নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কেমন জানি খুব বেশি আত্মবিশ্বাসী,ভালবাসি বই পড়তে,তার চেয়েও বেশি ভাল লাগে ঘুরে বেড়াতে,আর কবিতা সে তো টানে আমায় অদৃশ্য সূতোয়।ঘুরেছি পৃথিবীর বহু দেশ, তবুও মন ভরেনি, আবার ও বের হব কোন একদিন পৃথিবীর পথে প্রান্তরে, আর হব আমার লেখা লেখির ফেরিওয়ালা।

মাহবুবুল আজাদ

আমি একদিন অনেক বড় হব আমার সীমানা ছাড়িয়ে azadenet@gmail.com

মাহবুবুল আজাদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

কলকাতা বাংলাদেশ বইমেলা ২০১৮

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:৪২

কবিতায় এপার ওপার ৩ এর সূচীপত্র আর মলাটের নিরবতা ভেঙ্গে মুখরিত করতে থাকল মোহরকুঞ্জের দূর্বাঘাস।
মলাটবদ্ধ কোন বইয়ে এটাই আমার প্রথম কোন ছাপার অক্ষরে কবিতা প্রকাশ পেল। যার মাধ্যমে দুই বাংলার এই মেলবন্ধন। কিছু উচ্ছ্বাসী কিছু নবীন কিছু তুখোড় কবিদের ভিড়ে এই যাত্রা।

মোহরকুঞ্জঃ বাংলাদেশ বইমেলা কলকাতা ২০১৮ এর স্থান।

৪ নভেম্বর ২০১৮, বিকেল থেকে রাত হ্যা সময়টা উল্লেখ করছি কারণ এটা কোন সাধারণ সময় নয়, এই সময়ের মাঝে যে ভালোবাসা ও বন্ধুত্বের এক মেলবন্ধন হয়েছিল তা কি কেউ আমরা আগে কখনো ভাবতে পেরেছি, আসলেই না। বাংলাদেশ বই মেলা কলকাতা ২০১৮, মোহরকুঞ্জ হয়ে গেল ঐতিহাসিক সময়ের সাক্ষী, দুই বাংলার কাঁটাতারের বেড়া আর সীমান্তের পাহারা কোন কিছুর ই আর কোন চিহ্ন ছিল বলে মনে হয়নি। শুধুই কবিতা শুধুই এক বাংলা আর একঝাক তারুণ্যের কবিতার শব্দে বর্ণে একাত্ব হয়ে যাওয়ার এক মোহময় লগ্ন। কবিতায় এপার ওপার নিয়ে যে সেতুটি গড়া হয়েছে তার পুরো পিলার কাঁধে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে সাদেক সরওয়ার যার উপর দিয়ে আমরা পেয়েছি এক সীমাহীন বন্ধুত্বের বিশাল আঙ্গিনা, নিজেকে বড়ই ক্ষুদ্র মনে হয় এই প্রয়াসের কাছে, আমার কলকাতায় যাওয়ার কথা ৬/৭ তারিখের দিকে, হঠাত সাদকের ফোন কলকাতা থেকে, ভাই আপনি যেহেতু আসবেন এক কাজ করেন ৩ তারিখ রওনা দিয়ে দেন, ৪ তারিখ বিকেলে আমরা যারা কবিতায় এপার ওপারের লেখক সবাই এক সাথে আড্ডা দেব। আমি আর কোন কিছু না ভেবেই হ্যা বলে দিলাম, জানিনা কোন ভাল লাগা থেকে। তবে এ ভালোলাগা বৃথা যায়নি।


আমি ভাবতেও পারিনি এমন এক আন্তরিক ভাল লাগায় ভরপুর এক আড্ডা অপেক্ষা করছে। সাদেকের সাথে আমার এর আগে ফোনে কথা হলেও এই প্রথম সরাসরি সাক্ষাত, সাদাতের (সামু ব্লগার ও বর্তমানে আমাদের সবচেয়ে জনপ্রিয় তরুণ লেখক ও নির্মাতা সাদাত হোসাইন) মত আমিও বলি ও যে কি কাজ করেছে কবিতায় এপার ওপার করে সেটা ও নিজেও ও মনে হয় জানেনা।
কবিতায় এপার ওপার এবারের টা নিয়ে ৩য় সংকলন বের হল, এর আগের ১ ও ২ নিয়ে এত বেশি হইচই হয়নি কিন্তু ৩য় সংখ্যায় এসে ব্যাপার টা কতটা ভালোবাসার বই হয়ে গিয়েছে সেটা সাদেক টের পেয়েছে কবিতা পাঠানোর সংখ্যা দেখে। প্রথমে ৩০-৩৪ জনের লেখা ছাপা হবে ঠিক করলেও সেটা শেষ পর্যন্ত ঠেকেছে ৬৭ জনে, বোঝাই যাচ্ছে এ ভালোবাসা ফিরিয়ে দেয়ার মত না। হ্যা সেটাই হল শেষ পর্যন্ত।

আমি কলকাতা পৌঁছলাম ১২ টায় হোটেলে উঠে সাদেক জানালাম ভাই চলে আসছি, সে বলল ৩ টা থেকে আমার একত্রিত হওয়া শুরু হবে, আপনি চলে আসেন।
এর আগে বহুবার কলকাতা গেলেও এবার ই প্রথম আমি বই মেলায় যাচ্ছি হ্যা শুধুই বই মেলায় কবিতার এপার থেকে ওপারে আর কিছু না। মনের ভেতর একটা চাঁপা উত্তেজনা নিয়ে মেলায় রওনা হলাম, আধা ঘণ্টায় পৌঁছে গেলাম। ৪ তারিখ মোহরকুঞ্জ দুপুরের শুরুতে হালকা পাতলা ভিড় স্টল গুলোর সামনে। সাদেকের সাথে প্রথম দেখা সেখানেই দেখতেই জড়িয়ে ধরল ভাই, এর পর নানান কথা সাথে ছিল জয় নন্দী।
কবিতায় এপার অপার-৩ এর সূচীপত্রের এক বিশাল টিম একে একে মলাটের নিরবতা ভেঙ্গে মুখরিত করতে থাকল মোহরকুঞ্জের দূর্বাঘাস। সবাই আসতে লাগল। রুদ্র গোস্বামী, অভীক রায়, সুজয়নীল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত বারিষওয়ালা, পল্লবী নন্দন, নবারুণা গাঙ্গুলী, অনুব্রতা গুপ্ত, স্বাস্ত্যনীক বৃৎনিকাস, সনজু আইচ, রশ্মি বসু, অহিদ্রিলা, অঙ্কুর মজুমদার, শবনম পারভিন, নিবেদিতা রায়, শ্রীজিতা দাস আরও অনেকে, এক তারার হাট হাসি আড্ডায় মুখর হতে হতে মুগ্ধতা বেড়েই চলছে। এ মেলা যেন কেবল কবিতার মেলা।

ছবিঃ দুই বাংলায় সমান জনপ্রিয় আমাদের কবি পিয়াস মজিদ


কোন ভাবেই মনে হচ্ছে না যে এই মানুষ গুলোর সাথে প্রথম দেখা। এই সব ভালোবাসার কি নাম দেয়া যায়, আমার জানা নেই শুধু জানি আত্মার এই মেলবন্ধন এমন এক সুতোয় বাঁধা পড়েছে যার থেকে আমরা কেউ কখনো আলাদা হতে পারব না। বুকের ভেতর কোথায় যেন একে অন্যের সাথে শীতের মত জাঁকিয়ে বসেছে, কিছু কুয়াশা কিছু উষ্ণতা এক চাঁদরে মুড়ে রেখেছে, সামনে এক উদ্দিপ্ত আগুন যার পানে আমরা চেয়ে আছি এক নতুন স্বপ্নের দিশা নিয়ে, প্রায় তের চৌদ্দ বার কলকাতা এসেছি কেবল এবার ই দেশে ফিরতে দীর্ঘশ্বাস গুলো অনেক বেড়ে গিয়েছে, আমি আর তা লুকাই না, চোখের কোণে চিকচিক করা জলটা ঝাপসা করে দিচ্ছে অপরিসীম মুগ্ধতার ফেলে আসা স্মৃতি গুলো। এই মুগ্ধতার কোন শেষ নেই, এই মায়ার কোন কমতি নেই, এখন আর বলতে পারছিনা কলকাতা থেকে ঢাকায় ফিরছি শুধুই বলা যায় ঘর থেকে ঘরে ফিরছি। সব গুলো ভাল থেকো এমন ভালো যেন খুশিতে চোখে জল আসে।

ছবিঃ বর্তমানে তরুণ কবিদের মাঝে তুমুল জনপ্রিয় কবি অভীক রায়


ছবিঃ আমরা অনেকে ও কবি রুদ্র গোস্বামী (হলুদ পাঞ্জাবী)


ছবিঃ মেলার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী আমাদের শিশু একাডেমীর সদস্যরা।

মন্তব্য ২৮ টি রেটিং +৯/-০

মন্তব্য (২৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:১৩

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: লেখিয়েদের একজনের প্রতি আরেকজনের একটা আত্মিক টান থাকে।
কবি ও কবিতার জয় হোক।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:২৭

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: হ্যা ঠিক ই বলেছেন একটা আত্মিক টান থাকেই যা অস্বীকার করা যায় না।

অনেক অনেক ভাল লাগা, ভাল থাকবেন।

২| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৩০

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: শুভ কামনা আপনার জন্যও

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৩

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ।

৩| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:০৭

অগ্নিবেশ বলেছেন: ডিম কি পুরোটাই খেয়ে এসেছেন?

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৫৬

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: হা হা হা, মনে হয় সে সময় টা এখন আর নেই। সময়ের সাথে সাথে কিছুটা হলেও বদলে গিয়েছে।

৪| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪২

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ভাললাগলো এই মিলন মেলা।

শুভকামনা।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৫৯

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: অনেক ভাল লাগার, এত ভালোবাসা পেয়েছে সবাই, ফেরার আগে কেঁদেছে মানুষ গুলো অতচ মাত্র প্রথমবারের পরিচয়।

৫| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৩

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



দারুন আয়োজন। এমন বইমেলার আয়োজন বাঙালি সংস্কৃতি ও ভ্রাতৃত্ত্ববোধ বাড়ায়। আপনার কবিতার ছাপার বইয়ে প্রকাশে অভিনন্দন। আশা করি, আগামী দিনগুলোতে একজন সেরা কবি পাব। শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০৮

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: দোয়া করবেন, এবার তো সংকলন বইয়ে ছাপা হয়েছে, তবে আগামী বই মেলায় একক বই বের হবে আশা করছি , যদি সব কিছু ঠিক থাকে।

ভাল থাকবেন।

৬| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০৭

রেইড ইন স্কাই বলেছেন: আগে জানাতেন , তাহলে আমিও যাওয়ার চেষ্টা করতাম। যাই হোক শুভ কামনা রইল ।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৮

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: পরের বার জানিয়ে যাব।

৭| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: কোলকাতায় বাংলাদেশের কোন কোণ লেখকের জনপ্রিয়তা আছে?

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৬

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: শ্রদ্ধ্যেয় জন দের মধ্যে হুমায়ুন আহমেদ এখনো জনপ্রিয়। অনেক কেই দেখলাম তার বই খুঁজে খুঁজে কিনছে।

এছাড়া শামসুর রহমান, নির্মলেন্দু গুণ। গবেষণা বই খোঁজেন দেখেছি অনেকে।
আর এখনকার লেখক দের মধ্যে সাদাত হোসাইন সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়, সে মেলায় থাকলে এক্সট্রা ভিড় জমে থাকে সব সময়।
কবি পিয়াস মজিদ ও ব্যাপক মাত্রায় বোদ্ধা মহলে জনপ্রিয়।

৮| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: কোলকাতায় বাংলাদেশের কোন কোণ লেখকের জনপ্রিয়তা আছে?

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৭

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: :D

৯| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: বাহ ! চমৎকার আয়োজন।
লেখালিখির এই বন্ধন দৃঢ় হোক।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৯

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপু।

চাইলে আপনি ও লেখা পাঠাতে পারেন অবশ্য আর মাত্র একদিন বাকি আছে।
আগামী ফেব্রুয়ারী মাসে বাংলাদেশ অমর একুশে বইমেলা-২০১৯ এবং কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলায় প্রথমবারের মত প্রকাশিত হতে যাচ্ছে দুই বাংলার উদীয়মান গল্পকারদের নিয়ে ছোটগল্প সংকলন 'গল্পে এপারওপার-১' এবং কবিতায় এপার ওপার-৪।

একজন লেখকের পাঠানো ২টি গল্প এবং ৪টি কবিতা থেকে ১টি গল্প এবং ২টি কবিতা সংকলনের জন্য নেয়া হবে। কোনো নির্দিষ্ট বিষয়বস্তু নেই, গল্প ৬০০-৭০০ শব্দের মধ্যে এবং কবিতার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২৫লাইন হলে ভালো হয়৷

বইয়ের জন্য গল্প/কবিতা নির্বাচিত হলে সেক্ষেত্রে মোড়ক মূল্যের ৩০% কমিশনে ১০কপি বই সংগ্রহ করতে হবে, অর্থাৎ মোড়ক মূল্য যদি ২৫০/- হয় সেক্ষেত্রে ৩০% ছাড়ে বইয়ের মূল্য ১৭৫/-, (দশকপি বইয়ের মূল্য হবে আনুমানিক ১৭৫০/-)।

লেখা পাঠানোর সময় লেখকের মোবাইল নম্বর, হোয়াটস এ্যাপ নম্বর এবং যোগাযোগের ঠিকানা পাঠানোর অনুরোধ রইলো।
লেখা পাঠানোর ঠিকানা- golpeeparopar1@gmail­.com, এবং কবিতা পাঠাতে kobitayeparopar4@gmail.com, kobita@kobitayeparopar.com

লেখা পাঠানোর শেষ তারিখ ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ইং

১০| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৬

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:






লেখায় আপনার উচ্ছ্বাস দেখেই বোঝা যাচ্ছে আপনি কতটা উপভোগ করেছেন। আপনাকে অভিনন্দন।
এভাবে মিলেমিশে পুরো পৃথিবী এক হয়ে যাক।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১২

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন:

আসলেই অনেক উপভোগ করেছি। আমি নিজেও কল্পনা করিনি এতটা ভাল লাগবে ।

ভাল থাকবেন ।

১১| ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩০

সুমন কর বলেছেন: দারুণ। লেখা আর ছবিগুলো শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫১

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ভাল লাগা রইল আপনার জন্যও।

১২| ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:১৬

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: আপনার জন্য শুভকামনা রইল


ছবিগুলো খুব সুন্দর হয়েছে।

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫২

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন:

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ, ভাল থাকুন নিরন্তর।

১৩| ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৫৬

Sujon Mahmud বলেছেন: শুভকামনা

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৬

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ভাললাগা জানবেন,

জীবন হোক আনন্দের ।

১৪| ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:১০

শিখা রহমান বলেছেন: খুব সুন্দর উদ্যোগ আর আপনাকে অভিনন্দন। রুদ্র, অভীক, অনুব্রতা আর নবারুণার লেখা আমার খুব প্রিয়। আপনাকে তাদের সাথে দেখে ভালো লাগার সাথে সাথে একটু ঈর্ষাও হলো। :)

শুভকামনা। ভালো থাকুন কবিতায় আর ভালোবাসায়।

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:১১

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: আগামী মেলায় চলে আসুন কলকাতায়।

ভাল থাকবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.