নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি ই ওয়াসিম, আমি ই হ্যাভেন ! আমি ও বলতে চাই !

ওয়াসিম ফারুক হ্যাভেন

ব্লগিং হউক সমাজ পরিবর্তনের হাতিয়ার ।

ওয়াসিম ফারুক হ্যাভেন › বিস্তারিত পোস্টঃ

রাজনৈতিক ফাঁদে জাতি

০৬ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১২:০৭

বাংলাদেশের রাজনৈতিক ময়দানে নাকি এখন ফাঁদ পাতা আছে সেই ফাঁদের পা দেয়া বা ফাঁদ কেটে বের হওয়াই তিন বারের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল অর্থাৎ বিএনপির এই মুহুর্তে প্রথম পরীক্ষা ? সরকার ক্ষমতায় থাকার জন্য বিরোধী রাজনৈতিক শক্তিকে কাবু করার জন্য নানা রকমের ফাঁদ পাতে এটাই স্বাভাবিক । আর সেই ফাঁদকে এড়িয়ে চলাই রিরোধী রাজনৈতিক দলের রাজনীতির স্বার্থকতা । আমাদের দেশের রাজনৈতিক নেতারা কিন্তু প্রায়ই নিজেদের ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের কখনো কখনো জেনে বুঝেই সরকারের পাতা ফাঁদে পা রাখেন তার এমন বহু নজির পূর্বে আমরা দেখিছি । বর্তমান সময়ে আমাদের দেশের রাজনীতিতে প্রধান আলোচিত বিষয় বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারা বাস । গত ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত পাঁচ বছর কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়ে কারাগারে প্রেরন করেছেন । বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম গনতান্ত্রিকা ভাবে নির্বাচিত কোন প্রধানমন্ত্রীকে দূর্নীতির মামলায় আদালতের রায় নিয়ে জেলে যেত হলো । বিএনপি নেত্রী জেলে যাওয়ার পর থেকেই সরকারীদল ও বিএনপি নেতাদের মুখে একেক ধরনের বক্তব্য । এসব বক্তব্যের প্রায় সবই অযুক্তিক । বেগম খালেদা জিয়া জেলে যাওয়ার পর প্রায় সকলের ই ধারনা ছিল যে বিএনপি হয়তো কঠোর রাজনৈতিক কর্মসূচী নিয়ে মাঠে নামবে । বাস্তবে তা না করে বিএনপি তাদের নেতার কারামুক্তির জন্য শান্ত শিষ্ঠ রাজনৈতিক কর্মসুচী ই পালন করে আসছে । বেগম খালেদা জিয়া নাকি জেলে যাওয়া আগে তার দলের নেতা কর্মীদের এমনটিই আদেশ করে গেছেন । অবশ্য এই ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচী পালন করে ইতোমধ্যে বিএনপি দেশের সাধারন মানুষের কিছুটা হলেও প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন । যদিও আওয়ামীলিগের নেতাকর্মীদের ভাষ্য বিএনপির নাকি রাজপথে নেমে কঠোর রাজনৈতিক কর্মসুচী পালনের সেই সক্ষমতা নেই । অবশ্য আওয়ামিলীগের নেতা কর্মীদের কথা সাথে দেশের সাধারন অনেক মানুষের মত আমার ও মতপার্থক্য রয়েছে । বিএনপির নেতাদের ভাষ্য নির্বাচনের আগে এমন একটি রায় দিয়ে সরকার একটি ফাঁদ পেতেছে এমন রায়ের ফলে বিএনপি কঠোর থেকে কঠোরতর রাজনৈতিক কর্মসুচি নিয়ে মাঠে আর এই উসিলায় আইনশৃংখলা রক্ষার জন্য সমগ্র দেশের বিএনপির নেতা কর্মীদের উপর নির্যাতন করতে পারবে । এর পর ও আমরা দেখেছি পুলিশকে বিএনপির কালোপতাকা প্রর্দশন কর্মসুচীতে পুলিশের জলকামানের ধাক্কা ও লাঠিচার্জ । দেশের সাধারন মানুষ কখনো ই কোন হিংসাত্বক ও ধ্বংসাত্ব রাজনৈতিক কর্মসুচীকে সমর্থন করে না ।

বেগম জিয়ার জেলে যাওয়া নিয়ে বিএনপি ও বোধ হয় রাজনীতিতে নেমেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের কথায় এমনটি ই মনে হচ্ছে ।সম্প্রতি " বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদ " নামের একটি সংগঠনের আয়োজনে এক আলোচনা সভায় মওদুদ আহমদ বলেছেন " দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জেলে থাকার বিষয়টি বিএনপির জন্য প্লাস পয়েন্ট, আর আওয়ামী লীগের জন্য মাইনাস পয়েন্ট। " সেই সাথে তিনি আরো বলেন " খালেদা জিয়া এক দিন জেলে থাকলে বিএনপির ১০ লাখ করে ভোট বাড়ছে ।" আবার বিএনপি সহ বিশ দলীয় জোটের অনেক নেতাই বলে আসছে বেগম জিয়াকে জেলে রেখে বা বেগম জিয়া ছাড়া তারা কোন ভাবেই নির্বাচনে যাবেন না । এ বছরের শেষেই জাতিয় নির্বাচন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির সংবিধান রক্ষার নির্বাচন গনতান্ত্রিক জাতি হিসেবে আমাদের সম্মান কতটুকু রক্ষাকরতে সক্ষম হয়েছিল সেটা ছিল একটা বড় প্রশ্ন । আগামী নির্বাচন ই কেমন হবে সেটা নিয়ে ও শংকায় সমগ্র দেশবাসী । সংবিধান রক্ষার নামে ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ তে জাতি প্রহসনের নির্বাচন উপভোগ করছে । ২২ জানুয়ারি ২০০৭ ও সেই সংবিধান রক্ষার যিকির আমরা শুনেছি আর সেই যিকিকের সওয়াব জাতি দুই বছর ভাল ভাবেই পেয়ে ছিল । আমাদের রাজনৈতিক দল গুলি ক্ষমতার বাহিরে থাকলে অজুহাত তুলেন জনগনের আর ক্ষমতায় গেলে অজুহাত তুলেন সংবিধানের । সামনে জাতিয় নির্বাচন মওদুদ আহমদেরা যদি চিন্তা করেন বেগম খালেদা জিয়া জেলে থাকলে তাদের দল ও রাজনীতির জন্য প্লাস পয়েন্ট তাতে তাদের জন সমর্থন অর্থাৎ ভোট বাড়বে তাতে হয়তো খালেদা জিয়ার কারা মুক্তিতে তাদের পক্ষথেকে কিছুটা গরিমসরি হতে পারে । আবার অন্যান নেতার যে বলছেন খালেদা জিয়াকে মুক্ত না করে তারা কোন ভাবেই নির্বাচনে যাবেন না তাতে আগামী জাতি নির্বাচন নিয়ে ও জনমনে চিন্তার সৃষ্টি হয়েছে । আর মানননীয় প্রধানমন্ত্রী তো সাফ জানিয়েই দিয়েছেন কে নির্বাচনে আসল কে আসল না তাতে তার কিছু যায় আসে না । বর্তমান সময়ে দেশের রাজনীতি নিয়ে আমাদের বৃহৎ দুইটি রাজনৈতিক দল রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়ার ও ক্ষমতা টিকিয়ে রাখায় জন্য নানান ফাঁদ পেতে রেখেছেন । রাজনীতিবিদরা কেউ হয়তো ফাঁদে পা দিবেন কেউ হয়তো ফাঁদকে ভাঙ্গতে সক্ষম হবেন । কিন্তু জাতি হিসেবে আমরা এতটা হতভাগা যে রাজনীতি বিদদের পাতা ফাঁদে আমরা আজীবন ই পা দিয়ে আসছি ।



মন্তব্য ১ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১) মন্তব্য লিখুন

১| ০৬ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৮

রাজীব নুর বলেছেন: দেশে অনেক খারাপ লোক আছে, এরা জাতিকে পেছনে টানছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.