নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সবাই যখন নীরব, আমি একা চীৎকার করি \n--আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি।\n

গিয়াস উদ্দিন লিটন

গিয়াস উদ্দিন লিটন › বিস্তারিত পোস্টঃ

ওস্তাদেরে মাইর শেষ রাতে। =p~ একটি পানসে রম্য।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:০৬






রমজানের পরেই এসএসসি পরীক্ষা। ইবাদত বন্দেগী আর পড়া লিখা ধুমসে চালিয়ে যেতে হবে। কি প্লান প্রোগ্রাম করা যায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে তিন বন্ধু মিলে এক বিকালে মিলিত হলাম।
ইতিমধ্যে আমাদের সাথে আরো কয়েকজন যোগ দিয়েছে। কেউ প্রস্তাব করছে, সারা রাত পড়বে, সেহরি খেয়ে তবেই ঘুম দিবে। আরেকজনের মত রাতে কিছুক্ষন পড়ে ঘুম, আবার সেহরি খেয়ে পড়া শুরু। কারো মতে নামাজের বিরতি বাদে সারাদিনই পড়া চলবে। এইমত, সেইমত, নানা মত।

কারো মতের সাথে কেউ একমত হতে পারছিল না। এমতাবস্থায় ওস্তাদ নবী এসে আমাদের সাথে যোগ দিয়ে এক যুগান্তকারী প্রস্তাব পেশ করেন। সবাই একবাক্যে রাজি। সিদ্ধান্ত হল আজ রাতেই মুরগী চুরি করে রান্না হবে।
তেল মশলা হাঁড়ি কে কি আনবে তড়িৎ দায়িত্ব বন্টিত হল। এক পরিত্যাক্ত গোয়াল ঘরকে অস্থায়ী কিচেন ঘোষণা করে রাত আটটার ভিতর সব কিছু সেখানে মজুদ করা হল।

নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে রাসেদা ভাবীর খোয়াড়কে কম ঝুকিপুর্ন বিবেচনা করা হল। বেচারির স্বামী প্রবাসী,গৃহে দুই বাচ্ছা আর বুড়ো শ্বশুর।
কয়েকজনকে কিচেনে রেখে রাত ১০ টা নাগাদ আমরা চার জন অপারেশন স্পটে হাজির হলাম। আজিজের ডিউটি পড়েছে বাড়ির দরজায়। কেউ বাড়ির দিকে ঢুকতে দেখলে আমাদের সতর্ক করবে। কয়েক বাড়ির মানুষ ভাবীদের বাগিচা দিয়ে হাঁটে এখানে ডিউটি পড়েছে কামালের। খোয়াড় অভিযানের দায়িত্ব আমি আর ওস্তাদ নিয়ে নিলাম।

প্রতিরোধের মুখে পড়লে 'কৌশল গত ভাবে' কোন পথ দিয়ে পিঠ টান দেয়া যায় এ সম্পর্কে সম্যক ধারনা নিতে ওস্তাদ জায়গাটি জরিপ করার সিদ্ধান্ত নিলেন।
সন্তোষ জনক জরিপ শেষে সৈন্যরা যথাস্থানে অবস্থান করছে কিনা পরিদর্শন করতে গিয়ে বিরাট ঘাপলা পরিলক্ষিত হল।
ওস্তাদ ফিসফিস করে আমাকে বললেন, ঘরের পিছনে পুকুর পাড়ে দেখ। দেখলাম পুকুরের দিকে মুখ করে এক ছায়ামুর্তি বসে আছে। আমি সচরাচর ভুতের গল্প শুনলেও ভয় পাই, এতো দেখছি জলজ্যান্ত ভুত! ভয়ে আমার হাত পা কাঁপছে । একটু আগে খেসারী ক্ষেতের আলে কম্ম সারার পরও আমি পিসাবের বেগ অনুভব করলাম। ভয় লুকিয়ে ওস্তাদকে বললাম- মনে হয় মেছো ভুত!

ওস্তাদ আমার কথা শুনলেন বলে মনে হল না। রাগে গজরাতে গজরাতে বললেন, কামাইল্লারে বলছি বাগিচায় থাকতে, হালার পুত বাগিচা ছেড়ে ঘরের পিছে কি করে?
যুদ্ধের ময়দানে সেনাপতির আদেশ অমান্য করা বিদ্রোহের পর্যায়ে পড়ে। এর একটা বিহিত কল্পে ওস্তাদ নিঃশব্দে কামালের পিছনে গিয়ে গদাম করে মারলেন লাথি। পদাঘাত সইতে না পেরে কামাল গড়িয়ে গড়িয়ে পুকুরে পড়ে গেল। এবং পুকুর থেকেই চোর চোর বলে চিৎকার শুরু করে দিল।

ঘটনার আকস্মিকতায় আমরা হতবুদ্ধি! ১৫ সেকেন্ড পরে আমরা উপলব্ধি করলাম, যাকে কামাল বলে ভ্রম করেছি তিনি রাসেদা ভাবীর শ্বশুর। যিনি মনের মাধুরী মিশিয়ে জল বিয়োগ করছিলেন।
ওস্তাদের সাথে খেজুর রস, ডাব জাতীয় কয়েকটা অভিযানে গিয়েছি। অনুগত সৈনিক বলে আমার বেশ সুনাম আছে । এই প্রথম সেনাপতির আদেশের অপেক্ষায় না থেকে দিলাম দৌড়!!

বিশ কদম পরেই আমার সঙ্গে দৌড় কর্মে যোগ দিল কামাল। খেসারি ক্ষেতের ভিতর দিয়ে দুজনের সেকি দৌড়। স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়ায় এরকম পারফর্ম দেখাতে পারলে নির্ঘাত প্রাইজ পেতাম। ৪/৫ মিনিট পরে ৩০০ মিটারে থেকেই পিছনে ফিরে দেখি বেশ শোরগোল পড়ে গেছে, টর্চ, হারিকেন নিয়ে প্রতিবেশীরা ছোটাছুটি করছে। লক্ষ্য করে আতঙ্কিত হলাম, ক্ষীণ আলোর টর্চ হাতে একজন আমাদের সাথে পাল্লা দিয়ে দৌড়াচ্ছে, এবং আমাদের প্রায় ধরে ফেলছে ধরে ফেলছে অবস্থা!

স্পিড বাড়ালাম। মাত্রাতিরিক্ত স্পিডের সাথে কামাল তাল মিলাতে পারছিল না, ইতিমধ্যে তার লুঙ্গি খুলে গেছে, লুঙ্গির সাথে প্যাঁচ লেগে দুই আছাড় খেয়েও ফেলেছে। তৃতীয় আছাড় থেকে উঠে 'লুঙ্গীর মায়রে বাপ' বলে সে লুঙ্গী বিসর্জন দিল।
আধা কিলো গিয়ে আবার পেছন ফিরলাম, আমাদের ধরতে আসা ব্যাটাও খিঁচে দৌড়াচ্ছে। আশার কথা ব্যাটাকে একটু পিছনে ফেলতে পেরেছি।

কিন্তু শরিরে আর কুলাচ্ছিল না। কামাল খেসারী ক্ষেতে বসে পড়েছে। ফিসফিসিয়ে বলল - ব্যাটা একা একা আসছে, আমাদের দুইজনের সাথে পেরে উঠবেনা। আমাদের কাছাকাছি এলেই ধুস মার লাগামু।
আসলে 'দুজন' বলছে আমাকে খুশি করার জন্য। সে ভাল করেই জানে আমাকে দিয়ে মারামারি হয়না। আমাদের দলে কামাল ছিল পালোয়ান কিসিমের। তাই তার উপর ভরসা করা যায় । বুদ্ধিটি আমার মনপুত হল। আমি বসে পড়লাম।

দেখলাম ব্যাটা আমাদের দুজনের মাঝামাঝি এসে টর্চ জালিয়ে আমাদের খুঁজছে। আমরা এই সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। কামাল লাফ দিয়ে তার ঘাড়ে এসে পড়লো । সাথে সাথে ধরাশায়ী, সাথে বেদম মার,কিল,ঘুশি।
সে এক হুলুস্থুল কান্ড, আধা শতক খেসারী ক্ষেত লন্ডভন্ড। শিকার প্রায় নিস্তেজ। কামাল নিজের ইজ্জতের হেফাজত কল্পে শিকারের লুঙ্গী খোলায় ব্যাস্ত। এমত সময়ে চি চিঁ করে শিকার বলে উঠলো- তোরা আমাকে মারছিস কেন? আমি নবি, আমি নবি।



মন্তব্য ১০৬ টি রেটিং +২২/-০

মন্তব্য (১০৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন ,




পাঠকেরও লুঙ্গি খোলার অবস্থা ................. :D

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৩২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রথম মন্তব্যকারী আহমেদ জী এস ভাই, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

২| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:১৭

মোহেবুল্লাহ অয়ন বলেছেন: হা হা হা হে হে হে। =p~ =p~ :D :D আজকের এই গোমড়া দিনে অনেক হাসতে পারলাম।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ নতুন অতিথি মোহেবুল্লাহ অয়ন ।

৩| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:২৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: এই জীবনে ধরা না খেয়ে কিছু করতে পারলেন না দেখি ।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধরা খেয়ে খেয়েইতো ধরা না খাওয়ার ট্রেনিং নিচ্ছিলাম!

৪| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেহাল অবস্হা

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেকটা তাই গাজী ভাই।

৫| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৩৪

মোঃ হাসনাত আল-আমিন বলেছেন: :) :) :)

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ মোঃ হাসনাত আল-আমিন।

৬| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৩৭

গেম চেঞ্জার বলেছেন: হাঃ হাঃ হাঃ =p~ =p~ =p~

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ গেম ভাই।

৭| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৩৮

বিষাদ সময় বলেছেন: একটি পানসে রম্য।

পানসে না, একদম বিয়াপক স্বাদের রম্য। মনটা ভাল হয়ে গেল।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মন্তব্যে অনুপ্রাণিত , ধন্যবাদ বিষাদ সময় ।

৮| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪১

শামচুল হক বলেছেন: হে হে হে খাটুনি বেশি হলো কিন্তু মুরগী খাওয়া হলো না।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৫০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মাঝখান থেকে ওস্তাদ মাইর খেয়ে শেষ !!! =p~ =p~ =p~

৯| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৫২

সুমন কর বলেছেন: যাক, সারা দিনের ব্যস্ততার পর একটু হাসলাম। :D
+ এবং ধন্যবাদ।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনিও ধন্যবাদ নিন কবি ।

১০| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৫৭

শামচুল হক বলেছেন: ওস্তাদেরে মাইর শেষ রাতে<ওস্তাদের মাইর শেষ রাতে

২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শেষ রাতে ওস্তাদেরে মারা হইছিল তাই---- =p~ =p~ =p~

১১| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:১৭

শাহাদাৎ হোসাইন (সত্যের ছায়া) বলেছেন: ওস্তাদ জায়গাটি জরিপ করার সিদ্ধান্ত নিলেন। - এখানে জরিপ এর পরিবর্তে রেকি শব্দটি ব্যবহার করতে পারেন।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:২০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: দুটিই সমার্থক,অনেক ধন্যবাদ শাহাদাত ভাই।

১২| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:১৩

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন:
আগে জানলে গল্পটি এতরাতে পড়তামই না!!

পল্লী গাঁয়ের রাত সাড়েদশটা গভীর রাতই মনে হয়, আর এমন সময় হাসলে যে মানুষ পাগল বলবে সেটা মাথায় ছিল আমার। কিন্তু, বিপত্তির কারণ সেটাই হল আমার, প্রস্তাবনা পাশ হওয়ার পর থেকে শুরু, শুরুটা মুখচেপে হাসিটা চালাতে পারলেও শ্বশুর বেডার জল বিয়োগ থেকে আর সেটা সম্ভব হল না। দেখা গেল হাসি চেপে রাখাতে কান্নার মতো শুনা যেতে লাগলো, কিন্তু তাতে কি, এই গল্প শেষ না করলে তো ভালো লাগছে না! পড়েছি পুরাই, কিন্তু! আমি নাকি পাগল হয়ে গেছি! হাসছি আবার কাঁদছি!


মজার গল্প ভাই, গ্রেট।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনি আমারেওতো পাগল বানাইয়া ছাড়লেন নয়ন ভাই। আপনার মন্তব্য পড়ে হাসছি, এক মহিলা কই পাগল্টা হাসে ক্যা?

১৩| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৫৮

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: পানসে রম্য ভাল লেগেছে।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ মোস্তফা ভাই

১৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:২৭

জাহিদ অনিক বলেছেন:


হাঃ হাঃ জী এস ভাই যেমনটা বললেন, পাঠকেরও লুংগি খোলা অবস্থা।


আমার অভিজ্ঞতা ঐ ডাব চুরি পর্যন্ত ! :(
হাস মুরগি গরু ছাগল যেগুলোর প্রান আছে, যারা ধরতে গেলে কুকুরুতু কিংবা হাম্বা হাম্বা শব্দ করে মালিকের ঘুম ভাঙিয়ে দিতে পারে সেসবের দিকে যাওয়া রিস্কি কাজ। আমি পাতি চোর তাই ডাব নারকেলেই সীমাবদ্ধ!

আপনারা সকলেই সিনিয়র চোর তাই জ্যান্ত মুরগা চুরি করিতে গিয়াছিলেন যদিও বিফল মনোরথ হইয়া ফিরিয়া আসিয়াছেন। B-)

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:২০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: গ্রামের ছেলেদের টুকটাক চুরিচামারির অভিজ্ঞতা না থাকলে চলে না।

১৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:২৮

জাহিদ অনিক বলেছেন:


ওস্তাদেরে মাইর শেষ রাতে নাকি ওস্তাদকে মার শেষ রাতে ! ;)

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:২০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: =p~

১৬| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৫৮

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: বোঝা যাচ্ছে আপনি চিরকালীন দুষ্টুদের দলে ছিলেন। অভিভাবকদের শাসন কম ছিল মনে হয়?

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:২৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমাদের সময় শাসন দমন এইসব ছিলনা বললেই চলে। তারপরও পঞ্চম শ্রেণী পরজন্ত আমার রোল ১ ছিল।

১৭| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৫৯

কালীদাস বলেছেন: হা হা =p~

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:২৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ কালী দা।

১৮| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ২:৪১

অপর্ণা মম্ময় বলেছেন: পড়লাম। আপনাদের খাওয়াদাওয়া তো আর হইল না ফাইনালি?

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৩২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ওস্তাদের জান লইয়াই টানাটানি, আবার খাওয়া দাওয়া =p~

১৯| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৩:২৮

উম্মে সায়মা বলেছেন: হাহাহা =p~

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৩৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ সায়মা।

২০| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:২৮

মার্কো পোলো বলেছেন:
হাহা। লুঙ্গি বিসর্জনের পর লুঙ্গি খুঁজে পাওয়া গিয়েছিল? :) :P

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৩৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ওস্তাদের পরিচয় পাওয়ার পর কামাল পিছন দিকে ভোঁ দোড় দিয়েছিল। সম্ভবত লুংগি নিয়ে সে ভেগেছিল। ওস্তাদের ভয়ে মাস খানেক সে আমাদের দলের সাথে দেখা দেয়নি।

২১| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:৪১

ধ্রুবক আলো বলেছেন: হা হা হা,,, লুঙ্গি বিসর্জন! আবার শেষে ওস্তাদরেই মাইর হা হা হা +++

এই বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে একটা মজার রম্য পড়লাম। বেশ মজা লাগলো।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৪০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ধ্রুবক।

২২| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:০৭

শায়মা বলেছেন: হা হা হা হা

এই লেখা পড়ে আমি হাসতে হাসতে শেষ!


ভাইয়া নেক্সট টাইম চুরি করতে গেলে সবাইকে প্যান্ট পরতে বলবা! নো মোর লুঙ্গি!


এতবার একই প্রবলেম নিয়ে কেউ চুরি করতে যায়!!!!!!!!

একেই বলে নেড়া বার বার বেলতলায় যায়........

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৪৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: তখনকার দিনে গ্রামের ছেলেদের অকারনে পেন্ট পরার রিতি ছিলনা। তাছাড়া লুঙি ছিল মাল্টিপল ড্রেস। জল কাদায় সাধ্যমত উর্দ্ধগামী করা যেতো। পানি পথে অনেকের লুঙি বিপদসিমার উপরদিয়েও প্রবাহিত হতো।

২৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৮

রোকসানা লেইস বলেছেন: আমি নবি নবি :#) :#) :#)
লুঙ্গিতে বেল্ট বাঁধা দরকার

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: লুঙি আর কপালের মধ্যে একটা মিল আছে,কখন খুলে যায় কিছুই বলা যায় না। বেল্ট বাধলে তো এই মিল টা পাওয়া যেতো না।

২৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:০২

ধুতরার ফুল বলেছেন: এত চুরি করলেন তাও পেশাদার চোর হইতে পারলেন না। প্রথমে লুঙ্গি কাছা দিয়ে খালি গায়ে সাড়া শরীরে তেল মাখবেন । অতঃপর চেহারায় ১।৫ ভোল্ট ব্যাটারীর কার্বন আর সরসার তেল একত্রে মেখে পুরো মুখে মাখবেন। যাতে ধরা পরে গেলেও চিনতে না পারে। :P

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আহারে সময় কালে আপনার মত কামেল আদমীর সাক্ষাত পাইলাম না! =p~

২৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:২৮

বিলিয়ার রহমান বলেছেন: সেইরাম মাইরি মেয়াবাই!:);)


++

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ বিলি ভাই

২৬| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৯

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
আমি নবি, আমি নবি !!

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ নুরু ভাই।

২৭| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:১৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
এধরনের কাজের পরিনতির চমৎকার
একটি বিবরনি ফুটে উঠেছে লেখাটিতে ।

শুভেচ্ছা রইল ।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার জন্য ও শুভ কামনা ড এম আলী ভাই।

২৮| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:১৫

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: পালোয়ান কামালের নিম্নবস্ত্রহীন পরবর্তী দৃশ্যটা কি উপভোগ্য ছিলো না ভয়ের?
নাকী ওস্তাদজীর বস্ত্রহরনে তিনি সফল হৈয়াছিলেন?সেক্ষেত্রে ১ম প্রশ্নে উল্লেখিত নামখানি পরিবর্তিত হৈবে...............

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:০১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অন্ধকার রাত,বস্ত্র থাকা না থাকায় কোন তফাত ছিলনা কি করি ভাই। নাম খানি পরিবর্তন হবে কেন বুঝুই কন!

২৯| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৪৬

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: হা হা হা

ওস্তাদরে মাইর শেষ রাতে :P =p~ =p~ =p~


ভাগ্যিস কাঠ মোল্লারা ব্লগ দিয়ে ইন্টারনেট চালায়....
নয়তো আপনের খবর আছিল :-/

অথবা কনফার্ম সুইডেন, নিদেন জার্মানীর ভিসা/সিটিজেনশীপ :P

শুকরিয়া করবো না দু:খ করবো ;) :-B

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:০৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রত্যেক লাইনেই ওস্তাদ আছে, শুধু কাঠ --- রাই ওস্তাদ নয় ভ্রিগু ভাই।

৩০| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:০৩

জুলিয়ান সিদ্দিকী বলেছেন: ভাগ্যিস, লুঙ্গীটা পরা আছিল না।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার পরা ছিল জুলিয়ান ভাই হাহাহা

৩১| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৩১

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:



হা হা হা । রম্যেতো দেখছি চোরের সর্বনাশ । প্ল্যানে আকস্মিক পরিবর্তন নতুন মাত্রা দিয়েছে, পড়াশোনা থেকে সোজা মুরগী চুরি !!

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:২৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আইডিয়াটা জাদিদ ভাইএর এক লিখা থেকে ধার করা। সুক্ষ বিসয়টি আপনার নজরে এসেছে দেখে ভাল লাগ্লো।

৩২| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৪৫

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
হাঃ হাঃ হাঃ ........... দারুণ লিখেছেন ভাই। =p~ :)

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:২৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ শাহরিয়ার ভাই

৩৩| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৪৭

আখেনাটেন বলেছেন: দুর্দান্ত! :)


আমার নিজেরও বন্ধুদের নিয়ে কিছু হাঁস-মুরগী চুরির অভিজ্ঞতা আছে। :P কিছু সাদৃশ্য পেয়ে ভালো লাগল।

সুন্দর পোস্টের জন্য ভালোলাগা নিরন্তর।

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:২৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আখেনাটেন।

৩৪| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:০৯

শায়মা বলেছেন: ২৪. ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:০২ ১
ধুতরার ফুল বলেছেন: এত চুরি করলেন তাও পেশাদার চোর হইতে পারলেন না। প্রথমে লুঙ্গি কাছা দিয়ে খালি গায়ে সাড়া শরীরে তেল মাখবেন । অতঃপর চেহারায় ১।৫ ভোল্ট ব্যাটারীর কার্বন আর সরসার তেল একত্রে মেখে পুরো মুখে মাখবেন। যাতে ধরা পরে গেলেও চিনতে না পারে। :P
২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৫২ ০
লেখক বলেছেন: আহারে সময় কালে আপনার মত কামেল আদমীর সাক্ষাত পাইলাম না! =p~




হা হা হা হা ধুতরাফুল ভাইয়ার কথা শুনে তো মনে হচ্ছে ভাইয়া পাকা চোর ছিলো!!!!!!!!!! তুমি একটা কাঁচা চোর ভাইয়া!!!!!!!

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:১৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধুতরা ভাই উচ্ছস্তরের কামেল মানুষ। তেল,কালিঝুলি এসব সিঁধেল চোরদের মেকাপ,আমরা ছিলাম ছিচকে টাইপ! তবে উনার মত ওস্তাদ পেলে চোর সমাজের অহংকার হিসেবে উচ্ছ মঞ্জিলে দাখিল হতে পারতাম শায়মা।

৩৫| ২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৩৪

অনিক_আহমেদ বলেছেন: মজা পেলাম!

২১ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ অনিক আহমেদ

৩৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৭:০১

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: লেখক বলেছেন: অন্ধকার রাত,বস্ত্র থাকা না থাকায় কোন তফাত ছিলনা কি করি ভাই। নাম খানি পরিবর্তন হবে কেন বুঝুই কন!

যদি বস্ত্রহরনে পালোয়ান কামাল সফল হ'ন তবেতো ১ম প্রশ্নে উস্তাদজীর নামই আসিবে, নাকি তিনিও পালোয়ানের মতন ৩য় ব্যক্তির বস্ত্রহরন করিয়াছিলেন।আফটার অল সারভ্যাইভেল ফর দ্য ফিটেস্ট ইউ নো।আর ৩য় ব্যক্তির সিক্স প্যাক পাটখড়ি বডির ব্যপারেতো আম্রা কম বেশি সকলেই ওয়াকেবহাল..............চাহিলে ফটোগ্রাফসও দেয়া যাইতে পারে প্রমানস্বরূপ। :D :P ;) =p~

২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: =p~ :P :P :P

৩৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:৪৫

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: বেশ মজা হইছে। =p~

২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৫১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ হাসু মামা।

৩৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:২৮

দিশেহারা রাজপুত্র বলেছেন: নবি সাহেবের জন্য মায়া লাগতেছে।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:৩৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আহারে! বেচারা!

৩৯| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:০০

জুন বলেছেন: ইবাদত বন্দেগী না করে গেলেন মুরগী চুরি করতে গিয়াস লিটন :|
কামডা কি ভালো করছিলেন নাকি কনতো :-*
খুবই মজা লাগলো ঘটনাটি তবে ওস্তাদের জন্য কষ্ট :(
=p~
+

২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কামডা ঠিক হয়নাই। এই কারনেই সাক্সেস হইতে পারলাম না। মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ জানবেন আপু।

৪০| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:৪৮

নীলপরি বলেছেন: দারুণ । :) :)

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:৫৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ধন্যবাদ নীলপরি।

৪১| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:৩৩

সামিয়া বলেছেন: হাহাহা সেইরকম রম্য!!!!++++++++++++
আর আপনার কিশোর বেলা ছিল মধুর :) :) :)

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:০২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এখনকার গ্রামের ছেলেরাও মোবাইল,ট্যাবে মুখ গুঁজে থাকে। এধরনের রিয়েল লাইফ এডভেঞ্চার থেকে তারা বঞ্চিত।

৪২| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:১৫

সামিয়া বলেছেন: একদম ঠিক বলেছেন, ওদের জীবন তো ফেইসবুকেই শেষ ।। =p~

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পুনঃ মন্তব্যের জন্য পুনঃ ধন্যবাদ সামিয়া।

৪৩| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৮

কঙ্কাবতী রাজকন্যা বলেছেন: শিরোনামের ব্যার্থতা। রম্যটি পানসে তো নয়ই বরং তার বিপরীত মানে রসালো।

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:১৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এরকম মনে হওয়ায় আমার কোন কৃতিত্ব নাই, আপনি আমোদপ্রিয় মানুষ তাই এমত মনে হয়েছে।

৪৪| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৪৫

সোহানী বলেছেন: শায়মা বলেছেন: ভাইয়া নেক্সট টাইম চুরি করতে গেলে সবাইকে প্যান্ট পরতে বলবা! নো মোর লুঙ্গি!

যদি তা ও না হয় তাহলে লুঙ্গির সাথে দড়ি বেধেঁ তবেই মাঠে নামতে হবে..........

এবার হেসে নেই...............হাহাহাহাহাহা

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৮:৫১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সেই বয়স কি আর আছে? তার পরও বুড়া কালে যদি কোন অপেরেশনে যাই আপনাদের পরামর্শ মনে থাকবে সোহানী।

৪৫| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৯

ভারসাম্য বলেছেন: আজিজের কী হয়েছিলো?

+++

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:০২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: সেও কোন পথে পগার পার হয়েছিল।

৪৬| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:৩০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: তাও তা কবিতা চোর না । কমেন্টে পিছনে পড়েছি । :(

কমেন্ট করবো না সিদ্ধান্ত নিয়েছি । !:#P

২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পেছনে পড়েছেন সমস্যা নাই, আপনি এসেছেন এতেই আমি খুশি। তা সিদ্ধান্তটা কেন নিলেন?

৪৭| ২৬ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আপনিই তো শিরোনাম দিয়েছেন ওস্তাদের মাইর শেষ রাইতে। তাইতো শেষে আসলাম। !:#P

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শিরোনাম-''ওস্তাদেরে মাইর শেষ রাতে''।
কমেন্ট করবেন না সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কেন?

৪৮| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৭

কলিমুদ্দি দফাদার বলেছেন: এই ধরনের চুরি কিন্তু গ্রাম বাংলার। লোকমুখে অনেকের কাছে এই ধরনের মজার চুরির গল্প শুনেছি।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমারটা কিন্তু চুরির গল্প নয়, চুরি না করতে পারার গল্প =p~

৪৯| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১১:৪১

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: অভিযান সফল হলো না! সো স্যাড!

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মাঝখান থেকে ওস্তাদের দফা রফা!!!

৫০| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৯:২৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার বর্ণনা উপভোগ করার মতো, আজকে আরেকবার পড়লাম

৩০ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এই পোস্টে মন্তব্যের হাফ সেঞ্চুরিও বটে। অনেক ধন্যবাদ গাজী ভাই।

৫১| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৪৩

জেন রসি বলেছেন: শুনেছি শীতকালে হাঁস চুরি করে খেলে নাকি তার স্বাদ দ্বিগুণ হয়ে যায়! তবে কখনো ট্রাই করে দেখা হয়নি! :P তবে এখন মনে হচ্ছে এধরনের অভিযানে লুঙ্গি পড়ে যাওয়াটা বেশ বিপদজনক ব্যাপার। ;)

০২ রা নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:০০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: স্কুল কলেজে যাওয়া ছাড়া তখন পেন্ট পরার তেমন রেওয়াজ ছিলনা। লুঙ্গিকে নানা কায়দায় পরা যায়, তাই এর সুবিধাও ছিল অনেক। খুলে গেলেই বিপদ!

৫২| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:১০

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: জেন রসি বলেছেন: এধরনের অভিযানে লুঙ্গি পড়ে যাওয়াটা বেশ বিপদজনক।

হা, হা, হা

০২ রা নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:০১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: লুঙ্গিটা অনেকটা কপালের মত! কার কখন খুলে জায় কিছুই বলা জায় না। :P

৫৩| ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৭ রাত ৯:০২

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: হা! হা, হা!!!

১০ ই নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১১:২২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: =p~ =p~

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.