নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি লেখক নই, মাঝে মাঝে নিজের মনের ভাবনাগুলো লিখতে ভাল লাগে। যা মনে আসে তাই লিখি,নিজের ভাললাগার জন্য লিখি। বর্তমানের এই ভাবনাগুলোর সাথে ভবিষ্যতের আমাকে মেলানোর জন্যই এই টুকটাক লেখালেখি।

তারেক_মাহমুদ

পৃথিবীর সব ভাল টিকে থাকুক শেষ দিন পর্যন্ত

তারেক_মাহমুদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

বেকার জীবন(৩য় পর্ব)

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:২৯

রাশেদের দুটো টিউশনির মধ্যে ওসি সাহেবের ফ্যামিলি খুবই আন্তরিক হলেও অন্য পরিবারটি পুরোপুরি রোবট টাইপের। রাশেদের মনে হয় এই বাসার লোকজন প্রয়োজনের অতিরিক্ত একটাও কথা বলে না। তকি আর তাসনীম দুইভাইবোন একসাথে পড়ে। তকি ক্লাস সেভেনে আর তাসনিম পড়ে ফোরে। পড়াশুনায় দুজনই খুবই ভাল, তাই খুব বেশি পরিশ্রম করতে হয়না রাশেদকে। একটু দেখিয়ে দিলেই ওরা সহজেই আয়ত্ত্ব করতে পারে। এই বাসার মানুষগুলো যেমন রোবটিক এদের নাস্তাও তেমনি, পাউরুটির সাথে পনির খেতে দেয় বেশিরভাগ দিন। এটা খুবই জঘন্য খাবার রাশেদের কাছে। ফেরত দিলে যদি পরবর্তীতে নাস্তা না দেয় এই ভয়ে চোখ বুজে ওষুধের মত গিলে ফেলে। আসলে নিজের ইনকামের টাকা খরচ করে বিকেলের নাস্তা করার অবস্থা নেই তার,তাই টিউশনির দুইবাসা যে দেয় নাস্তা সেটাই তার ভরসা।

এরই মধ্যে চাকুরী খুজতে ব্যাপকভাবে লেগে পড়েছে রাশেদ। সাপ্তাহিক চাকুরীর খবরে যতগুলো সার্কুলার থাকে সবগুলোতে তার এপ্লাই করা চাই ই চাই। বেশিরভাগ চাকুরীতেই অভিজ্ঞতা চায়, সে জানে তাকে ডাকবে না, তবুও সে এপ্লাই করে ব্যাংক ড্রাফট পাঠায়। তার ইনকামের একটা বড় অংশই চলে যায় এই ব্যাংক ড্রাফটের পিছনে।

একবার চাকুরীর খবর পত্রিকায় সার্কুলার ছিল একটা গার্মেন্টস বায়িংয়ে বেশ ভাল বেতনে কিছুলোক নিয়োগ করা হবে ওয়াক-ইন-ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে। এমন একটা বিজ্ঞাপন দেখে সেও যায় ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য যায়। একসময় ডাক পড়ে রাশেদের। ইন্টারভিউ নিচ্ছেন একজন মহিলা, বেশ কিছু সহজ সহজ করেন তিনি।রাশেদ সবগুলোই প্রশ্নই ভালভাবেই উওর দেয়। উনি একটা ফর্ম পুরণ করতে বলেন,রাশেদের ফর্ম পুরণ শেষ হলে মহিলা বলেন
-আপনার চাকুরী হয়ে গেছে, আপনি আগামী মাস থেকে দশ হাজার টাকা এবং তিন মাস পর আঠারো হাজার টাকা বেতন পাবেন।
রাশেদ বেশ খুশি এত সহজেই চাকুরী পাওয়া গেল। কিন্তু সেই মহিলার পরের কথাটা শুনে আর চাকুরী করার ইচ্ছা রইলো না। মহিলা এরপর বললেন
-আপনি যেহেতু ফ্রেশ, আপনাকে ফর্ম বাবদ এক হাজার এবং তিন মাসের ট্রেনিং বাবদ দশ হাজার টাকা জমা দিতে হবে।
এবার রাশেদের বুঝতে বাকি রইলো না যে এটা একটা দুই নম্বর কোম্পানি।
রাশেদ তখন বললো
-আমার চাকুরী চাই না, আমার কাগজ পত্রগুলো ফেরত দিন।
তখন আরও দু তিনজন ছেলে রুমে প্রবেশ করলো এবং একজন বললো
-ফর্ম যেহেতু পুরণ করেছেন তখন এক হাজার টাকা আপনাকে দিতেই হবে।
কিন্তু সে একটাকাও দিতে রাজী নয়।ওই ছেলেগুলো তখন টাকা না দিলে কোনমতেই তাকে বাইরে যেতে দেবে না।ওদের একজন আবার রাশেদের হাতের ফাইল কেড়ে নিলো, এবং মুল সারর্টিফিকেট খুজতে লাগলো। মুল সারর্টিফিকেট বাসায় রেখে গিয়েছিল তাই রক্ষা। রাশেদ তখন যে ওসি সাহেবের মেয়েকে পড়ায় ওনাকে ফোন দিয়ে সংক্ষেপে নিজের বিপদের কথা বললো এবং সাহায্য চাইলো। ওসি সাহেব তখন ওই মহিলার হাতে ফোনটা দিতে বললেন। ওসি সাহেব মহিলাকে বললেন
-রাশেদ আমার আপন ভাতিজা ওর যদি কিছু হয় তবে তোদের সবকটাকে জেলের ভাত খেতে হবে।
ওসি সাহেবের কথা শুনে মহিলার চেহারা বাংলা পাচের মত হয়ে গেল, এবং রাশেদকে চলে যেতে বলে।


এ পর্বের শিক্ষাঃ

বেকারদের জন্য প্রতারকরা চারিদিকে প্রতারনার জাল বিস্তার করে রেখেছে, তাই কোম্পানি সম্পর্কে আগে ভালভাবে খোঁজ খবর নিয়ে তবেই ইন্টারভিউ দিতে যাবেন। এবং বিপদে সাহায্য করতে পারে এমন পরিচিত জনের মোবাইল নম্বর অবশ্যই সাথে রাখবেন।

মন্তব্য ৩৬ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (৩৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:১৬

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: বিটিবি তে। একটা অনুষ্টানে পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় এর জেলা
অফিসার বলতেছে আমাদের যথেষ্ট পরিমানে লোকবল নাই। তাই
আমরা জনগনের কাছে পৌছাতে পারছিনা।

তার মানে লোক দরকার।

আমার প্রশ্ন একটাই লোকের অভাব। তার পরেও
কেন কর্মচারী, কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়না।


দেশে তো বেকার শিক্ষিত যুবকদের অভাব নাই
।।

তাহলে আমরা কি বুঝে নিবো?


কর্ম খালি, লোকবল দরকার।

সরকার ইচ্ছা করেই লোক নিয়োগ দেয় না।।।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আবদুল্লাহ্ আল মামুন ভাই

সরকারি অনেক প্রতিষ্ঠানেই লোকবলের অভাব তবুও নিয়োগ দেওয়া হয় না আর লক্ষ লক্ষ বেকার চরম হতাশার মধ্যে দিন যাপন করে। এটা শুধুমাত্র সদিচ্ছার অভাব ছাড়া আর কিছুই নয় ।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

২| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:১৭

পদ্ম পুকুর বলেছেন: নির্ভেজাল গল্প কিন্তু শিক্ষাটা চমৎকার।

আমি গল্প লেখার কথা চিন্তা করলেই ক্যান যেনো মানব-মানবীর প্রেম ছাড়া কিছুই মাথায় আসে না। অথচ আপনি কি সুন্দর প্রেম পিরিতির বিষয় ছাড়াই লিখে ফেললেন। লেখাও সুন্দর। কোথাও ফাম্বলিং হলো না।

পোস্টে প্লাস।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫০

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: প্রিয় পদ্মপুকুর ভাই

এটাকে ঠিক গল্প বলা যায় না, যারাই চাকুরী ঘুজতে ঢাকায় এসেছে তাদের সবার অভিজ্ঞতায় এমনি।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ভাই।

৩| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর পোষ্ট।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৪৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ধন্যবাদ সুপ্রিয় রাজীব ভাই।

৪| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: বেকার জীবনের কষ্ট আমি বুঝি।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৪৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: যারা একসময় বেকার ছিল তারাই বেকারদের কষ্ট বুঝে।ধন্যবাদ রাজীব ভাই।

৫| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৬

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: বাস্তবতা তুলে ধরা হয়েছে গল্পের এ পর্বে, ভালো লাগলো গল্প।

আমি ছাত্রজীবনে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে চাকরির জন্য দেয়া দুই হাজার টাকা এভাবেই হারিয়ে ছিলাম, খুব কষ্ট লেগেছিল তখন।

আপনার গল্প পড়ে সেই পুরনো গল্প মনে পড়ে গেল আমার

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫২

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ছাত্রজীবন শেষ করে আমরা যারা ঢাকায় এসেছিলাম প্রথমে যাদের কোন থাকার যায়গা ছিল না তাদের সবার অভিজ্ঞতায়ই এমন, পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ নয়ন ভাই।

৬| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৭

চঞ্চল হরিণী বলেছেন: সচেতনতামূলক এই গল্পের জন্য অনেক ধন্যবাদ। ব্লগের অনেকেরই উপকার হবে। তারা তাদের পরিচিতজনদেরও জানাবেন আশা করি।

১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫৪

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ঠিকই বলেছেন আপু ভবিষ্যতে যারা চাকুরী খুজতে আসবে তাদের উপকারে আসবে। পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদআপু ।

৭| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩১

সনেট কবি বলেছেন: চমৎকার।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:৫৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: পাঠ ও মন্তব্যের জন্য জন্য ধন্যবাদ সুপ্রিয় সনেট কবি।

৮| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৬

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন:
হ্যা, আজকাল আমাদের পুঁজিবাদীরা দেশটাকে তাদের মত করেই চালাচ্ছে। এক একটা প্রতিষ্ঠানে গেলে তাদের আলাদা আলাদা নিয়মকানুন। এই নিয়মের ভেতরে হাজারো অনিয়ম চলতে থাকে কিন্তু এদেরকে সরকার না নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে না জনগণ!

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:০৩

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: সৈয়দ ইসলাম ভাই

দেশে অনিয়ম আছে বলেই প্রতারকরা জাকিয়ে বসেছে, আমাদের সকলের সচেতনতা জরুরী।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৯| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৭

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: বেকারদের জন্য সবচেয়ে ভয়াবহ এই ভূয়া কোম্পানীগুলো। অফিস নিয়ে বসে এরা দিনের পর দিন বেকারদের থেকে টাকা আদায় করছে চাকুরি দেয়ার নামে। পুলিশ ও প্রশাসনের এদের ধরে কঠোর শাস্তি দেয়া্ উচিত। তাহলে অন্যরা এসব করবে না...

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:০৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: বিচার মানি তালগাছ আমার

প্রসাশনের নাকের ডগায় এসব ভুয়া কোম্পানিগুলো দিনের পর দিন তাদের প্রতারনার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে প্রসাশন নিরব।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

১০| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫২

চাঙ্কু বলেছেন: রাশেদদের সব জায়গায় যন্ত্রণা পাওয়া লাগে। আর দেশে কিছু বদের বাচ্চা এইসব বেকারদের সুবিধা নিচ্ছে।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:১২

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: প্রতিদিন রাশেদের মত শত শত বেকার পা দিচ্ছে এসব প্রতারকদের ফাদে প্রসাশন জেগে জেগে ঘুমাচ্ছে।

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

১১| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১৬

প্রামানিক বলেছেন: বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে এরকম অনেক ঘটনাই এখন ঘটছে। কাহিনী পড়ে বাস্তব অনেক ঘটনাই চোখে ভাসছে। ধন্যবাদ পোষ্টের জন্য।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:১৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: প্রামানিক ভাই

এমন ঘটনা ঢাকায় এখন অহরহ ঘটছে, অসহায় বেকারদের বাচাতে এসব প্রতারনা বন্দ হওয়া জরুরি।

১২| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৯

তানভীর তুর্য্য বলেছেন: অসহায়ত্বের সুযোগ নিতে চাই এমন মানুষের সংখ্যা দেশে অনেক বেশী।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:১৮

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: তূর্য্য ভাই

বেকারদের জন্য চারিদিকে প্রতারনার জাল বিছানো রয়েছে তাই সব বেকারেরই এ বিষয়ে জানা দরকার।

১৩| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: ধন্যবাদ সুপ্রিয় রাজীব ভাই।

দুঃখ-কষ্ট কি আমি জানি তাই কাউকে দুঃখ-কষ্ট দিতে ইচ্ছা করে না।
তেমনি বেকারের যন্ত্রনাও খুব ভালো বুঝি।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:২৪

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: জেনে ভাল লাগলো, অনেক ভাল থাকুন।

১৪| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: যারা একসময় বেকার ছিল তারাই বেকারদের কষ্ট বুঝে।ধন্যবাদ রাজীব ভাই।

আমি গত সাত মাস ধরে বেকার। আমার ক্ষমতাবান কোনো মামা চাচা নেই।
মনে হয় না বাকি জীবনে আর চাকরি হবে। এদিকে হাতের জমানো টাকা প্রায় শেষ।
ভয়াবহ অবস্থা। চোখে অন্ধকার দেখছি।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:২৬

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আপনার দুর অবস্থার কথা জেনে খারাপ লাগলো। আশাকরি খুব তাড়াতাড়ি দুঃসময় কাটিয়ে উঠতে পারবেন। আল্লাহ আপনার মনের আশা পূর্ণ করুণ।

১৫| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৪২

সুমন কর বলেছেন: এমনটি হয় মাঝে মাঝে......সচেতন হতে হবে।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:২৮

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ঠিকই বলেছন সুমন ভাই আমাদের সবার সচেতন হওয়া উচিত। পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

১৬| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:১৩

শিখা রহমান বলেছেন: সুন্দর লেখা তারেক। গল্পে বাস্তবতা উঠে এসেছে।

ভালো থেকো। শুভকামনা ও পরের পর্বের অপেক্ষায় থাকলাম।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৬

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: সুন্দর মন্তব্যে অনুপ্রাণিত হলাম শিখা আপু, পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

১৭| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

নতুন নকিব বলেছেন:



সুন্দর এবং শিক্ষনীয়। ধন্যবাদ।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: মতামতের জন্য ধন্যবাদ সুপ্রিয় নকীব ভাই।

১৮| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:০২

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
বাস্তবাদী গল্প।

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০০

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: পাঠ মন্তব্য ও লাইকের জন্য অনেক ধন্যবাদ মাইদুল ভাই। অনেক শুভ কামনা আপনার জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.