নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভাষাহীন বাবুই

খেয়া ঘাট

ভাষাহীন বাবুই

খেয়া ঘাট › বিস্তারিত পোস্টঃ

মুসলমান সম্পর্কে একজন সাধারণ আফ্রিকান আমেরিকান মানুষের ধারণা কি আর মুসলমানরা আসলে করে কি

২২ শে মে, ২০২০ রাত ৯:৫৩

কোয়ারেনটাইনের কারণে অনেকদিন গাড়ি পরিষ্কার করা হয়নি। প্রায় দু সপ্তাহ আগে সাহস করে "কার ওয়াশে" গেলাম। অটোমেশিনে গাড়ির বাহির বেশ ভালোই পরিষ্কার হলো। কিন্তু ভিতর পরিষ্কার করতে হলে হাত লাগাতেই হয়।
দ্বিধা লাগলো গাড়ি থেকে নামবো কিনা। আশেপাশে বেশ ফাঁকা দেখে গাড়ী পার্ক করলাম।

ঠিক এমন সময়- একজন আফ্রিকান আমেরিকান লোক দৌড়ে আসলো। সামান্য ভয় পেয়ে গাড়ির দরজাটা দ্রুত বন্ধ করি।
প্রায় ছয় ফুট উচ্চতার লোকটি গাড়ীর জানালার পাশে দাঁড়িয়ে অনুরোধ করলো- গ্লাসটা একটু খোলার জন্য। কথা বলতে চায়।

দেখি, লোকটির পাশে ছোট একটা শিশু এসেও দাঁড়িয়েছে।

বড় মানুষকে দেখে যে সাহস হারিয়েছিলাম। এবার ছোট শিশুকে দেখে সেই সাহস ফিরে পেলাম।

মুখে মাস্ক পরে জানালা খুললাম।
বললো- অনেকদিন কাজ নেই। ছোট শিশুটিকে দেখিয়ে বললো- সে এই ছেলেকে নিয়ে কয়েকদিন থেকে হোটেলে আছে। আজকে যদি চল্লিশ ডলার যোগাড় করতে না পারে তবে হোটেল ছেড়ে দিতে হবে। কোথাও কোনো কাজ নেই। দুপুরের খাবারও কিছু খায়নি।

সে আমার কাছ থেকে ভিক্ষা চায়না। আমি যদি তাকে মানবিক সাহায্য করি । তবে সে আমার গাড়ির ভিতরটুকু ভ্যাকুয়াম করে খুব ভালোভাবে পরিষ্কার করে দিবে।

জানিনা, তার কথাগুলো সত্য কিনা। সত্য মিথ্যা যাচাই করতেও চাইনা। একজন মানুষ নিজ থেকে বলছে- বিপদে পড়েছে। সাহায্য করার জন্য এটুকুই যথেষ্ট । তাছাড়া, রোজা রেখে আমিও বেশ দূর্বল। কেউ যদি কাজ করে কিছু সাহায্য নিতে চায়-তবেতো দুজনেরই লাভ।

আমি বললাম, ঠিক আছে। আপনি পরিষ্কার করেন। তবে, চল্লিশ ডলার আপনাকে দিতে পারবোনা। আমি বিশ ডলারই দিবো।
হ্যাঁ। আরেকটি কথা। আমার কাছে কোনো ক্যাশ নেই। ব্যাংকের এটিএম মেশিনে গিয়ে ডলার তোলে নিয়ে এসে আপনাকে দিতে হবে।

কি যেন চিন্তা করে- উনি গাড়ি পরিষ্কার করা শুরু করলেন। আমি একপাশে গিয়ে দাঁড়ালাম।
এর মাঝে আরেকটি গাড়ি এসে থেমেছে। আমার গাড়ি পরিষ্কার করা বন্ধ করে লোকটি ঐ গাড়ির মালিকের সাথেও কথা বলে আসলো এবং খুব দ্রুত আমার গাড়িটা পরিষ্কার করলো।

প্রায় পাঁচমিনিট দূরে ব্যাংক। ড্রাইভ করে যেতে হবে। গাড়ির সীটে এসে বসলাম।
লোকটি এবার দ্বিধায় ভুগছে। বিশ ডলার অনেক টাকা।
আমি যদি গাড়ি নিয়ে চলে যাই আর ফিরে না আসি। তাঁর বিশ ডলার লস।
আমাকে বারবার বলছে- দেখো তুমি আবার ফিরে আসবেতো?
আমি বললাম - কেনো আসবোনা। আমিতো নিজের গাড়ি নিজেই পরিষ্কার করতে এসেছিলাম। আপনাকেও বলিনি- আমার গাড়ি পরিষ্কার করে দিতে হবে। আপনিই নিজ থেকে এসেছেন। সুতরাং কেন আমি আপনাকে ঠকাবো। সত্যিই আমি ফিরে আসবো।

লোকটি এবার আমার নাম জানতে চাইলো।
নাম বললাম।
এবার লোকটি আমার নামের শেষে মাহমুদ শুনে বললো- ও তুমি মুসলমান?
আমি বললাম- জ্বি আমি মুসলমান।

এবার এই হোমলেস, কর্মহীন সাধারণ লোকটি যে কথা বললো- আমার অন্তরাত্মা কাঁপিয়ে দিলো। আমার চোখে পানি এসে গেলো।

লোকটি বললো- আমার আর কোনো চিন্তা নেই। আপনি যান। আমি জানি-আপনি ফিরে আসবেন।
আমি বললাম, এখন, হুট করে কেন আপনার মনে হলো- আমি ফিরে আসবো?

লোকটি বললো - কারণ-আপনি মুসলমান। মুসলমানরা কোনোদিন কাউকে ঠকায় না।

আমি শিউরে ওঠলাম। অন্তরাত্মা কাঁপিয়ে দেয়ার মতো এই যে এক অজানা, অচেনা মানুষের মুসলমানদের ওপর এমন বিশ্বাস। সেই বিশ্বাসের মর্যাদা আমরা মুসলমান জাতিরা আজ কতটুকু দিতে পেরেছি? সে কি জানে দূর্যোগ যত বাড়ে- এর সাথে পাল্লা দিয়ে দূর্নীতিও আমাদের তত বাড়ে, ঘুষের টাকা পকেটে নিয়ে আমরা ওযু করি , নামাজ পড়ি, হজ্ব করি, খাদ্যে ভেজাল মিশাই, খাদ্য মজুদ করে মুনাফা করি, ঘুষ ছাড়া আমাদের বেশীরভাগ অফিসে কোনো কাজ হয়না, মুসলমান নাম নিয়ে মানুষকে ঠকাতে ঠকাতে আমরা দিন শুরু করি এবং ঠকাতে ঠকাতেই জীবন পার করে কবরে চলে যাই। তারপরও আমাদের ঠকানো শেষ হয়না। ঘুষ না নেয়ার জন্য, মানুষকে না ঠকানোর জন্য দেশের একজন শ্রেষ্ঠ প্রকৌশলীকে খুন করে সুবজ ঘাসের ওপর আমরা ফেলে রাখি।

ভর দুপুরের খা খা রোদে আটলান্টার আকাশ পুড়ছে। আর গাড়িতে বসে আমার অন্তর পুড়ে ছারখার হয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য ১৯ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (১৯) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১০:০৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সত্যিই ভাবনার বিষয়।

২| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১০:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: অই লোক জানে না্ মুসলিমদের মধ্যে অনেক দুষ্টলোকও আছে।
আপনি লোকটাকে সাহয্য করে ভালো করেছেন।
পোষ্ট পরে ভালো লেগেছে।

৩| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১০:৪৬

কল্পদ্রুম বলেছেন: উনি শুধু ভালো মুসলিমদের দেখেছেন।তাই অকপটে বলে ফেললেন মুসলমানরা কাউকে ঠকায় না।আমেরিকায় কত সহজে কাজ করে টাকা পাওয়া যায়।আপনিও তার অসহায়ত্বের সুযোগ নেন নি।এ সময়ে এসেও আমরা নিজ দেশে এ কাজটা করতে পারি না কেন!

৪| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১০:৪৮

মাআইপা বলেছেন: “কারণ-আপনি মুসলমান। মুসলমানরা কোনোদিন কাউকে ঠকায় না।”
- ইস উক্তিটা যে কোথায় আঘাত করলো বোঝাতে পারবো না শুধু চোখ ভিজে গেল।

৫| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১১:০৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: লিঙ্কটা দেখুন, Trump selects Muslim scientist Moncef Mohamed Slaoui to lead COVID-19 vaccine plan. Mr. Slaoui will take no salary for his work on ''Operation Warp Speed.'' এ ব্যাপারে জনগনের উদ্দেশ্যে কিছু বলবেন আশা করি। :)

৬| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১১:১৫

সাহাদাত উদরাজী বলেছেন: এটা চ্রম সত্য কথা। যদিও অনেক মুসল্মান অনেক বাজে কাজ করে তবুও আমি মনে করি তাদের মনে একটা বিরাট ভয় কাজ করে, পরকালে তাকে বিচারের মুখে পড়তে হবে এটা সে ভাল জানে ফলে কিছুটা হলেও লজ্জিত হয়।

৭| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১১:১৬

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সে জানে না আরবের মুসলিম কত ঠকবাজ

৮| ২২ শে মে, ২০২০ রাত ১১:৫৮

নতুন বলেছেন: ভালো মানুষ কাউকে ঠকায় না।

ভালো মানুষ যেই ধম`ই অনুসরন করুক না কেন সে খারাপ কাজ করেনা। মানুষ ঠকায় না।

প্রচুর ভালো মানুষ আমাদের চারিপাশে আছে । তেমনি অনেক ধামিক আছে যারা ভন্ড ধামিক এবং মানুষ ঠকিয়ে বেড়ায়।

৯| ২৩ শে মে, ২০২০ রাত ১:৪৫

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: আমার ক্ষুদ্র অভিজ্ঞতায় আমি দেখেছি সবথেকে সৎ লোক জৈন ধর্মের লোকরা।প্রায় বিশ জন জৈনের সাথে দীর্ঘ দিন ব্যবসা করেছি কোথাও কোন অসততা পাইনি।আমাদের দেশের লোকদের কত রকমের অসততা যে দেখেছি তার হিসাব নেই।
আমরা যারা বিদেশে থাকি,তারা বাইরে এসে সৎ হয়ে যাই।অসৎ হওয়ার জায়গা এখানে সংকোচিত।
আমাদের কথা লেখকই সুন্দর বলেছেন,আমি আর কি বল।আমি বললাম আমার অভিজ্ঞতার কথা।

১০| ২৩ শে মে, ২০২০ রাত ২:৪৭

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: দুবার ঢোক গিলে সততার ব্যাপারটা ভাবতে চাইছে হৃদয়...

১১| ২৩ শে মে, ২০২০ রাত ২:৪৭

শূন্য সারমর্ম বলেছেন: দুবার ঢোক গিলে সততার ব্যাপারটা ভাবতে চাইছে হৃদয়...

১২| ২৩ শে মে, ২০২০ সকাল ১১:২৯

বিবেকহীন জ্ঞানি বলেছেন: "আপনি মুসলমান। মুসলমানরা কোনোদিন কাউকে ঠকায় না।"
আসলেই বৃহৎ বিশ্বাসে গড়ে তোলা এই বাক্য।

১৩| ২৩ শে মে, ২০২০ সকাল ১১:৩৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: খেয়া ঘাট ,



বিচ্ছিন্ন একটি ঘটনা হলেও চোখে পানি আসার মতোই।

কিন্তু দুঃখ এই রকম বিচ্ছিন্ন ঘটনাগুলো কেন অবিচ্ছিন্ন ভাবে সামগ্রিক হয়ে আসেনা!

সহব্লগার নতুন মনে হয় বাস্তব কথাটিই বলেছেন।

১৪| ২৩ শে মে, ২০২০ দুপুর ২:১৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: একজন মুসলিম হিসেবে আপনার লেখা পড়ে গর্বে ফুলে উঠতে ইচ্ছে করলেও ওই ভদ্রলোকের বোধকে আমরা আঁকড়ে থাকতে পারছি কই? তার যায়গায় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অন্যায়কে, অসাম্যকে মেনে নিতে নিতে একসময় জালিম হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছি। বাস্তবে মুসলিম মাত্রই সততার মাপকাঠি বলার সময় এখন আর নেই। ক্রমেই সে যায়গা থেকে আমরা সরে এসেছি বহুদুরে। সমাজ-সংস্কৃতি এখন ধর্মকে ছাঁপিয়ে যাচ্ছে।

অফিসে যোগদানের প্রথমদিকে ল্যান্ডফোনটি কখনওই ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ব্যবহার করিনি, তারপর একসময় মনে হলো- আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন থেকে যেহেতু অফিসের প্রয়োজনে কথা বলি, তাহলে ল্যান্ডফোন কেন ব্যবহার করবো না? ব্যাস, ব্যবহারের কঠিন যুক্তি খাঁড়া হয়ে গেলো। এখনতো ল্যান্ডফোন ব্যবহারের আগে একবারও বিবেককে নাড়া দেয়না।

যেহেতু জনসংযোগ দেখি, বিভিন্ন উৎসব-পার্বণ উপলক্ষে বিভিন্ন যায়গা থেকে উপহার আসে। প্রথমদিকে এগুলো নিতে অস্বীকৃতি জানাতাম সরাসরি, কারণ এগুলোতো সত্যিকারার্থে আমাকে নয়, আমার চেয়ারকে দেয়া। তারপর একসময় মনে হলো- আচ্ছা, জোরাজুরি যখন করছে, তখন নিই। নিয়ে সাবস্টাফদের দিয়ে দিতাম। তারপর একসময় মনে হলো- যদি ডিপার্টমেন্টের সবার জন্য যদি আনে, তাহলে নেওয়া যায়......এখন অবস্থাটা এমন দাঁড়িয়েছে যে উৎসবের সময় আসলে অপেক্ষা করি কখন কে কি নিয়ে আসে...এখন আর এগুলো খারাপ মনে হয় না। অন্যায় ভাবা দুরেই থাক।

এ রকম সবারই ব্যক্তিগত অন্যায়গুলোকে ন্যায় হিসেবে দেখার বিভিন্ন যুক্তি তৈরী হয়ে যায় এবং বড় অন্যায়ের ক্ষেত্র তৈরী হয়।

১৫| ২৩ শে মে, ২০২০ বিকাল ৪:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:


এটা ছিলো ব্যতিক্রম, সঠিক?
বৃহত্তর আমেরিকান জনসংখ্যা মুসলমানদের ভয় পায়।

১৬| ২৩ শে মে, ২০২০ বিকাল ৪:৫১

মেহবুবা বলেছেন: আল্লাহ্ যেন ঐ ব্যক্তির ধারনাকে মুসলিম সমাজে প্রতিষ্ঠিত হবার সুযোগ দেয় ।

১৭| ২৩ শে মে, ২০২০ রাত ৮:৫২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: সত্যি হৃদয় কাঁপিয়ে দেয়ার মতো কথা।

হায়! সকল মুসলমান যদি এ ভরসার মূল্য অনুভব করতো।
যে নবীজি আল আমিন ছিলেন, আমি তার অনুসারী
আমি কখনো মিথ্যা বলবো না, কাউকে ঠকাবো না, পরের উপকারে সর্বদা নিয়োজিত থাকবো
এইতো সত্যি চেতনা।
কেন সেখান থেকে সরে যায়? মুসরিম স্কলাররা কি তা নিয়ে চিন্তা করেন। ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেন?
করা উচিত। সেটাই প্রকৃত ধর্মের কাজ।

১৮| ২৩ শে মে, ২০২০ রাত ৯:০৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


মুসলমানেরা মদীনায় রিফিউজী হিসেবে গিয়ে, হত্যার মধ্য দিয়ে মদীনা দখল করেছিলো; ইসলামের গোড়ায় গলদ আছে।

১৯| ১৩ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৯:১৮

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: হায় আফসোস আমরা আমাদের মর্যাদা ধরে রাখতে পারছি না। ++++++++

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.