নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাধারণ একজন মানুষ। বলার মতো বিশেষ কিছু নেই। মনের ভাবনাগুলো তুলে ধরতে চাই। ভালো লাগে কবিতা, লিখা-লিখি আর ছবি তোলা, এইতো! https://bhuiyan.us/

ইফতেখার ভূইয়া

গণতন্ত্র মুক্তি পাক, পরিবারতন্ত্র নিপাত যাক

ইফতেখার ভূইয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

সবকিছু ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ৯:৩৮

করোনা শুরু হওয়ার পর থেকে কিছুটা আতঙ্ক মনে কাজ করলেও বাসায় বসে থাকার সময়গুলো কম-বেশী উপভোগ করেছি। যদিও আমাদের এলাকায় মৃত্যুর দীর্ঘ সারি দেখে মাঝে মাঝে ঘাবড়ে যেতাম। তবুও দীর্ঘদিন ধরে কাজ পড়াশোনা করতে করতে কিছুটা বিরক্তি চলে এসেছিলো। একটা লম্বা কর্ম-বিরতির ইচ্ছে থাকলেও নানা কারনে সেটা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। অবশেষে করোনার কারণে, প্রকাশনীর মতো বিলাসী প্রজেক্ট ব্যক্তিগত উদ্যোগে শুরু করতে পেরেছি। কিছু ব্যবসায়িক ধারনা মাথায় আসায় সেগুলো নিয়েও কাজ করছি। এক প্রকার ব্যক্তিগত ব্যস্ততায় ভালোই কেটেছে প্রথম ক'টা মাস। আর্থিক কোন সিরিয়াস ধরনের সংকটে না পড়ায়, ততটা খারাপ কাটেনি রাব্বুল আলামিনের দয়ায়। তবে বছরের মাঝামাঝি চলে যাওয়ার পর থেকে কিছুটা বিরক্তি আসতে শুরু করেছে।

মনে হচ্ছে জীবন থেমে গেছে। মনে হচ্ছে কাজে ফিরে যাওয়া উচিত, কিন্তু কাজ কোথায়?! সবতো বন্ধ, আমার পরিচিত কম-বেশী অনেকেই বাসায় থেকে কাজ করছে। আমার মন টানেনি। আমি আরো অনেক আগে থেকেই ভার্চুয়াল ভাবে বাসা থেকে কাজ করে অভ্যস্ত। কাজের ধরনের জন্য হয়তো আমার সুবিধেটা একটু বেশী। তবুও ইচ্ছে করেই, কোন নতুন চাকুরীতে এ্যাপ্লাই করিনি। গত সপ্তাহে মনে হয়েছে আর এভাবে বসে থাকার মানে নেই। কোন একটা কাজে যোগ দেয়া প্রয়োজন। যেই ভাবা, সেই কাজ।

গত সপ্তাহে কয়েকটা সাইটে রেসিউমি আপডেট করে জমা দেয়ার পর থেকেই ফোন আসা শুরু করেছে। প্রায় প্রতিদিনই, কম বেশী ফোন আসে, কিন্তু অপরিচিত নাম্বার হলে আমি সাধারণত কল রিসিভ করিনা। আজ দুপুরের লাঞ্চ করতে যাওয়ার আগেই ক্যালেফোর্নিয়া থেকে কল এলো। রিসিভ করতেই মেয়েলি কন্ঠস্বর, জানতে চাইলো এটা আমার নাম্বার কি না! বললাম হ্যাঁ। কিছু কথা হতেই বুঝতে পারলাম, তারা অনলাইনে আমার রেসিউমি দেখে আমাকে কল করেছে। জানতে চাচ্ছে আমি কাজ করতে আগ্রহী কিনা! মন চাইছিলো না "হ্যাঁ" বলি, অনেকটা মুখ ফসকে বলেই ফেললাম, "নির্ভর করছে আপনারা কত বেতন দিতে চাচ্ছেন তার উপর"। এরপর কথা যতটুকু এগুলো তাতে আর না করতে পারিনি।

সবকিছু বিবেচনায় অফারটা বেশ ভালো মনে হয়ছে। যেটাতে সবচেয়ে বেশী অবাক হয়েছি সেটা হলো, তারা বলছে এই জব পজিশনটা সব সময়ই "রিমোট" পজিশন থাকবে, তাই করোনা কোন ইস্যু নয়। ব্যাপারটা বুঝতে দেরী হয়তো হয় নি, কিন্তু এই প্রথম কোন জব অফার পেলাম যেখানে কোনদিনও অফিস যেতে হবে না। কোনদিনও অফিস কলিগদের সাথে কোন রেস্তোরায় গিয়ে এক সাথে লাঞ্চ করতে হবে না। কোনদিনও ক্রিসমাাসের আগে হলিডে উপলক্ষ্যে বা কোন কলিগের বার্থ ডে পার্টিতে যেতে হবে না। অথচ আমি এগুলোতেই বেশ ভালোভাবে অভ্যস্ত। আরো বেশ কিছু জবের অফার নিয়ে চিঠি চালাচালি হচ্ছে, সবগুলোই নিউ ইয়র্কে এবং সবগুলোতেই আপাতত রিমোট কিন্তু সবকিছু ঠিকঠাক হলে পরে অফিসে গিয়ে কাজ করতে হবে। আমি এমনটাই চাচ্ছিলাম। ভাবছি, করোনা কিভাবে আমাদের অস্বাভাবিক প্রফেশনাল লাইফকে স্বাভাবিক বানিয়ে দিলো!

সবকিছু কেমন যেন ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে! তাহলে কি এখন থেকেই এই অস্বাভাবিকতা নতুন স্বাভাবিকতায় রূপ নেবে? আমিতো দিন শেষে আবারো অফিসে যেতে চাই, আবারো অফিস শেষে আড্ডা কিংবা কোন পার্টিতে যেতে চাই। তার কি হবে?!

মন্তব্য ২০ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২২

আমি সাজিদ বলেছেন: ইফতেখার ভাইয়া, মনে হয় না অফিসের পর আড্ডা আর পার্টির আশা আপনার সামনের তিন মাস পূরণ হবে। এরপরেও মনে হয় অফিসগুলো ভার্চুয়ালি অপারেট করবে কিছুটা, ভ্যাক্সিনের পরেও।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:০৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আমারও তাই ধারনা। ইনফ্যাক্ট ব্যক্তিগতভাবে আমার মনে হয় না ২০২১-এও এটা স্বাভাবিক হবে না। তাছাড়া আগামী দু'একবছরের মধ্যে বা তার কিছু পরে করোনা পরিবর্তিত হয়ে কোন নতুন ভাইরাস হিসেবে আর্বিভূত হলেও অবাক হবো না।

২| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৬

শেরজা তপন বলেছেন: অবস্থা সবারই কমবেশী একরকম। আমরা সবাই প্রত্যাশা করছি আগের মত সেই স্বাভাবিক দিনগুলোর জন্য।
না হলে একসুরে গাইব, আগে কি সুন্দর দিন কাটাতাম! :)

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১১

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: অবস্থা বেশ সঙ্গীন মনে হচ্ছে। বিশেষ করে দরিদ্র এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর আগামী দিনগুলো নিয়ে আমি বেশ চিন্তিত। মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৩| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:৪১

মরুর ধুলি বলেছেন: করোনা পৃথিবীর সবকিছু উলট পালট করে দিয়েছে। জীবনে এনেছে ভিন্নরকম অনুভূতি।
এভাবে ধীরে ধীরে অভ্যস্ত হয়ে গেলে মন্দ হবে না। আপনার একান্ত ভাবনা খুব ভাল লাগল।
বর্তমানে করোনা পজিটিভ হয়ে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছি। দোয়া করবেন। ধন্যবাদ।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: মরুর ধুলি-তেও করোনা! ঐ একটা জায়গা-ই সম্ভবতো বাকি ছিলো! এভাবে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়াটা মোটেও স্বাভাবিক নয়। এর প্রতিক্রিয়া বেশ ভয়াবহ হবে বলে আমার ধারনা, বিশেষ করে, সামাজিক এবং ব্যক্তিগতভাবে মানসিক। পর্যান্ত বিশ্রামে থাকুন, লেবু পানি খেতে থাকুন যতটা সম্ভব। দোয়া করি, রাব্বুল আলামিন মরুভূমিতেও একটু বৃষ্টি দিয়ে মা-বাবার কলিজা ঠান্ডা করে দিন। B-)

৪| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১৫

বিএম বরকতউল্লাহ বলেছেন: নিশ্চই স্বাভাবিক হয়ে আসবে। আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।
ধন্যবাদ।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:২৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আপনি বিচক্ষণ এবং জ্ঞাণী মানুষ, তাই প্রকৃত সত্য অনুধাবন করতে পেরেছেন। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ধৈর্য্য ধারণ করা অনেক বড় একটা মানবিক গুণ হলেও সেটা বেশীরভাগ মানুষের মধ্যেই নেই। আমার আশে-পাশে কয়েকজেনর কথা-বার্তা আর তাদের আর্থিক হা-হুতাশ দেখে মনে মনে করোনার যথাযর্থ প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করতে পারি। বেঁচে আছি সেটা নিয়ে কোন সান্ত্বনাতো নেই-ই বরং তাদের লোভ-লালসার মাত্রা মনে হয় আরো বেড়ে গেছে। এটা পেলাম না, ওটা খেলাম না... এদের থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করি। তাদের সাথে কথা-বার্তার পরিমাণও কমিয়ে দিয়েছি, বলতে পারেন অনেকটা এড়িয়ে চলছি এই ধরনের লোকজনদের।

৫| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:১৭

শাহ আজিজ বলেছেন: দিন দুই আগে থেকে যেভাবে ভ্যাক্সিন প্রচারনা শুরু হয়েছে তাতে আশা জেগেছে কিছু । মুশকিল হচ্ছে বাকি জীবন মনে হয় ভ্যাক্সিনের ওপর চলবে । আমি খুজছিলাম এই ভ্যাক্সিন কতদিন প্রতিরোধ করবে ? কাল রাতে আলাপ শুনছি বিদেশি মিডিয়ায় - ১ বছর এবং দেখতে হবে কদ্দিন চলে । অর্থাৎ রিস্ক রয়ে যাচ্ছে । যাহোক বছরওয়ারি ভাক্সিনে যদি ঘুরাঘুরি , আড্ডা , প্রেম , চুমু চলে তো মন্দ কি ? ভাইরাস ছড়ানো চীনের ভ্যাক্সিন বর্জন করছি । শি আর ট্র্যাম্পের হিসাব কিতাবে কিছু ভুল ছিল । চীন তার মার্কেট ইকনমিতে ধরা খেয়ে গেল । চীনের বিলিয়ন ডলারের টুরিস্ট আয়োজন নেতিয়ে গেছে । আমেরিকার মাইক্রোসফট গ্রীসে ডাটা বেজ সেন্টার করছে , জায়গাও পেয়েছে দেখলাম ।

ভাল থাকুন ভুইয়া সাব ।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৩১

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: মানুষের পক্ষে কখনোই সকল অসুখ-বিসুখ থেকে পুরোপুরি নিস্তার পাওয়া সম্ভব হবে না, এটা একটা প্রকৃতির একটা সমীকরণ। ভ্যাক্সিন খুব বেশীদিন কাজে আসবে না, কয়েক বছরের মধ্যেই করোনা নতুন ভাবে ফিরে আসবে। শি আর ট্রাম্প প্রকৃত অর্থে একই গোয়ালের গরু, জাত ভিন্ন, কিন্তু এরা কেউই মানুষের জন্য রাজনীতি করে না। ধন্যবাদ।

৬| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ১১:৪৮

কবিতা পড়ার প্রহর বলেছেন: লকডাউনে ঘরে বসে থেকেও অনেক কাজ হলো। বিশেষ করে বাগান বিলাসী মানুষদের জন্য এটা দরকারী ছিলো।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:২৮

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: বেশ ভালো বলেছেন। ধন্যবাদ।

৭| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:১০

গফুর ভাই বলেছেন: ভার্চুয়াল অফিস অনেক কস্ট কাটিং করে যেমন অফিস রুম ভাড়া, পিওন, ইত্যাদি।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:২৮

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: সেটা হয়তো সত্য, কিন্তু একটা সুস্থ সমাজের জন্য, স্বাভাবিক জীবনের জন্য অফিস প্রয়োজন।

৮| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১২:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি ভাগ্যবান আপনি অফার পাচ্ছেন এই অসময়ে।
সত্য কথা হলো- করোনার থাবায় সারা বিশ্ব তছনছ হয়ে গেছে।

২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:৪৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আসলে ব্যক্তিগত জীবনে ভাগ্য আর দুর্ভাগ্য নিয়ে হিসেব করার মতো মানসিক স্থিতিতে আমি নেই। সে সময়টা হয়তো আমার চলে গিয়েছে। বিগত দু'টো বছর আমার জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময় ছিলো। আর এই সময় আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে, বুঝিয়েছে। শুধু বলবো, এক জীবনে খুব বেশী পাওয়ার প্রত্যাশা করাটা বোকামি, দেয়ার চেষ্টা করা উচিত সর্বোচ্চ।

এই যে এখনোও বুক ভরে নিঃশ্বাস নিতে পারছি, শুধু সে জন্যেই মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে জানাই অসীম আর অকৃত্তিম কৃতজ্ঞতা। যা কিছু পেয়েছি, যা কিছু তিনি দিয়েছেন, বাবা-মা, ভাই-বোন, সন্তান, সংসার, স্বাস্থ্য, সুখ-দুঃখ সবকিছুর জন্য নত মস্তকে দু'হাত জোড় করে তাকেই ধন্যবাদ জানাই। অকুন্ঠ চিত্তে, কোন একদিন, কোন এক সিজদায়, বন্দনারত হয়ে প্রস্থান করতে চাই এটাই আমার শেষ প্রার্থনা।

বিশ্বাস রাখুন, ধৈর্য্য রাখুন, পরিবর্তন আসবেই।

৯| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ বিকাল ৩:০২

মুরাদ বেগ বলেছেন: করোনার থাবায় সবাই এখন ক্লান্ত!

২৫ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ৭:৪৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: ক্লান্ত মনে হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবুও আমাদের এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে যেতে হবে।

১০| ২৪ শে নভেম্বর, ২০২০ বিকাল ৩:২১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সব কিছু ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে না হয়ে গিয়েছে । করোনা আরো এগিয়ে দিয়েছে

২৫ শে নভেম্বর, ২০২০ সকাল ৭:৪৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: সঠিক বলেছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.