নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভুয়া মফিজ

ভুয়া মফিজের সাথে ভুয়ামি না করাই ভালো...

ভুয়া মফিজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

অপরুপ স্কটল্যান্ড - ১

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:০৪

যখনই নেটে ইউরোপের সুন্দরতম দেশগুলোর র‌্যাংক দেখি, তার মধ্যে স্কটল্যান্ড এর নাম থাকেই। অনেকদিন থেকেই ভাবি যাবো। কিন্তু সময় হয় না। আবার আমার যখন সময় হয়, তখন সংগী-সাথীদের সময় হয় না। একা একা যেতেও ইচ্ছা করে না। তো শেষ পর্যন্ত যাওয়া হলো।

গাড়ী ভাড়া করা, বিভিন্ন যায়গার হোটেল ভাড়া করা, দর্শণীয় জায়গাতে যেখানে যেখানে টিকেট লাগবে তা করা, রুট প্ল্যান - সবকিছুই করা হলো একে একে। ঠিক হলো প্রথমে আমরা স্কটল্যান্ড এর রাজধানী এডিনবরাতে যাবো, ঘোরাঘুরি এবং রাএিযাপন এডিনবরাতেই। রাত ৩টায় যাএা শুরু যাতে করে পুরা দিনটা কাজে লাগাতে পারি। সবাইকে বলে দেয়া হলো সকাল সকাল ঘুমিয়ে পরার জন্য, বিশেষ করে আমাকে এবং বিশ্বকে, কারন আমরা দু’জন হলাম এই ট্রিপের ড্রাইভার!

প্রায় ৪০০ মাইল রাস্তা, ৮ ঘন্টামতো ড্রাইভ। টেনশানে রাতে শান্তিমতো ঘুমাতে পারলাম না। টেনশানের কারন হচ্ছে বিশ্ব। জন্মের অলস, আর ঘুমাতে খুব পছন্দ করে। আমি নিশ্চিত যখন ওর চালানোর সময় হবে তখন কিছুক্ষন পরেই বলবে, ভাই আর পারি না, একটু রেস্ট নিতেই হবে। আর এমন কথা কেউ বললে তার উপর এ’কয়জন মানুষের জানের দায়িত্ব দেয়া যায় না।

যাই হোক, ভালোয় ভালোয় বেলা ১১:৩০ এর দিকে এডিনবরায় আমাদের হোটেলে এসে পৌছলাম। সময় নষ্ট না করে তাড়াতাড়ি ফ্রেশ হয়ে গেলাম এডিনবরা ক্যাস্ ল দেখতে। লক্ষ লক্ষ বছর আগে শীতল হওয়া একটা আগ্নেয় পাহাড়ের উপর এই দূর্গটা তৈরি করা হয়। ১২ শতাব্দীতে তৈরি করা এই দূর্গকে ঘিরেই শহরটা গড়ে উঠেছে।


দূর্গে ঢোকার পথ


দূর্গে ১৮৬১ সাল থেকে প্রতিদিন দুপুর ১টার সময় তোপধ্বনি করা হয়। আগে জাহাজগুলো এই শব্দে তাদের সময় ঠিক করতো, এখন টুরিষ্টরা হাত তালি দেয়।


দূর্গের ভিতরে মিউজিয়াম: নমুনা রাজ-অভিষেক


দূর্গের ভিতরে ঘোড়সওয়ার


দূর্গ থেকে শহর দেখা


রয়্যাল প্যালেস আর গ্রেট হল ও দেখার মতো। দেখতে দেখতে কখন যে বেলা গড়িয়ে গেল টেরই পেলাম না। দূর্গ থেকে আমাদেরকে বের করলো ক্ষুধা। ভেতো বাংগালী, কাজেই ভাতের ক্ষুধা। খুঁজে খুঁজে ঠিকই ভাতের হোটেল বের করলাম। খেয়ে-দেয়ে দেখি আর নড়তে পারি না। সুতরাং বিশ্রাম।

বিকালে বের হলাম হলিরুড পার্কে ঘুরতে। বিশাল পার্ক, তবে আমাদের মূল উদ্দেশ্য আর্থার’স সিট (Arthur's Seat) দেখা। এটাও একটা মৃত আগ্নেয়গিরি। কিং আর্থার এর নামে নাম কিন্তু ’সিট’ কেনো তা আতিপাতি করে খুজেও কোথাও পেলাম না। এটার পিকে উঠলে ৩৪১-৩৩৫ মিলিয়ন বছর আগের আগ্নেয়শিলা দেখা যায়। সবাইকে একে একে অনুরোধ করলাম আমার সাথে পিকে উঠার জন্য, কিন্তু কেউই রাজি হলো না। সবারই এক কথা, ”পাথ্থর দেখনের জন্য কষ্ট কইরা এত উপরে উঠুম না”। সবার আগ্রহ লেকের ধারে মিনি পিকনিক করার দিকে। শেষে রাগ করে আমি একাই রওয়ানা দিলাম। অনেকেই উঠছে। আসলে এটা একটা জনপ্রিয় হিল-ওয়াক স্পট। তবে কষ্ট করে উঠাতে জীবন সার্থক। গাধাগুলা জানলোও না কি মিস করলো।


হিল হাইকিং


চুড়া থেকে নেয়া। গাধাগুলা নিচের ওই লেকের ধারে। উপর থেকে ফোন করেছিলাম, কিন্তু আমাকে খুঁজে পায়নি।



নামার সময় এক ঝলক সেইন্ট এন্থনির চ্যাপেল এর ধ্বংসাবশেষ দেখে নিলাম।


স্কটল্যান্ডের রাজধানীতে আসলাম আর এদের অলিখিত জাতীয় খাবার ’ফিস এন্ড চিপ্স’ খাবো না তা কি করে হয়? অতঃপর ’ফিস এন্ড চিপ্স’ ডিনার। এরপর পোর্টোবেল্লো বীচে গিয়ে তুমুল আড্ডাবাজি করে হোটেলে ফিরলাম। তারপর সোজা বিছানায়। পরের দিনের জন্য শরীরটাকে তৈরি করতে হবে না?

(প্রথম ছবিটাই শুধু নেট থেকে নেয়া, বাকি সব আমার ক্যামেরার)
চলবে.................................

অপরুপ স্কটল্যান্ড - ২

মন্তব্য ১৯ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (১৯) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:২৫

তপু আহম্মাদ বলেছেন: ভালো লাগলো

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।

২| ২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৫

শফিক আলম বলেছেন: ছবিও আপনি ভালই তুলেন।

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ। না ভাই, সুন্দর জায়গা। শাটারে চাপ দিলেই সুন্দর ছবি উঠে।

৩| ২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৪২

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: লেখা সাথে ছবি সব মিলিয়ে ভালই লাগল।পরের পর্ব পড়ার অপেক্ষায় থাকলাম।

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:০১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ। আমার বাংলা টাইপ স্পীড খুবই খারাপ। পরের পর্ব কতদিনে দিতে পারবো আল্লাহ্ জানে.... :(

৪| ২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৪২

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: দেশটি'র পাশে থেকেও যাওয়া হয়নি কেন যেন! আপনার চোখ দিয়ে স্কটল্যান্ডকে দেখা হয়ে গেলো!

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:০৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এমনই হয়। আমিও বহুদিন থেকে যাবো যাবো করে মাএ গেলাম।

৫| ২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:

"প্রায় ৪০০ মাইল রাস্তা, ৮ ঘন্টামতো ড্রাইভ। টেনশানে রাতে শান্তিমতো ঘুমাতে পারলাম না। "

-৪০০ মাইল দুরত্ব বুঝলাম; কিন্তু কোথা থেকে?

২০ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:০৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লন্ডনের কাছাকাছি একটা ছোট্ট শহর থেকে।

৬| ২১ শে জুন, ২০১৭ ভোর ৪:৪৪

ফেরদৌসা রুহী বলেছেন: আপনার সাথে ঘুরে এলাম।
আমারো ইচ্ছে যাওয়ার, যাবো এক সময় ইনশাআল্লাহ্‌।

২১ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:২১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ। সময় করে চলে আসুন, ভালো লাগবে।

৭| ২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:০৫

মক্ষীরাজা বলেছেন: ভাইয়ুমণিতা!!!!!!!!!

বাহ!!!!!!!!

মুগ্ধ মুগ্ধ মুগ্ধ!!!!!!!!

ঠিক পরীর দেশের রাজণ্যদের লেখা !!!!!!!!

উলে জাদুরে। উম্মা :>

৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:০০

অপর্ণা মম্ময় বলেছেন: ৭ নাম্বার কমেন্ট খুব অপ্রাসঙ্গিক

আপনার লেখা এ পর্ব পড়তে চলে আসলাম। ছিমছাম বর্ণনা আর ছবি। ভালো লেগেছে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৫৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কিছু পাগল-ছাগল সব জায়গাতেই থাকে। বর্ণনা ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন।

৯| ১৭ ই জুন, ২০২০ দুপুর ১:৪৬

নিয়াজ সুমন বলেছেন: গাধাদের কথা না শুনে ভালো করেছেন। আপনি যে সুন্দর উপভোগ করেছেন । ৈঐ গাধাঁর দল তা থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

১৮ ই জুন, ২০২০ বিকাল ৩:১০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: হে হে হে......এটা ভালো বলেছেন। আমি নেমে আসার পর বর্ণনা শুনে সবাই আফসোস করেছিল!! :)

১০| ১৭ ই জুন, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৪

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: নিয়াজ সুমন ভাইয়ের কল্যাণে আপনার পুরাতন এই পোষ্টটি চোখে পড়ে ভালো লাগলো।

ভাইয়া প্রথমত ধন্যবাদ, আমার খবর নেয়ার জন্য। আপনাদের মতো ভালো মানুষগুলোর জন্যই ব্লগ পড়ি মাঝে মাঝে। কিন্তু আমার মনে হয়না আমি ব্লগিং করার যোগ্যতা রাখি।
কারণ হিসেবে আপনাকে একটা ছোট উদাহরণ দেই। আপনি আপনার রেকর্ড গড়া কমেন্টটিতে যে আশংকার কথা বলেছেন, সেই আশংকাটি আমি শেরশায়েরী ভাইয়ের ব্লগে একটা ঝামেলার সূত্রে অন্যত্র বলার কারনে অনেক অপদস্ত হয়েছিলাম (আপনাকেও বলেছিলাম বিষয়টি নিয়ে)। আমি এর আগেও ব্লগে মানুষের দুর্ব্যবহার প্রত্যক্ষ করেছি।

আমার ব্যক্তি জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময় ব্যয় করে অনলাইনে মানুষের সাথে ইন্টেরেকশনের কোন মানে হয় না, যদি আমি এখানে কমফোরটেবল ফীল না করি। ব্লগিং আমার পেশা না, তাই ব্যপারটায় আগ্রহ কমে গেছে। তাছাড়া কয়েকটা স্টার্ট আপ এবং অ্যাডভান্সড পড়াশোনার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি, তাই ব্লগিং ব্যপারটা একটা সময় অপচয় ছাড়া কিছুই না আমার কাছে।
তবে প্রায় সারাদিনই নিজের পেশাগত সূত্রে ব্লগে লগড ইন থাকি।

আমার জন্য দোয়া করবেন। আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য দোয়া রইলো। হয়তো একদিন সামনা সামনি দেখা হবে। কারণ, পাহাড়ের সাথে পাহাড়ের দেখা হয়না, কিন্তু মানুষের সাথে মানুষের দেখা হয়।
শুভকামনা, ভালো থাকবেন :)

১৮ ই জুন, ২০২০ বিকাল ৩:৩৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনাদের জীবন মাত্র শুরু। এতো অল্পতে নিজেকে অপদস্ত মনে করে হতাশ হওয়ার কোনই কারন নাই। সামনে আরো অনেক কঠিন দিন আসবে। আপনাদের এখন চ্যালেন্জ নেয়ার সময়। আপনি এখনই এমন চিন্তা-ভাবনা করলে আমাদের মতো বুড়ারা তাহলে কি ভাববে?

মানুষ সুযোগ পেলেই দুর্ব্যবহার করবে। এটাই বেশীরভাগ মানুষের চরিত্র। মন খারাপ না করে এটাকে ফেইস করাটাই হলো আসল কথা, এখানেই সার্থকতা। আর এখান থেকেই আপনি কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি হওয়া শিখবেন। কৌশলী হতে শিখবেন। শুধু ব্লগ না, জীবনের প্রতিটা ক্ষেত্রে এই শিক্ষা আপনার কাজে লাগবে।

পড়াশোনার মধ্যে থাকলে আলাদা কথা। সেক্ষেত্রে ব্লগে সময় কম দেয়াই উচিত। তবে, কারন যদি অন্যকিছু হয়, তাহলে আমার উপরের কথাই প্রযোজ্য। মানুষের খারাপ ব্যবহারে মাথা নীচু করে চলে গেলে, আর এটা অভ্যাস হয়ে গেলে আপনাকে ভুগতে হবে। তাই সবখানেই মাথা উচু করে চলবেন। তাই বলে পাল্টা খারাপ ব্যবহার করতে বলছি না; ডিপ্লোম্যাটিক হতে হবে। খারাপ ব্যবহারের উত্তর না দিলে যে এই ব্যবহারটা করলো, তাকে প্রশ্রয় দেয়া হয়। প্রশ্রয় দিবেন না। তাহলে সে আরেকদিন আরেকজনের সাথে এমন ব্যবহারের আগে দুইবার ভাববে।

অনেক কথা বলে ফেললাম। আজকাল বাচাল হয়ে যাচ্ছি!!! :(

নিয়াজ সুমন ভাইয়ের কল্যাণে আপনার পুরাতন এই পোষ্টটি চোখে পড়ে ভালো লাগলো। কেন? আপনি আমার ভুয়া মফিজের ব্লগবাড়িতে স্বাগতম!!! এই পোষ্টটা দেখেন নাই? এটাতে শুরুর থেকে আমার একশতটা পোষ্ট সূচীপত্রের মতো করে (লিঙ্ক) দেয়া আছে। না দেখে থাকলে সময় করে দেখবেন......আমন্ত্রণ রইলো।

আল্লাহ চাইলে কোন একদিন অবশ্যই দেখা হবে। করোনা থেকে দুরে থাকেন, সাবধানে থাকেন আর সুস্থ্য থাকেন। :)


আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.