নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আসল নাম নাহিদ হোসেন, ব্লগ যেহেতু সীমিত তাই আমাকে নক করতে পারেন এই ঠিকানায়: about.me/nahidh

নাহিদ০৯

ভালোবাসি বাংলা

নাহিদ০৯ › বিস্তারিত পোস্টঃ

মনে পড়ে ২জি ইন্টারনেট

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩১

ইন্টারনেট এর ব্যবহার প্রথম শুরু করেছিলাম সেই ২০০৭ সালে। তখন গুগল এ সার্চ করা ছাড়া আর কোন বিশেষ ওয়েবসাইট এর কথা মনে নাই এখন। তবে কয়েক মাস পরেই খোঁজ পেয়েছিলাম মিগ৩৩ দিয়ে চ্যাটিং, নেটওয়ার্কিং আর স্বল্প পরিসরে মিগ বন্ধুদের ইমেইল করা দারুন মজার একটা সফটওয়্যার।


২০০৮ সালে এসে ইয়াহু দিয়ে আমার দ্বিতীয় ইমেইল খুলেছিলাম। এখনকার রমরমা জিমেইল তখন প্রায় অপরিচিত একটা সার্ভিস। ইমেইল মানেই ইয়াহু ছিলো তখন।

ইয়াহু ইমেইল ব্যবহার করে ওয়াপট্রিক এ ওয়াপ সাইট খোলা, বিভিন্ন বিদেশী প্রতিষ্ঠানের মেইল এ মেইল করা, স্প্যাম মেইল ও সময় নিয়ে পড়া এমনকি উত্তর দেওয়া ছিলো সে সময় মুটামুটি খেলার ই একটা অংশ।

ডাউনলোড বলতে সে সময়ে সিনেট নামক সাইট থেকে সফটওয়্যার ডাউনলোড করতাম। তবে নিজের বসগিরি মুটামুটি ধরে রাখার জন্য বিশাল আকারের সফটওয়্যার এর কালেকশান সিডি পরবর্তিতে ডিভিডি ছিলো দারুন এক মজার অংশ।

গান বা ভিডিও এর জন্য ফানমাজা, সংস পিকে, মিউজিক.কম.বিডি ছিলো দাপুটে ওয়েবসাইট। গ্যাজেট ও সীমিত পরিসরেই পেয়েছিলাম সে সময়। অডিও শোনা, একটু রিমোটলি পিসি কনট্রোল করতে পারা তখনকার ম্যাজিক দেখানোর অন্যতম উপায় ছিলো।

ফেসবুকে ২ জি দিয়েই প্রথম প্রবেশ করেছিলাম। মাত্র ৭ জন বন্ধু নিয়ে প্রায় বছর খানেক পার করেছিলাম। নাহিদ নামে সারা বিশ্বের ১২ জনের নাম পেতাম তখন। সবাইকে মেসেজ করে জানিয়েছিলাম যে আমিও নাহিদ। এদের কয়েকজন নাহিদ নামের মেয়েও ছিলো।

জিপি এর এটা ওয়েব কেয়ার নামের সার্ভিস ছিলো। ওটা দিয়ে চ্যাট করেই অনেক সমাধান করা যেতো। বিশেষ করে এফএনএফ পরিবর্তন ছিলো অনেক উচ্চ মানের সার্ভিস এর মধ্যে একটা। পাড়ার মোবাইল সার্ভিস বা ছবি তোলার দোকানগুলোতে এ নিয়ে আমার বেশ চাহিদা ছিলো এবং বেশ উপভোগ করতাম প্রিমিয়াম গেস্ট হিসেবে।

মুটামুটি ২জি দিয়ে আমার যতটা চর্চার সময় পার করেছি, ৩ জি এসে একটা পাতাও হয়তো ঠিক মতো পড়ে উঠতে পারিনা। সলুশান ভিত্তিক ফোরাম এর চাইতে এখন কুইক ভিডিও তেই সমাধান দেখছি। থ্রিজি এসে প্রায় হাজার খানেক দুয়ার খুলে হয়তো দিয়েছে, তবে রিমার্ক করে রাখার মতো খুব বেশি ঘটনা মনে পড়ে না এভাবে।

মন্তব্য ২৩ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৯

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: দাদা অনেক কিছু মনে পরে গেলো যে......
mig 33 chat ... আহা !!!!! !:#P

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০০

নাহিদ০৯ বলেছেন: তাহলে আরো কিছু মনে পড়ে যাবে, ফ্লাডিং, চ্যাট রুম, মিগ ফ্রি এসএমএস!! আসলেই কি আহা দিন ছিলো।

২| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫২

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: :D :D :D

আমি এখনো Nokia 2700 Classic, N73, Symbian সেট চালাই.....
জোসস টেকনোলজি.....
Rom patcher, BlueFTP....
Push 2 Talk.....


স্মৃতিচারণা ভালো লাগলো....

অটঃ সামু ভাবনা ২ এ আমার কমেন্ট এর জবাব দিন....

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৫

নাহিদ০৯ বলেছেন: আহা সিম্বিয়ান। তখনকার সিম্বিয়ান যে ভবিষ্যতে মার খেয়ে যাবে কে জানতো। সিম্বিয়ান আর জাভা এর সফটওয়ার কালেকশান ওয়ালা একটা ডিভিডি এখনো আছে আমার। এন৭৩ ছিলো সে সময়ের একটা স্বপ্নের হ্যান্ডসেট।

ব্লু এফটিপি তো মনে হতো গোয়েন্দা সংস্থার টেকনোলজি জেনে ফেলেছি। এক মোবাইল থেকে না জানিয়েই ফাইল নিয়ে নেয়া, চাট্টিখানি কথা ছিলো না।

৩| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৪

কালীদাস বলেছেন: ইয়াহু বেসড সার্ভিসগুলোর তখন ব্যাপক দাপট ছিল অনলাইনে। আমি মেইনলি ইয়াহু ম্যাসেন্জার ইউজ করতাম, আর ইএফনেটে একটা চ্যাটিং সার্ভিস ইউজ করতাম, এখন নাম মনে করতে পারছি না।

ইউনিভার্সিটিতে ডেডিকেটেড সার্ভার ছিল, তাও ডাউনলোড স্পিডে চরম হতাশ হতাম। মোবাইলে পয়লা ইন্টারনেট চালু করেছিলাম ২০০৬ এর সামারে (জিপি), সেটাকে ডায়ালআপ হিসাবে বাসার পিসিতে ইউজ করতে যেয়ে ফকির হয়ে গিয়েছিলাম কিন্তু কোন পেইজ ওপেন করতে পারিনি :(( ওয়াপ-বেসড মেইল সার্ভিসগুলোর কথা ভুলেই গিয়েছিলাম প্রায় :( কোন এক লোকাল ডাউনলোড সাইটে সার্ভারের স্পিড বাড়াতে বলে ব্যাপক ক্যাচাল লাগিয়ে দিয়ে ছিলাম একবার। তখন ইউটিউব এখনকার মত এতটা রিচ ছিল না।

নস্টালজিক করে দিলেন 8-|

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৯

নাহিদ০৯ বলেছেন: একটা সময় পিসিতে ইন্টারনেট মানেই ইয়াহু মেসেন্জার। নোকিয়া পিসি সুইট দিয়ে ইন্টারনেট কানেক্ট করে দিয়েছিলাম একবার। ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারে সাইট লোড হওয়ার আগেই টাকা সব শেষ। ডাউনলোড তো দিতাম রাতে, সকাল হলে এভাস্ট, এভিজি এর আপডেট ফাইল ৪০-৫০ মেগাবাইট ডাউনলোড হতো।

ওয়াপ বেইজড সার্ভিস গুলো তখন কিভাবে এত সুন্দর করে কন্টেন্ট সাজাতো। সব এতটুকু বাটনে টিপে টিপেও হতাশ হতাম না খুব। তবে বাইরের কেউ যখন গল্প করতো, এরকম স্পিড, সেরকম স্পিড, তখন খুব স্বপ্নের মতো মনে হতো।

আপনার কমেন্ট ও অনেক নস্টালজিক। ধন্যবাদ

৪| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৮

নজসু বলেছেন:




Mig33 নামটা কয়েকদিন আগে খুব মনে করার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু মনে পড়ছিলো না।
আজকে মনে পড়লো। স্বপ্নীল নামক আরেকটা চ্যাট সাইট ছিলো। সেখানে আমি যেতাম।
যুগান্তরের একটা চ্যাট সাইট ছিলো মনে হয়।
ফেসবুক চিনতাম না। :-B

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১৩

নাহিদ০৯ বলেছেন: মিগ৩৩ এখন নাই। কিছুদিন চলে মিগমি নাম ধারন করেছিলো। পরে সোশ্যাল সাইট এ কনভার্ট করার চেষ্টা করেছিলো। এখন এটার ডোমেইন টাও নাই। এর প্রতিষ্ঠাতার একটা ছোট্ট ভিডিও বার্তা আছে ইউটিউব এ। তবে উনার এ সম্পর্কিত কোন বক্তব্য পেলাম না। অথচ এই মিগ কমিউনিটি এর নামে মিটাপ করতাম, একসাথে গ্রুপ করে মাতামাতি করতাম।

এরকম কিছু বাংলা চ্যাটিং ছিলো, কিন্তু মেইনটেন্যান্স এর অভাবে পরে আর টিকতে পারেনি বোধয়। আপনার অনুভুতি শুনে ভালো লাগলো। ধন্যবাদ

৫| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০১

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: ২০০৮ তখন আমি সম্ভবত ক্লাস নাইনে। পেপারে ফেইসবুক সম্পর্কে পড়ে http://www.facebook.com ব্রাউজ করে দেখি কিছুই নাই। একাউন্ট ক্রিয়েট করা, লগইন করা তখনও জানতাম না। ৫-৬ মাস পরে ইয়াহুর মাধ্যমে একটা আইডি করেছিলাম। আর তখন সমবয়সী এলাকার কেউ ফেবু ইউজ করতো না। বন্ধুবান্ধবদের বেশিরভাগই আমার কল্যাণে ফাস্ট ফেবু ইউজ শুরু করেছে।

তখন ফেইসবুকে নিজের ছবি আপলোড করার অনুভূতি ব্যাখ্যা করার সাধ্য নেই। মনে হইতো মস্তবড়ো একটা কাজ কইরা ফেলছি। :)

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১৫

নাহিদ০৯ বলেছেন: আসলেই নিজের ছবি আপ করাই মস্তবড়ো একটা কাজ ছিলো তখন। তবে ক্যামেরার বিস্তার ছিলোনা আর ছবি আপ করতেও অনেক সময় লেগে যেতো। ভালো লাগলো জুয়ায়েদ আপনার মন্তব্য পড়ে।

৬| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৩

কালীদাস বলেছেন: আরেকবার আসলাম সিম্বিয়ানের কথা শুনে। সিম্বিয়ানের এতটাই রমরমা দশা ছিল, কেউ ভুলেও ভাবেনি এভাবে হারিয়ে যাবে। এন৭৩ এমই ইউজ করতাম, ঐ সেটের কিছু অপশন এখনও মিস করি। অপ্রসাঙ্গিক একটা কমেন্ট করি, নোকিয়া অতি লোভ করতে যেয়ে সব হারিয়েছে। মিড টু হাই রেন্জের সেটগুলো খুবই ভাল ছিল, স্যামসাং বা এলজি পাত্তাও পেত না তখন। লোপ্রাইসের ইন্ডিয়ান সাবকন্টিনেন্টের মার্কেটে বেশি মনোযোগ দিয়ে আসল মার্কেট পুরোটাই খুইয়েছে এন্ড্রোয়েডের কাছে।

এন্টিভাইরাসের কথায় আরেকটা জিনিষ মনে পড়ে গেল। আমি তখনও এভাস্টে আসিনি, ম্যাকাফি নামে দুনিয়ার খাটাশ এক এন্টিভাইরাস ইউজ করি। আপডেট ফাইল নামাতাম ইউনিতে, সন্ধ্যায় বাসায় এসে ইনস্টল করতাম।

সবকিছুর পরেও, অনলাইনে নিজের নাম/ঠিকানা/মেইল এড্রেস দেখতে পাওয়ার অনুভূতি আসলেই অন্যরকম ছিল। সহমত :)

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৮

নাহিদ০৯ বলেছেন: স্যামসাং এর কিছু ইলেকট্রোনিক্স প্রোডাক্ট এর নাম ছিলো শুধু। এটার যে ফোন ও হবে এটা জানতো না আমজনতা। আর অন্যান্য এলজি, মটোরোলা খুব কম মানুষ ই ইউজ করতো। নোকিয়া তার বাজার খোয়ানোতে অনেক নোকিয়া ফ্যান ই আহত হয়েছে। এখন এন্ড্রয়েড কে লো প্রাইসে নিয়ে এসে বাজারে টিকে থাকার চেষ্টা করছে। কিন্তু মনে হয়না খুব সফল হবে।

আমি নিজে এখনো মাইক্রোসফট এর লুমিয়া ফোন চালাই। সামর্থ্য থাকলেও শুধু কোয়ালিটি এর কথা ভেবে কোন এন্ড্রয়েড ই কিনিনি। দেখি আইফোন ট্রাই করবো একবার।

নিজের নামে অনলাইনে একাউন্ট থাকার ব্যাপার টা একটা ক্রেজ ছিলো। এই তো সেদিন একজন বললো ভাইয়া আপনার ফেসবুক নাম টা কি? আমি তো ফেসবুক ইউজ করিনা। জানিয়ে দিলাম গুগল এ সার্চ দিও পেয়ে যাবে ইনশাল্লাহ্।

৭| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৭

যোখার সারনায়েভ বলেছেন: নেট চালানো শুরু করি ২০১০ এ। তাই আগের অনুভূতি বলতে পারছিনা।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৫

নাহিদ০৯ বলেছেন: ২০১০ এ তখন বাংলা বেশ কিছু ব্লগ এর নাম চারিদিকে ছড়িয়ে ছিলো। টেকটিউন্স, প্রথম আলো ব্লগ, ২০১০ এ এসে আমি প্রথম উইকিপিডিয়ায় সম্পাদনা শুরু করেছিলাম।

৮| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: আসলে আমরা অতীত ভুলে যাই। অতীত মনে রাখা দরকার।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৬

নাহিদ০৯ বলেছেন: ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

৯| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪০

ডার্ক ম্যান বলেছেন: প্রযুক্তির ব্যাপারে বরাবরই আমি পিছিয়ে । প্রথম থ্রি জি ইউজ করা শুরু করি ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে আমার বড় ভাইয়ের বদান্যতায় । অথচ আমার দোকানের লেবারও থ্রি জি ইউজ করতো ২০১৪ সালে ।থাকে ।
সরকার কেন থ্রি / ফোর জি বন্ধ করে আমার বোধগম্য হয় না ।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৪

নাহিদ০৯ বলেছেন: ২০১৬ তে তো মনে হয় ফোরজি চলে আসছিলো না ?? মনে পড়ছে না খুব। তবে ২০১৩ তে কেনা ম্যাক্সিমাস এর একটা লো বাজেট সে ছিলো আমার প্রথম থ্রিজি এক্সপেরিয়েন্স এর সেট।

থ্রি জি / ফোর জি ইন্টারনেট ভিডিও প্রচারনার জন্য ব্যবহার করা হতে পারে বিধায় এটা বন্ধ করা হয়েছে। এটা নির্বাচন কমিশনের হুকুমেই করা হয়েছে।

১০| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০০

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: কালিদাস দা'র সিম্বিয়ানের কথা শুনে আমার ৬২২০ ক্লাসিক সেট'টার কথা মনে পড়ছে। র‍্যাম সম্ভবত ১২৮ এমবি ছিলো। কিন্তু চমৎকার সার্ভিস দিতো।
সফটওয়্যার ডাউনলোড দিয়ে ভিডিও এডিট করতাম। মাঝেমধ্যে হ্যাং করে বসে থাকতো।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১১

নাহিদ০৯ বলেছেন: ৬২২০ এর ক্যামেরা টা বেশ ভালো ছিলো। সেটা টা কম চলেছে, কিন্তু বেশ সহনশীল ছিলো। নোকিয়া ঘরানার সব সেট ই প্রায় এক জাতের ছিলো সে সময়।

১১| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৩

দার্শনিক ইমরান বলেছেন: 2G আমলে প্রথম যেদিন ইন্টারনেট চালানোর ট্রাই করছিলাম সেদিন আম্মুর মোবাইল থেকে সে সময়ের ৩০০ টাকা গায়েব করে দিয়েছিলাম। তারপর সেটা চেপে রাখতে কত রকম ফন্দী-ফিকির ই না করতে হয়েছিলো। :D

এখন সেসব তো ইতিহাস।

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৮

নাহিদ০৯ বলেছেন: হা হা হা !! টাকা খেয়ে দেয়ার ঘটনা কি সবার ই কমন নাকি?

তখনকার পে পার ইউজ পলিসি টা ছিলো ঘোলাটে ধরনের। আমরাও জানতাম না ব্যাকেন্ড এ কত কত আপডেট এমনি চলে। ২ মেগাবাইট এমপিথ্রি ফাইল নামাতে যে ২ মেগাবাইট যথেস্ট ছিলো না এটা জানতে জানতেই টাকা ফুড়ুৎ।

ধন্যবাদ দার্শনিক আপনার মন্তব্যের জন্য।

১২| ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৯

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:



আহা কি দিন ছিল্ল । মোবাইলে জায়গা কম থাকার কারলে গান কনভার্ট করা ।

ইয়াহু চ্যাট, নিমবাজ, মিগ৩৩, ওয়াপট্রিক, সব কিছু ছিল স্বপ্নের মত ।

জিপি এক দিনের ইন্টারনেট । সব তখন ভাল লাগত ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.