নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি স্মৃতিকাতরতা নামক ভীষণ এক রোগগ্রস্ত, সেই সাথে বিষাদগ্রস্থ মানুষ। আমার চিকিৎসা প্রয়োজন।

স্বপ্নবাজ সৌরভ

ভীষণ রকম সাম্যবাদী , সাম্যের কথা বলে - তারায় আবার স্নান করে যায় , মগজ গলা জলে !

স্বপ্নবাজ সৌরভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমার জানলা দিয়ে আমার পৃথিবী ........

১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৩




দার্জিলিঙের রাস্তায় কখনো হাঁটা হয়নি । রডনস্ট্রিট , গোড়িয়াহাটার মোড়, বউ বাজার, ধর্মতলা কিংবা ছত্রিশ চৌরঙ্গী লেন। না কোন কিছুই দেখিনি , যাওয়া হয়নি। 'ছত্রিশ চৌরঙ্গী লেন' নামে একটা ক্যাফে দেয়ার ইচ্ছে ছিল ছোটবেলা থেকে। ইচ্ছাটা আদৌ মরেনি। ঐ জায়গাগুলো একবারেই অচেনা । ছোটবেলায় একবার কোলকাতা গিয়েছিলাম। পার্ক সার্কাস এর সৈয়দ শামসুল হুদা রোডে উঠেছিলাম। সৈয়দ শামসুল হুদা আমার বড় ফুফার নাম। ঐ রোডটা উনার নামেই নামকরণ ।

কোলকাতা চেনার দৌড় আমার এই টুকুই। কিন্তু ঐ শহরের রাস্তাঘাট গুলো অনেক বেশি চেনা মনে হয়। ঐ শহরের কোন এক ফুটপাতে দাঁড়িয়ে আলতাফ ফকিরের বাঁশি বাজায়। বুড়ো জেরেমির বেহালার সুর ভেসে আসে রডনস্ট্রিটের পোড়ো বাড়িটা থেকে। চৌধুরীদের একুশতলায় মদের আসর বসে।

দার্জিলিঙের রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎ পৌঁছে যাওয়া যায় কাঞ্চনজঙ্ঘায়। ঐ শহরে হাঁটতে হাঁটতে বাদল সরকারের মিছিলে হারিয়ে যাওয়া, লুকিয়ে পড়া 'লাল বই' , নকশাল অন্দোলন কিংবা মৃনাল সেনের সিনেমা। বড় বেশি পরিচিত ।
এই হেঁটে চলা দেশের সীমানা ছাড়ায়। টেক্সাসে তোপসে মাছের ফ্রাই, ম্যানহাটনের কোন বারে বসে চিঠি লেখা যায় কিংবা ঐ বার্লিনের দেয়ালটা কেনই বা ভাঙা হলো। সবই কেমন পরিচিত । ভেসে উঠে আমার জানালায়। কৈশরে এই জানলাটা দিয়েছিল অঞ্জন দত্ত । অঞ্জন দত্ত ই আমার জানালা।

"মনের জানলা দিয়ে তুমি বেরিয়ে পড়তে পার
মেক্সিকোতে বসে বাজানো যায় গীটার
কোথায় তুমি টানবে বলো দেশের সীমারেখা
আমার জানলা দিয়ে গোটা পৃথিবী।"


আমার জানালায় দেখা সেই ছোটবেলার বেলা বোস , প্রথম ঠোটস্থ ফোন নম্বর । দাস কেবিনে বসে এককাপ চায়ে পৌনে তিন ঘন্টা কাটিয়ে দেয়ার ইচ্ছা । প্রবল প্রেমে পড়ার ইচ্ছা , বারান্দায় দাঁড়ানো রঞ্জনা, একদিন বৃষ্টিতে বিকেলে দুজনার অভিমান আর বৃষ্টির ছাঁটে মিশে যাওয়া ঝম ঝম চোখের জল। ঝাপসা এই শহরে হঠাৎ খুঁজে পেতাম বাঁচার মানে আর শহরের অলি গলি পাকস্থলীর ভেতর গুমড়ে কেঁদে ওঠার শব্দ ঠিকই ভেসে আসতো।
একেকটা দিন চলে যাওয়া দীর্ঘশ্বাস, বয়স বেড়ে যাওয়ার দীর্ঘশ্বাস, প্রচন্ড মধ্যবিত্ত সেন্টিমেন্টাল আর ভীষণ নস্টালজিয়া নিয়ে বেঁচে আছি আজো ।

আজ অঞ্জন দত্তের জন্মদিন । ইচ্ছে হয় কবীর সুমনের মত বলি--

"চলো অঞ্জন ছুটিতে দার্জিলিং এ
টেলেগ্রাফ এর তারেই নাচুক ফিঙে
ছেলেবেলা তার ছন্দেই একাকার
চলো অঞ্জন গীটারটা দরকার।"


শুভ জন্মদিন । অদ্ভুত ভাল লোকটা , ভালো থাকুন।



-------------------------------------------------------
গুণী মানুষটি জন্ম গ্রহণ করতেন ১৯৫৩ সালের ১৯ জানুয়ারি। ‘দার্জিলিংয়ের রাস্তা’ গান টা গেয়ে ছিলেন কারণ তাঁর বেড়ে ওঠা ওখানেই , হেঁটে বেড়িয়েছেন সেই দার্জিলিংয়েরই রাস্তায়। সেখানকার পাহাড়ের ধারে , পাইনের ধারে সেইন্ট পল’স স্কুলে তার শিক্ষাজীবনের শুরু। শৈশবস্মৃতির প্রতি আবেগমন্থন এই ভীষণ নস্টালজিক মানুষটি ‘দার্জিলিংয়ের রাস্তা’ সিনেমাটি নির্মাণ করেন ২০১৩ সালে। তিনি নিজেই বলেন, সিনেমাটি নাকি তার ই গল্প বলে ।

অঞ্জন দত্ত একাধারে চলচ্চিত্র নির্মাতা, গীতিকার, গায়ক, অভিনেতা, সাংবাদিক। একসময় বিজ্ঞাপন লেখার কাজ করেছেন , পয়সা উপার্জনের জন্য।

মন্তব্য ৩১ টি রেটিং +৯/-০

মন্তব্য (৩১) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৭

পদ্ম পুকুর বলেছেন: এইতো আপনার 'সেই গদ্য' নিয়ে ফিরে এসেছেন। যথারীতি শক্তিমান।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:৪৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
অনেক ধন্যবাদ। গদ্য ফিরে এলো প্রিয় অঞ্জন দত্তের হাত ধরে।
ভালো থাকবেন আপনি।

২| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১০

ভ্রমরের ডানা বলেছেন:



লেখাটি বেশ পরিপাটি। অঞ্জনদাকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা! কিশোর বয়সে উনার গানের প্রতি দুর্বার আকর্ষন ছিল।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:৫৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
লেখাটি ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। সেই কৈশোরের ভালোবাসা এখনো বুকেই আছে লেগে। সেই কৈশোরে কি বাস্তব সত্যটাই না শুনেছিলাম ---
"এখন মাসের শেষে মাঝে মধ্যে কান্না পায়
মিনিবাসে দাঁড়িয়ে অফিস যাওয়ার সময়
এখন বুঝেছি সেই অদ্ভুত সুরের কী মানে
ফিরে তো যাওয়া যায়না যে আর সেখানে।"

অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকবেন।

৩| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:


অঞ্জনদার পরিচয় কি?

১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: স্যার, অঞ্জন দত্ত একজন জীবনমুখী ধারার সংগীত শিল্পী । নিজেই লেখেন , নিজেই সুর করেন। তিনি একাধারে অভিনেতা আবার সিনেমার পরিচালক । মঞ্চ এবং ছাত্র রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন, সেখান থেকেই হাতে গীটার আর গান।
অঞ্জন দত্তের সাথে পরিচিত গানের মাধ্যমে । সহজ ভাষার গান গুলো খুব কাছে টেনে ছিল।

১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:২২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: শুনে দেখার অনুরোধ রইলো স্যার।

তুমি আসবে বলে তাই

৪| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:৩৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপনার ফুফার নাম অনুসারে সৈয়দ শামসুল হুদা রোড! বিষয়টি বেশ ইন্টারেস্টিং। আমি যেটুকু জানি অঞ্জন দত্তের পড়াশোনা দার্জিলিঙের দুন স্কুলে। ফলে দার্জিলিং এর প্রতি ওনার একটা দুর্বলতা আছে। যেমন দুর্বলতা আছে শৈশবে শামসুল হুদা রোডে বিচরণ করায় কলকাতা শহরের প্রতি আপনার। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী মিস্টার দত্তের জন্মদিনে জানাই শুভেচ্ছা। সুন্দর ব্যতিক্রমী জন্মদিনের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন পোস্টটির জন্য আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।

শুভকামনা প্রিয় সৌরভ ভাইকে।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:০৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
কোলকাতার কথা অনেক ছোটবেলা থেকে শুনি। আমার বড় ফুফা অনেক নামকরা ব্যক্তি ছিলেন। আমার রাশিয়ান বইগুলোর প্রিয় অনুবাদক ননী ভৌমিক কোলকাতার মানুষ। কবীর সুমন , অঞ্জন দত্ত , নচিকেতা কোলকাতা চিনিয়েছেন। নারায়ণ দেবনাথ , নন্টে ফন্টের বোর্ডিং স্কুল , সুপারেন্ডেন্ট স্যার , মিচকা শয়তান কেল্টো দা ওই কোলকাতার কোন খানে নিশ্চয় আছে ।

এরপর কোলকাতা গেলে আপনাকে নিয়ে ওই ক্ষ্যাপা শহরের সমস্ত রাস্তা ঘাট চিনে ফেলবো।ভালো থাকবেন। পুরোনো শহরটার জন্য ভালোবাসা রইলো।

৫| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১১:০৯

শের শায়রী বলেছেন: প্রিয় একজন গায়কের জন্ম দিনে শুভেচ্ছা আর আপনার শক্তিমান অনুপম লেখনির জন্য অভিনন্দন প্রিয় ভাই।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:০৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

ধন্যবাদ প্রিয় ব্লগার/ভাই। এই অঞ্জন দত্ত আমাকে আমাকে ভীষণ ভাবে স্মৃতিকাতর বানিয়েছে। :(
লেখাটা আসলে সময় নিয়ে লেখা হয়নি। ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে তুলে আনা। আপনার ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন।

৬| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১১:৪৬

পগলা জগাই বলেছেন: চমৎকার লিখেছেন। অঞ্জন দত্তের গাওয়া পছন্দের গানের শেষ নাই ।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:১১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
অঞ্জন দত্তের গাওয়া পছন্দের গানের শেষ নাই । ---- এক্কেবারে মনের কথা।
সামান্য লেখাটি আপনার ভালো লেগেছে দেখে ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন আপনি।
অনেক ধন্যবাদ।

৭| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২২

মিরোরডডল বলেছেন: He is an evergreen.
গানের কথা সুন্দর । ভালো নির্মাতা ।
দুটো গান আমার খুব শোনা হয় ।

আমি বৃষ্টি দেখেছি

“কখন কিসের টানে মানুষ
পায় খুঁজে বাঁচার মানে”

কাঞ্চনজঙ্ঘা

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:১৫

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

অভিনেতা আর নির্মাতা হিসেবেও অনেক প্রিয় আমার কাছে। মিস করি না। আর গায়ক অঞ্জন দত্ত আমার কাছে অন্য রকম একটা অংশ।
চমৎকার দুটি শেয়ার করেছেন।
ঝাপসা চোখে দেখা এ শহর -- মনে হলেই চোখ আচমকা ঝাপসা হয়ে উঠে। এই যে হচ্ছে ... :(

অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকবেন।

৮| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:০৫

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: জন্মদিনের দারুন নৈবদ্য :)

মুগ্ধ পাঠ

+++

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:১৭

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
অনেক ধন্যবাদ। আপনার এই মুগ্ধতা আবেশ ছড়ায় ভালোবাসায়। ভালো থাকবেন প্রিয়।

৯| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৪১

নীল আকাশ বলেছেন: অঞ্জন দত্ত'কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা রইলো!
লেখা খুব দারুন হয়েছে। মুগ্ধ হয়ে পড়েছি।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
প্রিয় নীল আকাশ ভাই , অঞ্জন দত্তের ভীষণ প্রিয় গানটা আপনার জন্য....

" নীল মানে ফেলে আসা সকলের আকাশের একটা নাম
নীল মানে ভালবাসার গভীরে লুকোনো একটা রং
নীল একটা চেনা চেনা কবেকার নীলিমা অন্য নাম
নীল একটা নাম.... ''

ভালো থাকবেন। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

১০| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:৪৯

রাজীব নুর বলেছেন:

উনি গান এবং মুভি ভালো করেন।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

উনি নির্মাতা হিসেবেও আমার অনেক প্রিয়। উনার মুভি গুলো মিস করি না। ধন্যবাদ রাজীব ভাই। ভালো থাকবেন।

১১| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: উনি অভিনয়ও ভালো করেন।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

উনার অভিনীত শেষ মুভিটা দেখেছি 'সাহেব বিবি গোলাম।'
চমৎকার লেগেছিলো। এরপর আর দেখা হয়নি। আমি উনার অভিনয়ের ভক্ত।

১২| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:০৯

ফয়সাল রকি বলেছেন: রকমারী থেকে অঞ্জনযাত্রা : অঞ্জন দত্ত’র আত্মকথন খরিদ করেছিলাম। যদিও ৫০০ পাতার বই হিসেবে মূল্যটা একটু বেশি মনে হয়েছিল কিন্তু পড়তে পড়তে হারিয়ে গিয়েছিলাম অন্য এক জগতে। আজ আপনার লেখাটা পড়তে পড়তে কোথায় যেন চলে যাচ্ছিলাম। ভালো লাগলো। +++

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:২৯

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

'অঞ্জনযাত্রা' আমার সংগ্রহে নেই। এখনো পড়া হয়নি। এক হাজার টাকা এই বইটা প্রকাশনার পর থেকেই কিনবো কিনবো ভাবছি। দারুন কিছু পাবো নিশ্চয়।

আমার এই লেখাটা হুট্ করেই লিখে ফেলা। মোবাইলে ফেসবুকিং করতে করতে স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। ঐটাই পোস্ট করেছি। ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন আপনি। অনেক ধন্যবাদ।

১৩| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:৩৯

পদ্ম পুকুর বলেছেন: পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপনার ফুফার নাম অনুসারে সৈয়দ শামসুল হুদা রোড! বিষয়টি বেশ ইন্টারেস্টিং।

আমিও এই বিষয়টায় অবাক হয়েছিলাম। আপনার লেখায় শৈশবের রাশিয়ার কথা আসে। এখন দেখা যাচ্ছে কোলকাতার সাথেও আপনার যোগ আছে।

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:৩৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:


আমার রাশিয়ান শৈশব এর বইগুলোর প্রিয় অনুবাদকের একজন - ননী ভৌমিক ! ঘুরে ফিরে কোলকাতা আসছেই। :)

আসলেই ইন্টারেস্টিং! :) ভালো থাকবেন আপনি।

১৪| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:১২

রুমী ইয়াসমীন বলেছেন: লিখাটা পড়ে অত্যন্ত গুণীজন অঞ্জন দত্তের সম্পর্কে আরো বিশদভাবে জানলাম ভাইয়া। চমৎকার লিখেছেন। অঞ্জন দত্তের গানগুলো আমার প্রিয়গানের তালিকায় অনেক আগেই সেট করা আছে তাই সবসময়ই শোনা হয় বিশেষ করে রঞ্জনা, বেলা বোস, মেরিয়ান, আমি বৃষ্টি দেখেছি, একদম প্রতিটা গানই অসাধারণ কালজয়ী গান।

একজন ভক্ত হিসেবে অঞ্জন দত্তের জন্মদিনে অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানাই।
আর ভাইয়া আপনার জন্যেও অনেক শুভকামনা রইল....

২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:২৪

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
বেলা বোস এর ফোন নাম্বারটা প্রথম মুখস্থ করা ফোন নম্বর !
মাথার ভেতর ছিলো এলভিস প্রিসলি
খাতার ভেতর
তোমার নাম -- ম্যারী এ্যান!

আর ঝাপসা চোখে দেখা এ শহর !!

চমৎকার আর প্রিয় গানগুলোর নাম বললেন। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। অঞ্জন দত্তের সকল ভক্তকে শুভেচ্ছা আর অভিনন্দন !! ভালো থাকবেন।

১৫| ২০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৫

আসোয়াদ লোদি বলেছেন: অঞ্জন দত্তের গান শুনেছি। ভালো লাগে।

২১ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:০৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:

অঞ্জন দত্ত আমার প্রিয় মানুষ। গান থেকেই উনার সাথে পরিচয়। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.