নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

পদ্মাসেতুর \'নকল নকসা\' নিয়ে লিখে , নিজকে বেকুব প্রমাণের চেস্টা

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৪৪

কয়েকটা পোস্ট দেখলাম, যেখানে দাবি করছেন যে, সরকার কোন এক জাপানী সেতুর নকসা চুরি করে পদ্মাসেতু বানাচ্ছে! এগুলো বেকুবী ছাড়া আর কিছু নয়; কারণ, AutoCAD জানা যেকোন ইন্জিনিয়ার কয়েক ঘন্টায় এরকম একটা সেতুর বাহিজ্যিক নকসা ( স্ট্রাকচারেল কালকুলেশান ব্যতিত) বানাতে পারে আজকাল, এটা সমস্যা নয়; আসলে আপনি সিভিল ইনজিনিয়ার না হয়ে, কয়েকদিনের ট্রেনিং নিলে, এ ধরণের একটা ছবি নকসা তৈরি করতে পারবেন; কিন্তু সেতুর ইনজিনিয়ারিং হিসেব চুরি করা যাবে না; জাপানীরা সেটাকে "পাবলিক ডাউনলোডের" জন্য গুগলের সার্ভারে রাখেনি।

চীন হলো নকলের রাজা, চীন যখন সেতু করছে, নকসা বাংলাদেশ সরকারের জন্য সমস্যা নয়; ওরা সব ডিজাইন ও হিসেব করেই কাজে নেমেছে; চীন বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা ব্রীজ তৈরি করেছে কয়েকদিন আগেই।

এ ধরণের পোস্ট প্রমান করছে যে, বাংগালী তরুণ ব্লগারেরা টেকনোলোজীর দিক থেকে এখনো পাথরের যুগে বসবাস করছেন; এগুলো দু:খজনক।

পদ্মাসেতু নিয়ে সরকার যেসব তেলেসমাতি করেছে, সেগুলো ফাইন্যানসিয়াল সমস্যা; পদ্মাসেতুর যে মুল্য দেখানো হচ্ছে, প্রায় ৩ বিলিয়ন ডলার, এখানে ভয়ংকর সমস্যা আছে; আসলে সেতুর দাম এতো হবে না; চীনারা এর থেকে অনেক কম দামে দামে সেতু করবে, সন্দেহ নেই; এবং সরকারের লোকেরা সেটা জানে; বাকীটুকু বুঝে নেন।

আরেকটা ব্যাপার হলো, এখন সেতুর যে দাম ধরা হয়েছে, ২/৩ বছরে সেই দামের থেকে দাম বাড়ানো হবে, 'চেন্জ ও মোডিফিকেশানের' নামে; চীনারা এতে সাহায্য করবে; এগুলো হলো জাতিকে সেতু দিয়ে খুশী করা ও পকেট কাটা; এগুলো সমস্যা, নকসা কোন সমস্যা নয়।

বিশ্বে ৬ কিলো মিটারের বেশী লম্বা সেতু প্রতিদিন ৫/১০ টা তৈরি হচ্ছে না; ফলে, পদ্মাসেতুতে কার নকসা ব্যবহার করা হচ্ছে, প্রটিটি দেশের সেতু কোম্পানীর লোকেরা জানে! যাক, পোস্টগুলো আসাতে ভালো হলো, সেতুর কথা জানলাম, সাথে সাথে সেতু বুঝে না কি পরিমাণ টেকনোলোজিস্ট, সেটাও জানা হলো।




মন্তব্য ৩৩ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (৩৩) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:০০

সামছুল কবির মিলাদ বলেছেন: সরকারের একজন মন্ত্রী যখন জাপানী সেতুর এইরকম ছবির পোস্ট দেয় পদ্মাসেতু বলে, তখন সাধারন জনগনের আর কি দোষ?

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


মন্ত্রী হিসেবে যারা কাজ করছে, এরা বাংলাদেশের মাসলম্যান; এরা টেকনোলোজী বুঝার কথা নয়; যারা বুঝে, তাদের সেই পোস্টই দেয়ার কথা যে, মাসলম্যান জানে না কিসের ছবি পাঠাচ্ছে; মাসলম্যানের ভুলের উপর ভিত্তি করে, নতুন ভুল করা বেকুবের কাজ।

২| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৩

ব্যাক স্পস বলেছেন: "AutoCAD জানা যেকোন ইন্জিনিয়ার কয়েক ঘন্টায় এরকম একটা সেতুর বাহিজ্যিক নকসা বানাতে পারে আজকাল, এটা সমস্যা নয়; আসলে আপনি সিভিল ইনজিনিয়ার না হয়ে, কয়েকদিনের ট্রেনিং নিলে, এ ধরণের একটা ছবি নকসা তৈরি করতে পারবেন" আপনি এইটা কই পাইলেন রে ভাই। আমি এক জন স্ট্রাকচারাল ডিজাইনার এবং আটোক্যাডে দক্ষ একজন সিভিল ইন্জিনিয়ার। আমার মতো হাজারো ইন্জিনিয়ার আছে। আমি ইচ্ছা করলেই এইরকম একটা ব্রীজের নকশা করতে পারবো না। আমার একটা বাড়ীর নকশা করতেই কয়েক সপ্তাহ লাগে, আর কয়েক ঘন্টাই ব্রীজ ডিজাইন... এই রকম উদ্ভট কথা বলার আগে আপনার আর ও পড়াশুনা করা দরকার।

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাহজ্যিক নকসা' (স্ট্রাকচারাল ডিজাইন ও কালকুলেশন ব্যতিত), মিডিয়ায় সে ছবিটা এসেছে, সেটা করতে কত সময় লাগবে আপনার?

৩| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫১

ব্যাক স্পস বলেছেন: অটোক্যাড দিয়ে স্ট্রাকচারাল ডিজাইন করা যাই না। ঐটার জন্য অন্য অনেক প্রোগ্রাম আছে। আটোক্যাড হচ্ছে ড্রাফটিং সফটয়ার।
'বাহজ্যিক নকসা' মানে আপনি যদি 3D অথবা দেখতে কেমন হবে বুঝান সেটা অটোক্যাড দিয়ে করা হয়না। 3d ভিউ, ছোট যে কোন প্রজেক্টের জন্য ও ১ থেকে ২ দিন লাগবে। এইটা সাধারনত আর্কিটেক্ট এর কাজ। এইরকম একটা প্রজেক্টের জন্য কয়েক ঘন্টা কিছুই না। এর জন্যে অনেক চিন্তা ভাবনা, ক্যাল্কুলেশন (স্ট্রাকচারাল ক্যাল্কুলেশন না)। এবং কয়েক মাস সময় লাগবে। কারন বললেই এরকম একটা ব্রীজ প্রজেক্টের সাথে অনেক কিছু ইনভল্ব থাকে। আপনার অনেক লিখাই আমার পছন্দের কিন্তু এইটার ব্যাপারে আমি একমত নই। ভাল থাকবেন।

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


ঠিক বলেছেন।
3D এর জন্য CATIA (আইবিএম) ব্যবহার করলে, হয়তো সামান্য সময়ে বাহিজ্যিকটা দাঁড় করানো সম্ভব।

৪| ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫৮

উল্টা দূরবীন বলেছেন: এগুলা ছাগলের ছাগলামি ছাড়া আর কিছুই না। সবাই জানে পদ্মা সেতুর নকশা এক ও সতন্ত্র। চাইনিজ লোকের মাথায় নকলবাজ আইডিয়া ঘুরঘুর করে কিন্তু পদ্মা সেতুর নকশা নিয়ে কোন ফোট্টুয়ান্টিগিরি হবে না এটা নাবালিকা সেতুও বুঝে। আসলে সব কিছু হচ্ছে লোক উষ্কে দিয়ে ফয়দা লুটার ধান্দা।

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


পদ্মাসেতুতে যত চুরি, পুকুর চুরি হোক, তবুও মানুষ খুশী হবে, ও কাজের মতো একটা কাজ হবে।

৫| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:০৭

দেবজ্যোতিকাজল বলেছেন: শুধু পড়লাম বুঝলাম না:(:(:(

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:২০

চাঁদগাজী বলেছেন:

কয়েকটা পোস্ট এসেছিল সামুতে ও অন্য ব্লগে, যেখানে বলছে যে, সরকার পদ্মাসেতুর জন্য জাপানী সেতুর নকসা চুরি করেছে; আসলে এক মন্ত্রী কোন এক জাপানী সেতুর ছবি ইমেইলে অন্যদের পাঠায়েছে পদ্মাসেতুর ছবি হিসেবে; মন্ত্রী গাধা, কিন্তু ব্লগারেরা গাধার মতো কথা বলুক, সেটা আমি চাই না; তাই এ পোস্ট।

৬| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:১৮

কলাবাগান১ বলেছেন: "আসলে সব কিছু হচ্ছে লোক উষ্কে দিয়ে ফয়দা লুটার ধান্দা।" সেই রাজাকারি ধান্ধা। এই লোকগুলি কে বলব (যারা নকসা চুরি হয়েছে বলে উস্কানোর চেস্টা করছে), সেতু তৈরী হওয়ার পর যদি সিম্বলিক ছবির সাথে মিলে যায়, তখন বলতে পারবেন নকশা চুরি করা হয়েছে

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:

এমন কি জাপানী সেতুর বাহিজ্যিক ব্যবহার করলেও অসুবিধা নেই; আসল সেতু হলো স্ট্রাকচার; ব্লগারেরা বুঝুক যে, আমাদেরকে জানতে হবে, বুঝতে হবে! আর সেতু বানাচ্ছে চীন, ওরা জানে কো নকসানুসারে কাজ করতে হবে।

যারা এমনিতে গন্ডগোল করতে চায়, সেই আগাছাদের বুঝায়ে কোন লাভ নেই।

৭| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৫৯

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
একটা সিম্বলিক ছবি নিয়ে মাতামাতির কি আছে? ফেবু ভরে গেছে

কলাবাগান ভাই সঠিক বলেছেন: "আসলে সব কিছু হচ্ছে লোক উষ্কে দিয়ে ফয়দা লুটার ধান্দা।
পোষ্টদাতা তো কোথাও বলেনি এটাই সেই সেতু, হুবুহু এটাই তৈরি হবে।
সেতু তৈরী হওয়ার পর যদি সিম্বলিক ছবির সাথে মিলে যায়, তখন বলতে পারবেন নকশা চুরি করা হয়েছে

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ২:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি চিন্তিত, তরুণরা এত কম জানে, জাতির কপালে দু:খ আছে।

এ ধরণের সেতুর ছবি আঁকতে আইবিএম'এর 'কাতিয়া" সফটওয়ারে কয়েক ঘন্টার ব্যাপার; ছবি তো কিছু না; আসল হলো আর্কিটেকচার ও স্ট্রাকচারেল কালকুলেশন, যা কোথায়ও পাওয়া যাবে না চুরি করার জন্য।

৮| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১:২৯

প্রবাসী ভাবুক বলেছেন: একটা সেতু কয়েক ঘন্টাও যেমন নকশা করা যায় না, তেমনি কোন সেতুর নকশা নকল করে হয় না৷ বিবিসি বাংলায় আজ পদ্মাসেতুর ৭ টি চ্যালেঞ্জ নিয়ে একটি সংবাদ ছেপেছে৷

একটি সেতুর নকশা তৈরির আগে ভৌগলিক অবস্থান, নদীর প্রশস্ততা, স্রোত, সেতু তৈরির উদ্দেশ্য, কেমন যানবাহন চলাচল করবে, নদীর পাইলিং করতে কোন কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে, নদীর গভীরতা, নদী কি পরিমাণ পলিমাটি বহন করে ইত্যাদি আরও অনেক বিষয় বিবেচনায় নিতে হয়৷ কয়েক বছর যাবত এগুলো পরীক্ষানিরীক্ষার পর ফলাফলের সাথে সামঞ্জস্য রেখে সেই নকশা করতে কয়েক ঘন্টা নয় কয়েক মাস প্রয়োজন৷

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ২:৩৫

চাঁদগাজী বলেছেন:

আর্কিটেকচারেল ও ও স্ট্রাকচারেল কালকুলেশন করতে মাসের পর মাস লাগবে।
ফলে, সেতুর নকসা চুরি সম্ভব নয়।

আমাদের তরুণরা কিভাবে এত কম বুঝে?

আইবিএম'এর 'কাতিয়া" সফটওয়ারে কয়েক ঘন্টায় "৩ডি" ছবি বানানো সম্ভব।

৯| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১:৪০

গেম চেঞ্জার বলেছেন: মন্ত্রী হিসেবে যারা কাজ করছে, এরা বাংলাদেশের মাসলম্যান; এরা টেকনোলোজী বুঝার কথা নয়; যারা বুঝে, তাদের সেই পোস্টই দেয়ার কথা যে, মাসলম্যান জানে না কিসের ছবি পাঠাচ্ছে; মাসলম্যানের ভুলের উপর ভিত্তি করে, নতুন ভুল করা বেকুবের কাজ।

(মন্ত্রীকে মাসলম্যান বলছেন। ডান্ডা কিন্তু রেডি আছে। জেনেবুঝে বলুন।)

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ২:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


মাসেলম্যান ব্যতিত ১ মন্ত্রী আছেন, নাহিদ

১০| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১:৪২

মেঘনা পাড়ের ছেলে বলেছেন: আমাদের দেশের সমস্যা হলো, যে যেটা বুঝে না সেটা নিয়েই বিজ্ঞ মতামত দিয়ে ফেলে। ঐ পোষ্টটা আমিও দেখেছি। একটা সিম্পল গ্রাফিক ভিডিও দেখেই (যা ইউটিউবে সার্স দিলেই পাওয়া যায়) তা নিয়ে বিজ্ঞ পোষ্ট প্রসব করে ফেলেছেন কেউ কেউ, আবার তা দিয়ে সরকারের গুষ্টি উদ্ধারেও অনেকে লেগে গেছে। আচ্ছা সেই বিশেষজ্ঞদেরকে বলি বর্তমানে ইউটিউবে ঢাকা মেট্রো রেল লিখে সার্স দিলে যে গ্রাফিক ভিডিও দেখা যায় তা কি আসল ঢাকা মেট্রো রেলের ভিডিও কিনা ?

ভাই এই সমস্ত ছাগল গুলিরে বুঝিয়ে কোন লাভ নেই, আজ প্রায় অর্ধযুগ ব্লগে থেকে এরকম বহ আবাল দেখেছি, আবার ভুলেও গেছি।

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ২:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই আগাছাগুলিই আমাদের আগামী প্রজন্ম

১১| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৮:১৫

চলতি নিয়ম বলেছেন: ভাই এই সমস্ত ছাগল গুলিরে বুঝিয়ে কোন লাভ নেই। সামু বলোগ এখনো টিকে আছে এদের জন্য ;)

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৮:৩৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


জাতিতে আগাছা বেশী, এরা জাতির সন্তান।

১২| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০০

নক্‌শী কাঁথার মাঠ বলেছেন: ওটাতো পদ্মা সেতুর ডিজাইনই না, ওটা একটা ব্রিজের ইমেজ মাত্র, কেউ একজন নেট থেকে নিয়ে দিয়েছে।
আসল ডিজাইন এরকম:

আরেকটা ব্যাপার হলো ডিজাইন ওরকম কপি করে নিলেই হয়ে যায়না। অনেক রকম সার্ভের দরকার হয়, মাটি পরীক্ষার দরকার হয়, সেই মতো ডিজাইন করে এরকম বড় সেতু নির্মাণ করা হয়।

১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:০৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


না জেনে, বা খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে মাঠে নেমেছে অনেক ব্লগার

১৩| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ৯:৫১

কিরমানী লিটন বলেছেন: শেষ পর্যন্ত যে সেতুটি হচ্ছে, এটাই সবচেয়ে খুশির খবর, শুভকামনা অ নে ক প্রিয় গাজী ভাইয়ের জন্য ...

১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



বড় কথা যে সেতু হচ্ছে!

১৪| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৪৮

ডিবি আবদুর রহমান বলেছেন: সহমত পোষণ করছি।

১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:

ডিজাইন করেছিল অনেক আগেই।

১৫| ১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:৫০

সাইয়িদ রফিকুল হক বলেছেন: আসলে যারা পদ্মাসেতুর আজন্ম-শত্রু তারাই 'নকশা-নকলে'র এইসব উদ্ভট ও আবোলতাবোল কথাপ্রচার করছে। এরা গোলাম আযমের বংশধর। আর সেতু তৈরির আগেই যারা মারিং-কাটিং হবে বলে প্রচার করছে, তারাও আজেবাজে বকছে। এদের কোনো ভবিষ্যৎ নাই।

১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:০৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


ঘটনা সেখানেই

১৬| ১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৩৫

আস্তিক এলিয়েন বলেছেন: চাঁদগাজী সাহেব AutoCAD নিয়ে আমার পোষ্টেও একই কমেন্ট করে নিজেকে খুব জ্ঞানী জাহির করতে চেয়েছেন। কিন্তু এই বিষয়ে আমার জ্ঞান না থাকায় উপযুক্ত জবাব দিতে পারিনি। ব্যাকস্পস। ভাইকে ধন্যবাদ অল্পবিদ্যায় ভয়ংকরী লেখকের জ্ঞান জাহিরের চেষ্টাকে তুলোধুনা করার জন্য। লেখককে সম্মানের সাথেই বলছি, তরুন সমাজ হেন তেন, টেকনলজির জ্ঞান কম বলার আগে নিজের জ্ঞানটারও পরিমাপ করে নিবেন। চেতনায় আঘাত লাগলেই এসব বলে প্রতিপক্ষকে সামাল দেয়াটা আপনাদের অভ্যাসে পরিনত হয়েছে।

১৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সকাল ৭:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:

অটো কেড দ্বারা না হলে, "কাতিটা" দ্বারা ছবি নকসা কয়েক ঘন্টায় তৈরি করা সম্ভব।

আপনার লেখা হাউকাউ

১৭| ২৭ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৪৭

খোঁচা বাবা বলেছেন: নীলক্ষেত সার্টীফায়েড মুক্তিযোদ্ধা পাকী জারজ বেজন্মা ছাগু গাজী, তোর লাইগা কাঁঠালপাতা। প্রান ভইরা খা। ;) =p~



আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.