নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মৃত্যুর পরের জীবন নিয়ে বেশি ভাবি

সাফাত আহমদ চৌধুরী

মুক্তমনের মানুষ, তবে স্রষ্টায় বিশ্বাসী

সাফাত আহমদ চৌধুরী › বিস্তারিত পোস্টঃ

আবেগ ও বাস্তবতা

২৪ শে মে, ২০২১ রাত ১:১৮

বড্ড বেশী আবেগীদের পৃথিবীতে চলতে খানিকটা বেশীই কষ্ট হয় । বাস্তবতার উর্ধে চলে যায় ওদের আবেগ । অন্যের কাছ থেকে ধারে আনা জিনিষ দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে দিতে যেমন কষ্ট হয়, কাউকে ভালোবাসলে তাকে হারাতে ও অনেক কষ্ট হয় ।

প্রিয়জনদের মৃত্যুতে কেন আমরা কাঁদি ? তাদের পরিণতির কথা চিন্তা করে নাকি তাদেরকে আমি এখন থেকে কাছে পাবো না বলে কাঁদি ? সোজা বাংলায় তাকে আমরা মিস করি, বিধায় কাঁদি ।

বোন যখন তার শশুর বাড়িতে চলে যায়, তখন ও তো আমরা কিছুটা হলে ও কাঁদি । এখন থেকে তাকে আমার ঘরে খুব একটা দেখতে পাবো না, এইজন্যেই তো কাঁদি ।

কোন প্রিয়জন যদি কোন কারণ ছাড়াই যদি ইচ্ছে করে দূরে চলে যায়, তখন খানিকটা খারাপ লাগা স্বাভাবিক, কিন্তু যে বাস্তবতা বুঝতে শিখেছে তার তো কষ্ট হওয়ার কথা না, তাই না ? যে দেয়ালে আঘাত লেগেছে শতবার, সে আরো শতবার আঘাত সহ্য করতে পারবে, সেটা তো বলাই যায় ।

যেভাবে শারীরিক ব্যায়ামের মাধ্যমে দেহ শক্তিশালী হয়, যে যত বেশী বাস্তবতার সম্মুখীন হয়েছে তার মন তত শক্তিশালী হয় । যত দ্রুত সম্ভব বুঝতে শিখুন পৃথিবী, পৃথিবীটা আপনারই হবে। হারাতে হবে অনেক কিছুই আপনাকে, তাই আগে থেকেই প্রস্তুতি নেওয়াটা হবে বুদ্ধিমানের কাজ ।

মন্তব্য ৩ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৪ শে মে, ২০২১ রাত ১:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: আমার আবেগ খুব বেশি। একটা উদাহরন দেই-
আমাদের পাশের বাসায় এক লোক আমেরিকা যাচ্ছে। তার সাথে আমার কোন যোগাযোগ নেই, এমন কি কথা বার্তাও নেই। অথচ তিনি যেদিন আমেরিকা চলে গেলেন আমি খুব কান্না করেছি।

২| ২৪ শে মে, ২০২১ রাত ২:৪৪

কামাল১৮ বলেছেন: এই ভাবে ভাবুন মৃত্যুর পরে আর কোন জীবন নাই,অনেক দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাবেন।আপনার কাছে কি কোনরকম প্রমান আছে,মৃত্যুর পরে জীবন আছে।যার কোন প্রমান নেই,সেটা নিয়ে অত দুশিচন্তা করে লাভ কি?

৩| ২৪ শে মে, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫৮

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আবেগের ভারসাম্য থাকার দরকার আছে। মানুষের আবেগ নিয়ন্ত্রণের সামর্থ্যকে emotional intelligence বলে। যাদের এটা বেশী তারা সফলভাবে আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এগুলি নিয়ে যারা গবেষণা করেন তাদের একদল বলেন যে emotional intelligence বাড়ানো যায়। আরেক দল বলেন যে এটা জন্মগত একটা বৈশিষ্ট্য যেটা পরিবর্তন করা যায় না। emotional intelligence মাপারও কৌশল বা পদ্ধতি আছে। আবেগ অতিরিক্ত কম থাকাও খারাপ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.