নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ছিলাম বইয়ের পোকা, এখন ইন্টারনেটের ।

সাদা মনের মানুষ

বিশ্ব জোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র --নানা ভাবে নতুন জিনিস শিখছি দিবা রাত্র 'মুর্খরা সব শোন, মানুষ এনেছে গ্রন্থ, গ্রন্থ আনেনি মানুষ কোন'

সাদা মনের মানুষ › বিস্তারিত পোস্টঃ

মুর্শিদাবাদের কাটরা মসজিদ ও মুর্শিদকুলি খানের সমাধি

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:১৫


ইতিহাসকে ছুয়ে দেখার জন্য গিয়েছিলাম মুর্শিদাবাদে। বাংলার শেষ নবাব সিরাজউদ্দোলা, মীর জাফর, ঘষেটি বেগম তথা রাজনীতি, বিশ্বাসঘাতকতা, ক্ষমতার উত্থান-পতন সবই রয়েছে মুর্শিদাবাদের ইতিহাসে। এর মধ্যে অন্যতম মুর্শিদকুলি খান নির্মিত কাটরা মসজিদ। মুর্শিদাবাদ রেলস্টেশনের দেড় কিলোমিটার পূর্ব দিকে এই মসজিদটি অবস্থিত। কাটরা মসজিদের প্রবেশ বেদীর নিচে একটি ছোট্ট ঘরে রয়েছে মুর্শিদকুলি খান এর সমাধি। এটি নবাব মুর্শিদকুলি খান এর ইচ্ছা অনুসারে করা হয়। তিনি তার জীবনে কৃত পাপকর্মের জন্য অনুতপ্ত ছিলেন এবং তিনি এমন এক স্থানে সমাহিত হতে চেয়েছিলেন, যেখানে তিনি মসজিদে প্রবেশকারী পূন্যবান লোকেদের ঠিক পায়ের নিচে নিষ্পিষ্ট হবেন এবং তাদের পদস্পর্শ পাবেন।

নবাব মুর্শিদকুলি খান ঢাকা থেকে ১৭১৭ খ্রিস্টাব্দে রাজধানী মুর্শিদাবাদে স্থানান্তরিত করেন। তাঁর নামানুসারে নতুন রাজধানীর নাম হয় মুর্শিদাবাদ। কাটরা মসজিদটি নতুন রাজধানীর জামে মসজিদ হিসেবে তৈরী করা হয়। সম্পূর্ণ মসজিদটি আকারে চতুর্ভূজাকৃতি, পুরো মসজিদটিতে অনেক সুদৃশ্য খিলান রয়েছে । মসজিদের সামনের দিকে রয়েছে বহুভাঁজযুক্ত খিলানের মধ্যে পাঁচটি প্রবেশ খিলান। মসজিদটি আয়তাকৃতির পাঁচ গম্বুজ বিশিষ্ট(পরিমাপ ৩৯.৬২×৭.৩২ মিটার)। এটি ইঁট দিয়ে তৈরি এবং চারকোনায় চারটি বিশাল মিনার অবস্থিত। বর্গাকার প্রাঙ্গণের চার কোণে রয়েছে চারটি মিনার, মিনারগুলোর আকৃতি অষ্টাভূজাকৃতি এবং বুরুজগুলি সরু হয়ে ওপরের দিকে উঠে গেছে; মিনারের ভিতর একটি প্যাঁচানো সিঁড়িপথ আছে যেটি বুরুজের ওপর অবধি উঠে গেছে। বর্তমানে শুধুমাত্র উত্তর-পশ্চিমে এবং দক্ষিণ-পশ্চিমের দুটি পার্শ্ব মিনার অবশিষ্ট আছে। মিনারগুলো ৭০ ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট এবং চওড়ায় প্রায় ২০ ফুট । উঁচু মিনারগুলো কালের আবর্তে আজ জরাজীর্ণ, মিনারের গম্বুজগুলো ১৮৯৭ সালের ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যেগুলি রক্ষনাবেক্ষন চলছে।এর সবচেয়ে লক্ষণীয় বিষয় হল এগুলোতে বন্দুক রাখার জন্য গর্ত রয়েছে।

মসজিদটির নিকটে একটি বাজার ছিল এবং কাটরা মানে হচ্ছে বাজার । কাজেই সম্পূর্ন অর্থ করলে দাড়ায় কাটরা মসজিদ বা বাজার মসজিদ বা বাজারে অবস্থিত একটি মসজিদ । তো আসুন দেখে নেই এই ঐতিহাসিক কাটরা মসজিদটিকে।


(২) হাজার দুয়ারী এক্সপ্রেস দিয়া কলকাতার শিয়ালদহ থেকে ভোরে যখন মুর্শিদাবাদে পৌছি তখন স্টেশনটা ছিল এমন শুনশান।


(৩) স্টেশনের ভেতর থাকতেই এক টাঙ্গা ওয়ালা আমাদের পিছু নিয়েছিল। পরে দাম দর করে তার টাঙ্গা (এক ঘোড়ায় টানা গাড়ি) নিয়াই মুর্শিদাবাদ ঘুরে দেখার চুক্তি করে বেড়িয়ে পড়ি।


(৪) টাঙ্গা নিয়ে ঘুরতে ঘুরতে এক সময় আমরা চলে এলাম কাটরা মসজিদে। চারিদিকে পরিচ্ছন্ন বাগান চমৎকার লন, তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে আছে প্রায় তিনশত বছরের পুরোনো ইতিহাস। সত্যিই আমি প্রবেশ করেছিলাম অন্য এক জগতে।


(৫) এই ঐতিহাসিক স্থাপনা দেখতে প্রবেশ করতে হয় মসজিদের পশ্চিম পাশ দিয়া, ঢুকেই দেখলাম ডান পাশ, মানে মসজিদের দক্ষিণ পশ্চিম প্রান্তের মিনারটায় বাঁশ ঘেরা, মনে হয় কোন মেরামতের কাজ চলছে।


(৬) দূরে থেকে যেই স্থাপনাটা দেখা যায় তা ছিল মাদ্রাসা, এবং এর পুরোটাই দ্বোতালা ভবন। দ্বোতালা ভবন থেকে মূল মসজিদ অনেকটাই ছোট, বাহিরের স্থাপনার ভেতর দিয়ে একটা প্যাসেজ ধরে মূল মসজিদের দিকে এগিয়ে গেলাম।


(৭) বাহিরের স্থাপনার পূর্ব দিকে এবং মুল মসজিদের পশ্চিমে ভেতরে রয়েছে এমন সবুজ জমি।


(৮) মূল মসজিদটা একটা উঁচু বেদীর উপর অবস্থিত। পাঁচটি দরজা বিশিষ্ট মূল মসজিদের বাহিতে ইট বিছানো বিশাল বারান্দা মতো স্থান রয়েছে যা উত্তর দক্ষিণ ও পূর্বের দ্বিতল ভবন দ্বারা ঘিরে রয়েছে।


(৯) এটা মসজিদের পূর্ব পাশের প্রধান ফটক।


(১০) প্রধান ফটক ধরে উঠলেই গেইট পেরিয়ে ইট বিছানো বিশাল বারান্দা, তারপর মূল মসজিদ।


(১১) এটাই মূল কাটরা মসজিদ।


(১২) মসজিদের মূল গম্বুজটা ভুমিকম্পে ভেঙ্গে গেছে।


(১৩) মসজিদের মিহরাব।


(১৪/১৫) পূর্ব পাশে মসজিদের প্রবেশ পথের সিড়ির নিচে নবাব মুর্শিদকুলি খানের কবর।



(১৭) এটা তুলেছি মসজিদের উত্তর পুর্ব কোনে দাঁড়িয়ে।


(১৮/১৯) উত্তর পুর্ব কোনে রয়েছে কয়েকটা করবী বা কলকে ফুলের গাছ। করবীর ফল যদিও বিষাক্ত, দেখতে কিন্তু মন্দ নয়।



(২০) সবশেষে কাটরা মসজিদে আমি।

মন্তব্য ৮৪ টি রেটিং +১৫/-০

মন্তব্য (৮৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:১৮

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: সুন্দর সুন্দর যতসব ছবি! ভালো লাগলো।





ভালো থাকুন নিরন্তর। ধন্যবাদ।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ বাঙালী ভাই, আপনাদের উৎসাহই আমার পথ চলার সাহস যোগায়।

২| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২০

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: সুন্দর সুন্দর ছবি ও সাথের বিবরণ ভাল লাগল ।
শুভেচ্ছা রইল

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন এম আলী ভাই, তবে মন্তব্যটা যেন আপনার সাথে মানানসই মনে হলো না :D

৩| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২১

মলাসইলমুইনা বলেছেন: মুর্শিদাবাদের কাটরা মসজিদ ও মুর্শিদকুলি খানের সমাধি ফটো ব্লগ দেখে ভালো লাগলো | দুটো জায়গাই খুব সুন্দর | ঐতিহাসিক জায়গাগুলো এরা যথেষ্ট যত্ন করে রাখে বলেই মনে হলো ফটোগুলো দেখে | অনেক ধন্যবাদ এ'জায়গাগুলো নিয়ে লেখা আর সুন্দর ফটোগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য |

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: দুটো জায়গা মূলত একই জায়গা। মানে কাটরা মসজিদের সিড়ির নিচেই নবাব মুর্শিকুলি খানের সমাধি। ধন্যবাদ ভাই।

৪| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২৭

দীপঙ্কর বেরা বলেছেন: দারুণ জায়গা
আমি গিয়েছি।
ভাল আছেন। আমি এখানে লেখা দিয়েছি। কিন্তু প্রথম পাতায় আসছে না। ভাল থাকবেন।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:৩৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন দাদা। আপনার পোষ্ট প্রথম পাতায় আসা তো উচিৎ, কারণ পাঁচ মাসের বেশী সময় আপনি এখানে আছেন।

৫| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:২৮

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
সুন্দর!
মুর্শিদাবাদের লোকজন বা দোকানদাররা বাংলায় না হিন্দিতে বেশী কথা বলে?

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:৩৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ওখানে তো সবাই বাংলাই বলে, অল্প স্বল্প হিন্দিও বলে কেউ কেউ।

৬| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৯:০৬

চিন্তক মাস্টারদা বলেছেন:
যেক দাদা, শেষে লবনটা দিলা :p
ধন্যবাদ জানবেন।



অনেক দিন পর আসলাম, ভাল আছেন তো আপনি?

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৯:০৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শেষেরটা তাহলে লবন? :D

আমি ভালো আছি ভাই, আপনি কেমন আছেন?

৭| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৯:৪১

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: সমৃদ্ধ ইতিহাসের সুদৃশ্য ফটো্ব্লগে মুগ্ধতা :)

সময়ের কাছে আমরা কত নিরুপায়.... ইট কাঠ পাথর দাড়িয়ে রয় মানুষের, কর্ম ইতিহাসের স্বাক্ষ্য হয়ে. . .

+++

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:০৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, এমন ইতিহাসগুলোর কাছাকাছি হতে পারলে মনের ভেতরটা কেমন যেন করে উঠে। এক সময়ের দোর্দন্ড প্রতাপ আজ শুধুই কিছু ইট কাঠ পাথরে সাক্ষি।

৮| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:১১

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: অনেক ভাল লাগল। ছবি গুলো বরাবরের মতই সুন্দর।
পোষ্টে +++

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:০৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ মোস্তফা ভাই, শুভেচ্ছা জানবেন।

৯| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:১৪

নতুন নকিব বলেছেন:



ইতিহাসকে ছুঁয়ে দেখার জন্য গিয়েছিলাম মুর্শিদাবাদে।

-প্রথম লাইনটাতেই আটকে গেছি। 'ইতিহাস বুঝি ছোঁয়া যায়!'

অবাক করা সাহিত্য সৌন্দর্য দিয়ে শুরু করেছেন অদ্ভূত সুন্দর একটি পোস্ট। ইতিহাসের অনেক কিছু তুলে এনেছেন পরম মমতায়।

ধন্যবাদ প্রিয় কামাল ভাই।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:২১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: সাহিত্যে আমার দখল নাই বললেই চলে, তবে মনের কথাটা ব্যক্ত করার চেষ্টাটাই করেছি আমি। তবে ইতিহাস সব সময় আমাকে টানে, আর সুযোগ পেলেই এমন ইতিহাসগুলোকে আমি হাতড়ে বেড়ানোর চেষ্টা করি। ধন্যবাদ নকিব ভাই, ভালো থাকুন, সব সময়।

১০| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:১৯

চিন্তক মাস্টারদা বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ ভাই চমৎকার আছি,



খাবারের সুস্বাদু যেমন লবনের হাতে, এখানে (লবন) লক্ববপ্রাপ্তের মর্যাদা তার চেয়ে উপরে।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:২২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হে হে হে, আপনি গেয়ানী লুক B-)

১১| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:০৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


এগুলো এই বাংলায় হলে, মানুষের ঢল নামতো প্রতিদিন।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হুমম, মুর্শিদাবাদ কে দেখে আমার মনে হয়েছে যেন অনেকটা পরিত্যক্ত শহর।

১২| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:১৯

রানা আমান বলেছেন: অনেক ভাল লাগল।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন রানা ভাই।

১৩| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:২৭

নতুন নকিব বলেছেন:



একটা একটা করে ছবি ধরে ধরে যিনি আপনার ভ্রমন বৃত্তান্ত বিস্তারিত উদ্ঘাটন করে থাকেন সেই প্রিয় মুখ দেখছি না যে! তিনি এই পোস্টে না এলে তো জমে উঠবে না! তার জন্য অগ্রিম শুভ কামনা।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: যতদূর জানি উনি ভারতে গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য, এতো দিনে তোফিরে আসার কথা।

১৪| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: চমৎকার !!!

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ মনিরা আপু

১৫| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১৮

প্রামানিক বলেছেন: এক কথায় চমৎকার দুই কথায় কি কমু খুঁইজা পাই না। তবে ছবির জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:০১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: তিন কথায় আপনাকে ধন্যবাদ।

১৬| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ২:০৫

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: সুন্দর সব উপস্থাপন প্রশংসা সবটুকু আপনার জন্য।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:০৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন সুজন ভাই,

১৭| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ২:৩০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: ঐতিহাসিক জায়গা স্থাপনা দেখানো ও বুঝানোর জন্য কৃতজ্ঞতা রইল।

আপনার সুস্থতা কামনায়

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:২৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ নয়ন ভাই, আপনিও সব সময় সুস্থ্য থাকুন, সেই কামনাই করছি।

১৮| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:২৫

খালিদ আহসান বলেছেন: আপনার প্রতিটি পোস্টই অসাধারণ হয়। নতুন করে বলার কিছু নেই। :)

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ভালো পোষ্ট সব সময় উপস্থাপন করার চেষ্টা করি খালিদ ভাই, ধন্যবাদ।

১৯| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:৩২

নীলপরি বলেছেন: বরাবরের মতোই সুন্দর লাগলো ।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:২৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ পরি, ভালো থাকুন, সব সময়।

২০| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৫

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন:
চমৎকার ছবি এবং তার ঐতিহাসিক বর্ণনা!!
মুর্শিদাবাদ দেখানোর জন্য অনেক ধন্যবাদ ভাই!!
মুর্শিদাবাদ এ ছড়িয়ে আছে এমন অসংখ্য ঐতিহাসিক স্থাপনা!!
জানি আপনার লেখায় তা' দেখতে পাবো।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:২৭

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ঠিক বলেছেন আপু, ভুটান ভ্রমণের অনেক অনেক ছবি চাই।

২১| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:৫২

মেহেদী হাসান তামিম বলেছেন: you just brought the history in front of our eyes. thanks. ur description and the picture have talking ability with its reader.

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ তামিম ভাই, ভালো থাকুন, সব সময়।

২২| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:১৬

পার্থ তালুকদার বলেছেন: চমৎকার সব ছবি !!

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হুমম, সবই ইতিহাস

২৩| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:৩৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই , মন্তব্যের উত্তরে সাদা মনের মনের প্রকাশটুকু বেশ ভাল লাগল :) :)

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ আলী ভাই

২৪| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:০৯

হাসান রাজু বলেছেন: খুব সুন্দর উপস্থাপনা । অবশ্য এটা বলার অপেক্ষা রাখে না ।


আপনি কি কাউকে মিস করছেন? আমি করছি।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: মিস তো অবশ্যই করছি, তিনি ইন্ডিয়া থেকে ফিরছেন কিনা জানিনা। শুভেচ্ছা জানবেন রাজু ভাই।

২৫| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:০৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: দিন কয়েক যাবত খুবই অসুস্থ । বিছানায় শুয়ে শুয়ে তাই অল্প কথায় ভাল লাগার কথাটুকু জানিয়েছিলাম । জানি এত সুন্দর ও ভাল পোষ্টটিকে তেমনভাবে মুল্যায়ন করতে পারি নাই ।তবে আমাকে সঠিকভাবে মুল্যায়ন করার জন্য ধন্যবাদ । দোয়া করবেন ।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল ।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আশা করছি খুব দ্রুত সুস্থ্য হয়ে যাবেন ভাইজান।

২৬| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ছবি বর্ননায় বরাবরের মতই চমৎকার পোস্ট।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ লিটন ভাই, শ্রদ্ধা জানবেন।

২৭| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৪৪

সুমন কর বলেছেন: শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। গুড পোস্ট।
+।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনাকেও আন্তরিক ধন্যবাদ সুমন ভাই।

২৮| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫৫

শাহিন-৯৯ বলেছেন: ভিঞ্চি কে দেখি নাই তবে দেখিয়াছি সাদা মনের মানুষ।(আসল নামটা জানিনা বলে নিক নাম দিলাম)

ছবিও যে কথা বলে না আগে জানি নাই-তবে,
জেনেছি তোমার কল্যানে ভাই।

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:০৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনার চমৎকার মন্তব্যে অনুপ্রাণিত হলাম শাহিন ভাই, আন্তরিক শুভেচ্ছা জানবেন।

২৯| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


লেখক বলেছে, " হুমম, মুর্শিদাবাদ কে দেখে আমার মনে হয়েছে যেন অনেকটা পরিত্যক্ত শহর। "

-সাধারণ ভারতীরা উৎসাহহীন কলকব্জা

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ ভোর ৬:৫০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হতে পারে হয়তো

৩০| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৪৮

আহমেদ জী এস বলেছেন: সাদা মনের মানুষ ,




ইতিহাস ছুঁয়ে গেলুম !
শুনশান মুর্শিদাবাদ স্টেশনটি ছুঁয়ে গেলো মন ।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ ভোর ৬:৫৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ জীএস ভাই, ইতিহাস ছুয়ে দেখলে আমি খুবই রোমাঞ্চিত হই।

৩১| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৪৪

যূথচ্যুত বলেছেন: ভালো লাগল। ছবিগুলোও বেশ।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৭:০১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন ভাইজান

৩২| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১২:৩৯

ঢাকার লোক বলেছেন: যেমন বর্ণনা তেমন ছবি! পড়ে মনে হলো মুর্শিদাবাদ ঘুরে এলাম !!
ভালো থাকুন ।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৭:০২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ঢাকার লোক মুর্শিদাবাদে কেন ভাই? B-)

৩৩| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১২:৫১

কালীদাস বলেছেন: আগে দেখিনি। আপনাকে ধন্যবাদ এরকম পরিচিত ঐতিহাসিক স্পটের ছবি ব্লগ দেয়ার জন্য।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৭:০৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ ভাইজান।

৩৪| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৯:৩২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: মা শা আল্লাহ। চমৎকার।




কেমন আছেন?

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ ভোর ৬:৩৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ তাজুল ভাই। ভালো থাকুন, সব সময়।

৩৫| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:০০

খায়রুল আহসান বলেছেন: (২) হাজার দুয়ারী এক্সপ্রেস দিয়া কলকাতার শিয়ালদহ থেকে ভোরে যখন মুর্শিদাবাদে পৌছি তখন স্টেশনটা ছিল এমন শুনশান - বাঙালীদের রেলস্টেশন এতটা পরিচ্ছন্ন আর এতটা শুনশান, দেখে মুগ্ধ হ'লাম।
(২০) সবশেষে কাটরা মসজিদে আমি - পোজটা চমৎকার হয়েছে! :)
ঐতিহাসিক জায়গার সাথে ছবির মাধ্যমে পরিচয় করিয়ে দেয়ার জন্যে আন্তরিক ধন্যবাদ!
ডঃ এম এ আলী ভাই, প্রার্থনা করছি, আপনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন, সম্পূর্ণভাবে। আল্লাহ আপনার সহায় হউন, শিফা দান করুন!

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আলী ভাই তাড়াতাড়ি সুস্থ্য হয়ে উঠুক আমাদের সবারই এমন কামনা............শ্রদ্ধা জানবেন খায়রুল ভাই।

৩৬| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:১১

বিদ্রোহি নাজরুল বলেছেন: এমন চমৎকার লেখনি্‌, , , , আর আপনাকে দেখতে মাশা আল্লাহ...........................

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হে হে হে, কবি কেমন আছেন আপনি?

৩৭| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৭

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: ইতিহাসের বর্ণনা এবং অসাধারণ সব ছবির সমন্বয়ে এটি একটি পরিপূর্ণ পোস্ট বলে আমার কাছে মনে হয়েছে। আপনার অন্যান্য ফটো পোস্টের চেয়ে এটি কিছুটা ব্যতিক্রমী।

ধন্যবাদ কামাল ভাই।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৭

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ হেনা ভাই উৎসাহিত করার জন্য।

৩৮| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩৫

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: (৪) টাঙ্গা নিয়ে ঘুরতে ঘুরতে এক সময় আমরা চলে এলাম কাটরা মসজিদে। চারিদিকে পরিচ্ছন্ন বাগান চমৎকার লন, তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে আছে প্রায় তিনশত বছরের পুরোনো ইতিহাস। সত্যিই আমি প্রবেশ করেছিলাম অন্য এক জগতে।


দিল্লি, আগ্রা, লখনৌ, এলাহাবাদ, আজমীর, জয়সলমীর এসব জায়গায় এবার বেড়িয়ে আসুন। মুঘল আমলের কীর্তি দেখে অবাক হবেন। মনে হবে আপনি আরও এক অন্য জগতের সন্ধান পেয়েছেন।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: কোন কিছুই হয়তো একদিন আমার দেখার বাকি থাকবে না ভাই, শুধু আপনাদের দোয়া চাই।

৩৯| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:৩৩

পগলা জগাই বলেছেন: চমৎকার।
অনেকদিন ভারতে যাওয়া হয় না। তবে আগামীতে যখনই ভারত যাবার সুযোগ হবে তখনই দুট যায়গায় যাবো বলে ঠিক করে রেখেছি। তার একটি হচ্ছে মুর্শিদাবাদ। ঘুরার জন্য দেখার জন্য অনেক লম্বা একটা তালিকাও তৈরি করে রেখেছি।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৩১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: মুর্শিদাবাদকে আমি দীর্ঘ দিন তালিকায় রেখে তারপর যাওয়ার সুযোগ হয়েছে, আমার লাদাখ যাওয়াটা তালিকার প্রথম সাড়িতে রেখেছি। ধন্যবাদ ভাইজান।

৪০| ৩০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ২:৫৪

ফেরদৌসা রুহী বলেছেন: ঘুরে এলাম আপনার সাথে।

ছবিগুলি অনেক সুন্দর।

কবে যে আপনার মত সুন্দর ছবি তুলতে পারুম।

৩০ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: কিতা কন আপু! আপনি তো আমার থেকে অনেক সুন্দর সুন্দর ছবি তোলেন :)

৪১| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৪

নিয়াজ সুমন বলেছেন: যতই পড়ি যতই দেখি ততই মুগ্ধতা!!

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১১:০৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: উৎসাহ দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ সুমন ভাই

৪২| ০৩ রা নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:৪৯

সামিউল ইসলাম বাবু বলেছেন: নতুন পোষ্ট দিন

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:০২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: দেব, সময় স্বল্পতায় দেরী হচ্ছে বাবু ভাই।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.