নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

সামুর ব্লগারদের করোনা ভাইরাস ও জ্বীন নিয়ে বিশেষ জ্ঞান

২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৪:০৭



চীনের উহানে করোনা শুরু হওয়ার পরপরই সামুতে করোনার উপর পোষ্ট আসার শুরু করেছে; করোনার ভাইরাস, ইহার সায়েন্টিফিক ব্যাখ্যা, ইহার এনাটমি, ফিজিওলোজী, জেনোম ইত্যাদি নিয়ে সামুর ব্লগারেরা অনেক আলাপ আলোচনা করেছেন। শুরুতে ইহাকে গজব, সৃষ্টিকর্তার পরীক্ষা মরীক্ষা বলে কয়েকজন ব্লগার নিজেদের জ্ঞান জাহির করার পর, এক সময় সেগুলো বাদ দিয়ে টিকা মিকা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে গেছেন। করোনা সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান বাড়াতে, আজ অবধি ব্লগারেরা খুবই ভালো আছেন, সুস্হ আছেন।

করোনার পেথোজেন থেকে শুরু করে এন্টিবডি অবধি বুঝতেছেন ব্লগারেরা। শুরুতে ইহার সংক্রমণ সম্পর্কে সঠিক তথ্যের অভাবে, কিংবা পরিবারে ২ জন ডাক্তার থাকার কারণে ব্লগার ড: এম আলী ইহাতে ভুগেছেন। এই ভাইরাসের ফলে সৃষ্ট অসুস্হতার ভয়ংকর কষ্টের কথা তিনি বলেছেন; এবং সময় করে ইহা নিয়ে লেখার কথাও তিনি বলেছেন।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতদের ডাটা ব্লগারেরা প্রতিদিন পাচ্ছেন, এখন বিশ্ব অপেক্ষা করছে টিকার জন্য; টিকা আসবে পশ্চিমের দেশ থেকে, কিংবা চীন থেকে। এই টিকার জন্য বিপুল পরিমাণ টাকা বিনিয়োগ করেছে ধনীদেশগুলো, বিশ্ব স্বাস্হ্য সংস্হা ও অনেক ধনী লোকজন। টিকা সম্পর্কে সামুতে সর্বশেষ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে নিয়মিত। করোনা টেষ্ট নিয়ে ব্লগারদের ধারণা বেশ পরিস্কার। অর্থনীতি, স্বাস্হ্য ও মানব সমাজের উপর করোনার ব্যাপক প্রভাব ব্লগারদের কাছে পরিস্কার; করোনা বিশ্বকে এক ভয়ংকর স্হবিরতা ও অনিশ্চয়তার মাঝে ঠেলে দিয়েছে।

করোনা ভাইরাস মানুষের শরীরে, শিরা উপশিরা হয়ে বিভিন্ন অংগকে আক্রমণ করে; ইহার অনেক ধরণের আক্রমণের মাঝে সবচেয়ে খারাপ আক্রমণ হচ্ছে নিমোনিয়া ও ষ্ট্রোক; যারা সুস্হ হচ্ছেন, তাদের দীর্ঘমেয়াদী শারীরিক সমস্যা সম্পর্কে কথা হচ্ছে।

জ্বীন সম্পর্কে ব্লগে অনেক ইন্টারেষ্টিং পোষ্ট আসে; এসব ব্লগারেরা লিখছেন যে, জ্বীনেরা ভাইরাসের মতো মানুষের শরীরে, শিরা উপশিরা হয়ে দেহে প্রবেশ করতে পারে, মাথায় চলে যায়; আমার মনে হয়, এই কারণেই যাদের উপর জ্বীনের আছর হয়, তারা বকাবকি করতে থাকে, বল প্রয়োগ করে, জ্ঞান হারায়। জ্বীন ভাইরেসের আকার ধারণ করতে পারে, আবার জ্বীন সাপ বা কুকুর হয়ে লোকালয়ে ঘুরে, আকাশে উড়ে, হাড্ডি খায়, ধর্ম পালন করে, মাদ্রাসায় পড়ে, তাদের পরিবার আছে, বিচিত্র সব ব্যাপার। ব্লগারদের করোনা জ্ঞানের সাথে ইহার কোন মিল আছে?

করোনা নিয়ে আমেরিকা, ই্উরোপ ও চীনের সায়েনটিষ্টরা কাজ করছেন; তাঁরা বলছেন, করোনাকে তারা থামাতে পারবেন, ইহা সময়ের ব্যাপার। এদিকে জ্বীনের অত্যাচার চলছে কয়েক হাজার বছর ধরে, কিন্তু সায়েনটিষ্টদের কোন মাথা ব্যথা নেই, যত মাথা ব্যথা মোল্লাদের ও ব্লগারদের। এটার একটা কারণ হতে পারে, জ্বীনেরা বেশীর ভাগই টার্গেট করে বাংগালী ও সামান্য পরিমাণ মুসলিমদের। মুসলিমদের প্রতি বিশ্বের অন্যদের কোন সহানিভুতি না থাকায় কেহ আজো ইহা নিয়ে চিন্তিত নয়, কোন টিকা তৈরিরও আলাপ আলোচনা হচ্ছে না। কয়েকজন ব্লগার যেভাবে জ্বীনদের ফিজিওলোজী, মিজিওলোজী নিয়ে লেগেছেন, তাঁরা উহার জেনোম বের করে ছাড়বেন, মনে হচ্ছে।

মন্তব্য ৯৬ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৯৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৫:৪১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
আমরা যাকে শয়তান বলে মানি তিনি আসলে এক সময় জ্বিন ছিলেন।
জিনেরা আগুণের তৈরী।
তাদের অনেক ক্ষমতা রয়েছে যা মানুষের নেই।
বাংলাদেশের অনেক মানুষকে বিশেষ করে মহিলাদেরকে জ্বিনে ধরে।
তখন পীর ফকির দিয়ে ঝাড়ফুক দিতে হয়।
এতে করে জ্বিন বাপ বাপ বলে পালিয়ে যায়।
জ্বিন আমার খুব প্রিয় প্রাণী।

২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৫:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীন শুধুমাত্র বাংগালীদের ও আরবী মুসলমানদের টার্গেট করায়, উহা বেঁচে আছে; না হয়, অনেক আগে ইহাকে টিকা দিয়ে কন্ট্রোলে নিয়ে আসতো পশ্চিমের লোকজন।

২| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:১৩

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: জ্বীন বিভিন্ন কিসিমের হয় এবং বিভিন্ন রূপ ধারণ করতে পারে। বাংলাদেশে একটা জ্বীন লুচ্চা ও দুর্নীতিবাজ এক রাষ্ট্রপ্রধানের রূপধারণ করে দীর্ঘদিন দেশ শাসন করেছিল। বড়োই কামেল জ্বীন আছর করেছিল তাকে। ওই জ্বীনের আছরের প্রভাবে এখনো জাতির এক বিশাল অংশ লুটপাট, দুর্নীতি ও ভোগবিলাসে মত্ত।

২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



তা'হলে ভাইরাস শুরু থেকে করে রাষ্ট্র-প্রধান অবধি হতে পারে জ্বীনেরা? ভয়ংকর সব ব্যাপার!
কিন্তু ইহারা নাকি শুধু হাড্ডি খায়? যখন রাষ্ট্র-প্রধান রূপে ছিলো, তখন তো সব খেয়েছে!

৩| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:২১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
জিনের বাদশা নাম দিয়ে বছর কয়েক আগে কিছু প্রতারক মানুষের মোবাইলে কল করতো এবং নানা ভয়-ভীতি ও প্রলোভন দেখিয়ে তাদের টাকা হাতিয়ে নিত।

এরকম ঘটনা অনেক আছে। তবে সবাই যে তাদের ফাঁদে পা দিতে তা না । তবে অনেকেই পা দিয়ে সর্বস্বান্ত হয়ে যেত। এই জিন প্রতারকরা মহিলাদেরকে বিশেষভাবে কাবু করে ফেলত। ছেলেদেরকে কাবু করতে তারা অনেক সময় ব্যর্থ হত।

২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:২৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীন থাকলে বাদশাহ থাকার কথা; ধর্মীয় পুস্তকে সবই বলা আছে।

৪| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:৩১

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: লেখক বলেছেন:
জ্বীনেরা নাকি শুধু হাড্ডি খায়? যখন রাষ্ট্র-প্রধান রূপে ছিলো, তখন তো সব খেয়েছে!


ওই জ্বীনটা অমনিভোরাস (সর্বভুক) ছিল, সবই খেতে পারতো। আর জ্বীনটা বাচ্চা দিতো গন্ডায় গন্ডায়,তাই তার ছানাপোনায় এখন গোটা দেশ ভরে গেছে ! =p~

২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



এই কারণে বাংলাদেশে জনসংখ্যার বিস্ফোরণ ঘটেছে; জ্বীন-প্রেসিডেন্টের ছানাপোনারা ব্লগেও আছেন, মনে হয়; তাই, বাদশাহ সোলাইমান থেকে জ্বীনের বাদশাহদের উপর পোষ্ট আসছে ব্লগে।

৫| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:৫০

সুপারডুপার বলেছেন:



কোরআন অনুসারে, জ্বিনেরা রাণী বিলকিসের সিংহাসন তুলে আনার ক্ষমতা রাখে (রেফঃ কোরান ২৭:৩৮-৩৯) , দুর্গ, ভাস্কর্য, হাউযসদৃশ বৃহদাকার পাত্র এবং চুল্লির উপর স্থাপিত বিশাল ডেগ নির্মাণ করতে পারে (রেফঃ কোরান ৩৪:১২-১৩)।

পৃথিবীতে খালি চোখে দেখা যায় না এমন প্রাণীর নাম ব্যাকটেরিয়া ভাইরাস। এদের বিজ্ঞান খুঁজে বের করেছে অনুবিক্ষণ যন্ত্র আবিস্কার করে। মজার ব্যাপার, জ্বিনেরা সিংহাসন তুলে আনতে পারে, দুর্গ- ভাস্কর্য নির্মাণ করতে পারে, অথচ বিজ্ঞান তাদের খোঁজ পেলো না। শুধুমাত্র দাড়িঅলা পাগরিঅলা লোকজনরাই তাদের সন্ধান পেল। মোমেন মোসলমানরা বিশ্বাস করে কিয়ামত পর্যন্ত কোরআন পরিবর্তন হবে না, তাই মোসলমানদের উপর জ্বীনের অত্যাচারও কিয়ামত পর্যন্ত থাকবে।

কোরআনে এটাও বলা আছে , জ্বীনেরা আগুনের তৈরী (রেফঃ কোরান ১৫:২৭) । কাজেই ঐসব ব্লগারদের শিরা উপশিরা মাথায় আগুন উঠলে কেমনে করে তাদের মাথা ঠিক থাকবে, বলেন !

২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ৭:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



কোরান আসার আগের থেকেই বেদুইনদের জ্বীন বিশ্বাস ছিলো, রূপকথায় জ্বীন ছিলো; ভারতেও ছিলো, ভুত, পেত্নী ও দানবের রূপকাহিনী।

৬| ২০ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৬:৫৭

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: জ্বীন যার প্রিয় প্রানী,সেইতো জ্বীনের বাদশাহ।
রাশিয়া দাবি করছে তাঁরাই বাংলাদেশকে প্রথম টিকা দিবে।
বিজ্ঞানীরা বিশ্বাসীদের এই সব দাবিকে গনার মধ্যেই আনে না,তাই তারা গবেষণাও করে না।

২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ৭:৫০

চাঁদগাজী বলেছেন:



রাশিয়া চিকিৎসা বিজ্ঞানে পশ্চিমের সমকক্ষ।

জ্বীনেরা বাংগালীদের টার্গেট করায় বাকীরা ইহা নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না; সমস্যা হচ্ছে, কিছু ব্লগার জ্বীনের উপর স্পেশালিষ্ট হয়ে গেছেন।

৭| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ৯:৫১

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: জীনদের কী বিয়ে শাদি হয়?

২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ২:৫৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমার মতে জ্বীন মীন নেই। বিবিধ পোষ্ট থেকে এসেছে যে, জ্বীনেরা বাংলাদেশের মাদ্রাসায় পড়ে, এবং পরিবার আছে; তা'হলে বিয়েও হয় নিশ্চয়।

৮| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:১৮

শেরজা তপন বলেছেন: গত চারদিন ধতে গন্ধ আর স্বাদ-হীন পৃথিবী একদম অচেনা লাগছে ভায়া।
:) ভাল লিখেছেন- তবে একটা ব্যাপার স্বীকার করতে হবে, ঘরে ঘরে আমাদের বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের ডাক্তারি এবার কিছু উপকারে লেগেছে।আমরা শুধু খারাপ সংবাদ্গুলো ফোকাস করি-সামাজিক ও পারিবারিক বন্ধন যে কোন সমস্যা মোকাবিলার একটা বড় মাধ্যম।

২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ২:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


গত ৪ দিন নিয়ে আপনি আরেকটু পরিস্কারভাবে লিখুন।

অশিক্ষিত ও বিশৃংখল দেশে মানুষকে নিজ চেষ্টায় বাঁচতে হয়; আমাদের স্কুল জীবনের সময়, যেকোন মানুষ নিজে গিয়ে ফার্মেসী থেকে "এন্টিবাইওটিক" কিনতে পারতেন। এখন কি অবস্হা?

৯| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:২০

লরুজন বলেছেন: জ্বীনে হাড্ডি খায় কি ঘুড্ডি উড়ানির লাই নি?
বেবাকের পুস্ট দেইক্কা আমার মনে অইতাছে জ্বীনে হাড্ডি খায় না
জ্বীনের আসল খাওন অইতাছে গিয়া মানুষের ব্রেইন!
জ্বীনে মানুষের মগজ খায়

- ব্লগে কোনো কামেল হুজুর নাই? এহন মনে অইতাছে ব্লগের সার্ভারে পানি পড়া ছিটাইতে অইবো


২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীন-পরী, দৈত্য-দানব, ভুতপেত্নী ইত্যাদি হচ্ছে রূপকথার চরিত্র; ব্লগে পোষ্ট দিয়ে এদের এনাটমি, ফিজিওলোজী ইত্যাদি প্রতিষ্ঠিত করার প্রচেষ্টা সঠিক নয়।

১০| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:২৫

শাহ আজিজ বলেছেন: ডাঃ এম এ আলী নিশ্চয়ই এখন পুরো সুস্থ আছেন । ভাল থাকুন ।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:



তিনি ও উনার পরিবারের সবাই সুস্হ আছেন।

১১| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:৪৭

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: তুড়ি মেরে সবকিছু উড়িয়ে দেবার দক্ষতা ভালোই রপ্ত করেছেন।করোনা, পশ্চিমের সাইন্টিস্ট, ও জীনের যুদ্ধ এখন লাগবে কে সর্বপ্রথম হেরে যাবে?

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:০৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



জীনযুদ্ধ আপনার হারার সম্ভাবনা আছে; আপনাদের মতো মানুষের সংখ্যা বাড়লে বাংলাদেশও হারবে।

১২| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:২৩

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: বিশ্বাসীর জীন জাতিতে বিশ্বাস করে কারণ এর কথা কোরআনে আছে। কেউ বিশ্বাস না করলে সে অবিশ্বাসী কারণ সে এক্ষেত্রে কোরআনের আয়াত অবিশ্বাস করছে। জীন চোখে দেখা জরুরী না। এই যুগে কেউ দেখে থাকতে পারে হয়তো। বিভিন্ন মানসিক ব্যাধিকে অনেক সময় খারাপ লোকেরা জীনের আসর বলে। সেক্ষেত্রে ডাক্তার দেখানো উচিত। অলৌকিক কোনও ঘটনা মানেই জীনে করেছে এরকম মনে করার কোনও কারণ নেই। অনেক অলৌকিক ঘটনার ব্যাখ্যা পাওয়া গেছে। ভবিষ্যতে হয়তো আরও পাওয়া যাবে। কাজেই জীন দেখা, অলৌকিক ঘটনা এগুলি বিষয় না। বিষয় হল জীন নামে একটা জাতির কথা আল্লাহ্‌ আমাদের বলেছেন তাই এটার আছে আমাদের বিশ্বাস করতে হবে। জীনের অস্তিত্ব নিয়ে। সেই জীন যেখানেই থাকুক না কেন বা তাকে কেউ দেখলো বা না দেখলো এটা বিষয় না। ধর্মের বিশ্বাস নিয়ে আপানাদের লেখার কোনও যৌক্তিকতা আমি দেখছিনা। ফেরেশতা থাকতে পারলে জিনও থাকতে পারে। ফেরেশতা আলোর তৈরি। এবার ফেরেশতার ব্যাপারে কিছু লিখুন। আমি একটা ক্লু দিলাম।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:


ধর্ম এক সময় দেব দেবীতে ছিলো (গ্রীক, রোমান ও হিন্দু ধর্ম); ধর্ম অনেক বিবর্তনের মাঝ দিয়ে যাচ্ছে, উহার আরো বিবর্তন হবে।

ধর্ম যখন দেব দেবীতে ছিলো, সেখানে হারকিউলিস ছিলো, দানবেরা ছিলো, ড্রাগন ছিলো; এখন ধর্মে জ্বীন আছে। এখন গ্রীক ও রোমান ধর্ম নেই, দেবদেবীরা কমে এসেছে, ড্রাগন নেই; এক সময় জ্বীনও থাকবে না।

১৩| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:২৯

কবিতা পড়ার প্রহর বলেছেন:
করোনা নিয়ে আমেরিকা, ই্উরোপ ও চীনের সায়েনটিষ্টরা কাজ করছেন; তাঁরা বলছেন, করোনাকে তারা থামাতে পারবেন, ইহা সময়ের ব্যাপার। এদিকে জ্বীনের অত্যাচার চলছে কয়েক হাজার বছর ধরে, কিন্তু সায়েনটিষ্টদের কোন মাথা ব্যথা নেই, যত মাথা ব্যথা মোল্লাদের ও ব্লগারদের। এটার একটা কারণ হতে পারে, জ্বীনেরা বেশীর ভাগই টার্গেট করে বাংগালী ও সামান্য পরিমাণ মুসলিমদের। মুসলিমদের প্রতি বিশ্বের অন্যদের কোন সহানিভুতি না থাকায় কেহ আজো ইহা নিয়ে চিন্তিত নয়, কোন টিকা তৈরিরও আলাপ আলোচনা হচ্ছে না। কয়েকজন ব্লগার যেভাবে জ্বীনদের ফিজিওলোজী, মিজিওলোজী নিয়ে লেগেছেন, তাঁরা উহার জেনোম বের করে ছাড়বেন, মনে হচ্ছে।

ভাই আপনার সাহস তো কম না! মোল্লারা/ব্লগারেরা মিলে এইবার তো জ্বীন ছেড়ে আপনার ঘাড়ে চাপবে মনে হইতেছে। আমিও এই পোস্টে কমেন্ট দিয়া দুঃসাহসের কাজ করলাম মনে হয়।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



মোল্লারা বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধীতাও করেছিলো, থামাতে পারেনি।

১৪| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:৩১

কবিতা পড়ার প্রহর বলেছেন: পোস্টখানা বড়ই মজার আর লরুজনের কমেন্ট দারুন। তাই লাইকও দিলাম।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভালো কাজ করেছেন, ধন্যবাদ।

রূপকথা ব্লগে রূপকথা হিসেবে এলে অসুবিধা নেই। করোনা ব্লগারদেরকে সায়েন্টিফিক্যালী ভাবতে সাহায্য করেছে, কিংবা বাধ্য করেছে।

১৫| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:৫০

নিঃশব্দ অভিযাত্রী বলেছেন: এইদেশের মানুষের প্রধান সমস্যা হচ্ছে না জেনে আন্দাজে অনরগল উল্টা পাল্টা কথা বলে যায়।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


পাগলামী করে জাতি তলানীতে পড়ে আছে; কিন্তু ব্লগ নিশ্চয় পাগলামীর যায়গা নয়।

১৬| ২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১২:০৭

হাসান রাজু বলেছেন: আমার গ্রামের মানুষ (অনেকে) এই মুহূর্তে চিকিৎসা থেকে দূরে আছে। তাদের ধারনা এখন হাসপাতালে গেলে ডাক্তাররা করোনা হয়েছে বলে ইনজেকশন দিয়ে মেরে ফেলবে। পুরো বিশ্বে বিশেষ করে আমেরিকায় একাজ হচ্ছে বেশি। এখন এদেশে ও এই কুকর্ম শুরু হয়েছে।

মনে জ্বীন সহিষ্ণু পরিবেশ তৈরি হচ্ছে। জ্বীনেরা এসে বসত গড়বে। সেই জ্বীন তাড়াতে ওঝা লাগবে। হাসপাতাল/ডাক্তাররা অনেক দামি। বিশ্বস্ততা হারাচ্ছেন। মোল্লা/ওঝাই ভরসা।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



ফেব্রুয়ারীর দিকে ব্লগের পোষ্টে বলা হয়েছিলো যে, বাংলাদেশের মতো দেশে,যেখানে স্বাস্হ্যসেবা প্রাইভেট কোম্পানী ও অসৎ ডাক্তারদের হাতে, সেখানে করোনার চিকিৎসা অনেকটা হবে না; ডাক্তার, নার্সরা পালিয়ে বেড়াবে।

প্রাইভেট থেকে যারা ডাক্তার হচ্ছে, এরা ডাক্তার নয়।

১৭| ২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১২:২৮

লরুজন বলেছেন: @কবিতা পড়ার প্রহর
দুইদিনে লরুজনকে চিনে ফেলেছেন???,,, =p~
আপনে চকলেট গিফট পাইবাইন!!!,,, =p~

ভাইয়ামনি,,,
মাল্টি আমরাও কিছু চিনি কিছু গুড়!!!,,, =p~
কাভি আটাময়দা কাভি গম!!!,,, =p~

১৮| ২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:০৫

রাশিয়া বলেছেন: সামুর কোন ব্লগার করোনাকে আল্লাহ্‌র গজব বলেনি। আমি মনে করি ব্লগাররা অনেকাংশেই বাস্তববাদী

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভালো, পোষ্ট পড়ার শুরু করেন; কম বুঝলে টিউটরের কাছে যাবেন।

১৯| ২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:১৭

পগলা জগাই বলেছেন: ‌ইসলাম ধর্মের মানুষ হিসেবে জ্বীনে বিশ্বাস করা ইমানের অংশ। বিশ্বাস করতেই হবে। উপায় নেই।
তাই বলে জ্বীনে মানুষের উপরে ভর করতেছে, নানান আকাম-কুকাম করতেছে এই সব গাজাখুরী জিনিস বিশ্বাস করি না।
সৌদি আরবের "জ্বীন পাহাড়" জ্বীন বিশ্বাসীরা একটি বাস্তব প্রমান হিসেবে দেখেন। অথচো সামান্য ঘাটাঘাটি করলেই তার আসল সত্য বেরিয়ে আসে। এই একই কেরামতি ওয়া আরো নানান পাহার আছে নানান যায়গায়। আমাদের প্রতিবেশী ভারতেও আছে, লেহতে।
মূল কথা জ্বী আদিতে ছলো, এখনো হয়তো আছে। তবে ধর্মমতেই তাদের বাসস্থান পৃথিবী নয়।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীন বেদুইনদের রূপকথায় ছিলো, এখন বাংলাদেশের মোল্লাদের মাথায় আছে। আমেরিকায় ১০/২০ জনকে জ্বীনে ধরলে এতদিনে টিকা ও ঔষধ বাজারে চলে আসতো।

২০| ২০ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: একটা কমেডি মুভি দেখলে যে আনন্দ পাওয়া যায় তারচেয়ে বেশি আনন্দ পাওয়া যায় জ্বীনদের কর্মকান্ড জানলে। এই আধুনিক যুগে এসেও জ্বীনদের ইতিহাস আমাকে আনন্দ দেয়।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:২৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীনপরী, ভুতপেত্নীর, দৈত্যদাবনের রূপকথার জনপ্রিয়তা এখনো বাড়ছে; কিন্তু উহাকে সত্য বলে প্রতিষ্টা করার অপচেষ্টা ভালো আইডিয়া নয়।

২১| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৫৯

হাসান জাকির ৭১৭১ বলেছেন: ছোটবেলায় পরীদের গল্প শুনতাম!
শুনতাম পরীরা অপরুপ সুন্দরী , তারা সুন্দর ছেলেদের অসময়ে একাকি পেলে ধরে নিয়ে যায় তাদের রাজ্যে, যেখানে নানা রকম সোনাদানা, মনি-মানিক্যে ভরপুর । তারা মজার মজার খাবার খেতে দেয়, যারা তা খায় তাদেরকে তারা রেখে দেয় ও বিয়ে করে। আর যারা খায় না, পৃথিবীতে আসার জন্য কান্নকাটি করে তাদেরকে কোন উচু গাছের মগডালে রেখে যায়।
এসব গল্প শুনে পরীদের রাজ্যে যাবার জন্য কত রাত, কত অসময় যে বাইরে কাটিয়েছি, অথচ আজও পরীর দেখা পেলাম না............

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:০৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



পরীরা আপনাকে মিস করেছে কোনভাবে, সময় এখনো আছে।

মোল্লাদের ব্যাপার স্যাপার নিয়ে ব্লগারেরা যদি ব্যস্ত হয়, এসব ব্লগার দিয়ে কি হবে?

২২| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:০২

রাজীব নুর বলেছেন: যে সমস্ত শিক্ষিত জনগোষ্ঠি জ্বীন টিন বিশ্বাস করে তাদের শিক্ষায় গলদ আছে।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:১০

চাঁদগাজী বলেছেন:



ব্লগে সেটার পরীক্ষা হচ্ছে, কতজন বাংগালী আসলে পড়ালেখা করছেন, কতজন পড়ালেখা করেও কিছু শিখেননি।

২৩| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:১৪

সপ্তম৮৪ বলেছেন: ওদিকে হিরো আলম এবং আনানটা জলিল এর বিবাদে ঢালিউড পাড়া বেশ গরম।
আনানটা জলিল বলেন সেফুডা হিরো আলমের পক্ষ নিয়ে কাজটা ভালো করেননি

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:২৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


সেইদিকটাতে আমি কখনো প্রবেশ করতে পারিনি।

২৪| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:৩৪

হাসান রাজু বলেছেন: আপনি কি এলিয়েনে বিশ্বাসী?

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:১৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



না, এলয়েনে বিশ্বাসী নই। সৌর জগতের বাহিরে যদি কোন জ্ঞানী জীবন থাকে, তারা কোনভাবে পৃথিবী অবধি আসার মতো যান বানাতে পারবে না। মানুষও অন্য কোন সৌর জগতে যেতে পারবে না।

২৫| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:১৩

সুপারডুপার বলেছেন:



কিছু ব্লগার কোরানে আছে বলে জোর করে বিশ্বাস আনতে চাচ্ছেন বা অন্যকে বিশ্বাস করাতে চাচ্ছেন । তাদের জন্য আমার বলি:

জ্বিন দেখার জন্য মোল্লারা কিছু শর্ত বেঁধে দেয়। একজন মোল্লা আমাকে বললো গভীর রাতে ঘরে একলা থেকে অজু করে সূরা জ্বিন পড়ে হাতে ফু দিলে, হাতের মাঝে জ্বিন দেখা যাবে। তো আমি তার কথা মত আমলটি করলাম, কিন্তু কোনো জ্বিনের দেখা পেলাম না। মোল্লা আমাকে বললো সে নাকি এই ভাবে জ্বিন দেখতে পায়। দেখেন, মোল্লারা কিভাবে মিথ্যা কথা বলে। আরো আশ্চর্যের বিষয়, আমাদের পরিচিত বহু মানুষই এই ভাবে মিথ্যা বলে যে তারা জ্বিন দেখেছে, জ্বিনের অনুভূতি পেয়েছে। আর হিটলারের বন্ধু গোবেল বলেছে, একটা মিথ্যা কথা বার বার বলতে থাকলে লোকজন একটা সময় তা বিশ্বাস করে।

এছাড়াও জ্বিন বিশ্বাস করানোর জন্য আছে ফর্মুলা 'ভয়'। তবে কিছুজন মানসিক ব্যাধি থেকে বলতে পারে জ্বিন দেখেছে, অনুভূতি পেয়েছে, তাদেরকে কিছু বলার নাই; তাদের দরকার সুচিকিৎসা।

২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:




যে বলেছে যে, সে জ্বীন দেখেছে, সে মিথ্যুক।

২৬| ২০ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:১৫

সুপারডুপার বলেছেন: টাইপো : 'তাদের জন্য বলি: '

২৭| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৬

লরুজন বলেছেন: ব্লগে সবচেয়ে বড় জ্বীন বিশেষজ্ঞটা কে বা কারা কারা জ্বীন বিশেষজ্ঞ?
তাহারা সকলে মিলে একখানা “জ্বীন সমবায় সমিতি ২০০০ লিঃ” গঠন করিয়া অমর ২১শে বই মেলাতে জ্বীন ডিকশনারী প্রকাশ করিতে পারিতেন।

২০ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



ঢাকা ইউনিভার্সিটির ১৪০০ শিক্ষকের মাঝে ১২০০ জন পাওয়া যাবে, যারা জ্বীন-পরী, ভুতে বিশ্বাস করে।

২৮| ২০ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষকই কিন্তু আধুনিক নন ।
তারা অনেক সময় মাদ্রাসার হুজুরদের চেয়েও কম জ্ঞানের অধিকারী হন।

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৮:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:



ওরা চিটাগং ও রাজশাহী ইউনিভার্সিটিকে মাদ্রাসা বানায়ে ফেলেছে।

২৯| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৮:১৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ব্লগার রাজীব নূর খান এর ঘরে প্রায় প্রতিদিনই জিন আর ভূত পেত্নীরা আসে। তিনি শব্দ শুনতে পান। চেয়ারে বসে থাকতে দেখেন ইত্যাদি।

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি ফানী কাহিনী বলতে ভালোবাসেন, উনি জানেন যে, এই ধরণের হালকা কিছু ব্লগারেরা পছন্দ করেন।

৩০| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৮:৫৪

লরুজন বলেছেন: হাঁচি কাঁশি বমিটাও নিজেকে প্রমাণ করে,
করোনা নিজেকে প্রমাণ করেছে।
কুকুর বিরাল ইঁদুর নিজেকে প্রমাণ করে
জ্বীন নিজেকে প্রমাণ করার কোন উদ্যেগ নিবে না?

জ্বীন প্রমাণ করার জন্য মানুষ কেন, জ্বীনের অস্তিত্ব নাই?
জ্বীন জাতি নিজে নিজের প্রমাণ দিতে পারে না ছাগলের তিন নাম্বার বাইচ্চা

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


জ্বীন আরব্য উপন্যাসের বই থেকে সোজা বাংগালীদের মাথায় ঢুকে গেছে।

৩১| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:০৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অবশ্যই জ্বীন বলে কিছু আছে, নইলে লাইসেন্স নাই সেই হাসপাতালের সাথে সরকারের চুক্তি করাইল কারা?
২০ কোটি টাকার নাস্তার বিল বানাইল কারা? :P
এক পীর বাবাজী তার বউরে জবাই কইরা গ্রেফতার হওনের পর কইল,দুস্ট জ্বীনে তারে দিয়া এই কাম করাইছে। পীরের কথা অবিশ্বাস করবেন ক্যামনে ? =p~

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


কত হাজার মেয়েকে স্বামীরা মেরে জ্বীনের নামে দোষ দিয়ে বেঁচে গেছে, ইহা ভয়ংকর ব্যাপার।

সরকারে যা ঘটছে, সবকিছু গিয়ে শেখ হাসিনার উপর পড়ছে; ভয়ংকর বদনামের ভাগী হচ্ছেন। বাংলার মানুষকে এরা পাকীদের চেয়ে অধম অবস্হানে নিয়ে গেছে।

৩২| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:১২

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

বর্তমান সমযে এক মা ত্র বাংলাদেশেই মনে হয় জ্বীন পরী আর ভুত পেত্নীর আনা গোনা আছে।
সারা পৃথিবীতে খুজতে গেলে আরব দেশ আর আফ্রিকাতে ও পেতে পারেন।

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


বাংলাদেশ ও আফ্রিকায় আছে এখন; বাংলাদেশে থেকে যাবে; ব্লগে জ্বীন মীন কমলে ভালো হতো।

৩৩| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১০:০৯

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: বিলিয়ন খরচ করে আমেরিকানরা এলিয়েন খুজে বেড়ায় চা খাওয়ার জন্য?

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১০:৪৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনার মতো লোকজন আমেরিকায়ও আছে।

৩৪| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১০:৪৯

লরুজন বলেছেন: @শূন্য সারমর্ম হলিউডে এ্যলিয়েন নিয়া সিনেমা বানায় আপনে কি ভাবছেন হলিউড সিনেমা করে এ্যলিয়েন খুজে? B-))
আপনে এখন ভাত খাইবেন নাকি চা?
চায়ে লিকার বাড়ায়া দিয়েন আর আপনের ডায়াবেটিস থাকলে কুদ্দইচ্চা দায়ী B-))
আবার আসবেন

৩৫| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:০৩

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: @লরুজন লজিক্যাল ফ্যালাসির লিস্টে আপনি ডুকে গেলেন। ধন্যবাদ

৩৬| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:০৬

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: এলিয়েনের জন্য ভ্যাক্সিন কখনো বানানো লাগলে আপনি জয়েন করবেন আশাকরী।

২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



ব্লগে অপ্রয়োজনীয় বকবক করে মানুষের সময় নষ্ট করছেন।

৩৭| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:০৬

ডার্ক ম্যান বলেছেন: ছোটবেলা থেকে জীন আমার সঙ্গী । তাবিজ কবজ দিয়েও ছাড়াইতে পারলাম না

২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:



যাহা নেই, উহাকে ছাড়ানো অসম্ভব।

৩৮| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:১০

লরুজন বলেছেন: @শূন্য সারমর্ম রাগ করেন কেন?
এ্যলিয়েন আছে আমি বিশ্বাস করলাম।
আপনার কাছেও বাক্স বাক্স এ্যালিয়েন স্টক লট আছে। B-))
আবার আসিবেন

৩৯| ২০ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:১৯

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: @লরুজন হেরে জেতে চাই,সেজন্য।
বিশ্বাস করলে আমার সাথে এলিয়েন ব্যবসায় পার্টনার হতে পারেন।আঙুল ফুলে শতবর্ষজীবী বটগাছ হতে পারবেন। ধন্যবাদ।

৪০| ২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৫৬

এইচ তালুকদার বলেছেন: আমি ছোটবেলায় এক্সফাইল দেখতাম বড় হয়ে এজেন্ট মোল্ডার হওয়ার খায়েস ছিলো।যাই হোক বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জীন ভুত এলিয়েন নিয়ে ফ্যান্টাসি কমতে কমতে এখন প্রায় নাই বললেই চলে।

২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



সেটাই সঠিক; রূপকথার জন্য একটা সময় থাকে।

৪১| ২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৩:১২

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: কিন্তু সায়েনটিষ্টদের কোন মাথা ব্যথা নেই, যত মাথা ব্যথা মোল্লাদের ও ব্লগারদের।
...................................................................................................................
আমি আজ থেকে প্রায় বিশ বৎসর পূর্বে কোটালীপাড়া থেকে একটি কাঁচা রাস্তা ধরে
হাটঁছিলাম, উদ্দেশ্য এই রাস্তাটি কোটালীপাড়া- রাজৈর সংযোগ সড়ক হবে,
তার সম্ভাব্যতা পর্যালোচনা করা । প্রায় ৪ কি. মি . হাটার পর "নারিকেল বাড়ী" পেলাম
একটু থমকে দাড়াঁলাম অদ্ভুদ সুন্দর নাম, এরপর আরেকটু সামনে যাবার পর
একটি নারিকেল গাছে ঝুলানো লেখা " ভুতের বাড়ী "
এলাকার এক কিশোরকে জিজ্ঞেস করলাম এই নাম কেন , এখানে কি ভূত-টুত দেখা
যায় ? সে বল্ল দিনে না হলে ও মাঝে মাঝে রাতে দেখা যায় । তখন প্রায় সন্ধ্যা,
আর অগ্রসর না হয়ে কেন জানি সেখান থেকে ফেরত যাই ।

................................................................................................................
সমবায় সংক্রান্ত ১ম পর্ব লেখা সমাপ্ত হলো কিছুক্ষন পূর্বে, আশাকরি সকালে দেখতে পা্বেন ।

২১ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৪:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


অগ্রিম ধন্যবাদ আপনার পোষ্টের জন্য।
আপনি দেশের কোথায় থাকেন?

৪২| ২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৩:১৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: Jinn

২১ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৪:৪৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



জ্বীন আছে?

৪৩| ২১ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৪:৩৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:



করোনাক্রান্ত হয়ে কিছুটা সুস্থ হওযার মহুর্ত থেকে ডিউটি ডাক্তারগন বলতে ছিলেন আমাকে যে কোন সময় হাসপাতাল হতে রিলিজ দেয়া হতে পারে । পরদিন দুপুরের দিকে আমাকে টেলিফোনে জানানো হয় ২০ মিনিটের মধ্যেই এমবোলেন্সের লোক জন এসে আমাকে বাসায় পৌঁছে দিবে, আমি যেন তৈরী হয়ে থাকি । টেলিফোন রাখতে না রাখতেই একজন স্বাস্থ্যকর্মী কেবিনে ঢুকে টেবিলের উপর এক পৃষ্ঠার একটি প্রিনটেড কাগজ রেখে দিয়ে এটা পাঠের পর কথা মালার সাথে সন্মত হলে যেন তাতে স্বাক্ষর করে রাখি বলে গেলেন । উল্লেখ্য, বাসা থেকে খুবই অল্প সময়ের ব্যবধানে এম্বোলেন্সে করে আমাকে হাসপাতালে আনার সময় চশমাটি নিয়ে আসতে ভুলে যাই ।তাই কাগজটির মধ্যে ছোট অক্ষরের সব লেখা পড়তে পরিনি। তবে বড় অক্ষরে লেখা পাঠে বুঝতে পারি যে করুনামুক্তদেরকে নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্থানীয় ইউনিভার্সিটি হসপিটালের সাথে যৌথভাবে একটি গবেষনা পরিচালনা করছে। বহুমুখী লক্ষ্যে পরিচালিত এই গবেষনায় অংশগ্রহনে যদি সন্মত হই তাহলে যেন এই সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর দান করি । চশমার অভাবে কাগজটিতে থাকা সব কথা ভালভাবে না পড়তে পারলেও বুঝেছিলাম বিষয়টি ভালই, সন্মতি দিলে ক্ষতি নেই।তাই সানন্দচিত্তে তাতে স্বাক্ষর করে দেই । দিন পনের পরেই নির্দিষ্ট দিনে হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে গবেষনা কর্মের জন্য বিভিন্ন প্রকারের নমুনা যথা রক্ত ,মল মুত্র, এবং আরো বিভিন্ন ধরনের মেডিকেল চেকাপ করার জন্য উপস্থিত হয়ে তাদের গবেষন কর্মে সহায়তা করার জন্য একটি পত্র পাই । নির্দিষ্টদিনে হাসপাতালে গিয়ে বুঝতে পারলাম আমি করোনার গবেষনার বস্তুতে পরিনত হয়েছি ।এটা চলতে থাকবে আগামী কয়েক মাস পর্যন্ত । দেখা যাক আমাদেরকে নিয়ে গবেষনা করে করোনা বিশেযজ্ঞগন কি আবিস্কার করেন । তবে সেই সন্মতিপত্রের এক জায়গায় লেখা ছিল তারা গবেষনা লব্দ বিষয়ের কথা আমাদেরকে জানার সুযোগ দিবেন। যদি সে সুযোগ পাই তাহলে বলতে হয়ত পারব করোনা নিয়ে কি হচ্ছে তার সঠিক কিছু অবস্থার কথা । পোষ্টে লাইক ।

শুভেচ্ছা রইল

২১ শে জুলাই, ২০২০ ভোর ৪:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



মনে হচ্ছে, ভালোই হবে; তবে, হাসপাতালে যাওয়া-আসা সবকিছু হুশিয়ারের সাথে করবেন।

৪৪| ২১ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:৫৯

হাসান রাজু বলেছেন: কোন মোল্লায় কোথাও বলেছে জ্বীনের গল্প সেটাই হয়ে গেল ইসলামের দর্শন। ইসলাম শুধু জ্বীনের অস্তিত্বের জানান দিয়েছে। বাকি গল্প মানুষের কল্পনা প্রসূত। এই কল্পনাই মূল রহস্য উম্মুচনে সাহায্য করে। জ্বীন নিয়ে কৌতুহল ভাল কিন্তু সেটা দিয়ে ভণ্ডামি বাণিজ্য পরিত্যাজ্য।

আজ বিজ্ঞানের একটি শাখা বিশ্বাস করে মহাজগতে এলিয়েন আছে তারা আমাদের থেকে বুদ্ধিমান হতে পারে আবার না ও হতে পারে। আমার কাছে এলিয়েন আর জ্বীন এই দুয়ের মাঝে মিল দেখি বেশি।

সৌর জগতের বাহিরে যদি কোন জ্ঞানী জীবন থাকে, তারা কোনভাবে পৃথিবী অবধি আসার মতো যান বানাতে পারবে না। মানুষও অন্য কোন সৌর জগতে যেতে পারবে না।
আপনি কি কোন ভাবে ভেবে নিচ্ছেন যে, আপনার সাথে সাথে এই মহাজগত ধ্বংস হয়ে যাবে? যা আবিস্কারের তা এর মাঝেই আবিস্কার করে ফেলতে হবে।



২১ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:



সৌর জগতের বাহিরে, পৃথিবীর মতো পরিবেশের গ্রহের সংখ্যা অনেক; সেখানে জীবন থাকার অনেক বড় সম্ভাবনা; তবে, তারা আমাদের মত জ্ঞানী কিনা সহজে জানা যাবে না।

পৃথিবীর শরীরে যেসব পদার্থ আছে, এর কাছাকাছি পদার্থ অন্য সব গ্রহে থাকার কথা; আমাদের তৈরি যান, ইহার জ্বালানী, অন্য সৌর মন্ডল অবধি জীবিত সৌরমন্ডলের কোন গ্রহ অবধি জীবিত মানুষকে নিয়ে যেতে সক্ষম হবে না।

৪৫| ২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:০১

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: জ্বীন করোনা ভাইরাস ব্লগারদের এ সম্পর্কিত ধ্যান ধারনা নিয়ে চমৎকার লিখেছেন । আমেরিকায় জ্বীনের আছর নিয়ে আরও বিশদ জানা দরকার । তারা কিন্তু হরর মুভি বানায় হ্যা হলিউডের কথা বলছি ।

২২ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:২৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমেরিকানরা রূপকথা খুবই পছন্দ করে।

৪৬| ২১ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:২৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
নবী করীম সাঃ বোরাক নামক যানে চড়ে সপ্তম আসমানে গিয়ে প্রধান প্রধান নবী ও আল্লাহর সাথে দেখা করে এসেছেন।
বোরাক নিয়ে ব্শেী বেশী আলোচনা ও গবেষণা হওয়া দরকার।

২২ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১২:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


ততকালীন সময়ে মানুষের কল্পনা এই রকমই ছিলো।

৪৭| ২২ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ৯:২১

মেঘনা পাড়ের ছেলে বলেছেন: "জ্বীনেরা আক্রমন করে শুধুই মোল্লা, কিছু মুসুল্লি ও কিছু ব্লগারকে" দারুন বলেছেন

২২ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:১৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



সেটাই ঘটে আসছে, মোল্লাদের জ্বীনে তো পাবেই, সেটাই স্বাভাবিক; কিন্তু কিছু ব্লগারকে জ্বীনে পেয়ে বসেছে, ইহা হতাশ করছে সভ্যতাকে।

৪৮| ২২ শে জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:৫৯

হাসান রাজু বলেছেন: ১০০ বছর আগে কেউ জানতো না অক্সিজেনের লিকুইড ফর্ম এর কথা। আর সেটা ব্যাবহার হবে রকেটে। সম্রাট আকবরের সময় কোন এক চাদগাজী ভাবতেন, তিন দিনে দিল্লি থেকে বাংলায় আসা-যাওয়া এই দুনিয়ায় কখনো সম্ভব না। তার গতির জ্ঞান ঘোড়া পর্যন্ত সীমাবদ্ধ ছিল, যেমন আপনার জ্ঞান অনুযায়ী জ্বালানীর রসদ পৃথিবীতেই থাকতে হবে। যেখানে এই সময়েই অনেক নভোযান গ্রহগুলোর আকর্ষণ শক্তিকে কাজে লাগিয়ে দূর দুরান্তে ছুটে চলছে। ভয়জার১ গত ৪০ বছরে নাকি আমাদের সৌরজগতের শেষ সীমান্ত পার হয়ে গেছে। তা জানেন কি কত লিটার পেট্রোল নিয়ে রওয়ানা হয়েছিল ভয়জার ১ কংবা ২?

২২ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


আকাশ যান একটা সর্বাধিক গতিতে পৌঁচবে, যার থেকে ইহা বাড়ানো যাবে না; সৌর জগত অতিক্রম করে, অন্য কোন সৌর জগতের "বসবাস যোগ্য" গ্রহে জীবন্ত মানুষ নিয়ে পৌছার সম্ভাবনা নেই, মনে হয়।

৪৯| ২২ শে জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:০৯

হাসান রাজু বলেছেন: এই মাত্র কয়দিন আগেও কেউ ভাবেনি আমেরিকায় বাস করা সন্তানের সাথে ভিডিও তে যখন তখন লাইভ হওয়া যাবে। পাশের বাসার মানুষদের হয়ত খুজলে বাড়িতে পাওয়া যাবে না। কিন্তু আমেরিকায় থাকা আত্মীয়কে যখন তখন খুজ পাওয়ার নিশ্চয়তা অনেক বেশি। আজকে আপনার কাছে যা "মনে হয়" কাল তা খুব বেশি মাত্রায় সম্ভব।

২২ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:



আজকে ভিডিও দেখছেন রিয়েল টাইমে, এটার আরো বিবর্তন হবে; কিন্তু ৩০ বছর বয়স্ক একজন এষ্ট্রোনাট আমাদের সৌর জগত ছেড়ে অন্য কোন সৌর জগতের "বসবাস যোগ্য গ্রহে" পৌছতে বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই।

৫০| ২২ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
নবী সাহেবের( সাঃ) সময় ইন্টারনেট facebook-youtube এই সব থাকলে আমাদের আর হুজুরদের ওয়াজ আর হাউকাউ বয়ান শুনতে হতো না‌ ।

ইউটিউবে সরাসরি নবীজির মুখে হাদিস শুনতাম।‌ সেটাই হতো সব চেয়ে ভালো।

প্রযুক্তি একটি অনেক বড় একটি ব্যাপার । সেই আমলে প্রযুক্তির কিছুই ছিল না পৃথিবীতে‌

২২ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



প্রযুক্তি থাকলে নবী থাকতেন না; ইুহুদীদের এক নবি আসার কথা, প্রযুক্তির কারণে উনার আসা হবে না।

৫১| ২৩ শে জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: প্রযুক্তি থাকলে নবী থাকতেন না; ইুহুদীদের এক নবি আসার কথা, প্রযুক্তির কারণে উনার আসা হবে না।

দশে দশ পাবার মত একটি বক্তব্য।

২৪ শে জুলাই, ২০২০ সকাল ১০:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


নতুন নবী এলে অসুবিধা হবে, কোটী কোটী মানুষ উনার থেকে েশী জানার সম্ভাবনা থাকবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.