নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

ম্যারাডোনার জন্য কেহই বেহেশত চাচ্ছেেন না আল্লাহের কাছে!

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২১



আজকের এই মহুর্তে, বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় মানুষ হচ্ছেন, দিয়েগো ম্যারাডোনা; আমি নিজেও উনার খেলার ভক্ত; উনার অকাল মৃত্যুতে মনটা খারাপ হয়েছে। উনার মৃত্যু সংবাদ আমি অনেকটা সাথে সাথেই পেয়েছি; উনার মৃত্যুর প্রায় ১২ ঘন্টা পরে আমার স্ত্রী ফেইসবুক থেকে জেনে আমাকে জানালো; সে জানে, আমি নিশ্চয় জেনে গেছি; আমাকে জানানোর কারণ ছিলো, বাংলাদেশে ম্যারাডোনার জনপ্রিয়তার কথা জানানোর জন্য। ব্লগেও বেশ কয়েকটি পোষ্ট এসেছে, আরো আসবে।

আমি স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলাম, ফেসবুকে লেখকেরা উনার জন্য দোয়া করেছেন কিনা, উনার জন্য আল্লাহের কাছে বেহেশত চেয়েছেন কিনা! না, কোন লেখকই বেহেশত চাননি।

ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবর পাবার পর, আমি অলাইনে গিয়ে উনার ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে করা ২য় গোলটির ভিডিও দেখলাম কয়েকবার; আর করার মতো তেমন কিছু নেই। ব্লগে ম্যারাডোনাকে নিয়ে যেই কয়টি পোষ্ট এসেছে সেগুলো পড়লাম, মাত্র ৩ টিতে মন্তব্য করেছি, একটাতে লেখার মান ভালো দেখে, অন্যটা ২টি পোষ্টের লেখার নীচু মানের জন্য।

যেই বিষয়টা আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে, সেটা হলো দোয়ার অভাব, বেহেশত চেয়ে দোয়ার অভাব; ব্লগে কারো মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ হলে, প্রায় সবাই আল্লাহের কাছে মৃতের জন্য বেহেশত চেয়ে দোয়া করেন; কিন্তু ম্যারাডোনার বেলায় সবাই কৃপণ হয়ে গেলেন, এখনো একজনও উনার জন্য বেহেশত চাইলেন না, চাইতে তো অসুবিধা থাকার কথা নয়; চাইলে, আল্লাহ দিতে পারেন, কিংবা না'ও দিতে পারেন; কিন্তু চাওয়ার জন্য নিশ্চয় ভৎসনা করবেন না।

বাংলাদেশে উনার এত ভক্ত, কিন্তু কেহই আল্লাহের কাছে ফ্রি বেহেশতটুকু চাইলো না! এসব ভক্তদের মনে থেকে লাভ কি?

মন্তব্য ৩৬ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (৩৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৮:২৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




হে পরম করুণাময়, হে ইশ্বর, হে মহান সৃষ্টিকর্তা, হে বিচার দিনের মালিক আপনি বাংলাদেশের প্রাণপ্রিয় ম্যারাডোনাকে বেহেস্ত নসীব দান করুন। আমেন।।

বাংলাদেশের মানুষ কোটি কোটি মিটার কাপড় নষ্ট করেছেন আর্জেটিনা ব্রাজিলের পতাকায়। আশা করি ম্যারাডোনার জন্য বেহেস্ত চাওয়াটা অন্যায় হবার কথা না। আল্লাহ সবাইকে ক্ষমা করুন।


২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:



চাওয়াটাই বড় কথা; উনার বাংলাদেশী ভক্তরা কৃপণতায় ভুগছে।

২| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৪৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ধর্মান্ধ ভয়ঙ্কর বিষয়। এটি অন্ধকার কাল গহ্বরে নিয়ে চলে যায় - মানুষকে, পরিবারকে, সমাজকে এমনকি আস্ত দেশকে। আধুনিক ধর্ম মানুষকে শিখিয়েছে ভিন্ন ধর্মের কারোর প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করা যাবে না। যারা ম্যারাডোনার জন্য সামান্য আহা উহু করেছেন তাদের বেহেস্তের টিকেট ক্যানসেল হয়ে যেতে পারে।

আমি বিশ্বাস করি মানুষ মানুষকে ভালোবাসবে তাহলেই সৃষ্টিকর্তা সেই মানুষকে ভালোবাসবেন। ঘৃণা হিংসা কামড়া কামড়ি থেকে সিনেমা মুভিতে ভালোবাসা হতে পারে - ঈশ্বরের কাছে না। তিনি ভালোবেসে সমগ্র মানবজাতিকে সৃষ্টি করেছেন।

যাইহোক, ম্যারাডোনা আমারও প্রিয় ব্যক্তি। যার কারণে বাংলাদেশের মানুষ সম্ভবত টেলিভিশনে ফুটবল খেলা দেখা শিখেছেন। আপনি আছেন কেমন? কোনোদিন যদি করোনা প্রকোপ শেষ হয় আর দেশে আসেন অথবা আমি প্রবাসে যাই আশা করি দেখা হবে।


২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



বাংগালীদের মন-মানস অল্পতেই ধরা খেয়ে যায়। করোনাটা যাক, অবশ্যই দেখা হবে।

৩| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৩৩

রাবেয়া রাহীম বলেছেন: ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:



ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:

হে পরম করুণাময়, হে ইশ্বর, হে মহান সৃষ্টিকর্তা, হে বিচার দিনের মালিক আপনি বাংলাদেশের প্রাণপ্রিয় ম্যারাডোনাকে বেহেস্ত নসীব দান করুন। আমেন।।

বাংলাদেশের মানুষ কোটি কোটি মিটার কাপড় নষ্ট করেছেন আর্জেটিনা ব্রাজিলের পতাকায়। আশা করি ম্যারাডোনার জন্য বেহেস্ত চাওয়াটা অন্যায় হবার কথা না। আল্লাহ সবাইকে ক্ষমা করুন।


আল্লাহ সবাইকে ক্ষমা করুন।

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভালো, মৃত্যুর পর তিনি যেন ভালো থাকতে পারেন।

৪| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৩৭

রাবেয়া রাহীম বলেছেন: যার ধর্ম বিশ্বাস যেমন তার প্রতি তেমন দোয়া করা হয় এটাই নিয়ম । বাংলাদেশের মানুষের ধর্ম ইসলাম। আর ম্যারাডনা ইসলাম ধর্মের অনুসারী ছিলেন না তাই তার বেহেশতের প্রয়োজন নেই।

যদি সে ধর্ম বিশ্বাস করে থাকে তবে তার ঈশ্বর তাকে পরলউকিক মুক্তি দিন।

সবাই যে তার কর্মের উপর খুশি থেকে তাকে গুড বাই জানাচ্ছে এটাই বা কম কি !

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



খৃষ্টানেরাও বেহেশতে বিশ্বাস করেন।

৫| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪৫

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: ইহুদি,খৃষ্টান ব্লগে নেই বললেই চলে ,প্রাই সবাই মুসলমান।আর মুসলমানরা ভাল করেই জানে ১৪০০ বছর আগে গড আর জিহ্বাকে বনবাসে পাঠিয়ে বেহেস্তের দায়িত্ব নিয়ে নিয়েছেন আল্লাহ ।এই ইহুদি খৃষ্টান দের জন্য দোয়া করে নিজের বেহেস্তে যাবার পথটা না আবার বন্ধ হয়ে যায়।
যারা বেহেস্ত দোজক বিশ্বাস করে না তাদের দোয়া করার প্রশ্নই আসে না।

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:



ইহুদীরা সাময়িক বেহেশতে বিশ্বাস করে, খৃষ্টানেরা মুসলমানদের মতো বেহেশতে বিশ্বাস করে; ফলে, সবার জন্য চাওয়া যেতে পারে; এটা একটা সদিচ্ছা মাত্র।

৬| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:


আমি চাইলেই কি আল্লাহ তাঁর সিদ্ধান্ত বদলাবেন?

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১০:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



উনি যদি বেহেশতের মালিক হয়ে থাকেন, হয়তো বিবেচনায় নিতে পারেন!

৭| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:০১

বঙ্গদুলাল বলেছেন: ম্যারাডোনার চেয়ে বেশি জনপ্রিয় কেউ আমার জীবদ্দশায় পরপারে পাড়ি জমাননি।মানুষ এতো জনপ্রিয় হয় কী করে!

জুডাইজম,ক্রিস্টিয়ানিজম,ইসলাম মৌলিক বিশ্বাসে সব এক হওয়ার কথা;হয়নি,হবেওনা! পুরান দুঃখ।
আমি ছোটবেলা থেকে উনার নাম শুনে শুনে বড় হয়েছি।স্মার্টফোন হাতে আসার পর প্রায় সব খেলা দেখেছি (যেসব রেকর্ড করা আছে)।মানব জীবন এতো ছোট,এতো রহস্যময় যে! শুধু ভাবতে গেলে এরকম কয়েক জীবন কাটিয়ে দেয়া যাবে।পৃথিবীতে কত হাজার বছর আগে থেকে মানুষের পদার্পণ, এর আগে কী ছিল পৃথিবীর অবস্থা (সেটা কত কোটি বছর!)।আরও কত হাজার বছর এভাবে কেটে যাবে,অথচ আমরা কেউই থাকবো না।
স্রষ্টা চাইলে অনেক কিছুই পারেন। উনি মহান ;মানুষের অন্তরের খবর জানেন।(জন্ম,মৃত্যু, সৃষ্টিরহস্য হয়তো মানবের পক্ষে উদঘাটন কখনোই সম্ভব হবে না।)

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:২০

চাঁদগাজী বলেছেন:



স্রস্টা কি কি পারেন, বুঝা মুশকিল হয়ে গেছে, ইয়েমেনের বাচ্চারা সামান্য দুধ ও পানি পাচ্ছে না; কিন্তু স্রটা সবাইকে বেহেশতে সবচেয়ে ভালো খাবার দেবেন ফ্রি।

৮| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:১৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




বঙ্গদুলাল ভাই ম্যারাডোনার মতোই জনপ্রিয় আরেকজন আমাদের সামনে গত হয়েছেন তিনি আর কেউ নন সবার প্রিয়
সমগ্র পৃথিবীর গানের সম্রাট মাইকেল জ্যাকসন

রাবেয়া রাহীম আপা, আমাকে স্মরণ করেছেন, আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।

চাঁদগাজী ভাই, ম্যারাডোনা দুঃখি মানুষ ছিলেন নয়তো ড্রাগকে আপন করে নিতেন না। সামহোয়্যারইন ব্লগের ব্লগারগণ, একটি কথা মনে রাখবেন যার আপন কেউ নেই তার আপন ড্রাগ। ম্যারাডোনার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

সবাইকে ধন্যবাদ।

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



ম্যারাডোনার জীবনটা কষ্টকর ছিলো।

৯| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: ভালো একটা পয়েন্ট ধরেছেন।

অবশ্য ম্যারাডোনা আমাদের দেশের মানুষ। যদিও এই বিষয়টা পেলে এবং আমি জানি শুধু।

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৪৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



দেখলাম, আপনি গোপন তথ্যটা আউট করে দিয়েছেন। ব্লগারদের কেহ পরলোকগমন করলে, ব্লগের সবাই বেহেশের জন্য দোয়া করেন, আজকে ম্যারাডোনার বেলায় চুপ!

১০| ২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৪৮

বঙ্গদুলাল বলেছেন: ইয়েমেনে আরব বসন্ত হবে, আলী আবদুল্লাহ সালেহরা বিদায় নেবে।বাচ্চারা কষ্ট পাবে, মানুষ প্রতিবাদ করবে।নতুন সমস্যা আসবে...এভাবেই চলছিলো পৃথিবী এবং এভাবেই চলবে হয়তো।ইসলাম,বাইবেল মতে -যখন ফেরেস্তারা খোদাকে প্রশ্ন করছিল (যখন উনি মানব সৃষ্টির ব্যাপারে পরামর্শ করেছিলেন তাদের সাথে)"আপনি কি এমণ প্রতিনিধি বানাতে চান, যারা পৃথিবীতে হানাহানি করবে"?(কারণ ইতিপূর্বে তারা জ্বীনদের কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করেছিল)স্রষ্টা বলেন "আমি যা জানি, তোমরা তা জাননা"।
এবং এখনও আমরা তা-ই জানতে পারছি না, বুঝছি না হয়তো।
আবার ফেরেস্তা জ্বীন, এসব কী বস্তু বলবেন নাহ,হা হা হা। (অদৃশ্য স্রষ্টা সত্য হলে, ধর্ম সত্য হলে উনার পক্ষে এসব সৃষ্টি জাস্ট নাথিং এলস।

২৬ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



এখন সৃষ্টিকর্তা কিছু করছেন বলে মনে হচ্ছে না, মৃত্যুর পর, মনে হয়, উনি সবকিছু করবেন।

১১| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১২:০৫

বঙ্গদুলাল বলেছেন: উইথ অল ডিউ রেস্পেক্ট, ব্লগার জনাব ঠাকুর মাহমুদ, মাইকেল জ্যাকসন অবশ্যই অনেক উঁচু স্টেজের এবং বিশাল জায়গা দখল করে আছেন মানুষের হৃদয়ে এবং অনেক বেশি মিস করার মতো পারসোনালিটি ;কিন্তু উনাকে সবাই বুঝতে পারবেন নাহ মনে হয়(যেহেতু ইংরেজিই সবাই বুঝেন নাহ পৃথিবীর প্রায় সব মানুষ ;অন্তত বাংলাদেশ, চীন ইত্যাদি দেশে),পক্ষান্তরে ফুটবল প্রায় সবাই বুঝেন(অন্ততঃ ৯৫% করে মানুষ পৃথিবীর সব দেশে)।আপনাকে ধন্যবাদ।

১২| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১২:৫০

বঙ্গদুলাল বলেছেন: স্রষ্টা কী করছেন তা না বুঝলেও অন্তত অনুভব করার জন্য আমাদেরকে আরও কয়েকজন আইনস্টাইনের অপেক্ষা করতে হবে মনে হয়।'সময়'কী?সব গ্রহে সময়ের হিসাব পৃথিবীর মতো কি না!আমরা লাখো কোটি ইত্যাদি বছর পৃথিবীতে বসে হিসাব করার চেষ্টা করছি,কোয়ান্টাম ফিজিক্স ভিন্ন কিছু বলে কি না এসব আরও উদঘাটন করা লাগবে হয়তো।তৃতীয় বিশ্বের দরিদ্র মানুষ হিসেবে আমার এসব কতটুকু বলা,ভাবা উচিত তাও বিরাট প্রশ্ন!(পরিবার, সমাজ আমাদের যে রকম চায়/চাচ্ছেন আজকাল!)

২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



নবী (স: ) যখন জীবিত ছিলেন, বেদুইনরা আল্লাহকে কিভাবে বুঝেছিলেন? বেদুইনদের কোন বিষয়ে কোন ধারণা ছিলো বলে কি মনে হয়?

১৩| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১:১০

spanked বলেছেন: এহন ম্যারাডোনা যদি পুরাপুরি ঈসা আঃ আনিত ধর্মে বিশ্বাস করত বা ঐ টা পালন করে থাকে তাইলে বেহেশত হুর সব ই পাইতে পারে! কে কি পাইব মরার পর ই জানবে। আপনি, আমি কি পামু জানি? যদি পায় আপনার কি ক্ষতি আর না পাইলে কার ক্ষতি? পুরা মানব জাতি ই তো ক্ষতির মধ্যে আছে ক্ষতি পুষিয়ে উঠার আগেই দুয়ারে আজরাঈল খাড়া! সৃষ্টি করছে যে বিচার করবে সে আপনি আমি কে?

২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১:১৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



এখন রাষ্ট্র সব দুষ্টের বিচার করে ফেলছে, সৃষ্টিকর্তার কাজ কমে যাচ্ছে।

২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:



মানুষ জীবিত অবস্হায় ভালো থাকতে চান; মৃত্যুর পর কোন কিছুর প্রয়োজন হওয়ার কথা নয়।

১৪| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ১:৫৩

বঙ্গদুলাল বলেছেন: সর্বপ্রথম নবি ওহীর কথা বর্ণনা দিয়েছিলেন ওরাকা ইবনে নাওফালের কাছে (একজন খ্রিস্টিয় পন্ডিত, যিনি খদিজার (রা) চাচাতো ভাই,উনিই প্রথম স্বীকৃতি দেন)।কোনোরকম প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাবিহীন একজন মানুষ সাথে নির্ভুল সব সুপার ন্যাচারাল সব ইন্সিডেন্টস (ইসলাম মতে মোজেজা যা সব নবিদের ছিল) এসব কি যথেষ্ট নয়?
উল্লেখ্য, আব্রাহামিক সব ধর্মের বইয়ে পরবর্তী নবিদের বিবরণ ছিল ইসলাম মতে।মুহাম্মদ (স) নবি ইব্রাহিম পুত্র ইসহাকের বংশে না এসে (যার বংশে ইহুদিদের প্রায় সব নবিই ছিল)ইসমাইলের বংশে আসবে শোনার পর থেকে ইহুদিরা মানবে না বলে বলে আসছিলেন আগে থেকে(ইসলাম মতে)।

২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ রাত ৩:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


ইহুদীদের মতে আরেকজনন বী আসার কথা আছে; এখন অবস্হা দেখে বলছে না'ও আসতে পারে। আরবের মানুষ নিজস্ব উপায়ে সমাজকে কন্ট্রোল করেছে; অন্য জাতিগুলো অন্যভাবে জীবন যাপন করেছে একই সময়ে।

১৫| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ ভোর ৪:৪৮

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: @ বঙ্গদুলাল,নওফেল যদি বিশ্বাস করতো,মুহাম্মদ আল্লাহর প্রেরিত নবী, তবে সে মুসলমান হলো না কেন?
২০০ বছর পর আব্বাসিয় খলিফাদের সময়ে লিখত কিচ্ছা কাহিনিতে আছে এইসব গল্প ।

১৬| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ৭:১৫

ঈশ্বরকণা বলেছেন: চাঁদগাজী,
মশাই, আপনার লেখার শিরোনাম দেখেতো আপনার লজিকাল সুস্থ্যতা আর থিয়োলোজিকাল অসুস্থ্যতার কথা ভেবেই পেরেশান হয়ে গেলুম ! ব্লগে কিছু ব্লগার ইসলামের কথা বললেই তারা ওয়াজ করে বলে অহরহ চিৎকার চেঁচামেচি করছেন আপনি। কিন্তু তাদের অতি সাধু কথাবার্তা শুনেওতো আপনার কখনো মুসলিমদের বেহেশতে যাবার ইচ্ছে হয়েছে এহেন কথাতো ব্লগে কখনো বলেননি । এখন তাহলে ম্যারাডোনার জন্য কেউ বেহেশত চাচ্ছে না এই জাতীয় পোস্ট ফাদার কারণ কি ? ম্যারাডোনার মুসলিমদের বেহেশতে যাবার ইচ্ছে করার কোনো কারণ আছে কি ? ধরেন আপনাকে কেউ এস্টোরিয়া/ কুইন্সের বস্তি ছেড়ে এখন সুখে শান্তিতে ভূস্বর্গ পাকিস্তানের কাশ্মীরে থাকতে বললো চিরদিন,আপনার নিশ্চই সে কথা শুনেই বমি বমি বা ডায়রিয়া দেখা দেবে তাই না ? তাহলে মুসলিমদের বেহেশতে ম্যারাডোনারওতো তেমন লাগার কথা ! তার মুসলিমদের বেহেশতে যাবার ইচ্ছে থাকলেতো সে ডানে বায়ে ড্রিবলিং ট্রিপলিং করে দু'পাঁচজনকে (কোকেন ও অন্যান্য ড্রাগ বাদ দিয়েও পড়তে পারেন)কাটিয়ে, ঈশ্বরের হাত' দিয়ে অনৈসলামিক কাজকর্ম ক্লিনআপ করে সহজেই বেহেশতের দরজা খুলে বল নিয়ে ঢুকে যাবার ব্যবস্থা করতে পারতো (হাজার হোক মাইক টাইসনের উদাহরণত ছিলই তার সামনে)। সে নিজে যে বেহেশত চায়নি সেটা তাকে দেবার জন্য ওয়াকওভার দেবার আয়োজন করবার ব্যবস্থা করতে বলছেন কেন অন্যদের ? তার না চাওয়া জিনিস তাকে জোর করে দিতে চাইলে তাকে অপমান করা হয় সেটা একটু ভাবার দরকার ছিল না মশাই? সর্ব কুশলম ।

২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:



ব্লগে ওয়াজীরা হযরত আদম থেকে শুরু করে, আপনাকে অবধি মুসলিম ভাবে; তারা বলেনা যে, মুসলিম জাতির সৃষ্টি হয়েছে নবী মোহাম্মদ (স: ) যুগ থেকে; সব মুসলমানের মৃত্যুর পর ব্লগারারা বেহেশতের জন্য দোয়া করে আসছিলেন এতদিন।

১৭| ২৭ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:০৬

বঙ্গদুলাল বলেছেন: @ব্লগার জনাব নুরুল ইসলা০৬০৪, নাওফাল ওরাকার বাবার নাম...
মুহাম্মদ (স) ওহীর বর্ণনা দিতে গেলে ওরাকা সত্য বার্তাবাহক হিসেবে মেনে নেন এবং বলেন উনি শেষ নবির জন্য অপেক্ষায় ছিলেন(তাওরাত থেকে লব্ধ জ্ঞানে বিশ্বাস করে)উনি পৌত্তলিক ছিলেন না এজন্য নবি ইসলামের বাণী প্রচারের আগে একেশ্বরবাদী ঈসায়ী ছিলেন আপাতত।মুহাম্মদ স এর ওহীর বর্ণনা খাদিজা (রা) উনার কাছে এসেছিলেন এবং স্বীকার করেছিলেন সত্য বাণী বাহক হিসেবে (যেটা ৬১০ খ্রিস্টাব্দে) এবং কিছুদিন পর ৬১০ খ্রিস্টাব্দেই উনি মারা যান (আফসোস করেছিলেন যে তিনি যুবক নন,নবীর সাথে থাকতে পারবেন নাহ,মারা যাবেন ইত্যাদি।)(এটি কিচ্ছা নেয়)
আপনাকে ধন্যবাদ।

১৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ২:৪৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
বেহেশত-দোজখ এগুলোতো রূপকথা আপনি বলেছেন তো এই রূপকথার জিনিস ম্যারাডোনার জন্য কেউ চাচ্ছেনা বলে মায়া কান্নার কি প্রয়োজন পড়লো ?

৩০ শে নভেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:



প্রয়োজন হলো আপনাদের আসল চেহারাকে তুলে ধরা।

১৯| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০২০ বিকাল ৪:৪৮

রাােসল বলেছেন: According to your believe you should not have any headache in this regard. You like worthless debating.

০২ রা ডিসেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:



You do not have any brain; in 7 years, you did not write a post.

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.