নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি লেখক নই, মাঝে মাঝে নিজের মনের ভাবনাগুলো লিখতে ভাল লাগে। যা মনে আসে তাই লিখি,নিজের ভাললাগার জন্য লিখি। বর্তমানের এই ভাবনাগুলোর সাথে ভবিষ্যতের আমাকে মেলানোর জন্যই এই টুকটাক লেখালেখি।

তারেক_মাহমুদ

পৃথিবীর সব ভাল টিকে থাকুক শেষ দিন পর্যন্ত

তারেক_মাহমুদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

বনানী ট্রাজেডিঃ কোন দূর্ঘটনা নয়, একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড

২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১০:১৭


আমার জীবনের প্রথম জব ছিল বনানীর এফ আর টাওয়ারের ১৫ তলায়। এফ আর টাওয়ারের পুরো নাম ফারুক রূপায়ণ টাওয়ার।আমার অফিসের নাম ছিল, মিকা প্রপার্টিজ এন্ড সিকিরিটিজ লিমিটেড। এটা মুলত ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের একটি ব্রোকারেজ হাউজ। এটা ২০০৯ সালের কথা। আমি জয়েন করার কিছুদিন পরেই দেখলাম একজন সহকর্মী ক্র‍্যাচে ভর দিয়ে অফিসে আসছেন। উনার নাম জাহাঙ্গীর আলম, কৌতুহল বশতঃ জিজ্ঞাসা করলাম ভাইয়া আপনার কি হয়েছে? জাহাঙ্গীর ভাই জানালেন

-আমরা জয়েন করার ১/২ মাস আগে(২০০৮ সালে) এই ভবনে আগুন লেগেছিল, উনারা সবাই তখন প্রাণ বাচাতে ভবনের ছাদে উঠেছিলেন। ভবনের ছাদ থেকে পাশের ভবনে লাফ দেওয়ার সময় অন্যরা পার হয়ে গেলেও জাহাঙ্গীর ভাই শেষ মুহুর্তে পাশের ভবনে নামার সময় পড়ে যান তবে নীচে পড়েননি, পড়েন পাশের ভবনে ছাদের উপর এতে উনার পা ভেঙে যান। দীর্ঘ ৫/৬ মাস ভোগার পর তিনি ক্র‍্যাচ ছাড়া নিজের পায়ে হাটতে সক্ষম হন। তবে তিনি এখনো পুরোপুরি স্বাভাবিকভাবে হাটতে পারেন না কিছুটা পা টেনে টেনে হাটেন।

এর কয়েক মাস পর পুনরায় এই ভবনে আগুন লাগে, তখন আমিসহ আমার অন্যান্য সহকর্মীরা দ্রুত দৌড়ে সিড়ি দিয়ে নীচে নেমে যেতে সক্ষম হই। তখন অবশ্য আগুন খুব একটা ছড়াতে পারেনি, আধা ঘন্টার চেষ্টায় ফায়ার ব্রিগেড কর্মীরা আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

২০১০ সালে আমি জব পরিবর্তন করে অন্যত্র চলে যাই, ২০১৫ সালে একদিন একটি অনলাইন পত্রিকায় নিউজ দেখলাম "মৃদু ভুমিকম্পে বনানীর এফ আর টাওয়ার হেলে পড়েছে পাশের ভবনের উপর"। অন্য ভবনের কোন ক্ষয়ক্ষতি না হলেও এফ টাওয়ার ঠিকই হেলে পড়ে কিন্তু কেন এই ভবন পুনরায় ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হল সেটাই রহস্য। কারা কত টাকা খেয়ে বার বার দূর্ঘটনা ঘটা ভবনকে যথযথ অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা ছাড়া ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে?

গতকালের এই ভয়াবহ ট্রাজেডিতে আবির নামের এক ছোট ভাই নিহত হয়েছে। যদিও আমি আবিরকে চিনি না,অনেক আগেই এফ আর টাওয়ার ছেড়ে এসেছি, ওর সাথে আমার দেখা হয়নি ,কিন্তু ওর সাথে আমার একটা আত্মীক যোগাযোগ আছে আমার মত ওরও প্রথম জব মিকাতে। মাত্র ২৭ বছর বয়সের থেমে গেল একজন তরতাজা তরুণের জীবন। আমার পরিচিত অনেক সহকর্মী বন্ধুরা এখনো এখানে কাজ করে, মহান সৃষ্টিকর্তার করুনায় তারা বেচে আছেন,কিন্তু তারা কি এই বিভিষিকাময় অভিজ্ঞতার কথা কোনদিন ভুলতে পারবেন?

এতগুলো ঘটনা আমি জানি, এটা কি ভবন মালিক বা রাজউকের লোকজন জানেনা না? তবে কেন এতদিন এই ভবনকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হল না? এটাকে আমি দূর্ঘটনা বলতে নারাজ, এটা একটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড আর এই হত্যাকাণ্ডের দায়ে ভবন মালিকের ফাসি হওয়া উচিত।

মন্তব্য ৩৬ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৩৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১০:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
এটাই শেষ নয়।
সামনে হয়তো আরো আসতে পারে।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:২৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আপনার কথা মিথ্যে নয়, আজ সকালে গুলশান ডিসিসি মার্কেটের পাশে কাচা বাজারে আগুন লেগেছে।

২| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১০:৩৯

করুণাধারা বলেছেন: আমার ভেবে খুব অবাক লাগছিল, এত কাণ্ডের পরও মালিকের নাম টা পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি! তাকে ধরা তো দূরের কথা! সম্ভবত খুবই প্রভাবশালী কেউ, ধরাছোঁয়ার বাইরে; নাইলে এতবার দুর্ঘটনার পরও এই বিল্ডিং থাকে কি করে? এতগুলো প্রাণ চলে গেল, আমি সারাদিন টিভি দেখতে পারছি না; কিন্তু অনলাইনে নানা জায়গায় তরতাজা প্রাণের এভাবে মৃত্যু খবর পড়ছি আর আমার প্রেসার বাড়ছে। এই পৃথিবীই শেষ নয়। এই মৃত্যু গুলোর জন্য যারা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে দায়ী, তারা সবাই সেই পরজীবনে যেন কঠোর শাস্তি প্রাপ্ত হয়।

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন খবর শেয়ার করার জন্য।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৩১

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: এখনতো মনে হচ্ছে ওরা সারাজীবনই ধরাছোয়ার বাইরে রয়ে যাবে। সরকার ব্যবস্থা না নিলে সাধারণ মানুষের কিছুই করার নেই।

৩| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১০:৫২

কলাবাগান১ বলেছেন: এটা দুর্ঘটনা না বলেই মনে হয়...মালিক আর অবৈধ ভাবে তৈরী করে ২০-২৩ তালা দখল কারী এর মাঝে দ্বন্ধ বলেই মনে হচ্ছে...।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৩৩

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আমারও একই মত এটা দূর্ঘটনা নয় হত্যাকাণ্ড।

৪| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১১:০৫

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আপনার সাথে একমত এটা দূর্ঘটনা নয়। এই ঘটনার পর যেনো প্রশাসনের টনক নড়ে এই প্রত্যাশায় দেশও দেশের সরকারের কাছে।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৪৩

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: এর আগে রানা প্লাজা ট্রাজেডির সময় তবুও রানাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল এবারতো মনে হচ্ছে এই মালিকের কিছুই হবে না।

৫| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১১:৫০

আরোগ্য বলেছেন: এতো কিছুর পরও কি সরকার কোন ব্যবস্হা নিবে।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৪৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ওরা সবসময়ই ধরা ছোয়ার বাইরে।

৬| ২৯ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১১:৫৬

আকতার আর হোসাইন বলেছেন: করুণাধারা বলেছেন: আমার ভেবে খুব
অবাক লাগছিল, এত কাণ্ডের পরও মালিকের
নাম টা পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি! তাকে ধরা
তো দূরের কথা! সম্ভবত খুবই প্রভাবশালী
কেউ, ধরাছোঁয়ার বাইরে; নাইলে এতবার
দুর্ঘটনার পরও এই বিল্ডিং থাকে কি করে?


সহমত।

এটা হত্যাকান্ড... পরিকল্পিত হত্যাকান্ড..

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৪৬

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ধন্যবাদ, এসব লিখে কিছুই হবে না, তবুও কিছু মানুষ যদি সচেতন হয় সেটাই লাভ।

৭| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ২:০২

আমি সাব্বির বলেছেন: ভাই, আপনি হয় দেশে নতুন আসছেন, না হয় দেশের আবাহাওয়ায় নতুন। এগুলো কিছু চিন্তা ভাবনা বাদ দিয়ে নিজেরা কবে আজরাইলের সাথে দেখা করবো সেই চিন্তা করেন।
সুইজারল্যান্ড হতে চাওয়ার আগে পিছনে ফিরে না দেখা জাতির কাছে আপনি কি আশা করেন ভাইজান?

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:৪৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: হ ভাই জন্মের পর থেকেই এই আলো হাওয়ায় বড় হয়ছি তবু্ও নতুনই আছি।

৮| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ৭:০১

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: সবারই চিন্তাশক্তির যথেষ্ট সীমাবদ্ধতা রয়েছে | ঢাকা একটি চরম অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠা শহর যাকে জোড়াতালি দিয়ে হয়তো আরো কয়েক দশক টিকানো যাবে | কিন্তু এর বাসিন্দাদের এইভাবে চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে মানবসৃষ্ট দুর্যোগ দুর্বিপাকের মধ্যেই জীবনযাপন করতে হবে | শুনলাম সরকার নাকি ঢাকার চারপাশে স্যাটেলাইট শহর সৃষ্টির পরিকল্পনা করছে | আমার প্রশ্ন, ওই স্যাটেলাইট শহরের লোকজন কাজকর্ম করতে কোথায় যাতায়াত করবে? অবশ্যি সবাই সেই ঢাকাতেই আসবে প্রতিদিন ? তাতে কি যানজট আরো বাড়বে না ? শহরের উপর চাপ কমবে কি ? কোন বেকুবের মাথা থেকে এই সব প্ল্যান বের হয় জানিনা !

ঢাকা শহরকে দেশের রাজধানী হিসাবে রক্ষা করতে হলে এর উপর থেকে জনসংখ্যার চাপ কমানো ছাড়া আর কোনো উপায় নেই | এই শহর থেকে অধিকাংশ অফিস আদালত ও কারখানা দূরবর্তী জেলাগুলোতে পরিকল্পিতভাবে ছড়িয়ে দেয়া এবং সত্যিকারের প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণ করা যাতে জনগণকে ঢাকার উপর বেশি নির্ভরশীল হতে না নয় | অফিস আদালত স্থানান্তরিত হলে অনেক ঢাকাবাসীই যার যার কর্মক্ষেত্রের কাছাকাছি শহরগুলোতে আবাসনের চেষ্টা করবে এবং ঢাকার ঘরবাড়ির গুরুত্বও আগের মতো এতো আকাশচুম্বি হয়ে থাকবে না |

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৪

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আপনার সাথে সহমত, আসলে ঢাকাকে বিকেন্দ্রীকরণের বিকল্প নেই। অনেক ধন্যবাদ।

৯| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ দুপুর ১২:৪০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় তারেকভাই,

গতকাল ফেবুতেও আপনার এই পোস্টটি পড়েছি। এটা একটা ভয়ঙ্কর সমস্যা। পরিত্যক্তকে পরিত্যক্ত বলে ঘোষণা না করাটা। প্রত্যেকবার এতগুলি লোকের প্রাণহানি হবে। কিছু পরিবার নিঃস্ব হয়ে পথে ভাসবে। সামরিক মানুষ বিষয়টি নিয়ে মুখরিত হবে আবার দুদিন পরে যা তাই । চাপানউতোর, গোটা উপমহাদেশের এক সামগ্রিক চিত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: ভবন মালিককের অতিরিক্ত লোভ এই দূর্ঘটনার জন্য দায়ী, কিন্তু কে তাকে শাস্তি দেবে? এভাবেই চলতে থাকবে মৃত্যুর মিছিল।

১০| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ বিকাল ৩:২৮

নতুন নকিব বলেছেন:



অপরাধীর পরিচয় একটাই হওয়া উচিত, তিনি অপরাধী। তার আর কোনো পরিচয় না খুঁজে একজন অপরাধী হিসেবে তাকে বিচারের আওতায় আনা হলেই দেশে অপরাধের মাত্রা কমে আসতে পারে। বিশাল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রির মালিক বিবেচনায় কিংবা হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদের অধিকারী হওয়ায় অথবা বিশেষ কোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থনপুষ্ট বলে কাউকে ছাড় দেয়ার কোনো সুযোগ থাকা উচিত নয়। যদি থাকে তাহলে ন্যায়বিচার কোথায় থাকলো? এমনটা কখনোই কাম্য নয়।

এতবার এই ভবনটিতে অগ্নি দুর্ঘটনা ঘটার পরেও কেন বিপজ্জনক এই ভবনটিকে এতদিনেও পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হল না-সেটাই প্রশ্ন।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আপনি ভাল একটি বিষয় বলেছেন নকিব ভাই, কিন্তু বাস্তবে দলীয় পরিচয় অপরাধিকে বাচিয়ে দেয়।

১১| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৯

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: আল্লাহ সকলকে হেফাযত করুন।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আমিন।

১২| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি ফাঁসির ব্যবস্হা করেন, রশির টাকা আমি দেবো।

৩০ শে মার্চ, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৯

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আমি বলেছি এটা ফাসি হওয়ার মত অপরাধ, তার সাজা হবে কি হবে না সেটা আইনের ব্যপার।

১৩| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ৯:১৯

হাবিব স্যার বলেছেন: কি সাঙ্গাতিক!!

৩১ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ৯:০৩

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আসলেই সাংঘাতিক।

১৪| ৩০ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ১১:৩৫

ওমেরা বলেছেন: আচ্ছা ভবনের মালিক না হয় টাকার লোভে ভারা দিতেই পারে , যারা ভারা নিয়েছে তাদেরও তো দায়িত্ব ছিল এগুলো খেয়াল করে ভারা নেয়া । যদি ভারা না হত তাহলে মালিক ঠিক এটাকে মেরামত করত।

৩১ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১০:৩৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: সময় থাকতে আমরা কেউই সচেতন হই না, এ কারণেই এ ধরনের ভয়াবহ ঘটনা বারবার ঘটে।

১৫| ৩১ শে মার্চ, ২০১৯ সকাল ১১:২১

ঢাবিয়ান বলেছেন: বনানীর আগুনের হতাহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার এজাহারে তিনজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে। তিন আসামি হলেন প্রকৌশলী ফারুক হোসেন, রূপায়ণ গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুল এবং বিএনপি নেতা তাসভির উল ইসলাম।

এই দেশে এখন যে কোন ঘটনা স্মরনের মেয়াদ স্রেফ অল্প কিছু দিন। আরেকটা ইস্যূ তৈরী হবে মানুষের মনোযোগ যাবে সেদিকে ঘুরে। আর মামলার আসামীরা পুলিশ, আইনজীবিদের বড়লোক বানিয়ে বহাল তবিয়তে মামলার ফাক দিয়ে বেরিয়ে আসবেন।

৩১ শে মার্চ, ২০১৯ দুপুর ১:১০

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: হাজারো খবরের ভীড়ে এই ঘটনাও চাপা পড়ে যাবে, দোষীরা পার পেয়ে যাবে এটাই বাস্তবতা।

১৬| ৩১ শে মার্চ, ২০১৯ রাত ৯:২৩

সুমন কর বলেছেন: সব সম্ভবের দেশ আমাদের এই বাংলাদেশ !! দুঃখজনক।

০১ লা এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১১:২৪

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: সহমত।

১৭| ০২ রা এপ্রিল, ২০১৯ ভোর ৪:১৫

মলাসইলমুইনা বলেছেন: তারেক মাহমুদ,

বনানী ট্রাজিডিতে আমরা কি কাউকে খুন করেছি? মনে হয় না। এ’গুলো আমাদের নিয়তি I এই হত্যাগুলো আমরা নিয়তি বানিয়ে ফেলেছি।

একটা বিল্ডিং বানাবার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত যে নিয়মকানুনগুলো আছে সেগুলোকে আমরা এতটাই করাপ্ট করে ফেলেছি যে এখন আর সেই চেইন রিএকশন থেকে বেরিয়ে আসা বিপর্যয়গুলো নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না । আগুন না ধরে এই বিল্ডিংটা হেলে পরেও এরকম দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো । একজন সাধক শ্রেণীর কাউকে দেশের প্রেসিডেন্ট বা প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দিলেও তার পুন্য দিয়ে এই মৃত্যু থামানো যাবে না। চকবাজারে পুড়ে মরেছে মানুষ, তাজরীন দুর্ঘটনায় পুড়ে মরেছে, বনানীতে একই ঘটে ঘটলো এখন পরের ঘটনার অপেক্ষা করতে হবে। যতই শুনতে খারাপ শোনাক সত্যিটা হলো যতদিন এই অল করাপ্ট সিস্টেমগুলো চেঞ্জ না হবে, অদক্ষ ও দুর্নীতিবাজ লোকগুলোকে না সরানো যাবে ততদিন এই মৃত্যু মিছিল থামবেনা ।এগুলো আমাদের নিয়তির মতো জীবনের অংশ হয়ে গেছে। নিয়তি এড়ানোতো মর্ত্য মানবের কম্মো নয় ! দেশ ভাবনার লেখা ভালো হয়েছে।

১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১১:২২

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: দারুণ বলেছেন ভাইয়া, আসলেই কিছুদিনের মধ্যেই এই ভয়াবহ ঘটনা চাপা পড়ে যাবে, মানুষ ভুলে যাবে। পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

১৮| ০২ রা এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৫

জাহিদ অনিক বলেছেন: কি ভয়াবহ কথা ! এতকিছু হয়ে যাওয়ার পরেও এই বিল্ডিং কেন ব্যবহার করা হতে পারে ! সত্যিই কেউ মারা গেলে কারও যেন কোনো দায় নেই।

১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১১:২৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: মানুষের প্রাণের আসলে কোন মুল্য নেই লোভী মালিকদের কাছে, পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.