নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

\'মুক্তচিন্তা\' শব্দটি বাংলাদেশে কি অবস্হায় আছে?

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৫৯


মুক্তচিন্তা হচ্ছে, কোন ফিলোসোফিকেল, সায়েন্টিফিক, তাত্বিক বিষয়ের উপর নতুন লজিক্যাল ভাবনা ভাবার সময়, অতীতের প্রতিস্ঠিত সত্যকে প্রথমে 'ধ্রূব হিসেবে না' নিয়ে, ভাবতে, মডলিং করতে,যাতে নতুন ফলাফল, নতুন সত্য এসে গেলে তারও যেন সাংকুলান হয়। একটু কঠিন মনে হচ্ছে?

আসলেই একটু কঠিন; গোপাল ভাঁড়ের গল্পের চেয়ে ঢের কঠিন; কঠিন কিছু বুঝতে হলে, ভাবনায় লজিক থাকতে হয়, সায়েন্স জানা থাকতে হয়, অংক জানা থাকতে হয়, দর্শন জানা থাকতে হয়; এমন কি ইতিহাস জানা থাকতে হয়।

রেনেসাঁ ইউরোপে আধুনিকতা এনেছে; ইউরোপ আবিস্কার করেছে যে, মানব জীবনকে ক্রমাগতভাবে উন্নয়নের জন্য শিক্ষাকে উঁচুতে নিতে হবে, সায়েন্স ও টেকনোলোজীতে ক্রমাগতভাবে রিচার্চ করে, জ্ঞানের পরিধিকে বাড়াতে হবে।

ইউরোপ যখন লেখাপড়া করে বিপুল উন্নতি করেছে, আমরা কলোনীতে ছিলাম, রাজা মহারাজার ছেলরা পড়েছে; ২০০ বছর, স্কুল কলেজ বাড়েনি; কিংবা বেড়েছে; বলা মুশকিল; কারণ, নবারেরা কি এর থেকে বেশী স্কুল বানাতো? বলা মুশকিল।

বৃটিশ আমাদের মানুষদের তেমন ভার নিতে চায়নি; কলোনীর জন্য আলাদা নিয়ম ছিলো বৃটিশের। তারপর পাকিস্তান, পাকিস্তানেও পড়ালেখা গৌণ ছিল; আজও পাকিস্তানে প্রয়োজনের তুলনায় স্কুল কম।

এবার বাংলাদেশ; ৪৪ বছরে ৫০ ভাগ মানুষও উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পায়নি; আবার আমাদের উচ্চ শিক্ষ মানে, বিশ্বের অনেক এলাকার নীচু শিক্ষার সমান। যাক, আমাদের শিক্ষায়, রিচার্চ নেই মোটামুটি; বইতে যা আছে, তার থেকে বেশী জানতে হলে রিচার্চ করতে হয়।

শুধু বইয়ে যা আছে, তা জানতে হলে 'মুক্তচিন্তার' কোন দরকার নেই; আবুল হাবুল যা লিখেছে, সেটা শিখে ফেললেই হলো!

বইতে যা বলা হয়েছে তার থেকে বেশী জানতে হলে, সেই বিষয়ে বেশী বুঝতে হলে, সেই বিষয়ে রিচার্চ করতে হবে; রিচার্চ করলে নতুন নতুন মডেল সামনে আসবে, ফলাফল বদলাবে বা নতুন কিছু যোগ বিয়োগের সম্ভাবনা দেখা দিবে; তখন প্রতিস্ঠিত ভাবনাকে হয়তো বদলাতে হবে; যদি ভাবনায় নতুন ফলাফলকে মেনে নেয়ার মত মন থেকে, সেটাই মুক্তচিন্তা।












মন্তব্য ২৫ টি রেটিং +৫/-০

মন্তব্য (২৫) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৯

রূপক বিধৌত সাধু বলেছেন: "বইতে যা বলা হয়েছে তার থেকে বেশী জানতে হলে, সেই বিষয়ে বেশী বুঝতে হলে, সেই বিষয়ে রিসার্চ করতে হবে; রিসার্চ করলে নতুন নতুন মডেল সামনে আসবে, ফলাফল বদলাবে বা নতুন কিছু যোগ বিয়োগের সম্ভাবনা দেখা দিবে; তখন প্রতিস্ঠিত ভাবনাকে হয়তো বদলাতে হবে; যদি ভাবনায় নতুন ফলাফলকে মেনে নেয়ার মত মন থেকে, সেটাই মুক্তচিন্তা।" অামাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রিসার্চ হয়না বললেই চলে । শিক্ষার্থীদের কিছু বই অার একগাদা শীট মুখস্ত করানো হয় । বাস্তব জীবনে এগুলোর কোন প্রয়োগই নেই ।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


মুখস্হ করলে মগজের ব্যায়াম হয়।

তবে, বড় বিষয় মুখস্হ করার কিছু নেই; ওখানে বুঝার ব্যাপার।

মুক্তিচিন্তা শব্দটি বাংলাদেশে ভুল মানে পেয়েছে।

২| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৭

প্রামানিক বলেছেন: বর্তমানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যে অবস্থা রিসার্চ করবেন কি ভাবে? মারামারি হুড়াহুড়ি লেগেই আছে।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:

ফলে, গত ৪০ বছরে আগাছা বের হয়েছে; যার ফলে, সবকিছুতে নীচু মানের ভাবনা

৩| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৮

ঈশান আহম্মেদ বলেছেন: বাংলাদেশের পেক্ষাপটে মুক্তচিন্তা করা অনেক কঠিন।এই হতদারিদ্র দেশে মুক্তচিন্তা করা বিলাসিতার সামিল।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:

শিক্ষা, চিন্তা, মুক্তচিন্তাই দারিদ্রতা ও অশিক্ষা থেকে মুক্ত করবে।

৪| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:২৭

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: মুক্তচিন্তা শব্দটির প্রথম প্রয়োগ দেখি (আমি যদি ঠিক থাকি) ভোরের কাগজের সম্পাদকীয় পাতাতে। তখনকার দিনে মুক্তচিন্তা মানে অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল চিন্তাধারাকেই বোঝাত। এই চর্চা আছে ছিল এবং এখনো আছে। বাংলাদেশে মুনীর চৌধুরী, কবির চৌধুরী, আহমেদ শরীফ, শওকত ওসমান, জাফর ইকবালরা এই ধারার। তবে ইদানিং নতুন প্রজন্মের মুক্তচিন্তক হতে গেলে নাস্তিক, ধর্ম বিদ্বেষী(বিশেষত ইসলাম) হতে হয় যেটা দুর্ভাগ্যজনক।

৫| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:

মুক্তচিন্তা হচ্ছে, শিক্ষিত মনের মানুষের চিন্তাশক্তির একটি ধাপ; এখানে সবকিছুই সংযুক্ত; কিন্তু বাংলাদেশে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি হওয়াতে, অনেকেই সেইদিকে ব্যবহার করার চেস্টা করছে; কিন্তু সঠিকভাবে উপল্ব্ধি না করে।

৬| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৫

হোসেন মালিক বলেছেন: আপনি কি মুক্তমনা?

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:

না, আমাকে জটিল বিষয়ে ভাবতে হয় না।

৭| ২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১:১১

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: ভাগ্য ভাল যে আমি এ ধারার ধারক-বাহক কোনটাই নহি।। কেমন আছেন।।

২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১:২৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


আসলে, প্রতিটি শিক্ষিত লোক ভাবনার ধারক ও বাহক; সুতরাং, বুঝতেছেন।

বাংগালীরা 'মুক্তমনা' নামে আরেকটি প্রতিশব্দ ব্যবহার করছে ভুল অর্থ দিয়ে।

৮| ২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ২:৩৫

বাংলার ফেসবুক বলেছেন: মুক্তচিন্তা এই রকম রাধার ৯ মন সিধুর যোগারও হবে না রাধার নাচ দেখাও হবে না। লেখা অত্যন্ত চমতকার হয়েছে সে জন্য ধন্যবাদ।

২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১১

চাঁদগাজী বলেছেন:

আধুনিক রাধিকা ৯ আউন্স সিঁদুরেই নাচবেন; মানুষ এট বেশী জানেনে ও বুঝেন, এটা বিস্ময়কর।

৯| ২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩০

গুলশান কিবরীয়া বলেছেন: লেখাটা ভালো হয়েছে । বাংলাদেশের ৪ বছরের অনার্স ডিগ্রী বাইরে জেনারেল ডিগ্রী হিসেবে কাউন্ট হয় আর তিন বছরের ডিগ্রীধারি ব্যেক্তিকে গ্র্যাজুয়েট হিসেবে কাউন্ট করা হয় না । আর অনার্স ডিগ্রী হওয়ার জন্য যে যে বিষয় গুলো থাকা উচিৎ তার একটাও নেই বাংলাদেশী অনার্স ডিগ্রীতে । অনার্স ডিগ্রীতে রিসার্চ থাকতে হবে , ডেজারটেশন থাকতে হবে , কিন্তু বাংলাদেশে তার প্র্যাকটিস নেই অথচ ডিগ্রীর নাম দেয়া হয় অনার্স ডিগ্রী , খুবই হাস্যকর ।

আর মুক্তোমনাকে তো সম্পূর্ণই ভিন্ন অর্থে ব্যবহার করা হয় ।

২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশে এসে অনেক 'ডেফিনেশন', পরিভাষা ইত্যাদি গুরুত্ব হারায়েছে।

রিচার্ছ ও ডিসারটেশন ব্যতিত পড়ালেখা ১২ ক্লাশের পর্যায়ে থেকে যায়; বর্তমানে প্রচুর ছাত্ররা ক্লাশে কম যাচ্ছে, তাদের জন্য ক্লাশ ইন্ারেস্টিং ও চ্যালেন্জিং নয়।

এগুলো সমাধান বের না করলে, আমরা শিক্ষিতদের থেকে তেমন নতুন কিছু আশা করতে পারবো না।

১০| ২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫৩

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: বাংলাদেশে কিছু মানুষ মুক্তমনার মত গুরুত্বপূর্ন একটি ধারনাকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছেন। এই মানুষগুলো মুক্তমতের নামে অশালীন, অযাচিত শব্দচয়নের মাধ্যমে পুরো জাতির ক্ষতি করেছেন। তারা যেভাবে মুক্তমত চর্চা করেছেন তা ক্ষেত্র বিশেষে হয়েছে বানরের হাতে গুলি ভর্তি বন্দুকের মত। তারা জানেন না শুধু ধর্মের বিরুদ্ধে অশালীন কথা বলাই মুক্তমত নয়।

আপনি নিউইয়র্কে দাঁড়িয়ে ইচ্ছে মত বারাক ওবামাকে সমালোচনা করতে পারেন, হয়ত সমালোচনার স্বার্থে দুই চারটে কটু কথা বলতে পারেন। ওবামা তো বটেই, সেই দেশের মানুষেরও টাইম নেই এই সব নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখানোর। খোদ আমেরিকাতেই তাদের ধর্ম নিয়ে অনেক স্যাটায়ার, ফান এবং অনেক ভয়ংকর ফান করা হয়। সেইগুলোকে কেউ মজা হিসেবে দেখে, কেউ বিরক্ত হয়, কেউ বাকস্বাধীনতা দেখেন। তবে কাউকে হত্যা করেন না। কারন সেই দেশের মানুষের শিক্ষা আছে, সরকার মানুষকে শিক্ষিত করেছে অন্যের মতকে সম্মান দিতে বা মত প্রকাশ করতে দিতে। উন্নত দেশের মানুষের কাছে অন্যের 'মতামত' হচ্ছে বাজারে উঠা পন্যের মত। মানুষ বাজার থেকে ভালো পন্যই কিনে, বাকিটা বাজারে পড়েই থাকে। সুতরাং কেউ ভালো মত দিলে তা সবাই নেয় আর খারাপ মত দিলে চুপ থাকে। নিরবতাই সেখানে প্রত্যাখ্যান।

কিন্তু আমাদের দেশে শিক্ষার মান এখনও সেখানে যেতে পারে নি। অন্তত সোশ্যাল মিডিয়া, ব্লগে যদি আপনি একটু দৃষ্টি দেন তাহলেই বুঝবেন আমাদের এখানে শিক্ষার কি অবস্থা। তাদের দৃষ্টিভঙ্গি এখনও কত পিছিয়ে আছে তা বলার বাইরে।

সেই হিসাবে বাংলাদেশ এখনও মুক্তমত চর্চার জন্য উপযুক্ত নয়। মানুষকে শিক্ষিত হতে হবে। কর্মমুখী হতে হবে। সমাজে অবদান রাখতে হবে। অন্যের বিশ্বাসকে শ্রদ্ধা করতে হবে, অন্যের বিশ্বাস অর্জন করতে হবে। তারপর আপনাকে অন্যের বিশ্বাস বদলানোর কাজে হাত দিতে হবে।

আর ধর্মের কথা যদি বলি। ধর্ম একটা সিস্টেম, একটা দর্শন, একটা নীতিমালা। কেউ যদি একটা সিস্টেমের অর্ধেক মানেন, একটা নীতিমালার অর্ধেক মানেন আর বাকি অর্ধেক না মানেন আর তাতে যদি সিস্টেমে কোন সমস্যা দেখা দেয়, তার দায়ভার সিস্টেমের উপর বর্তায় না।

আপনার লেখা ভালো লেগেছে। মাঝে মাঝে আপনি বড্ড বেশি কট্টর পন্থী লেখা লিখেন। শিক্ষিত মানুষ, আলোকিত মানুষরা কট্টরপন্থি হয় না, তারা সমাজ থেকে অযাচিত কট্টর পন্থা দুর করে।

ভালো থাকবেন। শুভেচ্ছা রইল।

১১| ২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:

কট্টর পন্হা থেকে সরার ছেস্টা করবো।

বাংলাদেশের শিক্ষিতরা ব্লগ পেয়ে প্রথমবার সুযোগ পেয়েছে নিজকে বুঝার, ও অন্যদের থেকে জানার; আশাকরি ব্লগ খুবই আলোকিত জেনারেশনের সৃস্টি করবে।

ব্লগে যাঁরা লিখছেন, এঁদের সবার কিছুটা 'কমন' দখল হচ্ছে ধর্মে, সবাই কিছুটা বুঝে; ফলে, মুক্তচিন্তা, মুক্তমণা'কে সেখানে প্রয়োগ করার চেস্টা করছে; দু:খের বিষয়, ব্লগের বাইরে ১৭ কোটী এসব বুঝার সুযোগ পাচ্ছে না; এটা ভয়ংকর অবস্হা সৃস্টি করেছে; আশাকরি, দেশ ও জাতির শিক্ষার মানকে মাথায় রেখে তাঁরা ভেবে চিন্তে লিখবেন; সময়ের সাথে ব্লগারদের ধারণা বাড়বে, সমস্যা কমবে; এখন এই ধুসর এলাকা থেকে দুরে থাকাই সবার জন্য ভালো হবে।

১২| ২৮ শে নভেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৪৯

তামান্না তাবাসসুম বলেছেন: খুব গুরুত্ববাহী লেখা। +++

২৮ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:

ভাবছি, মানুষের ভাবনার সাথে মিলছে কিনা!

১৩| ২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:৩৫

গেম চেঞ্জার বলেছেন: কা_ভা'র কমেন্টে লাইক...।

মুক্তমনা ও মুক্তচিন্তা নিয়ে পোস্ট দিতে হইবে দেখতেছি। :|

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


মুক্তচিন্তা ও মুক্তমনা শব্দ ২টি বুঝতে বাংগালীদের কস্ট হচ্ছে; পারলে বুঝতে চেস্টা করেন; তবে, আমার ডেফিনেশনটা ব্যবহার করলে, আমার নিকটা উল্লেখ করবেন।

আমার দেয়া ডেফিনেশন কিন্তু অন্য কোথায়ও নেই!

১৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৬:২২

গেম চেঞ্জার বলেছেন: লেখক বলেছেন:
মুক্তচিন্তা ও মুক্তমনা শব্দ ২টি বুঝতে বাংগালীদের কস্ট হচ্ছে; পারলে বুঝতে চেস্টা করেন; তবে, আমার ডেফিনেশনটা ব্যবহার করলে, আমার নিকটা উল্লেখ করবেন।

আমার দেয়া ডেফিনেশন কিন্তু অন্য কোথায়ও নেই!


আপনার ডেফিনেশনটা মন্দ না। ঠিকই আছে। আমার দেয়া ডেফিনেশনটায় সুনির্দিষ্ট কিছু শব্দ ছিল।


ভাল কথা। আমার মুক্তচিন্তা বিষয়ক পোস্টে আপনার মন্তব্যের জবাবে আমি কিছু প্রশ্ন রেখেছিলাম। সেগুলোর উত্তর দেবেন না? :||

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



দেবো।

আপনি গুগল থেকে যেসব ডেফিনেশন নিয়েছেন, সেগুলোর মাঝে তলস্ত্যেরটা কাছাকাছি; বাকীগুলো পুরোপুরি সঠি নয়।

১৫| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ২:২৫

সূর্য্য আমি! বলেছেন: সূর্য্য আমি! বলেছেন: তোর লাইগা আরেকটা কাব্য ;)

কি জানি কি খেয়ালে, মুতেছিনু দেয়ালে,
সেই দেয়াল চেটেছিলো, গাজী আর শেয়ালে ;) :D

যা, তোর কমান্ডাররে খুজতে ফাকিস্তান যা পাকী জারজ গাজী ছাগু। তোর কমান্ডার রাজাকারে আছিলো নাকি পাকী আর্মিতে? তার পুটকী চাটতি? নীলখেতের ছাগুফিকেটও কি নীলক্ষেতেই পাইছোস নাকি ইসলামাবাদ থাইকা প্রিন্ট কইরা পাঠাইছে?

খেলা তো শুরুই হয় নাই। পার্ট টু, থ্রি, উইকেন্ড মেগা আমোদপোস্ট কতকিছু বাকী আছে। এইগুলাও মজার। এইখানে তো জাস্ট টোকা দিতাছি। বুইড়া ছাগুরে আঙ্গুলের ব্যায়াম করাইতেছি যাতে খালামনিরে ঠিকমত উংলির পুলক দিতে পারে ;)

টানা কমেন্টামু না। কিছুক্ষন পর পর আইসা গুতা দিয়া যামু। অপেক্ষায় থাকবি কখন আসতেছে, কখন আসতেছে। অপেক্ষা এক আশ্চর্য্য যন্ত্রনার ব্যাপার। তোর সাথে মানসিক গেম খেইলা মজা পাইতেছি। একটা বিকৃত অসুস্থ্য মানসিকতার নিঃসঙ্গ প্রবাসী এবং কর্মহীন বুইড়ার জীবন নিয়া গল্পের প্লটও মাথায় চইলা আসছে। যার বিকৃতিরে দুনিয়া কখনো পাত্তা দেয়নাই আর শেষ সম্বল ছিলো অনলাইনে বমি করা। একদিন সেইটা নিয়াও টানাটানি দেখা দিলো।

এরপর, এরপর কি হইলো?

জানার জন্য অপেক্ষায় থাকুক আমজনতা ;)


োস্বর্নাখালামনির জন্য একটা ছুট্টু শায়েরী। আবার আসলে একটূ শুনাইয়া দিস তো পাকী জারজ গাজী ছাগু ;)

চুতিয়া চুতমারানী, োদা কি তোর সঙ্গে যাবে??
গাজীরে চাটতে দিলে োদা কি তোর ক্ষয়ে যাবে?? ;)

ওই কাজেই বিজি থাক। নাইলে আরো নোংরা রুপ দেখবি। সিপি গ্যাং স্টাইল। =p~ =p~

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.