নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

রাসেল মেহেদী পারভেজ। পরিচিত হতে: web.facebook.com/rmparves

র ম পারভেজ

স্বপ্নময় পথিক। দেখা, শোনা ও জানাগুলিকে ব্লগের পাতায় রেখে যেতে চাই।

র ম পারভেজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

৬০ শহীদ নিয়ে ফিলিস্তিনিদের নাকবা দিবস পালন

১৬ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:২৭



ফিলিস্তিনিরা গতকাল মঙ্গলবার ৭০তম নাকবা দিবস পালন করেন। নাকবা আরবি শব্দ যার অর্থ দুর্যোগ। ১৯৪৮ সালের ১৪ মে স্বাধীন ইসরায়েল রাষ্ট্র ঘোষিত হয় আর ১৫ মে থেকে ফিলিস্তিনিরা গৃহহীন হওয়া শুরু করেন। তাই ফিলিস্তিনি অঞ্চল এবং অন্যত্র ১৫ মে তারিখকে নাকবা দিবস হিসেবে স্মরণ করা হয়। যদিও নাকবা আসলে আগে থেকেই শুরু হয় তবে মার্চ ১৯৪৮ থেকে ১৯৪৯ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত ৭,০০,০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি গৃহহীন হয়েছিল। যদিও উদ্বাস্তুদের সঠিক সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে তবে পরবর্তীতে গঠিত ইসরায়েলের ভূখন্ড থেকে ৮০% এর কাছাকাছি আরব বাসিন্দা এতে গৃহহীন হয়েছিল। ইহুদিদের সামরিক আগ্রাসন, আরব গ্রামগুলিতে হামলা, দেইর ইয়াসিন গণহত্যার মত আরেকটি গণহত্যার ভয়সহ বিভিন্ন কারণে এই ঘটনা ঘটেছিল। পরবর্তীতে ইসরায়েলের প্রথম সরকারের জারিকৃত আইনসমূহে বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিদেরকে ফিরতে বাঁধা দেয়া হয়। বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনি ও তাদের বংশধররা ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুতে পরিণত হয়। জাতিসংঘের সিদ্ধান্ত অনুসারে তাদের নিজ ভূমে ফেরার কথা থাকলেও তা বাস্তবায়িত হয়নি এবং ইতিমধ্যে কয়েক প্রজন্ম চলে গেছে।

এ বছর এমন সময় দিবসটি পালিত হচ্ছে যখন পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাস শহরে মার্কিন দূতাবাস উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত গাজায় ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর ইসরাইলি হামলায় অন্তত ৬০ জন শহীদ হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত দুই হাজার সাতশ' ফিলিস্তিনি। গত ৩০ মার্চ থেকে ফিলিস্তিনিরা নিজ ভূ-খন্ডে ফিরে যাওয়ার অধিকার বাস্তবায়নের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করেছে। ওই বিক্ষোভ শুরুর পর এ পর্যন্ত ইসরাইলি হামলায় ১০৯ জন ফিলিস্তিনি শাহাদাৎবরণ করেছেন।

মন্তব্য ১০ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৬ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:৩১

সোহাগ তানভীর সাকিব বলেছেন: যুদ্ধ নয় শান্তি চাই।

১৬ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৩

র ম পারভেজ বলেছেন: শুধু অামরা শান্তি চাইলেই তো হবে, অন্য কেউ যদি ঘাড়ের উপর এসে যুদ্ধ শুরু করে তখন যুদ্ধ না করা ছাড়া উপায় থাকে না।

২| ১৬ ই মে, ২০১৮ সকাল ১১:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: যুগ যুগ ধরে মুসলমানদের অনৈক্যের একটা উজ্জল দৃষ্টান্ত হয়ে আছে প্যালেস্টাইন সমস্যা

১৬ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৬

র ম পারভেজ বলেছেন: মুসলিম ভ্রাতৃত্ববোধ শুধু কথার মধ্যেই সীমাবদ্ধ। যাদেরকে আমরা ধর্মের কাস্টোডিয়ান হিসেবে ভাবি তাদের হাত-ই নিজ ভাইয়ের রক্তে রঞ্জিত।

৩| ১৬ ই মে, ২০১৮ সকাল ১১:২৫

অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: এ সমস্যার সমাধান কখনই হবেনা কারণ মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোর ঐক্য নেই ওখানকার রাজা বাদশারা শুধু ক্ষমতা আর কয়েকটি করে বিয়ের নেশায় বুদ হয়ে আছে। মাগী নেশায় এদের জ্ঞান কান্ড লোপ পেয়েছে এরা আর কিছুই করতে পারবেনা পক্ষান্তরে এরা ইজরাইলকেই সাপোর্ট করবে যাতে ক্ষামতা চলে না যায়!

১৬ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৯

র ম পারভেজ বলেছেন: সহমত!!!

৪| ১৬ ই মে, ২০১৮ দুপুর ২:৪১

suhanachowdhury007@gmail.com বলেছেন: এভাবে আর কত নিউজে দেখলাম ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভে ইসরায়েলি সেনাদের গুলি,নিহত ৫৫

১৬ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৫১

র ম পারভেজ বলেছেন: এরকম চলতেই থাকবে যত দিন না আমরা ঐক্যবদ্ধ হবো, জ্ঞান-বিজ্ঞানের চর্চা করবো, সভ্য হবো।

৫| ১৬ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: আল্লাহ তাদের সহায় হোন।

১৭ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:২৯

র ম পারভেজ বলেছেন: আমিন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.