নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

বাংগালীরা \'দেশ প্রেমিক\', তা শতভাগ প্রমাণিত হয়েছে

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:২৪



"প্রিয়া সাহা টেষ্টে" বাংগালীরা সফলতার সাথে উর্তীণ হয়েছেন; প্রিয়া সাহা পুরো বাংগালী জাতির বিপক্ষে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে নালিশ করেছে, জাতি একযোগে বলেছেন, "অভিযোগ মিথ্যা", দেশ প্রেমের পরীক্ষায় জাতি উত্তীর্ণ হয়েছেন! জাতীর পক্ষে, মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন যে, উনার বিপক্ষে ব্যবস্হা নেয়া হবে; স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলেছেন; সাহার বাড়ীর সামনে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে, ফেইসবুকে আগুন ধরেছে, ব্লগ উত্তপ্ত হয়েছে, সংবাদ পত্রের বিক্রয় বেড়েছে, টেলিভিশনে দেশ প্রেমিক বাংগালীরা সাহাকে কিভাবে শুলে চড়ানো হবে, সেটা নিয়ে কথা বলছেন!

১৯৭১ সালে, বাংগালী মুসলমানদের সবাই স্বাধীনতার পক্ষে ছিলো না, একাংশ বৃহত্তর পাকিস্তানের পক্ষে ছিলো; প্রতিটি হিন্দু মানুষ বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে ছিলো; মুক্তিযুদ্ধের সময়, গ্রাম ঘেরাও করে, প্রথমে হিন্দুদের খোঁজা হতো: পুরুষদের লুংগি খুলে নুনু দেখা হতো, কলেমা পড়তে বলা হতো; তারা সব হারায়েছে পাকিস্তান বাহিনীর হাতে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর, গত ৪৮ বছরে ওদের একাংশ বাংগালীদের ভয়ে পালিয়ে গেছে, এটার বিপক্ষে নালিশ করার দরকার ছিলো।

২০১৭ সালে রোহিংগারা প্রাণ বাঁচাতে যখন বাংলাদেশে ঢুকছিল, আমরা সবাই তা সমর্থন করেছিলাম; এখনো রোহিংগাদের নিয়ে ব্লগে গড়ে প্রতিদিন ১টা করে পোষ্ট আসে; প্রতিটি পোষ্ট বার্মা জাতির বিপক্ষে নালিশ। যেই ১১/১২ লাখ রোহিংগা বাংলাদেশে আছে, তারা প্রত্যেকে, প্রতিদিন মগের মুল্লুকের বিপক্ষে নালিশ করছে; আমরা এই নালিশের পক্ষে, নাকি বিপক্ষে? যাক, আমরা যেই পক্ষে থাকি না কেন, মগের মুল্লুকের লোকেরা বলছে, "রোহিংগাদের অভিযোগ মিথ্যা"!

রোহিংগারা যখন পালাচ্ছিলো, আমরা বার্মার গণতন্ত্রের মানসকন্যা সু চী'কে গালি দিচ্ছিলাম, কেন উনি কিছু করছেন না? বার্মার সরকার ফেলে, আমরা কেন সু চী'কে গালি দিচ্ছিলাম? কারণ, আমাদের কাছে মনে হয়েছে যে, মগের মুল্লুকে রোহিংগারা এই ভয়ংকর অন্যায়ের বিপক্ষে একমাত্র সু চী'র কাছে নালিশ করতে পারে, এবং সু চী'র কিছু একটা করা উচিত। যাক, সু চী'র কাছে নালিশ করা হয়নি, বা নালিশ করলেও উহাতে কাজ হয়নি!

বাংলাদেশ হওয়ার সময়, যারা বৃহত্তর পাকিস্তানের পক্ষে ছিলো, তাদের কাছে ১৯৭১ সালে হিন্দুদের ভুমিকা কি ধরণের ছিলো? বাংলাদেশ হওয়ার পর, বাংলাদেশ বিরোধীরা ক্ষমতায় ছিলো কিনা? থাকলে, তারা হিন্দুদের কোন চোখে দেখেছে? কোন চোখে দেখেছে, সেটার কিছুটা দৃশ্য আপনারা ২০০১ সালের ভোটের পর দেখেছেন। ২০০১ সালের দল, ও সেসব মানুষ এখনো আছে কিনা? হিন্দুরা ওদেরকে আজও ভয় পায়; কিন্তু নালিশের যায়গা নেই।

একটা ভালো দিক হচ্ছে, ওবায়দুল কাদের প্রিয়া সাহার বিপক্ষে চলে যাওয়ায়, মির্জা ফখরুল ও জামাত অবশ্যই প্রিয়া সাহার পক্ষে চলে গেছে; মির্জা ফখরুল মুখ খুললে, সাহার জন্য ভালোবাসার নহর বইবে; জামাত হয়তো ফুল কিনে এয়ারপোর্টে অপেক্ষা করছে!

ইরান, আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশে থেকে অন্য ধর্মীরা চলে গেছে, মুসলমানেরাও চলে যাচ্ছে! এই নিয়ে নালিশ করার মতো যায়গা নেই। ঢাকা শহরে ও চট্টগ্রাম শহরে হাজার হাজার মানুষের জমি জোর করে, কম দামে কিনে নিয়েছে বসুন্ধরা, আফতাব গ্রুপ ও হাজার হাজার ভুমি দস্যুরা, এদের বিপক্ষে নালিশ করা সম্ভব হয় নাই! দেশের নাগরিক যদি আক্রান্ত হয়, নালিশ করার মতো একটা যায়গা থাকার দরকার। ঢাকা, চট্টগ্রামে জমি হারানোর পর, যারা কোর্টে গেছে, তারা হয় পরাজিত হয়েছে, কিংবা আগামী ২০/৩০ বছর পর, কোর্টের রায় পাবে; এগুলোকে নালিশ বলা মুশকিল!

ভয়ে দেশ ছাড়ার আগে হিন্দুদের জন্য নালিশের একটা যায়গা থাকার দরকার ছিল; রোহিংগাদের জন্য একটা যায়গা থাকার দরকার ছিলো। আপনারা দেশ প্রেমের পরীক্ষায় উত্তর লেখার আগে, প্রশ্নপত্রটা পড়ে দেখবেন।

মন্তব্য ৪৪ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৪৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৩০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: কি যন্ত্রনা! দেশে শত সহস্র সমস্যা তার সমাধান নাই, মাঝে বিপত্তি আপনি পর পর দুইটি পোষ্ট দিয়ে দিয়েছেন!
প্রিয়া সাহা কে? বাড়ী কোথায়? কি তার পরিচয়?

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



আজকে বরিবার, আমার করার তেমন কিছু নেই; দুপুরে দাওয়াত আছে; তাই খই ভাজছি। ওবায়দুল কাদের ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যখন প্রিয়া সাহার নাম নিয়েছেন, উহা একটা ইস্যু হয়ে গেছে, এবং মির্জা ফখরুলও কিছু বলবেন।

২| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: বাংলাদেশে দুই কোটি সংখ্যালঘুর মধ্যে তিন কোটি ৭০ লাখের কোনো খোঁজ মিলছে না।
একেকজনকে কয়বার করে গুম করা হয়েছে সেই অংক কষার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে পাগলা ট্রাম্পকে।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:



টেলিভিশন, ব্লগ, ফেইসবুকে "গুম" শব্দটা চালু থাকায়, মহিলা "গুম" শব্দটাই মনে রাখতে পেরেছেন, হেড অফিসে যায়গা কম।

১৯৪৭ সালে ২ কোটী ছিলো না, বেশী ছিলো; এখন ১ কোটী ৫০ লাখের মতো আছেন, ১৯৭২ সালে এর থেকে বেশী ছিলো।

৩| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
টেলিভিশন, ব্লগ, ফেইসবুকে "গুম" শব্দটা চালু থাকায়, মহিলা "গুম" শব্দটাই মনে রাখতে পেরেছেন, হেড অফিসে যায়গা কম।
১৯৪৭ সালে ২ কোটী ছিলো না, বেশী ছিলো; এখন ১ কোটী ৫০ লাখের মতো আছেন, ১৯৭২ সালে এর থেকে বেশী ছিলো।

ঠিক বলেছেন।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


রোহিংগা তাড়ালে আমরা রাখাইনদের বিপক্ষে ফেইসবুকে মিসাইল ছাড়ি, গরুর গোশত খাওয়ার কারণে বিজেপি মুসলিম হত্যা করলে, আমরা দেশ গরম করি; আমাদের ভয়ে মানুষ দেশ ছাড়লে, তা আমাদের চোখে পড়ে না।

৪| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
রোহিংগা তাড়ালে আমরা রাখাইনদের বিপক্ষে ফেইসবুকে মিসাইল ছাড়ি, গরুর গোশত খাওয়ার কারণে বিজেপি মুসলিম হত্যা করলে, আমরা দেশ গরম করি; আমাদের ভয়ে মানুষ দেশ ছাড়লে, তা আমাদের চোখে পড়ে না।

রোহিংগারা আমাদের অনেক উপকার করেছে। তাদের জন্য আজ আমাদের বহিবিশ্বে আমাদের সম্মান অনেক বেড়েছে। এবং ৭১ ভারত আমাদের বর্ডার খুলে দিয়েছিল। আমাদের লোকজন জানে বেঁচে গিয়েছিল।
আমি মনে করি, জনসংখ্যা অভিশাপ নয়, আশীর্বাদ। আমাদের ব্যাড লাক আমরা এই বিপুল জনসংখ্যা কাজে লাগাতে পারছি না।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


গরীবের ৯ বছরের মেয়ে যদি সেক্রটারীর বাসায় চাকরাণী হয়; আর সেক্রটারীর ২৬ বছরের সুন্দরী বউ দিনের ১২ টা অবধি ঘুমায়, উহা দেশ নয়, ইহা আফ্রিকা।

৫| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আসলেই জবাবদিহীতার একট জায়গা অন্তত থাকা উচিৎ। যেখানে গেলে অনিয়ম অত্যাচারে একটা বিহীত করা সম্ভব হয় ।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


জেনারেল জিয়া, জেনারেল এরশাদ, বেগম জিয়া, শেখ হাসিনার সাথে মানুষ কোন বিষয় নিয়ে আলাপ করতে পারেনি, নালিশ করতে পারেনি।

৬| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৭

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বাংলাদেশে জবাবদিহিতা নেই। ন্যায়বিচার নেই। দুর্নীতি আছে, ক্ষমতার অপব্যবহার আছে।
প্রিয়া সাহা ভুল তথ্য দেওয়ায় নালিশ গুরুত্বহীন হয়ে গেছে।
তবে বাংলাদেশে যে প্রচুর সংখ্যালঘু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে সেটা বিশ্ব জানতে পেরেছে।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিশ্বের জানার দরকার আছে, বাংগালীরা মুসলমান রিফিউজীদের (রোহিংগা ও ঘটি) বেলায় মহামানব; অন্য ধর্মাবলম্বীদের বেলায় মহামানব নয়।

৭| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩৭

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বাঙ্গালি মুসলিমদের বড় অংশই আধুনিক শিক্ষাদীক্ষায় পিছিয়ে। রোহিঙা আশ্রয় দেওয়ার ফলাফল অনুধাবন করার ক্ষমতা তাদের ছিলো না বলেই আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

আশ্রয় দেওয়া পক্ষে যারা ছিলো সরকার যদি সারাসরি তাদের প্রত্যেকের ঘাড়ে (পরিবারে) একজন করে রোহিঙা বসিয়ে দিতো; তাহলে শিক্ষা হয়ে যেতো।

সংখ্যালঘু নির্যাতনের ঘটনাগুলো সমাধান মুসলিমরা ঘটাচ্ছে না, যারা ঘটাচ্ছে তারা প্রভাবশালী। ক্ষমতাধর। এদের সংখ্যা খুব সামান্য।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


হিন্দুদের থেকে জেনে নেন, ওরা জামাত ও হেফাজতকে ভয়ংকরভাবে ভয় করে; বিএনপি'কেও ভয় করে, আওয়ামী লীগকে বিশ্বাস করে না।

৮| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: ধর্মের কল বাতাসে নড়ে।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


বার্মা থেকে শুধুমাত্র হিন্দু রিফিউজি আসলে, ওদেরকে ঢুকতে দেয়া হতো না, মনে হয়।

৯| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সেই জন্যই তো ধর্মের কল বাতাসে নড়েছে।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংগালীরা খাঁটি মুসলমান, মুসলমানদের পক্ষে আছেন, দেশ প্রেমিক; অন্য ধর্মের বেলায় নীরব সাক্ষী

১০| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
গরীবের ৯ বছরের মেয়ে যদি সেক্রটারীর বাসায় চাকরাণী হয়; আর সেক্রটারীর ২৬ বছরের সুন্দরী বউ দিনের ১২ টা অবধি ঘুমায়, উহা দেশ নয়, ইহা আফ্রিকা।

দুই একজনকে দিয়ে সবাইকে বিচার করা ঠিক নয়।

২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


স্বাধীনতার পর থেকে আজ অবধি ২ থেকে আড়াই কোটী মেয়ে চাকরাণী ও ঝি'তে পরিণত হয়েছে; এটা দুই একজন নয়।

১১| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৫২

আপেক্ষিক মানুষ বলেছেন: ১৯৭১ সালে, প্রতিটি বাঙ্গালী মুসলমান স্বাধীনতার পক্ষে ছিলনা এটা মানতে পারছি না।

প্রিয়া সাহা তার ইউটিউব চ্যানেলে বলেছেন দেশভাগ অর্থাৎ ১৯৪৭ সালে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু ছিল ২৯% আর এখন আছে ৯% এতে প্রমান হয় বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন হচ্ছে-এতে আপনার মতামত কি?

২২ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ২:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:



যেসব মুসলমানেরা বাংলাদেশ চাহেনী ও বাংলাদেশের বিপক্ষে যু্দ্ধ করেছে: মুসলিম লীগ, জামাত, নেজামে ইসলামসহ সব ইসলামী দল পাকীদের সাথে ছিল, সব মাদ্রাসা মুক্তিযু্দ্ধের বিপক্ষে ছিলো; ১লাখ ২০ হাজার মুক্তিযোদ্ধার বিপতিতে ৫৫ রাকাজার ও শান্তিবাহিনীতে ছিলো আরো ৫০ হাজার।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ২:৫৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


হিন্দুরা ভয়ে চলে গেছে; এখনো ওরা জামাত, হেফাজত ও বিএনপি'কে ভয় করে চলে।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৫:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


"১৯৭১ সালে, প্রতিটি বাঙ্গালী মুসলমান স্বাধীনতার পক্ষে ছিলনা "

-এখানে আমি বলতে চেয়েছি যে, "মুসলমানদের মাঝে সবাই" স্বাধীনতার পক্ষে ছিলনা; সাড়ে ৭ কোটীর মাঝে ৬ কোটীর কাছাকাছি স্বাধীনতার পক্ষে ছিলো।

১২| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৫২

খোলা মনের কথা বলেছেন: ইনিয়ে বিনিয়ে প্রিয়া সাহার পক্ষে সাফাই গাইলেন আর বিএনপির পিছনে আঙ্গুল দিলেন।
হিন্দুরা দেশ ছাড়ে দুটি কারনে, ১ম তাদের রিলিজন ফোবিয়া আছে ২য় তাদের র্তীর্থ স্থানের প্রতি অগাত ভালবাসা।
আশেপাশের রাষ্ট্রর তুলনায় আমাদের দেশে সাম্প্রদায়িকতা নেই বললেই চলে.. একই পরিবারে ভাইয়ে ভাইয়ে মারামারি হয়। তার থেকে বরং বাংলাদেশের হিন্দু মুসলিম খ্রিষ্টান বৌদ্ধ সাম্প্রদায়িকতা নেই বললেই চলে। কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া সাম্প্রদায়িকতা বাংলাদেশে তেমন দেখা যায় না.....

২২ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ২:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি প্রিয়া সাহার নালিশকে সাপোর্ট করি; আপনাকে যদি র‌্যাব ধরে, তখন বুঝবেন ঠেলা; সাহায্য চাওয়ার মতো কাউকে পাবেন না। আপনাকেও হিন্দুরা নিশ্চয় ভয় করে।

১৩| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০১

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আমাদের প্রধানমন্ত্রী প্রিয়া সাহার উপর কোন মামলা না করতে বলেছেন।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ২:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভালো করেছেন, উনি মানুষের যে অধিকার আছে, সেটা বুঝার শুরু করেছেন।

১৪| ২১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:৫৯

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: প্রিয়া সাহা বানোয়াট অভিযোগ করে হিন্দু সম্প্রদায়কে বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছেন।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৩:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনার তথ্যে ভুল আছে, আমাদের এলাকাগুলো হিন্দু প্রধান ছিলো, ওখানে এখন ২/৪টা পরিবার আছে।

১৫| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ ভোর ৬:৩১

বলেছেন: ওবায়দুল কাদের প্রিয়া সাহার জন্য আইনমন্ত্রীকে বলেছেন কেউ জেনো কোন ক্ষতি না করে -- আপনি বললেন বিপক্ষে!! কোনটা বিশ্বাস করি!!!

২২ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৭:০৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



প্রথমে, ওবায়দুল কাদের বলেছিলো যে, প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্হা নেয়া হবে; ওবায়দুল কাদের শেখ হাসিনার আগেই বলে ফেলেছেন। পরে, শেখ হাসিনা বলেছেন যে, ব্যাপার পরিস্কার না হওয়া অবধি কোন আইনী ব্যবস্হা না নিতে; এখন, ওবায়দুল কাদের নেত্রীর সুরে বলছেন; এই হলো ওবায়দুল কাদেরের বেকুবীর খেসারত!

১৬| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৮:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
স্বাধীনতার পর থেকে আজ অবধি ২ থেকে আড়াই কোটী মেয়ে চাকরাণী ও ঝি'তে পরিণত হয়েছে; এটা দুই একজন নয়।

কিন্তু আমাদের দেশটা তো দরিদ্র। এরকম হওয়াটাই তো স্বাভাবিক।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেশ কখনো দরিদ্র থাকে না; দেশের টাকা কিছু সংখ্যক মানুষ ডাকাতি করে নিয়ে যায়।

১৭| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৩৩

Nemo বলেছেন: হা হা ! জাতিগত ভাবে আমরা আসলে denial syndrome আক্রান্ত। এবছরই, মানে ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি আলজাজিরা চ্যানেলের নিয়মিত অনুষ্ঠান “হেড টু হেড” যা মেহেদি হাসান নামের এক ভদ্রলোক উপস্থাপনা করেন; সেখানে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে গওর রিজভীকে আমন্ত্রন জানানো হয়েছিলো। সে অনুষ্ঠানটা আপনারা দেখেছেন? যারা দেখেছেন তারা দেখেছেন, কিভাবে এই ভদ্রলোকের (গওর রিজভীর) মুখ বন্ধ হয়ে ফ্যাকাশে রং ধারন করেছে।

view this link

এই ব্লগেও যে denial syndrome আক্রান্ত গওর রিজভীর অভাব নেই তার ছোট্ট একটা উদাহরণ দেখাই।

১। দেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হওয়াটা বা সংবিধানের শুরুতে বিসমিল্লাহ জুড়ে দেয়াটা কি সাম্প্রাদায়িক বলে ব্লগের সব ব্লগার মনে করেন ?

২। এই ধরণের কাজ ভিন্ন ভাবাদর্শের বা মতাদর্শের ব্যক্তিকে আদতে কী বার্তা দেয় ?

এই প্রশ্নের উত্তরে বেশি ভাগ ব্লগারই গওর রিজভীতে পরিণত হবেন।


২২ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:


গওহর রিজভীরা নিজ পরিবার চালানোর মতো কোন কাজ জানে না, দক্ষ নন; এরা কি করে একটি দেশ চালাতে পারে?

১৮| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:০৫

রুদ্র আতিক বলেছেন: সুযোগ পেলে সবাই বাঁশ দেয়, আপনিও দিলেন ইচ্ছে মতো ! এই ব্যাপারখানা আপনার ব্যক্তিগত আর পরিপ্রেক্ষিতে মন্তব্য করাটা আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার । সে যাই হোক, মিথ্যা দশ পিঁপড়াই হোক আর হাজার পিঁপড়াই হোক, মিথ্যে তো মিথ্যেই । অনেক জায়গাতেই ৪৭ থেকে ৭০/৭১ এর পরিসংখ্যান টানা হচ্ছে, অথচ ঐ সময়টাতে বাংলাদেশের জন্মই হয় নি । আর আপনার এই কথার সাথে আমি একমত যে, প্রতিটা মানুষেরই বৃহত্তর রাষ্ট্রীয় অভিযোগ কেন্দ্র থাকা দরকার ।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:১১

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি ছোট একটা রোহিংগা মেয়ের কষ্ট, কিংবা ছোট একটা হিন্দু মেয়ের ভয়কে অনুধাবন করতে পারছেন না; সেজন্য বালছাল কবিতা লেখেন।

১৯| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:০১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: আমাদের সমাজে বর্তমানে ক্রান্তিকাল যাচ্চে?

কিন্তু প্রিয়া সাহার নালিশটা কি যুক্তিযুক্ত?

২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


র‌্যাব আপানার পাছায় হুক লাগিয়ে ঝুলায়ে রাখলেও কোথায়ও নালিশ করতে পারবেন না; প্রিয়া সাহা একটি বিষয়ে নালিশ করার সুযোগ পেয়েছিলো করেছে। ইরান, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশে থেকে বিধর্মীরা পালিয়ে গেছে।

মক্কা মদীনায় অন্য ধর্মীদের যেতে দেয় না।

বার্মা থেকে রোহিংগাদের তাড়ায়ে দিয়েছে; ওরা বার্মার প্রেসিডেন্ট, কিংবা সু'চীর কাছে নালিশ করার সুযোগ পায়নি।

২০| ২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:১৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: বাংগলির দেশ প্রেমের শিকড় সন্ধান জরুরী , এর বিবিধ প্রকারের স্বরূপটিও জানা দরকার । সেই প্রাগৈতিহাসিক যুগ হতে শুরু করে হালনাগাদ পর্যন্ত বাংগালির ইতিহাস সর্টকাট করে লিখলেও হয়ত তা হাজার পৃষ্টা ছাড়িয়ে যেতে পারে । সর্টকাট করলেও তা পাঠে অনেকের ধৈর্য থাকবে বলে মনে হয়না । লিখব না কি, খুবই পরিশ্রমী কাজ । লোকজনের তা পড়ার ইচ্ছা থাকলে শরু করা কাজটি এগিয়ে নিতে পারি ।

২২ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


লিখুন, ব্লগারেরা নিজেদের দেশপ্রেমের স্কেলটা থেকে মরিচা সরানোর সুযোগ পাবেন।

২১| ২৪ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:৫১

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: ১৯৪৭ থেকে ১৯৭১ এর মধ্যে যারা দেশ ত্যাগ করেছিল তাদের জন্য বাংলাদেশ সরকার বা রাষ্ট্র দায়ী থাকতে পারে না। ১৯৭১ এর পর যারা গিয়েছে তারা বেশীর ভাগই গিয়েছে ব্যক্তিগত কারণে। রাষ্ট্র বা সরকার কাউকে খেদায়নি...

২৪ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


হিন্দুরা জামাত-হেফাজত ধরণের লোকদের ভয়ে আছে পাকিস্তানী আমল থেকে; ২০০১ সাল থেকে তারা বিএনপি'কে ভয় পাবার শুরু করেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.