নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কবিতার বই: জনারণ্যে শুনিনি সহিসের ডাক। অপরাহ্ণে বিষাদী অভিপ্রায়।

সোনালী ডানার চিল

বোদলেয়ারের আশ্চর্য্য মেঘমালা দেখে থমকে দাঁড়ানো জীবনানন্দের সোনালী ডানার চিল...

সোনালী ডানার চিল › বিস্তারিত পোস্টঃ

ড্রাফট স্মৃতি

২২ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৩



হাইড পার্কে যেদিন এরিক ক্লাপটন গেয়েছিলেন,
সে সন্ধ্যায় খুব বেশি উন্মাতালে কার্লোস সান্টানার গিটার ঝড় তুলেছিল ঝটকায়।
আমি পূর্বদেশীয় চোখে বারুদ আর প্রেমে তোমাকেই ভাবছিলাম, তখনও!

বয়সটা ছিল পনের’র অবুঝ সন্ধিকাল-
প্রায়শ: বিকেলে উর্মিলা চোধূরী শুনতে শুনতে দরোজার ওপাশে রাত নেমে আসতো-
মাঝরাতে ঘুম ঘুম চোখে ঘুমান্ত শহরের রুপালী রাত অজান্তে ভর করতো সারারাত-
খুব মনে পড়ে, কষ্ট পেতে ভালোবাসি শোনার জন্য বন্ধুর বাড়িতে কাটিয়েছি নির্ঘুম রাত।
বুয়েটে খুব বেশি কনসার্ট হতো- এল আর বি আর ফিলিংস ছিল প্রথম পছন্দ তাদের;
কতসন্ধ্যায় নীল বেদনায় হারাতে হারাতে মাথার উপর চাদ মামাকে নিয়ে হলে ফিরতাম-

আমাদের ছিল কিছু কথা, কিছু স্মৃতির পোকার অবোধ্য ঘোরতমশা-
নিশ্চিত টগবগে যৌবন আর ‘পালাতে চাই’-এর মতো মাতালতা।

প্রেমিকার উপহারের মোড়কে পেয়েছি- তারাভরা রাত, কেউ সুখী নয় কিংবা স্বপ্ন’র মতো অবাক উষ্ণিষ!

হাইড পার্কে আমি আসলেই আইয়ুব বাচ্চু শুনেছিলাম-
সেই সন্ধ্যায় সান্টানার মুখে আমি খুব চেনা সেই অবায়ব রেখে বলেছিলাম:
আমার কাছে ফেলে আসা সেসব সময়েরা মহার্ঘ আর অপ্রতুল -
একদিন ঘুমভাঙা শহরে যে মাধবী স্বপ্ন দেখে তা যোজন দূরেও আমাকে মাতিয়ে রাখে জলজোছনায়....

একটা অধ্যায় ফস করে চলে গেল গতকাল
একটা সময় দম ফুরিয়ে নিভে গেল অন্ধকারে; অথচ
আমি ইউটিউব ভর্তি আইয়ুব বাচ্চু নিয়ে অশ্রু ফেলছি অজান্তে।।

১৯/১০/২০১৮

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: কিছু কিছু মৃত্যু আমাদের সারা জীবন ধরে কাদায়।

২৩ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১:০০

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: আসলেই কেদেছিলাম। যতটা না তার শোকে, তারও বেশি তার গানের সাথে
জড়ানো স্মৃতিগুলোর শোকে-

২| ২২ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:২৮

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: বহুদিন পর খুব মনোযোগ দিয়ে একটা কবিতা পড়লাম। পড়েছি দুইবার। 'অসাধারণ' বললে কম বলা হয়। আর এই যে দুইবার পড়া হলো, তা শুধু আপনার কবিতা বলেই কামরুল ভাই।

কবিতা নির্মাণের ব্যাপারে আমার খুবই নগণ্য দু-একটা পয়েন্ট ছিল। হয়ত এভাবেই ঠিক মনে করে আপনি লিখেছেন, তা হয়ে থাকলে এ মতামত ইগনোর করুন।

কবিতার শিরোনামটা এমন হলে ভালো হতো, যা থেকে সরাসরি বোঝা যায় কবিতাটা আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়েই লেখা। তৃতীয় লাইনে 'তোমাকেই ভাবছিলাম, তখনো', তার মানে ক্লাপটন সামনে উপবিষ্ট থাকলেও আপনি ক্লাপটনকেই আইয়ুব বাচ্চু ভাবছিলেন। পুরা কবিতাটা উত্তম পুরুষে আইয়ুব বাচ্চুকে উদ্দেশ্য করে লেখা, তৃতীয় লাইনে 'তোমাকেই', কিন্তু নীচে থেকে ৭ নাম্বার লাইনে 'আমি আসলেই আইয়ুব বাচ্চু' শুনছিলাম বলায় আমার কাছে একটু খটকা লেগেছে। এখানে 'আইয়ুব বাচ্চু' না লিখে 'আমি আসলেই তোমাকেই শুনছিলাম' লিখলে ভালো লাগতো বলে আমার মনে হয়েছে। এটা খুবই সামান্য একটা বিষয়।

এক জায়গায় পঙ্‌ক্তি শেষের শব্দ 'সারারাত', তার নীচের পঙ্‌ক্তি শেষের শব্দ 'নির্ঘুম রাত'। যে-কোনো একটি ঘুরিয়ে দিলে মনে হয় ভালো শোনাতো।

পড়তে পড়তে বুদ্‌ হয়ে যাওয়ার মতো একটা কবিতা।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল কামরুল বসির ভাই।

২৩ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১:২৬

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: প্রথমে কৃতজ্ঞতা খলিল ভাই।
আপনার পাঠ এবং মন্তব্য আমাকে সবসময় ঋদ্ধ করে-
ব্লগে কবিতা লেখার সেই শুরু থেকে আপনার এবং হাসান মাহবুব ভাইয়ে
মন্তব্য আমাকে নতুন কবিতার লেখার প্রেরণা জুগিয়েছে-
তারপর তো কেটে গেল বেশ কতক বছর; আবার ব্লগে ফিরে আপনাকে দেখে
সেই পুরানো সময় মনে পড়ে গেল।

আর, এই লেখাটি কবিতা নয়।
আমি আইয়ুব বাচ্চু মারা গেলে আমি নোটপ্যাডে লিখেছিলাম- আমার একান্ত অনুভূতি।
ব্লগে আমি ড্রাফট লেখাগুলো প্রকাশ করছি ক্রমন্বয়ে, সেই সূত্রে এই লেখাটি একটু প্যারা করে
ভেঙে কবিতার আকার করে দিয়েছি। কিন্তু কোনভাবে এটি কবিতা নয়! ( আমার ঠিক হয়নি কবিতা মতো করে ভেঙে দেওয়া)
তদুপরি আপনার ভালো লেগেছে জেনে সুখী হলাম। আমি আপনার মতামতগুলো অবশ্যই
কবিতায় প্রয়োগ করবো- এভাবেই পরস্পর পঠনে আমাদের অনুভূতি আরও শাণিত হবে আশা করি।

আপনার শেষ কবিতাটি পডেছি; চমৎকার কিছু শব্দমালায় গাথা একটি দূরন্ত কবিতা হয়েছে সেটি।
ভালো থাকুন সবসময়-

৩| ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৯

নেক্সাস বলেছেন: আহা সোনালী স্মৃতি। আহা নষ্টালজিয়া। এমন কিছু আমাদের সারাজীবন হাহাকারে ডুবিয়ে রাখে।

কবিতার গাথুনি বরাবরই আমার প্রিয় বিষয়। অদ্ভুত সুন্দর লিখেছেন ভাই। শব্দের গাথুনি আমাকে মুগ্ধ করেছে।

২৪ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০৩

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভাই।
আসলে এটি একটি স্মৃতিচারণ, কবিতা নয়।

বয়সের সাথে সাথে আমরা নষ্টালজিক হয়ে উঠি, তখন ভাবনা কিছুটা বিষাদ কিছুটা আক্ষেপে ডুবে রয়-

ভালো থাকুন সবসময়!

৪| ২৪ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪০

অধীতি বলেছেন: বুদ হয়ে গেলাম কবিতায়।

২৪ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪১

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপনাকে-
শুভেচ্ছা রইল!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.