নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বহুদিন আগে কোন এক বারান্দায় শেষ বিকেলের আলোয় আলোকিত উড়ন্ত খোলা চুলের এক তীক্ষ্ণ হৃদয়হরনকারী দৃষ্টি সম্পন্ন তরুনীকে দেখে ভেবেছিলাম, আমি যাদুকর হব। মানুষ বশীকরণের যাদু শিখে, তাকে বশ করে নিশ্চিন্তে কাটিয়ে দিব সারাটি জীবন।

কাল্পনিক_ভালোবাসা

একদিন সব হাসির ময়নাতদন্ত হবে, ফরেনসিক রিপোর্টে লেখা থাকবে - সবই মিথ্যে।

কাল্পনিক_ভালোবাসা › বিস্তারিত পোস্টঃ

রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক উপায়ে মশা থেকে বাঁচার উপায়

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫০

সাম্প্রতিক সময়ে আমরা মশা নিয়ে বেশ সমস্যায় আছি, বিশেষ করে এডিস মশার কারনে ডেঙ্গু বা ডেঙ্গি নামক ভয়াবহ জ্বর আমাদের দেশে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। মানুষ এই মশার হাত থেকে বাঁচতে মশার কয়েল, কিটনাশক ইত্যাদি ব্যবহার করেও তেমন প্রতিকার পাচ্ছে না। ফলে মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে নানা ধরনের আজগুবী পদ্ধতি বা গুজব। এই সব গুজবে পা দিলে যেমন কোন লাভ হবে না, তেমনি পরিবেশ ও স্বাস্থ্যগত অনেক ঝুঁকি দেখা দিতে পারে।

এই অবস্থায় আমাদের উচিত প্রয়োজনীয় করনীয় সম্পর্কে সঠিক ও পর্যাপ্ত ধারনা রাখা। আমাদের চারপাশে অনেক প্রাকৃতিক উপাদান বা গাছ রয়েছে যা দিয়ে আমরা চাইলে খুব সহজেই এই সব মশা, মাছি ও অন্যান্য কীটপতঙ্গ থেকে নিজেদের ঘরকে সুরক্ষা করতে পারি।
তাছাড়া নর্থ আমেরিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বেশ কিছু নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাকৃতিক এই সকল উপায় নিয়ে গবেষনা করে এর সত্যতা সম্পর্কে জানতে পারে। ফলে উন্নত বিশ্বের এখন পরিবেশ রক্ষায় অনেকেই রাসায়নিক পদার্থ বাদ দিয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে মশা নিবারন করছেন।

চলুন তাহলে দেরি না করে আমরাও এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান সম্পর্কে জেনে আছি।


১। ল্যাভেন্ডার

ল্যাভেন্ডার মুলত পুদিনা গোত্রের একটি উদ্ভিদ এবং এর প্রায় ৪৭টি জাত আছে। এই উদ্ভিদের নানারকম ব্যবহার আছে তবে যেটা অনেকেই হয়ত জানেন না তা হচ্ছে, ল্যাভেন্ডারের গন্ধ মশা, মাছি একদম সহ্য করতে পারে না। আপনি চাইলে বাসার বারান্দায় এই ল্যাভেন্ডার গাছটি লাগাতে পারবেন। পাশাপাশি, জানালার পাশে ছোট ছোট টবে এই গাছ লাগাতে পারেন। এতে আশা করা যায় ঘরে মশার প্রবেশ অনেকখানি কমে যাবে। যতবেশি গাছ হবে, এর কার্যকারীতাও তত বেশি হবে। প্রাচীনকাল থেকেই ল্যাভেন্ডারের গন্ধ মশা তাড়াতে কার্যকর ভুমিকা পালন করছে। ঢাকার বিভিন্ন বড় বড় নার্সারীতে এই গাছ পাওয়া যায়। এছাড়াও বাইরে গেলে ল্যাভেন্ডার তেল শরীরের খালি জায়গায় লাগাতে পারেন। এতে মশারা দুরে থাকবে।

ল্যাভেন্ডার গাছ না পেলে অন্তত ল্যাভেন্ডারের গন্ধ যুক্ত সুগন্ধী, সাবান, তেল বা এয়ার ফ্রেসনারও এই ক্ষেত্রে বেশ কার্যকরী হতে পারে। এই ক্ষেত্রে কোনটা রাসায়নিক আর কোনটা সরাসরি প্রাকৃতিক উপাদান থেকে তেরী তা দেখে নেয়া উচিত।




২। অ্যাপেল সাইডার ভিনিগারঃ

সমপরিমান অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার আর পানি মিশিয়ে খাটের নিচে, ঘরে রাখা গাছের নিচে বা যে সকল জায়গায় পোকামাকড় বা মশা থাকতে পারে বলে ধারনা করছেন, সেখানে স্প্রে করে দিন। দরজা জানালা কিছুক্ষন বন্ধ রাখুন, তারপর দেখবেন ম্যাজিক! আশা করা যায় মশার অত্যাচার প্রায় শেষ হয়ে যাবে। বাইরে কোথাও গেলে এই মিশ্রনটি শরীরের খালি অংশে ব্যবহার করতে পারেন। মশা দূরে থাকবে। একটি গবেষনায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত সালাদের সাথে এই অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার মিশিয়ে খায়, তাদেরকে মশা এবং কীটপতঙ্গ তুলনামুলকভাবে কম কামড়ায়।


৩। পুদিনার তেলঃ
পুদিনার তেল মশা দুর করতে খুবই কার্যকরী। বাজারে অনেক ব্যান্ডের পুদিনার তেল পাওয়া যায়। চাইলে ঘরেও আপনি পুদিনার তেল তৈরী করে নিতে পারেন। একটা ছোট কৌটায় পরিমানমত পুদিনা পাতা আর যে কোন ভেজিটেবল তেল নিয়ে ভালো করে মাখিয়ে দশদিন সকালের রোদে দিন। তারপর খুব কম আচে একটা পাতিলে নিয়ে দশ মিনিট জ্বাল দিন। তারপর ঠান্ডা হলে একটা ছাঁকনি দিয়ে ছেকে বোতলে নিয়ে সংরক্ষন করুন।
পুদিনার তেলের অনেক কার্যকারীতা আছে। হাতে সামান্য তেল নিয়ে শরীরের উন্মুক্ত স্থানে লাগিয়ে নিন। মশারা দুরে থাকবে। তাছাড়া জমা পানিতে আপনি চাইলে এই তেল সামান্য পরিমানে দিলেও মশার বংশ সমূলে বিনষ্ট হবে।



৪। তুলসীঃ
তুলসির অনেক গুণের কথা আমরা অনেকেই জানি তবে আমরা হয়ত এটা জানি না, তুলসী গাছ মশা, মাছি, পোকা-মাকড়কে দুরে রাখে। তাই সম্ভব হলে বাসায় টবে তুলসী গাছ রাখুন। এই গাছ শুধু মশা দুর করবে তা নয় বরং রুমের বাতাসকেও জীবানুমুক্ত বা বিশুদ্ধ রাখে।


৫। গাদা ফুল
আমাদের সকলের প্রিয় এই ফুলটির অনন্য সাধারন একটি দিক হচ্ছে মশা দুর করার ক্ষমতা। এর গন্ধ মশাদের সহ্য হয় না। গাদা ফুল ফুটলেই মশারা পালিয়ে যায়। তাছাড়া হাত পা কোথাও ছিলে গেলেও এই ফুলের পাতার রস ব্যবহার করা যায়। সুতরাং ঘরের বিভিন্ন খোলা স্থান, যেমন দরজা, জানালা ইত্যাদির পাশে টব রেখে দিতে পারেন

তবে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আমাদের নিজস্ব পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা। নিজের ঘরের আশেপাশে যদি পরিষ্কার না থাকে, তাহলে মশা মাছি জন্মাবেই। জ্বরে আক্রান্ত হোন বা না হোন বেশি করে পানি খান। এতে শরীর সুস্থ থাকবে এবং ডেঙ্গু সংক্রান্ত জটিলতাও প্রাথমিকভাবে দুর করা যাবে।

সবাই সুস্থ থাকুন, এই প্রার্থনাই করি।

মন্তব্য ৫০ টি রেটিং +২১/-০

মন্তব্য (৫০) মন্তব্য লিখুন

১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০০

জুন বলেছেন: +

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:০৮

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ জুন আপু!

২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: প্রতিটি নগর বাসীর উচিত প্রতিদিন অন্তত পাঁচটি করে মশা মেরে ফেলা। এটা একটা জরুরি কাজ।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৬

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: হা হা হা! কি অদ্ভুত কথা শোনালেন!

৩| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



এগুলো আয়ত্বের ভেতরে, ভালো!

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৬

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ ভাইয়া। আশা করি আপনি ভালো আছেন। :)

৪| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ১ আর ২ নংটা জানা আছে। দেশে আসলে এই ল্যাভেন্ডারের তেলওয়ালা একটা লোশন নিয়ে আসি আমি। ভালো কাজ দেয়। বাকীগুলো নতুন জানলাম।

আসলে প্রকৃতি আমাদেরকে সব সমস্যারই সহজ সমাধান দিয়ে রেখেছে। একটু সদিচ্ছা থাকলেই এগুলো আমরা প্রয়োগ করতে পারি। আবারও বলি, সবকিছুর জন্যই সবচেয়ে জরুরী এই সদিচ্ছা, যেটার অভাব আমাদের দেশে প্রকট আকার ধারন করছে দিনে দিনে। :)

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৪:০১

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: সেটাই ভাইয়া। আমরা দিন দিন সবাই কৃত্তিমতার উপর নির্ভরশীল হয়ে যাচ্ছি। ফলে রাসায়নিক জিনিসে আমাদের আগ্রহ বেশি। আমার বাসায় নিম গাছ, লেবু গাছ আর পুদিনা গাছ আছে। মশা আসলেই বেশ কম আসে।

৫| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন:

খুব সহজেই মশা মারার পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করলেন। অন্ততঃ শেষ দুটি তো আমাদের প্রায় সবারই বাড়িতেই আছে।
আর ল্যাভেন্ডার তেল যেহেতু বাজারে কিনতে পাওয়া যায়, কাজেই চলমান বর্ষা মৌসুমে আমরা একটু সজাগ হলে সহজেই পরিবেশ বান্ধব হয়ে মশার হাত থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করতে পারবো।

শুভেচ্ছা নিয়েন।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৫

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ ভাইয়া। আশা করি ভালো আছেন। আসলে এই মুহুর্তে আমাদের সকলের সচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

৬| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:২৫

ইসিয়াক বলেছেন: +++

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৫

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে।

৭| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:২৯

জাহিদ হাসান বলেছেন: খুব ভালো পোস্ট দিয়েছেন। ধন্যবাদ।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৩

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ জাহিদ ভাই!

৮| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:১১

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



খুব দরকারী পোস্ট। প্রাকৃতিক উপায়ে এসব ফর্মুলা ব্যবহার করে এডিস মশা তাড়াতে পারলে খুব ভালো হবে। এগুলোতে কোন রাসায়নিক নেই। ঢাকাবসীর জন্য শুভ কামনা রইলো।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৪

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই! আমাদের চারিদিক পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখাও বেশ জরুরী!!

৯| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৪৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:





মশা নিয়ে দেশের প্রবল ক্রান্তিকালে সামহোয়্যারইন ব্লগের কাছে এমন একটি লেখা আমরা আশা করতে পারি, যাকে আমরা সম্পাদকীয় বলতে পারি। ধন্যবাদ। বাসায় এ্যাপেল সাইডার ভিনেগার আছে তার পরিক্ষা আজ রাতেই শুরু হবে আর আগামীকাল তুলসী ও গাদা ফুল গাছের টব অবস্যই আনছি।

আবারো ধন্যবাদ, ভালো থাকুন-সুস্থ্য থাকুন-ব্যাস্ত থাকুন।


০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৫

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ঠাকুর ভাই। আমাকে পরীক্ষার ফলাফল জানাবেন।

মন্তব্যের জন্য কৃতজ্ঞতা রইল।

১০| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: তুলসি গাছ আমার উঠানেই আছে, কাল একে ঘরে নেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৬

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: দেইখেন তো লিটন ভাই! কেমন হয় ব্যাপারটা!

১১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:১৪

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ডেঙ্গু ও মশা প্রতিরোধ নিয়ে একটি অতি উপকারী পোষ্ট, সরাসরি প্রিয়তে ।
সবগুলি উদ্ভিদই উপকারী । ল্যভেন্ডার , গাদা, পুদিনা আর তুলসির উপকারের কথা জানা ছিল তবে এটা মশা প্রতিরোধ করে তা আজ জানলাম । ল্যভেন্ডার মুলত পুদিনা গোত্রের উদ্ভিদ ও এর প্রায় ৪৭ প্রজাতি রয়েছে । ল্যভেন্ডার মসলা ও গ্রীন ল্যভেন্ডার চা হিসাবে ব্যবহৃত হতে পারে , এর তেলের তো আরো বহুবিদ ব্যবহার রয়েছে । এর ফুল ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধির পাশাপাশি মশা প্রতিরোধেও কাজ করে বিধায় এটাতো বানিজ্যিক ভাবেও চাষাবাদ হতে পারে দেশে । পৃথিবীর অনেক দেশেই বানিজ্যিকভাবে ল্যাভেন্ডার চাষাবাদ হচ্ছে, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও নীচের ছবির মত এর চাষাবাদ হচ্ছে বানিজ্যিকভাবে ।

উপকারী এই পোষ্টটিকে স্টিকি করে এর বহুল পাঠের জন্য অনুরোধ রেখে গেলাম ।

শুভেচ্ছা রইল

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৯

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: প্রিয় আলী ভাই, আমার শুভেচ্ছা জানবেন। আপনার কমেন্ট পড়ে আমি কিছুটা সংশোধন যুক্ত করেছি। আপনার মত একজন গুনী ব্লগারের কাছ থেকে বিভিন্ন উপকারী বৃক্ষ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাই।

১২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:৪৩

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সময়োপযোগী পোস্ট।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৯

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই।

১৩| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ৩:৩৮

নিশাচর ভবঘুরে বলেছেন: পিলাচ নেন কাভা ভাই B:-/

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১২

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: বাহ! চলে আশা হয়েছে দেখি!!

১৪| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ৮:০২

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: সময়োপযোগী পোস্ট।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৩

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ আবু হেনা ভাই!!

১৫| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ৯:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: দরকারী পোষ্ট।
তবে আমি এত দিকদারীর মধ্যে যাবো না।
স্প্রে আছে, এবং আমি সর্তক থাকবো।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৩

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: হা হা হা! বেশ!!

১৬| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১০:১৩

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর।+ আমার পোস্টে এটির লিংক সংযোজন করে দিলাম। আমাদের দেয়া পোস্ট পড়ে পাঠক লাভবান হবেন ডেঙগু প্রতিরোধ প্রতিকার বিষয়ে জ্ঞান লাভ করবে উপকৃত হবে ও সম্যক ধারণা লাভ করবে বলেই আমার বিশ্বাস ।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৪

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ সেলিম ভাই!! কৃতজ্ঞতা জানবেন। আপনার বাচ্চার প্রতি খেয়াল রাখবেন।

১৭| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:২৪

শিখণ্ডী বলেছেন: প্রাকৃতিক প্রতিরোধক ব্যবস্থা আমাদের সবার সবসময় রাখা উচিত। বাড়িতে গাছগুলো রাখলে মশা তাড়াতে এবং সৌন্দর্যের সাথে সাথে পরিবশেরও উপকার হবে।

আমাদের হুজুর ব্লগারকে দেখছি না, উনি হয়ত ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকে বোরকা পরার সুফল নিয়ে বয়ান দিতেন।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৬

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে। সৌন্দর্যবোধ আমাদের সকলের প্রয়োজন। এই দিক দিয়ে আমরা অনেক অনেক পিছিয়ে আছি।

হুজুর ব্লগার হোক আর যেই হোক, যার যার বিশ্বাস তার তার কাছে। এখন উদহারন স্বরুপ কেউ যদি বোরকা পড়ে ডেঙ্গুর হাত থেকে মুক্তি পেতে চায়, সে পাক! তাতে আমাদের কিছু বলার নেই। যারা এই পদ্ধতিতে আগ্রহী হবে, তারাও হোক। সকলের বিচার বুদ্ধি তো আর সমান হবে না।

মানুষের বিশ্বাসের অনেক মুল্য আছে বলে আমার বিশ্বাস।

১৮| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৩৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: উপকারী পোস্ট !!
ধন্যবাদ।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৮

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ আপা!

১৯| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:০৯

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: বাহ!

প্রকৃতি বান্ধব সুরক্ষার দারুন সব উপায়!
ভাল লাগা অফুরান।

++++++

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৮

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ ভাইয়া!

২০| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১৯

নতুন নকিব বলেছেন:



লাইকসহ পোস্টটি প্রিয়তে।

ধন্যবাদসহ শুভকামনা।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:২০

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে :)

২১| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৪৮

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: এদেশের মানুষের ভরসা কয়েল , মশারী ও স্প্রে।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:২১

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: কারন এই দেশের মানুষের জানার আগ্রহ কম, শটকার্টে বিশ্বাস করে, যুক্তির চাইতে আলৌকিকতায় বিশ্বাস করে।

২২| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৬

দৃষ্টিসীমানা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ , লিখাটি প্রিয়তে নিলাম ।

২৩| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৯

নীলপরি বলেছেন: দরকারী পোষ্ট । উপায়গুলো জানানোর জন্য ধন্যবাদ ।

২৪| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:১৯

জাহিদ হাসান বলেছেন: মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: এদেশের মানুষের ভরসা কয়েল , মশারী ও স্প্রে।
একথাটি একদম সত্য।
আমি আমার জমানো ২৫০ টাকা খরচ করে এরোসলের মশার স্প্রে কিনেছি।
ভাবছিলাম সেই টাকায় কাউবয় হ্যাট কিনবো। এখন দেখি ডেঙ্গুর মারাত্নক আক্রমণ। আগে তো নিজের জীবন বাচাঁই। :((

হায়রে ডেঙ্গু তুই আমার কাউবয় হওয়ার আশা মিটিয়ে দিলি।

জাহিদ হাসান শিশির

২৫| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:৩০

অন্তরা রহমান বলেছেন: খুবই প্রয়োজনীয় ও উপকারী পোস্ট :)

২৬| ০২ রা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:০৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: চমৎকার সুন্দর ও উপকারী পোষ্ট !
প্রিয়তে রাখলাম

২৭| ০২ রা আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: মশা মারার জন্য ইলেকট্রিক ব্যাট এই মুহূর্তে সব চেয়ে কার্যকরী পদ্ধতি। এতে পরিবেশের কোন ক্ষতি হয় না‌ ব্যবহার ও সহজ। সবাই ব্যাট ব্যবহার করা শুরু করুন।

২৮| ০৪ ঠা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১১:১০

নাসির ইয়ামান বলেছেন: এডিস মশা দেখতে কি সাধারণ মশার মতই?

২৯| ১৭ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ১:৪৮

গড়ল বলেছেন: আমি ও আমার স্ত্রী প্রায় প্রতিদিনই ৪-৫ টেবিল চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার খাই কিন্তু মশা আমাদের কখনও কম কামড়ায় নাই। তবে আমার এক খালু প্রতিদিন হুইস্কি খেত এবং মশা নাকি তার রক্ত খেয়ে অজ্ঞান হয়ে যেত।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.