নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

প্রিয়া সাহা কি আর দেশে ফিরতে পারবে?

২০ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩১



*** কোন এক ডোডো পোষ্টটাকে রিফ্রেশ করছে ***

উনার দেশে ফেরার পথ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে: প্রিয়া সাহার ঘটনা নিয়ে, উনার বিপক্ষে ব্যবস্হা নেয়ার কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী ওবায়দুল কাদের; স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলেছেন; সাহার বাড়ীর সামনে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে, ফেইসবুকে আগুন ধরেছে, ব্লগ উত্তপ্ত হয়েছে; ফলে, উনার ফেরা মোটামুটি অনিশ্চিত; উনার মেয়েরা উনাকে কোন সাহসে দেশে ফিরতে দেবেন?

প্রিয়া সাহা, একজন সংখ্যা লঘু নারী; তিনি যেই নালিশ করেছেন, উহার ভিত্তি আছে; কিন্তূ নালিসের ভাষা ও সিমানটিক পুরোপুরি সঠিক না হওয়ায়, উহা জাতির বিপক্ষে চলে গেছে! প্রিয়া সাহারা এই দেশের কিছু মানুষকে ভয় করেন, তাহাদের দিকে আংগুল না তুলে, তিনি পুরো জাতির দিকে আংগুল তুলেছেন, এটা ভুল।


মানবতার দিক থেকে, বাংলাদেশ এখন জার্মানীর সমান, কিংবা উপরে আছে, সেটা ঘটেছে রোহিংগাদের গ্রহন করায়; তবে, ২০১৭ সালে, প্রথম ৩ দিন সরকার রোহিংগাদের প্রবেশ করতে দেয়নি; ওরা যখন চোরাপথে দেশে ঢুকে যাচ্ছে ও দেশের মানুষ ওদের পক্ষে সংহতি প্রকাশ করেছেন, সরকার বাধ্য হয়ে তাদের আসতে দিয়েছে।

বাংগালীরা কোনভাবেই মগের মুল্লুকের মতো মানুষ নন, এরপরও বাংলাদেশে কতিপয় শ্রেণীর মানুষ আছে, যাদেরকে অন্য ধর্মের লোকেরা ভয় পায়; ২০০১ সালের ভোটের পর, বাংলাদেশে ভয়ংকর ব্যাপারসমুহ ঘটেছে! বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও ইরান থেকে অন্য ধর্মী মানুষেরা চলে গেছে ও ক্রমাগতভাবে চলে যাচ্ছে!

বাংগালীরা অভিযোগ করে বেশী, প্রিয়া সাহাও তাদের একজন। অন্য ধর্মের লোকেরা বা বাংলাদেশের বন্চিত লোকেরা বাংলাদেশের কোথায়ও নালিশ করতে পারে না: ফেইসবুকের কেহ, সামুর কেহ তাদের নালিশ শোনার জন্য বসে নেই; কিন্তু আমেরিকা এমন দেশ, যেখানে নালিশ করা সম্ভব, হোক সে ভুল, হোক সে শুদ্ধ।

প্রিয়া সাহা ঠিক সঠিকভাবে নালিশটা করতে পারেনি, পুরো জাতিকে জড়ায়ে ফেলেছে, সেখানে ভুল হয়ে গেছে; কিন্তু নালিশ করা ঠিক হয়েছে; কারণ, বাংলাদেশে নালিশ করা অসম্ভব ব্যাপার; সংখ্যা লঘুদের জন্য কেহ নেই! বিদেশীদের কাছে এই ধরণের নালিশ বিএনপি ও জামাতের লোকেরা সারাক্ষণ করেছে বিদেশে ; সেগুলো কোর্টের কাগজে থাকে, জাতি জানে না; জাতি প্রিয়া সাহার নালিশের কথা জেনেছেন, ক্ষেপেছেন। যাক, প্রিয়া সাহার ফেরার পথ আমি দেখছি না।

মন্তব্য ৫৯ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৫৯) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৯

রাকু হাসান বলেছেন:

প্রিয়া সাহার মূল উদ্দেশ্য মনে হয় যুক্তরাষ্ট্রে কোনো ভাবে রাজনৈতিক আশ্রয় গ্রহণ করা । যেখানে ব্যক্তি স্বার্থকেউ আমি বড় করে দেখছি । যদি তৃতীয় পক্ষের কোনো হাত থাকতো তাহলে নিশ্চয় এমন গর্দব মার্কা কথা বলাতো না । সেই হিসাবে অনেকটাই সফল হয়ে যাবে । দেশে ফেরার সম্ভবনা আমিও দেখছি না ্ ক্ষেপে গেছে মানুষ । নিশ্চয় সেও চাইবে না ,আসতে । এখন যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় আরও সহজ হবে । যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতও তথ্য বলে মিথ্যা বলে মন্তব্য করেছে ।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


মহিলা হয়তো খুবই সামান্য মহিলা, তেমন সঠিকভাবে ভাবতে ও বলতে জানেন না; তবে, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সব হিন্দু কিছু মানুষকে ভয় করে চলেন; তেমনিভাবে ভারতের মুসলমানেরা ওখানকার কিছু মানুষকে ভয় করেন; ভারতের মুসলামনদের নালিশ করার যায়গা থাকলে, এই রকম কিছু বলবেন।

২| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:২৮

জগতারন বলেছেন: প্রিয়া সাহা মিথ্যুক মহিলা। বাংলাদেশে আসলে তার জবাবদিহি করতে হবে।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৩৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনার নালিশে কিছু ভুল তথ্য আছে; তবে, নালিশ করে ঠিক করেছেন, বাংলাদেশে বন্চিতরা নালিশ করতে পারেন না, কোথায়ও সেই সুযোগ নেই; ভারতের মুসলমানেরা বিজেপি'র বিরুদ্ধে নালিশ করার মতো জায়গা পাচ্ছেন না।

৩| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৩৮

উম্মু আবদুল্লাহ বলেছেন: মিথ্যাচারের সীমা অতিক্রমকারীকে বিচারের মুখোমুখি হতেই হবে। সুকৌশলে একটি দাংগার পরিবেশ তৈরী করা হচ্ছে।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই দেশে, আপনি যদি বিপদে পড়েন, আওয়ামী লীগের কোন নেতা যদি আপনার পেছনে লাগে, আপনি কোথায়ও নালিশ করতে পারবেন না; পুলিশের কাছে গেলে, পুলিশ আওয়ামী লীগের অনুমতি চাইবে; কম লাফান।

১৭ জন ব্লগার হত্যার বিচার এই দেশে হয়নি; আপনাকে লেজ ধরে ঝুলালে, কেহ এগিয়ে আসবে না।

৪| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৪৯

আপেক্ষিক মানুষ বলেছেন: সংখ্যালঘুদের ঐক্য সংগঠনের সভাপতি বলছেন তাকে ট্রাম্পের সাথে সাক্ষাতের সুপারিশ করা হয়নি। উল্লেখ্য যে ট্রাম্পের ঐ সমাবেশে যোগ দিতে নিজ দেশের তাদের নিজস্ব ঐক্য সংগঠনের সুপারিশ লাগে। তাহলে সে ট্রাম্পের সাথে দেখা করা সিকিউরিটি ক্লিয়ারেন্স পেল কিভাবে?

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমেরিকায় অনেক সংগঠন আছে, অনেক উপায় আছে! নালিশে সামান্য ভুল আছে; কিন্তু নালিশ করে সে শান্তি পেয়েছে, বাংলাদেশে বন্চিতরা নালিশ করতে পারে না।

ভারতের মুসলামানেরা "গরু" নিয়ে কি নালিশ করতে পারছে?

৫| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৫০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার মনে হয় না সে আমেরিকাতে এসাইলাম পাবে । তার বক্তব্য ভিত্তিহীন । এটা আমেরিকার কর্তৃপক্ষ ও জানে।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:০৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



আগে না পেলেও, এখন পাবে; ওবায়দুল কাদের, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, ফেইসবুক, ব্লগ ও উনার বাড়ীর সামনে বিক্ষোভ হওয়ার পর, উনার সম্ভাবনা অনেক বেড়েছে।

৬| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৫৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: ঢাকাতে নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত এর বক্তব্য পত্রিকায় পড়েছি। উনি বাংলাদেশের পরিস্থিতিতে যথেষ্ট সন্তুষ্ট।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


ঢাকাতে নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত এর বক্তব্য ঠিক আছে; কিন্তু এই রাষ্ট্রদুত যদি মির্জা ফখরুল, আমান উল্লাহ আমান, গয়েশ্বের রায় ও জামাতের লোকদের নালিশ করতে সুযোগ দেন, হিন্দুদের নালিশ করতে সুযোগ দেন, তখন উনার বক্তব্য বদলে যাবে।

৭| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: আমার ধারনা প্রিয়া সাহা আবেগে বলে ফেলেছেন। অনেক সময় এরকম হয় আবেগের চোটে আমরেয়া একটু বেশী বলে ফেলি। প্রিয়া সাহাও বেশি বলেছেন।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশ সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলোর অন্যায়ের বিপক্ষে নালিশ করার যায়গা বাংলাদেশে নেই; জামাত-বিএনপি-হেফাজতের ভয়ের বিপক্ষে নালিশ করার যায়গা নেই; ভারতের মুসলমানেরা বিজেপির ভয়ে আছেন, কিন্তু নালিশের যায়গা নেই; নালিশ করা সঠিক হয়েছে; তবে, উনিও প্রশ্নফাঁস জেনারেশনের লোক মনে হয়, নালিশটাতে ভুল আছে।

৮| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:১৮

সেতুর বন্ধন বলেছেন: প্রিয়া সাহা যে একজন সাধারণ মহিলা কি করে জানলেন, সবাই জানে সে একজন হিন্দৃ, বোদ্ধ, ক্রিস্টান ঐক্য পরিষদের। তার একটা এনজিও আছে। তার স্বামী সরকারী একজন চাকুরীজীবি। সে সুযোগ সন্ধানী। ট্রাই করে দেখল হয় কি না। যদি লেগে যায় ছক্কা হাকানোর ফসল তার ঘরেই উঠবে।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


এনজিও'র লোকেরা শিক্ষিত ডাকাত, ওরা মোটামুটি সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলোকে ভয় পায়।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:২৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



বাংলাদেশের হিন্দু বিলিওনিয়ার, বস্তিবাসী একজন জামাত কিংবা হেফাজতকে ভয় পাবে, এটা হলো বাংলাদেশ, পাকিস্তানের সংখ্যা লঘুদের মানসিক অবস্হা।

ভারতের মুসলামানেরা বিজেপীর ভয়ে কাঁপছে, ওরা সুযোগ পেলে নালিশ করতো।

১৭ জন ব্লগারকে হত্যা করা হয়েছে এই দেশেই।

৯| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৫৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
এই মহিলার স্বামী নাকি সরল বিশ্বাস প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে। সেখানে নাকি ইনকাম খারাপ না। সবই সরল বিশ্বাসে হয় ।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


চাকুরী করে যদি ২ মেয়েকে আমেরিকায় পড়ায়, তা'হলে অবশ্যই বাংলাদেশ সরকারের প্রশাসনের নিয়মে আয় করেন।

১০| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: বাংলাদেশের হিন্দুদের বর্তমান সামাজিক অবস্থান সম্পর্কে আপনার ধারনা নেই ।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


আছে, ওরা চাকুরী ও ব্যবসায় অধিক সুযোগ পাচ্ছে; এবং সেটার কারণ আছে, শেখ হাসিনা ওদেরকে বেশী বিশ্বাস করেন! কিন্তু এরপরও, ওরা ভয়ে থাকে! শেখ হাসিনা ক্ষমতা থেকে সরে গেলে, অনেক হিন্দু ভারতে চলে যাবে।

১১| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৩

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: হিন্দুরা ভালো আছেন তবে প্রিয়া সাহার অভিযোগ দুরভিসন্ধিমূলক। তিনি কি দেশে ফিরবেন?

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি ভয়ে ফিরার কথা নয়; উনার মেয়েরা উনার থেকে বেশী ভয়ে থাকবে মায়ের ব্যাপারে; ফলে, হয়তো ফেরা হবে না; হিন্দুরা খুবই ভালো আছেন; তবে, ভয়ে আছেন; শেখ হাসিনা ক্ষমতা থেকে সরে গেলে, জামাত-হেফাজত-বিএনপি'র ভয়ে আরো কিছু হিন্দু পালিয়ে যাবে।

১২| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৮

বলির পাঠা বলেছেন: প্রিয়া সাহা দেশে ফিরতে না পারলেই ভাল। ওরা প্রিয়া সাহাদের নিয়ে গিয়ে আমাদের তরুণ মেধাবীদের ফিরিয়ে দিক। এটাই দেশ ও জাতির জন্য দীর্ঘমেয়াদে সুফল আনবে। আর আপনি সম্ভব হলে প্রিয়া আপার জন্য উপর মহলে Lobbying করেন। তাহলে আপার USA থাকার ইচ্ছাটাও পূর্ণ হবে, আর আপনারও দুশ্চিন্তা কমবে। বেশি বয়সে দুশ্চিন্তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি বলির পাঠা, কিংবা কোরবাণীর ছাগল নই; আপনি রোহিংগাদের পক্ষে আছেন! কিন্তু বার্মা থেকে ১০ হাজার "কোচিন রিফিউজি" বাংলাদেশে প্রবেশের চেষ্টা করলে, আপনি নিজেই ওদেরকে বাধা দিতেন।

২২ কোটী মুসলিম ভারতে এখন বিজেপি'র ভয়ে কাঁপছে, নালিশ করার যায়গা নেই!

১৩| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১৭

বলেছেন: পিয়া সাহা,
সিনহা বাবু
এদের দোষ দিয়ে লাভ নেই,,,

সবাই আমেরিকার হতে চায় বাংগালী থেকে কি লাভ এটাই মূল এসাইনমেন্ট।।।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


বসুন্ধরা, সামিট পাওয়ার, খুলনা পাওয়ার, ওরিয়ন, আলম ব্রাদার্স, ফালু, বেক্সিমকো ইতয়াদিরা বাংলাদেশ দখল করে নিয়েছে; সোনার বাংলা এখন ওদের; বাকীদের জন্য সৌদী, মালয়েশিয়া, ভুমধ্যসাগর ইতালী ও গ্রীস।

১৪| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১৮

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: প্রিয়া সাহা নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মেরেছে। সে দেশে ফিরতে পারবে না। আপনি ঠিকই বলেছেন।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


ট্রাম্পের কিছু করার নেই; তদুপরি, রোহিংগাদের কারণে, বাংলাদেশের ভাবমুর্তি অনেক উপরে; মহিলা বুঝতে পারেননি যে, জাতির বিপক্ষে নালিশ করা সঠিক নয়; তবে, মানসিকভাবে, হিন্দুরা জামাত-হেফাজত ও বিএনপি'কে ভয় করে।

১৫| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:৪৩

বলির পাঠা বলেছেন:

লেখক বলেছেন:আমি বলির পাঠা, কিংবা কোরবাণীর ছাগল নই; আপনি রোহিংগাদের পক্ষে আছেন! কিন্তু বার্মা থেকে ১০ হাজার "কোচিন রিফিউজি" বাংলাদেশে প্রবেশের চেষ্টা করলে, আপনি নিজেই ওদেরকে বাধা দিতেন।

আমি আকাশের চাঁদ কিংবা গাছি নই; এবং আমি রোহিংগাদেরও পক্ষে নই। রোহিঙ্গারা এই দেশে প্রবেশের বহু আগেই সারা পৃথিবী দেখেছে শরণার্থী সমস্যার ভয়াবহতা। কোন সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ নিজ দেশে এই বিপদ আনতে চায় না।

২২ কোটী মুসলিম ভারতে এখন বিজেপি'র ভয়ে কাঁপছে, নালিশ করার যায়গা নেই!

এরা হতভাগা, ট্রাম্পের কাছে গিয়েও এদের কোন লাভ হবে না।

২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


ট্রাম্পের কাছে নালিশ করে কারো লাভ হবে না; সে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারতের মানুষের সমস্যা নিয়ে মাথা ঘামানোর লোক নন, এবং এরা আমেরিকা আসুক সেটাও ট্রাম্প চাহে না; ট্রাম্প চাহে, নরওয়ে, সুইডেনের লোকেরা আমেরিকায় আসুক।

রোহিংগাদের যখন হত্যা করে, প্রাকৃতিকভাবে ওরা কোন দেশের দিকে দৌড়ানোর কথা?

১৬| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:০৫

বলির পাঠা বলেছেন: রোহিঙ্গারা শুধু বাংলদেশই নয় অন্য দিকেও "দৌড়" দিয়েছিল কিন্তু সুধু আমরাই তাদের আশ্রয় দিয়েছি। আর রোহিঙ্গাদের আমরা এই মুহূর্তে মানবিকতার খাতিরে আশ্রয় দিচ্ছি নাকি এর পিছনে অন্য কোন উদ্দেশ্য আছে কিনা তা আপনি আমি আমরা সবাই জানি।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১২:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ মানবিক কারণে রোহিংগাদের নিয়েছিলো, মুসলিম হিসেবে নিয়েছিলো; ওরা অন্য ধর্মের হলে নিতো না।

১৭| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:২০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: প্রিয়া সাহার স্বামী দুদক কর্মকর্তা, দুই মেয়ে আমেরিকা পড়ে। উনি নিন্ম বর্ণের হিন্দুদের জন্য কি কি করেছেন? রসরাজকে যখন ফটোশপ করে ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে উনি কি তাকে আইনি সহায়তা দিয়েছে বা দেওয়ার চেষ্টা করেছে। রসরাজদের ছেলেমেয়েদের শিক্ষার জন্য সরকারের কাছে তদবির করেছে বা উনার সংগঠন তাদের দায়িত্ব নিয়েছে? নিন্ম বর্ণের হিন্দুদের জন্য প্রিয়া সাহারা কিছু করেন না! তাদের উপর অত্যাচারের ছবি নিয়ে ইউরোপ আমেরিকা থেকে সাহায্য এনে নিজেরা খায় আর মন্দির বানায়!

২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


সব এনজিওরা ডাকাতি করে; না হয়, ২ মেয়েকে আমেরিকা পাঠাতে পারতো না, বা নিজে ওখানে যেতে পারতো না; দুর্নীতির দিক থেকে ঠিক আছে; তবে, সংখ্যা লঘু হিসেবে ভয়ে আছে।

একজন সংখ্যা লঘু মানুষ যেভাবে ইউরোপে ও আমেরিকায় থাকেন, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত ও আফ্রিকায় সেভাবে থাকেন না, ভয়ে থাকেন; বাংলাদেশের হিন্দুরা জামাত-বিএনপি- হেফাজতকে ভয় করে; কিন্তু আওয়ামী লীগের কাছেও নালিশ করে না।

১৮| ২০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:৩৭

মোগল সম্রাট বলেছেন: এদেশের হিন্দুদের নিয়ে একটা কথা প্রচলিত আছে " ওদের এক হাত থাকে মুসলমানের গলায় আর এক হাত থাকে পায়, বিপদে পরলে পায় ধরে আর সুযোগ পেলে গলা টিপে ধরে" এখন দেখি ঘটনা প্রায় তেমনই। অতিতের যেকোন সময়ের তুলনায় হিন্দুরা খুব ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশে তরপরও এমন ঘটনা আমলে নেয়ার যৌক্তিকতা নাই।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংগালী হিন্দুরা আমাদের থেকে এতো আলাদা হলো কি করে, সামান্য ধর্মের কারণে? এশিয়া ও আফ্রিকায় সব সংখ্যা লঘুর একই অবস্হা; বিক্সজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে ভারতের ২২ কোটী মুসলমান কাঁপার শুরু করেছে; ওরা কার কাছে নালিশ করবে? কংগ্রেসের কাছে?

১৯| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১:৪১

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: চাঁদগাজীর "প্রিয়া সাহা কি আর দেশে ফিরতে পারবে" প্রশ্নের একটাই উত্তর আছে | প্রিয়া সাহা দেশে ফেরার কোনো ইচ্ছাই ছিল না বলেই তিনি এই অবস্থার সৃষ্টি করেছেন | রাজনৈতিক আশ্রয় পাওয়ার জন্য অনেকেই ইউরোপ, কানাডা বা যুক্তরাষ্ট্রে এই পথ অবলম্বন করে থাকে | তবে তিনি মশা মারতে কামান দেগে ফেলেছেন |

বাংলাদেশে অনেকেই সরকারি চাকুরীতে চরম দুর্নীতি করে তিন পুরুষের আখের গোছানোর সুযোগ পেয়ে যায় | এর পর তার জীবনের লক্ষ্য হয়ে পড়ে যে কোনো ভাবে উন্নত বিশ্বে স্থায়ীভাবে শিকড় গাড়ার, প্রিয়া ও তার পরিবার সেই গ্রূপেরই একজন | তবে তিনিটা এই রকম হাইপ্রোফাইল একটি সম্মেলনে নিজের মাতৃসম জন্মভূমি নিয়ে যে বদনাম করেছেন তার পিছনে আরো কোনো দুরভিসন্ধি আছে কিনা তা সত্যি ভাবনার বিষয় |

২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ২:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার ধারণা ঠিক, উনি হয়তো রাজনৈতিক আশ্রয় নেয়ার জন্য চেষ্টা করছিলেন; তবে, কামান দাগায়ে বসে আছেন। যাক, রোহিংগাদের থাকতে দেয়ায়, বাংলাদেশের নাম এখন বড় খাতায়, এসব নালিশ টালিশ সমস্যা নয়। আমেরিকায় হাজার বাংগালী রাজনৈতিক আশ্রয় চাচ্ছেন, এবং এই ধরণের নালিশ কোর্টে হাজার হাজার আছে; উনি বেশী বড় যায়গায় নালিশ করে ফেলেছেন।

তবে, ট্রাম্প এখন সাদা ইমিগ্রেণ্ট চাচ্ছেন।

২০| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৩:১৯

রাফা বলেছেন: আপনার কাছে আমার প্রশ্ন -প্রিয়া সাহা কি সত্যিই নিজের দেশে ফিরতে চান নাকি নিজের সন্তান ও তার নিজের সিটিজেনশিপ নিশ্চিত করার ঘৃণ্য প্রচেষ্টা মাত্র।তিনি ফিরে আসতে চাইলে স্বদম্ভেই ফিরে আসতে পারবেন বলে আমি অন্তত বিশ্বাস করি।প্রিয়া সাহা যা করতে চেয়েছেন তিনি সেখানে শতভাগ সফল। আমার প্রশ্ন প্রিয়া সাহাকে নিয়ে নয়।যাকে তারা প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচন করে পাঠিয়েছেন তাদেরকে জিজ্ঞাসা করাট অতি জরুরি বলে মনে করছি আমি। এরকম হাজার হাজার প্রিয়া সাহা বাংলাদেশের আনাচে কানাচে ঘুরছে ফিরছে । এবং তারা অন্য সাধারণ দশজন নাগরিকের চাইতে অনেক বেশি ভালো আছে।

ধন্যবাদ,চাদঁগাজী।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৬:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্রিয়া সাহার কথা বাদ দেন, আপনাকে যদি আওয়ামী লীগের, বা বিএনপি'র কেহ ক্ষতি করে, এই বাংলাদেশে কোথায়ও "নালিশ" করতে পারবেন?

১৭ জন ব্লগারের মা-বাবারা বিচার পেয়েছেন?

২১| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৪:০১

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: বিষয়টি দিন কয়েকের মধ্যেই বুঝা যাবে । তবে স্বরাস্ট্রমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া বেশ নমনীয় দেখা যাচ্ছে । প্রিয়া সাহা মুখ ফুসকে কিছু বলেছে বলে মনে হয়না , পিছনে কিছু মিছু অবশ্যই আছে। আমিরিকায় স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য অনেক পন্থাই আছে , তার মেয়েদের হাত ধরেই কিছু দিনের মধ্যেই সে তা পেতে পারে ,এর জন্য এমনতর রিস্কি কাজ করবে এত বড় আহম্মক সে সম্ভবত নয় । এসিলাম সিক করলে তা যে গ্রান্ট হবেই এত বড় নিশ্চয়তা সে পেল কোথায় । গ্রান্ট এপ্লিকেশন রিফিউজ হলে তাকে পত্র পাঠ দেশ ফিরতে হবে । যেখানে দুদিন বাদেই মেয়েদের হাত ধরেই সে সেখানে টিকতে পারে সেখানে কেন সে দেশে ফেরার রিক্স নিয়ে কথা বলবে । অতএব বিষয়টিকে আরো গভীরে গিয়ে দেখতে হবে । আমার ধারনা সে তার পিছনে থাকা কুশিলবদের কল্যানেই হয়তবা দেশে ফিরে দারুন একখান ভাষন দিতে পারে !!!! মুল কুশিলব কারা সেটাই জানা বেশী প্রয়োজন । নীজ বলে সে আমেরিকায় যায় নাই , একটি প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে গেছে । এমন একটি সন্মেলন যেখানে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাথে কথা বলার সুযোগ পাবে তেমন একটি আন্তর্জাতিক সন্মেলনে কোন প্রতিনিধী নির্বাচন কয়েক স্তর বিশিষ্ট একটি নির্বাচনী ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে যেতে হয় । অনেক দেশের রাস্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রীও মাসের পর মাস লাইন দিয়েও যেখানে আমিরিকার কোন রাস্ট্রপতির সাথে সরাসরি কথা বলার সুযোগ পায়না সেখানে দেশ হতে একজন প্রতিনিধি ( এন জি ও কর্মকর্তা হলেও ) অফিসিয়াল পর্যায়ের কোন সন্মেলনে যোগদানের জন্য নির্বাচিত হতে হলে তাকে একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে্তেই যেতে হবে, প্রয়োজনে তার অআমিরিকান ভিসার জন্য পররাস্ট্র মন্ত্রনালয় হতে নোট ভারবাল নেয়া প্রয়োজন হয় । এই সন্মেলনে যোগদানের জন্য বাংলাদেশের প্রতিনিধি চেয়ে আমিরিকার উদ্যোগী সংস্থাটির আমন্ত্রন পত্রটি কেমন ছিল তা জানা গেলে বুঝা যেত , এটাকি তার নামে দেয়া হয়েছিল না বাংলাদেশ হতে একজন উপযুক্ত প্রতিনিধি প্রেরনের জন্য পত্র দেয়া হয়েছিল । যতদুর জানি শুধু মাত্র কাওকে তার কোন স্বীকৃত এচিবমেন্টের জন্য কোন আন্তর্জাতিক পুরস্কার দেয়ার কথা থাকলে তেমন ক্ষেত্রেই শুধু কারো নাম ধরে আমন্ত্রন পত্র প্রেরন করা হয় অন্যথায় যোগ্য প্রতিনিধী মনোনয়ন দেয়ার জন্যই আমন্ত্রনপত্র প্রেরণ করা হয়ে থাকে । তাই অনেকগুলি প্রশ্নের উপর নির্ভর করছে প্রিয়া সাহা দেশে ফিরবে কি ফিরবেনা ।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৬:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমেরিকার ধর্মীয় দল (কনজারভেটিভ দল, এরা রিপাবলিকানদের সাথে কোয়ালিশনে আছে) এই ধরণের ব্যবস্হা করে থাকে; তবে, ট্রাম্পের বেলায় এগুলোর দাম নেই। বাংলাদেশের যে সুনাম ( রোহিংগারের কারণে), ইহা আমেরিকারও নেই; আমেরিকা এই মহিলার হয়ে, বাংলাদেশকে কোন চিঠি লিখবে না।

বাংলাদেশের মানুষরা কোন বিষয়ে, কারো কাছে নালিশ করতে পারে না; এই মহিলা মন খুলে নালিশ করতে পেরেছেন, এটা একটা শান্তি।

২২| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৮:৫১

রাফা বলেছেন: আপনি এতটা নির্বোধ এটা আমি ভাবতেই পারছিনা ! আমি যদি নাও নালিশ করতে পারি এই প্রিয় সাহা অতি সহজে নির্যাতিতা মাইনোরিটির সাইনবোর্ড লাগিয়ে পৌছে যেতেন স্বয়ং শেখ হাসিনা বরাবর।এটা একটা ক্লাস টু-এর বাচ্চাও বুঝতে পারবে।

প্রিয়া সাহা এক ঢিলে অনেকগুলো পাখি মেরেছেন। আমি যতদুর জানতে পেরেছি উনার পতিবর একজন সৎ কর্মকর্তা নন।ভবিষ্যতে কোন ঝামেলায় পতিত হবার শংকা শতভাগ দুর করে দিয়েছেন এই দেশপ্রমিক প্রিয়া সাহা।এখন শতভাগ প্রমাণিত অপরাধের বিচারও করা যাবেনা এই পরিবারের কোন সদস্যের।আশা করি আপনাকে আর বুঝিয়ে বলতে হবেনা।

ধন্যবাদ,চাদঁগাজী।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৯:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



রোহিংগারা পালিয়ে আসার আগে, বার্মায় কারো সহানুভুতি পেয়েছিলো, কারো কাছে নালিশ করতে পেরেছিলো?

২৩| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৮:৫৩

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: যেহেতু, আওয়ামী লীগ বিপক্ষে চলে গিয়েছে সেহেতু ধরে নেয়া যাচ্ছে প্রিয়া সাহা আর দেশে ফেরত আসবেন না বা আসতে দেয়া হবে না (সিনহা স্টাইল)...

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৯:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


কিছু হিন্দু চলে গেছে একটু ভালো থাকার আশায়, কিছু হিন্দু চলে গেছে ভয়ে; জামাত-বিএনপি-হেফাজত থেকে আওয়ামী লীগকে একটু কম ভয় করে হিন্দুরা; এই দেশ থেকে ভয়ে যারা চলে গেছে, তারা কি কারো কাছে নালিশ করতে পেরেছিলো, এই রকম কেহ ছিলো ওদের জন্য?

২৪| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ২:২২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: প্রিয়া সাহা WHO ? আমেরিকা কি বাংলাদেশে আক্রমণ করে দিবে প্রিয়া সাহার কথায় ? ভাং খেয়ে গালী দেওয়ার কারণে নাম হয়েছে বাঙ্গালী তার প্রমাণ দিন দিন বাড়িতেছে।

প্রিয়া সাহা WHO ? - চিনিনা। সময় নাই।।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে ছিলো প্রতিটি হিন্দু; ১৯৭১ সালে, তারা সব হারায়েছে পাকিস্তান বাহিনীর হাতে; এরপর ওরা বাংগালীদের ভয়ে পালিয়ে গেছে একাংশ, এটার বিপক্ষে নালিশ করার দরকার ছিলো।

২৫| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৭

গড়ল বলেছেন: প্রিয়া সাহা মিথ্যা বলেছে এটা ডাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস নিশ্চিত করেছে, অতএব মিথ্যা বলা বা মিথ্যা বলে স্বার্থ হাসিলের অভিপ্রায়ের অভিযোগ আমেরিকা সরকার আনবে কিনা বা তাকে ডিপোর্ট করবে কিনা। আমেরিকার আইন কি বলে।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


এখন বার্মায়, আর মাত্র ২ লাখ রোহিংগা আছে, ১১ লাখ বাংলাদেশে, ২ লাখ পাকিস্তানে, বাকী ১ লাখ সৌদী, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও অন্যান্য যায়গায়! যেই ১১ লাখ বাংলাদেশে আছে, তারা প্রতিদিন বার্মাতে তাদের মানুষের হত্যা কাহিনী, বাড়ী পোড়ার কাহিনী, মেয়েদের ধর্ষনের কাহিনী বলছে, নালিশ করছে; কিন্তু বার্মার সুচীর কাছে, বা ট্রাম্পের কাছে নালিশের সুযোগ পায়নি।

২৬| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৭

তারেক ফাহিম বলেছেন: দেবতার সাক্ষাত পেয়ে আবেগের ঠেলায় একটু বেশি বকে দিয়েছেন উনি।

দেশে ফিরলেও আমরা অনলাইনে গেউ গেউ করা ছাড়া কিছুই করতে পারুম না।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:২৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেশে একটা ভুল সংস্হা আছে, উহার নাম: হিন্দু- বৌদ্ধ-খৃষ্টান কি একটা, উহাতে 'মুসলিম' না থাকাতে, ইহা মোটামুটি 'দেশ-বিরোধী' সংস্হায় পরিণত হয়েছে। যাক, ওরা যদি শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে, অনুমতি নিতে পারে, তা'হলে এই সাহা আসতে পারে; অন্যথায়, উহা আমেরিকায় থাকবে, কিংবা ভারতে যাবে।

২৭| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
বাংলাদেশ সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলোর অন্যায়ের বিপক্ষে নালিশ করার যায়গা বাংলাদেশে নেই; জামাত-বিএনপি-হেফাজতের ভয়ের বিপক্ষে নালিশ করার যায়গা নেই; ভারতের মুসলমানেরা বিজেপির ভয়ে আছেন, কিন্তু নালিশের যায়গা নেই; নালিশ করা সঠিক হয়েছে; তবে, উনিও প্রশ্নফাঁস জেনারেশনের লোক মনে হয়, নালিশটাতে ভুল আছে।

আপাতত কোন ভোর নেই।
আছে কৃষ্ণগহ্বর ঘোর;
দলা দলা মাংসপিণ্ড আর কালশিটে জমা
জঠর ধূসর!

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


কবিতা ঠিক আছে; দেশ আমাদের, বিশ্বে আমাদের একটা প্রোফাইল আছে, আমাদের ভালোমন্দ নিজদেরই দেখতে হবে, নিজের দোষ কমিয়ে আনতে হবে।

২৮| ২৬ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৯:৫৪

জমীরউদ্দীন মোল্লা বলেছেন: আমি ব্লগার রাজীব নুর ভাইয়ের সাথে কিছুটা একমত। আবেগে বলে ফেলেছে হয়ত। কিন্তু এটা স্পষ্ট যে কিছু একটা উদ্দেশ্য ছিল। আর হ্যাঁ আমাদের দেশের মানুষ বা রাজনীতিবিদেরা যে রিয়াকশন করেছে, মনে হয় প্রিয়া সাহ ও এটাই চেয়েছিল তাতে পলিটিক্যাল অ্যাসাইলাম পেতে সুবিধা হবে।
নালিশের ব্যাপারটা বলছেন, আমার কাছে মনে হয় না প্রিয়া সাহ এখানে সংখ্যালঘুর স্বার্থ দেখছে। সে বড়জোর নিজের স্বার্থ দেখতে পারে। দুনিয়াতে সংখালঘূর নালিশ কেউ শুনে না আর সেটা যদি হয় আম্রিকা। হাহাহা
আম্রিকা ওদের লাভ ছাড়া ১ মিলিমিটার ও আগাবে না। তো এ নালিশ অরেন্যে রোদন ছাড়া কিছুই না।

২৬ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:৫০

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই নালিশটা আমাদের প্রেসিডেন্টের কাছে করা যেতো?

২৯| ২৬ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১০

জমীরউদ্দীন মোল্লা বলেছেন: আমার তো মনে হয় গত ৪৮ বছরের মধ্যে এখন ই সময় নালিশ বা যা করতে চায় সেসব করার। আর দুনিয়ার সব প্রান্তেই সংখ্যালঘু নির্যাতিত তাদের নালিশ শুনার টাইম নাই কারো। আম্রিকার স্বার্থ থাকলে নালিশ লাগবে না এম্নেই চলে আসতো।

২৭ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৪:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেশের প্রেসিডেন্ট যদি জাতির এসব বিষয়েগুলো নিয়ে মানুষের সাথে কথা বলতেন, মানুষের নালিশ শুনতেন, সমস্যা হালকা হয়ে আসতো।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.