নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

চার হাত থেকে আধ হাত কম..

সৈয়দ তাজুল ইসলাম

নিভৃত গ্রহচারী

সৈয়দ তাজুল ইসলাম › বিস্তারিত পোস্টঃ

দাম্পত্য

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:৫২


বেলকনিতে রাখা ফুলগাছটি তার লাবণ্য হারিয়ে ফেলছে
সবুজ পাতাগুলো রঙ হারিয়েছে; শহুরে ধুলোর আক্রমণে
কুয়াশা ও ধুলোর বিদঘুটে শিকল
বন্দি করে নিয়েছে তার সারা অঙ্গ,
নিজ সৌন্দর্য ও স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য হারাতে হারাতে
মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলছে সে প্রতিনিয়ত।

কে তার দিকে দৃষ্টি দেবে, কে তার যত্ন নেবে?
পৃথিবীর সচল চক্রে প্রত্যেকেই যে ঘুরপাক খাচ্ছে দিবানিশি,
নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পাড়া মানুষ কিভাবে যত্ন নেবে অন্যের!
সবই খেলা! কেউ খেলে, কেউ খেলায়।
রেজাল্ট ফাঁস হওয়ার পূর্বে
নিজের কাছে রাখা রেজাল্ট নিজেই জেনে নেয়।

উর্বশী গৃহবধূ ব্যস্ততার দোহাই দিয়ে
ভোরের আলোতে ফুটা ফুলটিকে তার
মাতৃকুল থেকে ছিনিয়ে আনে, খোঁপে গাঁথে
টিসুতে হাত মুছে, মুখে কৃত্রিম হাসি নিয়ে স্বামীর সামনে দাঁড়ায়,
সকালের এই আধঘণ্টা সময় তাকে কৃত্রিম বেহেস্তি হাসি হাসতে হয়
আর বাদবাকি সময় কাটে রোলারে পিষ্ট হয়ে, নির্মম নির্যাতনে।
তার কি সময় আছে ফুলগাছটির যত্ন নেয়ার?

অনতি দূর থেকে কার্নিভ্যালের আওয়াজ আসে,
তা জানাতে মুঠোফোনে স্বামীকে বিরক্ত করে
মায়াবী সুর থেকে বেরোয়-সেখানে নিয়ে যাওয়ার আবদার।
স্বামী তাকে শাসাতে পারে না, অফিসে কর্কশ বসের উপস্থিতিতে।
স্ত্রী বুঝে নেয়, আজও রোলারে রক্ত ঝরবে।


০৮-০১-২০১৭
ছবিঃ বড় আপু

মন্তব্য ৫৮ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (৫৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:০৪

শাহিন-৯৯ বলেছেন:



কিছু বাস্তবতা হয়তো এরকম তবে সবার জীবন এই রকম কঠিনে কাটে না।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:০৯

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: হ্যাঁ, তা ঠিক।
তবে গ্রাম বাঙলার অনেক ফ্যামিলিতে এসমস্যা বিকট আকার নিয়ে বসে আছে।

২| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:১৫

তারেক ফাহিম বলেছেন: সময়ের কাছে অতিপ্রিয় মানুষটিও পরাজয় বরণ করে।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:১৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: আমাদেরই ব্যর্থতক তারেক ভাই, আমাদেরই ব্যর্থতা।

আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৩| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:২০

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পাড়া মানুষ কিভাবে যত্ন নেবে অন্যের!

এই কথাটা আমার খুব পছন্দ হয়েছে।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:২৩

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: বাহ,
একেবারে জায়গা মত পছন্দটা করেছেন।

অনেক অনেক ধন্যবাদ; সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

৪| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:৩৬

আরোগ্য বলেছেন: নিজ সৌন্দর্য ও স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য হারাতে হারাতে
মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলছে সে প্রতিনিয়ত।

অনেক সময় জীবনটা মোমবাতির মতো। নিজেকে ক্ষয় করে অন্যকে আলোকিত করতে হয়।
কবিতায় ভালোলাগা রেখে গেলাম।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
'অনেক সময় জীবনটা মোমবাতির মতো। নিজেকে ক্ষয় করে অন্যকে আলোকিত করতে হয়। '
অনেক সুন্দর ও গুরুত্বপূর্ণ একটা কথা বললেন প্রিয়।

৫| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:০২

জনতার আদালত বলেছেন: দারুন কবিতা হয়েছে কবি।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৮

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
এটা অকবিতা বলেই জানতাম। আপনার কাছে দারুন লেগেছে জেনে ভালই লাগলো।


ধন্যবাদ, আমার ব্লগে স্বাগতম

৬| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:২০

সাজিদ শুভ বলেছেন: নির্মম বাস্তবতা

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: হু, নির্মল বাস্তবতাই।

আপনাকে ধন্যবাদ।

৭| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:৩১

বলেছেন: ওরে বাবা ---

কি দারুণ অভিলাষ আর অনির্বাণ দূঃখ কষ্টের হাহাকার ---


দারুণ করা লেখায় আবারো বলি লিখে যাও তুমিই পারবে হে সখা।


মুগ্ধতা ভাষার।
মুগ্ধতা কথার।
মুগ্ধতা কবির।
মুগ্ধতা কবিতার।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৩

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
দেশি ভাই, বিয়েটা ছাড়া আমি কী পারি না সেটা বলেন তো?

আপনি ভাল আছেন তো?

ইদানীং খুব ব্যস্ত আছেন মনে হয়।

৮| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:৩৩

বলেছেন: ছবিটা দারুণ হয়েছে কবিতার সাথে।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
সত্যি!

এটা আমার এক বড় আপির। উনি এখন সংসারি...

৯| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর কবিতা।
দাম্পত্য জীবনে সুখী হবার মূল রহস্য কিন্তু আমি জানি।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
দাম্পত্য জীবনে সুখী হবার মূল রহস্য কিন্তু আমি জানি।

চাবিকাঠি প্রকাশ করে দেন, নতুবা একটাখানকা বসিয়ে দেন রাজীব ভাই। আমরা সবো তাবিজ নিতে ;) ;)

১০| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:১৫

হাবিব স্যার বলেছেন: এটাই কি বাস্তবতা????
হয়তো অনেকাংশে সঠিক

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: হয়ত অনেকাংশের সঠিকের উপর রচিত।

ভাবিতে ভাবতে এটা কীবোর্ডে চলে এসেছে।

১১| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১২:৪৭

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর।+

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:০৯

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সেলিম ভাই,

আপনাদের মত কবিদের কাছে আমাদের অকবিতা সুন্দর লেগেছে জেনেই আমরা তৃপ্ত।


ভালবাসা সেলিম ভাই।

১২| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৯:২০

মনিরা সুলতানা বলেছেন: একাংশের বাস্তবতা যদিও, লেখায় চমৎকার তুলে এনেছেন !
ভালোলাগা কবিতায়।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:১৩

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: বড়াপা,

আপনার কাছে ভালো লেগেছে জেনে অনেক অনেক খুশি হলাম। আসলে যতটুকু পারি অকবিতায় ফুটিয়ে তুলার চেষ্টা করি মাত্র। এটা গতবছরের লেখা।

অনেক অনেক কৃতজ্ঞ।

১৩| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:১৯

নীল আকাশ বলেছেন: শুভ সকাল ভাই,
চমৎকার কবিতা। এই জীবনে সারমর্ম যেন কবিতায় পাতায় তুলে এনেছেন!

ব্যস্ত এই জীবন কেন যে দিন দিন আর বেশি ব্যস্ততায় জড়িয়ে যাচ্ছে। সংসার, স্ত্রী আর সন্তানদের সময় দেয়া যেই ছেলের কাজ, সেটা করার সময় বের করা আসলেও আজকাল অনেক কঠিন হয়ে যাচ্ছে। সামান্য একটু সকাল বেলার মুহুর্তগুলো খুব করে সবাই চায় মধুর হোক, হোক না সেটা কিছুটা অভিনয়!

দাম্পত্য সম্পর্ক মধুময় হয় যতটা না ভালোবাসায় তার চেয়ে বেশি পারস্পরিক বিশ্বাসে আর সাক্রিফাইসে.........
এক তরফা সাক্রিফাইস দিয়ে কোনই দাম্পত্য সম্পর্কই ভালো ভাবে অনুবভব বা টিকিয়ে রাখা যায় না.....

ভালো একটা লেখা দেবার জন্য আবারও ধন্যবাদ।
শুভ কামনা রইল!

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২০

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:

জীবনের প্রতিটা জায়গা থেকে আমরা এক একজন শ্রেষ্ঠ অভিনেতা-অভিনেত্রী। সেই ক্ষেত্রে আপনার কথা ঠিকই আছে।
কিন্তু দাম্পত্য তো অভিনয়ের বাহিরে সুখময় বাস্তবতারই অপর নাম। আমাদের বাঙালি জীবনের সচরাচর দৃশ্য ফুটিয়ে তুলারই চেষ্টা করেছি আমারই একবিতায়।

আপনার মন্তব্য কিন্তু অসাধারণ হয়েছে ভাই।
বিপুল ভালবাসা জানবেন; এমন আন্তরিক ব্যতিক্রমী মন্তব্যের জন্য

১৪| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৫২

দৃষ্টিসীমানা বলেছেন: কবিতায় ভাল লাগা রইল ।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৩

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: আর ব্লগবাড়িতে স্বাগতম।

অকবিতায় ভাল লাগা জানিয়েছেন জেনে খুশি হলাম।

শুভকামনা থাকলো।

১৫| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:৫৬

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: বাস্তবতার কবিতা....

সুন্দর পথচলা

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: এটা যে কবিতা হয়ে গেলো!
অকবিতাও কবিতা হয়ে যায় ;) ;)

১৬| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০৫

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
হাসি কান্না
আনন্দ বেদনা

এই তো জীবন। এই তো জীবন।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৬

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
হাসি কান্না
আনন্দ বেদনা
এই তো জীবন। এই তো জীবন।



সবাই চায় দাম্পত্যএর প্রথম পঅর্ব সুন্দর হয়ে উঠুক, কিন্তু অধিকাংশ বাঙালি কন্যা সেই সৌভাগ্য পায় না।

অনেক ধন্যবাদ মাইদুল ভাই।

১৭| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:০৭

অগ্নি সারথি বলেছেন: :( :( :(

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: ভায়া,

এটা কবিতা না, সম্পূর্ণ অকবিতা ;)

১৮| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৬

নীলপরি বলেছেন: ভালো লিখেছেন ।

শুভকামনা

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৮

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সত্যি?

কবিরা যখন ভাল বলে তখন সত্যি ভাল লাগে।

অকবিতাও যে ভাল হয় সেটা জানতাম না!

ধন্যবাদ।

১৯| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩৩

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: আমি লিখলেই কবিতা হয়
তাজুল ভাই কি কয় B-))

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
অকওয়ার কিছু কইলাম নাকি?

কবিতা তো আপনারা লেখেন, আমি তো অকবিতা লেখার চেষ্টা করি। ;)

২০| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:০৭

জাহিদ অনিক বলেছেন:
দাম্পত্যের শক্ত মানেটা কিছুটা বোঝা গেল যদিওবা

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:২২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন:
যদিওবা কী কবি সাহেব?


কিচ্ছু লোকানো যাইবো না! নতুবা ব্লগে ইনবএক্সের জন্য আন্দোলন করবো।

২১| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৫:৪০

আখেনাটেন বলেছেন: পৃথিবীর চক্রে ঘুরপাক খাওয়ার মতো আপনার নানামুখি পোস্টে আমিও তো ঘুরপাক খেতে শুরু করেছি তাজুল সাহেব। :D

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: পৃথিবীর চক্রে ঘুরপাক খাওয়ার মতো যেখানে আমি নিজেই ঘুরপাক খাই সেখানে আমার লেখার ঘুরপাকে আপনি একটু ঘুরপাক খাচ্ছেন দেখে কিছুটা বিনোদিত হলুম বটে, তবে দুঃখিত বাঙালি হিসেবে।

আমার এক্স গার্লফ্রেন্ডের মত মন্তব্য বুঝতে পারেননি বলে অভিমান করবেন না প্লিজ! এতে আমি স্মৃতিকাতর হয়ে পরুম!

২২| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৫

রাকু হাসান বলেছেন:

হুম কবিতা ভালো লাগছে । উপস্থাপন করেছেন ভালো করে বলতে হবে । শুভকামনা ।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: কবিতা ভাল লেগেছে জেনে খুশি হলুম!

শুভকামনা আপনার জন্য। অনেকদিন পর আমার ব্লগবাড়িতে আসলেন।

২৩| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: গভীর কবিতা! মন্দ নয়।

আরো লিখতে থাকুন, শুভেচ্ছা।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: মন্দ নয় জেনে ভালই লাগলো।

দু'আ করবেন আর পাশে থাকবেন আপু।

অনেক অনেক শুভকামনা

২৪| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৫

বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ।


ইদানিং আসলেই বেশি বিজি।


বেঁচে আছি এটাই আল্লাহর রহমত।

আশাকরি আপনিও ভালো।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৫

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: আমিও অনেকটা বিজি! ভেজা বিড়ালের মত ভাববেন না!

যদিও বিড়াল আমার প্রিয়!

হু, আমি চমৎকার আছি।

আপনার বিজিত্ত কাটিয়ে আমাদেরকে কবিতা দেন!

ভালো থাকুন সবসময়

২৫| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
যার যার জীবন তাকেই সাজাতে হবে। এর কোন বিকল্প উপায় নেই।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৯

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সেটাই প্রিয় প্রবাসী ভাই।


খুব সুন্দর একটা কথা বলেছেন। ভালো লাগলো অসম্ভব।
শুভকামনা

২৬| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৩

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আপনে যে একজন কবি এটাই এই কবিতায় প্রমাণ রাখে। কতো সুন্দর করে বলে দিলেন একটি গল্প। শব্দের আকিঁ ঝুকিতে একে দিলেন সুন্দর একটি ছবি।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সুজন ভাই,

আপনারে নিয়ে সমস্যায় আছি। একটা অকবিতারে কবিতা আর অকবিকে কবি বলিয়া আপনি যে নির্যাতন করিবার লাগচেন হেইডা জাতি সহ্য করিবার পারিব না কইতাচি।

অনেক অনেক ভালবাসা ভাই ;)

২৭| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:২৬

মামুন ইসলাম বলেছেন: বাস্তবতা বড় বেদনাদায়ক। চমৎকার বাস্তবতার ছোঁয়া লেগে আছে কাব্যের গায়ে।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৪

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: বাস্তবতা বেদনায়ক বলে তো কিছু নেই! বাস্তবতা আপনার আমার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। সেখানে আপনার সামর্থ অনুযায়ীই সুখ বা দুঃখের ভাগিদার হবেন।

কাব্য ভাল লেগেছে বলে অনেক অনেক ধন্যবাদ

২৮| ১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১:১৯

শিখা রহমান বলেছেন: দাম্পত্যকে খুব সুন্দর করে কবিতায় এঁকেছেন।

খুব ভালো লেগেছে কবিতাটা। কবিতায় লাইক ও মুগ্ধতা!!

ভালো থাকুন ভালোবাসায় ও কবিতায়। অফুরন্ত শুভকামনা কবি।

১০ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৭

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: শিখা আপু,

আপনাদের মত কবিদের থেকে এতো সুন্দর মন্তব্য পাওয়া আমাদের জন্য অনেক বড় কিছু প্রাপ্তি।

অনেক অনেক ধন্যবাদ আপু। আমি ভাবছিলাম এটা একটা অকবিতা। যাক, অবশেষে সবাই ঠেলাধাক্কা দিয়ে কবিতা বানিয়ে দিলেন =p~


শুভকামনা আপু।

২৯| ১২ ই জানুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১১:০৫

সোহানী বলেছেন: এটাই যে একটি নারীর জীবন। কিছুটা পাওয়া না পাওয়ার মাঝে, কিছুটা চাওয়া না চাওয়ার মাঝে, কিছুটা সুখ দু:খের মাঝে নিজেকে বয়ে চলা।......... ওই একটি ফুলই যে সে নারীর আনন্দ, এক টুকরো ভালোবাসা।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ১১:২২

সৈয়দ তাজুল ইসলাম বলেছেন: সেটাই আপু। তবে আমি আমার ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এতটুকু প্রাপ্তি ঠিকই আছে, কিন্তু আমাদেরলে আরো আন্তরিক হতে হবে প্রিয়ের প্রতি। নিকের শ্রেষ্ঠত্ব দিয়ে তাদেরকে আরো ভালবাসায় ভরিয়ে দিতে পারি।

আমার এই কবিতা ঐসকল পুরুষদের বিরুদ্ধে, যারা নারীদেরকে নিজেস্ব ইচ্চাস্বাধীন ব্যবহার লভ্য এক প্রাণী জ্ঞান করে, ব্যস্ততার নামে সেই মানুষটির থেকে দূরে থাকতে চেষ্টা করে, যে মানুষটির জন্য একসময় তার ব্যস্ততাগুলো ছিল একেবারে অণুমাত্র, কিন্তু এখন সেই ব্যস্ততায় তার কাছে মূল্যবান।



ধন্যবাদ আপু, এতো সুন্দরভাবে মন্তব্য করার জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.