নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কলাবাগান১

বাংলাদেশ হোক রাজাকার মুক্ত

কলাবাগান১ › বিস্তারিত পোস্টঃ

যুগান্তকারী চিকিৎসা (CRISPR) আরম্ভ

০৫ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ১০:৩৩


আজ এক যুগান্তকারী চিকিৎসার উদ্ভাবন হল যেটা অনেক জন্মান্ধ লোকজন কে আশার আলো দেখাবে। যদিও এই চিকিৎসা অন্ধ লোকজনকে নিজ চোখে পৃথিবীকে দেখার আশা জাগিয়েছে, এই একই পদ্ধতি ভবিষ্যতে আরো অনেক রোগকেও কিউর করার কাজে ব্যবহার করা হবে। Leber Congenital Amaurosis type 10 (LCA10) রোগে আক্রান্ত লোকেরা জন্মান্ধ। LCA10 নিয়ে জন্ম হওয়া বাচ্চাদের চোখের রেটিনার মাঝে কিছু কোষ (যেটা আলোকে ছবিতে পরিনত করে ব্রেনে পাঠায়) , সেই কোষ গুলির কিছু অংশ মরে যায়...তাই তারা চোখে দেখে না.. ২০০৬ সনে প্রথম দেখা যায় যে CEP290 নামে একটা জিন এর mutation হওয়াতে কোষগুলি উপরের অংশ টা মরে যায়। তার মানে কোন ভাবে যদি CEP290 mutation কে repair করা যায়, তাহলে হয়ত কোষগুলি আবার নরমাল হয়ে উঠবে আর অন্ধ লোক ও চোখে দেখা আরম্ভ করবে। আজকে সেই কাজটাই করা হল কিন্তু রেজাল্ট জানতে আরো কিছু মাস অপেক্ষা করতে হবে। এত সহজ জিনিস কেন এতদিন লাগল???
আপনার একটা কোষে, প্রায় ৩০,০০০ জিন আছে যেগুলি ৩,০০০,০০০,০০০ ডিএনএ ক্যামিক্যাল এর মাঝে বিন্যস্হ। ডিএনএ হল চারটা ক্যামিক্যাল দিয়ে গঠিত আর সংক্ষেপে এদের কে বলা হয় A, T, G, C. তার মানে হল হল এই চার টা ক্যামিকেল ৩ বিলিয়ন বার একটার পর একটা বিভিন্ন সিকোয়েন্সে সাজানো থাকে ডিএনএ এর মাঝে। আর এই তিন বিলিয়ন A, T, G, C এর মাঝে মাত্র একটা জায়গায় A বদলে G হয়ে গেছে (মিউটেশন) আর এই মিউটেশন হওয়াতে CEP290 জিন কাজ করে না ..তাই LCA10 রোগ হচ্ছে...আপনার শরীরে এভারেজে ৪০,০০০,০০০,০০০,০০০ (৪০ ট্রিলিয়ন কোষ) আছে....এমন কোন টেকনোলজি নাই যে প্রতি কোষের ৩,০০০,০০০,০০০ A, T, G, C এর মাঝে খুজে খুজে যে এক জায়গায় A বদলে G হয়েছে সেখানে G বদলে আবার A করা (রিপেয়ার) আর এই কাজটা ৪০ ট্রিলিয়ন এর প্রত্যেক কোষে যেয়ে repair করা।

কিন্তু CRISPR টেকনোলজি আশার আলো দেখাচ্ছে যেহেতু এই টেকনোলজি দ্বারা ৩ বিলিয়ন ডিএনএ যে জায়গায় মিউটেশন টা সেটা কে ডিটেক্ট করা যায় এবং repair ও করা যায়...তায় আশার কথা হচ্ছে যে অন্নান্য রোগ যেগুলি এরকম 'সিম্পল' মিউটেশন এর জন্য হচ্ছে সেটা কে কারেক্ট করার ক্ষেত্র তৈরী হল। আজ প্রথম মানুষের শরীরে (চোখে) এই CRISPR 'ঔষুধ' সরাসরি ইনজেক্ট করা হয়েছে যাতে CEP290 জিনের মিউটেশন টা কে রিপেয়ার করা যায় (নরমাল করা)। বিস্তারিত এখানে
CRISPR

CRISPR দিয়ে মানুষের নানান রোগ কে ভাল করার কাজ হয়েছে তবে সেটা মানুষের শরীরের বাইরে ডিএনএ এডিট করে। তবে আজই প্রথম সরাসরি মানুষের শরীরে CRISPR ইনজেক্ট করা হল (আইন মেনে)।




আবার একই টেকনোলজি দ্বারা নরমাল জিনকে মিউটেশন করা যাচ্ছে, যাতে ওভার এক্টিভ জিনকে নিস্ক্রিয় করা যায়... CRISPR টেকনোলজি এখন অনেক সহজলভ্য তাই প্রায় সকল ল্যাবে যেখানে ডিএনএ নিয়ে কাজ হয়, সেখানে ইউজ হচ্ছে...আর এখন আমরা আমাদের নিজেদের ল্যাবে এটা ইউজ করছি...একটা প্রোটিন আছে যেটা বিভিন্ন ক্যান্সার টিউমারে অনেক বেশী পরিমানে পাওয়া যায়ওভার এক্টিভ), আর এই প্রোটিন টা ক্যান্সার কোষ কে মুভ করতে সাহায্য করে (metastasis)....তাহলে যে জিনটা এই প্রোটিন বানায় তার মাঝে যদি আমরা CRISPR দিয়ে মিউটেশন করে দেই (সকল কোষে), তাহলে ঐ জিনটা টা ও নিস্ক্রিয় হয়ে যাবে আর তাতে সেই প্রোটিন টা আর তৈরী হবে না ------ ফলাফল metastasis টা কমানো যাবে...আর আমরা সেই কাজটাই করছি ....

CRISPR টেকনোলজি যারা আবিস্কার করল, তাদের জন্য আমার সকল শ্রদ্ধা...আশা করছি উনারা আগামি বছরের নোবেল পুরস্কার টা পাবেন।

মন্তব্য ২৯ টি রেটিং +৯/-০

মন্তব্য (২৯) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ১১:৫৭

আমি সাজিদ বলেছেন: এই আবিষ্কার নোবেলের দাবীদার। চিকিৎসা বিজ্ঞানের নতুন ধারার সূচনা হয়ে গেলো।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৭

কলাবাগান১ বলেছেন: চোখের চিকিৎসার জন্য নোবেল পাবে না...নোবেল পাবে যারা CRISPR টেকনোলজি আবিস্কার করে নানা রকম জিন গত রোগ থেকে মুক্তির পথ বাথলিয়ে দিয়েছেন

২| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:০৬

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: অশেষ ধন্যবাদ তবে, সুত্র উল্লেখ থাকলে আরও ভালো হতো ।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৯

কলাবাগান১ বলেছেন: বিস্তারিত এখানে বলে সুত্র তো দেওয়া আছে (লিং)

৩| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:৪৫

একাল-সেকাল বলেছেন:
আল্লাহ্‌ এই গবেষণাকে ফলপ্রসূ করুন, আমিন। যারা এই প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছেন তাদের কেও আল্লাহ্‌ হেফাজত করুন। দোয়া রইল। @কলাবাগান১ কে কৃতজ্ঞতা খবর টা সামনে নিয়ে আসার জন্য।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৩

কলাবাগান১ বলেছেন: CRISPR টেকনোলজি কে যুগান্তকারী বলা হচ্ছে এই জন্যই যে আপনি আপনার বাবা মায়ের থেকে যে জিন (ডিএনএ) পান সেটা নিয়েই আপনি কবরে যান....জিন গত এনি ত্রুটি থাকলে সেটা দিয়ে কোন ডিজিজ হলে সেটা সারিয়ে তোলার কোন উপায় ছিল না...কিন্তু CRISPR টেকনোলজি সেই পথ বাথলিয়ে দিচ্ছে যার দ্বারা জিন গত ত্রুটি কে রিপেয়ার করা যাবে।

৪| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ দুপুর ১:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: গ্রেট।

৫| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০৪

একাল-সেকাল বলেছেন:

CRISPR টেকনোলজি কি শুধুমাত্র (ডিএনএ) এর bad sector repair tool হিসেবে কাজ করবে, নাকি Deoxyribonucleic acid কে ভেঙ্গে নতুন রূপ দিবে।?

০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩১

কলাবাগান১ বলেছেন: শুধু রিপেয়ার না ...জিনকে নিস্ক্রিয় করার কাজেও ব্যবহার হচ্ছে....। ডিএনএ ভেংগে নতুন রূপ দেওয়া যায় না..নতুন রূপে ডিএনএ ফাংশান করবে না। কয়দিন আগে বাচ্চা জন্ম নেওয়ার আগেই তার ডিএনএ চেন্জ করা হয়েছে চীনে একই টেকনোলজি দিয়ে (ডিজাইনার বেবী)..আমার আগের পোস্ট দেখতে পারেন।

৬| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৯

আখেনাটেন বলেছেন: এটি চিকিৎসাবিজ্ঞানে একটি যুগান্তকারী আবিষ্কার। আর এই এক্সপেরিমেন্ট যদি সফলতার মুখ দেখে (মাসখানেক পরেই মনে হয় জানা যাবে) সেটা অভাবনীয় একটি সাফল্য হবে অবশ্যই। তিন-চারদিন হয়ে গেলেও বাংলাদেশের মিডিয়াগুলো এখনও এ নিয়ে কোনো নিউজ করে নি। আপনিই মনে হয় প্রথম এক্ষেত্রে। ধন্যবাদ।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৮:১০

কলাবাগান১ বলেছেন: ধন্যবাদ ...বাংলাদেশের মিডিয়া বোধ হয় এই টেকনোলজির যুগান্তরী এপ্লিকেশন বুজে নাই.. যেটা আগে কখনই সম্ভব ছিল না (মানুষের শরীরে ডিএনএ এডিট করা), এখন ক্রিসপার সেটা কে সম্ভাবনার দিকে এগিয়ে নিচ্ছে....

৭| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৮:১১

জাহিদ হাসান বলেছেন: সুসংবাদ

০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৮:১৩

কলাবাগান১ বলেছেন: উন্নয়নের দেশে করোনা আসবে না বলে মন্তব্য করেছেন...আমরা বাংগালী রা পারি তীর্যক ভাষায় আক্রমন করতে কিন্তু কোন আবিস্কার করতে পারি না....

৮| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৮:৪৩

একাল-সেকাল বলেছেন:
আমরা বাংগালী রা পারি তীর্যক ভাষায় আক্রমন করতে কিন্তু কোন আবিস্কার করতে পারি না....

আমাদের দেশটা বি সি এস নির্ভর দেশ তো তাই !
শত বছর পূর্বের সম্রাটদের বউয়ের নাম মুখস্ত করে দেশ চালায় যারা, তারা আবিস্কার করবে কি ?

০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৯:৪৯

কলাবাগান১ বলেছেন: চাদগাজী বলেছিলেন..."বুয়েটের পাশ করা লোকজন ধর্ম প্রচারে ব্যস্ত আর চীন থেকে ইন্জিনিয়ার এসে পদ্মা সেতু বানাচ্ছে....."
যত সময় ছাত্র/ছাত্রীরা ফেসবুকে সময় দেয়..সেই সময়ে একপাতা কেমেস্ট্রি বুক পড়লেও নলেজ বাড়বে

৯| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৯:৪১

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
CRISPR টেকনোলজি,
নতুন বছরে ভাল সংবাদ।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৯:৫০

কলাবাগান১ বলেছেন: ধন্যবাদ

১০| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ৯:৫৬

একাল-সেকাল বলেছেন:
আমাদের সরকার কেমিস্ট্রির বদলে ফেসবুক তুলে দিয়েছে, দর্শন না শিখে ধর্ষণ শেখাচ্ছে।

০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১০:০৭

কলাবাগান১ বলেছেন: জামাত-বিনপি এর সরকার শিখিয়েছে কিভাবে ধর্মান্ধ হয়ে অন্য ধর্মের লোকজন কে আক্রমন করা যায়..........

১১| ০৫ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১১:১৪

শের শায়রী বলেছেন: টেকনিক্যাল টার্ম গুলো খুব একটা বুজি নি, তবে এইটুকু বুজছি এই প্রযুক্তি অন্ধকে আলো দেখার সুযোগ করে দিতে পারে, এটাই আমার জন্য অনেক কিছু। অথচ দেখুন কোন নিউজ পেপারে এনিয়ে কোন খবর দেখলাম না। ধন্যবাদ আপনাকে খবরটা শেয়ারের জন্য।

০৬ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১:১৩

কলাবাগান১ বলেছেন: বলতে চেয়েছি যে সবাই বাবা মায়ের কাছ থেকে যে ডিএনএ (জিন) পায়, সেটা নিয়েই কবরে যায়.।কখনই চেন্জ করা যেত না (এডিট) কেননা প্রতি কোষে ডিএনএ আছে ৩,০০০,০০০,০০০ টি অনু আর কোষ আছে ৪০,০০০,০০০,০০০ ..এত বড় ক্ষেত্রে যদি সামান্য কয়েকটি ক্রটি থাকে জিনের মাঝে (যেটা বাবা বা মায়ের কাছ থেকে পাওয়া) তাহলে বিরাট কোন অসুখ হতে পারে ক্যান্সার থেকে অন্ধ হওয়া ...এখন ক্রিসপার টেকনোলজি দ্বারা এই ক্রটি গুলিকে সারিয়ে তোলার নতুন যুগে প্রবেশ করল।

মায়ের বা বাবার কোন অসুখ নাই কিন্তু বাচ্চার হতে পারে কেননা সবার মাঝেই দুইটা করে জিন থেকে (একটা বাবার থেকে আরেকটা মায়ের থেকে)...দুটার মাঝে একটা ভাল (নরমাল) হলেই কোন রোগ হবে না যদি ও আরেক টা ক্রটি পূর্ণ থাকে....আর সেই ক্রটি পূর্ণ কপি টা যদি বাচ্চার মাঝে যায় একটা বাবা থেকে আরেক টা মায়ের থেকে তখন দুটা জিনই ক্রটি পূর্ণ হয় তখন বাচ্চার মাঝে সেই রোগ দেখা যায়...আর CRISPR technology দিয়ে সেই ক্রটি পূর্ণ কপি দুইটাকে ই নরমাল করার পথ আবিস্কার হল।

১২| ০৬ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ১১:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: ''গ্রেট'' লিখে কি ভুল করেছি?

০৬ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১০:৩৮

কলাবাগান১ বলেছেন: আপনি আমার অনুরোধ শর্তে ও আমার কমেন্ট মুছেন নাই

১৩| ০৭ ই মার্চ, ২০২০ রাত ২:৩০

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
গুরুত্বপুর্ণ তথ্য সমৃদ্ধ পোষ্ট । সরাসরি প্রিয়তে গেল ।
মুল্যবান এই পোষ্টটির সুত্র ধরে বিষয়টি নিয়ে গুগল অন্তরজালে থাকা
প্রাসঙ্গিক লিটারেচার গুলি দীর্ঘক্ষন লাগিয়ে পাঠ করেছি আর বিস্ময়াভিভুত হয়েছি। জানা গেল
It could revolutionize everything from medicine to agriculture
আমার জানার পরিধি এতই ক্ষিন যে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু লেখা আমার সাধ্যের
অনেক বাইরে । তাই আপনার কাছে অনুরোধ রেখে গেলাম বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত ভাবে
অরো কিছু লিখে এই পোষ্টের সাথে যুক্ত করে আমার মত সাধারণ পাঠকদের জানার পরিধিকে
সমৃদ্ধ করার জন্য ।

শুভেচ্ছা রইল

০৭ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ১০:২৯

কলাবাগান১ বলেছেন: এই টেকোলজি পুরা পৃথিবীর চিকিৎসা/কৃষি ব্যবস্হা কে চেন্জ করে দিবে....এখন প্রথম জেনেরেশান এর CRISPR এর বেশী পাওয়ারফুলএডভান্সড CRISPR ডেভেলপ করেছে হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেরী ইয়াং সাইন্টিস্ট ডেভিড লিউ (Dr. David Liu)।
উনি প্রথমে ডেভেলপ করেন base editing. Now the most advanced CRISPR technique is called Prime Editing......More is here

CRISPR-Base Editing-Prime Editing


আমি খুব লাকী যে এই CRISPR নিয়ে পুরা সেমিস্টার জুড়ে একটা কোর্স পড়াই Graduate Student দের...তাই এই টেকনোলজিই এখন আমার প্রধান কাজ...কিন্তূ সময়ের অভাবে বিস্তারিত লিখতে পারছি না।

নীচের ছবিতে যে লাল ক্যান্সার কোষ গুলি দেখা যাচ্ছে, সেখানে আমরা একটা জিন কে এডিট করেছি CRISPR দিয়ে...এখন কাজ হচ্ছে লাল কোষ গুলি কে সাদা কোষ গুলি থেকে আলাদা করা (ড্রাগ দিয়ে আলাদা করা হবে),,,, উদ্দেশ্য হল এই কোষ গুলির মাইগ্রেশন বন্ধ করা....


১৪| ০৭ ই মার্চ, ২০২০ ভোর ৫:২১

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:





The Guardian UK
CRISPR


CRISPR Benchmark Report (PDF ডাউনলোড)
CRISPR


VOX NEWS REPORT
CRISPR

ধন্যবাদ কলাবাগান১ ভাই, এ ব্যাপারে কিছুই জানতাম না। অবস্য আমার জেনে কোনো কাজ নেই। তারপরও আপনার থেকে জেনে, বিস্তারিত আরো নেট থেকে জানার চেষ্টা করেছি। লিংকগুলো ব্লগারদের জন্য দিয়ে দিলাম।

০৭ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ১০:৩২

কলাবাগান১ বলেছেন: ধন্যবাদ ঠাকুরমাহমুদ ভাই..আশা করি পাঠক রা লিং গুলি থেকে অনেক কিছু জানতে পারবেন..

১৫| ১৪ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ৮:৩৬

এলিয়ানা সিম্পসন বলেছেন: Racist BS

১৭ ই মার্চ, ২০২০ সকাল ৭:১৫

কলাবাগান১ বলেছেন: পড়েছি...

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.