় নিধন হোত তাহোলে বার্মায় অন্য জাতি গোস্ঠির ভিতর যে বিপুল সংখ্যক মুসলমান আছে তারা ও নিপীড়নের শিকার হোত কিন্তু রহিঙ্গারাই শুধু আক্রমণের শিকার হয়েছে । সুতরাং এইটা ধর্মীয় নিধন নহে তবে বাংলাদেশে ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় যে নিধন হয়েছে সেটা সম্প্রদায়িক ধর্মীয় নিধন , রামুতে যা হয়েছে সেটা সম্প্রদায়িক ধর্মীয় নিধন , ভারতের গুজরাটে যা হয়েছে সেটা সম্প্রদায়িক ধর্মীয় নিধন ।
প্রশ্নকারি : না না না বৌদ্ধ ভিক্ষুরা অংশ গ্রহন করেছে এটা ধর্মীয় বিদ্বেষ মোটেও জাতিগত বিদ্বেষ নহে !!!!!

উত্তর : তাই নাকি !!!!!! এটা বুঝি আপনার কাছে ধর্মীয় বিদ্বেষ জাতিগত নহে !!!!!! তাহোলে মগ চাকমা মার্মা বা অন্য সব গোস্টি বা জাতিতে যে বিপুল সংখ্যক মুসলমান আছে তারা কেন নিপীড়নের শিকার হয় না ? কেবল মাত্র কিছু ভিক্ষুর অংশ গ্রহন করার কারনে যদি এটা জাতিগত বিদ্বেষ না হয়ে সম্প্রদায়িক বিদ্বেষ হয় তাহোলে ১৯৭১ সালের বাঙ্গালী নিধন ছিল ধর্মীয় বিদ্বেষ জাতিগত বিদ্বেষ নহে কারন রাজাকার আলবদর জামাত কাট মোল্লারা মানুষ নিধনে অংশ গ্রহন করেছিল , সুতরাং ১৯৭১ সালের পাকি রাজাকার আলবদর কাটমোল্লা কর্তৃক হত্যা কান্ড ছিল ধর্মীয় নিপীড়ন জাতিগত নহে এবং একি ভাবে বৌদ্ধ রাজাকারদের কারনে ঐটা মোটোও জাতিগত নিপীড়ন নহে বরং ধর্মীয় নিপীড়ন !!!!!!!

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৭

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: চমৎকার মন্তব্যের জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

৯| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০১

নতুন বলেছেন: অন্য কোন ধমে` বলা হয়েছে যে দেশের শাসন ভার ধমী`য় হতে হবে এবং তার জন্য জিহাদ করো। এই জিহাদে জয়ী হলে গাজী এবং মরলে শহীদ.... এবং শহীদীকে কতটা বড় করে দেখানো হয়েছে?

ইসলাম দেশের ক্ষমতা চায় তাই তারা ধনী শ্রেনীর জন্য ভয়ের।

আর হলিআটেজান, আইসিস, তালেবান, আমাদের দেশের জিহাদী সম্পকে কিছু বলুন.... নাকি এরা মুসলিম না... বরং বিধ`মীদের চক্রান্ত?

তৌমুর লং এর ইতিহাস পড়েছেন কি? তিনিও কিন্তু আপনার উপরের ঐ লিস্টিতে স্হান পাবার মতন বুজু`গ ব্যক্তি... তিনিও ১.৭ মিলিওন মানুষ হত্যা করেছিলেন.... তিনি ও মুসলমান ছিলেন... :|

অন্য ধমের মানুষ তাদের সৃস্টিকতার নামে মানুষ খুন করছেনা বত`মান বিশ্বে তাই মুসলমানের টেরোরিস্ট নামটা বেশি আসছে।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৯

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ভাই সাহেব আমি প্রথমেই বলেছি গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের জন্য সারা বিশ্বের মুসলিমদের দায়ী করা হবে কেন? আজ গুটি কয়েক বদমায়েসের জন্য সমগ্র বিশ্বের খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের সকল মানুষ একত্রিত হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধাচারণ করছে। এপর্যন্ত পৃথিবীতে যত মানুষ হত্যা করা হয়েছে বিস্ময়কর ভাবে সেগুলো ক্রীড়ানরক ছিল খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের লোকেরাই তথাপি তারা আজ মানবতার ধারক বাহক হয়ে উঠেছে।



যে বদমাশরা এগুলো করছে তাদেরকে মারুন কাটুন আমার কোন আপত্তি নেই কিন্তু তাদের দোষ ইসলাম নেবে কেন?

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১০

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ভাই সাহেব আমি প্রথমেই বলেছি গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের জন্য সারা বিশ্বের মুসলিমদের দায়ী করা হবে কেন? আজ গুটি কয়েক বদমায়েসের জন্য সমগ্র বিশ্বের খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের সকল মানুষ একত্রিত হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধাচারণ করছে। এপর্যন্ত পৃথিবীতে যত মানুষ হত্যা করা হয়েছে বিস্ময়কর ভাবে সেগুলো ক্রীড়ানরক ছিল খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের লোকেরাই তথাপি তারা আজ মানবতার ধারক বাহক হয়ে উঠেছে।



যে বদমাশরা এগুলো করছে তাদেরকে মারুন কাটুন আমার কোন আপত্তি নেই কিন্তু তাদের দোষ ইসলাম নেবে কেন?

ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১০| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: ওটা পশ্চিমা বিশ্বের চাপিয়ে দেয় বিলাপ । নৃশংসতায় অন্যরা বেশি এগিয়ে । সব একচোখা নীতির ফসল ।

১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: কিন্তু আমরা সকলেই ইনিয়ে-বিনিয়ে মুসলিম তথা ইসলামকেই দায়ী করছি। :(






চমৎকার মন্তব্যের জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন নিরন্তর।

১১| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৫

নতুন বলেছেন: যে বদমাশরা এগুলো করছে তাদেরকে মারুন কাটুন আমার কোন আপত্তি নেই কিন্তু তাদের দোষ ইসলাম নেবে কেন?

ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।


ভালো বলেছেন। আপনার দলের মানুষ অন্যায় করছে আপনি বসে বসে বলছেন যে এটা সহী ইসলাম না।

এই সব আইসিসি সমস্যার জন্য কেন ইসলামী দেশ কি করছেন?

জনগন কিন্তু এদের সমথ`ন করে... আপনি বললেন যে এদের সাজা দিন... কিন্তু ৮০% মনে করে এরা সহী ইসলামের পথে আছে।

পশ্চিমারা হয়তো কাউকে বুলেট দিয়ে হত্যা করবে.... কিন্তু ইসলামের নামে যখন তরবারি দিয়ে জবাই করে সৃস্টিকতার নাম উচ্চস্বরে বলে হত্যা করে প্রচার করবে তখন সেটা সবার নজরে বেশি আসবে। এবং বিশ্ব টেরোরিস্ট বলবেই।

যে মানুষ হত্যা করে সে মুসলমান তো নাই বরং সে তো মানুষ ই না। কিন্তু অন্য ধমে`র মানুষ কে এটা কে বোঝাবে।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৩৮

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ভাই দেখুন আইসিস-এর উৎপত্তি হঠাৎ করে, কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা ইরাক ও সিরিয়া বিশাল একটি ভূখন্ড দখল করে নেই নির্লজ্জ আমেরিকার ও ইসরাইলের পৃষ্ঠপোশকতায় এই ভূঁইফোড় সংগঠনটি। কোন মুসলিম দেশই এদেরকে সমর্থন করেনি। এদের সৃষ্টি করে আমেরিকা ও ইসরাইল মুসলিম বিশ্বে তথা মধ্যপ্রাচ্যে গন্ডগোল বেধে ইসরাইলের সার্থকে সমুন্নত রাখাই হচ্ছে মূল লক্ষ্য।

আর ইসলাম ধর্মেই আছে যে একটি মানুষ হত্যা করলো সে যেন গোটা মানবতাকে হত্যা করলো তাহলে বলেন এরা মুসলিম হয় কী করে?

চমৎকার মন্তব্যের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন নিরন্তর।

১২| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: ইসলাম শান্তির ধর্ম । হাতে নখ কিভাবে কাটতে হবে সেটিরও সুন্নত আছে। নিয়মানুবর্তিতা মানবিকতা ইসলামের চেয়ে বেশি কোথাও নেই। কিছু সংখ্যক মুসলমানের অনৈতিক কার্যকলাম ইসলামকে ক্ষুদ্র করে হেয়। আদতে ইসলাম ধর্ম মহান ।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৪০

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: এমন কোন বিষয় নেই যা ইসলাম বলে দেয়নি কিন্তু কিছু জানোয়ারে জন্য এই ধর্মটা হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৩| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ৮:৩৩

অ্যাপল ফ্যানবয় বলেছেন: ধর্ম কোনো বড় কথা নয় । মানুষের এই টেররিস্ট-টাইপ ও টেররিস্ট-প্রতি চেতনাকে মানব-বেসড করে তুলতে হবে, ধর্ম-বেসড নয় ।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৪৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ধর্ম মানুষকে মহান করে সে যে ধর্মই হোন কেন। অতিধার্মিকরাই ধর্মকে কুলসিত করছে।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৪| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ৮:৪৬

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
সুধু মুসলিম মুসলিম করেন কেন?
মুসলিমদের ৯৬টা মাহাজাব। সবাই নিজেরটাকেই সঠিক, একমাত্র সহি মনে করে।
পাকিস্তান ও মধ্যপ্রাচ্যে, ঊ.আফ্রিকা ইত্যাদি এলাকায় একটি গোত্র অপর গোত্রকে মুসলিম মনে করে না, জঙ্গি মুসলিমরা ভিন্নমতাবলম্বি মুসলিমদের কাফেরের চেয়েও বেশী ঘৃনা করে।
বাংলাদেশেই দুজন মোল্লা পাসাপাসি বসিয়ে কথাবার্তা শুনবেন - মতের কোন মিল পাবেন না।
ইসলামি চরমপন্থি দলগুলো - আলকায়দা, আইএস, তালেবান ও বোকোহারামজাদারা এজাবৎ যত মানুষ মেরেছে তার ৯০% মুসলিম।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৫১

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মাজহাব যতই থাকনা কেন মৌলিক বিষয়ে সকলেই একমত। আপনি বলেছেন যে, বাংলাদেশেই দুজন মোল্লা পাসাপাসি বসিয়ে কথাবার্তা শুনবেন - মতের কোন মিল পাবেন না। হ্যঁ ঠিকই বলেছেন এইসব কাটমোল্লাদের জন্যই ইসলাকে অনেক বিভ্রান্তি হয়েছে। আলকায়দা, আইএস, তালেবান ও বোকোহারামজাদারা এরা মানুষতো দূরের কথা পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট।




ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৫| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ৮:৫০

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: আমাদের সমস্যা হলো আমরা নিজেরাই নিজেকে হত্যা করি।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৫১

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ঠিকই বলেছেন। মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

১৬| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ১১:৩০

প্রশ্নবোধক (?) বলেছেন: ইসলামিক সন্ত্রাস নামের শব্দগুচ্ছ খুব বেশীদিন হয়নি আবির্ভাব হওয়ার। আফগানিস্থানে যখন রাশিয়া সৈন্য প্রবেশ করায় তখন আমেরিকা পুরো বিশ্বের বোকা মুসলিমদের এটা বোঝাতে সক্ষম হয়েছিল যে, রাশিয়ান নাস্তিকরা তাদের ভুমি দখল করেছে, এদেরকে বিতাড়িত করা ধর্মীয় জিহাদ এবং সেই সাথে গন্ডমূর্খের দল তালেবান গঠনে প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ সহায়তা করে। যার ফলাফল এখন দেখা যাচ্ছে।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:০২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: জী ভাই। এই আমেরিকা রাশিয়াকে ঘায়েল করার জন্য তালেবান সৃষ্টি করেছে যখন প্রয়োজন শেষ তখন এরা সন্ত্রাসী হয়েছে ঠিক এমন ভাবেই ইরাক নিয়ে খেলেছে ইরানের সংগে যখন খেলা শেষ তখন দেখলো যে ইরাক রাশিয়ার দিকে ঝুকছে এবং ইসরাইলের জন্য সমূহ বিপদের কারণ তখন সুকৌশলে কুয়েতকে দখল করতে বলে আর ছাগল ইরাক কুয়েত দখল করে বসে; তার পরের ইতিহাস সকলেরই জানা। একই ভাবে বোকোহারাম, আইসিস, আলকায়দা সহ যত সন্ত্রাসী সংগঠন ইসলামী বিশ্বে আছে সবই আমেরিকার সৃষ্টি তার একমাত্র কারণ হলো মুসলিম বিশ্ব যাবে মাথা তুলে দাড়াতে না পারে।



ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৭| ১২ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ১১:৫২

আবু তালেব শেখ বলেছেন: ন্যাটো বাহিনির মত যদি মুসলিমদের একটা যৌথ সামরিক বাহিনী থাকতো তাহলে অনেকটাই বদলে যেত বিশ্ব।
আমি চাই ওআইসি বিলুপ্ত করে একটা সামরিক জোট গড়া হোক। তাহলে আর জিহাদি বাহিনী থাকবে না।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:০৫

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনার সংগে আমি পুরাপুরে একমত। এরকম একটা যৌথ বাহিনী থাকলে অনেকটায়ই বদলে যেত বিশ্ব এবং জিহাদী বাহিনী গড়েওঠার সুযোগ পেতনা। কিন্তু পশ্চিমা বিশ্ব তা কখনই হতে দেবেনা।





ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৮| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ২:২০

মলাসইলমুইনা বলেছেন: এই ব্যাপক সংজ্ঞায় আমি যেদিন সন্ত্রাসী হলাম সেদিন আমার হাতে বা অধিকারে একটা লাঠিও ছিল না | আজও সেগুলো জোগাড় করতে পারিনি | কিন্তু সেই সংজ্ঞা আর বদলায়নি | তাই আমারও সন্ত্রাসী পরিচয় থেকে আজও আর মুক্তি মিললো না !

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:০৭

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: না কখনই আপনার সন্ত্রাসী পরিচয় মুছে যাবেনা কারণ আপনার বিরুদ্ধে সকলেই একাট্রা।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

১৯| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ১০:০৯

ব্লগ সার্চম্যান বলেছেন: ধিক শত ধিক তাদের। যাদের আসলে মানবতা বলতে অবশিষ্ট কিছুই নেই।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:১৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: এখন মানবতা বলতে কিছুই নেই কারণ এখানে মুসলিমরা নির্যাতীত আর এজন্যই প্যালেস্টাইন আর কাশ্মীরের মুক্তিকামীরা হয় জঙ্গী। আর পূর্ব তিমুর বা দক্ষিণ সুদান হয় স্বাধীনতাকামী। ইন্দোনেশিয়া থেরক তিমুরকে স্বাধীন করার সময় সস পশ্চিমা বিশ্ব এক হয়েছিল তেমনি এক হয়েছিল সুদান থেকে দক্ষিণ সুদানকে আলাদা করতে, জাতিসংঘের ৫ স্থায়ূ সদস্য এক হয়েছিল কিন্ত ফিলিস্থিনী এবং কাশ্মীরের ব্যপারে জাতিসংঘ এক হতে পারেনি। হবেও না কোন দিন কারণ একটাই!




ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

২০| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:১৩

মহসিন ৩১ বলেছেন: অমুসলিম কোনদিনই আর মুসলমান হবে না , মুসলমানও যতই ' মা মা ' করুক ; মানবতা আর বাড়াতে পারবে না। প্রযুক্তিও আরও বেশি ''সাঙ্ঘাতিক সভ্যতা'' আনতে পারবে না। ইঞ্জিনিয়ারিং ''আরও-বেশি'' ইসলামিক প্রযুক্তি বা নয়া সঙ্কেত আনবে না , ধ্বংস তৈয়ার করা ছাড়া , মেডিকেল সায়েন্স নূতন-মুসলমান 'জম্বি ভাইরাস' বানাতে পারবে না-----। এ সব কিছুর কারণই হোল সন্ত্রাস । যা যুগ যুগ ধরে স্বৈরাচারের ডায়েরি থেকে নির্মম বাস্তবতায়; বোকা মানুষের আবেগে আর দুখি মানুষের জীবনে নেমে আসে এবং; আসছেই।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনার চমৎকার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।







ভালো থাকুন নিরন্তর।

২১| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২৩

Mysterious Mystery বলেছেন: সঠিকভাবে সঠিক জ্ঞান অবলম্বন না করার ফল, আল্লাহ কারিম

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:৪৭

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

২২| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:০৫

রাতু০১ বলেছেন: কে হিন্দু, কে মুসলিম, কে বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান সেই বিভাজন করার সময় ফুরিয়ে গেছে। আমরা মানবতার পক্ষে একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রতিবাদ করবো। জয় হোক মানবতার। আপন পৃথিবীতে নিরাশ্রয় হতে পারে না মানুষ।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৩২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: বলেছেন: আমরা মানবতার পক্ষে একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রতিবাদ করবো। জয় হোক মানবতার। আপন পৃথিবীতে নিরাশ্রয় হতে পারে না মানুষ।





ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

২৩| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:২২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আমরা মানবতার পক্ষে একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রতিবাদ করবো। জয় হোক মানবতার। আপন পৃথিবীতে নিরাশ্রয় হতে পারে না মানুষ।





ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

২৪| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:২৪

প্রথমকথা বলেছেন: যথার্থ বলেছেন। খুব সুন্দর লেখা।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৩১

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

২৫| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৩

মহসিন ৩১ বলেছেন: May be: Where ''Now'' aught not the 'best time' then There must becoming ;''Time is the best healer.''

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৯

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: Really Time is the great healer.






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ

২৬| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৩

চুলবুল পান্ডে বলেছেন: এখানে কয়েকজন রাম বামের আস্ফালন দেখলাম। যতই যুক্তি, তথ্য, উপাত্ত দিন এদের মন ভজাতে পারবেন না। এরা চরমভাবে দলকানা, নন-বাংলাদেশী, ইসলাম এদের জন্মশত্রু। এদের আদর্শ সংঘ, আরএসএস। এদের রামচটকান না দিয়ে কোন ন্যায়ানুগ ব্যাখ্যা এদের মানাতে পারবেন না, এসব পরগাছাদের জন্যই ব্লগের পরিবেশ এত কদর্য হয়ে পরছে।

১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫০

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

২৭| ১৪ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ রাত ১০:২৫

আবু মুছা আল আজাদ বলেছেন: ভাল ও যুক্তিসংগত লেখা।
আমি সরকার ও রাজনীতিতে পড়ালেখা করেছি। অর্থা জাতীয়তাবাদ এর মুল মন্ত্র বিভিন্নভঅবে জেনেছি। তবে সব সময়ই মনের কোনে প্রশ্ন থেকেছে এটা কেমন করে মানুষ গ্রহন করল? যেখানে এর মূল মন্ত্রই হল অন্যর যাই হোক জাতির স্বার্থ আগে। জাতির এক শাসক অপরাধ করল ফলে সমগ্র জাতিকে দোষারোপ করা হল। জাতি জাতি যুদ্ধ ধংস মহা ধংস। অথচ সকল ধর্মের মূল কথাই হল যে অপরাধী সেই তার সাজা ভোগ করবে। জাতি গোষ্টি যাই হোক অপরাধ করলে সবাই তার বিরুদ্ধে থাকবে।

আর যে সকল এলিটরা (সকল কিছূর নিয়ন্ত্রক) তারা ঐসকল নেতাদেরকে ব্যভহার করছে। আমার কাছে মনে হয় এটি বড় আকারের একটা ষড়যন্ত্রের ।

১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:২৫

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

২৮| ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ১১:৫৩

এ আর ১৫ বলেছেন: ✔ ইয়াহিয়া খান একজন মুসলিম , তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে ৩০ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল. মিডিয়া তাকে কখনো জংগি বলেনি বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ জুলফিকার আলী ভুট্টো একজন মুসলিম , তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে ৩০ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল. মিডিয়া তাকে কখনো জংগি বলেনি বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ জেনারেল নিয়াজী একজন মুসলিম , তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে ৩০ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল. মিডিয়া তাকে কখনো জংগি বলেনি বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ সাদ্দাম হোসেন একজন মুসলিম , তিনি ইরাকে কয়েক লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল. মিডিয়া তাকে কখনো জংগি বলেনি বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ তৈমুর লং একজন মুসলিম , তিনি সেই আমলে ১৫ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল যা ছিল পৃথিবীর মোট জনসংখার ৫ %. মিডিয়া তাকে কখনো জংগি বলেনি বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ সাদ্দাম হোসেন মুসলিম এবং ইরাণের খোমিনী মুসলিম, তারা পরস্পরের সাথে যুদ্ধ করে কয়েক লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল , মিডিয়া তাদের কে কখনো জংগি বলেনি, বলেনি মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ সৌদী আরব মুসলিম দেশ এবং ইয়েমেন মুসলিম দেশ, তারা পরস্পরের সাথে যুদ্ধ করে প্রায় ৫০ হাজার মানুষ হত্যা করেছে , মিডিয়া তাদেরকে কখনো জংগি বোলছে না , বোলছে না মুসলিম টেররিস্ট :) :) :)
✔ নাইজেরিয়ার সেনাবাহিণী ও সরকার যারা মুসলিম তারা হাজার হাজার বোকাহারমকে হত্যা করেছে , মিডিয়া তাদের কখনো জংগি বা ইসলামী টেররিস্ট বলেনি ।
✔ সিরিয়া এবং ইরাকী সেনাবাহিণী ও সরকার যারা মুসলিম তারা হাজার হাজার আই এস আই কে হত্যা করেছে , মিডিয়া তাদের কখনো জংগি বা ইসলামী টেররিস্ট বলেনি ।

তাহা হোলে
১ ) জামাতীরা মুসলমান এবং ১৯৭১ সালে ৩০ লক্ষ মানুষ হত্যার সহযোগি -- তাহা হইলে তাহাদের কেন মুসলিম জংগী বা টেররিস্ট বলা হয় ?
২) তালেবানরা মুসলমান এবং তারা কয়েক লক্ষ মানুষ হত্যা করেছে কিন্তু কেন তাদের কে মুসলিম জংগী বলা হয় ।
৩) আই এস আই রা মুসলমান এবং তারা কয়েক লক্ষ মানুষ হত্যা করেছে কিন্তু কেন তাদের কে মুসলিম জংগী বলা হয় ।
৫) হরকাতুল জেহাদ , তেহেরিক ইসলাম , জেএনবি ইত্যাদি মুসলমান কিন্তু কেন তাদের কে মুসলিম জংগী বলা হয় ।
৬) বোকা হারাম এরা মুসলমান, তারা কয়েক লক্ষ মানুষ হত্যা করেছে কিন্তু কেন তাদেরকে জংগী বলা হয় ????

ইয়াহিয়া ভুট্টো ৩০ লক্ষ মারলো তারা জংগী উপাধী পাইলো না তাহোলে কেন জামাতিরা পাইলো । সাদ্দাম তৈমুর লং রা লক্ষ লক্ষ মানুষ মারলো তারা জংগী উপাধী পাইলোনা পাইলো শুধু মোমিন মুসলমান তালেবান , রাজাকার , বোকাহারাম, আই এস আই রা !!!!!!!!! ইহা মোমিন মুসলমানদের বিরুদ্ধে ইহুদী নাসার স্বরযন্ত্র !!!!!

১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৩১

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ও এতো দিনে গবেষণা করে এইতত্ব আবিস্কার করেছেন। ভালো খুব ভালো! তবে আমি একটা বিষয় চিস্তা করছি ইহুদী খ্রিষ্টানে মানুষ হত্যা কথা বলাতে আপনার এতো জ্বলছে কেন? দাদারা কী আপনাকে মাসোহারা দেয়? মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

২৯| ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:০২

স্বতু সাঁই বলেছেন: পোস্টটা পড়ে মনে হলো, ছাগলের নাম বকরী

১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ৮:৩২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনাকে তো আমি চিনি। আপনিতো পেইড ব্লগার। ইসলাম মুসলিম নিয়ে কথা হলেই আপনার চুলকানী কয়েকগুন বেড়ে যায়!







ভালো থাকুন নিরন্তর।

৩০| ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ১০:৪৫

এ আর ১৫ বলেছেন: তবে আমি একটা বিষয় চিস্তা করছি ইহুদী খ্রিষ্টানে মানুষ হত্যা কথা বলাতে আপনার এতো জ্বলছে কেন ?

আপনারা ইসলামি মিলিট্যান্টদের ধর্মের নামে জঘন্য গণহত্যা অপকর্মকে অন্যদের ধর্মের সাথে সম্পর্ক হীন গণহত্যা অপকর্মকে এক পাল্লায় নিয়ে এসে অন্য মৌলবাদীদের অপকর্মকে জাস্টিফাই করতে এসেছেন !!! আপনার এই জাস্টিফিকেশনের জন্য মুসলমানেদের ধর্মের সাথে সম্পর্ক বিহিন অপকর্মকে সম্পূর্ণ আড়াল করেছেন । ভন্ডামি মিথ্যা চারিতা দেখলে তো একজন মানুষের মন জ্বলবেনা নাকি আপনাদের মত অধর্মীকদের মত তালবাহানা খুজবো নিজেদের অপকর্মকে জাস্টিফাই করার জন্য

দাদারা কী আপনাকে মাসোহারা দেয়?
আপনাগো মাসোহারা কি পাকিরা দেয় মিথ্যা ভন্ডামী করার জন্য যেটা অধর্মীকদের আসল কাজ !!!!!

১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সকাল ১১:১৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনি তো আমার লেখার মর্মই উদ্ধার করতে পারেননি আমি বলেছি --- গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের জন্য সারা বিশ্বের মুসলিমদের দায়ী করা হবে? আজ গুটি কয়েক বদমায়েসের জন্য সমগ্র বিশ্বের খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের সকল মানুষ একত্রিত হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধাচারণ করছে। এপর্যন্ত পৃথিবীতে যত মানুষ হত্যা করা হয়েছে বিস্ময়কর ভাবে সেগুলো ক্রীড়ানরক ছিল খ্রিষ্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী এবং অন্যান্য ধর্মের লোকেরাই তথাপি তারা আজ মানবতার ধারক বাহক হয়ে উঠেছে। এখানে আমি একটা সাদৃশ্য তুলে ধরেছি।


আমিও ধর্মের নামে কাটা-কাটি হান-হানিকে সাপোর্ট করিনি কিন্তু ইসলাম কথা শুনেই আপনার শরীরে আগুন লেগে গেছে, আপনি তেলেবেগুনে জ্বলে উঠেছেন; কেন? আপনার কথাবার্তায় ভাদা ও পাদা দুই বিশেষণই যথাযথ।

৩১| ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:০৬

এ আর ১৫ বলেছেন: আপনার মত পাকি দালাল ( পাদা) দের মুল্যায়ন কেন এদেরকে ঐ ধর্মের টেররিস্ট বলা হবে না , উদাহরন ----
হিটলার ৬০ লক্ষ ইহুদী হত্যা করিছিল কিন্তু হিটলার এখন কাহারো কাহারো কাছে মহাবীর! জর্জ ডব্লিউ বুশ ইরাক - আফগানিস্তানে ১৫ লক্ষ মুসলিম হত্যা করেছে, মুসলিনী ৪ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছিল। জোসেফ স্ট্যালিন ২০ মিলিয়ন মানুষ হত্যা করেছিল; কিন্তু এরা কেউই খ্রিষ্টান টেরোরিস্ট নয়! মাও সে তুং ১৪ থেকে ২০ মিলিয়ন মানুষ মেরেছিল কিন্তু সে বৌদ্ধ টেরারিস্ট নয়! অশোকা (কলিঙ্গা বেটল) ১ লক্ষ লোক মেরেছিল কিন্তু সে হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! ইসরাইল হাজার হাজার ফিলিস্থিনী হত্যা করছে তবুও ইহুদীরা ইহুদী জঙ্গী নয়! গুজরাটে মোদি সরকারের সহযোগিতায় হাজার হাজার মুসলিম হত্যা করা হয়েছিল কিন্তু তারাও হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! শ্রীলংকার তামিল টাইগার হাজার হাজার লোক হত্যা করেছিল কিন্তু তারাও তামিল টেরোরিস্ট নয়! ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্যগুলোতে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা শত শত মানুষ হত্যা করছে তারাও হিন্দু টেরোরিস্ট নয়! অং সান সু কি হাজার হাজার মুসলিম হত্যা করছে সেও বৌদ্ধ টেরোরিস্ট নয়! টেরোরিস্ট হচ্ছে তারাই যারা নিজের অধিকারের কথা বলছে, নিজের আবাস ভুমি আদায়ের জন্য লড়ছে, যারা মুসলিম!!??

উপরের কোন হত্যাকান্ডই ধর্মকে ব্যবহার করে নহে তবু ও তাদের কে ঐ ধর্মের নামে টেররিস্ট বোলতে হবে কারন ইসলামি মিলিট্যান্টদের ধর্মের নামে হত্যাকান্ডকে ইসলামি টেররিস্ট বলা হয় । তার মানি হিটলারকে ফ্যাসিবাদি টেররিস্ট বা ফ্যাসিস্ট না বলে খৃষ্টান টেররিস্ট বোলতে হবে ইত্যাদি । অধর্মীক ভন্ড গুলোর ছাগল জাতীয় চিন্তা ভাবনা তাই তাদের ছাগু বলা হয় ।
এই যে উপরে ধর্মের সাথে সম্পর্ক বিহিন হত্যা কান্ডের ফিরিস্ত দেওয়া হয়েছে সেখানে যেই সব মুসলমান ধর্মের সাথে সম্পর্ক হিন হত্যাকান্ড চালিয়েছে তাদের নাম নেই ইচ্ছাকৃত ভাবে যেমন ---[ ইয়াহিয়া খান , ভুট্টো, নিয়াজী , সাদ্দাম হোসেন , ইসলামিস্ট খোমিনী ( ইরাকের সাথে যুদ্ধ) , তৈমুর লং , মোগল বাদশাহ রা , শের শাহ , নাদির শাহ ইত্যাদি] --- নাম আড়াল করা হয়েছে খুব কুট উদ্দেশ্যে কারন ওনার মৌলবাদী অপকর্মের সাফাই সমীকরন বাধা গ্রস্থ হবে তাই পাকি দালাল (পাদা) ছাগুদের ন্যায় গল্প গাথা নিয়ে হাজির হয়েছে

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: হা হা হা ..........। আপনি বলেছেন নাম আড়াল করা হয়েছে খুব কুট উদ্দেশ্যে কারন ওনার মৌলবাদী অপকর্মের সাফাই সমীকরন বাধা গ্রস্থ হবে তাই পাকি দালাল (পাদা) ছাগুদের ন্যায় গল্প গাথা নিয়ে হাজির হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় আপনার অবস্থান কী ছিল একটু বলবেন কি? নাকি চেতনা ধারী?




ধন্যবাদ। ভালো থাকুন নিরন্তর।

৩২| ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১:৪৪

স্বতু সাঁই বলেছেন: একটু সংশোধন করে দেই। ইসলাম না, ইসলামকে নিয়ে ভণ্ডামী এবং মুসলিম না, কথিত মুসলমানদের ভণ্ডামী হবে।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৯

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: আপনার কুম্ভাশ্রু দেখে হাসবো না কাঁদবো কিছুই বুঝতে পারছিনা।






ধন্যবাদ। ভালো থাকুন নিরন্তর।

৩৩| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ভোর ৬:১৭

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: ভালো লাগল আপনার লেখাটা পড়ে।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৯

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ পড়ার জন্য।






ভালে থাকুন নিরন্তর।

৩৪| ১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৪

স্বতু সাঁই বলেছেন: যেটা খুশি সেটা করে মনে তৃপ্তি মিটিয়ে নিন।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৫৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ঠিক আছে একটা কিছু মনে করে তৃপ্তি মিটিয়ে নেবো।






ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

৩৫| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১১

ইসমাঈল আনিস বলেছেন: সুদিন দেখার অপেক্ষায় অাছি৷

১১ ই অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:২৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ধন্যবাদ পড়ার জন্য।






ভালে থাকুন নিরন্তর।

৩৬| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১১:০৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: দেশ প্রেমিক বাঙালী ,




আপনার পোস্টের বক্তব্যের সুন্দর বিশ্লেষণ করেছেন --এ আর ১৫

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:০৪

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ঠিক বলেছেন। মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।






ভালো থাকুন নিরন্তর।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.