নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভুয়া মফিজ

ভুয়া মফিজের সাথে ভুয়ামি না করাই ভালো...

ভুয়া মফিজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

বিশ্বকবি রবিঠাকুরের অনুপ্রেরণা বনাম আমজনতার নকল

২০ শে মে, ২০১৯ সকাল ১১:৩৬



অনুপ্রেরণা বা ইন্সপিরেশান শব্দদু’টো আমার কাছে মাঝেমধ্যে একটু গোলমেলে মনে হয়। বিখ্যাত ব্যক্তিরা কোথাও থেকে কোন আইডিয়া নিয়ে কিছু লিখলে আমরা বলি, উনি ওখান থেকে একটু অনুপ্রেরণা নিয়েছেন। আর আমজনতা তেমনটা করলে আমরা বলি, ব্যাটা নকল করেছে বা কপি করেছে। একেবারে সরাসরি আক্রমন! যেমন দেখেন, আমাদের ব্লগার রাজীব নূর। উনার লেখায় হুমায়ুন আহমেদের প্রভাব সুস্পষ্ট। অনেকেই অতীতে বিভিন্ন সময়ে উনাকে উপদেশ দিয়েছেন, হুমায়ুন আহমেদকে নকল করবেন না। নিজের মতো করে লিখুন। এখন আল্লাহ চাহে তো রাজীব নূর যদি কোনদিন সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেয়েই যায়, তাহলে কি দৃশ্যপট পাল্টে যাবে না? অবশ্যই যাবে। তখন সবাই বলবে, বিখ্যাত কথা সাহিত্যিক রাজীব নূর, হুমায়ুন আহমেদের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা নিয়েছেন। কোন কোন দুর্মুখ হয়তো বলে বসতে পারে, কার কথা বলছেন? হুমায়ুন আহমেদ? আরে উনার অনেক লেখাই রাজীব নূরের নকল!

আমাদের বাংলা ভাষার নোবেল বিজয়ী কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বেড়ে ওঠা, আরও নির্দিষ্ট করে বললে বিখ্যাত হয়ে ওঠা পুরোটাই হয়েছে ব্রিটিশ শাসিত ভারতবর্ষে। তখনকার শিক্ষিত এলিট হিন্দুসমাজে ইংরেজি সাহিত্য চর্চা ছিল একটা স্বাভাবিক ব্যাপার। রবীন্দ্রনাথও এর বাইরে ছিলেন না। পুরোটা জীবদ্দশায় বিভিন্ন সময়ে উনি সর্বমোট নয় বার যুক্তরাজ্য ভ্রমন করেন। খুব ঘনিষ্ঠভাবে মিশেছেন অনেক ব্রিটিশ কবি-সাহিত্যিকদের সাথে, পরিচিত হয়েছেন উনাদের সাহিত্যকর্মের সাথে। আর তার ছাপ রেখে গিয়েছেন উনার রচিত অনেক বিখ্যাত গানে। আজ এমনি অনেক গান থেকে দশটি গানের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো। এই গানগুলোর সরাসরি অনুপ্রেরণা উনি নিয়েছেন বিভিন্ন ব্রিটিশ কবি-সাহিত্যিকদের রচনা থেকে।

১। পুরানো সেই দিনের কথা ভুলবি কিরে হায়ঃ বিখ্যাত স্কটিশ কবি ও লোক সঙ্গীত সংগ্রাহক রবার্ট বার্নস (১৭৫৯-১৭৯৬) ১৭৮৮ সালে একজন মেষপালকের কাছে একটি গান শুনেন। পরে নিজের দু’টি স্তবক মূল গানের সাথে সংযোজিত করেন। এই কবি’র মৃত্যুর পর ১৭৯৯ সালে উনার নিজের রচনা হিসাবে প্রকাশ পায় Auld Lang Syne নামের এই গানটি। এই স্কটিশ লোকগীতি পরে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পরে এবং ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। মূল গানের লিঙ্ক view this link

২। আহা আজি এ বসন্তেঃ আইরিশ কবি থমাস মূর (১৭৭৯-১৮৫২) রচনা করেন Go where glory waits thee. এই গান থেকেই অনুপ্রাণীত হয়ে বিশ্বকবি এই গানটি রচনা করেন। মূল গানের লিঙ্ক view this link

৩। কালী কালী বলরে আজঃ Nancy Lee গানের কথা লেখেন ফ্রেডেরিক ই. হুইদারলী (১৮৪৮-১৯২৯)। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই ব্যক্তি ছিলেন একাধারে লেখক, আইনজীবি, সুরকার, ব্রডকাস্টার। এই গানে সুরারোপ করেন মাইকেল মেব্রিক, স্টেফান এডামস নামে। মূল গানের লিঙ্ক view this link

৪। কতোবারো ভেবেছিনু আপনা ভুলিয়াঃ বেন্জামিন জনসন (১৫৭২-১৬৩৭), বেন জনসন হিসাবে ইনি সমধিক পরিচিত। এই ইংলিশ ভদ্রলোক একজন কবি হিসাবে পরিচিতি পেলেও একইসঙ্গে উনি ছিলেন কমেডিয়ান, সাহিত্য সমালোচক এবং নাট্যকার। drink to me with only thine eyes নামের এই গানটি তিনি রচনা করেন ১৬১৬ সালে। রজার হুইটেকারের গাওয়া গানটি শুনতে পারেন
view this link

৫। ফুলে ফুলে ঢলে ঢলে বহে কিবা মৃদু বায়ঃ বিখ্যাত স্কটিশ কবি ও লোক সঙ্গীত সংগ্রাহক রবার্ট বার্নসের আরেকটা অমর রচনা। এটির রচনাকাল ছিল ১৭৯১ সাল। গানটি The Banks O' Doon অথবা Ye Banks and Braes উভয়ভাবেই পরিচিত। মূল গানের লিঙ্ক view this link

৬। তবে আয় সবে আয়ঃ ইংল্যান্ডের কাম্বারল্যান্ডে এক কৃষক এবং নামকরা শিকারী ছিলেন জন পীল। এই ভদ্রলোকের বন্ধু ছিলেন সুরকার ও গীতিকার জন উডকক গ্রেভস। বন্ধুকে নিয়ে তিনি D'ye ken John Peel নামের একটি গান রচনা করে তাতে সুর দেন। এই গান রচনার আগে তিনি ততোটা পরিচিত ছিলেন না। এই গানটি-ই জন উডকক গ্রেভস এবং তার বন্ধু জন পীলকে অমর করে দেয়। মূল গানের লিঙ্ক view this link

৭। ও দেখবি রে ভাইঃ এই গানটির অনুপ্রেরণা নেয়া হয়েছিল The Vicar of Bray নামের একটি বিখ্যাত গান থেকে। বিশেষভাবে ১৫৩৩-১৫৫৯ সালের পটভূমিকায় রচিত এটি মুলতঃ এক পল্টিবাজ লোক সম্পর্কে একটা বিদ্রুপাত্বক গান। এখানে ইংল্যান্ডের চার্চ এবং রাজন্যবর্গকে নিয়েও কিছু বিদ্রুপ করা হয়, ফলে স্বাভাবিকভাবেই এর রচয়িতার কোন হদিস পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে এটি বিভিন্ন যাত্রাপালায় ব্যবহৃত হয় এবং ১৯৩৭ সালে এই গানের উপর ভিত্তি করে একটা চলচিত্রও তৈরী করা হয়। মূল গানের view this link

৮। তুই আয়রে কাছে আয়ঃ The British Grenadiers, এই গানটির রচয়িতাকেও খুজে পাওয়া যায়নি। ১৬৮৯ সালে এটাকে বৃটিশ সেনাবাহিনীর কুচকাওয়াজে প্রথম ব্যবহার করা হয়, যা পরবর্তীতে অব্যাহত থাকে। ১৯০৭ সালে এই গানটির রচয়িতা-বিতর্কের সবচেয়ে ভালো ব্যাখ্যা দেন বৃটিশ ভারতে জন্মগ্রহনকারী সুরকার আর্নেস্ট ওয়াকার। তিনি বলেন, এটি আসলে গত তিন শতাব্দী ধরে বিবর্তিত একটি এলিজাবেথিয় সুর। মূল গানের লিঙ্ক view this link

৯। মানা না মানিলি, তবুও চলিলিঃ আইরিশ কবি থমাস মূর (১৭৭৯-১৮৫২) রচনা করেন Go where glory waits thee. এই গান থেকেই অনুপ্রাণীত হয়ে বিশ্বকবি রচনা করেন আহা আজি এ বসন্তে গানটি। এই একই গান থেকে অনুপ্রাণীত হয়ে দ্বিতীয় রচনা এটি। মূল গানটির লিঙ্ক দুই নাম্বারে ইতোমধ্যেই দেয়া হয়েছে, তাই আর দিলাম না।

১০। সকলি ফুরালো স্বপনপ্রায়ঃ ১৭৫০ সালে লেডী ক্যারোলাইনা কেপেল Robin Adair শিরোনামের একটি গান রচনা করেন। আঠারো শতকে এটি অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠে। এই গান রচনার পিছনে একটা ইন্টারেস্টিং কাহিনী আছে। লেডী ক্যারোলাইনা, রবার্ট নামের ব্রিটিশ আর্মির এক কর্নেলকে পরিবারের অমতে বিয়ে করেন। কম-মর্যাদাপূর্ণ পরিবারের হওয়ায় রবার্টকে লেডীর পরিবার মেনে নেয়নি। পরিবারকে জবাব দেয়ার জন্য লেডী এই গানটি রচনা করেন। মূল গানের লিঙ্ক view this link

আমার এই পোষ্ট দেখে রবীন্দ্রপ্রেমীরা আবার রাগ করবেন না যেন। আমি নিজেও কিন্তু একজন রবীন্দ্রপ্রেমী। উনার সমালোচনা করার জন্য এই পোষ্ট আমি দেইনি। আমাদের মানসিকতা তুলে ধরার জন্য দিয়েছি বলতে পারেন। যে কোনও ক্রিয়েটিভিটি অনুকরন বা অনুসরন করা দোষের কিছু না, হুবহু কপি করা দোষের। এটা আমাদেরকে বুঝতে হবে। এদিকে বিশ্ববিখ্যাত স্প্যানিশ শিল্পী পাবলো পিকাসো অবশ্য এ'ব্যাপারে কিছুটা ভিন্নমত পোষণ করেন। উনি বলেছেন, নিজেকে কপি করা খারাপ, তবে অন্যকে কপি করা দোষের কিছু না!! :)


তথ্য এবং ছবিঃ গুগল থেকে।

মন্তব্য ৫২ টি রেটিং +৮/-০

মন্তব্য (৫২) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে মে, ২০১৯ সকাল ১১:৫২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপাতত লাইক। বর্তমান ইউটিউবের লিংক পাচ্ছি না। ব্রাউজার চেঞ্জ করতে হবে, অন্য ব্রাউজার দিয়ে আসছি।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:০২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনার বিস্তারিত মন্তব্যের অপেক্ষায় থাকলাম।
বিশ্বকবি আমাদের সবার কবি হলেও আপনাদের ভাগে বেশী পড়েছে, তাই আপনার মন্তব্য খুব মুল্যবান! :P

২| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:১৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় মফিজ ভাই,

ভীষণ ভালো লাগলো পোস্টটি। আপনার দেওয়া লিংকগুলোর মাধ্যমে গানগুলো শুনলাম। ভীষণ মেলোডি। +++++
বরাবরের মতই আপনি থাকছেন স্যার,সেরাদের শিরোপায়।

অনিঃশেষ শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবেন।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:২৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গানগুলোর খুব পুরানো ভার্সান আছে কয়েকটা। ইচ্ছা করেই দিয়েছি, তবে আধুনিক ইন্সট্রুমেন্ট দিয়ে যেগুলো করা হয়েছে সেগুলো শুনতে বেশি ভাল লাগে।

আপনার পছন্দ হয়েছে জেনে ভালো লাগলো। আপনার জন্যও অনেক অনেক শুভকামনা। :)

৩| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:১৯

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: রবীন্দ্রনাথ আমার সারা জীবনের প্রেম। যদিও আমি পুরুষ মানুষ :P সুন্দরীদের মায়ার কথা থাক :`>

অনুপ্রেরণাকে আমি বলবো একধরনের উৎসাহ। আপনি কারো লেখা বেশি বেশি পড়লে তার একটা ছাপ আপনার লেখায় পড়বে। এজন্যই আমি কোনো একজন লেখকের বই পরপর পড়ি না। স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখার চেষ্টা করি প্রতিটি লেখায়।

চমৎকার গবেষণামূলক টাইপ পোস্ট :)

পোস্টের জন্য এই এই এত্তগুলা ধন্যবাদ B-))

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কোন ব্যাপার না। আজকাল পুরুষরাও পুরুষদের প্রেমে পরে!!! :P

অনুপ্রেরণাকে আমি বলবো একধরনের উৎসাহ আমিও সেটাই বলতে চেয়েছি। তবে আমি কোন কিছু লেখার সময় কবে কি পড়েছি তা মনে থাকে না, প্রভাবও পরে বলে মনে হয় না। অবশ্য এটা আমার চেয়ে আপনারাই ভালো বলতে পারবেন।

আমিও রবীন্দ্রসংগীতের একজন ভক্ত। সেজন্যেই একটু গবেষণা করলাম। যদিও আমি একজন ভুয়া গবেষক!! =p~

৪| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:২১

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: আর সবগুলো গানই শুনবো B-)

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অবশ্যই শুনবেন। ভালো লাগবে আশাকরি। :)

৫| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৫

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: কোথাকার জল কোথায় গড়াচ্ছেন ! :P বিদেশী কিছু মেয়েও তো..... ;)

নামেই ভুয়া কামে আসল B-))

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লজ্জা দেন কেনো!! =p~ =p~

৬| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আহারে! দিলেন তো আমাকে কাজ বাড়িয়ে? বিশ্বকবি, বিশ্বের কবি। ওনার জগতটিও বিশ্বব্যাপী। সুতরাং ওনার অনুপ্রেরণার লেবেলটিও গোটা বিশ্বব্যাপী সম্প্রসারিত। কবিগুরুর উপরে ইংরেজি সাহিত্যের প্রভাব সর্বজন বিদিত। যেমন আজ আপনার লিংকগুলি তার ছোট্ট প্রমাণের দাবি রাখে। অস্বীকার করব না যে আপনার সৌজন্যে গানগুলো আজ শোনার সৌভাগ্য হলো। এজন্য ধন্যবাদ দিয়ে আপনাকে ছোট করবো না।
পাশাপাশি যে বিষয়টি না বললে নয়, আমাদের জ্ঞানের পরিধি অত্যন্ত সীমিত। এক হিসেবে পরিশীলিত বটে। আমরা অন্যদেরকে পরিমাপ করি নিজের সংকীর্ণ বুদ্ধিবৃত্তি দিয়ে। তাই কপি পেস্ট নিন্দনীয় জেনে অন্যদেরকে অনুপ্রেরণার আদলে না মুড়ে কপি পেস্টের আদলে মুড়ে তাদেরকে ছোট করে ফেলি। তাই পোস্টের শুরুতে ছোট ভাই রাজিব নূরের এরকম অনুকরণকে আমরা অহেতুক খোঁচা দিয়ে নিজের ক্ষুদ্র বুদ্ধিবৃত্তির এর পরিচয় দিয়ে থাকি।

ধন্যবাদ আপনাকে।

শুভকামনা ও ভালোবাসা জানবেন।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: রাজিব নূরের লেখা আমার পছন্দ। তবে অনেকে যে হুমায়ুন আহমেদকে অনুকরনের দোষে তাকে দোষী করতে চায়....এটা আমার ভালো লাগে না। বিশ্বকবিকে নিয়ে লিখতে গিয়ে তাই ফাকতালে এটার উপরও একটু বক্তব্য দিয়ে দিলাম।
আসলে কোন লেখকের লেখা খুব ভালো লাগলে মনের অজান্তেই তার কিছুটা চলে আসা খুবই স্বাভাবিক। এটাই অনেকে বুঝতে চায় না।

আপনার চমৎকার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৭| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ২:৩৯

যাযাবর চখা বলেছেন: অজানা ব্যপার জানলাম। কয়েকট গান শুনলাম। ভালো লাগলো।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ২:৫৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: সময় করে সবগুলো শুনবেন, ভালো লাগবে।
মন্তব্যে ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন। :)

৮| ২০ শে মে, ২০১৯ বিকাল ৫:০৪

কালো যাদুকর বলেছেন: বাহ দারুন কালেকসন। আমি সুনেছিলাম , আজ দেখলাম । রবীন্দ্রনাথ বিশ্বকবি, স্বভাবত বিশ্বের অন্যান্য কালচারের প্রভাব বিশ্বকবির সৃস্টিতে থাকবেই।
রবীন্দ্রনাথ যেমন একটা ধারা বাংলা সাহিত্যে যোগ করেছেন, তেমনি হুমায়ন আহমেদও একটা ধারা বাংলা সাহিত্যে যোগ করেছেন, সমৃদ্ধ করেছেন। আর বাকিসব লেখক কবি এদের মত বড় বড় সাহিত্যিকদের দ্বারা প্রভাবিত হবেন এটাই স্বাভাবিক।

২০ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:৩৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: চমৎকার বলেছেন। নজরুল, রবীন্দ্রনাথ, হুমায়ুন আমরা একবারই পেয়েছি। এনারা বাংলা ভাষাকে যেভাবে সমৃদ্ধ করেছেন, তেমনটা খুব কমই হয়েছে। এনাদের প্রভাব শতাব্দীর পর শতাব্দীর থাকবে।

৯| ২০ শে মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


ইংরেজী বাদ দিলাম, রবী ঠাকুরের 'সোনার তরী' কাব্যটা নেন, ১০ বছরের ভেতর এই বইয়ের কোন কবিতার কাছাকাছি ১টা কিছু লিখতে পারেন কিনা দেখেন!

২০ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনি নিশ্চয়ই কাছাকাছি কিছু একটা লিখে ফেলেছেন.......সেটা আগে দেখি, অনুপ্রেরণা নেই, তারপর চেষ্টা করা যাবেক্ষন!! ;)

১০| ২০ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: চাঁদগাজী বলেছেন:


ইংরেজী বাদ দিলাম, রবী ঠাকুরের 'সোনার তরী' কাব্যটা নেন, ১০ বছরের ভেতর এই বইয়ের কোন কবিতার কাছাকাছি ১টা কিছু লিখতে পারেন কিনা দেখেন!

২০ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:৩৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: চাদ না......সূর্য হয়ে উঠুন!

১১| ২১ শে মে, ২০১৯ রাত ২:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


পর্বতকে ধাক্কা মেরে বীর হতে পারবেন না।

২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৩:১২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আজকে মনে হচ্ছে আপনার দিনটা খারাপ গিয়েছে। এদিক-সেদিক উল্টাপাল্টা মন্তব্য করে সুবিধা করতে পারেন নাই! :P

১২| ২১ শে মে, ২০১৯ রাত ২:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলা সাহিত্যে নোবেল এমনিতে পাননি; ওখানে ভুয়া টুয়া কিছু নেই।

২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৩:১৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: পোষ্ট পড়ে কিছু বুঝেছেন? নাকি এমনি এমনি মন্তব্য করছেন? যাইহোক, বিনোদিত হলুম! ;)

১৩| ২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৩:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিনোদিত হতে থাকেন, নিজের বগলে কাতুকুতু দিয়ে দেখেন, আরো বেশী বিনোদিত হতে পারেন কিনা!

২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৩:৩১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: নিজের বগলে নিজে কাতুকুতু দিলে মজা কম, অন্যে দিলে মজা বেশি। :)

১৪| ২১ শে মে, ২০১৯ ভোর ৪:৩৩

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:



গুণীজনেরাই গুণীদের গুণপনা ধারন করতে
পারেন নীজ পরে নীজের মতন করে,
নীজে ধন্য হন আর ধন্য করেন অপরে।
রবিন্দ্রনাথের প্রতি সুকান্তের কবিতায় দেখা যায়
এখনো আমার মনে তোমার উজ্জ্বল উপস্থিতি,
প্রত্যেক নিভৃত ক্ষণে মত্ততা ছড়ায় যথারীতি,
এখনো তোমার গানে সহসা উদ্বেল হয়ে উঠি,
নির্ভয়ে উপেক্ষা করি জঠরের নিঃশব্দ ভ্রূকুটি।
এখনো প্রাণের স্তরে স্তরে,
তোমার দানের মাটি সোনার ফসল তুলে ধরে।

২১ শে মে, ২০১৯ ভোর ৪:৪০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: দারুন মন্তব্য করেছেন আলী ভাই।

অন্যের গুন বুঝতে পারাটাও একজন গুণী মানুষের লক্ষণ। দিনে দিনে তো এটা সোনার পাথর বাটির মতো ব্যাপার হয়ে যাচ্ছে!

১৫| ২১ শে মে, ২০১৯ ভোর ৪:৩৮

বলেছেন: এই লেখাটাই এতদিন খুঁজছিলাম.....

সরাসরি প্রিয়তে নিলাম ---
একবার একজন লেখককে বলছিলাম রবিঠাকুরের লেখা প্লেজিয়ারিজমের দোষে দুষ্ট উনি বলেছিলেন জি বলেন??? আজ বলবো জ্বী জনাব পোস্টটি মনযোগ দিয়ে পড়ুন।।
আশাকরি আজকে উনি লেখাটা পড়বেন।।।


ইউ আর জাস্ট এ জিনিয়াস,,,,

সম্পাদনার জন্য কৃতজ্ঞতা।।।।

২১ শে মে, ২০১৯ ভোর ৪:৪৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রিয়তে নিয়েছেন সেজন্যে কৃতজ্ঞতা। তবে আগুনে বাতাস দেয়ার দরকার কি? :P

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। আপনার পোষ্টে একটা দীর্ঘ মন্তব্য রেখে এসেছি। :)

১৬| ২১ শে মে, ২০১৯ ভোর ৫:৫৫

বলেছেন: সম্পাদনার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি বন্ধুবর

২১ শে মে, ২০১৯ সকাল ৮:১২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কোন ব্যাপার না। এ'টুকু তো করতেই পারি! :)

১৭| ২১ শে মে, ২০১৯ সকাল ৯:৪৩

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
গাজী সাহেবের মন্তব্য ও আপনার প্রতিউত্তর জমামাট হয়ে উঠেছে।

ঠিক বলেছেন বিখ্যাতদের ক্ষেত্রে একরকম ভাবে, আর আমজনতার জন্য অন্যরকম।

আমরা যদি অনুপ্রেরণা নেই তবে তা হবে কপি,পেস্ট বা চুরি।
+++++++++++++

২১ শে মে, ২০১৯ দুপুর ২:২২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনি বিষয়টা বুঝতে পেরেছেন........কেউ বেশী বুঝে ফেলেছে, আবার কেউ ঠিকমতো বুঝতেই পারে নাই! :)

১৮| ২১ শে মে, ২০১৯ সকাল ১০:২০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
উন্নত মানের পোস্ট।

২১ শে মে, ২০১৯ দুপুর ২:৪৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনার মন্তব্যটাও উন্নতমানের! ;)

১৯| ২১ শে মে, ২০১৯ সকাল ১০:৪৯

আহমেদ জী এস বলেছেন: ভুয়া মফিজ,




বিদগ্ধ লেখকদের লেখা থেকে সুচারু-অনবদ্য-মোহনীয়-হৃদয়কাড়া অংশগুলো যদি কারো ভালো লেগে যায় আর তার অন্যরকম ছায়া পড়ে কারো লেখায় তবে বুঝতে হবে সেই কারো একজনার লেখক মনটিও বৈদগ্ধে ভরপুর। চোখ থাকলেই তবে সুন্দরের দেখা মেলে। একটি গোলাপ হয়তো কেউ বানাতে পারবেননা তবে গোলাপটির রঙ-রূপ-গন্ধ নিয়ে তিনি তো তার লেখায় অনবদ্য কিছু সাহিত্য বানিয়ে ফেলতে পারেন !

হবহু লাইন তুলে দেয়া নকলই হবে, কিন্তু ভাবের ঘরে ডুব মেরে যদি আলাদা কিছু তুলে আনা যায় সে তো ডুবুরীর ক্ষমতাকেই দেখায়। এটাকে অনুপ্রেরনা বলুন বা নবসৃষ্টিই বলুন তা কিন্তু লেখকের ভাবনার ধারকেই বোঝায়।
রবীন্দ্রনাথও কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর ব্যাতিক্রম ছিলেন না, যেমনটা আপনি দেখিয়েছেন। গগণ হরকরার অনেক গানের সুরও রবীন্দ্রনাথ নিয়েছেন এবং তাতে আলাদা ঝংকারও তুলেছেন। অর্থাৎ একটি সাজানো পুতুলকে আপনি আবার অন্যরকম করে সাজিয়ে দিলেন, ব্যাপারটা তেমনই। এখানেই, যিনি সাজান তার কারিশমা।

আমরা কিন্তু অনেকেই তেমনটা করিনে, লাইনগুলোই তুলে আনি। লাইনগুলো ভালো লেগেছে বলেই তো তা করি কিন্তু তা থেকে আরও শৈল্পিক আরও নান্দনিক কিছু করার ক্ষমতা নেই বলেই অমনটা তুলে দেই। এটা আমাদের অক্ষমতা। এটাকে নকল তখনই বলা যাবে যখন তাতে নিজ নামের সীলটা ঠুকে দেয়া হবে।

আসলে এই অনুপ্রেরণা- অনুলিখন-নকল যা-ই বলুন, আপনার মতোই বলতে হয়-গোলমেলে। তবে উপরে ডঃ এম এ আলী
র মন্তব্যটির প্রথম তিন লাইনই ঠিক বলে মনে হয়।

আমিও কিছু গোলমাল করে ফেললুম কি !!!!!!!!!!!!!

২১ শে মে, ২০১৯ দুপুর ২:৫৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কিছু গোলমাল করেন নাই, খুবই চিত্তাকর্ষকভাবে বলেছেন। তবে আমিও এটাই বলেছি জী এস ভাই, অনেকে বোঝেনি!

আপনার মতো যাদুকরী ভাষা প্রয়োগের কারিশমা তো আমার নাই; আমি সোজাসাপ্টা মানুষ, সেভাবেই বলেছি। কিছু মানুষ আমাদের চারপাশে সব সময়ই পাবেন, যারা সোজা কথা বুঝবে না।

আশাকরি, যারা আমারটা বোঝে নাই, তারা আপনারটা বুঝবে। :)

২০| ২১ শে মে, ২০১৯ বিকাল ৩:৩০

জাহিদ অনিক বলেছেন:
হা হা ! যাক ! আগুনে বাতাসও দিলাম না, আগুনে জল ঢেলেও দিলাম না। পড়েই গেলাম

২২ শে মে, ২০১৯ রাত ৩:৫৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: বাতাস, জল কিছুই না দেয়ার জন্যে আপনাকে ধন্যবাদ। দিনে দিনে আপনার মতো নিরীহ পাঠক দুর্লভ হয়ে উঠছে!!! ;)

২১| ২১ শে মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পড়ে গেলাম । অনেকগুলি গানও শুনলাম।

২২ শে মে, ২০১৯ ভোর ৪:৪৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গানগুলো কেমন লাগলো? পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

২২| ২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:২৩

করুণাধারা বলেছেন: দারুন ভেবেছেন! গানগুলো পেলেন কি করে? শুনে মুগ্ধ হলাম।

২২ শে মে, ২০১৯ সকাল ৮:২১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ইউটিউবে আমি প্রায়ই রবীন্দ্রসঙ্গীত শুনি। একদিন গান ঘাটাঘাটি করতে করতে একটা গান পেলাম যেটাতে মূল ইংলিশ গান আর বর্ণনাও ছিল যে রবীন্দ্রনাথ নিজের গানটা কিভাবে লিখেছিলেন। তো, ভাবলাম এটা নিয়ে লিখবো। তারপর প্রচুর রিসার্চ করে বিভিন্ন সাইট থেকে বাকী গানগুলো, তথ্য সব যোগাড় করে লিখলাম।

সময় একটা বড় সমস্যা। গত দু'মাস ধরে একটু একটু করে এসব যোগাড় করেছি। আপনার ভালো লাগাতে মনে হচ্ছে পরিশ্রম সার্থক। :)

২৩| ২১ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩৪

জুন বলেছেন: এধরনের একটি কথা আমিও পড়েছি তবে সুত্র দিতে বলবেন না আবার । আমি হোলাম বুক ওয়ার্ম । ঝালমুড়ির ঠোঙ্গাটাও পড়ি । সুতরাং কোথায় কবে কখন কি পড়েছি তা জিজ্ঞেস করে লজ্জা দিবেন না :``>>

২২ শে মে, ২০১৯ সকাল ৯:৪০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লজ্জার কিছু নাই। আমরা সবাই সারাজীবনে কতোকিছু পড়ি, শুধু কিছু কিছু বিষয়বস্তুই হয়তো মনে থাকে। সবকিছুর রেফারেন্স কি আর দরকারমতো দেয়া যায়?
পারলে তো আমরা সবাই 'শেরে বাংলা' হয়ে যেতাম! :)

২৪| ২২ শে মে, ২০১৯ বিকাল ৫:২০

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: সুপ্পার সুপ্পার............এক কথায় সারাদিনে খুব চমৎকার একটি পোষ্ট পড়লাম।

কমেন্ট পড়ে বোঝাই যাচ্ছে দু-একজনের আঁতে ঘা লেগেছে।এই ধরনের মানুষ দলকানা।এদের থেকে দূরে থাকুন।

২৩ শে মে, ২০১৯ বিকাল ৪:৫২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: পোষ্টের প্রশংসা মাথা পেতে নিলাম। :)

এই ধরনের মানুষ দলকানা।এদের থেকে দূরে থাকুন। আমি আবার সবাইকে ভালোবাসি, তাই কারো কাছ থেকে দুরে সরতে পারিনা। :P

২৫| ২৩ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:৪৯

নীল আকাশ বলেছেন: মফিজ ভাই,
দেরি করে এসে মন্তব্য করার জন্য দুঃখিত।।আমি প্রথম দিনই এটা পড়েছি। বড় একটা মন্তব্য লিখে পোস্ট দিলাম আর সাথে সাথেই পোস্ট সামনে থেকে হাপিস!

আপনি এভাবে হাটে এসে হাঁড়ি ভেঙ্গে দিলেন। না জানি কত রবীন্দ্র প্রেমীর হৃদয় চুরমার করে দিয়েছেন! লতিফ ভাই এই ঘটনার কথা আমার একটা পোস্টে বেশ কিছুদিন আগে বলে এসেছিল। ঘটনা তো চরম সত্য দেখি!

কারও সাথে কারও লেখা মিলতেই পারে তবে আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো একই থীম লেখার সময় ২জন লেখক কিভাবে ফুটিয়ে তোলে। এখানেই বুঝা যায় কে চোর আর কে লেখায় মুন্সিয়ানা প্রকাশ করে। আর যাই হোক চুরি বিদ্যা নিয়ে কেউই বেশি দূর যেতে পারবে না।

লেখাটা দুর্দান্ত হয়েছে। পড়ে মনে হলো বেশ খাটাখাটুনি করে লিখেছেন। চমৎকার কাজ!

ধন্যবাদ এবং শুভ কামনা রইল।

২৭ শে মে, ২০১৯ রাত ১০:৫৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমিও দেরী করে উত্তর দেয়ার জন্য দুুঃখিত। আপনার দুঃখ করার কিছু নাই। আমরা সবাই ব্যস্ত, দেরী হতেই পারে। একেবারে না মন্তব্যের চেয়ে দেরীতে মন্তব্য ভালো। :)

আমি নিজেও একজন রবীন্দ্র প্রেমী। এটা আসলে উনাকে ছোট করার জন্য লিখি নাই, অনুপ্রেরণা নেয়া যে দোষের কিছু না....এটা জানানোর জন্য লিখেছি।

লেখাটা তৈরী করতে আসলেই অনেক খাটতে হয়েছে। আপনার ভালোলাগায় আমি আনন্দিত। :)

২৬| ২৮ শে মে, ২০১৯ রাত ১২:১১

মনিরা সুলতানা বলেছেন: গগণ হরকরা বেচারা বাদ গেলো :(
অনেক ধন্যবাদ ! চমৎকার গবেষণা। ইশ আসল গান গুলো ও অনেক ভালো লাগছে শুনতে।

২৮ শে মে, ২০১৯ সকাল ৭:৫৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গগণ হরকরা বেচারা বাদ গেলো আসলে পোষ্টটা দিয়েছি শুধুমাত্র ইংরেজ কবি/লেখকদের উপর। জী এস ভাইও এনার কথা বলেছেন। বিস্তারিত জানতে আবারও গবেষণা করতে হবে মনে হচ্ছে!

আপনাকেও ধন্যবাদ। আজকাল আপনাকে কম দেখা যায়। রোজা নিয়ে ব্যস্ত বোঝা যাচ্ছে। :)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.