নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাধারণ একজন মানুষ। বলার মতো বিশেষ কিছু নেই। মনের ভাবনাগুলো তুলে ধরতে চাই। ভালো লাগে কবিতা, লিখা-লিখি আর ছবি তোলা, এইতো! https://bhuiyan.us/

ইফতেখার ভূইয়া

গণতন্ত্র মুক্তি পাক, পরিবারতন্ত্র নিপাত যাক

ইফতেখার ভূইয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

উইন্ডোজ ১১ আসছে - আপনার কম্পিউটার কি প্রস্তুত?

১৪ ই জুলাই, ২০২১ ভোর ৫:০০


মাইক্রোসফট অতি সম্প্রতি (২৪শে জুন, ২০২১) ঘোষণা দিয়েছে যে, এ বছরের শেষ নাগাদ তাদের নতুন ডেস্কটপ অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১১ বাজারে আসবে। কোম্পানীটি ইতোমধ্যেই এই ওএসটির ইনসাইডার প্রিভিউ বিল্ড ডেভেলপারদের জন্য রিলিজ করেছে। এটি মূলত ডেভেলপারদের জন্য রিলিজ করা হয়েছে ওএস-টি ট্রাই আউট করার জন্য এবং তাদের মতামতের জন্য। আমার মতো যারা এই প্রোগ্রামের অর্ন্তগত তারা ইতোমধ্যেই মাইক্রোসফট থেকে এসংক্রান্ত ইমেল পাওয়ার কথা। মূল কথা হলো এই রিলিজটি সর্বসাধারণের দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য নয়। যদিও ওএস-টি সম্পর্কে আমার ব্যক্তিগত মতামত বেশ পজিটিভ তবুও কিছু বিষয় সর্বসাধারণের জন্য তুলে ধরা আবশ্যক বলে মনে করছি।

১। মাইক্রোসফট এই অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারের জন্য যে ধরনের নূন্যতম হার্ডওয়্যার কনফিগারেশন ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়েছে, তা নিয়ে প্রযুক্তি মহলে রীতিমত হৈ চৈ বা সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে। আসুন প্রথমে দেখে নিই তাদের রিকয়ারমেন্টস্ (সূত্র)।

প্রসেসরঃ ৬৪ বিট এর ২ বা তার বেশী কোর সমৃদ্ধ ১ গিগাহার্টজ বা দ্রুতগতির হতে হবে
মেমরিঃ নূন্যতম ৪ গিগাবাইট
স্টোরেজঃ হার্ডড্রাইভের সাইজ ৬৪ গিগাবাইট বা তার বেশী হতে হবে
সিস্টেম ফার্মওয়্যারঃ ইউইএফআই, সিকিউর বুট সমৃদ্ধ
টিপিএমঃ ভার্সন ২.০
গ্রাফিক্স কার্ডঃ ডাইরেক্ট এক্স ১২ সাপোর্টেড হতে হবে

হৈ চৈ শুরু হওয়ার মূল কারণ হলো টিপিএম ২.০ বাধ্যতামূলক করা। টিপিএম কি এবং সেটা কিভাবে ব্যবহৃত হয় তা নিয়ে অনেক আগেই আমি একটা লিখা লিখেছিলাম, ওটা পড়ে দেখতে পারেন। মাইক্রোসফটের ভাষ্যমতে মূলত অপারেটিং সিস্টেমকে নিরাপদ রাখার জন্যই টিপিএমকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই মডিউলটি ছাড়া আপনি উইন্ডোজ ১১ ব্যবহার করতে পারবেন না।

২। লেজিটিমেট ইউন্ডোজ ১০ ব্যবহারকারীগণ পাবলিক রিলিজ হওয়ার পর উইন্ডোজ ১১-এ আপগ্রেড করতে পারবেন তবে সেক্ষেত্রেও টিপিএম ২.০ আপনার কম্পিউটারে থাকতে হবে। মাইক্রোসফটের প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী আপনি উইন্ডোজ ১০ এর হোম এবং প্রো ভার্সন অক্টোবর ১৪, ২০২৫ পর্যন্ত এর সাপোর্ট বা আপডেট পাবেন, এর পর উইন্ডোজ ১০ এর আর কোন আপডেট আসবে না। সেক্ষেত্রে হয় আপনাকে উইন্ডোজ ১০ থেকে ১১ থেকে আপগ্রেড করতে হবে নয়তো অনিরাপদ উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করতে হবে।

৩। প্রসেসরের ক্ষেত্রে মাইক্রোসফট ১ গিগাহার্টজ বা দ্রুত গতির প্রসেসর চাইলেও তা বর্তমানে ব্যবহৃত অনেক প্রসেসরকেই সাপোর্ট করবে না। উদাহরণ হিসেবে আপনি ইন্টেল এর ৪/৫/৬/৭ম জেনারেশনের প্রসেসরগুলোর কথা ধরতে পারেন। যদিও প্রসেসরগুলো ১ গিগাহার্টজের চেয়েও অনেক বেশী দ্রুত গতির তবু প্রসেসরগুলো খুব সম্ভবত নতুন উইন্ডোজ ১১ সাপোর্ট করবে না। মাইক্রোসফট এ সংক্রান্ত একটি তালিকাও সম্প্রতি প্রকাশ করেছে যেখানে উইন্ডোজ ১১ সাপোর্টেড হালের এএমডি, ইন্টেল এবং কোয়ালকম প্রসেসরগুলো তালিকা দেয়া হয়েছে। এখানেই আরো অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। বিশেষ করে এই তালিকা উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের বিশাল একটি জনগোষ্ঠীকে নাখোশ করে তুলেছে এই মর্মে যে তাদের প্রসেসর কিছুটা পুরোনো হওয়ায় তাদেরকে এক হিসেবে শাস্তি দেয়া হচ্ছে যদিও উইন্ডোজ ১০ অনেক পুরোনো প্রসেসরকেও সাপোর্ট করতো।

সাধারণ উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের এখানে কয়েকটি বিষয় মনে রাখা প্রয়োজন। যে প্রসেসরগুলো তালিকায় দেয়া হয়নি, সেগুলো দ্রুত গতির হলেও তাদের ব্যবহৃত চিপসেট এবং মাদারবোর্ড মূলত টিপিএম ২.০ ফিচার সাপোর্ট করে না (কিছু অবশ্য টিপিএম ১.২ সাপোর্ট করে কিন্তু ১.২ ভার্সনে কিছু নিরাপত্তা ত্রুটি থাকায় সেগুলো বাদ দেয়া হয়েছে)। কিছু কিছু ইন্টেল প্রসেসরে নিজস্ব টিপিএম প্রযুক্তি ব্যবহৃত হলেও তা ২.০ স্ট্যান্ডার্ডের নয় তাই সেই প্রসেসরগুলোকেও তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। কিন্তু সাধারণ ব্যবহারকারীগণ এই বিষয়গুলোতে ততটা খুশি হতে পারছেন না। তাই হালের নতুন কম্পিউটার ব্যবহার না করে থাকলে খুব সম্ভবত আপনিও আপাতত উইন্ডাজ ১১ ব্যবহার করতে পারবেন না।

মনে রাখা জরুরী যে, আপনার প্রসেসর (ইন্টেল বা এএমডি) যদি সিপিইউ নির্ভর টিপিএম ২.০ সাপোর্ট করে, সে ক্ষেত্রে আলাদাভাবে টিপিএম ২.০ মডিউল কেনার প্রয়োজন নেই। তবে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই বায়োস থেকে আপনার প্রসেসরের নিজস্ব টিপিএম (পিটিটি ইন্টেলের ক্ষেত্রে, এফটিপিএম এএমডির ক্ষেত্রে) প্রযুক্তি এনেবল বা চালু রাখতে হবে।

মাইক্রোফট ২০২১ উইন্ডোজ ইভেন্ট


ছবি কপিরাইটঃ ইউকিপিডিয়া

মন্তব্য ১৫ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৫) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ ভোর ৫:৫৭

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: আপডেট তথ্যর জন্য ধন্যবাদ,
.....................................................................
তাহলে বর্তমান অধিকাংশ উইন্ডোজ ব্যবহারকারী এই সুবিধা নিতে পারবে না ।
নুতন কম্পিউটার ক্রয়ের সময় এই দিকটি গুরুত্ব দিতে হবে ।

বাজারে এর কোন বিকল্প থাকবে কিনা ?
যা দিয়ে বর্তমান চলমান কম্পিউটার আপগ্রেট করা যাবে ?

১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ৭:২৪

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: জ্বী, বর্তমানে ব্যবহৃত অনেক উইন্ডোজ ১০ বেইজড কম্পিউটার-ই (মূলত বেশ পুরোনো মডেলের) উইন্ডোজ ১১ ব্যবহার করতে পারবে না। নতুন কম্পিউটার বিল্ডের ক্ষেত্রে প্রসেসর ক্রয়ের সময় বিষয়গুলো নিশ্চিত করতে হবে। আপাতত এর কোন বিকল্প দেখা যাচ্ছে না। তবে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ১১ পাবলিকলি রিলিজ করার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করা যেতে পারে যদি মাইক্রোসফট কোন কারণে ব্যবহারকারীদের উদ্বেগের বিষয়গুলো আমলে নিয়ে ফাইনাল রিলিজে বড় কোন পরবির্তন আনে, যদিও যে সম্ভাবনা প্রায় শূন্যের কোঠায় বলে আমি মনে করি। আপগ্রেড করার সম্ভবনাও ক্ষীণ। ধন্যবাদ।

২| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ৯:০৮

আমি নই বলেছেন: আশা করি আমার বিস্ট এ উইন্ডোজ ১১ কোনো সমস্যাই হবেনা।

কনফিগারেশন
https://valid.x86.fr/er8i7t

১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ৯:৩৪

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: লিখায় সাপোর্টেড প্রসেসর এর লিস্ট এর লিঙ্ক দেয়া আছে, ওখান থেকে চেক করে নিতে পারেন। ধন্যবাদ।

৩| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ৯:৪৭

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
শুনেছিলাম হার্ডওয়ার সাপোর্ট করলে রেজিষ্টার্ড উইন্ডোজ ১০ ব্যবহারকারিদের উইন্ডোজ ১১ অটো আপগ্রেড হবে।

১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ৯:৫৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: ভুল শুনেছেন, তবে ঐরকম চিন্তাটা মোটেও অস্বাভাবিক নয় কারণ বরাবরই ঐ রকমটাই হয়ে এসেছে (তবে অটো নয়)। শুভ কামনা থাকছে। ধন্যবাদ।

৪| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ১০:৪৮

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: অফিস দিলে তবেই পেতে পারি উইন্ডোজ ১১

ধন্যবাদ

১৪ ই জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:১৭

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: শুভ কামনা রইল।

৫| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ সকাল ১১:০৯

কবিতা ক্থ্য বলেছেন: ভাই,
আপনার পোস্ট সবসময়ই আমার জন্য উপকারী।
আবার ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

১৪ ই জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:১৭

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: সময় নিয়ে পড়ার আর মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৬| ১৪ ই জুলাই, ২০২১ দুপুর ১২:২৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর শেয়ারে ধন্যবাদ।

১৪ ই জুলাই, ২০২১ দুপুর ২:১৮

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: সময় নিয়ে পড়ার জন্য আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।

৭| ১৭ ই জুলাই, ২০২১ রাত ১:০১

মেহবুবা বলেছেন: আমার কন্যা বলছিল তাই জেনেছিলাম !

৮| ১৪ ই আগস্ট, ২০২১ সকাল ১০:১৮

দীপংকর চক্রবর্ত্তী বলেছেন: আমাকে কেউ পয়সা দিলেও এখন উইন্ডোজ ১১ আপডেট দিবো না।

১৫ ই আগস্ট, ২০২১ ভোর ৫:৫১

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: তেমনটা না হওয়ার সম্ভাবনাই শতভাগ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.