নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

অনেকে আমাকে \'স্বপ্নবাজ সৌরভ\' নামে চেনে।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

এক ফালি মেঘ, এক ফোঁটা জল- রংধনুকের একটি কণায়, একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা ।

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

গল্পটা পুরোটাই কাল্পনিক

০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ৯:৩৫

মেয়েটাকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে বুড়ো মানুষটি উঠে দাঁড়িয়ে বললেন,

আম্মা বসো। কিশোরী মেয়েটি অবলীলায়

বসে পড়লো সিটে, সংকোচহীন... যেনো এটাই তার প্রাপ্য ছিলো।

উপেক্ষা করলো বয়স্ক দাঁড়িয়ালা বাবার বয়সী মানুষটাকে। বলা যেত,

না চাচা আপনিই বসুন।কানে ইয়ারফোন লাগিয়ে ধন্যবাদ জানানো হয়ত

বেমানান...মিউজিকের তাল কেটে যায়!



আমি ঠিক পেছনের সিটে। বুড়ো মানুষটিকে বসতে বললাম।

তিনি বললেন, 'না বাবা থাক...তুমি বসো, আমি সামনেই নেমে যাবো'।

আমি আর মাথা না ঘামিয়ে ঝাল

মাখানো চিনাবাদাম খাওয়ায় মন দিলাম।

নিয়ন আলোয় ঢাকা শহর... একটার পর

একটা ল্যাম্পপোস্ট পেরিয়ে যাচ্ছি,

পাঁচটাকার চিনাবাদাম শেষ হওয়ার পথে।



বুড়ো মানুষটা দাঁড়িয়েই আছেন।

ভার্সিটি পড়ুয়া মেয়েটির

কানে ইয়ারফোন... প্রতিটি তাল ধরার

চেষ্টারত! আজকালকার হিন্দি মিউজিক

গুলো 'সেইরকম জোস'।



আমি বললাম, চাচা বসুন! বুড়ো মানুষটির

একই উত্তর। সামনেই নেমে যাবে...

কপাল বেয়ে ঘাম গড়িয়ে দাঁড়ির অগোচরে মুখ ঢাকে...

হয়ত লজ্জায়।



গন্তব্যের বেশ কিছুটা আগেই আমি নেমে পড়লাম। ঝিরিঝিরি কয়েক

ফোটা বৃষ্টি...খারাপ না। নিয়ন আলোয় আলোকিত রাস্তা... আমার যান্ত্রিক

শহর... কথনো আবেগময়।



আমি হাঁটছি...হাঁটাটা জরুরী,মেদ জমেছে। এই বয়সে বুড়িয়ে গেলে চলবে না, মাজা শক্ত করে দাঁড়াতে হবে... সন্তানতুল্যদের বসতে দিয়ে নিজে দাঁড়িয়ে থাকতে শিখতে হবে।



আমি বরং হাঁটি... হাঁটতে হাঁটতে স্ট্যাটাস রেডি করি।

বুড়ো মানুষটা হয়তো এখনো দাঁড়িয়ে আছে... হয়ত সামনেই নেমে যাবেন। মেয়েটার কানে হেডফোন...চমত্‍কার চমত্‍কার গান একের পর এক বেজেই চলেছে। হয়ত মুঠোফোন সংসার সাজাচ্ছে... সংসার ভাঙ্গছে। টিভি, ফ্রীজ, পিসি, আলমারী, এটাচড বাথরুম...গোলাপী রংয়ের বেডসীট, আকাশী বেডরুম... ছোট বাবু, বাবুর বাবার লাল টাই, চকচকে জুতো... হাতাকাটা মেক্সি, ড্রেসিং টেবিল, ওয়াশিং মেশিন, কিচেন,সোফা.... সুন্দর পরিপাটি সংসার। যে সংসারে সব ই থাকবে, শুধু বাবার বয়সী কোন বাবা থাকবে না।



বিঃদ্রঃ গল্পটা পুরোটাই কাল্পনিক। :'(



উংসর্গঃ সকল বাবাদের যাঁরা সন্তানসমতুল্যদের বসিয়ে রেখে আজীবন ঘাম ঝড়িয়ে গেলেন।

মন্তব্য ১৩ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১৩) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ১০:০০

তাসনুভা সাখাওয়াত বীথি বলেছেন: ভাল লাগা রইল ভাইয়া

++

০৪ ঠা জুন, ২০১৩ রাত ১২:২৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: ধন্যবাদ আপু.... ভালো থাকবেন

২| ০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ১০:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: স্বপ্নবাজ সৌরভ,
মানবিক একটি আবেগের গল্প । গল্প বলা যাবে কি এটাকে ? কাল্পনিক বলছেন কেন ? অতি বাস্তব একটি কাহিনীই শুনিয়ে গেলেন আপনি । ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবোনা । প্রার্থনা করি, আপনার মতো মানসিকতার ( হোক ক্ষনিকের ) দেখা মেলে যেন হররোজ এখানে সেখানে ।

খুব ভালো লাগলো ক'টি লাইন -

"কপাল বেয়ে ঘাম গড়িয়ে দাঁড়ির অগোচরে মুখ ঢাকে...
হয়ত লজ্জায়।"

"এই বয়সে বুড়িয়ে গেলে চলবে না, মাজা শক্ত করে দাঁড়াতে হবে... সন্তানতুল্যদের বসতে দিয়ে নিজে দাঁড়িয়ে থাকতে শিখতে হবে। "

চমৎকার লিখেছেন ।




০৪ ঠা জুন, ২০১৩ রাত ১২:২৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

আমার যান্ত্রিক
শহর... কথনো আবেগময় ( হোক ক্ষনিকের ) ।

"গল্পটা পুরোটাই কাল্পনিক"...নিতান্তই ক্ষোভ থেকে বলা

০২ রা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমার ব্লগে এটাই আপনার প্রথম মন্তব্য !!

৩| ০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ১০:০৬

মাহমুদ০০৭ বলেছেন: হোক কাল্পনিক , আমার কাছে বাস্তবই লাগল ।
ভাল থাকুন ভাই ।

০৪ ঠা জুন, ২০১৩ রাত ১২:২৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: "গল্পটা পুরোটাই কাল্পনিক"...নিতান্তই ক্ষোভ থেকে বলা :(

৪| ০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ১০:২৪

বাংলার এয়ানা বলেছেন: ভাই অতি বাস্তব একটা গল্প, মহিলা সিটে যদি কোন বৃদ্ধ লোক বসে থাকে তাহলে ঐ কিশোরি কিভাবে ঐ বৃদ্ধ লোককে সীট ছাড়া করে, সেই চিত্র প্রতিনিয়তই আমরা অবলোকন করি।

০৪ ঠা জুন, ২০১৩ রাত ১২:৩০

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: আমিও অবলোকন করি প্রতিনিয়তই.... খারাপ লাগে!

৫| ০৩ রা জুন, ২০১৩ রাত ১১:২৩

স্বপ্নবাজ অভি বলেছেন: কাল্পনিক কিন্তু অতীব বাস্তব !

০৪ ঠা জুন, ২০১৩ রাত ১২:৩০

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: "গল্পটা পুরোটাই কাল্পনিক"...নিতান্তই ক্ষোভ থেকে বলা

৬| ০৬ ই জুন, ২০১৩ রাত ১০:৪৪

মামুন রশিদ বলেছেন: ভালো লাগলো ।

০২ রা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.