নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

দীপ ছিলো, শিখা ছিলো, শুধু তুমি ছিলেনা বলে...

শায়মা

দিয়ে গেনু বসন্তেরও এই গানখানি বরষ ফুরায়ে যাবে ভুলে যাবে, ভুলে যাবে,ভুলে যাবে জানি...তবু তো ফাল্গুন রাতে, এ গানের বেদনাতে,আঁখি তব ছলো ছলো , সেই বহু মানি...

শায়মা › বিস্তারিত পোস্টঃ

শরৎ যাচ্ছে চলে

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:০৫


শরৎ, তোমার অরুণ আলোর অঞ্জলি।
ছড়িয়ে গেল ছাপিয়ে মোহন অঙ্গুলি॥

শরৎ মানেই আমার কাছে এই গানটির চরনগুলি। শরতের ছড়িয়ে যাওয়া মোহন অঙ্গুলি কিসের ইঙ্গিতে বলেছেন রবিঠাকুর জানা নেই আমার বটে তবে শরতের মেঘই নিয়ে আসে আমাদের কাছে শরতের বারতা। এমন ঝকঝকে নীল আকাশ আর তাতে ভেসে যাওয়া সাদা সাদা মেঘের ভেলা। মনে পড়িয়ে দেয় ছোট্টবেলার শরতের স্মৃতিগুলি। ত্বরিতে মনে ভেসে আসে সাদা মেঘের ভেলায় চড়ে শরতের সেই অতি পরিচিত গানের কলি "নীল আকাশে কে ভাসালে সাদা মেঘের ভেলা রে ভাই লুকোচুরির খেলা।

আজকাল আকাশে কেউ তাকাক না তাকাক সামাজিক যোগাযোগ বা ফেসবুকের কল্যানে শরৎ আকাশে হাসে আর ফেসবুকে ভাসে। ফেসবুক ভেসে যায় শরতের কাশফুল আর নানা শৈল্পিক ছবিতে। কাউকে মনে করাতে হয়না যে শরৎ এসেছে। যুগের পরিবর্তনে এও বা কম কি? আমি নিজে বড় ট্রেডিশন্যাল মানুষ। আমার চোখে শরৎ মানে ভোরের বেলা শিশির ভেজা ঘাস আর শিউলিতলার ভেজা ভেজা সেই শুভ্র কোমল সিক্ত ফুলগুলি। সেই ফুল কুড়িয়ে মালা গাঁথা জানিনা আজও গ্রামাঞ্চলে বাচ্চারা গাঁথে কিনা। কিন্তু আমাদের শহুরে ছেলেমেয়েদের চোখে সে তো এক অজানা গল্পই রয়ে যাবে আজীবন।
শরৎ তোমার শিশির ধোওয়া কুন্তলে
বনের পথে লুটিয়ে পড়া অঞ্চলে
আজ প্রভাতের হৃদয় ওঠে চঞ্চলি।’

শরতের সই হারানো প্রভাতের জন্য আমার মন কাঁদে। ফিরে যেতে ইচ্ছে করে একছুটে ছেলেবেলায়। কিন্তু ফিরে তো যাওয়া যায় না তাই সঙ্গীসাথী যাদেরকেই বলি তাদের অবাক চোখ দেখে মনে হয় যেন আমার মাথায় ভূত চেপেছে নাকি? পাবনায় অতি স্বত্তর পাঠানো যায় কিনা আমাকে এমনই ভাবছে তারা। তাই বাড়ির আঙ্গিনায় সেই শিউলীফুল ছড়ানো ভোরটাকে বড় মিস করি আমি। আমার মন পাখিটা যায় রে উড়ে যায় ধান শালিকের গায়। যায়রে উড়ে যায়।

আমার উদাসী মনে হাহাকার জাগে? বেশি সুন্দরের পিছেও যে এক হাহাকার জেগে থাকে তা বুঝি রূপসী বাংলার কবি জীবনানন্দ দাশ যেভাবে বুঝেছিলেন আর কেউ তা সেভাবে বুঝেনি।
‘এখানে আকাশ নীল
নীলাভ আকাশ জুড়ে সজিনার ফুল ফুটে থাকে
হিম সাদা রঙ আশ্বিনের আলোর মতোন
আকন্দ ফুলের কালো ভীমরূল এইখানে করে গুন্জরণ।’
আমার মনে অভিমান জাগে। অকারণ অভিমান। কার উপর কাহার তরে জানানো হয় না আর তাকে....আমার মন কেমন করে ..... আমার মন কেমন করে..... কে জানে কে জানে কে জানে কাহার তরে!

পল্লীকবি জসীমউদ্দীনের কবিতার বিরহী নারী হয়ে যাই আমি। অকারনে চোখে জল আসে। কারণটা বলা বারণ। মূল্যহীন সেই অব্যক্ত বেদনার কবিতার সেই নারীটির মতন নয়ন জলে বুক ভেসে যায়।
বিরহী নারীর নয়নের জলে ভিজিল বুকের বাস।
আজকে আসিবে কালকে আসিবে, হায় নিদারূন আশা,
ভোরের পাখির মতোন শুধুই ভোরে ছেঁয়ে যায় বাসা।’


সব ভুলে মেতে উঠি শরতের প্রাতে, কাঁশবনে কাঁশবনে হাসিখেলায় সখীদের সনে।
সই পাতালো কি শরতে আজিকে স্নিগ্ধ আকাশ ধরণী?
নীলিমা বাহিয়া সওগাত নিয়া নামিছে মেঘের তরণী!
অলকার পানে বলাকা ছুটিছে, মেঘ-দূত- মন মোহিয়া!
চঞ্চুতে রাঙ্গা কল মীর কুঁড়ি- মরতের ভেট বহিয়া!
সখীর গাঁয়ের সেঁউতি- বোঁটার ফিরোজায় রেঙ্গে পেশোয়াজ
আসমানী আর মৃন্ময়ী সখী মিশিয়াছে মেঠো পথ- মাঝ!


শরৎ যাচ্ছে চলে। কালের পরিক্রমায় আবারও আসবে ফিরে। কিন্তু আমি কিংবা আমরা ফিরবো কিনা জানা নেই ......
জানিনা .......


এটি একটি ব্লগীয় শারদীয়া এলবাম অথবা ডায়েরী। যা খুশি ভেবে নেওয়া যেতে পারে। :)

সকলকে শারদীয়া শুভেচ্ছা...... :)

মন্তব্য ১০৮ টি রেটিং +১৪/-০

মন্তব্য (১০৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৪

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর।+

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৬

শায়মা বলেছেন: :)

থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ।

তো ছবি আপু যে তোমাকে শরতের কাব্য লিখতে বলেছিলো লিখেছিলে ভাইয়ু???

২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৬

জাদিদ বলেছেন: @সেলিম ভাইঃ বাসায় ঘুমের ট্যাবলেট আছে? B-)

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২০

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া তুমি সেলিমভাইয়াকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিও না কিন্তু আবার।

আর থ্যাংক ইউ!!!!!!!!!!!!!!!!
থ্যংক ইউ!!!!!!!!!!!!!!!! আমার ছবির পিছে থেকে এত সুন্দরভাবে ভূতকে ডিলিট করে দেবার জন্য!!!!!!!!! :)

ছবির নীচে অবশ্য লিখে দেওয়া উচিৎ ছিলো।

ছবি ভূতের ওঝা ভাইয়ার কেরামতি! :)

৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: জাদিদ বাসায় ঘুমের ট্যাবলেট নেই ঘুম ও নেই। শারদীয় শুভেচ্ছা তোমায়। শায়মাকেও । শরতের বিদায় যেন তাৎপর্য ময় হয়ে ওঠলো তোমার লেখায়।

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২৫

শায়মা বলেছেন: হায় হায় ভাইয়া তাহলে আরেকটা কাব্য লেখো এখন।

যাইহোক শরত বিদায়ের শুভেচ্ছা আসলে। হেমন্তের ডায়েরীও লিখবো ভাবছি। :)

৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২৮

রাজীব নুর বলেছেন: শরত বন্দনা সুন্দর হয়েছে।
দশে দশ দিলাম।

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২৯

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ ভাইয়ু!!!


কিন্তু তোমার শরতের ছবিগুলি কই??

দিয়েছিলে নাকি???

৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৪৩

একলব্য২১ বলেছেন: আমি ঋতু টিতু এত ভাল বুঝি না। ঋতু বলতে মোটা দাগে গ্রীষ্ম বর্ষা শীত ও বসন্ত। ব্যস! শরৎকাল মানে আমার কাছে পরিষ্কার নীলাভ আকাশ, কাশফুলের বন আর শারদীয় দূর্গা পূজা।

ওয়াও!!! শায়মা আপু ফাটাফাটি ছবি আসছে। তোমার শাড়ীটা তো ভারী সুন্দর। আর তার সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ accessories। কাশফুলের বন কোথায় পেলে।

স্ক্রল করে লেখার উপর চোখ বুলালাম। তোমাকেও শারদীয়ার শুভেচ্ছা।

১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৫৭

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়ু!!!!
শরৎ তো আজীবনই আসতো। নীল আকাশে, ঝিরিঝিরি বাতাসে, কাঁশের বনে, শিউলী ফুলের বনে...... কিন্তু ইদানীং সবচেয়ে বেশি আসে ফেসবুকে।

তাই একটু ব্লগেও শরতের বিদায়ের প্রাক্কালে তাড়াতাড়ি শরৎ নিয়ে এলাম ভাইয়ু।

আমি শাড়ি গয়না থেকে শুরু করে ঘরবাড়ি আশ পাশ সব সাজাতে ভালোবাসি জানোনা???????

যাইহোক এই কাঁশফুল ছিলো শেফস টেবলসের ঐ দিকে সাতারকুলের দিকে। হা হা

আমরা কয়েকজন গিয়েছিলাম। তাদের অনুমতি ছাড়া ছবি দেওয়া গেলো না ভাইয়ুমনি!!!!

অনেক অনেক ভালোবাসা!

৬| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৫৩

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: এই শরৎতে খুব গরম গেলো।
বাড়ির কাছে কাশফুলের সমাহার, যাওয়া হয়ে উঠেনি সেখানে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:০৩

শায়মা বলেছেন: শিঘ্রী যাও ভাইয়া কালকেই।

গরম হোক আর যাইহোক তোমার মত ফটোগ্রাফার যদি না ফুলের ছবি তোলে তাহলে কেমনে হবে?

৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:২৪

কুশন বলেছেন: আপনার শরতের সাজ সুন্দর হয়েছে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:৩৬

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া আমার পৃথিবীর সকল সাজুগুজুই পছন্দ। ঘরবাড়ি আগান বাগান সবই। ছোটবেলায় যেমন খুশি তেমন সাজোতে যেমনই পেয়েছি তেমনই বড়বেলায় একবার জন্টা ক্লাবে গিয়েছিলাম গান গাইতে আর আমি জানতাম না সেখানে লেডিজেরা বসন্তের সেরা সাজকে পুরষ্কার দিচ্ছে।
তো হঠাৎ শুনি নিজের নাম। আমি তো অবাক অবাক এবং অবাক!!!

এরপর এক গোছা বই উপহার পেয়েছিলাম। :)

সাজুগুজু করে বই উপহার! কি মজা! :)

৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:৫৬

কামাল১৮ বলেছেন: ছবিগুলো খুবই সুন্দর।যখন ছোট ছিলাম এবং গ্রামে ছিলাম ,তখন ঋতুগুলোর পরিবর্তন খুব স্পষ্ট বু্ঝতে পারতাম।শহর জীবনে অতটা বুঝা যায় না।আপনার মতো যারা সচেতন তারা ঠিকই মনে রাখে এবং উপলব্ধ করে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১:০৭

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া আমি ঋতুই চিনেছি ছোটবেলায় নাচ গান কবিতা আর ছবিতা আঁকতে গিয়ে। যেমন ধরো ৬ ঋতু নিয়ে বর্ষবরণ। কোন ঋতু এর কোন বৈশিষ্ঠ্য সেসব শিখিয়ে দিতো নাচ গানের স্কুলের টিচারেরাই। আমিও এখন তাই করি। শরতের নাচ শিখানোর সময় জানালা দিয়ে আকাশ দেখাই। কবিতা শোনাই। আমার ছোটবেলাকেই চর্চা করি।

হেমন্তের ধান কাটা বা বসন্তের ফুল আর পাখি এসব শৈশবে যারা চিনতে পারে এই জীবনে সেই ভালোবাসা থেকে আর বের হওয়া হয় না।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১:১৪

শায়মা বলেছেন: আচ্ছা ভাইয়া তুমি নিজে কেনো কোনো পোস্ট লেখো না বলোতো!!!!!!

৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১:৪৪

কামাল১৮ বলেছেন: ছবিগুলো খুবই সুন্দর।যখন ছোট ছিলাম এবং গ্রামে ছিলাম ,তখন ঋতুগুলোর পরিবর্তন খুব স্পষ্ট বু্ঝতে পারতাম।শহর জীবনে অতটা বুঝা যায় না।আপনার মতো যারা সচেতন তারা ঠিকই মনে রাখে এবং উপলব্ধ করে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:০৮

শায়মা বলেছেন: এক কমেন্ট দুইবার হয়ে গেলো ভাইয়ামনি! :P

১০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১:৪৭

কামাল১৮ বলেছেন: চেষ্টা করবো।ধন্যবাদ পরামর্শের জন্য।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:১০

শায়মা বলেছেন: চেষ্টা করা আবার কি???

যে সব কমেন্ট লেখো তাতেই বুঝা যাচ্ছে পোস্টও লিখতে কোনোই ঝামেলা নেই।


লিখে ফেলো ভাইয়ামনি!

অন্তত একটা পোস্ট রাখো! :)

যেন আমরা সেখানে গিয়ে তোমাকে ডাকাডাকিও হলেও করতে পারি! :)

১১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ২:২৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সুন্দর ছবি ও লেখা। কাশফুল কোন কাজে লাগে না

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:১১

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়ু!!!!!

এই নাও


আজি এ শারদপ্রাতে....

১২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ৭:৫২

আহমেদ জী এস বলেছেন: শায়মা,




এতো পোস্ট নয়, এ যে - আজ শরতের কাশের বনে হাওয়ার লুটোপুটি ! সাথে ভূবনডাঙার হাসি.....

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:১৭

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া আমাদের সবার ছবি দেবার পারমিশন পেলে দেখতে হাওয়ার লুটোপুটি কাকে বলে! হা হা হা

আমরা যারা বাচ্চাদের টিচার আছি না তারা একসাথে হলে হাসাহাসি আর পাগলামী দেখে বাচ্চারাও হা হয়ে যাবে! :P

১৩| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১১

নীল আকাশ বলেছেন: জাদিদ বলেছেন: @সেলিম ভাইঃ বাসায় ঘুমের ট্যাবলেট আছে?
দিনের সেরা ডায়ালগ। একটা না পুরো পাতা?

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:১৯

শায়মা বলেছেন: দেখো তোমরা সবাই কিন্তু আমার সেলিমভাইয়ামনিকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিচ্ছো ।

আমি কিন্তু চিন্তায় আছি। :(
এক পাতা খেলে কি বাঁচবে আমার ভাইয়ুমনিটা!!!


:P

১৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১৪

নীল আকাশ বলেছেন: এটা কি শরতের বন্দনা? না পূর্ণ দৈর্ঘ্য আউটডোর ফটোসেশন? ;)
বিধাতাই জানে ফটোগ্রাফারের কী হাল হয়েছিল ছবি তুলতে তুলতে!!! :P

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:২৪

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া
শুনো এটা একদম আমাদের স্কুলের পাশে মানে পাশের নিজেদের জমিতেই কাঁশের বনবিথী।
লাস্ট ফ্রাইডে আমরা ঠিক করলাম সবাই মিলে কাঁশবনে ফটোশ্যুট আর ভিডিও বানাবো।

ব্যাস ডিরেক্টর আমি। কে কোন শাড়ি পরবে কোন মালা কোন দুল। তারপর সবাই মিলে একসাথে নেচে গেয়ে ছবি এবং ভিডিও।
ফটোগ্রাফার আমাদের চির বিশ্বস্ত ২ো বছরের পুরান স্কুল কেয়ার টেকার। সে সারাজীবন নানা অকেশনে আমাদের ছবি তুলতে তুলতে অভিজ্ঞ হয়ে গেছে।

কিন্তু কৃতিত্ব তাহার নাই। সকল কৃতিত্ব আমি ডিরেক্টরের । আমি তো এতই সুন্দর একখানা ভিডিও বানিয়েছি। সাথে গানা
আমরা বেঁধেছি কাঁশের গুচ্ছ।

কিন্তু শয়তান টিচারেরা এখানে প্রকাশের অনুমতি দেইনি তাই। আমিও দিতে পারলাম না। :(

তারপরও টেরাই করে দেখবো নে। :)

যাইহোক শুধু ফটো দেখো কেনো??


দাঁড়াও এরপর হেমন্ত শীত বসন্ত সব আনবো এক এক করে । :)
এত যে কথা গান কবিতা লিখলাম। চোখে দেখোনা !!!!!!!!! X((

১৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: কাল ফেবুতে ছবিটা দেখেছি; সবগুলো ছবি অসম্ভব সুন্দর লাগছে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:২৫

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ সো মাচ!!!!!!!!! :) :)

লাভ ইউ ভাইয়ামনি!!!

১৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১৬

নীল আকাশ বলেছেন: লেখার সাথের কবিতাগুলি ভালো লেগেছে।
খুব সুন্দর পোস্ট। তবে বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ ভূত ডিলিট হয় না।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:৫০

শায়মা বলেছেন: ওহ পড়ছো তাইলেেেেেেেেেেেেেেে.......


আর ভূত ডিলিট হয়না!!!!!!!


কে বলেছে হোলো তো!!!!!!!!!!!!

মডুভাইয়া ব্লগের ভূত আর ছবির ভূত দুইটাই দূর করতে পারে। দেখো ডিলিট করে দিলো তো!!!!!!!!!

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:৫৪

শায়মা বলেছেন:

দেখো পিছে এই ভূতটা ছিলো। কিন্তু ভূতটা বলে খবরদার আমার ছবি দিবি বা!!!! :(

১৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:১৭

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ছবি তুলেছে কে তাকে ধন্যবাদ না দিতে খুবই কৃপণতা হবে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:৫৫

শায়মা বলেছেন: সবই ডাইরেক্টরের কৃতিত্ব ভাইয়ামনি!!!!!!!

১৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:২৮

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
গানে গানে কাশবনে
কে ঘুরে বেড়ায়
এই শরতে শায়মাপুর
মন যে কোথা হারায়।
+++++++++++++

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১২:৫৬

শায়মা বলেছেন: আমার মন শরৎ গ্রীস্ম শীত বসন্ত সবখানেই হারায় তো!!! :(

১৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১১:৩৮

মোঃমোস্তাফিজুর রহমান তমাল বলেছেন: এখনকার দিনে শরতের সৌন্দর্য উপভোগের চেয়ে কাশফুলের সাথে ফটসেশন বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। আমার ক্যাম্পাসের কাশবন পুরো জেলায় বিখ্যাত। যার ফলে প্রতিদিন বিকেলে মানুষ সিরিয়াল ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে ছবি তোলে।মারামারিও হয়। আপনি যেমন শরৎ শেষের আক্ষেপ তুলে ধরেছেন শরতের সৌন্দর্যের মহিমা তুলে ধরেছেন সেটা দেখা যায় না এখন। যারা শুধু ছবি তুলে ফেসবুকে দেয়ার জন্য যায় তারা কতটা অভাগা যে এমন অপরূপ সৌন্দর্য চোখের সামনে থাকতেও দেখে না। আসার সময় আবার বনের ক্ষতি করে আসে। ফুল ছিঁড়ে নিয়ে আসে অথবা গাছ ভেঙে দিয়ে আসে।
আপনার পোস্টটি চমৎকার হয়েচে। ছবিগুলো অনেক সুন্দর।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:০৭

শায়মা বলেছেন: হায় হায় গাছ ভাঙবে কেনো? কি বলো ভাইয়া!!!
যাইহোক আসলে আমাদের ছোটবেলায় ফটো সেশন আবার কাঁশবনে!!!!!!!
এই কথা মুখ ফুটে বললেও মনে হয় মা বাবা দাদা দাদী সবাই বাঁশ নিয়ে আসতো।
তখন আর কাঁশ বন আর বাঁশ বন কি মাথায় থাকতো না।

কিন্তু নতুন যুগের ট্রেন্ড মেনে নিতেই হবে। তবে এই ফটোতে যেমন শরতের স্মৃতি ধরে রাখছে মানুষ তার থেকেও বড় স্মৃতি আমি ধরে রেখেছি আমার ফিলিংস এ আমার হৃদয়ে!

সাদা মেঘের ভেলা ভেসে যাওয়া নীলাকাশ তো আমি ছোটবেলার ছড় কবিতা ও গান আর নাচ থেকেই অনুভব করেছি।
শরতের নীলাকাশে ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে মেঘের ফাঁকে হারিয়ে যাওয়া ঘুড়ির সেই ভালো লাগা কোথায় পাবে আজকালকার ছেলেমেয়েরা!

এইবার আমার ঘুড়ি উড়ানোর ছবি ব্লগ আনতে হবে। :)

২০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১১:৪৭

রানার ব্লগ বলেছেন:

শোনা গেলো পঞ্চমির রাতে
কাশবনে এক নাগীনির সাথে
জোছোনা খেলা করে

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:০৮

শায়মা বলেছেন: করুক আমার কি? আমি কি জীবনেও আর জ্যোসনা রাতে কাঁশবনে যাবো নাকি???

ঐ নাগিনীও আমি না ঐ রকম গাধাও আমি না।

গাধা আরও অনেক আছে....... তুমিও তাদের একজন জানি আমি! :P

২১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:১৭

রানার ব্লগ বলেছেন: তুমি না বুইঝা উত্তেজিত !!!! B-) :D ;)

আবার পড় তারপরেও না বুঝলে আমাকে বলো বুঝিয়ে দেব !!!

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:২৪

শায়মা বলেছেন: আমি বুঝেছি কিন্তু তুমি না বলছিলা যেমন পঁচাও যত ইচ্ছা তত!!! তাই একটু গোবর বানায় দিলাম!!!!

এখন বাগানের গাছে দেবো। :)

তখন একটা ফুলগাছ হবে রানার ব্লগ গাছ।

২২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:২১

রানার ব্লগ বলেছেন: নেওয়াজ আলি @ কাশফুল কাশ গাছের বংশ বৃদ্ধিতে সহয়তা করে, কাশ দিয়ে সুন্দর ঝাড়ু হয় , বানিজ্যিকভাবে কুটির শিল্পের অনেক ক্ষেত্রে কাশ ব্যাবহার হয়। আমাদের দেশে মৌসুমি চাষিরা এই সময় কাশ বাগান বিক্রি করে যথেস্ট মুনাফা আয় করে। আমার জানা মতে একর এক লাখ টাকায় বিক্রি হয়।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:৩৪

শায়মা বলেছেন: হ্যাঁ আমিও তো তাই ভাবছিলাম। কাঁশফুল দিয়ে ঝাঁড়ু হয়। তাই বলে ফুলঝাড়ু। আহা আমার অনেক পছন্দের জিনিস ভাইয়া! :)

আর কুটির শিল্প মানে বাড়ির উপরে ছাউনিও দেওয়া যায় মনে হয়।

২৩| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:২৮

রানার ব্লগ বলেছেন: তোমার পচানর পদ্ধতি খুবি বাচ্চা সুলভ !!!! আমি হতাশ !!!!

৪ নং ছবির এডিট ভালো হয় নাই, সম্পুর্ন দৃশ্যমান কারো কান্দের উপর ভর করে ছিলা।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ১:৩৭

শায়মা বলেছেন: হা হা কারণ এখন আমি ভালা ম্যুডে আছি। তাই পঁচা সাবান বানাতে পারিনি ভালো করে। জানোই আমি আনন্দ বিলাসী মানুষ।

তবে খেপবো যখন তখন এসো। পঁচা সাবান দিয়ে ধুয়ে মুছে শুকিয়ে...... :)


আর কি বললা ভাইয়া!!!!!!!!!!!!!!

৪ নং ছবি এডিটিং খারাপ বলছো দাঁড়াও এখুনি মডুভাইয়াকে গিয়ে লাগাচ্ছি!!!!!!!!!! :)

২৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ দুপুর ২:৪০

বুনোগান বলেছেন: কথামালার শিল্পী তুমি। তোমার লেখা পড়ে আমি আর লিখব কেমন করে?

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৪:২০

শায়মা বলেছেন: না পড়ে লিখো তাইলে ভাইয়ু! :)

২৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৩:০০

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ফটো দেখা যায় না ক্যারে

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৪:২১

শায়মা বলেছেন: আগেই বুঝেছিলাম তুমি টেরা হয়ে যাচ্ছো এখন দেখছি কানা হয়েছো আপুনি!!!!!!!!!

ডক্টর দেখাও!!!!!!!!!! শিঘ্রী!!!!!!!!!!!!!!


ফটো না দেখতে পেলে ডক্টরের কাছে যাবার আগে অন্তত লেখাগুলো পড়ো!!!!!! :)

২৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৩:৫৬

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আহা কতজনে' ই ভাবছে ইশশ যদি আজ কাশের গুচ্ছ হতাম :P

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৪:২২

শায়মা বলেছেন: হা হা হা কয়য়েকটা কাশের গুচ্ছে অবশ্য গলা টেনে ছিড়তাম! :)


:P

২৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৫:২৫

মিরোরডডল বলেছেন:

আপুটা সবগুলো ছবি এতো বেশী সুন্দর ভাবছি কোনটা রেখে কোনটা পিক করবো :)

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১৬

শায়মা বলেছেন: সমবেত ছবিগুলি আর ভিডিওটা শেয়ার করলে দেখতে কেরামতি আমাকে!!!!!!!

২৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৫:৩৪

মিরোরডডল বলেছেন:




ছবি তিন চার আর ছয়ের প্রাণবন্ত হাসিটা খুবই ভালো লেগেছে ।
মন্তব্যের ঘরে সেকেন্ড ছবির পেছনে এইটা কি B:-)
কেউ একজন ছিলো তাকে যেভাবে কাভার করা হয়েছে আসলেই ভুতের মতোই দেখাচ্ছে :)
ছবিটাও খুব সুন্দর ।

শরতের নীলাকাশে সাদা মেঘের ভেলা তার সাথে তুমি নীলপরী আর কাশফুল চমৎকার কালার কোঅর্ডিনেশন !

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২২

শায়মা বলেছেন: আপুনি!!!!!!!!!!

আসলে আমরা কয়েকজন মিলে গেছিলাম। তো পিছে যে ছিলো একজন দুষ্ট মানবী। সে বলে এমনে তুলো ওমনে তুলো আরও গান গাচ্ছিলো জনি প্রিন্ট শাড়ি। তাই আমি হাসতে হাসতে শেষ।
তাই ভূতটা থেকে গেলো। কিন্তু উঠাতেই পারি না সেও পারমিশন দেবেনা পাবলিশ করতে।

তাই শেষে মডুভাইয়া ভূত ছুটাই দিলো। মানে ফটোশপ করে আউট। দাঁড়াও কালকের ওভিসি এর শ্যুট শেষে বাসায় এসে যে ছবি তুলেছি সেটা দেখাই।

২৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৫:৪১

মিরোরডডল বলেছেন:



জাদিদ বলেছেন: @সেলিম ভাইঃ বাসায় ঘুমের ট্যাবলেট আছে? B-)

=p~ :P

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৩

শায়মা বলেছেন: ছিলো না তাই ভাইয়া অনেককককককককককক গুলো কবিতা লিখেছে! :)

৩০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৬

মিরোরডডল বলেছেন:

ভিডিও শেয়ার করো । গান কবিতা ফান সব দাও :)

যারা চায়নি ওদের অংশ কেটে দিও তাহলে কিছু মনে করবে না ।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩১

শায়মা বলেছেন: ভিডিও কেমনে কাটবো!!!! :( :((

৩১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩১

মিরোরডডল বলেছেন:



বাসায় তোলা ছবিটা প্রতিমার মতো লাগছে ।

মা দূর্গা মা দূর্গা :)


১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩৪

শায়মা বলেছেন: হা হা সেই স্টাইলই আনা হয়েছে। :P

৩২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩৮

মিরোরডডল বলেছেন:



দেবী প্রতিমা !

তুমি শাড়িতে খুব কম্ফোর্টেবল, তাই না আপু?
You can carry it so nicely!
এরকম দেখলে আমারও খুব ইচ্ছে করে বাট আই ক্যান্ট হ্যান্ডেল ইট ।


১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৪৩

শায়মা বলেছেন: ৫ বছর বয়সে রবিঠাকুরের সামান্য ক্ষতি নৃত্যনাট্য করেছিলাম মায়ের কাতান বড় শাড়ি পরে। কেমনে যেন পরানো হয়েছিলো সেই বিশাল শাড়িটা জানিনা আমি। তখন থেকেই শাড়ি পরতে পরতে পরতে পরতে। তাছাড়াও শান্তি নিকেতন এমনকি ছায়ানটেও কিন্তু শাড়ি ছাড়া যাওয়া যায় না।

ঢুকতেই দেবে না। যে কোনো শাড়ি পরে যেতে হয় এটাই নিয়ম। তবে অতি অবস্য সুতি শাড়ি।

কাজেই বুঝতে পারছো শাড়ি হ্যান্ডেলিং নস্যি আমার কাছে। :)

৩৩| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৪৭

মিরোরডডল বলেছেন:



কিন্তু আমি কিংবা আমরা ফিরবো কিনা জানা নেই ......
জানিনা .......


তুমি বার বার ফিরে এসো ।
তুমি না থাকলে সামুটা কেমন যেনো গ্লুমি হয়ে যায় !


ফিরে এসো
বড় নিঃস্ব একা লাগে
ফিরে এসো
সেই চেনা পথের ধারে



১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫২

শায়মা বলেছেন: আরে কত দিন কে বাঁচি কে জানে!!!!!!!!!

বেঁচে থাকলে তো ফিরবোই।

দেখো না সামু পাগলা আপুটা আর ফেরেনা।

কোথায় আছে সে?


কিন্তু আমি আর আগের মত নেই। রাগ করে হারিয়ে যাওয়া বা পালিয়ে যাবার বয়স ফুরিয়েছে।

আমি তাই বারবার ফিরে ফিরেই আসি। :)

৩৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০১

মিরোরডডল বলেছেন:



পিচ্চুটার কোনও খোঁজ নেয়া যায় নাহ ?
একটা মানুষ কি করে এভাবে হারিয়ে যায় !
এতো একটিভ ছিলো ।
কারো ওপর অভিমান করেছে নিশ্চয়ই ।

ইভেন হেনাভাই চলে যাবার সময়েও আসেনি ।
কতোগুলো সিরিজ কনটিনিউ হচ্ছিলো ।
এসময় হঠাৎ এভাবে অফ হয়ে যাওয়া । :(
ভালো থাকুক পিচ্চুটা ।

নিকটাও খুব পছন্দের ।
সামু পাগলা ।
পাগল মানুষদেরকেই আমার ভালো লাগে ।


১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০৯

শায়মা বলেছেন: কিভাবে খোঁজ নেবো?

সে তো কোনো ঠিকানাই রাখেনি কোথাও! :(

৩৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১৩

মিরোরডডল বলেছেন:
ধুলোর সাথে চেক করো ।
সম্ভবত জানে ।


১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১৬

শায়মা বলেছেন: না জানে না..... কেউ জানে না ..... :(

৩৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১৫

মিরোরডডল বলেছেন:







১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:২০

শায়মা বলেছেন: কাশফুলের গানে মন জুড়ালো।

মিররমনি!!!!!!!!!!! :)

৩৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩১

শেরজা তপন বলেছেন: কাশফুলের বনে হাসফুলের উন্মাদনা চোখে পড়ার মত। চমৎকার!

* তবে আপু ছবিগুলো মনে হচ্ছে স্টুডিওতে তোলে। এডিটিং এর কারসাজি আছে নাকি -সত্যি করে বলেন তো, এত চমৎকার ছবি কেমনে হয়!!!!

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪২

শায়মা বলেছেন: হা হা হাসফুল ঠিকই বলেছো ভাইয়া।

হাসফুল আমার বড়ই পছন্দের কাজ। আর ছবিগুলো স্টুডিওতে তোলা না। তবে অটো এডিটে একটু গায়ের চামড়া ঝকঝকা করে দিয়েছি। :P

আর একটা ছবি থেকে পিছের ভূত তোলা যাচ্ছিলোনা সেটা ভাইয়া ফটোশপে তুলে দিয়েছে। :)

৩৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ৮:৫০

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: ...
খুশ খুশ কেশে কাশেই তুলেছো সবই,
কাশে ভালো লাগা কাশই ফাতেমা ছবি।

ছবি তো দারুণ তবে কথা সেই পুরান,
ছবিজী দেখিয়া কোন পথে তিনি ঘুরান?

কাঁপিয়েই দিলে এসে মেলা দন পরে,
পরের পোষ্ট কি পঁচিশে ডিসেম্বরে? ;)

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৩১

শায়মা বলেছেন: কাশিনি আমি!!!!!!!!!!

কাশ ফাতেমা ছবি আপু হবে কেনো?? কাশফুল আর মানুষের খোমা ছবি দেখলে ছবি আপুর মাথায় বোমা ফোটে!!!!!!! জানোনা!!!!!!

হা হা না নেক্সট পোস্ট ছুটি পেলেই লিখিবোক!!!!!! :)

৩৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:০৪

মোহামমদ কামরুজজামান বলেছেন: " ওহে নীল পরী, কোথায় কোন নদীতে ভাসাইলা তোমার রুপের তরী " - শায়মা বনি, আপনার দেখাদেখি আমিও একটু কবি হয়ে গেলাম। মনে কিছু নিয়েন। এমন সুন্দর শরতের প্রকৃতির সাথে আমার এত সুন্দর বনি, তাও আবার আমার প্রিয় নীল শাড়ীতে - আহা :(( কি করি? মরি মরি।৷৷৷ লোকেশন কি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা? (৩০০ ফিটের আশে পাশে)। ।।।।।৷৷৷ ৷৷৷৷ অনেক অনেক ভাল লাগল পোস্ট এবং তার সাথের অনুষংগ। আর তাই সব মিলিয়ে +++.

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৩২

শায়মা বলেছেন: মনে কিছু নিয়েন!!!!!!!!!!! হাহাহাহাাহাহাহা :P

যাইহোক না লোকেশন শেফস টেবিলের সাতারকুলের ঐ দিকে!!!!!!!

৪০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:২৮

মোহামমদ কামরুজজামান বলেছেন: শায়মা বনি কবিতায় একটু কারেকশন হবে, কোন নদীর স্থলে কোন মাঠেতে হবে। নতুন কবি আর প্রথম কবিতা - তাই আরকি

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৩৩

শায়মা বলেছেন: বালুনদী মনে হয় সেই নদী। তবে কাশবনটা কোথায় তাহা বলা যাইবেক না। স্পেশাল পারসোনাল কাশবন ভাইয়ু!!!

৪১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১০

খায়রুল আহসান বলেছেন: একটি সুলিখিত, সুবিন্যাসিত পোস্ট।

কবিতা এবং গান থেকে নেয়া পোস্টের উদ্ধৃতিগুলো সুসমন্বিত হয়েছে। তার সাথে কিছু চমৎকার, হাস্যোজ্জ্বল ছবি সংযুক্ত হওয়াতে পোস্টের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

শরৎ চলে যাবার মাত্র দু'দিন আগে এই শারদীয় বন্দনাটুকু নিবেদন করতে পেরেছেন কাব্যিকভাবে, এজন্য অভিনন্দন!

এ শারদীয় বন্দনায় আমার ভাললাগা রেখে গেলাম। + +

১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৫

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া নতুন আইডিয়া পেয়েছি।
শুধু শরৎ কেনো হেমন্ত শীত বসন্ত সব বন্দনাই তো করে ফেলা যায়।

মানে উচিৎ এখন। লকডাউনে থেকে থেকে তো আমরা সবই ভুলে যাচ্ছিলাম কখন শরৎ কখন বসন্ত! :(

৪২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৫২

ঢুকিচেপা বলেছেন: ভূবন ভোলানো হাসি।
শরৎ চলে যায় যাক, হাসিটা রয়ে যাক বাঁকী ৫ ঋতুতে।

ছবিগুলো দারুণ হয়েছে কিন্ত রহস্য বুঝতে পারছিনা, এটা কি সাবজেক্টের গুন নাকি ফটোগ্রাফারের ?

১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:২০

শায়মা বলেছেন: এর সব গুনই একমাত্র গুনবতী আমার। :)

১। সাবজেক্ট
২। কেমনে ছবি তুলবে বুঝানো মানে ডিরেকটরগিরি
৩। সেই ছবি আবার কেমনে কাটা কুটি করে এডিট করে ঝকঝকা করতে হবে শরতের আকাশের মত
৪। সেই ছবির সাথে মিলিয়ে আবার কেমনে ব্লগ লিখতে হবে ভাবনা চিনতা করে লেখা।

এখন তুমি সব আমার ছাড়া কার গুণ হবে?

৪৩| ১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ সকাল ৮:১২

রানার ব্লগ বলেছেন: কুটির শিল্প মানে বাড়ির উপরের ছাউনি??!!!

এই বুদ্ধি নিয়া রাত্রে ঘুমাও কেমনে??? ভয় লাগে না???

১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৩৪

শায়মা বলেছেন: কুটির শিল্প মানে ছাদ আমি বলেছি!!!!!!!!!!!!
কানা ভাইয়ু!!!!!!!!!!
কুটির শিল্প কি আমি ভালোই জানি। আমি বলেছি মনে হয় এটা দিয়ে ছাউনিও বানায় মানুষ।

ওমন কিছু দেখেছিলাম কখনও!!!!!!

আর আমি রাতে ঘুমাইনা ভাইয়ু!

৪৪| ১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৪৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ছবিগুলো খুব সুন্দর।++
আপু আপনার একটি লাইক আমার সবশেষ পোস্টে জমা হয়েছে।ব্যস্ততার কারণে বা অন্য যেকোনো কারণে কমেন্ট করতে পারেননি। এরকম এক দিনের জন্য এই অভাগা কমেন্টের অপেক্ষায় রইলো।

১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৩৬

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া
অনেকদিন অনেক ব্যাস্ততায় আসটে পারিনি। তাই আগের পর্বগুলো মিস হয়েছে কয়েকটা।
এই কারণেই আন্দাজে কমেন্ট দেইনি।

ভেবেছি সব কটা পড়ে তারপর সবগুলোতেই কমেন্টো দেবো ভাইয়ামনি! :)

৪৫| ১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৩

মেহবুবা বলেছেন: শরৎ চলে যাচ্ছে বলে কি এত উচ্ছ্বাস? কাশফুলে ভেসে তুমি কোথায় যাচ্ছো?

১৫ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:৩৭

শায়মা বলেছেন: কোথায় আবার! আমি তো সব সময়ই পরীর দেশেই যাই আপুনি!!!!!!!!


৪৬| ১৬ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ৮:৫৪

মুক্তা নীল বলেছেন:
এ যেনো আরেক কাশফুলের দেখা পেলাম ....
আপু সত্যিই তোমাকে খুব সুন্দর লাগছে ।

১৬ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ৯:১১

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ সাজুগুজু ফটো এডিটিং সব সার্থক!!

৪৭| ১৭ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১২:২৯

জাহিদ অনিক বলেছেন: হ্যালো শরৎ উন্মাদিনী !

তুমি আর শরৎ, দুজনে দুজন'কে পেয়ে বেশ খুশি-
যেন অনেকদিন পরে পেয়েছো কাউকে।

সুন্দর কবিতা ছবিতা, কংকাভাইয়া

১৭ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ৯:৫৮

শায়মা বলেছেন: হা হা জাহিদভাইয়া তোমাকে কাল দেখে ভাবলাম নতুন কবিতা লিখেছো বুঝি।

ঢুকলাম তোমার পোস্টে সেখানে গিয়ে একজনকে দেখে আর ইচ্ছা হলো না জানতেও যে আজকাল আর আসোনা কেনো আগের মত?

সবাই ব্যাস্ত হয়ে গেছে। আমিও । তবুও আসি....

৪৮| ১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২১

বন্ধু তুহিন প্রাঙ্গনেমোর বলেছেন: বাহ...... আপু......

১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:০৫

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া বলেছিলাম না!!!!!!!!

:P

যাইহোক করনার জ্বালায় তো কোথাও যেতেই পারিনি গত দু বছর বলতে গেলে। তাই এইবারে ..... :)

৪৯| ১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:০০

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: পড়তে পড়তে ঠাকুর্দার একটা গানের লাইন মনে পড়ল। বলেন তো লাইন টা কী?

১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১২

শায়মা বলেছেন: নিশ্চয়

মনে রবে কিনা রবে আমারে
সে আমার মনে নাই মনে নাই
ক্ষনে ক্ষনে আসি তব দূয়ারে
অকারণে গান গাই......

এটাই এটাই এটাই....... :)


কিন্তু তুমি কোথায় হারিয়েছো সাধুবাবাভাইয়া????

৫০| ১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৪

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: ডুব দিয়েছিলাম অকূল সায়রে। আজকে ভাসলাম।

১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:১৬

শায়মা বলেছেন: গুড গুড!
ভেরি গুড!
কিন্তু কোন গানের লাইনের কথা বলেছিলে বলো!!!!

৫১| ১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২০

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: তোমায় দেখেছি শারদপ্রাতে,
তোমায় দেখেছি মাধবীরাতে;
তোমায় দেখেছি হৃদমাঝারে, ওগো বিদেশিনী।

১৮ ই অক্টোবর, ২০২১ রাত ১১:২৬

শায়মা বলেছেন: ওলে!!!!!!!!!!

তাই তো তাই তো!!!!!!!!!

আমি তো ভুলেই গেছিলাম এই গানটার কথা!!!!!!

তবে আমি তো আর বিদেশিনী না মনে করে কি হবে!!!!!!!!

তাই কত্ত কলে মনে কলিনি!!!!!!!!

৫২| ২১ শে অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৪৪

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: শরৎ চলে গেলেও আবার আসবে।

এই ধরণের শাড়ি কি অর্ডার দিয়ে বানাতে হয়? :)

২১ শে অক্টোবর, ২০২১ রাত ১০:৫০

শায়মা বলেছেন: হা হা না সব শরৎ আসেনা কোনো কোনো শরৎ শেষ শরৎ ও হতে পারে।

না এই শাড়ী অঞ্জনস শরৎ স্পেশাল।

তবে আমি অঞ্জনসের হ্যাপী কাস্টোমার মডেল।

ওদের ওয়েবসাইটেও আমি আছি হা হা

৫৩| ২২ শে অক্টোবর, ২০২১ রাত ৮:০৮

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: শাড়ি কিন্তু সুন্দর ছিল। খারাপ অর্থে বলি নাই।

২২ শে অক্টোবর, ২০২১ রাত ৯:৩৫

শায়মা বলেছেন: জানি জানি জানি ভাইয়ু!!!!!!!!!!

এটাই জানি পাশে থেকে ভাবীজি তোমাকে বলেছে....

- হ্যা গো জিগাসা করো না গো এত সুন্দর শাড়ি চুড়ি আর মালাটা কই থেকে পেলো???

তুমি ভুলে গিয়ে শুধু শাড়িটার কথাই জিগাসা করলে। হা হা

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.