নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

পুষে রাখে যেমন ঝিনুক খোলসের আবরনে মুক্তোর সুখ, তেমনি তোমার নিবিড় ছোঁয়া ভিতরের এই বন্দরে

কথার ফুলঝুরি!

ও আমার চাঁদের আলো, আজ ফাগুনের সন্ধ্যাকালে ধরা দিয়েছ যে আমার পাতায় পাতায় ডালে ডালে॥

কথার ফুলঝুরি! › বিস্তারিত পোস্টঃ

ঈদুল আযহা উপলক্ষে আমার সহব্লগার বন্ধুদের জন্য ঈদ উপহার (৬ টি গরুর মাংসের রেসিপি) :-B

১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৪



এসে গিয়েছে কোরবানির ঈদ। গরু আর খাসীর মাংস খেতে যারা পছন্দ করেন বেশী তারা নিশ্চয় ঈদের খুশী আর সাথে মাংস খাওয়ার খুশীতে ডাবল খুশী :#) তবে যারা রাধতে পছন্দ করেন তারা নিশ্চয় এই কোরবানির ঈদের ছুটিতে বাসায় দু একটা মাংসের আইটেম রান্না করতে চেষ্টা করবেন। এরই মধ্যে হয়তো টিভিতে দেখানো, ম্যাগাজিনে বা পেপারে ছাপা হওয়া কিংবা পরিচিত কারও কাছে থেকে শুনে বিভিন্ন ধরনের রেসিপি মনে মনে ভেবেও রেখেছেন যে সেটি রান্না করবেন।

ব্যক্তিগত জীবনে যদিও আমি নিজে রান্না করে আমার পছন্দের মানুষগুলোকে খাওয়াতে পছন্দ করি :P তবে আপাতত আমার ব্লগার বন্ধুদের জন্য তা করতে পারছিনা বিধায় সামুতে আমার রন্ধন ও ভোজন প্রিয় সাথে গরুর মাংস খেতে পছন্দ করা সহব্লগারদের জন্য নিয়ে আসলাম কয়েকটা মাংসের আইটেম :P

১. মুগডালের বিরিয়ানি

বিরিয়ানির সাধারন রেসিপি তো অনেক আছে তাই মুগডালের বিরিয়ানি নিয়ে আসলাম কিছুটা নতুন স্বাদ পাবার জন্য। আমি নিজে বিরিয়ানি খেতে খুব পছন্দ করি, ব্লগে আমার বিরিয়ানি খেতে পছন্দ করা সহব্লগাররা কই দেখি :P

উপকরণ : গরুর মাংস দুই কেজি, পোলাওর চাল এক কেজি, মুগডাল আধা কেজি, ঘি এক কাপ, পেঁয়াজ বাটা দুই টেবিল-চামচ, আদা বাটা দুই টেবিল-চামচ, রসুন বাটা এক টেবিল-চামচ, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, দারুচিনি সাত-আট টুকরা, এলাচ ছয়-সাতটি, গরম মসলার গুঁড়া আধা চা-চামচ, কাঁচা মরিচ ৮-১০টি, লবণ স্বাদমতো, চিনি আধা টেবিল-চামচ, তেজপাতা চার-পাঁচটি ও টকদই পৌনে এক কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : মাংস টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে তাতে টকদই মাখিয়ে ২৫-৩০ মিনিট রাখতে হবে। তেল গরম করে কিছু দারুচিনি ও এলাচের ফোড়ন দিয়ে তাতে আধা কাপ পেঁয়াজ কুচি ভাজতে হবে। পেঁয়াজ বাদামি রং হলে পেঁয়াজ বাটা ও অর্ধেকটা আদা ও রসুন বাটা দিয়ে মাংস কষাতে হবে। পরিমাণমতো পানি দিয়ে মাংস সিদ্ধ করতে হবে। ঝোল শুকিয়ে এলে গরম মসলার গুঁড়া দিয়ে চুলা থেকে নামাতে হবে। মুগডাল ভেজে, ধুয়ে, গরম পানি দিয়ে এমনভাবে সিদ্ধ করতে হবে, যাতে ডাল গলে না যায়। চাল ধুয়ে পানি ঝরাতে হবে। ঘি গরম করে বাকি পেঁয়াজ কুচি বাদামি রং করে ভেজে তাতে অবশিষ্ট বাটা মসলা ও গরম মসলা দিয়ে কষিয়ে চাল ভাজতে হবে। চাল ভাজা হলে গরম পানি দিতে হবে। ফুটে উঠলে লবণ ও ডাল দিতে হবে। পানি কমে এলে চিনি দিতে হবে।

পোলাওর পানি শুকিয়ে গেলে হাঁড়ি থেকে কিছুটা পোলাও উঠিয়ে কিছু মাংস ও কাঁচা মরিচ দিয়ে আবার পোলাও দিয়ে ওপরে মাংস ও কাঁচা মরিচ ছিটিয়ে এভাবে তিন স্তরে সাজিয়ে দমে দিতে হবে। মুগডালের বিরিয়ানি কাবাব ও সালাদের সঙ্গে পরিবেশন করা যায়।



২. অল্প মশলায় গার্লিক বিফ

যারা অল্প মশলায় গরুর মাংস রান্না খেতে ভালোবাসেন তারা গার্লিক বিফ রাঁধতে পারেন। পোলাও কিংবা ফ্রাইড রাইসের সঙ্গে খুব ভালো লাগবে খেতে আশা করি :-B

উপকরণ :
গরুর মাংস ১ কেজি
পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
আদা ও রসুন বাটা ১/২ চা চামচ
রসুনের আস্ত কোয়া ১০/১২ টি
লাল এবং সবুজ ক্যাপসিকাম
লাল এবং সবুজ মরিচ ১০/১২টি
চিনি ১/৪ চামচ
অলিভ অয়েল
টমেটো সস ৪ টেবিল চামচ
টক দই ১ কাপ
গরম মসলা গুঁড়া ১/২ চা চামচ
লবণ স্বাদ মতো।

প্রস্তুত প্রণালী :
• মাংস ধুয়ে ছোট টুকরা করে কেটে নিন।
• মাংস একটি পাত্রে নিয়ে টক দই, আদা বাটা, রসুন বাটা, লবণ, চিনি, গরম মসলা গুঁড়া ভালো করে মিশিয়ে ১ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে।
• কড়াইতে অলিভ অয়েল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেঁজে নিন।
• আস্ত রসুন ভেজে নিন।
• মাংস দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করুন।
• সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে দিন।
• মাংস সেদ্ধ হয়ে গেলে লাল এবং সবুজ মরিচ এবং টমেটো সস দিয়ে নেড়ে দিন।
• ঝোল শুকিয়ে একদম মাখা মাখা হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলুন।



৩. ঝুরা মাংস

ঝুরা মাংস আমার খুব পছন্দ। পরোটা দিয়ে খেতে খুবই ভালো লাগে । এমনিতেও রান্না মাংস ৪-৫ দিন একটু একটু করে আঁচ দিলে ঝুরা হয় তারপরেও ঝুরা মাংসের রেসিপি নিয়ে আসলাম কিছুটা নতুনত্ব যদি আনা যায় সেই আশায় :D

উপকরণ : গরুর মাস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি দেড় কাপ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, গোলমরিচ বাটা ১ চা-চামচ, জিরা বাটা ১ চা-চামচ, ধনে বাটা ১ চা-চামচ, বাদাম বাটা আধা চা-চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, সরষে বাটা আধা চা-চামচ, এলাচি-দারুচিনি-লবঙ্গ কয়েকটা, তেজপাতা ৩-৪টা, তেল ১ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা-চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : তেলে আধা কাপ পেঁয়াজ কুচি বাদামি করে ভেজে সব মসলা কষিয়ে মাংস দিয়ে দিতে হবে। আন্দাজমতো পানি দিয়ে মাংস সেদ্ধ করে নিতে হবে। মাংসের পানি শুকিয়ে গেলে নামিয়ে নিতে হবে। এবার মাংস নেড়েচেড়ে ঝুরা করে নিতে হবে। অল্প তেলে ১ কাপ পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে ঝুরা মাংস দিয়ে নাড়তে হবে। ভাজা ভাজা হয়ে গেলে গরম মসলা ও গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে।



৪. আচারি মাংস

পোলাও কিংবা বিরিয়ানির সাথে আচারি মাংসটা অনেক ভালো লাগে। এমনিতে আমি পোলাও বলতে অজ্ঞান তাঁর উপর এর সাথে আচারি মাংস নিলে এক প্লেট বেশী খেয়ে ফেলি । আমি চাই আমার পোলাও পছন্দ করা ব্লগার বন্ধুরাও আমার মত আচারি মাংসের সাথে বেশী বেশী পোলাও খাক :-B

উপকরণ : গরুর মাংস ১ কেজি, আম অথবা জলপাইয়ের ঝাল আচার ৩ টেবিল-চামচ, পাঁচফোড়ন আধা চা-চামচ, পেঁয়াজকুচি ১ কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, জিরাবাটা ১ চা-চামচ, সরিষাবাটা ১ টেবিল-চামচ, মরিচগুঁড়া ১ টেবিল-চামচ, হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, দারুচিনি ২ টুকরা, এলাচ ২টি, তেজপাতা ১টি, সরিষার তেল আধা কাপ, চিনি ১ চা-চামচ, কাঁচা মরিচ ৮-১০টি।

প্রস্তুত প্রণালি : মাংস টুকরা করে ধুয়ে আচার ও কিছু কাঁচা মরিচ বাদে সব উপকরণ মেখে নিতে হবে। তেল গরম করে পাঁচফোড়নের ফোড়ন দিতে হবে। তাতে মাখানো মাংস ও পরিমাণমতো পানি দিয়ে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে গেলে আচার ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে নামাতে হবে।



৫. মাংসের শুঁটকি

গরুর মাংসও শুটকির মত সংরক্ষণ করা যায় অনেকদিন । খেতেও মন্দ না :#)

উপকরণ : গরুর মাংসের শুঁটকি ২ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন কুচি আধা কাপ, এলাচ ৪টি, দারুচিনি ৪ টুকরা, তেজপাতা ২টি, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচগুঁড়া ২ চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা ১ চা চামচ, তেল আধা কাপ, লবণ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে গরুর মাংসের শুঁটকি ভালোভাবে সিদ্ধ করে পাটায় ছেঁচে নিন। কড়াইতে তেল দিয়ে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা, পেঁয়াজ কুচি, রসুন কুচি দিন। পেঁয়াজ ও রসুন নরম হয়ে এলে সামান্য পানি ও মসলা দিয়ে কষান। এরপর মাংস দিয়ে খানিকটা পানি দিন। মাংস হয়ে তেল ওপরে উঠে এলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।



৬. চাপলি কাবাব

এতো কিছু খাওয়া হবে আর কাবাব খাওয়া হবেনা তা কি করে হয় । অফিসের পাশে নতুন একটি রেস্তোরা হয়েছে আমিতো সেই রেস্তোরার কাবাবের প্রেমে পড়ে গিয়েছি :P ঈদেও খেতে চাই কাবাব । আমার কোন ব্লগার বন্ধুর কাবাব পছন্দ না আমি জানতে চাই :)

উপকরণ : ৭০০ গ্রাম গরুর মাংসের কিমা, ৩ টি ডিম (বিট করা), ২ টি বড় পেয়াজকুচি, আধাকাপ ধনিয়া পাতা কুচি, ১ টেবিল চামচ রসুনবাটা, ১ চা চামচ আদাবাটা, ২ টেবিল চামচ তেল, ১-২ টি টমেটো কুচি, ২-১ চা চামচ লবন, ১ চা চামচ মরিচ গুড়ো, আধা চা চামচ গরম মসলা, ১ চা চামচ জিরা গুড়া, সিকি চামচ বেকিং পাউডার, ১ চা চামচ চালের গুড়ো।

প্রস্তুত প্রণালী : ডিম বাদে সব উপকরণ ভালোভাবে মাংসের কিমার সাথে মাখিয়ে ফেলুন। শেষে বিট করা ডিম ও মশলা সমৃদ্ধ কিমা মাখিয়ে নরম একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এবার হাতের তালুতে নিয়ে গোল চ্যাপ্টা করে তেলেভাজুন। পরিবেশনের আগে লেবুর রস ছিটিয়ে পরিবেশন করুন। সাথে দিতে পারেন চাটনি ।



সবগুলো রেসিপি Chuijhal.com থেকে নেওয়া। অনেকগুলো রেসিপি থেকে আমার পছন্দের ৬ টি রেসিপি নিয়ে এলাম আমার সহব্লগার বন্ধুদের জন্য। একটি রেসিপিও কিন্তু আমি রান্না করে খেয়ে দেখিনি তবে আশা করি আমার সিলেকশন খারাপ হয়নি 8-| কেউ যদি সত্যিই চেষ্টা করেন রাধতে আমার মনে হয় হতাশ হতে হবেনা আর যদি কেউ হতাশ হয় তাহলে আমি নিজেই না হয় একদিন তাঁকে রান্না করে খাওয়ালাম :P তখন হতাশ হবেনা কেউ তা গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি B-)

সবাইকে অগ্রিম ঈদ মোবারক !:#P







মন্তব্য ৪৬ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৪৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫৫

শায়মা বলেছেন: খুবই সব ভালো ভালো মজাদার রেসিপি ! :)

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১০:৩৩

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @খুবই সব ভালো ভালো মজাদার রেসিপি-- হা, শায়মা আপু :-B গরুর মাংস বলে কথা :-B

২| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫৮

স্রাঞ্জি সে বলেছেন:


এত এত মজার রেসিপি =p~

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১০:৩৫

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @এত এত মজার রেসিপি - হা ভাইয়া, তাও আবার গরুর মাংস :-B কখন যে খাওয়া হবে :((

৩| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আমার গরু ভালো লাগেনা।আমি খাসির মাংসের রেসিপিও নয়। খাসির মাংসের হোমমেড খাবার চাই। হি হি হি

ঈদ মুবারক।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১০:৪৯

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @খাসির মাংসের হোমমেড খাবার চাই--- ওকে প্রিয় পদাতিক ভাই আমার, এখানে যখন আসবেন অবশ্যই জানাবেন । আমি আমার প্রিয় বড় ভাইটাকে খাসীর মাংস রান্না করে খাওয়াবো :P আমার চৌধুরি ভাই বলে কথা :D B-)

৪| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৩

লায়নহার্ট বলেছেন: {মানবতা আজ কোথায়! কোন অভুক্ত মানুষ এখানে এলে হার্টফেল করবে!}

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:০৭

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @{মানবতা আজ কোথায়! --- হাহাহা =p~ মানবতা ঈদের ছুটিতে গিয়েছে =p~



@কোন অভুক্ত মানুষ এখানে এলে হার্টফেল করবে
-- আর সবাই হার্টফেল করলেও লায়নহার্ট ভাই করবেনা আমি নিশ্চিত :#) সিংহের হার্ট বলে কথা, এত সহজে কি ফেল করে ;)

৫| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৭

নাজিম সৌরভ বলেছেন: এইটা কি হল?
রেসিপি দিয়া সহব্লগারদের প্রতি দায়িত্ব শেষ?
অইবো না কইয়া দিলাম।

ঈদের পরদিন আমি কথা আপুর বাসায় হাজির হমু। ছয় আইটেমের গোস্ত লাগব আমার! ;)

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:১৬

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @রেসিপি দিয়া সহব্লগারদের প্রতি দায়িত্ব শেষ? -- এর চেয়ে বেশীকিছু আপাতত করতে পারছিনা বিধায় দুঃখিত সৌরভ ভাই :((


@ঈদের পরদিন আমি কথা আপুর বাসায় হাজির হমু। ছয় আইটেমের গোস্ত লাগব আমার-- অবশ্যই অবশ্যই । তবে তার জন্য কিন্তু শর্ত প্রযোজ্য :P ;)

লেখার শেষে কিন্তু বলে দিয়েছি :P যদি কেউ এখানকার কোন রেসিপি রান্না করে খেয়ে হতাশ হয় তাহলে আমি তাকে নিজেই রান্না করে খাওয়াবো ;)

৬| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: রান্নাবান্নায় মন বসে না খেতেই ভালোবাসি,


দারুণ পোস্ট উপযুক্ত সময়ে,
অনেক আপুর কাজে লাগবে এবারের ঈদে তা বুঝতে পারছি, কেউ কেউ হয়তো শুরু করেই দিয়েছে, অচিরেই ব্লগে সবাই জানতে পারবো ইনশাআল্লাহ

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:২৬

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @রান্নাবান্নায় মন বসে না খেতেই ভালোবাসি--- কোন সমস্যা নেই নয়ন ভাই ;) রান্না করতে ভালোবাসে এমন একজন ঘরণী নিয়ে আসবেন , তখন তিনি মজার মজার আইটে্ম রান্না করবেন আর আপনি বসে বসে শুধু খাবেন :#)


@দারুণ পোস্ট উপযুক্ত সময়ে,
অনেক আপুর কাজে লাগবে এবারের ঈদে তা বুঝতে পারছি
-- শুধু আপু্রা কেন, রন্ধন প্রিয়
ভাইয়াদে্রও কাজে আসবে আশা রাখি B-)

৭| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১২

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: এসব রেসিপি তোমরা আপু সমাজ মুখস্ত করো। আমরা হনু দাওয়াত খাওয়া পার্টি। রান্নাবাড়া করে ইনভাইট করো..;)




পুনশ্চঃ
বাসায় এসেছি। মাজাভাঙ্গা নেটওয়ার্কের জন্য স্পেশাল প্যাকেজ ব্যবহার করতে হচ্ছে। এখন থেকে পোস্ট পড়বো, দু-একটা লাইকও দিব, তবে টাইপ করে মন্তব্য নয়। (পকেটের টাকা খরচ করে, হাতের আঙুল ব্যাথা করে, সামুর লেখকদের মন্তব্য করতে পারবো না।) :P

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৩৬

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @এসব রেসিপি তোমরা আপু সমাজ মুখস্ত করো। আমরা হনু দাওয়াত খাওয়া পার্টি। রান্নাবাড়া করে ইনভাইট করো..---
অবশ্যই অবশ্যই প্রিয় কাজিন B-) তবে এই ঈদে আমার রান্না খাওয়ার জন্য তো শর্ত প্রযোজ্য :P লেখার শেষে কিন্তু বলে দিয়েছি :P যদি কেউ এখানকার কোন রেসিপি রান্না করে খেয়ে হতাশ হয় তাহলে আমি তাকে নিজেই রান্না করে খাওয়াবো :P


@বাসায় এসেছি। মাজাভাঙ্গা নেটওয়ার্কের জন্য স্পেশাল প্যাকেজ ব্যবহার করতে হচ্ছে। এখন থেকে পোস্ট পড়বো, দু-একটা লাইকও দিব, তবে টাইপ করে মন্তব্য নয়
-- কে যেন বলেছিল ঈদে ব্লগে থাকতে X(( যদি সে মন্তব্য না করবে তবে কেন বলেছিল শুনি X(( X((

@পকেটের টাকা খরচ করে, হাতের আঙুল ব্যাথা করে, সামুর লেখকদের মন্তব্য করতে পারবো না।) :P আর কিছু বললাম না থাক /:)

৮| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৮

রসায়ন বলেছেন: বিরানীর একটাও দিতেন । ষোলকলা পূর্ন হতো B-)

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৪০

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @বিরানীর একটাও দিতেন । ষোলকলা পূর্ন হতো-- ওরে রসায়ন ভাই, পোলাও আর বিরিয়ানি প্রেমি আমি বিরিয়ানির রেসিপি না দিয়ে কি পারি :D ১ নং এ সবার প্রথমেই যে বিরিয়ানির রেসিপি :P

৯| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫২

ভ্রমরের ডানা বলেছেন:




গরুর মাংস বেশি খাওয়া স্বাস্থ্যকর নয়! এই গরমে উহা যতকম খাওয়া যায় ততই ভাল!

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৪৬

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @গরুর মাংস বেশি খাওয়া স্বাস্থ্যকর নয়! এই গরমে উহা যতকম খাওয়া যায় ততই ভাল- ঠিক বলেছেন ভ্রমরের ডানা ভাই :P তবে কোরবানি আর গরুর মাংস বলে কথা । যত গরম হোক, খেতেই হবে :#) আগে পে্ট আর মন ভরে খাবো তারপর বাকী কথা =p~

১০| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:০৪

সাহাদাত উদরাজী বলেছেন: দারুন।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৪৯

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @দারুন।--- আসলেই দারুন খেতে গরুর মাংস :D

১১| ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:২৮

অচেনা হৃদি বলেছেন: কথা আপুর এই পোস্ট এমন টাইমে আমি দেখলাম যখন খিদেয় পেট চোঁ চোঁ করছে, এদিকে আজ আমাদের রাতের খাবার রান্না হতেও দেরি আছে! :(
কি অদ্ভুত টাইমিং! এখন আমার কি করা উচিৎ? :((

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:২১

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @কথা আপুর এই পোস্ট এমন টাইমে আমি দেখলাম যখন খিদেয় পেট চোঁ চোঁ করছে, এদিকে আজ আমাদের রাতের খাবার রান্না হতেও দেরি আছে-- এই বেচারি হৃদি আপুটার রাতে্র বে্লা শেষ পর্যন্ত কখন খাবার জুটেছিল তা জানা নেই তবে পরিস্থিতি টা খুবই শোচনীয় :(( আমার কিন্তু আপু, ক্ষুধা ছাড়াও খাবার দেখলেই খেতে ইচ্ছে করে :(( তার উপর গরুর মাংস :((

১২| ২০ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ২:০৫

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



আপুনি,
চমৎকার কিছু রেসিপি!!!! বিশেষ করে আচারি মাংস; মাংসের সুটকী আর চাপলি কাবাব!!!
আমার প্রিয় একটি রেসিপি যুক্ত করলাম........

গরুর মাংসের কালো ভুনা বা কালা ভুনা দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। এর স্বাদ খুবই চমৎকার। দেখতে কালো হয় বলে এর নাম কালো ভুনা। বাংলাদেশের অনেক রেস্টুরেন্টেই কালো ভুনা পাওয়া যায়। এটা তৈরিতে অনেক ধরনের মশলা সঠিক অনুপাতে ব্যবহার করা হয়।

...... উপকরণ........
গরুর মাংসঃ ১ কেজি
সর্ষের তেলঃ ১/৮ কাপ (মাংসে চর্বি থাকলে তেল কমবেশি করে নিবেন)
পেঁয়াজ কুচিঃ ১/২ কাপ
পিঁয়াজবাটাঃ ১/২ কাপ
লালমরিচ গুঁড়াঃ ২ চা চামচ (ঝাল অনুযায়ী)
হলুদ গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ
ধনেগুঁরাঃ ২ চা চামচ
জিরা গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ
গরমমশলার গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ + আর ১/২ চা চামচ নামানোর জন্য
লবণঃ স্বাদমতো
টকদইঃ ২ টেঃ চামচ
কাঁচামরিচঃ ৩/৪ টি
এলাচঃ ৪/৫ টি
দারচিনিঃ ২/৩ টি
তেজপাতাঃ ৩/৪ টি
গোলমরিচ আস্তঃ ১ চা চামচ
লংঃ ৫/৬ টি
বাগারের জন্য
সর্ষের তেলঃ ১/৮ কাপ
পিঁয়াজ কুচিঃ ১ কাপ
শুকনা আস্ত মরিচঃ ৩/৪ টি
আস্ত রসুনের কোয়াঃ ১০/১২ টি

রান্নার প্রণালী........
Step 1
কালোভুনা করার জন্য গরুর মাংসের সব অংশ মিক্স করে হাড়সহ ১ কেজি মাংস নিবেন ।

Step 2
মাংস পানি ঝরিয়ে একে এক পিয়াজ কুঁচি , পিয়াজ বাটা , সরষের তেল , গরম মশলা , লবণ , টকদই , কাঁচামরিচ , লালমরিচ গুঁড়া , হলুদ গুঁড়া , ধনে গুঁড়া , গরম মশলার গুঁড়া , আদা – রসুন বাটা সব মিক্স করে সাথে ১/২ কাপ পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন ।

Step 3
মাংশে পানি দরকার পড়বে না তারপর ও যদি দরকার পরে কষানোর জন্য তাহলে পরিমাণ মতো পানি এড করে দিবেন । মাংস কষিয়ে পানি বের হবে আর এই পানিতে মাংস সিদ্ধ হয়ে যাবে ।

Step 4
মাঝে মাঝে মাংস নেড়ে দিতে হবে জেনো কোন ভাবে তলায় মশলা বা মাংস লেগে না যায় ।

Step 5
একপর্যায় যখন মাংস প্রায় সিদ্ধ হয়ে লবণ , মশলা সব ঠিকঠাক মতো হয়ে আসবে আর মশলাও মাখা মাখা হয়ে আসবে ঠিক তখনি চুলার আঁচ একদম কম করে দিতে হবে । এভাবে প্রায় ঘণ্টা খানিক লাগতে পারে কালো ভুনা করতে ।

Step 6
এরমাঝে মাংস নেড়ে উপর নিচ করে দিবেন কিন্তু কোনভাবেই মশলা জেনো পুড়ে না যায় । কালোভুনা মানে কালো মাংস কিন্তু পুড়া মাংস নয় সুতরাং সেটা খেয়াল রাখতে হবে ।

Step 7
এরমাঝে ১ কাপ পানি দিয়ে আবার মাংস টা কষান এভাবে কষাতে কষাতে দেখবেন মাংস কালো কালো হয়ে আসছে আর তেল ও ছেড়ে দিয়েছে তখন ১/২ চা চামচ জিরা গুঁড়া আর বাকি ১/২ চা চামচ গরম মশলার গুঁড়া মিশিয়ে নিবেন চুলার আঁচ কিন্তু একই থাকবে । কোনভাবেই বাড়ানো যাবে না ।

Step 8
অন্যপ্যানে এবার বাকি সর্ষের তেল গরম করে গোটা রসুন ভেঁজে ,আস্ত শুকনা মরিচ দিন হালকা ভেঁজে পিয়াজ দিয়ে দিন ।

Step 9
পিঁয়াজ যখন বাদামি হয়ে আসবে ঠিক তখনি পিয়াজের বাগার টা কালোভুনায় ঢেলে দিন। এবার ২/৩ মিনঃ চুলায় রেখে নামিয়ে গরম গরম সাদা ভাত , পরোটা , পোলাও , নানের সাথে পরিবেশন করুন কালোভুনা ।



আপুনি,
চমৎকার কিছু রেসিপি!!!! বিশেষ করে আচারি মাংস; মাংসের সুটকী আর চাপলি কাবাব!!!
আমার প্রিয় একটি রেসিপি যুক্ত করলাম........

গরুর মাংসের কালো ভুনা বা কালা ভুনা দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। এর স্বাদ খুবই চমৎকার। দেখতে কালো হয় বলে এর নাম কালো ভুনা। বাংলাদেশের অনেক রেস্টুরেন্টেই কালো ভুনা পাওয়া যায়। এটা তৈরিতে অনেক ধরনের মশলা সঠিক অনুপাতে ব্যবহার করা হয়।


...... উপকরণ........
গরুর মাংসঃ ১ কেজি
সর্ষের তেলঃ ১/৮ কাপ (মাংসে চর্বি থাকলে তেল কমবেশি করে নিবেন)
পেঁয়াজ কুচিঃ ১/২ কাপ
পিঁয়াজবাটাঃ ১/২ কাপ
লালমরিচ গুঁড়াঃ ২ চা চামচ (ঝাল অনুযায়ী)
হলুদ গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ
ধনেগুঁরাঃ ২ চা চামচ
জিরা গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ
গরমমশলার গুঁড়াঃ ১/২ চা চামচ + আর ১/২ চা চামচ নামানোর জন্য
লবণঃ স্বাদমতো
টকদইঃ ২ টেঃ চামচ
কাঁচামরিচঃ ৩/৪ টি
এলাচঃ ৪/৫ টি
দারচিনিঃ ২/৩ টি
তেজপাতাঃ ৩/৪ টি
গোলমরিচ আস্তঃ ১ চা চামচ
লংঃ ৫/৬ টি
বাগারের জন্য
সর্ষের তেলঃ ১/৮ কাপ
পিঁয়াজ কুচিঃ ১ কাপ
শুকনা আস্ত মরিচঃ ৩/৪ টি
আস্ত রসুনের কোয়াঃ ১০/১২ টি

রান্নার প্রণালী........
Step 1
কালোভুনা করার জন্য গরুর মাংসের সব অংশ মিক্স করে হাড়সহ ১ কেজি মাংস নিবেন ।

Step 2
মাংস পানি ঝরিয়ে একে এক পিয়াজ কুঁচি , পিয়াজ বাটা , সরষের তেল , গরম মশলা , লবণ , টকদই , কাঁচামরিচ , লালমরিচ গুঁড়া , হলুদ গুঁড়া , ধনে গুঁড়া , গরম মশলার গুঁড়া , আদা – রসুন বাটা সব মিক্স করে সাথে ১/২ কাপ পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন ।

Step 3
মাংশে পানি দরকার পড়বে না তারপর ও যদি দরকার পরে কষানোর জন্য তাহলে পরিমাণ মতো পানি এড করে দিবেন । মাংস কষিয়ে পানি বের হবে আর এই পানিতে মাংস সিদ্ধ হয়ে যাবে ।

Step 4
মাঝে মাঝে মাংস নেড়ে দিতে হবে জেনো কোন ভাবে তলায় মশলা বা মাংস লেগে না যায় ।

Step 5
একপর্যায় যখন মাংস প্রায় সিদ্ধ হয়ে লবণ , মশলা সব ঠিকঠাক মতো হয়ে আসবে আর মশলাও মাখা মাখা হয়ে আসবে ঠিক তখনি চুলার আঁচ একদম কম করে দিতে হবে । এভাবে প্রায় ঘণ্টা খানিক লাগতে পারে কালো ভুনা করতে ।

Step 6
এরমাঝে মাংস নেড়ে উপর নিচ করে দিবেন কিন্তু কোনভাবেই মশলা জেনো পুড়ে না যায় । কালোভুনা মানে কালো মাংস কিন্তু পুড়া মাংস নয় সুতরাং সেটা খেয়াল রাখতে হবে ।

Step 7
এরমাঝে ১ কাপ পানি দিয়ে আবার মাংস টা কষান এভাবে কষাতে কষাতে দেখবেন মাংস কালো কালো হয়ে আসছে আর তেল ও ছেড়ে দিয়েছে তখন ১/২ চা চামচ জিরা গুঁড়া আর বাকি ১/২ চা চামচ গরম মশলার গুঁড়া মিশিয়ে নিবেন চুলার আঁচ কিন্তু একই থাকবে । কোনভাবেই বাড়ানো যাবে না ।

Step 8
অন্যপ্যানে এবার বাকি সর্ষের তেল গরম করে গোটা রসুন ভেঁজে ,আস্ত শুকনা মরিচ দিন হালকা ভেঁজে পিয়াজ দিয়ে দিন ।

Step 9
পিঁয়াজ যখন বাদামি হয়ে আসবে ঠিক তখনি পিয়াজের বাগার টা কালোভুনায় ঢেলে দিন। এবার ২/৩ মিনঃ চুলায় রেখে নামিয়ে গরম গরম সাদা ভাত , পরোটা , পোলাও , নানের সাথে পরিবেশন করুন কালোভুনা ।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩১

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @চমৎকার কিছু রেসিপি!!!! বিশেষ করে আচারি মাংস; মাংসের সুটকী আর চাপলি কাবাব-- রেসিপি গুলো ভাইয়ার ভালো লেগেছে জেনে খুশী হলাম :#) তবে ভাইয়াও যে খুব ভালো একজন শেফ তাতো আমার জানা B-)


@আমার প্রিয় একটি রেসিপি যুক্ত করলাম........

গরুর মাংসের কালো ভুনা বা কালা ভুনা দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। এর স্বাদ খুবই চমৎকার। দেখতে কালো হয় বলে এর নাম কালো ভুনা। বাংলাদেশের অনেক রেস্টুরেন্টেই কালো ভুনা পাওয়া যায়। এটা তৈরিতে অনেক ধরনের মশলা সঠিক অনুপাতে ব্যবহার করা হয়।
-- এই রান্নাটা আমারও খুব পছন্দ ভাইয়া। তবে নিজে কখনও রান্না করার চেষ্টা করিনি । আমার লেখায়ও এটা আনতে চেয়ে ছিলাম কিন্তু বেশী বড় হয়ে যাবে বলে আনিনি । যাই হোক, ভাইয়াতো নিয়ে এসেছে রেসিপি :#) এই ঈদে অবশ্যই এটা রান্না করবো B-)

১৩| ২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১০:১৭

রাজীব নুর বলেছেন: ঈদ মোবারক।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৩

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @ঈদ মোবারক-- সুরভি ভাবী ও আমাদে্র আদরের মামনির জন্য ঈদের শুভেচ্ছা রইল ভাইয়া । 8-|

১৪| ২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৪০

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: অনেক অনেক দিন হয়ে গেলো রান্না করি না। অথচ, রেসিপিগুলো পড়ে একবার ট্রাই করে দেখার ইচ্ছে জাগছে। তাই, প্রিয়তে নিয়ে রাখলাম। সময় সুযোগ বুঝে একবার করবো।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৮

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @ অনেক দিন হয়ে গেলো রান্না করি না। অথচ, রেসিপিগুলো পড়ে একবার ট্রাই করে দেখার ইচ্ছে জাগছে-- গরুর মাংস বলে কথা সত্যপথিক শাইয়্যান ভাইয়া :D দেখেই লোভ লাগে :P অবশ্যই ট্রাই করবেন, আশা করি খারাপ লাগবেনা ।


@প্রিয়তে নিয়ে রাখলাম
-- ওয়াও !:#P আমি খুবই আনন্দিত B-)

১৫| ২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৪২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: দারুন তো। এইখানে বৃষ্টি হচ্ছে। :-/
লিখতে হবে কবিতা।

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৪২

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @দারুন তো-- হুম আসলেই দারুন খেতে গরুর মাংস :P =p~



@এইখানে বৃষ্টি হচ্ছে। :-/
লিখতে হবে কবিতা।
--- আহারে কতদিন বৃষ্টিতে ভিজিনা :( তবে আজ মনটা ভালো লাগছে ;) তাই প্রিয় কবির কবিতা বৃষ্টিতে ভিজলে মন্দ হয়না :P

১৬| ২০ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:৩৩

বাকপ্রবাস বলেছেন: রান্না করা জানতামনা, প্রবাস আসর পর রান্নার প্রেমে পড়ে গেলাম, নানা ধরনের এক্সপেরিম্যান্ট ও চালাতে লাগলাম, পরে নানান ঝামেলায় রান্নাটাই ছাড়ার যোগাড়, তবে রান্নার প্রতি ভালবাসা কাজ করে, স্বপ্ন দেখি আমার ঘরে দুইটা আয়োজন থাকবে, বই আর রান্নার উপকরণ ঘিরে।

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৫৫

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: ভাইয়া, প্রবাসে থাকেন। তাহলেতো নিশ্চয় নিজে রান্না করে খেতে হয়। সেই সুবাদে রান্নার প্রেমে পরা স্বাভাবিক ।

কিন্তু প্রবাস জীবনে একা থাকা আর কাজ কর্মের চাপ সব মিলিয়ে এক সময় আর অত ভালোও লাগে্না রান্না করা তখন শুধু বেচে থাকার জন্য খাওয়া :( তবে ভালো সঙ্গী সাথী থাকলে সব আনন্দই উপভোগ করা যায় প্রবাসে, রান্নারও :D

আর হা, রান্না নিয়ে এক্সপেরিম্যান্ট করতে দারুন লাগে B-) তবে লেখার জন্য যেমন চাই পাঠক তেমন রান্না করলে তা টেস্ট করার জন্যও চাই খাদক :P পাঠক কিংবা খাদক না থাকলে লেখা কিংবা রান্না দুটোই মনে হবে বৃথা :P

@স্বপ্ন দেখি আমার ঘরে দুইটা আয়োজন থাকবে, বই আর রান্নার উপকরণ ঘিরে -- বাকপ্রবাস ভাইয়ার স্বপ্ন পূরণ হোক এই কামনা ।

১৭| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ১২:১১

স্বপ্ন কুহক বলেছেন: ঈদের শুভেচ্ছা জানাই

পোস্ট প্রিয় তে নিলাম ঈদে কাজে লাগবে

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ সকাল ১১:৫৮

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @ঈদের শুভেচ্ছা জানাই-- আপনাকেও ঈদ মোবারক স্বপ্ন কুহক ভাইয়া । আপনার নিকটা পছন্দ হয়েছে, সুন্দর ।

@পোস্ট প্রিয় তে নিলাম ঈদে কাজে লাগবে
--- খুবই ভালো লাগলো জেনে । আশা করি রেসিপি গুলো ভালো লাগবে ।

১৮| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ১২:২৯

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: ঈদ মোবারক :)

২১ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:০০

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @ঈদ মোবারক-- আপনাকেও হাম্বা মোবারক, থুক্কু :P ঈদ মোবারক হাসু মামা B-)

১৯| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:১৭

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন:
ঈদ মুবারাক আপু, নেন একটা ডোরাকেক খান!

২২ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:২৭

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: প্রান্তর ভাইয়া, তুমি ডোরেমন দেখ :|| এইটাতো বাচ্চাদের কার্টুন :P তুমিও তো আমার পিচ্চি ভাই :P =p~

ঈদ মোবারক ভাইয়া ।

@ নেন একটা ডোরাকেক খান!--- হাহাহা, খেলাম =p~

২০| ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:১৯

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন:
আপনি কি ডোরেমন দেখেন, আমার সব পর্ব মুখস্থ!

২২ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৩

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @আপনি কি ডোরেমন দেখেন, আমার সব পর্ব মুখস্থ-- না দেখিনা :|| আমি মিনা দেখি B-) তবে ডোরেমন এর ডিং ডিং ডিং ডিং ডিং আমার কাছে মজা লাগে =p~

২১| ২২ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ঈদ মোবারক।
শুভ হোক প্রতিটি মুহূর্ত।

তেল, চর্বি যত কম খাওয়া যাবে ততই মঙ্গল।
বেশী খাওয়া সঠিক কাজ নয়।
পরিমিতি আহারই কাম্য।

২২ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৩১

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: আপনাকেও ঈদ এর শুভেচ্ছা ভাইয়া ।

@তেল, চর্বি যত কম খাওয়া যাবে ততই মঙ্গল।
বেশী খাওয়া সঠিক কাজ নয়।
পরিমিতি আহারই কাম্য
-- হা ভাইয়া, ঠিক বলেছেন । তবে কোরবানির ঈদ যেহেতু, একটু আধটু বেশীতো না চাইলেও খাওয়া হয়ে যায় :P

২২| ২২ শে আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: তবে ডোরেমন এর ডিং ডিং ডিং ডিং ডিং আমার কাছে মজা লাগে =p~ ঐটা ডোরেমন না, নিনজা হাতুরি :(
আমি কার্টুন এক্সপার্ট :D
ঈদ মোবারক

২২ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৯

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: @ঐটা ডোরেমন না, নিনজা হাতুরি -- হা হা হা =p~ অনেক বছর আগে এক ভাতিজা দেখার সময় আমিও ওর সাথে একটু দেখেছিলাম :P ডোরেমন নাকি নিনজা হাতুরি কোনটা ছিল মনে নেই শুধু ওই শব্দ টুকুই মনে আছে p~ তবে প্রান্তর ভাইয়া যে আসলেই কার্টুন বিষয়ে বিশেষ ভাবে অজ্ঞ তা বুঝলাম B-)

২৩| ২২ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৯

লক্ষণ ভান্ডারী বলেছেন: ঈদ মোবারক।
পবিত্রতম ঈদের আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা রইল।
জয়গুরু! জয়গুরু! জয়গুরু!

২২ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৪২

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: ঈদ মোবারক ভাইয়া, আপনাকেও B-)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.