নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ › বিস্তারিত পোস্টঃ

করোনা ভাইরাস নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৪২


ব্লগার চাঁদগাজী বলেছেন ঢাকায় করোনা ভাইরাস আক্রমণ করলে উহা আমাদের শরীরে ঢুকে মারা যাবে। মজা করে বললেও এটা একেবারেই ভুল কথা। আমাদের দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হলে মানুষের মৃত্যুর শঙ্কা অনেক বেশি থাকবে। করোনা ভাইরাসের সমস্যা হচ্ছে এটা মানুষের শরীরে প্রবেশ করার পর ১-১৪ দিন সময় নেয় সে মানুষের মধ্যে উপসর্গ দেখা দিতে। আর এই সময়ে আক্রান্ত মানুষের সংস্পর্শে যারা আসবে তাদের মধ্যে এই ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে।
করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে স্বাভাবিক জ্বর, সর্দি, শুকনো কাশি এবং হালকা মাথা ব্যথা ও শরীর ব্যথা করবে। এরপরে ফুসফুস, কিডনিতে আক্রমণ করার কারণে শ্বাসকষ্ট শুরু হবে এবং এক দুই সপ্তাহের মধ্যেই ফুসফুস ও কিডনি নষ্ট করে দেবে। যার ফলশ্রুতিতে ভাইরাসের বাহক মারা পড়বে। তবে যাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি তারা বেঁচে যাবে। ঢাকা শহরের ২০ ভাগ মানুষের কিডনি ও ফুসফুসের কোন না কোন সমস্যা আছে। যাদের কিডনি ও ফুসফুসের পুরনো সমস্যা আছে তাদের ক্ষেত্রে বেঁচে থাকার সম্ভাবনা অন্যদের তুলনায় অবশ্যই কম থাকবে। আর এজন্যই করোনা ভাইরাস ঢাকাবাসীর শরীরে প্রবেশ করলে মৃতের সংখ্যা অন্য দেশের তুলনায় বেশিই হবে।

করোনা ভাইরাস সর্বপ্রথম ষাটের দশকে ধরা পড়ে, তখন দেখা গিয়েছিল ভাইরাসটি হাঁস-মুরগি, সামুদ্রিক মাছ ও বন্য প্রাণীদের মধ্যে বসবাস করে। পচা মাছ-মাংস, অর্ধসিদ্ধ খাবার ও বন্যপ্রাণী খাওয়ার ব্যাপারে চীনারা বেশ এগিয়ে। চীনে শিয়াল, কুকুর, নেকড়ে, সাপ, ইঁদুর, সজারু, ময়ূর, বন্য উটের মাংস অনলাইনে অর্ডার করে পাওয়া যায়। এসব হাবিজাবি খাবার থেকে এই ভাইরাসটি ছড়িয়েছে চিনে। এখন পর্যন্ত ১০৭জনের মত প্রাণ হারিয়েছে আর ৪৮০০ জনের মত আক্রান্ত হয়ে আছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে চীনা সরকার সঠিক হিসেব দিচ্ছে না, আক্রান্তের সংখ্যা ৯০হাজার ছাড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। যাইহোক চীনারা যে দ্রুততার সাথে কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছে, প্রথম আক্রান্ত ও উৎস দেশ হিসেবে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা আনুপাতিক হারে অনেক কম। সে হিসেবে আমাদের এখানে আক্রান্ত হয়ে গেলে আমাদের প্রস্তুতি কেমন! এখানে সাধারণ মানুষের জন্য স্বাস্থ্য সুবিধার যে অবস্থা রোগটি খুব দ্রুত মহামারী আকার ধারন করবে।

ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়ার কারণে আপাতত সর্তকতা অবলম্বন করা ছাড়া বেশি কিছু করার নেই।
●বাইরে বের হওয়ার সময় মুখে মাস্ক জাতীয় কিছু পড়ে নিতে হবে।
●বাইরে থেকে আসার পর হাত-মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে পানি দিয়ে।
●ঘন ঘন পানি পান করতে হবে।
●আক্রান্ত রোগী থেকে যথাসম্ভব দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
●বন্যপ্রাণী, মাছ-মাংস খেতে হলে যথেষ্ট পরিমাণ সিদ্ধ করে খেতে হবে।
● চীন ও আমেরিকা থেকে ভ্যাকসিন কেনার জন্য ফান্ড রেডি রাখতে হবে।
● যারা ইহুদী-নাসারাদের ভ্যাকসিন ব্যবহার করবেন না, তারা শফি হুজুর ও আজহারী সাহেবের কাছ থেকে রোগ মুক্তির দোয়া শিখে রাখতে পারেন।

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: করোনা ভাইরাস আমাদের করুনা করবে। আসবে না আমাদের দেশে।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৪

নূর আলম হিরণ বলেছেন: না আসার সম্ভাবনা কম, আসার সম্ভাবনা বেশি।

২| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫২

একাল-সেকাল বলেছেন: সাবধানতা অবলম্বন করার কথা হাদীসে বর্ণিত হয়েছে। ছোঁয়াচে রোগীর সংস্পর্শে আসতে নিষেধ করা হয়েছে।
.
মহানবী ﷺ বলেছেন,
((لَا يُورِدَنَّ مُمْرِضٌ عَلَى مُصِحٍّ))।
“চর্মরোগাক্রান্ত উটের মালিক যেন সুস্থ উট দলে তার উট না নিয়ে যায়।” (বুখারী ৫৭৭১, মুসলিম ৫৯২২নং)
.
মহামারীগ্রস্ত দেশ বা শহরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।
মহানবী ﷺ বলেছেন,
((إِذَا سَمِعْتُمْ بِالطَّاعُونِ بِأَرْضٍ فَلَا تَدْخُلُوهَا وَإِذَا وَقَعَ بِأَرْضٍ وَأَنْتُمْ بِهَا فَلَا تَخْرُجُوا مِنْهَا))।
“কোন স্থানে প্লেগরোগ চলছে শুনলে সেখানে প্রবেশ করো না। আর সেখানে তোমাদের থাকাকালে তা শুরু হলে সেখান হতে বের হয়ে যেয়ো না।” (বুখারী ৫৭২৮, মুসলিম ৫৯০৫-৫৯০৬নং

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪৬

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আমাদের নবী অনেক ভালো ভালো কথা বলেছেন, উনি অনেক বিজ্ঞানী থেকে ভালো বুঝতেন।

৩| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি বলেছেন, ঢাকার মানুষের শতকরা ২০ জনের মতো কিডনী সমস্যা ও ফুসফুস সমস্যায় ভুগছে, এগুলোর মাঝে যদি করোনা আসে, অবস্হা হবে ভয়ংকর। আমার কৌতুক ঢাকাবাসীকে কোনভাবে সাহায্য করবে না।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: করোনা ভাইরাসের মূল লক্ষ্য থাকে ফুসফুস ও কিডনি, সে হিসেবে ঢাকার মানুষের জন্য খুবই ভয়ংকর অবস্থা হবে এই ভাইরাস আক্রমন করলে। ঢাকাবাসীকে স্বয়ং মেয়র ও আল্লাহও সাহায্য করেনা।

৪| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩৩

ঢাবিয়ান বলেছেন: চায়নার সাথে উড়োজাহাজ যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়া হোক । অনেক দেশই সেটা করছে। আপাতত এ ছাড়া করনীয় কিছু নাই।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৪

নূর আলম হিরণ বলেছেন: মোটামুটি ১৩টি দেশে এখন পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছে। আমার ধারনা ঢাকাতেও এই ভাইরাস ঢুকে গেছে।

৫| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫৯

একাল-সেকাল বলেছেন:
আমাদের নবী অনেক ভালো ভালো কথা বলেছেন, উনি অনেক বিজ্ঞানী থেকে ভালো বুঝতেন। দেড় হাজার বছর আগে নবীর দেয়া পরামর্শ নিয়েই আমরা ব্লগ মাতাচ্ছি, সরকারকে পরামর্শ দিচ্ছি, চীন ও অন্যান্য বিজ্ঞান সমৃদ্ধ দেশ তাই করছে ।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২৭

নূর আলম হিরণ বলেছেন: হ্যাঁ, এই ব্যাপার গুলো আমাদের নবীই প্রথম বলেছেন।

৬| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০৯

ঢাবিয়ান বলেছেন: ঢাকাতে এখনো করোনা ভাইরাস ধরা পড়েনি। সিঙ্গাপুরে সাতটা কেস কনফার্ম হয়েছে।সিঙ্গাপুর সরকার হুবান প্রদেশ থেকে আসা সকল চাইনিজ টূরিস্ট ও সিঙ্গাপুরিয়ানদের কোয়ারেন্টাইন করেছে। আর আজ থেকে হুবান প্রদেশের সাথে সকল যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২৯

নূর আলম হিরণ বলেছেন: বাংলাদেশ থেকে চীনের সাথে প্রতিদিন সরাসরি তিনটি ফ্লাইট হয় এগুলো এখনো বন্ধ করা হয়নি। হ্যাঁ, বাংলাদেশে এখনো কোন আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। শেষমেষ নেওয়া পাওয়া গেলেই ভালো।

৭| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
শেষের পরামর্শটা বেশি ফলদায়ক হবে বলেই মনে হচ্ছে।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:১০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: শেষেরটা অনেকের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ, অথচ আমাদের মিডিয়াঃ সেটা বলছে না।

৮| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:০১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সরকার আগাম প্রস্তুতি নিবে এবং জনগণ সচেতন থাকবে। দায়িত্ববান লোক দায়িত্বজ্ঞানহীন কথা কম বলে ,কাজ বেশী করবে আশা করি। আগে ডেঙ্গু নিয়ে অনেক হাসি মজার কথা শুনেছি। কিন্তু মানুষও মরেছে।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৪৫

নূর আলম হিরণ বলেছেন: সরকার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে যে দেশের মানুষ মাইকে ফুঁ দেওয়া পানি পড়া নিয়ে রোগ মুক্তির চেষ্টা করে তারা কতটুকু সচেতন হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

৯| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৩৭

এস এম মামুন অর রশীদ বলেছেন: Rajib Noor and Chandgazi are two persons who would comment on anything and everything and make uninformed opinions even on serious topics that require much sensitivity and critical attention. It's better to discard them in thediscussion of important topics. Living in the fools' paradise doesn't help.

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৪৬

নূর আলম হিরণ বলেছেন: তবে তাদের কমেন্ট মাঝে মাঝে আমি খুব উপভোগ করি :)

১০| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:৩৯

জাহিদ হাসান বলেছেন: করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ভয়াবহ অবনতির দিকে যাচ্ছে !

চীনের সাথে সরাসরি ফ্লাইট বন্ধ করা হোক।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:৫২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: চীনাদের এ দেশে যে পরিমাণ আগমন, তাদের সাথে যে পরিমাণ বিজনেস এবং যে পরিমাণ প্রজেক্টে তারা এদেশে কাজ করছে এতে ফ্লাইট একেবারে বন্ধ করলে অনেকগুলি সমস্যা সৃষ্টি হবে। তারপরেও জনস্বার্থে ফ্লাইট বন্ধ করা হোক।

১১| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:২০

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: না আসার সম্ভাবনা কম, আসার সম্ভাবনা বেশি।

আমরা রোগটাকে ভয় পাচ্ছি। অথচ দূর্নীতি, ঘুষ, চুরী, ডাকাতিকে ভয় পাচ্ছি না।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:৩১

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ভাইরাসকে ভয় পাওয়া স্বাভাবিক, অদৃশ্য শত্রুর সাথে মোকাবেলা করার মত শক্তি সামর্থ্য আমাদের কম।

১২| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১১:০০

নতুন বলেছেন: ভাইরাস অবশ্যই আমাদের দেশে আসবে।

কিন্তু বেশি সমস্যা করবে বলে মনে হয় না।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:২২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: তাই যেন হয়। এই নগরের সমস্যার এমনিতেই অন্ত নেই।

১৩| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১১:০২

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:


করোনা নিয়ে ভয় নয়। সাহসিকতার সাথে মোকাবেলা করা প্রয়োজন

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:২৬

নূর আলম হিরণ বলেছেন: হ্যাঁ, সচেতনতার বিকল্প নেই।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.