নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাহিত্য, সংস্কৃতি, কবিতা এবং সমসাময়িক সামাজিক বিষয়াদি নিয়ে গঠনমুলক লেখা লেখি ও মুক্ত আলোচনা

ডঃ এম এ আলী

সাধারণ পাঠক ও লেখক

ডঃ এম এ আলী › বিস্তারিত পোস্টঃ

আশ্রয়হীন ও অভুক্তের চুরি অপরাধ নয়

০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ৩:৪৬


আশ্রয়হীন ও অভুক্তের চুরি
এটা কি অপরাধ তাদের লাগি
মানবতা বিস্মরি আদালতের রায়
কেবলি কি শুধু আইনের লাগি
ক্ষধার্থের তরে রায় হোক এ যে
ক্ষুধাপিড়ীত কোটি মানুয়ের দাবী।

মানব সভ্যতার ইতিহাসে
হতে পারে এটা মাইলফলক
আদালতের রায় যদি যায়
আশ্রয় হীন ক্ষুধার্থের পরে ।

বিষয়টি সামান্য হলেও এতে
থাকতে পারে অসামান্য
ব্যঞ্জনা ও দ্যোতি ।
স্মরণে আসে
২০১১ সালের ঘটনাটি
ইউক্রেন বংশোদ্ভূত
রোমান অস্ত্রিয়াকভ
ক্ষুধার জ্বালায় অস্থির হয়ে
ইতালির জেনোয়ার
সুপার মার্কেটে
পকেটে পুরেছিল
দু’টুকরো পনির ও রুটি
পয়সা তত ছিলনা পকেটে
যা দিয়ে শোধতে পারে দায়
তাই পনির বাদে শুধু
রুটির দামটা সে মিটায় আর
পনিরটা লুকায় জুব্বার গায় ।

কেনা কাটায় আসা
বেরসিক এক বেটা
দেখে ফেলায় বাধায় গোল
জানান দিয়ে দেয় সে
দোকানীর মুল ।

পকেটস্থ পণ্য
তেমন ছিলনা দামী
জানা যায় ছিল তা
প্রায় ৫ ডলার সমমানি
এ যে গুরতর অপরাধ
আটক রোমানকে তাই
পুলিশ নিয়ে যায় টানি ।

ঘটনা গড়ায় কোটে
২০১৫ সালে নীচু আদালত
রায় দিয়ে তাকে বলে
ছয় মাসের জেল তার
সাথে ১০০ ইউরো জরিমানা।

এ রায়ে হয় বেশ তুলপার
অতঃপর সরকারী কৌঁসুলি
রোমানের সাজা কমানোর অভিলাশে
করেন আপীল সুপ্রীমকোটে
বলা হয় রোমান করেনি চুরি,
শুধু করেছিল চেষ্টা মাত্র।
তাছাড়া করলেও চুরি
বাইরেতো যায়নি নিয়ে
শুনানি শেষে বড় আদালত
করে দেয় বাতিল
নীচু আদালতের রায়খানি ।

বিজ্ঞ বড় আদালত
অকুণ্ঠ চিত্তে বলে দেয়
রোমান করেছিল চুরি
শুধুই বাঁচার লাগি
ছিলনা মাথা গোজার ঠাই
জ্বালা ও যন্ত্রণায় ভুগে
করেছে যা সে
সাজাতুল্য অপরাধ
হতে পারেনা তা সে।

সভ্যতার ইতিহাস ও
আজকের মানবতার
এ অগ্রগতি
আসলই সংগ্রামের
আলোকে বিরচিত
অজস্র ও অগণিত
মানুষের ত্যাগ-তিতিক্ষা-
জঠর জ্বালা যন্ত্রণা
ও ঘর্মাক্ত বন্ধুর
পথ বেয়ে চলার
পরিনতি ।

কালের আবর্তে
ক্ষধার্থ মানুষের
এই সংগ্রামী পথচলা
এই একবিংশ শতাব্দীতে
এসেও হয়নি শেষ
আদৌ কোন দিন
শেষ হবে কিনা
কেই বা তা জানে ।

ইউক্রেনের দুর্ভাগ্যতাড়িত
রোমান অস্ত্রিয়াকভ তারই
একটি ক্ষুদ্র নমুনা মাত্র
যে ছিল আশ্রয়হীন ও ক্ষুধার্ত ।

জীবন-জীবিকার অনিবার্য
তাগিদে দিয়েছিল
বিদেশ বিভুঁইয়ে পারি
নিরুদ্দেশের পথে
পা রাড়ালেও
জঠর জ্বালা তার
ছাড়েনি পিছু
নিতান্তই বাধ্য হয়ে
বাচার প্রাণান্তকর তাগিদে
সামান্য রুটি ও পনির
করে ছিল সে চুরি ।

আইনের চোখে তাই
তার এই চৌর্যকর্ম ছিল
সাজাতুল্য অপরাধ
মানব বিরচিত
পেনাল কোডেও
সে রকমই লিখা।

তবে বিশ্বের সর্বোচ্চ আদালত
সে যে মানুষের বিবেক, যা
শুধু ই মস্তিষ্ক নয় বরং
হৃদয় দিয়েও পরিচালিত ।

বিজ্ঞ বিচারকগন
করেছিল হৃদয়ঙ্গম ,
নিরাশ্রয় হতভাগ্য রোমান
অস্ত্রিয়াকভ চুরি করেছিল
নিতান্তই বেঁচে থাকার লাগি

আর এটি তাই
অপরাধের পর্যায় বলে
হতে পারেনা গণ্য,
প্রচলিত পেনাল
কোডের বাইরে
এ রায় হয় উঠে তাই
মানুষের মেধা ও
সৃজনশীলতার
অপরূপ প্রকাশ
এটাই মানবতা ও
মানবাত্মার চূড়ান্ত
বিজয় বলে পায় স্বিকৃতি ।

মানুষের সভ্যতার
ক্রমবিকাশের ধারা
করেছে ঘোষণা আজ
ক্ষুধার্তকে অন্ন দাও,
আশ্রয়হীনকে আশ্রয়
আর তৃষ্ণার্তকে জল
বিশ্বায়নের প্রেক্ষাপটে
এ ঘোষণাই আজ
সময়ের দাবী ।

তথাকথিত উন্নয়ন
গনতন্ত্র সভ্যতা সৃষ্ট যুদ্ধ
বিগ্রহ-সংঘাত-সংঘর্ষে
দুনিয়া আজ টালমাটাল
সিরিয়া-ইরাক-লিবিয়া হতে
লাখ লাখ শরণার্থী ঢল
সাগরের বুক চিরে
কাগজের নৌকার মত
ঠোংগা ও ভেলায় চেপে
মরণকে হাতে নিয়ে
স্নেহের ধন মৃত
আহলানদেরকে
সাগর বেলার বালুর
পরে উবোদকরে
ফেলে রেখে রেখে
আশ্রয়হীণ অভুক্ত
শরনার্থী মানসে
উদভ্রান্তের মত লুটায়
ইউরোপ-আমেরিকার
দুর্গম পথ প্রান্তরে ।

বিপর্যস্ত পৃথিবীর
আশ্রয়হীন অভুক্তদের
প্রতি আচরণ
কি রকম হবে
ইতালীর বড় আদালত
চোখে আঙ্গুল তুলে
দেখিয়ে দিল তা সবে ।

মন্তব্য ১৯ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১৯) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই মে, ২০১৬ ভোর ৫:৪২

কবি হাফেজ আহমেদ বলেছেন: হুম

একমত।

০৭ ই মে, ২০১৬ সকাল ৯:১৫

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ সহমত পোষনের জন্য ্

২| ০৭ ই মে, ২০১৬ ভোর ৫:৫২

জনতা-২০১৬ বলেছেন:


এই ছবিগুলো কোথা থেকে?

৩| ০৭ ই মে, ২০১৬ ভোর ৫:৫৩

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: এত লম্বা বেসুরু লিখা কেও পড়বে বলে আমার বিশ্বাস একেবারেই ছিলনা । অনেক ধন্যবাদ লিখাটির শেষ প্রান্তে এসে মন্তব্যের ঘরে পৌঁছার জন্য । একমত হওয়ার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ । ভাল থাকুন এ শুভ কামনা থাকল ।

৪| ০৭ ই মে, ২০১৬ ভোর ৬:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমারও প্রশ্ন, এই ছবিগুলোর উৎস কি?

০৭ ই মে, ২০১৬ সকাল ৭:৫২

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ছবি উৎস লিংক নীচে দেয়া হল
http://www.mirror.co.uk/news/uk-news/horrifying-pictures-syrians-starving-madaya-7136930

৫| ০৭ ই মে, ২০১৬ সকাল ৯:৪১

সোজোন বাদিয়া বলেছেন: সালাম ড. আলী, সালাম আপনার মানবিক অনুভূতিগুলোকে। ভাল থাকুন, দীর্ঘজীবী হোন।

০৭ ই মে, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: আপনাকেও সালাম। অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা থাকল । ভাল থাকুন ও দীর্ঘজীবী হোন ।

৬| ০৭ ই মে, ২০১৬ সকাল ১০:২১

প্রামানিক বলেছেন: অনেক ভাল লাগল মানবতার কবিতা। ধন্যবাদ

০৭ ই মে, ২০১৬ দুপুর ১২:৫১

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ প্রামানিক ভাই । ভাল লাগল শুনে খুশী হলাম । দেখা হবে আবার আপনার কবিতায় অচিরেই এখুনি । ভাল থাকুন শুভ কামনা রইল ।

৭| ০৭ ই মে, ২০১৬ দুপুর ১:২০

মুসাফির নামা বলেছেন: আপনার আগের কবিতাগুলো ভালো লাগত। ইদানিং কবিতাগুলো কেমন মানহীন মনে হচ্ছে।

০৭ ই মে, ২০১৬ দুপুর ২:১০

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: আপনাকে অাবার কাছে পেয়েছি সেই অনেক বড় প্রাপ্তি । দিনহীনের মান নিয়ে নেই কোন ভাবনা । নামহীন ফুল প্রাসাদ কানণে ঠাই পেয়েছে কবে তবু ফুল ফুটে যায় এই যা । জীবন তরী বাইতে গেলে ডেও এর তালে উঠানামা একটু তো হবেই তা নিয়ে তেমন আফছুছ করে লাভ কি ভাই বলুন । অনেক ভাল লেগেছে আপনার যতার্থ মুল্যায়নে । ভাল থাকুন এ শুভ কামনা থাকল ।

৮| ০৭ ই মে, ২০১৬ বিকাল ৫:৫৫

রিপি বলেছেন:
কবিতায় বাস্তবতার ছায়া বেশ ভালো ভাবেই ফুটে উঠেছে। তবে ছবি দুটা দেখে ভয় লাগছে সাথে মনটাই ভিষন ভাবে খারাপ হয়ে যাচ্ছে।

আপনার লেখায় দর্শনের ছোঁয়া পাই। বেশি ভাবতে ভাবতে দার্শনিক হয়ে যাচ্ছেন মনে হয়। B-))

০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ৮:৩৪

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ছবিটা দিলেম পার্টিয়ে । এখন যদি এদের প্রতি একটু দয়া হয় । শুধু কি দার্শনিক কেন চোখে পরেনা আমি যে ডক্টর অফ দার্শনিক এখন একটাই বাকি আছে হইতে পাগল এই গুন টা পাইলে পরে জোরেসুরে পাগলামী শুরু করা যাইত । অনেক ভাল থাকুন ।

৯| ০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ৮:৫৯

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: মানবতার কবিতা ভাল লাগল

১০| ০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ৯:০৪

কালনী নদী বলেছেন: মানবতার তরে আপনার লেখাগুলা সত্যিই আশাজাগানিয়া ভাইয়া। অনেক ভাল লাগছে!!!
সমসময় কাছে না থাকতে পারলেও শুভ কামনা জানতে ভুল করবেন না।
অনেক সুন্দর।++++

১১| ০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ১১:৪৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: অপেক্ষায় ছিলাম কখন হবে দেখা , শুভেচ্ছামাখা কামনাটুকু সদাই যে আছে রাখা তা যায় কি ভুলা তব প্রতি তাই থাকল তুলা ।

১২| ০৭ ই মে, ২০১৬ রাত ১১:৫৩

রিপি বলেছেন: প্রথমে মনে করেছিলাম আবার নতুন পোস্ট দিয়েছেন। পরে দেখি ছবি চেন্জ করছেন।
আপনিও ভয় পেয়েছিলেন নাকি আগের ছবি দেখে!! 8-|

০৮ ই মে, ২০১৬ রাত ১২:১৫

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ছবি দিয়া ভয় দেখানো ঠিকনা , একজন মানুষও যদি কারো কোন কাজে ভয় পায় তা সমস্টিক অর্থে মানবতার গায়ে লাগে যা অপরাধসম । তাই ত্বরিতেই ভ্রম করা হল সংশোধন। অনেক ধন্যবাদ এখানে আবার আসার জন্য । কবিতার মত দেখায় বস্তুসম '' তোমার সাগরের জল কেন এত লোনা" নামে নতুন একটা পোস্ট ক্ষানিক আগে দিয়েছি বটে । ভাল থাকুন শুভ কামনা থাকল ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.