নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

কাছাকাছি থেকেও চির-অচেনা

১৯ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:২৪



স্ত্রীর জন্য স্যান্ডেল কিনতে বের হয়েছি; আমি ট্রেনে যাবার পক্ষে ছিলাম, গাড়ীর পার্কিং পাওয়া মোটামুটি অসম্ভব ব্যাপার; আরো ২/১ যায়গায় যেতে হবে, শেষমেষ গাড়ী নিয়ে বের হতে হলো; রেসিডেন্সিয়েল এলাকায় শপিংমল; আশেপাশে পার্কিং নেই; দুই চক্কর দিয়ে, স্ত্রীকে দোকানের কাছে নামিয়ে দিয়ে বললাম, আমি ফোর্থ এভেনিউ ও ডীনষ্ট্রীটের কোণায় অপেক্ষা করবো। ফোর্থ এভেনিউ ও ডী্নষ্ট্রীটের কোণায় একটা খালি যায়গা পেলাম; কিন্তু পার্ক করা যাবে না, নো-পার্কিং এলাকা, গাড়ী থামিয়ে ভেতরে বসে থাকলে চলবে, পুলিশ এলে চলে যেতে হবে। আমি গাড়ীর ভেতরে বসে থাকতে পারি না, বের হয়ে, ট্রাফিক লাইটপোষ্টের ছায়ায় দাঁড়ালাম; লোকজন মলে যাচ্ছে, মল থেকে বাড়ীর দিকে যাচ্ছে; তেমন ব্যস্ততা নেই!

১১/১২ বছরের একটি ছেলে বাইক থেকে নেমে, গ্রীনলাইটের জন্য অপেক্ষা করছে, রাস্তা পার হবে; সে লাইটপোষ্টের গায়ে লাগানো কিসের বিজ্ঞপ্তি পড়ছে মনোযোগ দিয়ে; লাইট গ্রীন হয়ে, আবার লাল হলো, সে পার হয়নি; আমি ওর পেছনে গিয়ে দেখার চেষ্টা করলাম, কি পড়ছে? একটা 'হারানো বিজ্ঞপ্তি', একটা হিজাবপরা সুন্দরী মেয়ের ছবি; মেয়েটির নাম, সেথ আমেন, ১৬ বছর বয়স, বেরগেন ষ্ট্রীট স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী; গতকাল, সে সামার স্কুলের ক্লাশের পর বাড়ির দিকে রওয়ানা হয়েছিল, বাড়ী ফেরেনি।

-তুমি মেয়েটিকে চেনো? আমি জিজ্ঞাসা করলাম ছেলেটিকে।
সে মুখ খুললো না, মাথা নাড়লো, চেনে না! সে ছবিটি মনোযোগ দিয়ে দেখছে; মিনিট'খানেক পরে বললো,
-আমাদের স্কুলের মেয়ে, আমি নিশ্চয় দেখেছি; তবে, চেহারা থেকে বুঝতে পারছি না, এটি কোন মেয়ে; এই রকম ২০/২৫টি সিনিয়র মেয়ে আছে, এরা হিজাব পরে থাকে; আমার কাছে সবাইকে একই রকম লাগে!
-তোমার ক্লাশে হিজাবপরা মেয়ে আছে?
-আছে ৪/৫ জন; আমি ওদের চিনি, ওরা আমাদের সাথে খেলাধুলা করে, ওরা মাথায় রুমাল বাঁধে; হিজাবপরা সিনিয়র মেয়েগুলো খেলেধুলা করে না, ওরা নিজেদের মাঝে থাকে। আজকে সকালে স্কুলে জরুরী মিটিং হয়েছে; কয়েকটা সিনিয়র গ্রুপ ১০ মাইল এলাকায় খুঁজতে বের হয়েছে।
-তুমি ওকে খুঁজতে চাও?
-আমি সেটাই ভাবছি, আমি আমার ২ বন্ধুকে নিয়ে আমাদের এলকায় খুঁজতে বের হবো; ভাবছি, এই ছবিটি খুলে নেয়া ঠিক হবে কিনা!

আমাদের আলাপের সময় ২ টি ১৩/১৪ বছরের মেয়ে এসে লাইটে থামলো, মনে হচ্ছে, এরা পরস্পরের বান্ধবী, একজন কোরিয়ান, অন্যজন সাদা আমেরিকান; রাস্তা পার হবে, ২ জনের হাতে মিল্কশেক; আমি বললাম,
-লেডিস, এই হারানো বিজ্ঞপ্তিটা দেখেছ?
সাদামেয়েটি বললো,
-কি হারিয়েছে?
-একটি মেয়ে, আমি বললাম।

মেয়ে ২জন ছেলেটার পাশে দাঁড়িয়ে বিজ্ঞপ্তিটা পড়লো; সাদামেয়েটা আমাকে প্রশ্ন করলো,
-মেয়েটি কি তোমার কেহ হয়?
-না!
-আমি চাই আমার ধারণাটা সঠিক হোক, আমি চাই মেয়েটার খারাপ কিছু না হোক; আমার ধারণা, মেয়েটা পালিয়ে গেছে!
-কেন এই ধারণা।
-প্রথমত, আমি মনেপ্রাণে চাই ওর যেন ক্ষতি না হয়; পালিয়ে গেলে ওর ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা কম। মুসলমান মেয়েদের পরিবারের লোকরা ওদেরকে কারো সাথে কথা বলতে দেয় না, মিশতে দেয় না; এই কারণে অনেকেই পালিয়ে যায়।

মেয়েটা নিজের ফোন দিয়ে ২/৩টা ছবি নিলো। ছেলেটা বললো,
আমাকে ছবিটা পাঠাতে পারবে?
-তোমার সেল নম্বর দাও।
-সেলফোন নেই, ই-মেইলে পাঠাও, প্লীজ।

মেয়েটা ছেলের ই-মেইলে পাঠায়ে দিলো। একটি আফ্রিকান আমেরিকান মেয়ে টেলিফোনে বকবক করতে করতে গ্রীন লাইটে রাস্তা পেরিয়ে এ পাশে এলো; আমি হাত নেড়ে তাকে থামতে ইশারা করলাম; সে থেমে প্রশ্ন করলো,
-কি ব্যাপার?
-একটা মেয়ে হারিয়ে গেছে, বিজ্ঞপ্তিটা দেখ।
-স্যরি, আমার তাড়া আছে, আমি এলআইআর ট্রেন ধরবো।
সে পকেটে হাত দিয়ে ১ ডলার বের করে আমার হাতে দিয়ে হনহন করে চলে গেলো। সাদা মেয়ে বললো,
-ডলার দিয়ে কি হবে?
-আমি জানি না।
-মেয়েটি মনে করেছে, আমরা পরিবারকে সাহায্য করার জন্য টাকা তুলছি। টাকাটা তুমি কোন হোমলেসকে দিয়ে দিও।
-ঠিক আছে।

মেয়ে ২টি বিদায় বলে চলে গেলো; ছেলেটি রাস্তা পার না হয়ে, যেদিক থেকে এসেছিলো, সেইদিকে বাইক ঘুরালো, বললো,
-বাসায় গিয়ে ছবিটা প্রিন্ট করবো; আবার দেখা হবে।
আমি স্ত্রীর জন্য অপেক্ষা করতে লাগলাম।

মন্তব্য ৭৪ টি রেটিং +১১/-০

মন্তব্য (৭৪) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:৪৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: জেনারেশন গ্যাপ একটা বড় ভূমিকা নেয় এসব ক্ষেত্রে। নিজেদের মতবাদ চাপিয়ে দেয়া, নিজেদের পছন্দ ভালোলাগা চাপিয়ে দেয়া'র জন্যই কাছাকাছি থেকে ও অচেনা থেকে যায়।
ভালো লেখা, জানা গেল উন্নত দেশে বাবা মায়েদের সন্তান লালন পালনের পথ পরিক্রমা। টিনেজ মাইন্ড এবং ব্যস্ত জীবনের ভাবনা ও।

১৯ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


এটা সেটা যোগ করেই পুরো জীবন।

২| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:১১

রাজীব নুর বলেছেন: আমাদের মধ্যে অনেক আবেগ। ওদের মধ্যে আবেগ কম।
আমরা দরিদ্র হতে পারি কিন্তু জাতি হিসেবে আমরা আবেগী।

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


যেহেতু আমাদের বেগ( গতি) নেই, কমপক্ষে আবেগ দরকার।

৩| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: আপনার রাজনৈতিক লেখার চেয়ে এই টাইপ লেখা গুলো আমি বেশি পছন্দ করি।

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:


তাই? রাজনৈতিক লেখা কমায়ে ফেলবো!

৪| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:৫৯

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: কাছাকাছি থেকেও চির-অচেনা, কথা সত্য। ভার্সিটিতে দুটো হিজাবী পয়েছিলাম। চার বছরে চারবারও ঠিকমত কথা হয়েছিল কিনা সন্দেহ.:(

দেশে এখন হিজাব ফ্যাশান। স্কুল লাইফে বান্ধবীদের কাউকে হিজাব পরতে দেখিনি, দু-একজন বোরখা পরতো। কলেজে এসে বোরখা, হিজাব কোনটাই দেখি নি। এখনতো সব জায়গায় হিজাবের ছড়াছড়ি। আমার কোন মাথাব্যথা নেই, দেখতে তো ভালোই লাগে:P


@মহামান্য চাঁদগাজী
হিজাবী দেখিয়া বিবাহ করিবো নাকি ভাবছি...
ঘটকালি করিতে পারিবেন?(??)

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



ঘটকালি? অবশ্যই করবো! আপনি হ্যাঁ বললেই কথা শুরু হবে!

৫| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১:৫৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: ভাল লাগল গল্প । এ গল্পের প্রধান চরিত্র গল্প লেখক স্বয়ং । লেখক নীজে একটি ছেলে ও মেয়ের জবানীতে তাঁর দেখে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনার বর্ণনা করেছেন। পিচডালা পথে কে আসে কে যায়। কত মানুষ এই পথে হেটে যায় , যাওয়ার পথে অনেক কাহিনী রেখে যায় । কত দুঃখ কত আনন্দ পথের ওপরে। কেউ বলে যায় সুখের কথা কেউবা দুঃখের কথা। মনের সুখে কেউবা গেয়ে যায় তার ভালোবাসার কথা, কেওবা দুখের কথা । তবে গল্পের পুরোটা পথে বলে শেষ করা যায়না । গল্পের কিছু অংশ শুনাতে পারে, কিছু অংশ না শোনাই থেকে যায়। গল্পের বাকি অংশ শোনার জন্য অপেক্ষা করতে হয় কিন্তু বাকি অংশ আর শোনেই হয়না।এই পথ দিয়ে কত মানুষ হেটে যায়, কেউবা গাড়িতে করে, কেওবা হেটে । এলাকায় মাঝে মধ্যে পার্কিং এর জায়গার অভাব। এত মানু্ষের ভিড়ে পথ কাউকে কাউকে মনে রাখে, কাওকে মনে রাখেনা । তবে তাদের কারো সাথে আবার দেখা হবে বলে অপেক্ষা করে। তেমনি একজন ছিল একটা মেয়ে। পথের পাশে লাইটপোষ্টের ছায়ায় লেখক দেখে একটা ছেলে একটা মেয়ের হারানো বিজ্ঞপ্তির দিকে চেয়ে কিভাবে সময় কাটায়। হিজাব পড়া মেয়েদের নিয়ে কথা হয় তাদের মাঝে । সেগুলি দুঃখ্যেই ভারাক্রান্ত। এভাবে কিছুটা সময় কেটে যায়। কথাবার্তার মাঝে কেমন যেন একটি চাপা কান্নার জল পিচডালা পথের মাটিকে শিক্ত করে । কারণ হয়তবা সেই মেয়েটাই যাকে অনেকেই কষ্ট দিয়েছে। সেই যে মেয়েটা হারিয়ে গেল এর পর আর কখনো সে এই পথে আর আসবে কিনা কে জানে। ছেলেটি অধীর আগ্রহ নিয়ে হয়ত তার জন্য তার প্রতিক্ষা করবে কিন্তু সে কি আর আসবে এ পথে ? তা কেও জানেনা । কভু আসলেও থেকে যাবে চীর আচেনা !! এর জন্য দায়ী কে !!!

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ২:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমার ভাবনায় এত কিছু ছিলো না, আপনার অনুভবতা আমাকে নিজের লেখাটা আবার পড়তে বাধ্য করলো; আমি এখন একটু বেশী দেখছি, সবাইকে আরো কাছের থেকে দেখতে পাচ্ছি

৬| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ২:১৫

কাতিআশা বলেছেন: বুঝলাম, আপনি ব্রুকলীনের পার্ক স্লোপের কাছাকাছি কোথাও থাকেন! :D

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ৩:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:


কাছাকাছি

৭| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ২:৩৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: আমি কারো লেখা গল্প কবিতার মর্মকথা তেমন ভাবে বুঝতে পারিনা , এ আমার অক্ষমতা ,তবে গল্প কবিতার কথামালা হতে তাকে নীজের মনের মাধুরী মিশিয়ে নীজের মত করে বুঝতে চেষ্টা করি, এবং মন্তব্যের ঘরে তা অকপটে প্রকাশ করি । কখনো কখনো তা লেখকের নীজের ভাবনার সাথে মিলে যায়, কখনো বা হয়ে যায় একেবারেই উল্টা । লেখক তাঁর নীজ মহিমায় ভুলটা আমার শুধরে দেননা বলে তা বুঝতেও পারিনা , তখন আবারো দ্বিতিয় ভ্রান্তিপাশে পতিত হওয়ার জন্য ব্যকুল হয়ে পড়ি । এইতো ব্লগীও জীবন ।
ঠেকে ঠেকে শিখা , এর মাঝেই আনন্দ খুঁজা :)

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ৩:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনার মন্তব্যটা(৫ নং) আমাকে একটু বেশী দেখতে ও ভাবতে সাহায্য করেছে।

৮| ২০ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৫:২৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
খুবই উপভোগ করলাম আপনার লেখাটি।
আমাদের দেশেও মানুষ হারিয়ে যায়।
যারা হারিয়ে যায় তারা আর ফেরত আসেন না ।
কেউ কেউ বলে- গুম হয়ে গেছে। কি করে ফেরত আসবে?
প্রিয়জনরা অপেক্ষা করে কবে তারা ফিরে আসবে।
তারা ফিরে আসেনা।

২০ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৬:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


মানুষ হারিয়ে যাওয়া ভয়ংকর বিষয়; এধরণের সমস্যা সমাধানের জন্য দক্ষ কঠিন মানুষ্বের দরকার।

৯| ২০ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৬:৫৯

কালো যাদুকর বলেছেন: লিখাটি অসাধারন হায়েছে। আরো এরকম লিখুন। মানুষ হারানো যে ভয়াবহ ব্যাপার সেটা এর থেকে আর সহজ ভাবে বলা যেত না।
লেখকের পার্সোনালিটি টা মোটামুটি দেখতে পারছি।
অনেক ধন্যবাদ।

২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৮:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি যখন চাষী ছিলাম, আমার গরু হারিয়ে যেতো অনেক সময়; খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত খুবই বিমর্ষ থাকতাম; যাদের মানুষ হারিয়ে যায়, তারা কেমন অসহ্য যাতনায় দিন কাটায়!

১০| ২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৭:৪০

রাজীব নুর বলেছেন: না, কমাতে হবে না।

২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৮:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


রাজনীতি হলো সভ্যতার হৃদয় স্পন্দন

১১| ২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৮:৩৫

ওমেরা বলেছেন: আমাদের এখানেও এরকম মানুষ হারিয়ে যায়, অনেকেই ফিরে আসে আবার অনেকেরই খবর আর পাওয়া যায় না । কয়েক বছর আগে একটা বাংলাদেশী ছেলে হারিয়ে গিয়েছিল । সে লেখাপড়া বা কাজ কোনটাতেই ভালো করতে পারছিল না , এ কারনে তার আত্বীয় স্বজনরা তার উপর বিরক্ত ছিল আর সে ছিল হতাশ। সে তার বোন ও চাচার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় তিন মাস পরও সে যখন যোগাযোগ না করে তখন তার বোন তাকে খুঁজে না পেয়ে পুলিশের আশ্রয় নেয় তখন পুলিশ খুঁজে বের করে এক মাস হল সে মেট্রোর নীচে আত্বহত্যা করেছে ।
মেয়েটার যেন এরকম কিছু না হয় ।

২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৮:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংগালী ছেলেটি জীবনের মুল্য বুঝতে পারেনি; তার দরকার ছিলো, নিজের মতো করে বেঁচে থাকা। সভ্যতার এই সময়ে, মানুষ হারিয়ে যাওয়া বড়ই বেদনার বিষয়।

১২| ২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৯:৩০

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: মানুষ প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যাবে আবার ফিরে আসবে এটাই নিয়ম।

২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনি প্রকৃতিকে যখন এনেছেন, তখন বলতে হয়, প্রকৃতি যাকে নিয়ে যায়(মৃত্যু হয়), সে মানুষের শেষ সেখানেই; হোক সে ফেরাউন নেমেসিস, কিংবা সোনাগাজীর রাফি।

১৩| ২০ শে জুন, ২০১৯ সকাল ১০:৫৩

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: লেখা পছন্দ হইছে। হারানো মানুষটি ফিরে আসুক তার যেনো কোনো ক্ষতি না হয় সে দোয়াই করছি

২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:


সাদামেয়েটির কথা আমার ভালো লেগেছিলো, মেয়েটি পালিয়ে গেছে! পালিয়ে গেলে ফিরে আসবে সহজেই।

১৪| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:০৩

পুলক ঢালী বলেছেন: সুন্দর লিখেছেন। মানুষ হারিয়ে যাওয়া নুতন কিছু নয়। চিন্তা হয় হিজাবের কারনে মেয়েটিকে চিনতে না পারা। মেয়েটি স্বেচ্ছায় গিয়ে থাকলে সমস্যা নেই কিন্তু অপহৃত হলে তাকে দেখলেও কেউ চিনতে পারবেনা। হিজাবের কারনে মেয়েটির অসহায়ত্ব প্রকট আকার ধারন করছে। ওদের বেগ আবেগ দুটোই আছে তাই মেয়েটি ছবি মেইল করেছে আর ছেলেটি তার প্ল্যান বাদ দিয়ে ছবি প্রিন্ট করতে বাসায় ফিরে গেছে।
বাংলাদেশে এখন প্রাইমারী স্কুলের পিচ্চি পিচ্চি ছাত্রীদেরও হিজাব পড়তে দেখা যায়। মানুষকে দেহ সচেতন করে তোলা হচ্ছে এর বাহিরে যেন আর কোন ভাবনা নেই।

২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:০৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


পারিবারিকভাবে আমার ঘনিষ্ট এক মেয়ে হিজাব পরে ডাক্তারের অফিসে আমার পাশে বসেছিলো, আমি তাকে চিনতে পারিনি; সে কথা বলার পর চিনতে পেরেছিলাম। আমার হিজাবের পক্ষের লোক নই।

১৫| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:০৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: লেখাটা খুব ভালো লেগেছে।

ব্যক্তিগতভাবে আমিও কোন হিজাব পরা মহিলার মুখের দিকে তাকাই না। কাজেই বাইক আরোহীর মতো আমারও হিজাব পরিহিতাদের একই বলে মনে হয়। উপমহাদেশের এরকম একটি মেয়ের মিসিং হওয়া আর আপনার গল্পে মেয়েটির মিসিং হওয়ার মধ্যে আর্থ- সামাজিকভাবে অনেক প্রভেদ আছে। আশা করি কোন না কোন সু-হৃদ ব্যক্তি এবং প্রশাসন উপযুক্ত পদক্ষেপ নেবেন। মেয়েটি সুরক্ষিত অবস্থায় তার পরিবারের কাছে ফিরে আসুক কামনা করি।

২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমেরিকায় মেয়ে হারিয়ে যায়, এর থেকে কষ্টকর কিছু নেই; কিছু মেয়ে নিজের ভুলের জন্য এর শিকার হয়।

১৬| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:০৯

মোগল সম্রাট বলেছেন: মানুষ হারানো আর মেয়ে হারানো বিস্তর তফাৎ গাজী ভাই, সেটা বাংলা হোক আর ইংরেজ হোক। আপনার তো কাব্য চেতনা খ্রাপ না। চলুক দুই একটা এমন পোস্ট

২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:৫৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমেরিকায় মেয়ে হারানো হচ্ছে জাতীয় ট্রেজেডি; ৩য় বিশ্বে মানুষ হারানোও ভয়ানক র‌্যাপার

১৭| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ১:৫৩

কানিজ রিনা বলেছেন: মেয়েটার কোনও খোজ পেলে আবার
লিখেন। ধন্যবাদ।

২০ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১০

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি চোখ রাখবো; মেয়েদের ফিরে পেলে তেমন খবর কেহ দেয় না।
এর বয়াপারে আমি খবর রাখবো।

১৮| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:৩২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: ১৬ বছরের মুসলিম হোক আর অমুসলিম একটি মেয়ে হারিয়ে গেছে ! আমি দোয়া করি মেয়েটির যেনো কোনো ক্ষতি না হয়, মাতাপিতার উপর দিয়ে কি ঝড় যাচ্ছে একমাত্র তারাই জানে। অনেকে আছেন যারা দাড়াবেও না অনেকে এক ডলার দিয়ে চলে যাবে আর কেউ কেউ ছবিটি শেয়ার করবেন মেয়েটির সন্ধার করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাবেন - আমরা মানুষ হতে অমানুষে দ্রুত রুপান্তর হচ্ছি।

নিজাম উদ্দিন মন্ডল উরুফে পাঠকের প্রতিক্রিয়ার কমেন্টে ট্রিপল মাইনাস। তার পরিবারের কোনো মেয়ে হারানো যাক তখন তার আক্কেল ঠিকানায় আসবে ।।

হিজার মানুষের চেহাড়া পাল্টে দেয়। মুল চেহাড়া চেনা দুস্কর।

২০ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমেরিকার মতো দেশে, ছেলেমেয়ে হারিয়ে যাওয়া এক চরম বিপত্তি

১৯| ২০ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:৪৩

বলেছেন: শিরোনামটি যথেষ্ট জ্ঞানগর্ভ।।।।

কাছে থেকেও অচেনা!!! -- এটাই জীবনের সমীকরণ।।

২০ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি ভাবছিলাম বদলাবো, তা'হলে দরকার নেই!

২০| ২০ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: তাজ উদ্দিন আহমেদ এর নাতিকে ফিরে পাওয়া গেছে।

২০ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


সে কোথায় হারায়েছিলো, বাংলাদেশে, নাকি আমেরিকায় ?

২১| ২০ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনি চমৎকার একজন লেখক !
৩ নং মন্তব্যে সহমত।

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি জানি, জাপানের লোকজন আমার ভালো প্রতিবেশী।

২২| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ৮:৪৮

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: ভিন্ন প্রসঙ্গ: - চাঁদগাজী ভাই,
ব্লগে যেই কয়েকজন শক্তিমান লেখক আছেন তার মধ্যে আপনি একজন, যেদিন আপনি লেখা বন্ধ করবেন সেদিন আরো অনেকে লেখা বন্ধ করবে তাদের মধ্যে আমিও একজন। এখন আপনার প্রতি অনুরোধ এবং দাবী - “নাদান, পিগমী, প্রাগৈতিহাসিক ফসিল, গুহামানবদের” সাথে কোনো কথা বলার প্রয়োজন নেই, তাদের একমাত্র কাজ সামহোয়ারইনব্লগ বন্ধ করে দেওয়া আর সাথে আমাদের লেখাও বন্ধ করে দেওয়া। বাজে মানুষের সাথে কথা বলার সময়টাকে বাজে সময় বলা হয়।

প্লিজ তাদের সাথে কথা বলে নিজের মনে কষ্ট নিবেন না। এরা হচ্ছে অন্ধকার যুগের গুহামানব। তাদের জায়গা অন্ধকার কয়েদখানায় হওয়া উচিত বলে মনে করি। সামহোয়ারইনব্লগটাকে তারা ডুবিয়েও ক্ষান্ত হয়নি।


২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ৯:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি সঠিক কথা ভেবেছেন, ধন্যবাদ! গুহামানবরা গুহার ভেতরে পাথর নিয়ে প্রাণভরে খেলুক!

২৩| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:১৪

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: সাদা আমেরিকান!
বর্ণবাদী মানসিকতা নিয়ে চললে হবে কি করে?

আর মুসলমান পরিবারের মেয়েদের পর্দা করা ফরজ করা হয়েছে।কেন করা হয়েছে তা নিশ্চয়ই ভালো করেই জানেন আপনি।পর্দা কোন বন্দী দশা নয় বরং আত্মসম্মানের প্রতিগুরুত্বশীল হওয়ার জন্যই সেটা করতে বলা হয়েছে।

আর মেয়েটির বিষয়ে আপনি যে ধারনা উল্লেখ করেছেন সেটা বোকামী ছাড়া কিছুই নয়।

নিজেকে সংশোধন করুন।

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার মন্তব্য গোবরের মতো শক্তিশালী

২৪| ২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:৩০

আহমেদ জী এস বলেছেন: চাঁদগাজী,




ঠিক কি বলবো বুঝতে পারছিনে! আবেগহীনদের দেশে যে নির্ভেজাল মানবিকতার আবেগও থাকে তা, না কি হিজাবে চেহারা ঢেকে রাখার কারনে অসময়ে পরিত্রান পাওয়ার সুযোগ হারানোর বিড়ম্বনা !
তারচে' এটা বলা মনে হয় সহজ - চমৎকার লিখেছেন, এন্ডিংটা দারুন কুশলী। কৃষণ চন্দর বা সাদত হোসেন মান্টোর মতো ।

২০ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্রকৃতির নিয়মকে না মানলে, বিপদের সময় অজানা ও অনাকাংখিত ফ্যাক্টর যোগ হয়ে, সমস্যাকে কঠিন করে দিটে পারে।

২৫| ২১ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৬:০১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
সোহেল তাজ সাহেবের ভাগ্নে। চট্টগ্রামে হারিয়ে গিয়েছিল। মানে অপহরণ। পরে উদ্ধার।

২১ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৬:৪৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি আগে বলার পর, আমি সংবাদে দেখলাম; বাংলাদেশে ভয়ংকর পরিস্হিতির সৃষ্টি হয়েছে

২৬| ২১ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৭:৩৭

বঙ্গদুলাল বলেছেন: মাঝে মাঝে মনে হয় আপনি অনেক কঠিন হৃদয়ের অধিকারী একজন মানুষ।আবার মাঝে মাঝে মনে হয় পৃথিবীর সব মানুষের জন্য আপনার একটি কোমল সুন্দর মন আছে।কীভাবে পারেন শীর্ষে থাকতে!আপনি শৈশব থেকেই অনেক দক্ষ, মজার একজন মানুষ ছিলেন;আমার মনে হয়।শ্রদ্ধা জানবেন!

২১ শে জুন, ২০১৯ সকাল ৯:১১

চাঁদগাজী বলেছেন:


ধন্যবাদ, আমি সবার মতোই একজন সাধারণ মানুষ; তবে, আশেপাশে মানুষের সাথে কথা বলে একটা সাধারণ সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারি।

২৭| ২১ শে জুন, ২০১৯ রাত ৮:৫৩

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: চমৎকার লেখা....

২১ শে জুন, ২০১৯ রাত ১০:২৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


আসলে, নাকি বলার জন্য বলা?

২৮| ২১ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:০২

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আপনার লেখাটি যদি একজন শক্তিমান লেখক পড়ে লেখার উপর দু, একলাইন লিখেন হয়তো সুন্দর একটি চরিত্রের চিত্রায়ন লক্ষকরবেন। আবার কেউ যদি অন্যকোন অর্থে দেখেন হয়তো সে ভাববে অন্য আরেকটি সারমর্ম কিন্তু লেখকরা যে সকল চরিত্র সৃষ্টি করেন তা যে তাদের কল্পনা শক্তির বর্হিপ্রকাশ। লেখকদের লেখায় তাদের আসল পরিচয় পাওয়া যায়। সমালোচনা করা পছন্দ অনেক যু্ক্তিহিন তর্ক মোটেও কামনা নয়। ব্লগে সবাই এক একজন শক্তিমান কলম সৈনিক হবে এই আশা করতে পারি। সবার উন্নত ব্লগিং কামনা করছি।

২১ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


সঠিক

২৯| ২১ শে জুন, ২০১৯ রাত ১১:৫৫

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: আসলেই

২২ শে জুন, ২০১৯ রাত ১২:৫০

চাঁদগাজী বলেছেন:


সাধারণ মানুষ (ব্লগার নন) পড়বেন?

৩০| ২২ শে জুন, ২০১৯ রাত ১:৩০

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: সাধারণ মানুষ অবশ্যই পড়বেন।

২২ শে জুন, ২০১৯ ভোর ৪:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার অনুমানের (প্রেডিশানের) জন্য ধন্যবাদ

৩১| ২২ শে জুন, ২০১৯ দুপুর ২:৩৭

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর।+

:)

২২ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


ধন্যবাদ, সাধারণ মানুষ এগুলো পড়বেন?

৩২| ২২ শে জুন, ২০১৯ রাত ৯:৩৬

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: আপনার অনুমানের (প্রেডিশানের) জন্য ধন্যবাদ

প্রেডিশান

২৩ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


'ক' বাদ পড়ে যাওয়ায় সমস্যা হয়ে গেছে

৩৩| ২৪ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৫

গড়ল বলেছেন: বাংলায় একটা প্রবাদ আছে, ঘোমটার ভেতর খেমটা নাঁচে, কথাটা খুবই বাস্তব।

২৪ শে জুন, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


অপ্রয়োজনীয় সমস্যার সৃষ্টি করছে কিছু মানুষ।

৩৪| ২৬ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৩

হাসান রাজু বলেছেন: -বাসায় গিয়ে ছবিটা প্রিন্ট করবো; আবার দেখা হবে

এরপর কিভাবে মানি ওদের আবেগ নাই।

২৬ শে জুন, ২০১৯ বিকাল ৫:০৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমেরিকানরা পরিচিত ও প্রতিবেশী, বা একজন আমেরিকানের জন্য অনেক কিছু করেন; এরা হাউকাউ কম করে, সাহায্য ঠিকই করে।

৩৫| ২১ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৬

MirroredDoll বলেছেন: আই উইশ মেয়েটা যেখানেই আছে যেন সেইফ থাকে ।
আপনার লেখা অবশ্যই ভালো লেগেছে কিন্তু তার চেয়ে অনেক বেশী ভালো লেগেছে নাম্বার নাইন কমেন্টে আপনার উত্তর ।

২১ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:০৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



৯ নং মন্তব্যের প্রতিউত্তরটা আমার বেশ কষ্টের অভিজ্ঞতার কথা

৩৬| ২১ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৮:২০

ইসিয়াক বলেছেন: খুব ভালো লিখেছেন। আশা করি মেয়েটির কোন বিপদ হবে না। সে ভালভাবে ফিরে আসবে। পরিবারের সাথে সুখে শান্তিতে থাকবে।
শুভসন্ধ্যা ।

২১ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আশাকরি

৩৭| ২২ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ৩:০৫

MirroredDoll বলেছেন: I understood absolutely.
How Intense your feelings!!!!

৩৮| ২২ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমার অনুভুতি কষ্টের, কিন্তু এই বিষয়ে সজাগ

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.