নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভালো থাকুন সবাই ।জীবনকে উপভোগ করুন নিজের মতো করে।

ইসিয়াক

হয়তো কোনদিন দেখা হবে না কারো সাথে অদেখা অদেখাই রয়ে যাবে।।যখন আমি হারিয়ে যাবো তখনো কি আমায় মনে রাখবেন?

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

গল্পঃ পথের মাঝে একদিন

২২ শে মে, ২০২০ বিকাল ৩:২৯


পথের মধ্যে স্যান্ডেলটা ছিড়ে গেলো।চরম বিরক্তি নিয়ে নীলা অন্য পাটি স্যান্ডেলের দিকে করুণ দৃষ্টিতে তাকালো।একটা দীর্ঘশ্বাস নেমে এলো তার বুক চিরে। তারপর কি না কি ভেবে ছেড়া স্যান্ডেল জোড়া হাতে তুলল এবং পাশে থাকা ডাষ্টবিনে ছুড়ে ফেলে দিলো। নতুন একজোড়া না কিনলেই নয়।একেবারেই গেছে।

ভাগ্যিস বাসার কাছাকাছি ঘটনাটা ঘটল না হলে কেলেঙ্কারি হয়ে যেত নিশ্চিত।তবে অসময়ে স্যান্ডেল ছিড়লো বলে তার কপালে খানিক দুঃশ্চিন্তার রেখা দেখা দিলো। মাসের শেষ এখন বাড়তি টাকার খুব আকাল। খুকুর পরীক্ষার ফি দিতে হবে এক সপ্তাহ ধরে চাইছে।কিন্তু অফিস যেতে হলে স্যান্ডেল তো লাগবেই। হাতে মোটে আছে তিনশত টাকা।

একটু আগে বেশ জাকিয়ে এক পশলা বৃষ্টি হয়ে গেছে।প্রকৃতিতে এখন এই রোদ্দুর আর এই মেঘের খেলা চলছে।কি মাস এখন? নীলা মনে মনে ভাবলো, ভাদ্র মাস মনে হয় ,গতকাল মা কি যেন বলছিলো?গরমটা বেশি ছিলো বলে বলছিলো ভাদুরে গরম পড়েছে।

জোরে পায়ে হেঁটে যাবে বলে পা বাড়াতেই কে যেন ডাকলো।
-কেমন আছো নীলা?
গলাটার খুব পরিচিত না তবে কানে এসে বাজলো মনে হয়।ডাকার ভঙ্গীটা বেশ পরিচিত। নীলা ঘুরে দাড়ালোে এবং থমকে গেলো হঠাৎ করেই।

নিয়াজ দাড়িয়ে আছে দুটো বাচ্চা ছেলে সহ,সাথে একজন ভদ্র মহিলা।মনে হচ্ছে এটা তার বউ, নিয়াজ বলল,
-আমাকে চিনেছো তো নীলা?
কোন কোন পরিচিত মুখের সাথে দেখা হলে বিব্রত হতে হয়।নিয়াজ হচ্ছে সেরকমই এক মুখ।নীলার মনটা বিষাদে ছেয়ে গেলো। তবু আর কি করা, কেউ একজন ভালো মন্দ জিজ্ঞসা করলে কথা বলতে হয়।এটা স্বাভাবিক ভদ্রতা।সে ভালো হোক আর মন্দ হোক।

নীলা মাথা নিচু করে বলল ,
-ভালো আছি, আপনি ভালো আছেন?
-হ্যাঁ ভালো আছি, আগে তো আপনি করে বলতে না ,এখন আপনি করে বলছো যে,আমার সাথে লজ্জা। হা হা হা.... এখানে কোথায় থাকো? তোমার বাসা কি কাছেই নাকি?

নীলা বলবে কি বলবেনা ভাবতে ভাবতে মুখ ফসকে বলে ফেলল,
-হ্যাঁ কাছেই।
-এতোদিন পরে দেখা তোমার বাসায় ইনভাইট করবে না?
নীলা ইতস্তত বোধ করতে লাগলো। কি জন্য যে এই লোকটার সাথে তার দেখা হলো আল্লাহই জানে।কথার ফাঁদে ফেলে পাশ কাটানোর শেষ চেষ্টা স্বরুপ সে বলল,
-আপনার সাথে ইনি কে?
-এর নাম শীলা । হা হা হা .... কেমন মিল না, তোমার নামের সাথে? তোমার থেকে বয়সে তো ছোট হবে আবার সস্পর্কেও ,শীলা সালাম করো, সম্পর্কে বা বয়সে তোমার বড় যেহেতু ওকে তুমি বড় আপা বলতে পারো । নীলার এতোটাই বিরক্ত লাগছিলো যে কি আর বলবে।
এখান থেকে পালাতে পারলেই সে বাঁচে। নিয়াজকে সে বরাবরই ভয় পেয়ে এসেছে। এখনো পায়।সত্যি বলতে নিয়াজের পুরো পরিবারকে সে ভয় পায়। গুন্ডা মাস্তানের পরিবার। ভয়ের কারণও আছে। এখনো তার সেই ভয় কাটেনি।তার বুকের মধ্যে টিপ টিপ করতে লাগলো।
-তারপর কি খবর?
-এই আছি?
-এই আছি মানে কি? বর কি করে?
- বিয়ে? বিয়ে তো করিনি।
-নাকি হয়নি? একা থাকো, অন্য কোন কিছু করো নাকি?
নীলা অসহায় দৃষ্টিতে তাকায়। কথাটার ভিতর একটা সুক্ষ খোচা আছে। এই পথে লোক চলাচল কম। নিয়াজ হয়তো দিন দুপুরে তাকে কিছু করবে না। তাছাড়া মানুষ যত খারাপই হোক না কেন? নিজের বউ বাচ্চার কাছে নিজের ইমেজ খারাপ করবে না। নিয়াজ তো বুদ্ধিমান। সে নিশ্চয় সে রকম কোন খারাপ আচরণও করবে না। মন চাইছে এখান থেকে এক ছুটে সে পালায়।
-পেছনে কি দেখো?
-কিছু না।
এইবার নিয়াজের সাথে থাকা মেয়েটি বলে আপা আপনে কেমন আছেন?
বড় আপা আপনের কথা নিয়াজগো বাড়িত শুনতে শুনতে আমার কান ঝালাপালা।আপনের খুব প্রশংসা আমার শ্বশুর বাড়িত।

নীলা কি বলবে কি করবে কিছুই বুঝতে পারছে না। ভুলে যাওয়া অতীত থেকে পালিয়ে বাঁচতে এই শহরে আসা । ভাগ্যচক্রে এখানেও সেই অতীত এসে হাজির।তার সাথে সবসময় এরকম কেন হয়?

মেয়েটি বলে চলে।আপনেরে ও এতো ভালোবাসে যে আপনের সংঙ্গে মিলাইয়া আমার নাম রাখছে। আচ্ছা আপা আপনে কেন চইলা আইলেন? মায়ে আর আব্বায় কিন্তু এহনো আপনের গুনগান গায়।আপনেরে কিন্তু হেরা বহুত খুঁজছে।

নীলা কিছু না বলে হাটা শুরু করলো। বিভসৎ অতীতের কাছাকাছি থাকার চেয়ে পালিয়ে যাওয়াই ভালো। নিয়াজ ভালো থাক তার বউ বাচ্চা নিয়ে। সে নিয়াজের বাড়ির বউয়ের অধিকার আর ফিরে পেতে চায় না। সে আর অত্যাচারিত হতে চায় না।
© রফিকুল ইসলাম ইসিয়াক

মন্তব্য ১৩ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (১৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে মে, ২০২০ বিকাল ৩:৫৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ঠিকই তো।

২২ শে মে, ২০২০ বিকাল ৫:২৯

ইসিয়াক বলেছেন: পাঠে মন্তব্যে ও লাইকে অনেক কৃতজ্ঞতা রইলো ভাইয়া।
ভালো থাকুন সবসময়।

২| ২২ শে মে, ২০২০ বিকাল ৪:২৯

রাজীব নুর বলেছেন: হঠাত নীলা কেন ? মধুরিমা কই?

২২ শে মে, ২০২০ বিকাল ৫:৩১

ইসিয়াক বলেছেন: ইশ নীলা কি আপনার রেজিস্ট্রি করা নাকি B:-/ । আমার ও নীলাকে নিয়ে গল্প আছে । আগে পড়েছেন মনে নেই? :P

৩| ২২ শে মে, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৫১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: রাজীব নুর বলেছেন: হঠাত নীলা কেন ? মধুরিমা কই? হে হে হে....!:P

আপনার গল্পের প্লটগুলো ভালো। শুরুটাও ভালো হয়, তারপরে হঠাৎ করে কোথায় যেন ছন্দ পতন ঘটে। যেমন, এই গল্পে একটু অতীতের ছোয়া থাকলে ভালো হতো। নিয়াজ, তার বাবা, মা সবাই যদি নীলাকে এতো পছন্দই করতো, তাহলে ও সেই বাড়ী ছেড়ে আসলো কেন? ভাবে তো মনে হচ্ছে দোষ নীলারই!

যে কোনও যতি চিহ্নের পরে একটা স্পেস দিলে কিন্তু দেখতে ভালো লাগে। তাছাড়া, এটা রীডার ফ্রেন্ডলীও। :)

২৩ শে মে, ২০২০ বিকাল ৫:৪১

ইসিয়াক বলেছেন: #মধুরিমা আপাতত বাদ।আর মধুরিমারে লইয়া কবিতা লিখুম না। :P
#আমি ব্লগার রাজীবনুরের নীলারে লই নাই। আমারও নীলা আছে। B:-/
#কাম কাজ নাই মাথার মইধ্যে খালি উলটা পালটা ভাব আহে, কি আর কমু সকালে আপনের গল্প পইড়া এই প্লটটা মাথায় আসলো ,আমার কি দোষ! :( এর আগেও অনেকগুলান গল্পের প্লট মাথার মইধ্যে আইসা হারাইয়া গেছিলো তাই ভাবলাম এইডারে ধইরা রাহি।এই প্লট লৈইয়া আরো বিস্তারিত লেখনের ইচ্ছা আছে। অহন রাফ করলাম আর কি! :-B
# ইদের শুভেচ্ছা লইয়েন বাঘ মামা থুক্কু বাঘ ভাই।

৪| ২২ শে মে, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: নীলার অতীতটা রহস্যই রয়ে গেল । জানা হলোনা কি হয়েছিল - যে ঘর ছাড়তে হলো!
বিষয়টা গল্পকে যেন অপূর্ণ করে রাখলো।

ভূয়া মফিজ ভায়ার সাথে সহমত।

প্লট আর গতি দারুন। শুধূ শুন্যতাটুকু পূরণ করে দিলে।

২৩ শে মে, ২০২০ বিকাল ৫:৪৩

ইসিয়াক বলেছেন: প্রিয় ভাইয়া ,
এই প্লট নিয়ে আরো বিস্তারিত লেখার ইচ্ছা আছে। পড়বেন আশা করি। সাথে থাকার জন্য অশেষ কৃতজ্ঞতা রইলো।
ভালো থাকুন সবসময়।
নিরন্তর শুভকামনা।

৫| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ৮:১৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সহজ সরল ও নন্দিত ভাবে উপস্থাপন ।

২৩ শে মে, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০২

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ রইলো মহী ভাই।

৬| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ৮:২৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ইসিয়াক,




চলনসই। কিন্তু শুরুটা যেভাবে করেছিলেন শেষটা আর তেমন থাকেনি। স্যান্ডেল ছেঁড়ার মতোই যেন ছিঁড়ে গেছে!

২৪ শে মে, ২০২০ সকাল ৮:৩৯

ইসিয়াক বলেছেন: প্রিয় শ্রদ্ধেয়,




সুচিন্তিত মতামতের জন্য অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা রইলো। এই প্লট নিয়ে আরো বিস্তারিত লেখার ইচ্ছা আছে।
নিরন্তর শুভকামনা।
ইদ মোবারক

৭| ২৩ শে মে, ২০২০ দুপুর ১:৪৬

ডাকঘর সাহিত্য পত্রিকা বলেছেন: বেশ তো দারুণ!
অবসরে পুরোটা পড়ে নিবো।
অনেক ভালোলাগা প্রিয় কবি।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.