নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভুয়া মফিজ

ভুয়া মফিজের সাথে ভুয়ামি না করাই ভালো...

ভুয়া মফিজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

\'বারোভাজা\' এবং দেশের প্রকৃত উন্নতি

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:২৭




'বারোভাজা' চিনেনা এমন বাঙ্গালি সম্ভবতঃ খুব বেশী নাই। বারোভাজায় প্রকৃতপক্ষেই বারোটা ভাজা থাকে কিনা, আমি কোনদিন গুনে দেখিনি। 'সরল বিশ্বাস'-এই মেনে নিয়েছি। তবে এতে বারোটা ভাজাই থাকবে নিঃসন্দেহে, না হলে একে বারোভাজা বলার কোন যৌক্তিকতা নাই। তো, এই বারোটা ভাজা এবং তার সাথে পেয়াজ, কাচামরিচ, ধনিয়াপাতা, লেবুর রস, সেদ্ধ ছোলা, ক্ষেত্রবিশেষে টমেটু এবং বিভিন্ন মশলার সংমিশ্রণে যে বস্তুটা তৈরী করা হয়, তা আসলেই খুবই মুখরোচক; অন্ততঃ আমার কাছে।

বারোভাজায় যে বারোটা মূল উপাদান থাকে, যেগুলো হিসাব অনুযায়ী ভাজাই হবে; সেদ্ধ বা কাচা হওয়ার কোন উপায় নাই। আর এই বারোটা ভাজা‍ভুজি উপাদানের যে মিশ্রণ, তার স্বাদের পূর্ণতা দেয়ার জন্য থাকে কিছু সাইড উপাদান, যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেমনটা আগে বলেছি, এই সাইড উপাদানগুলো কিন্তু ভাজা হতে পারবে না। কাচা বা সেদ্ধ হতে হবে। তবে আপনি এই সাইড উপাদানগুলো বাদ দিয়ে যদি শুধু বারোটা ভাজা খান, আপনার কাছে ভালো লাগবে না…..অন্তত আমার কাছে কোন পদের মনে হয় নাই।

ঢাকায় গেলে খুব আগ্রহ নিয়ে যে খাবারগুলো আমি খাই, এটা তার অন্যতম। তো গতবার ঢাকায় গিয়ে এই বারোভাজা খেতে খেতে আমার মনের আকাশে একটা তত্ত্বের ভাবনা উদিত হয়। সেটা মূলতঃ আপনাদের সাথে শেয়ার করার জন্যই আজ আমার এই পোষ্টের অবতারনা। এটাকে দেশের প্রকৃত উন্নয়নে একটা 'বারোভাজা তত্ত্ব' কিংবা ফর্মূলাও বলতে পারেন। কি সেই তত্ত্ব? আসুন তাহলে, এক এক করে বারোটা ভাজা…..থুক্কু, আমার ফর্মূলার বারোটা উপাদান দেখি যার সম্মিলিত ক্রিয়া-কলাপের মধ্যেই দেশের প্রকৃত উন্নতি নিহিত।

১। জনগনকে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। প্রকৃত শিক্ষা মানে প্রকৃত শিক্ষা, অন্য কোন অপশান নাই। আপনি সই করতে পারেন দেখেই শিক্ষিত...এসব হাবিজাবি চিন্তা ভুলেও মাথায় আনবেন না। তবে হ্যা, আপনি যদি কোনভাবে প্রভূত সম্পত্তির মালিক হতে পারেন, তাহলে আপনার জন্যে বিশেষ কনসেশানের ব্যবস্থা থাকবে আমার এই তত্ত্বে।

২। প্রত্যেকে যার যার দায়িত্ব সততার সাথে পালন করবেন। আমি দূর্ণীতি করি না, কিন্তু কাজ-কামও ঠিক মতো করি না। অফিসে বসে ব্যক্তিগত কাজ করি (যেমন, এই মূহুর্তে অফিসে বসে এটা টাইপ করছি), আর মাস শেষে কোনরকমের বিবেকের দংশন ছাড়াই বেতন নেই…..তাদের সোজা হয়ে যাওয়ার কোন বিকল্প নাই।

৩। দূর্ণীতি, খুবই ভাইটাল একটা ব্যাপার। এটা একেবারে দূর করা যাবে না। যারা এটাকে একেবারে দূর করার কথা বলেন, তারাই এর প্র্যাকটিস সবচাইতে বেশী করেন বলে আমার ধারণা। 'চোরের মার বড় গলা' প্রবাদবাক্যটার আবির্ভাব সম্ভবত এদের জন্যেই হয়েছে। তবে এর নিয়ন্ত্রণটা আরো বেশী ভাইটাল। এ'ব্যাপারে আর বেশী কিছু বলতে চাই না।

৪। যে কোন কাজে স্বচ্ছতা অবশ্যই থাকতে হবে, একেবারে কাচের মতো। টেবিলের তলে একেবারেই যাওয়া যাবে না। সবাই যেন আপনাকে এবং আপনার কাজকে পরিস্কার দেখতে পায়, সেভাবে কাজ করতে হবে।

৫। আমাদের দেশের রাজনীতিবিদদের মাঝে একটা কথা খুবই প্রিয়। উনারা যাই করেন আর নাই করেন; কিন্তু বলার সময় বলেন যে, 'জনগণ আমাদের সাথে আছে'। এখানে কে যে আসলে কার সাথে আছে, আর কে নাই….সেটাই আমার কাছে পরিস্কার না। তবে জেনুইন জনসম্পৃক্ততা ছাড়া যে কোন উন্নয়নই টেকসই না, এই সত্যটা কি উনারা আদতে বোঝেন? লাখ...না, কোটি টাকার একটা প্রশ্ন!

৬। আইনের শাসন, জ্বী, ঠিকই শুনেছেন। আইনই আপনাকে শাসন করবে; পুলিশ, আমলা কিংবা রাজনীতিবিদরা সহায়ক শক্তি মাত্র। আর এটার জন্যে দরকার একটা স্বাধীন আইনের শাসন বাস্তবায়নকারী কিংবা দেখভালকারী প্রতিষ্ঠান।

৭। আমাদের দেশে যারাই ক্ষমতার অংশ হয়ে যায়, তদের সবার কাছেই রবীঠাকুরের একটা গান খুবই জনপ্রিয়। সেটা হলো ''আমরা সবাই রাজা''। এই গান তাদের রক্ত-মাংসে এমনভাবে মিশে যায় যে, জবাবদীহিতা বলে যে একটা শব্দ আছে, সেটাই তারা ভুলে যায়। তবে আশ্চর্যের বিষয় হলো, ক্ষমতা বিলুপ্ত হওয়ার সাথে সাথেই তারা তাদের হারানো স্মৃতি ফিরে পায়!

৮। অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার মূল বিষয়টাই হলো, অর্থকে এমনভাবে ব্যবহার করা, যেন সেটার থেকে একশতভাগ (বা সম্ভাব্য সর্বোচ্চ) রিটার্ন আসে। অর্থের যোগান কোথাও আনলিমিটেড না। সেজন্যেই এর ব্যবহারে 'প্রায়োরিটি বা অগ্রাধিকার' শব্দটা ব্যবহার করা হয়। মনকে এতো বুঝাই, তারপরও এ'প্রসঙ্গে কথা উঠলেই আমার মন মিনমিন করে স্যাটেলাইটের কথা বলতে চায়, ধমকেও কাজ হয় না। কি সমস্যা বলেন দেখি!

৯। মানব সম্পদ অভিশাপ নাকি আশির্বাদ, এটা নির্ভর করবে এর সঠিক ব্যবস্থাপনার উপর। জ্বী, ঠিকই শুনেছেন। আমি মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার কথাই বলছি। তবে আশার কথা, পাট, চামড়া, পর্যটন ইত্যাদি সেক্টরের মতোই এটার ক্ষেত্রেও আমাদের কর্তাব্যক্তিগণ তাদের পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতা অনেক প্রতিকুলতার মধ্যেও ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন।

১০। প্রাকৃতিক সম্পদ একটা দেশের জন্য সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত আশির্বাদ। আর আমাদের দেশে প্রাকৃতিক সম্পদের ব্যবস্থাপনা কিভাবে হয় জানতে চোখ রাখুন সুন্দরবন, পার্বত্য অন্চল, খনিজ সম্পদের আহরন এবং এর ব্যবস্থাপনার দিকে। আপনি অচিরেই বুঝতে পারবেন, এ'ব্যাপারে আমরাই সেরা!

১১। প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহার বর্তমান বিশ্বে একটা দেশের টেকসই উন্নয়নের অন্যতম চাবিকাঠি। এইদিক দিয়ে অবশ্য আমরা এগিয়ে আছি বিশ্বের যে কোনও দেশের চাইতে। 'ডিজিটাল বাংলাদেশ' এবং দেশব্যাপী ফেসবুকারদের আধিপত্য এ'ধারনাকে আরো সুসংহত করেছে। এই সাফল্যের রহস্য জানার জন্যই বিভিন্ন উন্নত দেশের মন্ত্রীরাও আমাদের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়দের এপয়েন্টমেন্ট পাওয়ার জন্য সব সময় লালায়িত থাকে।

১২। প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণ বা এর যথাযথ রক্ষনাবেক্ষণ না করলে প্রকৃতি যথাসময়ে প্রতিশোধ নেয়। এটা নিপাতনে সিদ্ধ একটা ব্যাপার। তবে কতিপয় জ্ঞানী লোকজনের বক্তব্য হচ্ছে, প্রকৃতি থাকলেই দূর্যোগ আসবে, এটা একটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া; এখানে কারো কোন ভূমিকা নাই। তাই আমাদের সুযোগ্য প্রশাসন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে, দেশে কোন প্রকৃতিই রাখবেন না। দেখা যাক, দূর্যোগ কোত্থেকে আসে!!

এই হলো অতি সংক্ষেপে বারোটা উপাদানের আলোচনা। এর সঙ্গে সঠিক পরিকল্পনা এবং দেশপ্রেম হলো সেই সাইড উপাদান যাদের অনুপস্থিতি এই বারোটা উপাদানকে একেবারেই মুল্যহীন করে দিতে পারে কিংবা অন্যকথায়, বারোটা বাজিয়ে দিতে পারে! আপনি আমার সাথে একমত হতে পারেন, দ্বিমত পোষণ করতে পারেন কিংবা সংযোজন-বিয়োজন করতে চাইতে পারেন; সে আপনি চাইতেই পারেন। কিন্তু মনে রাখবেন…...এই মডেল বা ফর্মূলার সর্বস্বত্ব ভুয়া মফিজ কর্তৃক সংরক্ষিত।

একটা কথা আগেই পরিস্কার করে দেই। ছেড়া কাথায় শুয়ে যেসকল অলস কূপমন্ডুক লাখ টাকার স্বপ্ন দেখেন, তারা তাদের ভাঙ্গা চকিতে শুয়ে আমার এই মডেলের সফল বাস্তবায়নের দিবাস্বপ্ন দেখতেই পারেন। স্বপ্নে দেখতে পারেন, ঢাকা লন্ডন-প্যারিস-নিউইয়র্ককেও ছাড়িয়ে গিয়েছে। তবে, তাদের জন্যে আমার একটা উপদেশ। এই স্বপ্ন দেখে ঘর থেকে বের হওয়ার আগে তিনবার সজোরে মাথায় ঝাকি দিবেন, যাতে করে এই স্বপ্নের ছিটেফোটাও মাথায় না থাকে এবং ঘোর পরিপূর্ণভাবে কেটে যায়। নতুবা ঘরের বাইরে পা দেয়ার সাথে সাথে যে অবশ্যম্ভাবী আফটার শক আসবে, তাতে আপনার হার্টের যে কোনও ধরনের ক্ষতি হতে পারে। আর সেটা যদি হয়েই যায়, তাহলে ভুয়া মফিজকে কোনভাবেই দায়ী করতে পারবেন না।

পৃথিবীতে কতোরকমেরই না আশ্চর্যজনক ঘটনা ঘটে। তেমনিভাবে আমার এই উন্নয়নের মডেল যদি সত্যিই দেশের উন্নয়নের কাজে লাগে, আর এর জন্য কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি যদি আমাকে জাতীয় বা আন্তর্জাতিক পর্যায়ের কোন পুরস্কারের জন্য মনোনীত করতে চান….গো এহেড। আমার দিক থেকে কোন আপত্তি নাই। আমার এই ঘোষণাকে 'আনুষ্ঠানিক অনাপত্তি পত্র' হিসাবেও গন্য করতে পারেন!

দেশ সত্যি সত্যিই উন্নয়নের মহাসড়ক, হাইওয়ে কিংবা মোটরওয়েতে সর্বোচ্চ গতিতে চলতে শুরু করুক। আর আপনার (সহৃদয়বান ব্যক্তির কথা বলছি) প্রচেষ্টা সার্থক হোক, আপনি কামিয়াব হোন; এটাই আমার আন্তরিক চাওয়া।:)


ফটোক্রেডিট: গুগল।

মন্তব্য ৬৬ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (৬৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৩৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: অসাধারণ একটি পোস্ট।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:০৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ। :)

২| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৪১

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সবগুলো পয়েন্ট সবাই মেনে চললে তো আম্রিকার মানুষ বাংলাদেশে কাজে আসবে! B:-)
হা হা...

সবগুলো মানতে পাব্লিককে বাধ্য করতে দেশের শাসকশ্রেণীর সততা, পরিকল্পনা থাকা দরকার। আমাদের দেশের শাসক'রা অসৎ, দুর্নীতিবাজ!

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:১০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: 'টেরাম্প' ছাড়া আম্রিকার কাউকে এদেশে আসার অনুমতি দেয়া হবে না! ;)

৩| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৫৮

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: এই নীতিগুলো যেখানে গেলে মেনে চলা দরকার, সেখানে গিয়েই বেশীরভাগ লোক বারোটা বাজায়...

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:১১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: তা ঠিক আছে........তারপরও!!! :)

৪| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:০৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: ভুয়া মফিজ ,





এতো বারো হাত তেতুলের তের হাত বিচির মতো থিওরী হয়ে গেল! ;) ভুলে গেলেন, আমরা যে সবাই রাজা আমাদের এই রাজার রাজ্যে? আমাদের জন্যে এসব তত্ত্বের কোন প্রয়োজন নাই। :P ওগুলো আমজনতা প্রজাদের জন্যে। :(

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:১৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: উন্নতি চাইলে এগুলো মানতেই হবে জী এস ভাই।

আপনার 'আম্রিকা ভ্রমন' কেমন চলছে? :)

৫| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:৪২

শাহিন বিন রফিক বলেছেন:



নিয়ম মেনে কে হয়েছে ধনী?
দূর্নীতিে আছে পকেট ভরা মানি
বাঁচলে নিজে দেখব পরে
সততা আর স্বচ্ছতা কোন গাঁয়েতে থাকে।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:১৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমি কবিতা এমনিতেই বুঝি কম। তবে আপনার ছোট্ট কবিতা বুঝতে অসুবিধা হয় নাই। B-)

আমাদের দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে আপনার কথাগুলো সর্বাংশে সত্যি। তবে সত্যিকারের উন্নতির জন্য শাসন ক্ষমতায় যারা আছেন তাদেরকে একটু কম্প্রেমাইজ তো করতেই হবে, কি বলেন!! :P

৬| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:৫০

আহমেদ জী এস বলেছেন: ভুয়া মফিজ,




জনগণ চাইলেও উন্নতি হয়না। উন্নতি তাদেরকে দেয়া হয় উপরওয়ালাদের মর্জি মতো, কমিশন বুঝে বুঝে।
আম্রিকা তো ভ্রমন নয় এসেছি ছেলেমেয়েকে দেখতে। ভ্রমনও এই ফাঁকে হচ্ছে বটে।

সবটুকুর জন্যে ধন্যবাদ আপনাকে।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:২৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: দেশের উন্নতি উপরওয়ালাদের মর্জির উপর ছেড়ে দেয়া ছাড়া তো কোন উপায় নাই।

ছেলেমেয়েকে দেখতে গিয়েছেন জানি। তবে যতোটুকুই বেড়াচ্ছেন তার উপর একটা হলেও পোষ্ট দিয়েন......প্রচুর ছবিসহ। আমি শুধু ওয়াশিংটন ডিসি আর নিউইয়র্ক গিয়েছি। আম্রিকা তো বিশাল দেশ; দেখার, দেখানোর তো কতোকিছুই আছে। :)

৭| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: চমৎকার একটি পোষ্ট।

১২ টা পয়েন্টই খুব গুরুত্বপূর্ন।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:২৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ।
তবে যাদের বোঝা দরকার, তারা বুঝলেই কাজ হয়ে যাবে। তাহলে আপনারও আর আম্রিকা যাওয়ার ধান্ধা করতে হবে না....তাই না!!! ;)

৮| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৩৬

যাযাবর চখা বলেছেন: দারুন লাগলো।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনাকে ধন্যবাদ। :)

৯| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৬

বলেছেন: উন্নয়নের বারোবাজা "বারটি উনুনে" কর্তাবাবুরা কোনদিন আলো জ্বালায় না শুধু দমিয়ে রাখে, নিবিয়ে রাখে নইলে শাসক হবে কিভাবে।।।।।।

বরাবরের মতো বিদগ্ধ পোস্ট++++

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: তারপরও আমাদের আশাবাদী হতে হবে। আম-জনতার শেষ সম্বল 'আশা', সেটাও যখন থাকবে না.....তখন আসলে কিছুই থাকবে না।

এইটা 'বিদগ্ধ পোস্ট' না, ''হাল্কার উপরে ঝাপসা'' পোষ্ট। =p~

১০| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০২

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: এত দিন কই আছিলেন হুহ, কত পোস্ট এলো গেলো আর আপনে নাই হইলো কিছু

পোস্ট পরে পড়বাম

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এত দিন কই আছিলাম? এইটা পড়লে বুঝবেন আমার সুখ (?) দুঃখের দিনরাত্রি

ঠিকাছে, পরে পইড়া আপনের মুল্যবান মন্তব্য করতে ভুইলেন না কইলাম!! :)

১১| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:২১

জুন বলেছেন: আমি কিচ্ছু পড়ি নাই ভুয়া, আমি খালি গইন্না দেখলাম ১২টা পয়েন্ট হইছে নাকি ঠিক ঠাক #:-S

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমি খালি গইন্না দেখলাম ১২টা পয়েন্ট হইছে নাকি ঠিক ঠাক #:-S এইটা একটা কথা হইলো? আপনের সরল বিশ্বাস নাই?

আচ্ছা পরে পইড়েন। আপনের মুল্যবান মন্তব্য না পাইলে কেমুন জানি খালি খালি লাগে!! :P

১২| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:



'বারো ভাজা', ডিম ভাজা, ছানাচুর ভাজা, পেঁয়াজু ভাজা, এগুলো সবই উন্নয়নের ফর্মুলা; প্রশ্নফাঁস?

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ছানাচুর ভাজা না, হবে চানাচুর ভাজা..........প্রশ্নফাঁস?

১৩| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩৭

করুণাধারা বলেছেন: বাড়িটাই বারবার দেখলাম। এমন একখান বাড়ি থাকলে আমিও অনেক স্বপ্ন দেখতে পারতাম...

এর সঙ্গে সঠিক পরিকল্পনা এবং দেশপ্রেম হলো সেই সাইড উপাদান যাদের অনুপস্থিতি এই বারোটা উপাদানকে একেবারেই মুল্যহীন করে দিতে পারে কিংবা অন্যকথায়, বারোটা বাজিয়ে দিতে পারে!

ভালো উপাদানগুলো পাওয়া যেতে পারে, কিন্তু সাইড উপাদানগুলো খুবই দুষ্প্রাপ্য!!

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: বাড়িটা হলো প্রতীকী বাংলাদেশ।

শুধু বাড়ি দেখলে হবে আপা? বাড়ির সাথে সবধরনের ইউটিলিটি সংযোগ আর নিরাপত্তাও লাগবে। না হলে এমন সুন্দর একটা বাড়িতে থাকার স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিনত হতে বেশী সময় লাগবে না।

বারোটা উপাদান যদি পাওয়া যায়.....সাইড উপাদানও পাওয়া যাবে, কি বলেন? :)

১৪| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন:



আপাতত বাড়িটার বিনিময়ে উড়িষ্যার চিলকা হ্রদের মাঝে বাড়ি দিয়ে বুক করলাম...

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ব্যাকা-ত্যাড়া বাড়ি দিয়ে বুকিং নেয়া হয় না এখানে। B-)

নেন, এইবার বুকিং কমপ্লিট;

১৫| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: সমালোচনা করা যাবে? যদি সমালোচনা না নিতে পারেন তাহলে দুরে আছি দুরেই থাকি - কি বলেন?

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:০৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: সমালোচনা হতে হবে যৌক্তিক এবং শালীন। অযৌক্তিক এবং অশালীন সমালোচনা করা যাবে না। কারন, তাতে করে আমারও ওই ধরনের ভাষা প্রয়োগের বাধ্যবাধ্যকতা চলে আসে। তাতে লাভের লাভ কিছুই হবে না, তিক্ততা বাড়বে শুধু। যেটা ব্লগে আমি করতে চাই না।

এটা না পারলে দুরে থাকাই ভালো।

আপনি যেহেতু আমার অন্যতম পছন্দের ব্লগার, তাই পরিস্কার করে খুলে বললাম। আশাকরি, ঠিকমতো বোঝাতে পেরেছি। :)

১৬| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



চানাচুর ভাজা, বারো ভাজা, ডিম ভাজা, পেঁয়াজু ভাজা, বাদাম ভাজা, সবই অর্থনীতি ও ফাইন্যান্স ভাবনার জন্মদাতা; প্রশ্নফাঁস?

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:০৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এইবার ঠিক আছে। =p~

১৭| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: ধন্যবাদ।
তবে যাদের বোঝা দরকার, তারা বুঝলেই কাজ হয়ে যাবে। তাহলে আপনারও আর আম্রিকা যাওয়ার ধান্ধা করতে হবে না....তাই না!!!

আমি তো আমেরিকা যাবো না। কানাডা, অস্টেলিয়া অথবা লন্ডন যাবো।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:১৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এতোদিন বলে আসলেন আমেরিকা যাবেন.......হঠাৎ মত পাল্টানোর কারন কি?

কানাডা, অস্টেলিয়া (অস্ট্রেলিয়া) অথবা লন্ডন (প্রথম দু'টা দেশ, এটা রাজধানী!!!) যাবো। ;)

১৮| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:০৯

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: বারোভাজায় বারো পদ থাকে না, কম বেশী হয়। আমার এক চাচা চানাচুর ভাজতো। আমি জানি। উত্তর ফাঁস


পোস্টে কাজের চেয়ে বকবকানি বেশী হয়েছে। লিলিপুটিয়ান কাজ।


১২ পয়েন্ট গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু কাজের কাজ করবে কে?

ইশ! যদি নেতা হইতে পারতুম....

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:১৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আফসোস.....আমার কোন চাচা চানাচুর ভাজতো না!!! :((

বকবক করা আমার অত্যন্ত পুরানো অভ্যাস; কিছুই করার নাই। :(

শুধু ১২ না, সবগুলাই গুরুত্বপূর্ণ। কাজের কাজ করবে কে? যে বা যারা বাকীগুলা করবে!

বাংলাদেশের নেতাদের সবরকমের গুণই আপনার মধ্যে বিদ্যমান। কাজে লেগে যান!!! =p~

১৯| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



গরুর রচনা, নদীর রচনা, ধানক্ষেতের রচনা, কৃষকের রচনা, গ্রামীন অর্থনীতির রচনা, সবগুলোর মুল রচনা হলো গরুর রচনা

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:২৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এটা আপনার চেয়ে ভালো আর কে জানে? গরুর রচনা লেখায় আপনার পারদর্শিতা সন্দেহাতীত। ;)

২০| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:১৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: ভুয়া মফিজ ভাই, আপনি যা লিখেছেন তার মর্মকথা দিনের পর দিন বাংলাদেশ সংসদ নির্বাচনে দেশের সকল দলমত নির্বিশেষে “নির্বাচনী মেনিফেস্টো বা নির্বাচনী ইশতেহারে” লিখে গেছে, আগামী নির্বাচনেও লিখবে। আপনি যা লিখেছেন তা বাংলাদেশের অন্ধ গ্রামের চা দোকানে বসলেও জানবেন সবাই তার চেয়ে দশহাত বেশী জানে, সবাই সব জানে সবাই সব বোঝে - কিন্তু তার বাস্তবায়ন করার জন্য তো ভীনদেশ থেকে আর শাসক আসবে না। তাহলে করণীয় কি তা বলেন?

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:৫২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: দলগুলো নির্বাচনী ইশতেহারে এগুলো বলে, কারন তারা জানে এগুলোই মানুষ চায়। দেশের মানুষ রাজনীতি যেহেতু খুব ভালো বোঝে, কাজেই তারাও এসব জানে, আর এসব ইশতেহারের পিছনের কারনও জানে। তারা জানে দলগুলো কখনোই এগুলো বাস্তবায়ন করবে না।

আপনি হিটলারের মন্ত্রী পল জোসেফ গোয়েবলসের নাম এবং তার কার্যপদ্ধতি নিশ্চয়ই শুনেছেন কিংবা এ্যাডগুলো কোন লজিকে কাজ করে তাও নিশ্চয়ই জানেন। তাহলে, আপনি এটাও জানেন যে.....সত্য কিংবা মিথ্যা, যাই কিছু আপনি প্রতিষ্ঠিত করতে চান; সেটা বারে বারে বিভিন্ন মাধ্যমে, বিভিন্ন সময়ে বলতে হবে।

করনীয় কি সেটা এই পোষ্টে আমি লেখার চেষ্টা করি নাই। এটার জন্য আলাদা, সুদীর্ঘ পোষ্ট দরকার। হয়তো কোন একদিন লিখবো। তাছাড়া, প্রতিটা পয়েন্টের উপরই একেকটা পোষ্ট হতে পারে!

করনীয় কি.......এটার উপরে আপনি একটা পোষ্ট দিয়ে দেন। আপনারও তো ব্লগার হিসাবে একটা দায়িত্ব আছে। :)

২১| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:০৫

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: আমি একটা গালী দিতে বাধ্য হচ্ছি “হারামজাদা তত্ত্বাবধায়ক সরকার” অনেক কিছু করতে পারতো, তারা তা করেনি। তত্ত্বাবধায়ক সরকার যদি তা করে যেতো তাহলে বাংলাদেশের মানচিত্রে তাদের নাম লেখা হতো।



আপনার পোষ্টে কমেন্ট করেছি এটাও কি দায়ীত্ব নয়? তবে আপনার কথা আমি রাখছি আমি লিখবো, অবস্যই লিখবো।

২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:২৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: রাজনৈতিক আলোচনা আমি কম করি এবং এধরনের পোষ্ট পারতপক্ষে আমি এড়িয়ে চলি, কারন বেশিরভাগ সময়েই এসব আলোচনা সুস্থ থাকে না।

আমার ব্যক্তিগত মত হচ্ছে, বাংলাদেশ এবং এর মানুষ এখনও গনতন্ত্রের জন্য তৈরী না। আমার পছন্দ একজন দেশপ্রেমিক একনায়কতান্ত্রিক শাসক। এমন শাসকের অধীনে দেশের উন্নয়নের বহু নজীর পৃথিবীতে আছে। শেখ হাসিনা চাইলে তেমনই একজন হয়ে দেশের চেহারা পাল্টে দিতে পারে। কেন চায় না, তা আমার জানা নাই। এটা নিয়ে উনাকে একটা খোলাচিঠি এই ব্লগেই লিখেছিলাম একবার।

আপনার কথা ঠিক। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সেই পটেনশিয়লিটি ছিল। পারে নাই। এ'জন্যে গালি তারা ডিজার্ভ করে!

আপনার পোষ্টে কমেন্ট করেছি এটাও কি দায়ীত্ব নয়? অবশ্যই। রাজপথে শুধু গলার রগ ফুলিয়ে শ্লোগান দিলেই দায়িত্ব পালন হয় না। সবাই তা পারবেও না। 'দায়িত্ব পালন' একটা অত্যন্ত ডাইভার্সিফায়েড বিষয়।

আপনার লেখা পড়ার অপেক্ষায় থাকলাম। :)

২২| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:৫০

আরোগ্য বলেছেন: সবখানে মুরুব্বি এতো পাদ মারে ক্যা। পেটে কি ব্যামো বাধছে?

পোস্ট বিষয়ক মন্তব্য পরে করছি।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:২৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: টিপিক্যাল মুরুব্বি। আপনি কি ভিন্ন কিছু আশা করেছিলেন? ;)

২৩| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১১:১২

আরোগ্য বলেছেন: লজ্জায় পইরা গেলাম। ঢাকায় থাইকাও এহনও বারোভাজা খাইনাইক্কা। নামটা আজকা পরতম জানলাম।

এই পোস্ট পড়লে প্রধানদ্বন্দী থুক্কু প্রধানমন্ত্রী কিন্তু খেইপা যাইবো। দেশ অলরেডি উন্নতির জোয়ারে ভাসছে তাও আবার এই বারো কামের উলটাটা কইরা। এহন আবার উল্টা করতে গেলে তো সব কৃতকর্ম উলটা হয়া যাইবো এটা কিন্তু দূর্ণীতি কমিশন ও সংসদসদস্যরা মানবো না।

পোস্টে প্রশ্নফাঁস এ প্লাস।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:০০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এইডা কুনো কথা হইলো? ঢাকাইয়া পোলা বারোভাজার নামই হুনেন নাই, খাওন তো দুরের কথা!!! আপনে তো দেখি ইজ্জত পাংচার কইরা দিলেন। :P

পরধানমন্ত্রী খেপবো ক্যালা? আমি তো উনারে সাহাজ্য করবার চাই। উনি না লইলে আলাগ বাত!

হু, দূর্ণীতি দমন কমিশন আর সংসদসদস্যরা মানবো না; না মানুক! ওগো কথা হুননের কাম কি? B-)

২৪| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১১:১৭

নাসির ইয়ামান বলেছেন: লেখকরা মদন টাইপের হয়!

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৪০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ। এমন সরল স্বীকারোক্তি কয়জন করতে পারে!

তবে, কষ্ট করে প্রোপিক কাৎ করে দেয়ার দরকার ছিল না। এমনিতেই বুঝতে পারছি!! =p~

২৫| ২৬ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১১:৩৪

আখেনাটেন বলেছেন: এইসব বারোভাজা এখন গোপন ভাষা। ভাসুরের নাম মুখে নিতে যেমন লজ্জা পায় ঘরের লক্ষী বউ, তেমন দেশের দণ্ডমুণ্ডের কর্তারা এইসকল ভাজাভাজি মুখে নিতে লজ্জায় লাল হয়ে যায়। আর উনারা লাল্টু হলে জনগণ নামক সাগরেদেরা দ্বিগুণ লালু হয়ে যাবে এটাই স্বাভাবিক।

তাই ওগুলো এদেশের অভিধানেই থাক। কে হায় অভিধান খুঁড়ে লাল্টু হতে চায়? :P

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৪৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অনেক শব্দই এখন অভিধান-কেন্দ্রিক হয়ে গিয়েছে, প্রায় বিলুপ্ত। আর কিছুদিন পরে হয়তো জাদুঘরে ঠাই পাবে। নতুন প্রজন্ম এইসব শব্দের উৎপত্তি এবং বিলুপ্তির ইতিহাস সেখানেই জানতে পারবে। অনেকটা বিলুপ্ত প্রাণীদের মতো!! B-)

দেশের দণ্ডমুণ্ডের কর্তারা এইসকল ভাজাভাজি মুখে নিতে লজ্জায় লাল হয়ে যায়। তা তো হবেই। পুরো সিস্টেমটার একটা থরো ড্রাইওয়াশ যে ডিউ হয়ে আছে বহুদিন যাবৎ! একটা বড়ধরনের ঝাকি দরকার, সেটা যেভাবেই হোক!! ;)

২৬| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ৯:৫৯

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: এই বারোভাজা প্রকাশ করতেও ভয় হয়। তারচেয়ে খাওয়ার বারোভাজাই ভালো। দশ টাকা দিয়ে এক ঠোঙ্গা কিনলাম। মুখের ভেতর দিলাম। গরু ছাগলের মতো চিবিয়ে খেয়ে ঠোঙ্গাটা ফেলে দিলাম। ব্যস! নো ঝামেলা, নো ঝঞ্ঝাট।

ভালো লিখেছেন। ধন্যবাদ ভাই ভুয়া মফিজ।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৫২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: দশ টাকা দিয়ে এক ঠোঙ্গা কিনলাম। মুখের ভেতর দিলাম। গরু ছাগলের মতো চিবিয়ে খেয়ে ঠোঙ্গাটা ফেলে দিলাম। ব্যস! নো ঝামেলা, নো ঝঞ্ঝাট। আপনার স্ট্র্যাটেজিটাই উত্তম হেনাভাই। আমিও তাই করি সবসময়। কিন্তু ওই যে! কিসে যেন মাঝে-মধ্যে মনের মধ্যে গুতা দেয়!! তখনই এসব আজেবাজে চিন্তা মাথায় এসে ভিড় করে!!! :)

২৭| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:৩০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
প্রকৃত উন্নয়ন -ই কাম্য।

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অবশ্যই। এটাই আমরা সবাই চাই।

২৮| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর করে লিখেছেন বারোভোজা

এমন যদি প্রতিটি মানুষ চলতে পারতো দেশটা বিদেশের মত সুন্দর হতো। এগুলো যেনো আমারও মনের কথা

২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমাদের দেশের বিভিন্ন সময়ের ক্ষমতাসীন সরকারগুলো আর তাদের কিছু খাটি চামুচ-গোত্রিয় সদস্য বাদে সবারই এগুলো মনের কথা।

আমরা যারা বিদেশে থাকি, তারা দেশের সমস্যাগুলো বেশী বুঝতে পারি। কারন, আমরা এখানের সাথে সরাসরি তুলনা করতে পারি দেশের; যেটা দেশে বসে করা সম্ভব না। তাই বুঝতে পারি, সমস্যাগুলো ঠিক কোথায়। অনেকটা সিস্টেমের ভিতর থেকে দেখা, আর বাইরে থেকে দেখার মতো।

হয়তো একদিন দেশটা বিদেশের মতোই হবে, তবে দেখে যেতে পারবো বলে মনে হয় না। :(

২৯| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৩৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: গতকাল পোস্টটি পড়ে প্রথমে মনে প্রশ্ন জাগলো বেচারা বারোভাজা তাকে নিয়ে এত কেন টানাটানি? আর করবেন-ই যখন তাহলে বারোভাজার ভাজা খেয়ে 12 রকম উপায়ন্তর না করে, এক ভাজা বা দু ভাজা খেয়ে সেরকম ব্যবস্থাপনা করলেই হতো না?

আপনি ইতিহাসের আঙ্গিকে দেখলেই বুঝতে পারবেন, প্রাচীন বাংলার 12 জন ভূঁইয়াকে দমন করতে সম্রাট আকবর এবং পুত্র জাহাঙ্গীরকে যতটা বেগ পেতে হয়েছিল সেখানে বিভিন্ন এলাকার বিদ্রোহী একজন/ দুজন শাসককে ওনারা কিন্তু সহজে দমন করতে পেরেছিলেন ।যে কারণে আপনার বারোমাস্যা বারোভাজা ব্যবস্থাপনাটাও প্রাচীন বাংলার নিরিখে আমার কাছে পাহাড়প্রমাণ বাঁধা বলে মনে হয়েছে। একটু সৎ হওয়ার লক্ষ্যে, আমরা আমাদের চরিত্রের বদ গুণগুলোকে একটি বা দুটি বর্জন করতে পারলেও একসঙ্গে এতগুলো বর্জন করতে পারিব নাই। বদভ্যাস হলেও বহুদিনের চলে আসা অভ্যাসের প্রতি একটা মায়া জন্মে গেছে যে।

সুতরাং সততার পরীক্ষায় আশানুরূপ ফল না মিলিলে কাস্টমার নয়, কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকিবেক ।হাহা হা....

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:১৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: বারোভাজাকে টানাটানি করি নাই.....শুধু একটু আইডিয়া জেনারেশানের কাজে লাগিয়েছি।

১২টা উপাদান নিয়ে আলোচনা করেছি ঠিকই, তবে আমি কখনও আশা করি না, সবগুলোর বাস্তবায়নের জন্য সরকার ঝাপিয়ে পরবে। অন্ততঃ একটা নিয়েও যদি কাজ করে, তাহলেই আমি খুশী। বদঅভ্যাস সহজে বদলাবে না, এটার জন্য কঠিন ঠ্যালার দরকার। সেই ঠ্যালা দেয়ার কোন লোক দেশে নাই, এটাই হতাশার বিষয়। :(

৩০| ২৭ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৮

নীল আকাশ বলেছেন:
এটা আগে বন্ধ করতে হবে, না হলে কোন কিছুই হবে না।
লেখা খুব চমৎকার এবং প্রাঞ্জল হয়েছে। আগেই এসে পড়েগিয়েছিলাম, আজকে
এসে মন্তব্য করলাম।
ধন্যবাদ।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমাদের দেশে ভালো এবং দেশপ্রেমিক মানুষেরা রাজনীতিতে আসে না, আসলেও টিকতে পারে না। দেশের রাজনীতি ধান্ধাবাজদের দখলে।

নানা আমার খুবই প্রিয় একজন অভিনেতা। আপনাকেও ধন্যবাদ।

৩১| ২৮ শে আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১৩

মুক্তা নীল বলেছেন:
মফিজ ভাই
বারোটি পয়েন্ট পড়ে অনেক কিছু বুঝলাম। যে সরিষা দিয়ে
ভূত ছাড়াবেন , সেই সরিষাতেই যদি ভূতথাকে তাহলে ,,,,,
তবে আপনার উপস্থাপনা ও প্রস্তাবনা ভালো লেগেছে।
ভালো থাকুন সবসময়।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লেখার দরকার, লেখি। ভূত ছাড়ানো আমার দায়িত্ব না, ভূত ছাড়াতে গিয়ে ভূত যদি আমাকেই ধরে বসে!!! কোন রকমের রিস্কের মধ্যে আমি নাই। :)

আপনিও ভালো থাকবেন।

৩২| ০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:২২

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ইয়েস!!!

৩৩| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৪৯

সোহানী বলেছেন: ধূর মিয়া, বারো ভাজা দিলেন আর তার সাইডতো দিলেন না.... পিয়াজ, কাচাঁমরিচ, ছোলা সেদ্ধ :P

যাউকগ্গা, এইবার আমরা জনগন এই ভাজা মনের আনন্দে চিবাবো তবে চোখ বন্ধ করে। আরে মিয়া চোখ খুললেইতো সমস্যা... স্বপ্নের প্যারিস আম্রিকা মূহুর্তেই উধাও ;)

এইরকম ভাজাপোড়া রাজা প্রজারা পকেটে নিয়া ঘোরে। আর বিরানী খেতে খেতে গান ধরে মনের সুখে। .....

ভালো কথা চকলেট খালি এক স্থানে ট্রান্সফার হচ্ছে... নট ফেয়ার। আফটার সামুর বাকি আপুদেরকে বিবেচনায় রাখা উচিত নেক্সট এ.................

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কেন, সাইড দিছি তো......সঠিক পরিকল্পনা আর দেশপ্রেম!!!

যাউকগ্গা, এইবার আমরা জনগন এই ভাজা মনের আনন্দে চিবাবো তবে চোখ বন্ধ করে। আরে মিয়া চোখ খুললেইতো সমস্যা... স্বপ্নের প্যারিস আম্রিকা মূহুর্তেই উধাও ;) সেই জন্যই তো চোখ খোলার পরে আফটার শকের ব্যাপারে সাবধান বাণী দিছি! দ্যাখেন নাই? :)

কোন সমস্যা নাই। খালি ঠিকানা দিবেন, যখনই কেউ কানাডা যাইবো, জিনিস পাঠায়া দিমু!! :)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.