নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সবাই যখন নীরব, আমি একা চীৎকার করি \n--আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি।\n

গিয়াস উদ্দিন লিটন

গিয়াস উদ্দিন লিটন › বিস্তারিত পোস্টঃ

গুগলের টেকনিক্যাল প্রোডাক্ট ম্যানেজার প্রকৌশলী মোহাম্মাদ শিশির খান । (গুণীগন-একের ভিতর পাঁচ )

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৩১


প্রবাসে বাংলাদেশের রক্তের উত্তরাধিকারী গুণীগন- ৮১ ,৮২ ,৮৩ ,৮৪ ,৮৫ ।


৮১ / হলিউড ও বোম্বের মুভিতে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অভিনেতা অর্ক দাশ ।




অস্ট্রেলিয়ার অভিনয়জগৎ তথা মঞ্চ-টিভি-চলচ্চিত্র তিন মাধ্যমেই অর্ক কাজ করছেন সমানতালে । বোম্বের চলচ্চিত্রকার অনুপম শর্মার ছবি আনইন্ডিয়ান । বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতাদের সঙ্গে এই ছবিতে অভিনয় করেছেন চট্টগ্রামের ছেলে অর্ক । এই সিনেমার বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তন্বিষ্ঠা চ্যাটার্জি, স্টিফেন হল্টার, গুলশান গ্রোভার, সুপ্রিয়া পাঠক । একটি অতিথি চরিত্রে আছেন সালমান খান ।

এই ছবিতে অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিশ্বনন্দিত ক্রিকেটার ব্রেট লি । ছবিতে অর্ক ব্রেট লির বন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন । অভিনয়ের পাশাপাশি টিভি সিরিজ পরিচালনায়ও হাত লাগিয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই তরুণ ।

সম্প্রতি পা রেখেছেন হলিউডেও । হলিউডের ছবি দ্য লায়ন এ লিড সাপোর্টিং রোল অর্থাৎ শীর্ষ পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেছেন এই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অর্ক ।

ছবিতে তিনি দেব প্যাটেল ও নিকোল কিডম্যানের সঙ্গে অভিনয় করেছেন ।

২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া আঞ্চলিক শেক্সপিয়ার উৎসবে অর্কের অভিনয় জীবন শুরু । এর পরের বছর ওই উৎসবেই অভিনয়ে সাফল্যটাও এল । ২০০৪ সালের উৎসবে সংলাপ বিভাগে প্রথম হলেন অর্ক । এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়েও অভিনয়ের চর্চা অব্যাহত থাকল । মঞ্চে নিয়মিতই দেখা গেল অর্ক দাশকে । অভিনয় করলেন বেশ কয়েকটি নাটকে । এর মধ্যে গ্রিফিন ইনডিপেনডেন্ট থিয়েটারের হয়ে সিডনিতে করলেন রেফারেন্সেস টু সালভাদর দালি, মেক মি হট নাটক । এই নাটক দর্শকপ্রিয়তা যেমন পেল, তেমনি সমালোচকদের প্রশংসাও কুড়াল ।

অর্ক ২০১০ সালে যোগ দেন সিডনির এনসেম্বেল থিয়েটারে । এই নাট্যদলের হয়ে মঞ্চে অ্যানিমেলস আউট অব পেপার নাটকে অভিনয় করেন সে বছর । এই নাটকে অভিনয় করে মঞ্চে সেরা নতুন মুখের মনোনয়ন পান সিডনি থিয়েটার পুরস্কারের জন্য । পরের বছর ক্যাসানোভা নাটকে অভিনয় করেন ।

২০১৩ সালে গ্রিফিন থিয়েটারের তারকাসমৃদ্ধ নাটক বিচড-এ অভিনয় করেন । মঞ্চের পর টেলিভিশনের পর্দায়ও হাজির অর্ক । অভিনয় করলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রশংসিত ও পুরস্কারপ্রাপ্ত মিনি সিরিজ দ্য কোড-এ । দরজা খুলল চলচ্চিত্রজগতেরও । গুড মর্নিং চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেন পার্শ্বচরিত্রে । অভিনয়ের পাশাপাশি লেখালেখি ও নিজের লেখা নাটকের নির্দেশনাও দেন এই তরুণ ।

দ্য ক্যাজুয়ালস নামের একটি কমেডি সিরিজের যৌথ নির্মাতা তিনি । এই টিভি সিরিজটি পরিচালনার পাশাপাশি এতে অভিনয়ও করেছেন তিনি । খুব শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রে অনলাইনে ছাড়া হবে তাঁর এই প্রযোজনা। পাশাপাশি লস অ্যাঞ্জেলেসের হলি ওয়েভ ফেস্টিভ্যালেও দেখানো হবে এটি ।

মাটিতে নাম-যশ যতই হোক না কেন, নিজের মাতৃভূমিকে ভুলতে পারেন না অর্ক। এখানে দ্বিতীয় শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন। সবচেয়ে বড় কথা, অভিনয়টা শুরু এই বাংলাদেশেই। চট্টগ্রামের সামার ফিল্ড স্কুলে পড়ার সময় জুতা আবিষ্কার নাটকে তাঁর প্রথম অভিনয় ।
অর্কের বাবা অজয় দাশ গুপ্ত , মা দীপা দাশ , আদি নিবাস চট্টগ্রামের লাভ লেইনে ।


Click This Link



৮২ / কানাডায় দ্য টরন্টো স্টার অ্যাওয়ার্ড জয়ী অনন্যা রাফা





প্রতিশ্রুতিশীল সাংবাদিকতার জন্য অত্যন্ত সম্মানজনক পদক দ্য টরন্টো স্টার হাইস্কুল নিউজ পেপার অ্যাওয়ার্ড । বৃহত্তর টরন্টোর হাইস্কুলগুলো থেকে প্রকাশিত স্কুল পত্রিকাগুলোর সঙ্গে জড়িত সংবাদকর্মীদের মধ্য থেকে বাছাই করে সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ সাংবাদিকের স্বীকৃতি হিসেবে এই অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয় ।

কানাডার মূলধারার অত্যন্ত প্রভাবশালী পত্রিকা টরন্টো স্টার গত ১৯ বছর ধরে স্কুল পত্রিকার ২১টি ক্যাটাগরির প্রতিটিতে দুজন করে সংবাদকর্মীকে পুরস্কৃত করছে ।

সেরা ইলাস্ট্রেশনের জন্য ২০১৫ সালের সন্মান জনক এ পদকটি ছিনিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অনন্যা রাফা । চলতি ২০১৫ সালের অ্যাওয়ার্ডের জন্য টরন্টোর বিভিন্ন হাইস্কুলের ছয় শ জন প্রতিযোগী ছিলেন । টরন্টো স্টারের একটি জুরি বোর্ড যাচাই বাছাই করে সেরা সংবাদকর্মীদের অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত করেন ।

সেরা ইলাস্ট্রেশনের জন্য অ্যাওয়ার্ড পাওয়া রাফা অনন্যা রায়ার্সন ইউনিভার্সিটিতে ফটোগ্রাফি মেজর নিয়ে ফাইন আর্টসে পড়ছে । দশম শ্রেণিতে পড়াকালে রাফা তার স্কুলের পত্রিকা রেকনারের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয় । অল্পদিনের মধ্যেই তার ফটোগ্রাফি ও ইলাস্ট্রেশন সবার দৃষ্টি কাড়ে ।

রাফা টরেন্টো প্রবাসী আজিম উদ্দিন আহমেদ ও আনজুমান আরার কন্যা ।



৮৩ / গুগলের টেকনিক্যাল প্রোডাক্ট ম্যানেজার প্রকৌশলী মোহাম্মাদ শিশির খান





যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী ফরচুন কাজের পরিবেশের বিচারে প্রতি বছর ১০০টি সেরা প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করে, যে প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মীরা সন্তুষ্ট ও অনুগত । এই তালিকায় গত তিন বছর টানা শীর্ষ অবস্থানটি গুগল ইনকরপোরেটেডের দখলে ।
তাই গুগলে চাকরি অনেকের কাছেই অনেকটা স্বপ্নের মতো ।

বর্তমানে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি গুগলে কাজ করলেও বিশ্বখ্যাত এই প্রতিষ্ঠানে ২০০৪ সালে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় গুগলের প্রধান কার্যালয়ে সফটওয়্যার প্রকৌশলী পদে যোগ দেন মোহাম্মাদ শিশির খান । তিনি এখন গুগলের কারিগরি পণ্য ব্যবস্থাপক (টেকনিক্যাল প্রোডাক্ট ম্যানেজার)।

১৯৯৫ সালে এসএসসি পরীক্ষা শেষে সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্র চলে যান শিশির । সেখানে দ্বাদশ শ্রেণির পড়াশোনা শেষে প্রথমে মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটি ও পরে ওয়েন স্টেট ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার কৌশল বিষয়ে স্নাতক হন ।

পুরো পরিবার ও আত্মীয়স্বজনেরা যুক্তরাষ্ট্রে থাকায় বাংলাদেশে খুব একটা আসা না হলেও দেশকে নিয়ে সব সময় ভাবেন, দেশের সব খবর রাখেন ।

বললেন, বাংলাদেশের প্রযুক্তি জগৎ যেন শক্তিশালী হয়ে বেড়ে উঠতে পারে, সে জন্য গুগলে আমরা বাংলাদেশিরা সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি । গুগলের সব সেবা বাংলায় রূপান্তর করা হচ্ছে । আমাদের প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে গুগলের নানা কার্যক্রম চালু হয়েছে । গুগল বাসের মাধ্যমে আমরা প্রায় সাড়ে তিন শ স্কুল-কলেজের প্রায় দেড় লাখ শিক্ষার্থীকে ইন্টারনেটের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি।’ এ কাজে গুগলকে সহায়তা করছে অনেকগুলো সংগঠন ।

মোহাম্মাদ শিশির খান এর বাড়ি বাংলাদেশের সিরাজগঞ্জে ।


৮৪ / আরেকজন দ্য টরন্টো স্টার হাইস্কুল নিউজ পেপার অ্যাওয়ার্ড জয়ী - চিত্তা চৌধুরী ।





৮২ নং ক্রমিকে উল্যেখিত একই পুরস্কারে ফিচার লেখায় রানার আপ পদক পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত চিত্তা চৌধুরী ।
ফিচার রাইটিংয়ে রানার আপ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া চিত্তা চৌধুরী নর্থ থর্নক্লিফ কলেজিয়েট স্কুলে গ্রেড টুয়েলভের ছাত্রী ।

মাত্র এক বছর আগে চিত্তা স্কুল নিউজ পেপারের সঙ্গে যুক্ত হয় ।লেখালেখি শুরুর এক বছরের মাথায় সে সম্মানজনক স্বীকৃতি ছিনিয়ে আনে ।

ফিচার লেখায় রানার আপ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া চিত্তা চৌধুরী টরন্টোতে বসবাসরত রুবিনা চৌধুরী ও কবীর চৌধুরীর মেয়ে ।


৮৫ / ফ্রান্সে অ্যাম্বাসেডর অব বাংলাদেশ এন্ড ইন্ডিয়ান কন্টিনেন্ট সম্মাননা প্রাপ্ত বাংলাদেশি প্রকৌশলী ওসমান হোসেইন মনির





ফ্রান্সে সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজের মাধ্যমে বাংলাদেশের বাকেরগঞ্জের তরুণ ইঞ্জিনিয়ার ওসমান হোসেইন মনির ইতোমধ্যে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন ।

ভাষাগত দক্ষতা, তারুণ্য ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে তার প্রাণবন্ত চেষ্টা দেখে বিমোহিত হয়েছেন ফরাসিরা । স্থানীয় ফরাসি রাজনীতির সাথে তাল মিলিয়ে চলছেন তিনি আপন গতিতে । তার বিশ্বাস ছিল শুধু বাংলাদেশি কমিউনিটিতে সীমাবদ্ধ না থেকে ফরাসি মূলধারার সাথে কাজ করলে বাংলাদেশ ও বাংলাদেশিদের আরও বেশি উপকার করা যাবে।

নিজ বিশ্বাসে অটুট থাকা এ তরুণ ফ্রান্সে বসবাসরত দক্ষিণ এশিয়ার অভিবাসীদের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সহযোগিতায় বিভিন্ন সময় ভূমিকা রেখেছেন ।

এর স্বীকৃতি হিসাবে ফ্রান্সের তুলুজ শহরের সিন্হর্কাত (মেয়রের) দপ্তর থেকে তাকে অ্যাম্বাসেডর অব বাংলাদেশ এন্ড ইন্ডিয়ান কন্টিনেন্ট সম্মাননা দেয়া হয়েছে । এটা ফ্রান্সে বসবাসরত বাংলাদেশিদের প্রথম অর্জন এবং ইউরোপের বাংলাদেশিদের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয় । বাকেরগঞ্জের এ তরুণের অর্জন বাংলাদেশকে সম্মানিত করেছে ।

ফ্রান্সের université de toulouse le mirail থেকে উচ্চতর ডিগ্রি ধারী মনির একজন সফল ব্যবসায়ী হিসাবে তুলুজে বেশ পরিচিত । তুলুজ বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তার ছিল বেশ সুনাম, ইউরোপের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কাজ করেন ।

বাকেরগঞ্জের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও সামাজিক এবং অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিয়ে কাজ করার জন্য ইতোমধ্যে ফ্রান্স সরকারের সাথে কথা বলেছেন, এবং ফ্রান্স বাংলাদেশ সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশন নিয়ে কাজ করছেন ।

ওই এসোসিয়েশনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার ওসমান হোসেইন মনির, সাধারণ সম্পাদক মিস্টার উইললি বার্দিন (তুলুজ সিটি মেয়রের উপদেষ্টা ও সভাপতি সিন্হর্কেত ) এবং কোষাধ্যক্ষ মিস্টার অন্দরে গালিগো (সাবেক পার্লামেন্ট মেম্বার ফ্রান্স ও সভাপতি জর্নাল দু তুলুজ ) নির্বাচিত করা হয় ।

যেখানে ফ্রান্স প্রতিনিধি দল থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে একটি গ্রামের নামের প্রস্তাব চাইলে ইঞ্জিনিয়ার ওসমান হোসেইন মনির তার স্বপ্নের ঠিকানা আলোকিত বাকেরগঞ্জ নাম প্রস্তাব করেন ।

ওসমান হোসেইন মনির ১৯৮১ সালের ৪ এপ্রিল ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন । তার বাবা আব্দুল মান্নান মোল্লা ।


তথ্য - এখানে


পূর্বের পর্বগুলির লেজ






মন্তব্য ৭১ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (৭১) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪১

গেম চেঞ্জার বলেছেন: ১ম পিলাচ খিলান। পড়া নাহয় একটু পরেই। B-))

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: খিলাইলাম !! গেম চেঞ্জার ভাই , আপনার পিলাচ খান বড়ই টেস্টূ ! B-)) B-))

২| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৫

গেম চেঞ্জার বলেছেন: অর্কের ব্যাপারে একটু আধটু জানা ছিল। আজ আরো জানলাম। ধইন্যা :D

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ গেম চেঞ্জার ।

৩| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৯

ধমনী বলেছেন: সুন্দর সুন্দর।

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ ধমনী ।

৪| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫২

প্রামানিক বলেছেন: বাংলাদেশের গুণীদের সম্পর্কে অনেক কিছু জানা হলো। ধন্যবাদ ভাই লিটন। আরো লেখা চাই।

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাদের অনুপ্রেরনায় অবশ্যই লিখা পাবেন , এই সিরিজ থেকে আমি বেরুতে পারবো কিনা সন্দেহ :D

ধন্যবাদ প্রামানিক ভাই।

৫| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৩

কিরমানী লিটন বলেছেন: সমৃদ্ধগুণীর স্নিদ্ধ পদচারানায় উদ্ভাসিত পৃথিবীর,নিপুণ কারিগরদের গর্বিত বাংলাদেশের-অহমের চিত্রগুলি ধারাবাহিক পরিশ্রমে সবার সামনে তুলে ধরে,উজ্জীবিত অনুপ্রেরণা খুঁজে নেয়ার সুযোগ করে দেয়ার জন্য আবারও আপনাকে স্যালুট!!!প্রিয় সুহৃদ গিয়াস উদ্দিন লিটন ভাই,অনেক শুভকামনা মিতার জন্য ...

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার কাব্যিক মন্তব্য বরাবরই আমার অনুপ্রেরণা , আপনার জন্যও শুভ কামনা মিতা ।

৬| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: অর্কে অংশটা বেশি ভাল লাগলো । আমার গল্পের নায়ক চরিত্র অর্ক তাই ।

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার এক গল্পে ''সেলিম গুন্ডা'' এসেছিল দেখে আপনি মন খারাপ করেছিলেন , আজ মন ভাল করে দিলাম সেলিম ভাই ।
শোধ বোধ । :D

৭| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৬

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: ৮৩, ৮৫ বেস্ট

০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ বিমাতা আমার :P

৮| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৩৭

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন:

অর্কের খবরটি কোন এক পত্রিকায় পড়েছিলাম। রাফা এবং শিশির খানের খবরটি চমকপ্রদ।

আসলে সবগুলোই আলাদাভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

চলতে থাকুক :)

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:০৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অর্কের খবরটি কোন এক পত্রিকায় পড়েছিলাম।

মইনুল ভাই , এই সিরিয়াল মূলত দেশি বিদেশী পত্র পত্রিকা , ওয়েবসাইট ,উইকিপিডিয়া থেকে সংগৃহীত তথ্যের সংকলিত রূপ ।
যা বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহীত হয়ে নিজের মত করে উপস্থাপন । অনেক ধন্যবাদ মাঈনউদ্দিন মইনুল ।

৯| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৪৫

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: আমি কি অহংকারী বলেই নিজ অহংকারের রূপ খুজে ফিরি অন্যদের মাঝে??

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সচেতনহ্যাপী , কথা কয়টি ভাল লাগলো , মন্তব্য করার জন্য যুতসই কিছু খুজে পাচ্ছিনা :)

১০| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৫৬

প্রবাসী পাঠক বলেছেন: এই পর্বের কারো কথাই জানতাম না।

পোস্টে প্লাস নাম্বার পাঁচ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাকে জানাতে পেরে ভাল লাগছে । কমেন্টে প্লাস নাম্বার ১ :D

১১| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৩:০৯

রক্তিম দিগন্ত বলেছেন: পিলাস।

লিটন ভাই - আপ্নের এই পর্ব অফ কইরেন না কহনো। আমার জানতে ভালই লাগে। অফ করলে জানাডা অফ হইয়া যাইবো আমার।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার মন্তব্যে আমি আবিভুত ! রক্তিম দিগন্ত কে রক্তিম শুভেচ্ছা ।

১২| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ৯:০৩

কান্ডারি অথর্ব বলেছেন:


সামুর জগতে যত সিরিজ চলতে দেখছি এই জীবনে এইটা সেইগুলার মধ্যে অন্যতম একটা ভাল সিরিজ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কান্ডারি অথর্ব , আপনার মন্তব্যটি আমার কাছে রীতিমত প্রশংসা পত্র । আনন্দিত, উৎসাহিত , কৃতজ্ঞ ।
বিনীত ধন্যবাদ ।

১৩| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪৪

সাহসী সন্তান বলেছেন: অনবদ্য পোস্ট! আপনার এই সিরিজ পোস্টটার মাধ্যমে অনেক কিছু জানতে এবং শিখতে পারি! তাছাড়া বাংলার কিছু গুনী ব্যক্তিত্তের সম্পর্কেও অনেক ধারনা পাওয়া যায়!


শুভেচ্ছা জানবেন!

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:০০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সাহসী সন্তান ভাই (সন্তান কেমনে ভাই হয় :P ) আপনাদের নিয়মিত সাহচর্য পোস্টটি কণটিনিউ করার রসদ ।
আপনাকে সব সময় সাথে পাই ।
আপনাকে ধন্যবাদ সাস।

১৪| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:১৩

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন: দারুণ । বিস্তর বর্ণনা পোস্টটিকে আরও সমৃদ্ধি করেছে । খুব ভাল লেগেছে ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক অনেক শুভ কামনা কথাকথিকেথিকথন ।

১৫| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:২৩

এহসান সাবির বলেছেন: এই রকম একটা সিরিজ লিখত আমাদের প্রিয় 'গিয়াসলিটন' ভাই ;) আপনার প্রো পিকের সাথে তার প্রো পিক মিলেও যায়... তবে আপনি আর সে এক নয়, কারণ সাম্প্রতিক মন্তব্য তে গিয়াসলিটন লেখা কাল আমি দেখেছি। আজকে আর এি নামে পাচ্ছি না B-))........!!






নোট- আমার প্রিয় সিরিজ এটা। আমার মনে এটা অনেকের প্রিয় সিরিজ।
চলুক। সাথে আছি ভাইয়া।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: হাহাহাহাহা আপনার মন্তব্য পড়ে হাসতেই আছি =p~

ল্যাপটপ খুললে আমার পোলাটা পীঠের উপর শুয়ে থাকে ।
তার স্কুলের পরিক্ষায় পিতার নাম লিখে এসেছে 'গিয়াসলিটন' । যথারীতি নম্বর কাটা । তার মায়ের মত - সব দোষ আমার !
নাম পরিবর্তনের মুল বিষয় এটা নয় ।
অনেক ফেবু ফ্রেন্ডস পরামর্শ দিয়েছেন , ব্লগের নামটা ফেবুর সাথে যেন মিলিয়ে রাখি ।

আমি জানতাম সামুতে নাম পরিবর্তন করা যায় না ।

কিছু দিন আগে প্রামাণিক ভাই উনার নামের বানান শুদ্ধ করেছেন দেখে উৎসাহিত হয়ে কতৃপক্ষকে মেইল করলাম ।
তাঁরা সাথে সাথে আমার নাম পরিবর্তন করে দিয়েছেন ।

শুদ্ধ করার পরও প্রামানিক ভাইএর নাম ও এরকম দেখিয়েছে , এখন ঠিক হয়ে গেছে ।


তবে এহসান সাবির ভাই B-) , আমি যে একই ব্যাক্তি , এ বিষয়ে আমার কাছে সার্টিফিকেট আছে


১৬| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৪:৫৪

রোদেলা বলেছেন: বাহ,এক্সাথে এতো তথ্য পেলাম।অনেকের কাজে লাগবে।ধন্যবাদ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: তথ্যগুলি শেয়ার করতে পেরে আমারও ভাল লাগছে , আপনাকে ধন্যবাদ রোদেলা ।

১৭| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৪৯

সাহসী সন্তান বলেছেন: আজকের মন্তব্যের উত্তরটা একটু ব্যাতিক্রম লাগলো ভাই? অনেক মজা পাইলাম! আসলেইতো সন্তান ক্যামনে ভাই হয়? :P তবে অসুবিধা নেই, সন্তান বড় হচ্ছে না.....??

আপনার মুখে প্রথম 'সাস' ডাক শুনেতো মোগাম্ব বহুত খুশ হুয়া! আপনার এই পোস্টটা আরও অনেকদিন পর্যন্ত কন্টিনিউ রাখবেন সেই প্রত্যাশা করছি!

ভাল থাকবেন!

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেকেই আদর করে আপনাকে সাস ডাকে , আমিও আর বাদ যাই কেন ? :P

সেদিন একজনকে বলেছিলাম ,''আপনাকে ধন্যবাদ বিমাতা আমার'' বলুন তো এটা কার নাম ? B-)

১৮| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৯

শতদ্রু একটি নদী... বলেছেন: আগের পর্বগুলোর মতই দারুন। শুভকামনা রইলো। :)

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শতদ্রু ভাই , আপনার জন্যও শুভ কামনা ।

১৯| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:২৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন ,




শুধু অর্ক সম্পর্কে আগে কিছুটা জানতুম ।
সাথে আছি ।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এই সিরিয়ালের নিয়মিত পাঠক আহমেদ জী এস ভাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ।

২০| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৯

এস কাজী বলেছেন: আরেক খানা অনবদ্য পোস্ট গিয়াস ভ্রাতা।

ভাল লাগল। ধন্যবাদ :)

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ এস কাজী ।

২১| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৪

কলমের কালি শেষ বলেছেন: দারুণ অনবদ্য উপস্থাপন । আপনারটা সম্পর্কে কবে লিখবেন ? আপনিও তো তাদের কাতারে চলে যাচ্ছেন তাদের সাফল্যগাঁথা লিখে !! ;)

ভাল থাকুন । :)

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ব্যাপক শরমিন্দার ইমো হবে ।

২২| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৯

প্রামানিক বলেছেন: এই সিরিজ বন্ধ করার কথা চিন্তাও করা যাবে না।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাদের উৎসাহে আশা করি সিরিজটি অনেক দিন চালিয়ে যেতে পারবো প্রামানিক ভাই ।
তবে ছোট্ট একটা ব্রেক ! আগামী পোস্টে একটা রম্য উপস্থাপনের ইচ্ছা আছে । সাথে থাকবেন ।

২৩| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:১৭

কামরুন নাহার বীথি বলেছেন: অনবদ্য পোস্ট!!! প্রতি পোষ্টে নতুন নতুন প্রতিভা সম্মন্ধে জানতে পারছি!!!
অনেক অনেক শুভেচ্ছা ভাই!!!

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার সব পোস্টে আপনার মন্তব্য আমাকে উৎসাহিত করে ।
সাথে থাকায় ধন্যবাদ ।
( নতুন কিছুর সন্ধানে , আজও আপনার বাড়ি থেকে ঘুরে এলাম, আশাকরি আগামিবার খালি হাতে বিদায় হব না =p~ )

২৪| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৬

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: মাঝে মাঝৈ ভাবি আমাদের সোনার বাংলা আসলেই সোনাফলা বাংলা। যেমন ফুলে ফসলে, তেমনি কৃতি সন্তান দিয়েও।

দেশে যারা মাথা কুটে মরছে সুযোগের অভাবে, দেখা যেত তারা যদি সুযোগ পেত.. অনেক অনেক বেশি বিকশিত হতে পারত স্বর্ণালী সফলতা নিয়ে!

যারা এ যাবৎ বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের পতাকাকে উচ্চে তুলে ধরেছে আগত অনাগত সবাইকে অন্তর থেকে সম্মান ও সালাম।

আর তাদের উপস্থাপক হিসাবে আপনাকেও সালাম।

১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: দেশে যারা মাথা কুটে মরছে সুযোগের অভাবে, দেখা যেত তারা যদি সুযোগ পেত.. অনেক অনেক বেশি বিকশিত হতে পারত স্বর্ণালী সফলতা নিয়ে!

সুন্দর বলেছেন ভৃগু ভাই । সুশাসন নিশ্চিত হলে একদিন আমরাও কৃতীদের নার্সিং দিতে পারবো । সোনার ফসলে পূর্ণ হবে আমাদের
ভাণ্ডার ।
সুন্দর মন্তব্যের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ ।

২৫| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৯

দীপংকর চন্দ বলেছেন: প্রিয়তে থাকছে।

বাঙালির ভালোটা দেখতে, শুনতে যেমন ভালো লাগে, ভালো লাগে পড়তেও।

অনিঃশেষ শুভকামনা।

ভালো থাকবেন। সবসময়।

১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রিয়তে নেয়ায় সন্মানিত বোধ করছি ।
১০০ পূর্ণ হলে ইচ্ছে আছে , শুধু লিঙ্ক দিয়ে একটা পোস্ট দেয়ার । যাতে আগ্রহী কেউ চাইলে সবগুলি পোস্ট প্রিয়তে নিতে পারে ।
শুভ কামনা জানবেন দীপংকর চন্দ ।

২৬| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:২৯

হাসান মাহবুব বলেছেন: ভালো লাগে এসব।

১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:৪৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ মাহবুব ভাই ।

২৭| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৪১

আমি আবুলের বাপ বলেছেন: এই সিরিজ যেইদিন বন্ধ হবে,সেই দিন থেকে আপনার সাথে আর কোনো সংলাপ হবে না। ;)

১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: একদম কিরা কেটে বসলেন নাকি আবুলের বাপ ভাইচা ?

না না , আমিতো আর স্বৈরাচারের সাথে আঁতাত করিনি ! সুতরাং সংলাপ হবে ! ;)

২৮| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:৪১

গুলশান কিবরীয়া বলেছেন: অনেক ভালো লাগছে আপনার এই ধারাবাহিক পোস্টটি । অনেক অজানা খবর জানলাম । চালিয়ে জান , সাথে আছি সবসময় । অনেক অনেক শুভকামনা রইল ।

১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনাদের সাথে পাই দেখেই , পোস্টটা চালিয়ে যাচ্ছি । গুলশান কিবরীয়া আপনার জন্যও শুভ কামনা ।

২৯| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৫৩

আরজু পনি বলেছেন:

এসব অনুপ্রেরণামূলক লেখা পড়লে সত্যিই ভালো লাগে ।
মনে হয় নিজে কবে অন্যের অনুপ্রেরণার ব্যক্তিত্বে পরিণত হবো...
++++++++++++++++

১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১০:৩৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: বৃহৎ বা ক্ষুদ্র পরিসর যাই হোক , আমরা প্রত্যেকেই কোন না কোন ভাবে , কারো না কারো কাছে অনুপ্রেরণার ব্যক্তিত্ব ।
আপনার ভাবনা ভাল লেগেছে ।অনেক ধন্যবাদ আরজুপনি ।

৩০| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২০

জেন রসি বলেছেন: আপনার এই সিরিজটা চমৎকার হচ্ছে। অনেক কিছু জানতে পারছি। :)

১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মন্তব্যে অনুপ্রাণিত , অসংখ্য ধন্যবাদ জেন রসি ।

৩১| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:৪৩

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া তোমার এসব পোস্ট যে ব্লগের সম্পদ আবারও বলে গেলাম । আবার যেন বলোনা তোমাকে আমার মনেই থাকেনা। :(

১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ভাইয়া তোমার এসব পোস্ট যে ব্লগের সম্পদ আবারও বলে গেলাম ।
যেটা বলনি সেটা আমি বলছি - শায়মা নিজেই সামু ব্লগের সম্পদ ।

প্রায়ই তোমার বাড়ি যাই , জিনিয়াসদের সাথে উশটা খেয়ে ফিরে আসি ।
অনেক দিন লিখনা , তবে এটুকু বুঝি , শায়মার বিরতি যত দীর্ঘ , পোস্টটা ততই স্পেশাল ।
ফাটাফাটি কিছুর অপেক্ষায় রইলাম ।

৩২| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:১৬

জুন বলেছেন: এই সব কৃতী ব্যাক্তিদের কথা জেনে অনেক ভালো লাগে গিয়াস লিটন।
+

৩৩| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:২৬

শায়মা বলেছেন: লেখক বলেছেন: ভাইয়া তোমার এসব পোস্ট যে ব্লগের সম্পদ আবারও বলে গেলাম ।
যেটা বলনি সেটা আমি বলছি - শায়মা নিজেই সামু ব্লগের সম্পদ ।

প্রায়ই তোমার বাড়ি যাই , জিনিয়াসদের সাথে উশটা খেয়ে ফিরে আসি ।
অনেক দিন লিখনা , তবে এটুকু বুঝি , শায়মার বিরতি যত দীর্ঘ , পোস্টটা ততই স্পেশাল ।
ফাটাফাটি কিছুর অপেক্ষায় রইলাম ।


না ভাইয়া!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!


আমি মরো মরো অবস্থায় আছি!!!!!!!!!:(


নো পোস্ট, নো রাইটিং, নো স্পেশাল!!!!!!!!!!!!!:(

বাট আমাকেই সামু ব্লগের সম্পদ বলার জন্য অনেক অনেক থ্যাংকস আর ভালোবাসা ভাইয়ামনি!!!!!!!:)

১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমি মরো মরো অবস্থায় আছি!!!!!!!!!:(

কেনরে ভাইয়া ! ফিজিক্যালি ইল ?

নো , এটা কোন কাজের কথা নয় , সামুর পাঠকদের বঞ্চিত করে তোমার ইল অনুমোদন করছিনা । দ্রুত ফিরে এসো ।

৩৪| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০০

শায়মা বলেছেন: :(

:(

:(

আসবোনা!!!!!!!!!!!!!!!!!! :(

১৩ ই নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: তোমার বাসার সামনে সামুর পাঠক রা অবস্থান কর্মসূচী পালন করবে , সামলাতে পারবে ? :D

৩৫| ১২ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:০৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: খুব সুন্দর করে আপনি বলে যাচ্ছেন বাংলার এত এত গুণীজনদের কথা। খুব ভালো লাগছে পড়তে।

১৩ ই নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার সুন্দর মন্তব্যে বরাবরই অনুপ্রেরণা পাই , আপনাকে ধন্যবাদ খায়রুল আহসান ভাই ।

৩৬| ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০০

মাহমুদ০০৭ বলেছেন: আপনার এই সিরিজটা চমৎকার লাগে ।
চলুক । ভাল থাকবেন লিটন ভাই

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ও শুভ কামনা মাহমুদ ভাই ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.