নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

তুমি কেমন করে গান করো হে গুনী, আমি অবাক হয়ে শুনি, কেবল শুনি ।।

ঠাকুরমাহমুদ

sometimes blue sometimes white sometimes black even red, even golden ! yes dear - its me - i am sky ! color your life, than your life will be colorful

ঠাকুরমাহমুদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

“পাহাড়ি মেয়ে” - শাফিন আহমেদ

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:১৩



ব্লগার ইফতেখার ভূইয়া ভাইকে সামান্য উপহার

ব্লগার Masterda “হলুদে বাবলা” পোষ্টে ২৩ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৩:২০ ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: যদিও বিয়ে করে ফেলেছি তারপরেও বলছি ছবির ঐ গ্রামের মেয়েটিকে ভালোবেসে ফেলেছি মনের অজান্তেই। এই জীবনে আর হয়তো তাকে পাওয়া হবে না, তবুও বুকের কোন এক কোনে সে বেঁচে থাকবে। লিখার জন্য ধন্যবাদ। বিঃদ্রঃ পেইন্টিংটা অসাধারণ মনে হয়েছে। সোর্স উল্লেখ করলে খুশি হতাম। ধন্যবাদ।

এই মন্তব্য পড়ে কেনো জানি বিচিত্র এক কারণে আমার মন বিষাদে ভরে উঠে, ছবিটির অনুসন্ধান শুরু করি আমার কর্ম জীবনের সামান্য দক্ষতা কাজে লাগাতেই ছবিটির লিংক সহ বেড়িয়ে আসে অসংখ্য ছবি। “পাহাড়ি মেয়ে” একটি ছবিতে ব্লগে কেউ খুশি হবেন সেই চিত্রটি দেখতে এটি একটি পোষ্ট। সাথে আমার প্রিয় মাইলস ও আমার প্রিয় বন্ধু শাফিন আহমেদের “পাহাড়ি মেয়ে” গানটি উপহার ব্লগার ইফতেখার ভূইয়া ভাই সহ ব্লগের সবাইকে।



পাথুরে নদী জলে পাহাড়ি মেয়ে নামে
ভেজা তার তনু-মন ধরা দেয় না
কি স্বপন এঁকে দিলো, বলা যায় না
পাথুরে নদী জলে পাহাড়ি মেয়ে নামে
ভেজা তার তনু-মন ধরা দেয় না
কি স্বপন এঁকে দিলো, বলা যায় না

সাজানো চোখের মাঝে, সবুজ বনানী তাতে
ছায়া ফেলে এই জল ঝর্না
অধীর ঢেউয়ের দোলা দিয়ে যায় আনমনা
থেকে থেকে শুধু যন্ত্রণা

পাথুরে নদী জলে পাহাড়ি মেয়ে নামে
ভেজা তার তনু-মন ধরা দেয় না
কি স্বপন এঁকে দিলো, বলা যায় না
পাথুরে নদী জলে পাহাড়ি মেয়ে নামে
ভেজা তার তনু-মন ধরা দেয় না
কি স্বপন এঁকে দিলো, বলা যায় না

বাতাস আকুল হলে জলে ছন্দ নিয়ে
পাহাড়ি মেয়ে সে তো চেয়ে দেখে না
পাখি ডাকে অচেনা, বয়ে যায় ভাবনা
স্বজন বুঝি তার ফিরে এলো না

বাতাস আকুল হলে জলে ছন্দ নিয়ে
পাহাড়ি মেয়ে সে তো চেয়ে দেখে না
পাখি ডাকে অচেনা, বয়ে যায় ভাবনা
স্বজন বুঝি তার ফিরে এলো না

বিখ্যাত শাফিন আহমেদের পরিচয় দেওয়ার মতো নতুন কিছু নেই তিনি বাংলাদেশের জনপ্রিয় ফ্যাশন আইকন। মাইলস ব্যান্ড দলের নায়ক। ৯০ এর দশকে যে কোনো ষ্টেডিয়ামে ব্যান্ড দলের কনসার্ট শুরু হলে মাইলস আসার সাথে সাথে হাজার হাজার দর্শকের চিৎকারে একটি বাক্য ভেসে আসতো “ফিরিয়ে দাও আমারি প্রেম তুমি এভাবে কেড়ে নিওনা” বাংলাদেশে ব্যান্ড দল গানের ভূবনে সে সময়ে শাফিন আহমেদ যে ধরণের দামী ব্রান্ডের পোশাক পড়তেন যদিও তা বাংলাদেশের বাজারের নয়, তার কাছাকাছি ব্রান্ডের পোশাক এলিফ্যান্ট রোডের শো রুমে হাত দিয়ে ধরতেও ভয় করতো - হাত পুড়ে যাওয়ার মতো দাম! আমেরিকান কাউবয় বুট, কাউবয় হ্যাট, ব্লাক জিন্স, ব্লাক শার্ট / টি শার্ট, ব্রান্ডেড গিটার আর গলায় মন মাতানো মাতাল করা সুরের গানে লক্ষ কোটি মানুষের হৃদয় কাড়া যুবক শাফিন আহমেদ। আমাদের শাফিন আহমেদ।

শাফিন আহমেদ জন্ম ১৪, ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১। বাংলাদেশী সংগীত শিল্পী এবং সুরকার। তিনি মাইলস ব্যান্ড এর একজন অন্যতম সদস্য। বর্তমানে মাইলস এর বেজ গিটারিস্ট এবং প্রধান গায়ক। শাফিন আহমেদের মা বাংলাদেশের গর্ব কিংবদন্তি রজরুল সঙ্গীত শিল্পী ফিরোজা বেগম এবং বাবা সুরকার কমল দাশগুপ্ত। বড় ভাই হামিন আহমেদ সহ যুক্তরাজ্যে পড়াশোনার সুবাদে পাশ্চাত্য সংগীতের সংস্পর্শে এসে ব্যান্ড সঙ্গীত শুরু করেন এবং মাইলস ব্যান্ড গড়ে তোলেন যা পরবর্তীতে বাংলাদেশের অগ্রগামী ব্যান্ডদল সমুহের মধ্যে অন্যতম হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে। তিনি সেইসময় প্রচারিত বিটিভির নিয়মিত মাইলসকে নিয়ে করা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতেন। শাফিন আহমেদের জনপ্রিয় কিছু গানের মধ্যে “চাঁদ তারা, জ্বালা জ্বালা, ধ্বিকি ধ্বিকি, পাহাড়ি মেয়ে, ফিরিয়ে দাও, আর কতোকাল খুঁজবো তোমায়” অন্যতম।

মাইলস‌ বাংলাদেশের একটি বিখ্যাত এবং জনপ্রিয় ব্যান্ড। মাইলস‌ এর জন্ম ১৯৮১ সালে। এ সময় তারা হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সপ্তাহে ৫ দিন গান করতেন। ১৯৮৩ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত তারা সোনারগাঁও প্যান প্যাসিফিক হোটেলে গান করেছেন।

বাংলাদেশ টেলিভিশন এ মাইলস হিসেবে তাদের প্রথম অংশগ্রহণ ১৯৮২ সালে। ঐ বছরই মাইলস শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে ১,৫০০ সংগীত পিপাসু দর্শকের সামনে তাদের প্রথম সরাসরি কনসার্ট অনুষ্ঠিত করে। ১৯৮২ সালে তারা তাদের প্রথম অ্যালবাম বের করেন ইংরেজি ভাষায়। তাছাড়া তাদের প্রথম অ্যালবামটিও ছিল ইংরেজিতে। ঐ সময় কিছু লোক বলেছিলেন যে, মাইলস বাংলা গান রচনা করতে পারে না, তার পরই মাইলস তাদের প্রথম বাংলা মিউজিক অ্যালবাম বের করেন, অ্যালবামটির নাম "প্রতিশ্রুতি"। এর ভেতর "চাঁদ তারা" গানটি খুব জনপ্রিয় হয়েছিলো তাছাড়া বাকি গানগুলোও জনপ্রিয় ছিলো। ১৯৯৩ সালে তারা তাদের চতুর্থ মিউজিক (দ্বিতীয় বাংলা মিউজিক) অ্যালবাম "প্রত্যাশা" বের করেন, যা বিস্ময়কর সাফল্য অর্জন করে। "প্রত্যাশা" অ্যালবামটি বের হওয়ার কয়েক মাসের ভেতরেই ৩,০০,০০০ (তিন লক্ষ) কপি বিক্রি হয়। "প্রত্যাশা" এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে সর্বাধিক বিক্রিত হওয়া মিউজিক অ্যালবামের মাঝে অন্যতম একটি

মাইলস এর ইতিহাসে তাদের একটি অন্যতম কনসার্ট হয়েছিল ঢাকা জাতীয় ষ্টেডিয়ামে, যেখানে সাংবাদিক সহ প্রায় ৬০,০০০ (ষাট হাজার) দর্শক হয়েছিলো, এছাড়া জাতীয় ষ্টেডিয়ামের আশে পাশের কোনো ভবনের জানালা ছাদ দর্শকের চাপে খালি ছিলো না। বলা হয়ে থাকে দর্শক সংখ্যা আনুমানিক ১,০০,০০০ (এক লক্ষ) হবার কথা। এই কনসার্টটি আয়োজিত হয়েছিলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তত্ত্বাবধানে এবং স্পন্সর ছিলো পেপসি এবং কনসার্টটি সরাসরি সম্প্রচার করে বাংলাদেশ টেলিভিশন যেখানে দর্শক ছিলো সমগ্র বাংলাদেশের সঙ্গীত ভক্ত লক্ষ কোটি জনতা।।


তথ্য ও ছবি: - গুগল সার্চ ইঞ্জিন
কৃতজ্ঞতা: - সামহোয়্যারইন ব্লগ কর্তৃপক্ষ।






মন্তব্য ৬০ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (৬০) মন্তব্য লিখুন

১| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:৩১

শাহিন বিন রফিক বলেছেন:



গান আমি এমনিতেই খুব কম শুনি তার উপর ব্যান্ড!! আয়ুব বাচ্চুর কিছু চলচিত্রের গান ভাল লাগে, স্বামী-আর স্ত্রী বাইনাইলো কোন মিস্ত্রী সে বড় আজব কারিগর ----

ছবিটা দেখতে বেশ ভাল লাগছে, পেইনটিং বিষয় আমার জ্ঞান শূণ্য।

লেখায়, +++

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:৫৮

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




শাহিন বিন রফিক ভাই,
আইয়ুব বাচ্চু বাংলাদেশের ব্যান্ড সঙ্গীত জগতের জ্বলন্ত মশাল। পেইন্টিং টি পছন্দ হয়েছে এটিই বিশাল ব্যাপার। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

২| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:৩৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আপনাকে ধন্যাবদ সময় করে লিখা আর ছবিটা খুঁজে বের করার জন। গুগলের লিঙ্কটাও দেখলাম কিন্তু আসলে ছবিটা কে পেইন্ট করেছে তা খুঁজে পাইনি।

শাফিন ভাইয়ের গান-এর ভ্ক্ত আমি অনেক আগে থেকেই। মাইলসের "প্রত্যাশা" এ্যালবামটা ছিলো আমার জীবনের প্রথম শোনা ব্যান্ড এ্যালবাম। বড় হয়ে অনেক খুঁজে সিডিটা বের করে কিনেছি। অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে গানগুলোর সাথে। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে গিয়ে বেশ কিছু সিডি কিনে এনেছি, তার মাঝে ঐ এ্যালবামটাও ছিলো তবে সাউন্ড কোয়ালিটি বেশ খারাপ মনে হয়েছে। হতে পারে সংগীতার বা অরিজিনাল মাস্টার রেকর্ডিং এর কারনে। যাইহোক, মাইলস্ এর সবগুলো এ্যালবাম সিডি আকারে প্রয়োজন। আপনি শাফিন ভাইকে "প্রিয় বন্ধু" বলে উল্লেখ করেছেন তাই বলছি, সত্যি যদি শাফিন ভাইয়ের সাথে আপনার যোগাযোগ থেকে তাহলে কিভাবে ভাইয়ার কাছ থেকে সিডিগুলোর কপি নেয়া বা ক্রয় করা যায় জানালে উপকৃত হতাম।

নিতান্তই নিজের ব্যক্তিগত কারনে আমি বিভিন্ন ব্যান্ডের সিডি কালেক্ট করি, অনেকটা শখ বলতে পারেন। লিখার জন্য আাবারও ধন্যবাদ।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:৫১

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ইফতেখার ভূইয়া ভাই,
শাফিন আহমেদ আমার প্রিয় বন্ধুদের একজন। আপনার মেইলে আমি যোগাযোগ করবো সকল সিডি আমি পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যাবস্থাও করবো। ছবির আর্টিষ্টকে খোঁজে বার করা সম্ভব কিনা আমি দেখবো।

বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে এমন মাথায় বোঝা নিয়ে গ্রাম্য সুন্দরী বাংলাদেশে এখন আর নেই। তবে ভারতে ও শ্রিলংকাতে আছেন। ব্লগে আনন্দ করতে পারাটা সৌভাগ্য, আমি আনন্দ পাচ্ছি যে আপনার পছন্দের ছবিটি আপনাকে দেওয়া গেছে। অরিজিনাল আটিষ্টকে পাওয়া গেলে ফুল লেংথ রেজুলেশন ছবিটি কালেকশন করা যেতো। শুভ কামনা রইলো ভাই।



৩| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৩:১৬

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: বলেন কি? :-B এতো বিশাল ব্যাপার! এখনতো মনে হচ্ছে আপনাইকে আমার হ্যারিকেন দিয়ে খুঁজতে হবে। :``>>

পাবলিকলি ইমেইল এ্যাড্রেসতো শেয়ার করতে পারছি না তাই আপনি কষ্ট করে নিচের পেইজ থেকে মেসেজ দিলেই আপনাকে আমার কন্টাক্ট শেয়ার করতে পারবো। বাকি আলোচনা ওখান থেকেই করা যাবে।
https://iftekhar.net/contact/

"দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, ভাবতে ভালোই লাগে" :`>
তবে গ্রাম্য সুন্দরীরা এখনো হয়তো আছে, তবে তেমনটা নেই। সবকিছু অনেকটাই বদলে গেছে সেটা বুঝতে পারি। আসলে ছবিটার অরিজিনাল আর্টিস্টকে পাওয়া গেলে একটা ধন্যবাদ দিতাম, এই যা।

বহুদিন আগে শাওনী মিত্র নামক একজন ভারতীয় শিল্পীর সাথে যোগাযোগ হয়েছিলো। ম্যাডাম এর গায়কি বেশ ভালো লাগতো। পরে জানতে পেরেছি, তিনি খুব অল্প বয়সেই গত হয়েছেন, ভীষণ কষ্ট পেয়েছিলাম। ক্রিয়েটিভ লোকজন এর সান্নিধ্যে আসতে পারলে একটা অজানা ভালোলাগা কাজ করে, তবে নিজের ভেতরেই ক্রমাগত ছোট হয়ে যাই ভীষণ শ্রদ্ধায়। নিজের নগন্যানুভূতি বিরাট আকার ধারন করে, তবে ব্যাপারটাকে আমি বেশ পজিটিভলি দেখি কারন সেটা নিজেকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে মানসিকভাবে বেশ সাহায্য করে।

সময় করে লিখার জন্য ধন্যবাদ।


৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৩:৪৪

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ইফতেখার ভূইয়া ভাই,
আমি আপনার সাথে যোগাযোগ করবো। আমি হারিকেন যুগেরই মানুষ আমাকে হারিকেন দিয়ে খুঁজতে হবে না। আমি আছি। আমার ভালো লাগছে আপনার আনন্দ দেখে। জ্বী দেশ এগিয়ে যাচ্ছে - সব দিকে এগিয়ে যাক শুধু দক্ষিনে না গেলেই হলো কারণ দক্ষিনে বঙ্গোপসাগর!

ইফতেখার ভাই, নিজেকে ছোট মনে করার কোনো কারণ নেই প্রতিটি মানুষ তার নিজ রাজ্যে রাজা। অতএব আমরা সবাই রাজা। বাংলাদেশে তেমন শীত পড়ে না তাই বিমান বোঝাই করে সবাই নেপাল ভুটান যাচ্ছেন শীত উপভোগ করার জন্য, হিমালয় দেখার জন্য। দেশে সত্যি সত্যি মানুষ অনেক সৌখিন হয়েছেন।

ক্রিয়েটিভ লোকজনকে আসলে ভালো লাগার অন্যতম কারণ যারা মিশুক তাদের। সব ক্রিয়েটিভ লোকজন মিশুক নন বরং অহংকারী হয়ে থাকেন। তখন তাদের সাথে কথা বলে মনে হয় কি বিপদেই না পড়ে গেলাম - নিজেকে তখন চাকরিপ্রার্থী মনে হয়!

আপনাকেও ধন্যবাদ।

৪| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৩:৪৮

জগন্নাথের আারিফ বলেছেন: অসাধারণ

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ ভোর ৪:১৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




জগন্নাথের আারিফ ভাই,
আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। শুভ কামনা রইলো।

৫| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৩:৫৭

সোহানী বলেছেন: উপহার পাহাড়ি মেয়ের পোট্রেট বা গান। সবশেষে মাইলস্ পিডিয়া এক কথায় অসাধারণ।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ ভোর ৪:৫৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




সোহানী আপা,
অনেক অনেক ধন্যবাদ। আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো।

৬| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ ভোর ৪:৪৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
ছবি ও মাইলস ব্যন্ডএর ইতিবৃত্ত সহ অনেক কিছুই হল জানা
জনপ্রিয় নজরুল সঙ্গিত শিল্পী ফিরুজা বেগমের গুণী ছেলের
ছবি ও তার কৃতির তথ্য সমৃদ্ধ কথামালা পাঠে ভাল লাগল।
গানটি শুনা হয়ে উঠেনি তবে এর কথাগুলি মন ছুয়ে গেল ।
পাথুরে নদী জলে পাহাড়ি মেয়ে নামে
ভেজা তার তনু-মন ধরা দেয় না

ভাল লাগা জিনিষ ধরা না দেয়ার
বেদনা কিছুতেই যে সহা যায় না
তাইতো শিল্পীর বাড়ীতে গিয়ে
জল রংগে আঁকা পাহাড়ি মেয়েকে
তুলে এনে রেখে গেলাম এখানে।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ ভোর ৫:১৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ডঃ এম এ আলী ভাই,
পাহাড়ি মেয়ে MP3 ভার্সন গানটি শুনতে পারেন আপনার ভালো লাগবে। সুন্দর ছবির জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ। আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো।

৭| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ ভোর ৬:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশের ব্যান্ড'এর গান গুলো একসুরে আটকা পড়েছে, ওরা কেমন অজানা একসুরে সবাই গায়; মনে হয়, সব গানের এক সুর।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৫২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




চাঁদগাজী ভাই,
৯০ এর দশকে বাংলাদেশের তাবত তরুণ তরুণীকে ভালোবাসার মায়ায় আবদ্ধ রেখেছিলো বাংলাদেশের ব্যান্ডদল। সেই সময়ের গান গুলো এখনো আমি শুনি। মাঝে মাঝে মনে হয় টাইম মেশিন থাকলে আবার ৮০ বা ৯০ এর দশকে ফিরে যেতাম। আমি আপনার লেখার উপর ভিত্তি করে বাংলাদেশের ব্যান্ডদল নিয়ে আরেকটি পোষ্ট দিবো। আশা করি পড়ে আপনি আনন্দ পাবেন।
ধ্বিকি ধ্বিকি আগুন জ্বলে আজকে এই গানটি শুনুন।

৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১৪

মিরোরডডল বলেছেন: পাহাড়ি গান টা সুন্দর । ইন ফ্যাক্ট প্রত্যাশা অ্যালবাম এর অনেকগুলো গানই খুব সুন্দর ।
মাইলস আমার অনেকি প্রিয় ব্যান্ড । শাফিন আহমেদ ইস আ ইউনিক পারসোনালটি ।
কিন্তু এখন আর সেই সময়ের মতন সুন্দর গান করেনা । ওয়ান আফটার ওয়ান ভালো গান ছিল । এখন কোথায় !!! লাস্ট ফিউ ইয়ারস কোন নতুন ভালো গান আর পাইনি ।
If you know any, you please share.

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:২২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:



বোন রে,
শাফিন আহমেদ কে দেখলেই মনে হতো এই যুবক অন্য কোনো ভূবনের অন্য কোনো গ্রহের যে আমাদের মাঝে চলে এসেছে তার মন মাতানো মাতাল গানের ছন্দ নিয়ে পাগল করা ভূবন ভুলানো সুরে। ওয়েষ্টার্ন কাউবয় শাফিন আহমেদ।

সবার ছুুটি নিতে হয় অবসরে যেতে হয়ে আমরা সবাই অবসরে যাচ্ছি একে একে। অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভ কামনা রইলো।

৯| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: শাফিন আহমেদের স্টাইল ছিল গিটারের মাথায় রুমাল। যদিও এটা মাইলসের স্টাইল। কারণ ওপর দুই গিটারিস্টের গিটারেও থাকতো রুমাল। তবে ইদানিং কালের কনসার্টে আর দেখা যায় না।

ওই পাহাড়ি মেয়ে , মাইলস আর শাফিন আহমদের জন্য শুভকামনা। পোস্টে ++

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:২৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




স্বপ্নবাজ ভাই,
এই দেশে এক একটি ব্যান্ড দলের তুলণা শুধু তার নিজের সাথেই চলে। আহঃ কি গান কি সুর। অন্য ভূবনের অন্য কোনো গ্রহের মন মাতানো পাগল করা গানের সুরে রাত জেগে গান শোনা। সেই স্মৃতি হারিয়ে যাওয়ার নয়। টাইম মেশিনে করে ৯০ এর দশকে চলে গেলে দেখতে পাওয়া যেতো ষ্টেডিয়ামে অপেক্ষারত হাজার হাজার তরুণ তরুনী। কবে মাইলস আসবে গান গাইবে “ফিরিয়ে দাও” জ্যামস আসবে গান গাইবে “পাগলা হাওয়া” প্রচন্ড শীত মানেনা হাজার হাজার দর্শক - “ এ মন আমার, মানে না, মানে না, মানে না, প্রতিক্ষায় জীবন আমার - - - - -

১০| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: বাংলাদেশের শিল্পীদের নিয়ে আমার কোনো আগ্রহ নেই।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




রাজীব নুর ভাই,
আপনি যেভাবে আগ্রহ হারাচ্ছেন কোনো একদিন নিজের প্রতি আগ্রহ হারাবেন। আপনাকে নিয়ে একটি শক্ত পোষ্ট দিতে হবে। যাবেন কোথায় বাংলাদেশ ছেড়ে। শত সমস্যার পরও নিজের দেশ নিজেরে দেশের মাটি। প্রবাসে আরাম নেই - যা আছে সব অভিনয়। অবস্য বাংলাদেশের সব অভিনেতা অভিনেত্রীই সেই সব অভিনয় করে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত।

১১| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:২৮

কিরমানী লিটন বলেছেন: মাইলস সোলস ফিডব্যাক এলআরবি নগর বাউল সোলস আমার খুব প্রিয়। অসাধারণ পোস্টে ভালোলাগা

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




কিরমানী লিটন ভাই,
সব কিছুর সময় আছে, শীতের দিনের পিঠা, শীতের দিনে লেপ দিয়ে ঘুম। গ্রীষ্মের গরমে নিশ্চয় লেপ দিয়ে ঘুম দেওয়া সম্ভব নয়। ঠিক তেমনি ৯০ এর দশকে যারা ব্যান্ড সঙ্গীত শুনেছেন দেখেছেন তারা জানেন এর মাদকতা কি ছিলো! কি ছিলো ব্যান্ড সঙ্গীতের সুর আর মোহ।

ধ্বিকি ধ্বিকি আগুন জ্বলে
বুকে নদী বইয়া চলে
ও ও ও… ও ও ও…

ভালোবাসি এতো তোরে আগে বুঝিনাই
এখন তোরে কোথায় পাই
উথাল-পাথাল বুকের মাঝে
কইরাছি কি ভুল
তাইতো এ মনটা ব্যাকুল

তোরে ছাড়া এ জীবন আপন কেহ নাই
এ কথা কেমনে বুঝাই
কোথায় গেলি ফাঁকি দিয়া বইলা গেলিনা
তাই মনে সুখ পাইলামনা


১২| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: বালক জানে না তো কতটা পথ গেলে, ফেরার পথ আর থাকে না কোনো কালে...

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ভয়ঙ্কর কথা।
আমি মনে রাখবো আপনার এই কথা। তবে ফিরে আসার পথ যে একেবারে নেই তা কিন্তু নয়। তবে তা কঠিন হয়ে থাকে এটিই সবচেয়ে বড় সমস্যা। দেখা যাক, হোক পথচলা - - - - -

১৩| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২২

হাবিব স্যার বলেছেন: পাহাড়ি মেয়ের মতোই সুশ্রী কবিতা।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৬

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




বাংলাদেশের ফ্যাশন আইকন শাফিন আহমেদের গাওয়া গান পাহাড়ি মেয়ে। অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভ কামনা।

১৪| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বাহা! চমৎকার বিষয় শেয়ার করেছেন। ধন্যবাদ প্রিয় ঠাকুরমাহমুদ ভাইকে ,ধন্যবাদ ইফতেখার ভাইকেও। উনার কল্যাণ এতগুলো বিষয় সামনে চলে এলো। জনপ্রিয় শিল্পী শাফিন আহমেদ যে কিংবদন্তি শিল্পী ফিরোজা বেগমের পুত্র জানতামই না। উল্লেখ্য আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন ইউনিভার্সিটি ফেস্ট অনুষ্ঠানে উনি প্রোগ্রাম করতে এসেছিলেন। কাজেই সরাসরি চোখে দেখার সুযোগ হয়েছিল। ‌ পোস্টে অষ্টম লাইক।

শুভকামনা প্রিয় ঠাকুরমাহমুদ ভাইকে।

৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৫৭

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




পদাতিক চৌধুরি ভাই,
মন্তব্য ও লাইকে ধন্যবাদ। ফিরোজা বেগম আমার ফুফুজান হোন। তাঁর গলা ও সুর ছিলো সত্যি সত্যি অসাধারণ, আপনাকে একটি তথ্য দেই আমার ফুফুজান ফিরোজা বেগম সরাসরি কাজী নজরুল ইসলামের কাছে সঙ্গীত শিখেছেন তিনি কাজী নজরুল ইসলামের ছাত্রী ও প্রিয় ভগ্নি। আপনি তাঁর গানের সরাসরি দর্শক ছিলেন এটি বিশাল পাওয়া। কিংবদন্তি ফিরোজা বেগম কোনো অনুষ্ঠানে ১ - ২ টির বেশী সঙ্গীত করতেন না।

আপনার জন্যও শুভ কামনা রইলো।

১৫| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪২

জুন বলেছেন: শাফিন আহমেদ আর হামিন আহমেদ ব্যান্ড বা পপ গান গাইতো, ভালোও লাগতো কিন্ত দুঃখ হয় তার মায়ের মত বিস্ময়কর কন্ঠের অধিকারীনি সেই সাথে অসাধারণ প্রতিভাশালী নজরুল সংগীত শিল্পীকে তারা একজন ও অনুসরণ করেনি ঠাকুর মাহমুদ।

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:৪২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




জুন আপা,
সুর মানুষকে সঙ্গীত দেয় কিন্তু বিনিময়ে জীবন থেকে কেড়ে নেয় অনেক অনেক কিছু। শাফিন আহমেদ ও হামিন আহমেদ ভাই আমার ফুফুজান ফিরোজা বেগমের সুর ধরতে পারেন নি কিন্তু জন্মগতভাবে মাতাপিতার যেই সুরে তারা বড় হয়েছেন তাতে শুধু হারানোর ব্যথাই বেশী। আর কাজী নজরুল ইসলামের আরেক নাম দুঃখু মিয়া যার জীবনটাই দুঃখ দিয়ে ভরা। দুঃখ অনুসরণ করে দুঃখই বাড়বে আর কিছু না।

১৬| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৪

জুন বলেছেন: মনে পরলো জিংগা গোষ্ঠীর কথা ঠাকুর মাহমুদ :)
তারাও চার ভাইবোন পপ গাইতো।

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:৫২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




জুন আপা,
আপনি তো আমাকে “বনি এম” মনে করিয়ে দিলেন।
আর বাংলাদেশে লাকী আখান্দ, হ্যাপী আখান্দ, পীলু মুমতাজ - - - -

১৭| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৩

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: আহা!
পাহাড়ী মেয়ে :`>


:)

++++++

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:১১

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




সেই সময়টা কি ছিলো বিদ্রোহী ভৃগু ভাই, কি এক দুর্দান্ত সময় পার করে এসেছি আমরা ভাবতেও অবাক লাগে। সময় আমাদের অনেক কিছু দেখিয়েছে আনন্দ হাসি কান্না ব্যথা সবই মনে রাখার মতো। এখনকার মতো ভুলে যাওয়ার মতো স্মৃতি নয় একটিও। মাইলস এর গান আজো ছোঁয়ে যায় মনের গভীরে অন্য কোনো ভূবনের স্বাদ।

শুভ কামনা রইলো।

১৮| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:১৭

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আসিফ আকবরের ও প্রিয়া তুমি কোথায় এলবামকে মনে হয় কেউ পিছে ফেলতে পারেনি।
পাহাড়ি মেয়ে গানটি আমার খুব প্রিয় একটি গান।

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




নূর আলম হিরণ ভাই,
বাংলাদেশের তাবত ১৭ কোটি মানুষের জনপ্রিয়তায় অবস্যই আসিফ আকবর আর মমতাজ বাংলাদেশের জনপ্রিয়তার শীর্ষ শিল্পী। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

১৯| ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪১

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
'দারুন একখানি পেইন্টিং
যে কোন প্রেমিক পুরুষ মোহিত হবেই!
আপনাকে ধন্যবাদ

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




নূর মোহাম্মদ নূরু ভাই,
আপনি আমাকে গল্পের অথৈ সাগরে ঠেলে দিলেন। লিখবো গল্প। আশা করি পাশে পাবো সব সময়। আপনাকে ধন্যবাদ নূর মোহাম্মদ নূরু ভাই।


২০| ০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
না পড়লে ঘুরে দেখতে পারেন।
৯০ দশকের হারিয়ে যাওয়া ব্যান্ডগুলোর কিছু গান (ব্লগার - কবি ও কাব্য )

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




স্বপ্নবাজ সৌরভ ভাই,
এই পোষ্টটি আগে দেখিনি, আপনার লিংক দেওয়াতে দেখতে পেলাম। অনেক অনেক ধন্যবাদ। আপনার কথা মনে রেখে আমি রাশিয়া ভ্রমণের কিছু গল্প লিখবো। আশা করি পড়ে আনন্দ পাবেন। আপনাকে আবারো ধন্যবাদ।

২১| ০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৪০

মিরোরডডল বলেছেন: কি অবসরে যাবার কথা বলছেন ?
পার্টি জাস্ট স্টার্টেড
শাফিন আহমেদ ইজ এন এভারগ্রীন নো ডাউট
আই বিলিভ সো ডু ইউ
কাজেই নো অবসর : - )
আপনার বন্ধুকে বলবেন আমরা আরও অনেক এরকম গান চাই
It’s not very old song like their golden creations but still it was also nice

https://www.youtube.com/watch?v=uU-zB0QTqJE

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




বোন রে,
আপনার কথায় খুব ভালো লেগেছে, দোয়া করছি আপনি সব সময় সবুজ থাকুন চিরো সবুজ। ভালো থাকুস সুস্থ থাকুন ব্যস্ত থাকুন।

২২| ০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫৪

তারেক ফাহিম বলেছেন: মাইলস সোলস

আমার অনেক পছন্দের।

০১ লা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:



তারেক ফাহিম ভাই,

মন কেন মানে না, মানে না, মানে না
নিঝুম আঁধার কাটে না, কাটে না, কাটে না
প্রতীক্ষায় জীবন আমার কেঁদে কেঁদে ক্ষয়ে ক্ষয়ে যায়

মন কেন মানে না, মানে না, মানে না
নিঝুম আঁধার কাটে না, কাটে না, কাটে না
প্রতীক্ষায় জীবন আমার কেঁদে কেঁদে ক্ষয়ে ক্ষয়ে যায়

হায় জ্বালা, জ্বালা, জ্বালা
এই মন জুড়ে

হায় জ্বালা, জ্বালা, জ্বালা
এই অন্তরে

হায় জ্বালা, জ্বালা, জ্বালা
এই মন জুড়ে

হায় জ্বালা, জ্বালা, জ্বালা
এই অন্তরে

এতো নিষ্ঠুর কেন হলে?

২৩| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:২৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: মাইলসের খুব পছন্দের একটা গান -- পলাশীর প্রান্তরে
লিখছেন প্রিয় গীতিকার এবং ফ্যাশন আইকন : লতিফুর রহমান শিবলী

কতটা তুমি হারালে বন্ধু কেঁদেছে অন্তর
জানো না তুমি হারাবার ব্যাথা
জানে পলাশীর প্রান্তর

হারিয়ে গেছে সেখানে মায়ের সোনার নোলকখানি
গোলাভরা খেতের ফসল সাজানো ফুলদানি
এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে

কতটা তুমি হারালে বন্ধু কেঁদেছে অন্তর
জানো না তুমি হারাবার ব্যাথা
জানে পলাশীর প্রান্তর

হারিয়ে গেছে খুদিরামের স্বপ্ন ভরা চোখ
তিতুমীরের সফেদ পাগড়ী জোতিরময় আলোক
এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে

এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:০০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




স্বপ্নবাজ সৌরভ ভাই,
এই এক গানে পলাশীর কথা বলা হয়ে গেছে যার ব্যাখা করতে হলে রিম রিম কাগজ প্রয়োজন।

কতটা তুমি হারালে বন্ধু কেঁদেছে অন্তর
জানো না তুমি হারাবার ব্যাথা
জানে পলাশীর প্রান্তর

হারিয়ে গেছে সেখানে মায়ের সোনার নোলকখানি
গোলাভরা খেতের ফসল সাজানো ফুলদানি
এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে

কতটা তুমি হারালে বন্ধু কেঁদেছে অন্তর
জানো না তুমি হারাবার ব্যাথা
জানে পলাশীর প্রান্তর

হারিয়ে গেছে খুদিরামের স্বপ্ন ভরা চোখ
তিতুমীরের সফেদ পাগড়ী জোতিরময় আলোক
এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে

এই হারানোর বেদনা তুমি রেখো অন্তরে
দেখবে তোমার দুঃখ লুকাবে পলাশীর প্রান্তরে



২৪| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৫৯

আরাফআহনাফ বলেছেন: মাইলসের কম্পোজিশানের তুলনাই হয় না - একটা ঘোর লাগা সুর যেন ছড়িয়ে যায় সবখানে।

মাইলস,সোলস,এলআরবি শুনেই পার করেছি আমাদের স্বর্ণসময়- কৈশোর, যৌবন।


০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:০৪

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




আরাফআহনাফ ভাই।
৯০ এর দশকটি বাংলাদেশের জন্য আসলে স্বর্ণালী সময় ছিলো। মন মাতানো মাতাল করা গানের জাদুকরের জাদুর গানের ছোঁয়া ৯০ এর দশকে ভরে আছে।

আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

২৫| ০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৪২

অন্তরন্তর বলেছেন: নস্টালজিক গান। মাইলস এর অনেকগুলো গান খুব সুন্দর। আমার কেন যেন উনাকে অহংকারী মনে হত। আপনার ফুফাত ভাই প্লীজ কিছু মনে করবেন না। শুভ কামনা ঠাকুর ভাই।

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




অন্তরন্তর ভাই,
সময় কতো দ্রুত চলে যায়। আমরা সময়ের হাতে ব্ন্দী পুতুল মাত্র। আপনি কেমন আছেন? সুর মানুষের জীবনে সঙ্গীত দেয় কিন্তু বিনিময়ে জীবন থেকে কেড়ে নেয় অনেক অনেক কিছু।

২৬| ০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০৮

মুক্তা নীল বলেছেন:
ঠাকুর'দা ,

ব্যান্ডের গান তেমন একটা শোনা হয় নাই কিন্তু উনাদের
কিছু কিছু গান মনে দাগ কেটে আছে এখনো ।
শুভকামনা করছি ও ভাল থাকুন সবসময় ।
পোস্টে দারুন ভালোলাগা ++

০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৫৬

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:



বোন রে,
সুর মানুষকে সঙ্গীত দেয় কিন্তু বিনিময়ে জীবন থেকে কেড়ে নেয় অনেক অনেক কিছু। আপনি কাজী নজরুল ইসলামের উদাহরণ দেখতে পারেন তার আরেক নাম দুঃখু মিয়া যার জীবনটাই দুঃখ দিয়ে ভরা। দুঃখ অনুসরণ করে দুঃখই বাড়বে আর কিছুই না। সুর ও সঙ্গীত থেকে দুরে থাকুন ভালো থাকবেন।

আপনার মন্তব্যর জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ। আজ শুক্রবার, আপনার জন্য দোয়া করছি আপনি ও আপনার পরিবার পরিজন ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, পরম করুণাময় যেনো তাঁর মঙ্গলের শান্তির ছায়ায় রাখেন অনাদি অনন্তকাল।

২৭| ০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ঠাকুরমাহমুদ,




মানুষ সততই সুন্দরের পুজারী। পাহাড়ী মেয়ের যে ছবিটি (পোট্রেট) দিয়েছেন তা যে কারো ভালো লাগারই কথা।

শাফিন আহমেদের ছবিখানিও তেমন ভালোলাগার যেমন তার গান।

০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




আহমেদ জী এস ভাই,
বাংলাদেশে যখন গানের জগতে নতুন মনকাড়া কোনো গান ছিলো না তখন বাংরাদেশে ব্যান্ড দলের জন্ম। তারা নিয়ে আসে মন মাতানো উচ্ছল সঙ্গীত। আর তাদের মধ্যে অন্যতম একজন তারকা শাফিন আহমেদ।

ধন্যবাদ আহমেদ জী এস ভাই। শুভ কামনা রইলো।




২৮| ০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৪৮

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: শাফিন ভাইয়ের একটা এ্যালবাম নিয়ে অনেক আগে একটা পোস্ট দিয়েছিলাম। এর কোন কুল-কিনারা করা সম্ভব হয়নি এখনো। দেখুনতো এটার কোন উত্তর দেয় যায় কি না, ধন্যবাদ।

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০১

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




শাফিন আহমেদের এ জাবত কালের সবগুলো গানের অডিও ভার্সন (MP3) সিডি করা আছে। আপনি চাইলে আমি পাঠিয়ে দেবো। বা অনলাইনে আপলোড করা আছে কিনা জেনে - দেখে আপনাকে আমি জানিয়ে দেবো। কোনো অসুবিধা নেই। প্লিজ আমাকে সময় দিন, আমি ব্যবস্থা করছি।

২৯| ০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
অসাধারণ একটি পোস্ট।
খুবই ভালো লাগলো।

০৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৪

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন ভাই,
৯০ এর দশকটি বাংলাদেশের জন্য আসলে স্বর্ণালী সময় ছিলো। মন মাতানো মাতাল করা গানের জাদুকরের জাদুর গানের ছোঁয়া ৯০ এর দশকে ভরে আছে।

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন ভাই, আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

৩০| ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৫৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
নতুন পোষ্ট কোথায় ?
এ দিকে আমি মহাকাব্য লিখে ফেলেছি হা হা হা ।

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:০৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




ডঃ এম এ আলী ভাই,
আপনি ভয়াবহ কাজ করেছেন। আমি আপনার পোষ্টে - - - -
আপনার পোষ্ট পড়ছি - - - -

আমার লেখা দ্রুত আসছে। একটু ব্যস্ততার কারণে পিছিয়ে গিয়েছি।


আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.